20201002104319.jpg
ইভিএমের ফল ‘ভুয়া’: বিক্ষোভের ডাক বিএনপির

ঢাকা-৫ ও নওগাঁ-৬ আসনের উপনির্বাচনে কারচুপির অভিযোগে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের সংবাদ সম্মেলন

ইভিএমের ফল ‘ভুয়া’: বিক্ষোভের ডাক বিএনপির

ঢাকা-৫ ও নওগাঁ-৬ আসনে উপনির্বাচনে কারচুপির অভিযোগে সোমবার সব মহানগর ও জেলা শহরে এবং মঙ্গলবার উপজেলা শহরে বিক্ষোভ ও মানববন্ধনের ডাক বিএনপির

ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন-ইভিএম দিয়ে ঢাকা-৫ ও নওগাঁ-৬ আসনে নেয়া ভোটের ফলাফলকে ‘ভুয়া’ বলেছে বিএনপি। বানোয়াট ফল তৈরি করে বিএনপির প্রার্থীকে হারানো হয়েছে অভিযোগ করে দুই দিনের বিক্ষোভের ডাক দিয়েছে দলটি।

ভোটের পর দিন রোববার দলের গুলশান কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে এই কর্মসূচি ঘোষণা করেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

শনিবার ঢাকা ও নওগাঁর দুটি আসনে উপনির্বাচনে ভোট হয়। বিএনপির প্রার্থীরা ন্যূনতম প্রতিদ্বন্দ্বিতা গড়তে ব্যর্থ হন।

ঢাকায় আওয়ামী লীগের প্রার্থী প্রায় ৯৫ শতাংশ এবং নওগাঁয় ৯৪ শতাংশ ভোট পেয়েছেন।

ঢাকায় আওয়ামী লীগের কাজী মনিরুল ইসলাম মনু জিতেছেন ৪৫ হাজার ৬৪২ ভোট পেয়ে। বিএনপির সালাহ্উদ্দিন আহমেদ পেয়েছেন দুই হাজার ৯২৬ ভোট৷

 

নওগাঁয় আনোয়ার হোসেন হেলাল পেয়েছেন ১ লাখ ৫ হাজার ৫২১ ভোট। বিএনপির শেখ রেজাউল ইসলাম পেয়েছেন ৪ হাজার ৬০৫ ভোট।

 

ভোট শেষে ঢাকা-৫ আসনে বিএনপির সালাহউদ্দিন আহমেদ ও ভোট শেষের আধা ঘণ্টা আসনে নওগাঁ-৬ আসনে বিএনপির শেখ রেজাউল ইসলাম ভোট বর্জনের ঘোষণা দেন। তাদের অভিযোগ এজেন্টদের বের করে দিয়ে কেন্দ্র দখল করেছে ক্ষমতাসীন দল। নওগাঁয় নির্বাচনী আসনে রোববার হরতালের ডাকও দিয়েছে বিএনপি।

ঢাকা-৫ আসনে ভোটার উপস্থিতি কম
শনিবার দুটি নির্বাচনী এলাকাতেই ভোটারের উপস্থিতি ছিল কম। নির্বাচনী কর্মকর্তারা পার করেছেন অলস সময়। ছবি: নিউজবাংলা

 

ঢাকায় ভোট পড়েছে ১০.৪৩ শতাংশ আর নওগাঁয় ৩৬.৪ শতাংশ।

ভোটে কারচুপির অভিযোগ করে মির্জা ফখরুল বলেন,‘ঢাকা-৫ আসনে কেন্দ্র দখল করে ধানের শীষের এজেন্টদের মারধর করে বের করে জাল ভোট দিয়ে ভোট ডাকাতি করেছে। অন্যদিকে নির্বাচন কমিশন ইভিএম দিয়ে ভুয়া ফলাফল তৈরি করে আওয়ামী লীগের প্রার্থীকে বিজয়ী ঘোষণা করেছে।'

'একইভাবে নওগাঁ -৬ উপ নির্বাচনে বিএনপি প্রার্থীর এজেন্টদের বের করে দেয়। নির্বাচন কর্মকর্তাদের সহায়তায় কাল্পনিক ফলাফল তৈরি করে।'

নির্বাচন কমিশন ভোটে আওয়ামী লীগের পক্ষে কাজ করেছে বলেও অভিযোগ বিএনপি নেতার। ফখরুল বলেন, ‘এমনকি রিটার্নিং অফিসার ধানের শীষের প্রার্থীদের অভিযোগ পর্যন্ত গ্রহণ করেনি। উল্টো প্রধান নির্বাচন কর্মকর্তা বলেন যে, ভোট সুষ্ঠু হয়েছে।

ফখরুল বলেন, 'বাংলাদেশের দূর্ভাগ্য, যে জনগণ একটি গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র ব্যবস্থার জন্য ৭১ সালে স্বাধীনতার যুদ্ধ করেছিলেন সেই জনগণ আজ তাদের ভোটাধিকার থেকে বঞ্চিত। আমরা নির্বাচনের ফলাফল প্রত্যাখ্যান করেছি এবং সেই নির্বাচন বাতিল করে পুনরায় নির্বাচনের দাবি জানাচ্ছি৷'

নির্বাচনের ফলাফল বাতিল করে নতুন করে ভোটের দাবিতে বিএনপি সোমবার দেশের সব মহানগর ও জেলা সদরে এবং পরদিন থানা পর্যায়ে বিক্ষোভ সমাবেশ ও মানববন্ধন করবে বলেও জানান ফখরুল।

‘মধ্যবর্তী নির্বাচন আমাদের দাবি নয়’

বিএনপি মধ্যবর্তী নির্বাচনের দাবি তুলবে বলে একটি গণমাধ্যমে আসা খবর নিয়েও কথা বলেন ফখরুল। বলেন, ‘মধ্যবর্তী-টড্ডবর্তী নির্বাচনের কথা আমরা তো বলিনি ভাই। ব্যক্তিগতভাবে কেউ কিছু বললে, যারা সিভিল সোসাইটিতে আছেন তাদের মধ্যে কেউ বলতে পারেন-সেটা তাদের মতামত।’

‘আমরা তো ২০১৮ সালে যে জাতীয় নির্বাচন হয়েছে সেটাই মানছি না। ওইটাকে আমরা অবৈধ বলে বাতিল করার কথা বলছি’-বলেন বিএনপি মহাসচিব।

শেয়ার করুন

মন্তব্য