20201002104319.jpg
নওগাঁ-৬: ভোটের ৯৪ শতাংশ পেল নৌকা

নওগাঁ-৬: ভোটের ৯৪ শতাংশ পেল নৌকা

আওয়ামী লীগের আনোয়ার হোসেন হেলাল পেয়েছেন ১ লাখ ৫ হাজার ৫২১ ভোট। বিএনপির শেখ রেজাউল ইসলাম পেয়েছেন ৪ হাজার ৬০৫ ভোট।

নওগাঁ-৬ আসনের উপনির্বাচনেও বড় ব্যবধানে জয় পেয়েছে আওয়ামী লীগ। প্রদত্ত ভোটের ৯৪ শতাংশেরও বেশি পেয়েছে ক্ষমতাসীন দল। যদিও কারচুপির অভিযোগে বিএনপি ভোট প্রত্যাখ্যান করে এলাকায় হরতালের ডাক দিয়েছে।

একাদশ সংসদ নির্বাচনে জয়ী ইসরাফিল আলমের মৃত্যুতে শূন্য হওয়া আসনটিতে নৌকা প্রতীকে ক্ষমতাসীন দলের আনোয়ার হোসেন হেলাল পেয়েছেন ১ লাখ ৫ হাজার ৫২১ ভোট।

প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির শেখ রেজাউল ইসলাম পেয়েছেন ৪ হাজার ৬০৫ ভোট।

আরও পড়ুন: নওগাঁ-৬: বিএনপি প্রার্থীর ভোট বর্জন 

 

এছাড়া ন্যাশনাল পিপলস পার্টির প্রার্থী ইন্তেখাব আলম রুবেল আম প্রতীকে পেয়েছেন এক হাজার ৮১৬ ভোট।

শনিবার রাত সাড়ে ৯টায় নওগাঁ জেলা নির্বাচন ও রিটার্নিং কর্মকর্তা মাহমুদ হাসান নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণা করেন।

মাহমুদ হাসান জানান, দুই উপজেলা নিয়ে গঠিত নওগাঁ-৬ আসনের ভোটার ছিলেন ৩ লাখ ৬ হাজার ৭২৫ জন। এদের মধ্যে ভোট দিয়েছেন এক লাখ ১১ হাজার ৯৪২ জন।

নির্বাচন প্রত্যাহার করে আগামীকাল নওগাঁ-৬ আসনে হরতার ডেকেছে বিএনপি।
নির্বাচন প্রত্যাহার করে আগামীকাল নওগাঁ-৬ আসনে হরতাল ডেকেছে বিএনপি।

ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন-ইভিএমে নেয়া ভোটে দিনভর তেমন কোনো গোলযোগের খবর পাওয়া যায়নি। ১৬ ইউনিয়নে ১০৪টি ভোট কেন্দ্রের প্রতিটিতেই ভোট হয়েছে মোটামুটি শান্তিপূর্ণ পরিবেশে। ভোট পড়েছে ৩৬ দশমিক ৪ শতাংশ।

তবে বিএনপির প্রার্থী রেজাউল ইসলাম কেন্দ্র থেকে এজেন্ট বের করে দেয়া, বিভিন্ন কেন্দ্রে হামলা এবং ভোটাররা ফিঙ্গারপ্রিন্ট দেয়ার পর আওয়ামী লীগের কর্মীরা ভোট দিয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন।

ভোট শেষ হওয়ার আধা ঘণ্টা আগে বেলা চারটার দিকে সংবাদ সম্মেলন করে নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা দেন রেজাউল। রোববার তার দলের পক্ষে থেকে নির্বাচনী এলাকায় হরতালের ডাকও দেয়া হয়েছে।

রেজাউল বলেন, ‌‌‘সকালেই আমার এজেন্ট বের করে দেয়া হয়েছে। ভোটের পরিবেশ ছিল না। এ নিয়ে নির্বাচন কমিশনে বারবার জানানো হয়েছে। কিন্তু কোনো ব্যবস্থা নেয়া হয়নি।’

আরও পড়ুন: নির্বাচন সুষ্ঠু হয়েছে, ট্রেন্ড ভালো: সিইসি

 

তবে আওয়ামী লীগের বিজয়ী প্রার্থী হোসেন হেলাল বিএনপির প্রার্থীর অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, ‘নির্বাচন অবাধ সুষ্ঠু নিরপেক্ষ হয়েছে। কোনো কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। তাদের (বিএনপি) জনপ্রিয়তা নেই বলে হেরে যাবে জেনে ৩০ মিনিট আগে নির্বাচন বর্জন করেছে।’

রিটানিং কর্মকর্তা মাহমুদ হাসান বলেন, ‘আমরা তেমন কোনো অভিযোগ পাইনি। তিনি কেন ৩০ মিনিট আগে নির্বাচন বর্জন করলেন, সেটা আমাদের বোধগম্য নয়’।

গত ২৭ জুলাই নওগাঁ-৬ আসনের সংসদ সদস্য ইসরাফিল আলম করোনায় আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থান মারা যান। এরপর আসনটি শূন্য ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন।

শেয়ার করুন

মন্তব্য