× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট বাংলা কনভার্টার নামাজের সময়সূচি আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

জাতীয়
ডাক্তারকে বিয়ে করা সেই নাপিত জেলে
google_news print-icon

ডাক্তারকে বিয়ে করা সেই নাপিত জেলে

ডাক্তারকে-বিয়ে-করা-সেই-নাপিত-জেলে
গত ২৩ ডিসেম্বর রংপুর সিআইডি কার্যালয়ে নাপিত-ডাক্তার দম্পতিকে নিয়ে সংবাদ সম্মেলন করা হয়। পরে তাদের আদালতে তোলা হয়। ছবি: সংগৃহীত
এই দম্পতিকে ২৩ ডিসেম্বর রংপুর মহানগর হাকিম দেলোয়ার হোসেনের আদালতে তোলা হয়। বিচারক চিকিৎসককে নিজ জিম্মায় ছেড়ে দিলেও আটকে দেন তার স্বামীকে। ওই চিকিৎসক আদালতকে জানান, তিনি অপহৃত হননি, তারা বিয়ে করেছেন। আদালতের সাধারণ নিবন্ধন কর্মকর্তা আতিউর রহমান এ বিষয়ে বলেন, এটি আদালতের এখতিয়ার।

চিকিৎসককে বিয়ে করে অপহরণ মামলার আসামি হওয়া নাপিত এক সপ্তাহের বেশি সময় ধরে কারাগারে বন্দি।

যদিও তদন্ত সংস্থা সিআইডি সংবাদ সম্মেলন করে জানিয়েছিল, অপহরণের ঘটনা ঘটেনি, দুজন ভালোবেসে বিয়ে করেছেন, তার পরেও বিচারক তাকে কারাগরে পাঠিয়েছেন।

সম্প্রতি এই দম্পতিকে উদ্ধার করে গণমাধ্যমের সামনে আনার ঘটনায় তীব্র সমালোচনার মধ্যেই এই আদেশ এসেছে রংপুরের একটি আদালত থেকে। ওই চিকিৎসক প্রশ্ন তুলেছেন, কেন তাকে স্বামীছাড়া থাকতে হবে। তিনি নিজেও আদালতে গিয়ে বলেছেন, তিনি অপহৃত হননি।

একটি অনলাইনভিত্তিক গণমাধ্যমকে ওই নারী বলেন, ‘আমি জানি না কোর্ট কেন তাকে আটক করে দিল। আমি তো কোর্টে সাক্ষ্য দিয়েছি, সব বলেছি; তারপরও ওকে কেন আটক করল, আমি জানি না।’

গত ২৩ ডিসেম্বর রংপুর সিআইডি কার্যালয়ে পুলিশ ওই দম্পতি ও তাদের সন্তানকে সাংবাদিকদের সামনে উপস্থাপন করে। পুলিশের বক্তব্য ছিল, নাপিত প্রেমিককে নিয়ে পালিয়ে বিয়ে করার ২১ মাস পর সন্তানসহ ওই গাইনি চিকিৎসককে উদ্ধার করেছেন তারা।

সংবাদ সম্মেলনে নারী চিকিৎসক স্পষ্টতই বলেন, তিনি নিজ ইচ্ছায় বিয়ে করে সুখী আছেন। তাকে কেউ অপহরণ করেনি।

এরপর দুই জনকে আদালতে তোলে পুলিশ। বিচারক নারী চিকিৎসককে জামিন দিলেও আটকে দেন তার স্বামীকে।

ওই চিকিৎসকের এটি দ্বিতীয় বিয়ে। আগের স্বামীর সঙ্গে ছাড়াছাড়ি হওয়ার পর সম্পর্ক তৈরি হয় আরেক জনের সঙ্গে। পরিবারের অমতে বিয়ে করে চলে আসেন ঢাকায়। রোগী দেখে চালান সংসার। একটি সন্তানও হয়েছে। আগের সংসারের সন্তানকেও দেখাশোনা করেন তিনি।

চিকিৎসকের সন্ধান না পাওয়ার পর তার বাবা ২০১৯ সালের ২৭ মার্চ রংপুরের কোতয়ালি থানায় অপহরণ মামলা করেন। আসামি করা হয় ওই নারীর বর্তমান স্বামীকে।

থানা পুলিশ ব্যর্থ হওয়ার পর তদন্তের ভার পায় সিআইডি। তারা ঢাকার মোহাম্মদপুরের একটি বাড়িতে দম্পতির অবস্থানের কথা জানতে পারে। সেখান থেকে ধরে নিয়ে রংপুর সিআাইডি কার্যালয়ে হাজির করা হয় দুই জনকে। সাংবাদিক ডেকে ছবিও তোলা হয়।

এরপর তাদেরকে হাজির করা হয় রংপুর মহানগর হাকিম দেলোয়ার হোসেনের আদালতে।

আদালতের সাধারণ নিবন্ধন কর্মকর্তা আতিউর রহমান বলেন, ‘চিকিৎসকের বাবার করা অপহরণ মামলায় তাকে (স্বামী) আদালত জামিন না দিয়ে কারাগারে পাঠিয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘মেয়ে (নারী চিকিৎসক) যেহেতু সাবালক, সেহেতু তাকে নিজ জিম্মায় ছেড়ে দিয়েছেন (বিচারক)। আগের সংসারের বাচ্চাকেও মায়ের জিম্মায় দিয়েছেন। তবে তার বাবা যখন ইচ্ছা করে দেখা করতে পারবেন।’

