× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট বাংলা কনভার্টার নামাজের সময়সূচি আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

তারুণ্য
Huaweis Seeds for the Future started again with young people
google_news print-icon

তরুণদের নিয়ে আবার শুরু হুয়াওয়ের সিডস ফর দ্য ফিউচার

তরুণদের-নিয়ে-আবার-শুরু-হুয়াওয়ের-সিডস-ফর-দ্য-ফিউচার
দেশে অষ্টমবারের মতো শুরু হওয়া হুয়াওয়ের সিডস ফর দ্য ফিউচার প্রোগ্রামের উদ্বোধন করেন আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। ছবি: সংগৃহীত
আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, ‘হুয়াওয়ের সিডস ফর দ্য ফিউচার প্রোগ্রামটির আমাদের যুব সমাজের ভবিষ্যৎ উপযোগী তথ্য ও প্রযুক্তিগত দক্ষতা বিকাশেই নয়, পাশাপাশি এটি এমন একটি ইকোসিস্টেম গড়ে তুলছে যা ইন্ডাস্ট্রিতে এই খাতে দক্ষ ব্যক্তিদের কাজের সুযোগ করে দিচ্ছে।

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তিতে (আইসিটি) দক্ষ শিক্ষার্থীদের অনুপ্রাণিত করতে অষ্টমবারের মতো দেশে আবারও শুরু হয়েছে হুয়াওয়ের ‘সিডস ফর দ্য ফিউচার ২০২১ বাংলাদেশ।’

এক ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানের মাধ্যমে সোমবার এই আয়োজনের ঘোষণা দেয়া হয়।

ভার্চুয়াল এই অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

এ সময় যুক্ত ছিলেন রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ব বিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. মো. রফিকুল ইসলাম শেখ, আহসানউল্লাহ ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজির উপাচার্য ড. মো. ফজলে ইলাহী এবং হুয়াওয়ে টেকনোলজিস (বাংলাদেশ) লিমিটেডের এন্টারপ্রাইজ বিজনেস গ্রুপের প্রেসিডেন্ট জর্জ লিন।

সেখানে বিশেষ প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ইলেক্ট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেক্ট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রধান ড. মো. রুবাইয়াত তানভীর হোসেন।

বিশ্বব্যাপী এসটিইএম (বিজ্ঞান, প্রযুক্তি, প্রকৌশলবিদ্যা ও গণিত) এবং নন-এসটিইএম বিষয়ে মেধাবী শিক্ষার্থীদের জন্য হুয়াওয়ের ফ্ল্যাগশিপ সিএসআর প্রোগ্রাম ‘সিডস ফর দ্য ফিউচার’ স্থানীয় শিক্ষার্থীদের মেধা বিকাশ, জ্ঞান প্রদান এবং আইসিটি খাত সম্পর্কে আরও জানাশোনা ও আগ্রহ তৈরিতে কাজ করে।

২০১৪ সালে বাংলাদেশে চালু হওয়া প্রোগ্রামটি সারাবিশ্বে প্রায় দশ বছর ধরে মেধা বিকাশে কাজ করে যাচ্ছে।

অনুষ্ঠানে আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, ‘হুয়াওয়ের সিডস ফর দ্য ফিউচার প্রোগ্রামটির আমাদের যুব সমাজের ভবিষ্যৎ উপযোগী তথ্য ও প্রযুক্তিগত দক্ষতা বিকাশেই নয়, পাশাপাশি এটি এমন একটি ইকোসিস্টেম গড়ে তুলছে যা ইন্ডাস্ট্রিতে এই খাতে দক্ষ ব্যক্তিদের কাজের সুযোগ করে দিচ্ছে।’

হুয়াওয়ে টেকনোলজিস (বাংলাদেশ) লিমিটেডের এন্টারপ্রাইজ বিজনেস গ্রুপের প্রেসিডেন্ট জর্জ লিন বলেন, ‘তরুণরাই আমাদের ভবিষ্যৎ। সামনের বছরগুলোতে, আইসিটি দক্ষতার ওপর আমাদের নির্ভরশীলতা ব্যাপকভাবে বৃদ্ধি পাবে। বিষয়টি বিবেচনা করেই হুয়াওয়ে আইসিটি খাতে প্রযুক্তিগত দক্ষতা এবং অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে তরুণদের প্রয়োজনীয় দক্ষতা ও নেতৃত্বের গুণাবলী বিকাশ করতে এই প্রোগ্রাম বাস্তবায়ন করছে।

