20201002104319.jpg
20201003015625.jpg
করোনা: পাঁচ মাসে সর্বনিম্ন মৃত্যু

করোনা: পাঁচ মাসে সর্বনিম্ন মৃত্যু

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরও ১৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর আগে গত ১৭ মে ১৪ জনের মৃত্যুর সংবাদ দিয়েছিল স্বাস্থ্য অধিদফতর।

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরও ১৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। গত পাঁচ মাসে এটি এক দিনের হিসাবে সবচেয়ে কম মৃত্যু। এর আগে গত ১৭ মে ১৪ জনের মৃত্যুর সংবাদ দিয়েছিল স্বাস্থ্য অধিদফতর।

রোববার স্বাস্থ্য অধিদফতরের বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানানো হয়েছে। গত মার্চে প্রাদুর্ভাবের পর থেকে এখন পর্যন্ত এই রোগে মারা গেল পাঁচ হাজার ৬৬০ জন।

এ পর্যন্ত করোনায় চার হাজার ৩৫৭ জন পুরুষ ও এক হাজার ৩০৩ জন নারীর মৃত্যু হয়েছে।

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও এক হাজার ২৭৪ জনের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত করা হয়েছে। এ নিয়ে মোট শনাক্তের সংখ্যা দাঁড়াল তিন লাখ ৮৮ হাজার ৫৬৯।

গত ২৪ ঘন্টায় দেশে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্তের হার ১০.৭২ শতাংশ। এখন পর্যন্ত পরীক্ষা বিবেচনায় রোগী শনাক্তের হায় ১৭.৯৬।

গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে এক হাজার ৬৭৮ জন। এ নিয়ে মোট সুস্থ হয়েছে তিন লাখ তিন হাজার ৯৭২ জন। শনাক্ত রোগীদের মধ্যে সুস্থতার হার ৭৮.২৩ শতাংশ।

সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় সবচেয়ে বেশি ছয় জনের মৃত্যু হয়েছে ঢাকা বিভাগে। এ ছাড়া চট্টগ্রাম ও বরিশাল, সিলেট ও ময়মনসিংহ বিভাগে এক জন করে এবং রাজশাহী ও খুলনায় দুই জন করে মানুষের মৃত্যু হয়েছে।

গত ২৪ ঘণ্টায় যারা মারা গেছেন তাদের সবাই হাসপাতালে ছিলেন।

যুক্তরাষ্ট্রের জনস হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের তথ্য অনুযায়ী, বিশ্বে শনাক্তের সংখ্যার দিক দিয়ে বাংলাদেশের অবস্থান ১৭তম। মৃত্যুর দিক থেকে ৩১তম।

দেশে গত ৮ মার্চ প্রথম করোনা ভাইরাসের রোগী শনাক্ত হলেও প্রথম মৃত্যুর খবর আসে ১৮ মার্চ। দিন দিন করোনা রোগী শনাক্ত ও মৃতের সংখ্যা বাড়ায় নড়েচড়ে বসে সরকার।

ভাইরাসটি যেন ছড়িয়ে পড়তে না পারে সেজন্য ২৬ মার্চ থেকে বন্ধ ঘোষণা করা হয় সব সরকারি-বেসরকারি অফিস। জুনের প্রথমে দিকে সরকারে ঘোষিত সাধারণ ছুটি উঠিয়ে দিয়ে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সরকারি অফিস চালু করা হয়।

শেয়ার করুন

মন্তব্য