তাহলে কেন স্বামীকে আটকে দেয়া হলো, এমন প্রশ্নে এই কর্মকর্তা বলেন, ‘সেটা আদালতের এখতিয়ার, আমি বলতে পারব না।’

এই মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সিআইডির উপপরিদর্শক ইউনুস আলী বলেন, ‘আমি দীর্ঘদিন অনুসন্ধান করি। তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে মোহাম্মদপুরের চানমিয়া হাউজিং থেকে (দম্পতিকে) গ্রেপ্তার করে নিয়ে আসি। যেহেতু তাদের বিরুদ্ধে মামলা ছিল, আদালতে হস্তান্তর করি।’

‘কিন্তু চিকিৎসক তো বললেন তিনি অপহৃত হননি’- এমন প্রশ্নে তদন্ত কর্মকর্তা বলেন, ‘সেটা আদালতের বিষয়।’

ডাক্তারকে বিয়ে করা সেই নাপিত জেলে
চিকিৎসকের বাবার করা অপহরণ মামলায় রংপুর কেন্দ্রীয় কারাগারে বন্দি সেই যুবক

শিগগির তদন্ত প্রতিবেদন আদালতে জমা দেয়া হবে বলেও জানান এই সিআইডি কর্মকর্তা।

অপহরণ যে হয়নি, সেটা নিশ্চিত করেছেন রংপুর সিআইডির পুলিশ সুপার মিলু মিয়া বিশ্বাসও। গত ২৬ ডিসেম্বর নিউজবাংলাকে তিনি বলেন, ‘সিআইডি অনুসন্ধান চালিয়ে জানতে পারে যে, বাদীর মেয়ে অপহৃত হননি বরং তিনি নিজের ইচ্ছায় ঢাকায় এসে বিয়ে করেছেন। তাদের একটি সন্তান রয়েছে। তবে মেয়েটির আগে এক বার বিয়ে হয় সেখানেও আট বছরের একটি সন্তান আছে।’

তদন্ত কর্মকর্তা ইউনুস আলী জানান, ওই চিকিৎসক যাকে বিয়ে করেছেন, তার নামে কয়েকটি মামলা আছে। তবে তিনি চালান দিয়েছেন এই একটি মামলাতেই।

ওই চিকিৎসক যা বলেছেন, তাতে তদন্তের আর কী বাকি থাকে- এমন প্রশ্নে সিআইডি কর্মকর্তা বলেন, ‘ডাক্তার ওনার বক্তব্য আদালতে দিয়ে চলে গেছেন। এখন আমরা বাকিটা তদন্ত করে দেখব, এর মধ্যে আর কিছু আছে কিনা। সে বিষয়ে পরবর্তীতে জানানো যাবে।’

এটা মানবাধিকারের চরম লঙ্ঘন

ঘটনাটি নিয়ে কাজ করছে জাতীয় মানবাধিকার কমিশনও। কমিশনের উপপরিচালক সুস্মিতা পাইক নিউজবাংলাকে বলেন, ‘এর থেকে বড় মানবাধিকার লঙ্ঘন আর হতে পারে? একজন নারী কাকে বিয়ে করবেন, সেটা তার ব্যক্তিগত বিষয়। আমাদের সংবিধান, মানবাধিকারের সার্বজনীন ঘোষণাপত্র, সমস্ত জায়গাতেই নারীকে স্বাধীনতা দেয়া হয়েছে।’

ওই নারীকে সামনে এনে সংবাদ সম্মেলনের তীব্র সমালোচনা করেন মানবাধিকার কমিশনের এই কর্মী। বলেন,‘পাবলিকলি তাকে একটা শিশুসহ এভাবে হেনস্থা করা, এর থেকে বড় মানবাধিকার লঙ্ঘন আর কী হতে পারে। তার মানবিক মর্যাদায় আঘাত হেনেছে এটা, তার আত্মসম্মানে আঘাত হেনেছে।’

ব্যাখ্যা দিতে হবে রংপুর সিআইডি প্রধানকে

ওই নারী চিকিৎসক ও তার স্বামীকে গণমাধ্যমের সামনে এনে ছবি তোলানো ও তার বিয়ে নিয়ে রংপুর সিআইডির প্রধান মিলু মিয়া বিশ্বাসের আপত্তিকর মন্তব্য ভালো চোখে দেখছে না পুলিশ সদরদপ্তরও।

নাম প্রকাশ অনিচ্ছুক একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা নিউজবাংলাকে বলেন, ‘এটি খুবই স্পর্শকাতর একটি ঘটনা, যা কোনোভাবেই কাম্য নয়। রংপুরের ঘটনা একজন পুলিশ কর্মকর্তার ব্যক্তিগত অভিমত।’

তিনি বলেন, ‘এ বিষয়টি আইজিপি মহোদয়কে অবহিত করা হয়েছে। ওই পুলিশ কর্মকর্তার কাছে এই বিষয়ে ব্যাখ্যা চাওয়া হবে।’

ওই কর্মকর্তা আরও বলেন, ‘তার (সিআইডি) এই অভিমত সমস্ত পুলিশের প্রতি দৃষ্টিভঙ্গিতে একটা প্রভাব পড়বে। মানুষের মানবিক মর্যাদার জায়গাগুলো নিয়ে এভাবে কথা বলা কোনোভাবেই তার (সিআইডি কর্মকর্তা) কাছ থেকে আশা করা যায় না।’