চলতি বছর প্রোগ্রামে দেশের বিভিন্ন বিজ্ঞান ও প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করবে। তাদের অ্যাকাডেমিক রেজাল্ট, জ্ঞান, উদ্ভাবনী চিন্তার ওপর ভিত্তি করে বাংলাদেশ থেকে ১৮ জনকে বিজয়ী করা হবে। তারা সারা বিশ্বের অন্য বিজয়ীদের সঙ্গে পরের পর্যায়ে অংশ নেবেন।

২০০৮ সালে থাইল্যান্ডে বৈশ্বিকভাবে চালু হওয়ার পর ‘সিডস ফর দ্য ফিউচার’ বিশ্বের প্রায় ১৩০টি দেশে অনুষ্ঠিত হয়েছে। সারা বিশ্বের প্রায় ৯ হাজার শিক্ষার্থী এবং পাঁচ শতাধিক বিশ্ববিদ্যালয় এখন পর্যন্ত এই প্রোগ্রাম থেকে উপকৃত হয়েছে।

মন্তব্য

আরও পড়ুন

তারুণ্য
3 fishermen killed by lightning in Shariatpur

শরীয়তপুরে বজ্রপাতে ৩ জেলে নিহত

শরীয়তপুরে বজ্রপাতে ৩ জেলে নিহত প্রতীকী ছবি
নড়িয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাফিজুর রহমান বলেন, বজ্রপাতে তিন ব্যক্তির মৃত্যুর ঘটনাটি অত্যন্ত দুঃখজনক। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে হতাহতদের উদ্ধারে কাজ করেছে পুলিশ।

শরীয়তপুরে নড়িয়ায় বজ্রপাতে তিন জেলে নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও চারজন।

রোববার বিকেল পৌনে ছয়টার দিকে নড়িয়া উপজেলার ডিঙ্গামানিক ইউনিয়নের বাহিরকুশিয়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন-নড়িয়া উপজেলার ডিঙ্গামানিক ইউনিয়নের শাহীন শেখ, সিরাজ ওঝা ও শাহীন মাঝি।

পুলিশের ভাষ্য, উপজেলার বাহিরকুশিয়া গ্রামের সাজু মেম্বারের একটি পুকুরে মাছ শিকার করছিলেন আট জেলে। সন্ধ্যার কিছুক্ষণ আগে হঠাৎ বৃষ্টি ও বজ্রপাত শুরু হয়। এসময় বজ্রপাতের আঘাতে ঘটনাস্থলেই প্রান হারান তিন জেলে। এছাড়া গুরুতর আহত হন আরও চার জেলে। পরে তাদেরকে উদ্ধার করে নড়িয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

ডিঙ্গামানিক ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল আজিজ সরদার বলেন, খবর পেয়ে নিহতদের পরিবারের কাছে গিয়ে তাদের সমবেদনা জানিয়েছি। বিষয়টি উপজেলা প্রশাসনকে অবহিত করা হয়েছে। প্রশাসনের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী নিহতদের পরিবারকে সহায়তা করা হবে।

নড়িয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাফিজুর রহমান বলেন, বজ্রপাতে তিন ব্যক্তির মৃত্যুর ঘটনাটি অত্যন্ত দুঃখজনক। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে হতাহতদের উদ্ধারে কাজ করেছে পুলিশ। পরিবারের অনুরোধে নিহতদের মরদেহ ময়নাতদন্ত ছাড়াই দাফন করা হয়েছে।

আরও পড়ুন:
শরীয়তপুরে ভূমি অফিসে অভিযান, কর্মকর্তাকে বদলি
চিঠিতে শরীয়তপুরের ইউএনওকে হত্যার হুমকি
ধর্ষণ ও ভিডিও, গ্রাম্য সালিশে দোররা
ভাতার টাকা আত্মসাৎ, সাময়িক বরখাস্ত ৩ ইউপি সদস্য
ময়লার ভাগাড় দুই ঘণ্টায় ফুলের বাগান

মন্তব্য

তারুণ্য
A youth was killed in a group beating at the childrens hospital

শিশু হাসপাতালে দলবদ্ধ পিটুনিতে যুবক নিহত

শিশু হাসপাতালে দলবদ্ধ পিটুনিতে যুবক নিহত মো. মামুন। ছবি: সংগৃহীত
নিহতের বড় ভাই মাসুদ রানা নিউজবাংলাকে বলেন, ‘দুপুরের দিকে এক ব্যক্তি ফোন করে জানায় যে আমার ভাই খুন হয়েছে। হাসপাতালে এসে জানলাম আনসার সদস্য ও হাসপাতালের অ্যাম্বুলেসের চালক ও হেলপাররা চোর বলে ধাওয়া দিয়ে ধরে পিটিয়ে আমার ভাইকে মেরে ফেলেছে।’

