20201002104319.jpg
ঢাকা-৫: ১০ শতাংশের ভোটে নৌকার বড় জয়

ঢাকা-৫ আসনে বিজয়ী আওয়ামী লীগের প্রার্থী কাজী মনিরুল ইসলাম মনু

ঢাকা-৫: ১০ শতাংশের ভোটে নৌকার বড় জয়

ভোট প্রদানের হার ১০.৪৩ শতাংশ। এর প্রায় ৯৫ শতাংশই পেয়েছে আওয়ামী লীগ। নৌকা পেয়েছে ৪৫ হাজার ৬৪২ ভোট। ধানের শীষ দুই হাজার ৯২৬ ভোট

ঢাকা-৫ আসনের উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগের কাজী মনিরুল ইসলাম মনু জিতেছেন বড় ব্যবধানে। যত ভোট পড়েছে তার প্রায় ৯৫ শতাংশই পেয়েছে ক্ষমতাসীন দল।

আসনটিতে ভোট পড়ার হার খুবই কম ১০.৪৩ শতাংশ। ৪ লাখ ৭১ হাজার ১২৯ জন ভোটারের মধ্যে ভোট দিয়েছেন ৪৯ হাজার ১৪১ জন। 

নৌকা প্রতীকে মনু পেয়েছেন ৪৫ হাজার ৬৪২ ভোট। তার প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী ধানের শীষের সালাহ্উদ্দিন আহমেদ পেয়েছেন দুই হাজার ৯২৬ ভোট৷

শনিবার রাতে রাজধানীর দনিয়া বিশ্ববিদ্যালয় কলেজে নির্বাচন কমিশনের পক্ষে বেসরকারিভাবে ফলাফল ঘোষণা করা হয়৷

ইভিএমএ ভোট
ঢাকা-৫ আসনে ইভিএমে ভোট দিচ্ছেন একজন ভোটার

 

নির্বাচনে মোট প্রার্থী ছিলেন ছয় জন। বাকি চার প্রার্থীর মধ্যে জাতীয় পার্টির মীর আব্দুস সবুর (লাঙ্গল) পেয়েছেন ৪১৩ ভোট। ন্যাশনাল পিপলস পার্টির আরিফুর রহমান সুমন মাস্টার (আম) ১১১ ভোট ও বাংলাদেশ কংগ্রেসের আনছার রহমান শিকদার (ডাব) পেয়েছেন ৪৯ ভোট পেয়েছেন।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এই আসন থেকে নির্বাচিত হাবিবুর রহমান মোল্লা গত ৬ মে মারা যাওয়ায় শনিবার ভোট হয় আসনটিতে।

তবে ভোট নিয়ে বড় দুই দলে যত উৎসাহ ছিল, তার ছিটেফোটাও ছিল না ভোটারদের মধ্যে। ১৮৭টি কেন্দ্রের ৮৬৪ বুথ দিনভর দেখা গেছে ফাঁকাই।

আরও পড়ুন: শেষ বেলাতেও ভোটারের দেখা কম

 

ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন-ইভিএমে নেয়া ভোটে সারাদিনে কোনো গোলযোগের খবর পাওয়া যায়নি। তবে বিএনপির পক্ষ থেকে এজেন্ট বের করে দেয়া, ভোটারদের মধ্যে ত্রাস সৃষ্টির অভিযোগ আনা হয়।

বিএনপির সালাহউদ্দিন আহমেদ
ভোট শেষে বর্জনের ঘোষণা দিয়েছেন বিএনপির প্রার্থী সালাহউদ্দিন আহমেদ

 

ভোট শেষে সন্ধ্যায় রাতে নিজ বাসভবনে সংবাদ সম্মেলন করে ভোটের ফলাফল প্রত্যাখ্যান করে নতুন করে নির্বাচনের দাবি করেন সালাহউদ্দিন আহমেদ। তিনি বলেন, ‘প্রচারণার শুরু থেকেই আওয়ামী সন্ত্রাসীরা আমার কাজে বাঁধা দিয়েছে। আমাদের নেতাকর্মীদের নির্যাতন করেছে। আমাদের সিনিয়র নেতাদের আক্রমণ করেছে ‘

‘সব কিছু উপেক্ষা করে শেষ পর্যন্ত কী হয়, তা দেখার জন্য আমি নির্বাচনে ছিলাম। কিন্তু দেখলাম, একটি ভোটারবিহীন নির্বাচন হয়েছে। জনগণকে ভোট দিতে আসতে দেয়া হয়নি। আমি এ নির্বাচন প্রত্যাখ্যান করছি এবং পুনঃনির্বাচনের দাবি জানাচ্ছি।’

বাইরে ভিড়, কেন্দ্র ফাঁকা
ঢাকা-৫ আসনে কেন্দ্রের বাইরে ভিড় দেখা গেলেও ভেতরে ভোটার উপস্থিতি ছিল কম

 

তবে আওয়ামী লীগের প্রার্থী কাজী মনিরুল ইসলাম মনু বলেছেন, তিনি বলেন, ‘অত্যন্ত শান্তিপূর্ণ পরিবেশে নির্বাচন হয়েছে। বিএনপির পোলিং এজেন্ট দেয়ার মতো লোকই নেই। তারা কেন্দ্রে না এসেই বের করে দেয়ার মিথ্যে অভিযোগ করেছে।’

আরও পড়ুন: হৈ চৈ নেই, ভোটারও কম

 

রিটার্নিং কর্মকর্তা জিএম সাহাতাব উদ্দিন বলেন, ‘শান্তিপূর্ণ পরিবেশে নির্বাচন হয়েছে।’

প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নুরুল হুদাও বলেছেন ভোট সুষ্ঠু হয়েছে। তিনি বলেন, ‘নির্বাচনে কোথাও কোনো অসুবিধার সৃষ্টি হয়নি। আমাদের কাছে কোনো অভিযোগও নেই।’

ভোটারদের আগ্রহ ও উপস্থিতি প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘জাতীয় নির্বাচনে সারা দেশে ভোট হয়। এই খণ্ড নির্বাচনে ভোটারদের আগ্রহ কম থাকে। নির্বাচনে সংসদ সদস্য হওয়ার জন্য সরকার পরিবর্তনের সুযোগ নেই। দুই-আড়াই বছরের জন্য নির্বাচিত হবেন সেই জন্য হয়তো প্রার্থী বা ভোটারদের মধ্য তেমন আগ্রহ নেই।’

শেয়ার করুন

মন্তব্য