যা বলেছিলেন রংপুর সিআইডির প্রধান

এই ঘটনাটি নিয়ে গত ৩০ ডিসেম্বর রংপুর সিআইডির এসপি মিলু মিয়া বিশ্বাসের সঙ্গে কথা হয় নিউজবাংলার। তার মতে, নাপিতকে বিয়ে করা ডাক্তারের উচিত হয়নি। এটা নৈতিক অপরাধ হয়েছে।

কীভাবে নৈতিক অপরাধ হয়েছে, তার ব্যাখ্যায় তিনি বলেন, ‘তার আগে একটা বাচ্চা ছিল; সাত-আট বছর বয়স। সেই বাচ্চাসহ তিনি চলে গেছেন। আরেকজনের বাচ্চা নিয়ে গেছেন। যদি আপনার বাচ্চা নিয়ে যেতেন তবে আপনি কি অপহরণ মামলা দিতেন না? আপনি যখন মামলা দেবেন, তখন আমার দায়িত্ব বাচ্চা খুঁজে বের করার। সেই বাচ্চার বৈধ মালিক তো মা না, আগের ওই স্বামী।’

সিআইডি কর্মকর্তা এই দাবি করলেও দেখা যায়, ওই নারী চিকিৎসকের আগের স্বামী মামলা করেননি, তার সন্তানকে কাছে রাখার দাবি করে আদালতেও যাননি।

এরপর সিআইডি কর্মকর্তা টানেন নারী চিকিৎসকের স্বামীর পেশাগত পরিচয়ের প্রসঙ্গ। তার দাবি, একজন নাপিতের সঙ্গে একজন চিকিৎসকের বিয়ে হওয়া উচিত না।

তিনি বলেন, ‘তিনি (নারী চিকিৎসক) একে তো আইনগত অপরাধ করেছেন (যদিও কোন আইনে অপরাধ তার ব্যাখ্যা দিতে পারেননি তিনি)। তারপর নৈতিক অপরাধ করেছেন। তিনি একজন ডাক্তার। তিনি যার সঙ্গে চলে গিয়েছেন, তার সঙ্গে তার যাওয়া মানায় না।

‘তিনি ডাক্তার সমাজকে হেয় প্রতিপন্ন করেছেন। একজনের আট বছরের বাচ্চাকে নিয়ে ভেগে গেছেন। সেই বাচ্চার সঙ্গে বাবার কোনো যোগাযোগ করতে দেননি। একদম গায়েব হয়ে গেছেন। এইগুলো তো অপরাধ।

‘এইগুলা নৈতিক অপরাধ। এটা বিচারাধীন বিষয়, তবে তাতে সমস্যা নেই। আমরা মিডিয়ার সঙ্গে কাজ করি। আর আমরা যদি এই তথ্য প্রকাশ না করি তবে সমস্যা হবে। সমাজের তো বোধোদয় হতে হবে। এমন বোধোদয় আমাদের হওয়া উচিত।’

সেই সংবাদ সম্মেলনে সচেতনতা তৈরি হবে দাবি করে সিআইডি কর্মকর্তা বলেন, ‘আমরা এই উদাহরণগুলো কেন দেই? যাতে এমন ঘটনা আর না ঘটে। তিনি একজন ডাক্তার। তাকে কি এমন কারও সঙ্গে চলে যেতে হবে? তার কাছে কি আর কোনো রাস্তা ছিল না? আমরা এটা জানান দিতে চেয়েছি।’

আরও পড়ুন:
নাপিত-ডাক্তারের বিয়ে মানেন না সিআইডি এসপি
বিয়ে করে কানাডা নেয়ার টোপ: ৩০ কোটি টাকা আত্মসাৎ

মন্তব্য

আরও পড়ুন

জাতীয়
In April 708 people lost their lives and 2426 were injured in road accidents in the country
যাত্রী কল্যাণ সমিতির প্রতিবেদন

এপ্রিলে দেশে সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণহানি ৭০৮, আহত ২৪২৬

এপ্রিলে দেশে সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণহানি ৭০৮, আহত ২৪২৬ প্রতীকী ছবি।
প্রতিবেদনে বলা হয়, সারাদেশে সড়ক, নৌ ও রেলপথে ৭৩৩টি দুর্ঘটনায় ৭৬৩ জন নিহত ও দুই হাজার ৪৭২ জন আহত হয়েছেন। এর মধ্যে ৩০৫টি মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় ২৭৪ জন নিহত ও ৩২৮ জন আহত হয়েছেন।

চলতি বছরের এপ্রিল মাসে সারা দেশে ৬৮৩টি সড়ক দুর্ঘটনায় ৭০৮ জন প্রাণ হারিয়েছেন। এসব দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন দু’হাজার ৪২৬ জন।

এছাড়া রেলপথে ৪৪টি দুর্ঘটনায় ৪৭ জনের প্রাণহানি ও ৩৬ জন আহত হয়েছেন। আর নৌপথে ছয়টি দুর্ঘটনায় আটজন নিহত ও ১০ জন আহত হয়েছেন। এখনও নিখোঁজ রয়েছেন একজন।

বাংলাদেশ যাত্রী কল্যাণ সমিতির মহাসচিব মো. মোজাম্মেল হক চৌধুরীর সই করা এক বিবৃতিতে বুধবার এসব তথ্য জানানো হয়।

দেশের জাতীয়, আঞ্চলিক ও অনলাইন সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত সড়ক, রেল ও নৌপথে দুর্ঘটনার সংবাদ মনিটরিং করে এই প্রতিবেদন তৈরি করা হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, সারাদেশে সড়ক, নৌ ও রেলপথে ৭৩৩টি দুর্ঘটনায় ৭৬৩ জন নিহত ও দুই হাজার ৪৭২ জন আহত হয়েছেন। এর মধ্যে ৩০৫টি মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় ২৭৪ জন নিহত ও ৩২৮ জন আহত হয়েছেন, যা মোট দুর্ঘটনার ৪৪ দশমিক ৬৫ শতাংশ, মোট নিহতের ৩৮ দশমিক ৭০ শতাংশ এবং আহতের ২৪ দশমিক ৬৬ শতাংশ।

এপ্রিল মাসে সবচেয়ে বেশি সড়ক দুর্ঘটনা ঘটেছে ঢাকা বিভাগে। এই বিভাগে সর্বোচ্চ ১৫৫টি সড়ক দুর্ঘটনায় ১৭৯ জন নিহত ও ৩০৫ জন আহত হয়েছেন। বরিশাল বিভাগে সর্বনিম্ন ৩৫টি সড়ক দুর্ঘটনায় ৫৩ জন নিহত ও ৪৮ জন আহত হয়েছেন।

সড়কে দুর্ঘটনার শিকারদের মধ্যে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর ১০ সদস্য, ১৬৯ জন চালক, ৬৩ জন পথচারী, ৫৮ জন পরিবহন শ্রমিক, ৪৬ জন শিক্ষার্থী, ছয়জন শিক্ষক, ১১৯ জন নারী, ৬৭টি শিশু, তিনজন সাংবাদিক, দুজন চিকিৎসক, একজন আইনজীবী, তিনজন প্রকৌশলী ও বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের আট নেতা-কর্মীর পরিচয় মিলেছে।

তাদের মধ্যে নিহত হয়েছেন- একজন পুলিশ সদস্য, তিনজন সেনা সদস্য, একজন সাংবাদিক, দুজন চিকিৎসক, ১২৩ জন বিভিন্ন পরিবহনের চালক, ৫৮ জন পথচারী, ৯৩ জন নারী, ৪৯টি শিশু, ৩৬ জন শিক্ষার্থী, ৩৩ জন পরিবহন শ্রমিক, ছয়জন শিক্ষক, তিনজন প্রকৌশলী ও আটজন বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতা-কর্মী।

এই সময়ে সড়ক দুর্ঘটনায় জড়িত ৯৮৮টি যানবাহনের পরিচয় মিলেছে।

দুর্ঘটনায় জড়িত যানবাহনের মধ্যে ছিল ৩৪ দশমিক ৭১ শতাংশ মোটরসাইকেল, ১৫ দশমিক ৪৮ শতাংশ বাস, ১৩ দশমিক ১৫ শতাংশ ব্যাটারিচালিত রিকশা ও ইজিবাইক, ৫ দশমিক ৯৭ শতাংশ সিএনজিচালিত অটোরিকশা, ৬ দশমিক ৭৮ শতাংশ নছিমন-করিমন-মাহিন্দ্রা-ট্রাক্টর ও লেগুনা এবং ৬ দশমিক ২৭ শতাংশ প্রাইভেটকার, এসইউভি ও মাইক্রোবাস।

সংঘটিত মোট দুর্ঘটনার মধ্যে ৪৭ দশমিক ৪৩ শতাংশ গাড়িচাপা দেয়ার ঘটনা, ২৫ দশমিক ৩২ শতাংশ মুখোমুখি সংঘর্ষ এবং ২৩ দশমিক ১৩ শতাংশ নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ে দুর্ঘটনা ঘটেছে।

এছাড়া ৩ দশমিক ৩৬ শতাংশ বিবিধ কারণে যেমন- চাকায় ওড়না পেঁচিয়ে দশমিক ২৯ শতাংশ ‌ও দশমিক ৪৩ শতাংশ ট্রেনের সঙ্গে অন্য কোনো যানবাহনের সংঘর্ষে ঘটেছে।

দুর্ঘটনার ধরণ বিশ্লেষণে দেখা যায়, এই মাসে সংঘটিত মোট দুর্ঘটনার ৩৫ দশমিক ২৮ শতাংশ জাতীয় মহাসড়কে, ১৪ দশমিক ৭৮ শতাংশ আঞ্চলিক মহাসড়কে, ৪২ দশমিক ৪৫ শতাংশ ফিডার রোডে ঘটেছে।

এছাড়াও সারা দেশে সংঘটিত মোট দুর্ঘটনার ৬ দশমিক ৫৮ শতাংশ ঢাকা মহানগরীতে, দশমিক ৪৩ শতাংশ চট্টগ্রাম মহানগরীতে ও দশমিক ৪৩ শতাংশ রেলক্রসিংয়ে ঘটেছে।

আরও পড়ুন:
পাবনায় তেলবাহী লরির চাপায় দুজন নিহত
শ্রীনগরে কাভার্ড ভ্যানের ধাক্কায় নিহত ২
সাভারে সড়ক দুর্ঘটনায় স্ত্রী নিহত, আহত পুলিশ কর্মকর্তা
মেরিন ড্রাইভ সড়কে দুর্ঘটনায় পর্যটকসহ নিহত ২
বাড়ি ফেরার পথে ট্রাকের ধাক্কায় কলেজছাত্র নিহত

মন্তব্য

জাতীয়
MP Anars killing is not a two state issue Foreign Minister

এমপি আনারের হত্যাকাণ্ড দুই রাষ্ট্রের বিষয় নয়: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

এমপি আনারের হত্যাকাণ্ড দুই রাষ্ট্রের বিষয় নয়: পররাষ্ট্রমন্ত্রী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনে এক অনুষ্ঠান শেষে বুধবার দুপুরে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাব দেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। ছবি: নিউজবাংলা
ঢাবির সিনেট ভবনে এক সংবাদকর্মী পররাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে জানতে চান ভারতের পক্ষ থেকে এ ঘটনায় কোনো দুঃখ প্রকাশ করা হয়েছে কি না। জবাবে মন্ত্রী বলেন, ‘এই ঘটনা অত্যন্ত দুঃখজনক। আমাদের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন, এটি পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড। সুতরাং এটি তো দুই রাষ্ট্রের বিষয় নয়।’

চিকিৎসার জন্য ভারতে গিয়ে খুন হওয়া ঝিনাইদহ-৪ (কালীগঞ্জ) আসনের আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য (এমপি) আনোয়ারুল আজীম আনারের হত্যাকাণ্ড দুই রাষ্ট্রের বিষয় নয় বলে মন্তব্য করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনে এক অনুষ্ঠান শেষে বুধবার দুপুরে প্রশ্নের জবাবে সাংবাদিকদের কাছে এ মন্তব্য করেন তিনি।

কলকাতার নিউটাউন এলাকার সঞ্জিভা গার্ডেন থেকে বুধবার সকালে এমপি আনারের মরদেহ উদ্ধারের খবর জানায় বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম।

এর আগে গত রোববার আনারের নিখোঁজ হওয়ার খবরটি সংবাদমাধ্যমকে জানান তার ব্যক্তিগত সহকারী (পিএস) আবদুর রউফ।

ঢাবির সিনেট ভবনে এক সংবাদকর্মী পররাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে জানতে চান ভারতের পক্ষ থেকে এ ঘটনায় কোনো দুঃখ প্রকাশ করা হয়েছে কি না।

জবাবে মন্ত্রী বলেন, ‘এই ঘটনা অত্যন্ত দুঃখজনক। আমাদের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন, এটি পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড। সুতরাং এটি তো দুই রাষ্ট্রের বিষয় নয়।’

এমপি আনারের হত্যাকাণ্ড নিয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘আনোয়ার সাহেবের হত্যাকাণ্ড অত্যন্ত দুঃখজনক, মর্মান্তিক এবং অনভিপ্রেত। যেই ফ্ল্যাটে তাকে হত্যা করা হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছিল, কলকাতা পুলিশ সেখানে ঢুকেছে, কিন্তু তারা কোনো লাশ পায়নি, তবে হত্যাকাণ্ডের হোতাসহ কয়েকজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

‘কলকাতা পুলিশও দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে। এটি নিয়ে বর্তমানে তদন্ত চলছে। কেন এই হত্যাকাণ্ড ঘটানো হয়েছে, সেটি নিয়ে বিস্তারিত স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলবে।’

তিনি বলেন, ‘আমরা আমাদের মিশনের মাধ্যমে নিয়মিত খোঁজ রাখছি। মিশন কলকাতা পুলিশের সাথে যোগাযোগ করছে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ও যোগাযোগ রাখছে। বিষয়টা তো তদন্তাধীন। তাই এর চেয়ে বেশি কিছু আমি বলতে পারছি না।’

জাতিসংঘের শান্তিরক্ষা মিশনে র‌্যাবের অন্তর্ভুক্তি নিয়ে জার্মানভিত্তিক সংবাদমাধ্যচে ডয়চে ভেলের প্রতিবেদন নিয়ে মন্তব্য জানতে চাইলে হাছান মাহমুদ বলেন, ‘পুরোটা না দেখে আমি এটি সম্পর্কে মন্তব্য করতে চাই না। প্রথম আমাকে পুরোটা দেখতে হবে। এরপর মন্তব্য করা যাবে।’

সরকার সেনাবাহিনীকে রাজনৈতিকভাবে ব্যবহার করায় নিষেধাজ্ঞা এসেছে বলে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর যে বক্তব্য দিয়েছেন, সে প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, ‘উনার (জেনারেল আজিজ) ওপর যে আইনের মাধ্যমে বা যে কারণে নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়েছে, সেটি তো দুর্নীতির কারণে। এটি পারসোনাল দায়, ইনস্টিটিউশনাল কোনো বিষয় নয়।’

আরও পড়ুন:
বাবা হত্যার বিচারে প্রধানমন্ত্রীর সহায়তা চান আনারকন্যা
কলকাতার বাসায় এমপি আনারকে পরিকল্পিত হত্যা: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
ভারতে গিয়ে নিখোঁজ এমপি আনারের মরদেহ উদ্ধার
যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দপ্তরের ব্রিফিংয়ে ‘পেইড বাই বিএনপি’ কেউ আছে: হাছান মাহমুদ
আজিজ আহমেদের নিষেধাজ্ঞা ভিসা নী‌তির অধীনে নয়: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

মন্তব্য

জাতীয়
Planned murder of MP Anar at Kolkata residence Home Minister

কলকাতার বাসায় এমপি আনারকে পরিকল্পিত হত্যা: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

কলকাতার বাসায় এমপি আনারকে পরিকল্পিত হত্যা: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। ফাইল ছবি
কলকাতার বাসায় আনারকে হত্যার বিষয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের কাছে যা ইনফরমেশন, আমরা আরও ইনফরমেশন যখন পাব, তখন আপনাদেরকে আরও তথ্য জানাতে পারব। তো আমরা এইটুকুই এখন জানাতে পারছি, আপনাকে জানাতে চাচ্ছি, সেটা হলো তিনি খুন হয়েছেন। কলকাতার এক বাসায় তাকে পরিকল্পিতভাবে খুন করা হয়েছে।’

চিকিৎসার জন্য ভারতে গিয়ে নিখোঁজ ঝিনাইদহ-৪ আসনের সংসদ সদস্য (এমপি) ও কালীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আনোয়ারুল আজীম আনারকে কলকাতার একটি বাসায় পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে বলে বুধবার জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

আনারের নিখোঁজ হওয়ার খবরটি গত রোববার সংবাদমাধ্যমকে জানান তার ব্যক্তিগত সহকারী (পিএস) আবদুর রউফ।

তিনি ওই দিন বলেন, ‘সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজীম আনার চিকিৎসার জন্য ১১ মে ভারতে যান। এরপর দুই দিন পরিবার ও দলীয় নেতা-কর্মীদের সঙ্গে তার যোগাযোগ ছিল। ১৪ মে থেকে তার সঙ্গে সব ধরনের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে আমাদের।’

কলকাতার নিউটাউন এলাকার সঞ্জিভা গার্ডেন থেকে আজ সকালে এমপি আনারের মরদেহ উদ্ধারের খবর জানায় বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমাদের ঝিনাইদহের এক মাননীয় সংসদ সদস্য ১২ মে চিকিৎসার জন্য তিনি ভারতে গিয়েছিলেন। ভারতে যাওয়ার পরে আমরা দুই দিন পরে তার আর কোনো খোঁজখবর পাইনি। এতে উদ্বিগ্ন হয়ে তার মেয়ে আমাদেরকে খোঁজখবর জানালে আমাদের পুলিশ এ ঘটনাটি (নিয়ে) ইন্ডিয়ান পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছিলেন।

‘আমরা আজকে সুনিশ্চিত হয়েছি সকালবেলায়, ভারতীয় পুলিশ জানিয়েছেন যে, তিনি খুন হয়েছেন। তো আমরা ইতোমধ্যেই তাদের যে তথ্য ভারতীয় পুলিশ আমাদেরকে দিয়েছিলেন, সেই তথ্য অনুযায়ী আমাদের পুলিশ, বাংলাদেশের পুলিশ, এদের তথ্য অনুযায়ী, যারা খুন করেছেন বা খুনের সঙ্গে সম্পৃক্ত ছিলেন, আমরা যা সন্দেহ করছি এবং তাদের থেকে আমরা যে তথ্য পেয়েছিলাম, সে তথ্য অনুযায়ী তাদের মধ্য থেকে তিনজন অপরাধীকে আমাদের পুলিশ ধরেছেন এবং তাদের জিজ্ঞাসাবাদ চলছে, তদন্ত চলছে।’

তিনি বলেন, ‘আপনারা জানেন, ওই এলাকাটা একটা সন্ত্রাসপ্রবণ এলাকা, ওই ঝিনাইদহের এলাকাটা; ওই সীমান্ত এলাকা। আমাদের আনার সাহেব সেখানের মাননীয় সংসদ সদস্য হিসেবে এবারও নির্বাচিত হয়েছিলেন। চিকিৎসার জন্য তিনি যাওয়ার পরে এ ঘটনাটি ঘটে।

‘আমাদের পুলিশ এটা নিয়ে তদন্ত করছেন। আমরা শিঘ্রই খুনের মোটিভটা কী ছিল, আমরা আপনাদেরকে জানাতে পারব এবং ভারতীয় পুলিশ আমাদেরকে সর্ব ধরনের সহযোগিতা করছে।’

কলকাতার বাসায় আনারকে হত্যার বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের কাছে যা ইনফরমেশন, আমরা আরও ইনফরমেশন যখন পাব, তখন আপনাদেরকে আরও তথ্য জানাতে পারব। তো আমরা এইটুকুই এখন জানাতে পারছি, আপনাকে জানাতে চাচ্ছি, সেটা হলো তিনি খুন হয়েছেন। কলকাতার এক বাসায় তাকে পরিকল্পিতভাবে খুন করা হয়েছে।’

আরও পড়ুন:
ভারতে গিয়ে নিখোঁজ এমপি আনারের মরদেহ উদ্ধার
জেনারেল আজিজের ওপর যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা, যা বললেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
ভারতে চিকিৎসা করাতে গিয়ে এমপি আনোয়ারুল আজীম ‘নিখোঁজ’
বনানীর আগে বাসে যাত্রী তুললেই মামলা: ডিএমপি কমিশনার
প্রকাশ্যে ভোট, বরিশালের এমপি হাফিজ মল্লিককে ইসিতে তলব

মন্তব্য

জাতীয়
Prime Minister mourns the death of MP Anar

এমপি আনারের নিহতের ঘটনায় প্রধানমন্ত্রীর শোক

এমপি আনারের নিহতের ঘটনায় প্রধানমন্ত্রীর শোক প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ফাইল ছবি
বুধবার এক শোক বার্তায় শেখ হাসিনা মরহুমের রুহের মাগফেরাত কামনা করেন এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

ঝিনাইদহ-৪ আসনের সংসদ সদস্য (এমপি) ও কালীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আনোয়ারুল আজীম আনারের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বুধবার এক শোক বার্তায় শেখ হাসিনা মরহুমের রুহের মাগফেরাত কামনা করেন এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান। খবর বাসসের

সম্প্রতি চিকিৎসার জন্য ভারতে গিয়ে নিখোঁজ হন এমপি আনোয়ারুল আজীম আনার। বুধবার তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

মন্তব্য

জাতীয়
Bir Mukti Joddha Khachit Smart NID distribution on Thursday

বীর মুক্তিযোদ্ধা খচিত স্মার্ট এনআইডি বিতরণ বৃহস্পতিবার

বীর মুক্তিযোদ্ধা খচিত স্মার্ট এনআইডি বিতরণ বৃহস্পতিবার স্মার্ট এনআইডি। ফাইল ছবি
নির্বাচন কমিশনের (ইসি) পরিচালক (জনসংযোগ) শরিফুল আলম বুধবার এক বার্তায় এনআইডি বিতরণের বিষয়টি জানান।

দেশের ১০৪ বীর মুক্তিযোদ্ধার মাঝে বীর মুক্তিযোদ্ধা খচিত স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) বিতরণ করা হবে বৃহস্পতিবার।

নির্বাচন কমিশনের (ইসি) পরিচালক (জনসংযোগ) শরিফুল আলম বুধবার এক বার্তায় বিষয়টি জানান।

বার্তায় বলা হয়, ‘আগামীকাল ২৩ মে, বৃহস্পতিবার সকাল ১১ ঘটিকায় নির্বাচন ভবনের অডিটোরিয়ামে মাননীয় প্রধান নির্বাচন কমিশনার ১০৪ জন বীর মুক্তিযোদ্ধার মাঝে বীর মুক্তিযোদ্ধা খচিত স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র বিতরণ করবেন।

‘এ বিতরণ অনুষ্ঠানে সকল মাননীয় কমিশনার এবং সচিব, মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন।’

আরও পড়ুন:
দ্বিতীয় ধাপে ভোট পড়েছে ৩০ শতাংশের বেশি: সিইসি
ভোট বর্জনে বিএনপির কর্মসূচিতে কেউ বাধা দিতে পারবে না: ইসি
ভোটের হার কম হলে উদ্বিগ্ন হওয়ার কিছু নেই: ইসি আলমগীর
মৌসুমী সাংবাদিকদের ভোট কেন্দ্রে প্রবেশের পাস নয়
সামনের নির্বাচনগুলো আরও স্বচ্ছ হবে: ইসি

মন্তব্য

জাতীয়
Low pressure may intensify over Bay of Bengal

বঙ্গোপসাগরে লঘুচাপ, হতে পারে ঘনীভূত

বঙ্গোপসাগরে লঘুচাপ, হতে পারে ঘনীভূত বঙ্গোপসাগরে লঘুচাপটি ঘনীভূত হতে পারে বলে জানায় আবহাওয়া অধিদপ্তর। ফাইল ছবি
আবহাওয়া অধিদপ্তর ‍বুধবার সকাল ৯টা থেকে পরবর্তী ৭২ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বৃষ্টিপাতের বিষয়ে জানায়, রাজশাহী ও রংপুর বিভাগের অনেক জায়গা, ঢাকা, ময়মনসিংহ, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের কিছু কিছু জায়গা এবং খুলনা ও বরিশাল বিভাগের দুই-এক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা অথবা ঝোড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে।

দক্ষিণ-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন পশ্চিম-মধ্য বঙ্গোপসাগর এলাকায় লঘুচাপ সৃষ্টি হয়েছে জানিয়ে বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তর বলেছে, এটি আরও ঘনীভূত হতে পারে।

রাষ্ট্রীয় সংস্থাটির আবহাওয়াবিদ বজলুর রহমান স্বাক্ষরিত এক সতর্কবার্তায় বুধবার এ তথ্য জানানো হয়।

আবহাওয়া অধিদপ্তর ‍বুধবার সকাল ৯টা থেকে পরবর্তী ৭২ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসেও লঘুচাপের বিষয়ে একই তথ্য জানায়।

পূর্বাভাসে বৃষ্টিপাতের বিষয়ে বলা হয়, রাজশাহী ও রংপুর বিভাগের অনেক জায়গা, ঢাকা, ময়মনসিংহ, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের কিছু কিছু জায়গা এবং খুলনা ও বরিশাল বিভাগের দুই-এক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা অথবা ঝোড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে।

তাপপ্রবাহ নিয়ে বলা হয়, ঢাকা, নেত্রকোনা, চট্টগ্রাম, রাঙ্গামাটি, ফেনী, কক্সবাজার, বাগেরহাট, যশোর ও চুয়াডাঙ্গা জেলা এবং সিলেট বিভাগের ওপর দিয়ে মৃদু তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে এবং তা অব্যাহত থাকতে পারে।

তাপমাত্রার বিষয়ে বলা হয়, সারা দেশে দিনের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে এবং রাতের তাপমাত্রা সামান্য বাড়তে পারে। জলীয় বাষ্পের আধিক্যের কারণে অস্বস্তিভাব বাড়তে পারে।

আরও পড়ুন:
আরও ৪৮ ঘণ্টা অব্যাহত থাকতে পারে ঢাকাসহ চার বিভাগের তাপপ্রবাহ
তাপপ্রবাহ অব্যাহত থাকতে পারে
সব বিভাগে মৃদু থেকে মাঝারি তাপপ্রবাহ
তাপপ্রবাহ অব্যাহত থাকতে পারে আরও দুই দিন
চার বিভাগ ও ১২ জেলায় মৃদু তাপপ্রবাহ

মন্তব্য

জাতীয়
Body of missing MP Anar recovered in India Report

ভারতে গিয়ে নিখোঁজ এমপি আনারের মরদেহ উদ্ধার

ভারতে গিয়ে নিখোঁজ এমপি আনারের মরদেহ উদ্ধার আনোয়ারুল আজীম আনার। ফাইল ছবি
ভারতীয় সংবাদমাধ্যম সংবাদ প্রতিদিন বুধবার সকালে এক প্রতিবেদনে এমপি আনারের মরদেহ উদ্ধারের তথ্য জানায়, তবে প্রতিবেদনে কোনো সূত্র উল্লেখ করা হয়নি।

চিকিৎসার জন্য ভারতে গিয়ে নিখোঁজ ঝিনাইদহ-৪ আসনের সংসদ সদস্য (এমপি) ও কালীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আনোয়ারুল আজীম আনারের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে সংবাদ প্রতিদিন।

কলকাতাভিত্তিক সংবাদমাধ্যমটি বুধবার সকালে এক প্রতিবেদনে জানায়, পশ্চিমবঙ্গের বিধাননগরের নিউটাউন এলাকায় সঞ্জিভা গার্ডেন থেকে এমপি আনারের মরদেহটি উদ্ধার করা হয়।

প্রতিবেদনে কোনো সূত্রের কথা উল্লেখ করা হয়নি। এ বিষয়ে তাৎক্ষণিকভাবে আনারের পরিবারের সদস্য বা দায়িত্বশীল কারও কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

সংবাদ প্রতিদিনের প্রতিবেদনে বলা হয়, ‘ভারতে চিকিৎসা করাতে এসে খুন বাংলাদেশের সাংসদ আনোয়ারুল আজিম। গত আট দিন ধরে নিখোঁজ থাকার পর নিউটাউন থেকে উদ্ধার হলো বাংলাদেশের আওয়ামী লীগের তিনবারের সাংসদের মৃতদেহ।’

এতে আরও বলা হয়, ‘এই ঘটনায় রীতিমতো শোরগোল শুরু হয়েছে দুই দেশের কূটনৈতিক মহলে। কে বা কারা তাকে খুন করল, তার তদন্তে নেমেছে পুলিশ।’

চিকিৎসা করাতে গিয়ে আনোয়ারুল আজীম আনারের নিখোঁজ হওয়ার খবরটি গত রোববার সংবাদমাধ্যমকে জানান তার ব্যক্তিগত সহকারী (পিএস) আবদুর রউফ।

তিনি ওই দিন বলেন, ‘সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজীম আনার চিকিৎসার জন্য ১১ মে ভারতে যান। এরপর দুই দিন পরিবার ও দলীয় নেতা-কর্মীদের সঙ্গে তার যোগাযোগ ছিল। ১৪ মে থেকে তার সঙ্গে সব ধরনের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে আমাদের।’

পিএস আরও বলেন, ‘এমপি স্যারের ব্যবহৃত হোয়াটসঅ্যাপ নম্বরটিও বন্ধ পাওয়া যাচ্ছে। কোথায় আছেন, কীভাবে আছেন, সেটা জানতে না পেরে আমরা উদ্বিগ্ন।

‘ইতোমধ্যে বিষয়টি প্রধানমন্ত্রীকে জানানো হয়েছে। এ ছাড়া সরকারের উচ্চপর্যায়ের বিভিন্ন দপ্তরকে বিষয়টি অবহিত করা হয়েছে।’

এমপি আনারের ছোট মেয়ে মুমতারিন ফেরদৌস ডরিন ওই দিন বলেন, ‘গত কয়েক দিন ধরে বাবার সঙ্গে কোনো যোগাযোগ নেই। এ জন্য আমরা দুশ্চিন্তায় আছি।

‘আমরা সব উপায়ে যোগাযোগের চেষ্টা করছি, কিন্তু এখন পর্যন্ত কোনো খোঁজ পাইনি।’

আনোয়ারুল আজীম আনার ঝিনাইদহ-৪ আসনের সরকারদলীয় এমপি।

তিনি ২০১৪, ২০১৮ ও ২০২৪ সালে টানা তিনবার আওয়ামী লীগ থেকে এমপি নির্বাচিত হন।

আরও পড়ুন:
রাজধানীতে রাত ১১টার পর চা-বিড়ির দোকান বন্ধের নির্দেশ
ব্যারিস্টার সুমনের চেষ্টায় কমল লোডশেডিং
জব্বারের বলী খেলা বৃহস্পতিবার, তৎপর সিএমপি
ফিলিপাইনের আনারস চাষ কুমিল্লায়
এমপি মকবুলের বড় ছেলে লড়ছেন চেয়ারম্যান পদে, ছোট ছেলে হতে চান মেয়র

মন্তব্য

p
উপরে