রাজধানীর শেরে বাংলা নগরে ঢাকা শিশু হাসপাতালে মো. মামুন নামে এক ব্যক্তিকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। রোববার দুপুরে এই ঘটনার পর পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে শহীদ সোহরাওয়ার্দী হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে।

মিরপুর এলাকার বাসিন্দা মামুন এক ছেলে ও এক মেয়ের জনক।

নিহতের পরিবারের দাবি, চোর ভেবে শিশু হাসপাতালে দায়িত্বরত আনসার সদস্য এবং অ্যাম্বুলেন্স চালক ও হেলপারেরা মিলে মামুনকে পিটিয়ে মেরে ফেলেছে।

নিহতের বড় ভাই মাসুদ রানা নিউজবাংলাকে বলেন, ‘মামুন সকালে মা ও তার স্ত্রী-সন্তানকে নিয়ে হাসপাতালে আসে। অসুস্থ মেয়েকে ডাক্তার দেখানোর পর পরিবারের সদস্যদের বাসায় পাঠিয়ে দেয়।

‘দুপুরের দিকে এক ব্যক্তি ফোন করে জানায় যে আমার ভাই খুন হয়েছে। হাসপাতালে এসে জানলাম আনসার সদস্য ও হাসপাতালের অ্যাম্বুলেসের চালক ও হেলপাররা চোর বলে ধাওয়া দিয়ে ধরে পিটিয়ে আমার ভাইকে মেরে ফেলেছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমার ভাই কোনো অপরাধ করে থাকলে তার বিচারের জন্য দেশে আইন আছে। একজন মানুষকে এভাবে কেন ওরা পিটিয়ে মারবে। এখন ওর বউ-বাচ্চার দায়িত্ব কে নেবে? আমরা এই হত্যাকাণ্ডের সুষ্ঠু বিচার চাই। দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই।’

হাসপাতালের সামনে ভ্রাম্যমাণ দোকানের জুতা বিক্রেতা আল আমিন নিউজবাংলাকে বলেন, ‘দুপুরে দেখি একজন দৌড় দিছে। তার পিছে কয়েকজন দৌড়ে গিয়ে তাকে ধরে নিয়ে হাসপালের ভেতরে চলে যায়। পরে ভেতরে গিয়ে দেখি সে মারা গেছে।’

শেরে বাংলা নগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) উৎপল বড়ুয়া বলেন, ‘শুনেছি জনতা গণধোলাই দিয়েছে। হাসপাতালের সিসিটিভি ফুটেজ সংগ্রহ করা হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে আমরা কাজ করছি। তদন্ত শেষে বিস্তারিত জানানো হবে।’

নির্দিষ্ট করে আনসার সদস্য ও অ্যাম্বুলেন্স চালকদের বিরুদ্ধে মারধরের অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমরা কাজ করছি। তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

নিহতের মরদেহ উদ্ধারকারী শেরে বাংলা নগর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) এএসএম আল মামুন সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি শেষে মরদেহ সোহরাওয়ার্দী হাসপাতাল মর্গে পাঠান।

বিকেল ৪টার দিকে নিউজবাংলাকে তিনি বলেন, ‘মামুন পেশায় একজন চা বিক্রেতা। শিশু হাসপাতালের সামনে ঘোরাফেরার সময় তাকে চোর সন্দেহে মারধর করলে ঘটনাস্থলেই মারা যান তিনি। নিহতের পরিবারের সদস্যরা থানায় এসে অভিযোগ দিয়েছেন।’

শেরে বাংলা নগর থানার পরিদর্শক (অপারেশন) শাহজাহান মণ্ডল নিউজবাংলাকে বলেন, ‘এ ঘটনায় নিহতের পরিবার মামলা করেছে। ইতোমধ্যে ঢাকার বাইরে একজন গ্রেপ্তার হয়েছে। তার নাম-ঠিকানা এখনও জানতে পারিনি। তাকে ঢাকায় আনার প্রক্রিয়া চলছে।’

মারধর করে হত্যার ঘটনায় আনসার সদস্য সম্পৃক্ত থাকার অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাওয়া হয় ঢাকা মহানগর আনসারের জোন কমান্ডার মো. আম্বার হোসেনের কাছে। তিনি নিউজবাংলাকে বলেন, ‘পুলিশ সিসিটিভি ফুটেজ সংগ্রহ করেছে। ইতোমধ্যে একজনকে ঢাকার বাইরে থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ফুটেজ দেখে আসামি শনাক্ত করছে পুলিশ।

‘আনসার সদস্য মারেনি। ফুটেজে আনসার সদস্যদের কোনো সংশ্লিষ্টতা পাওয়া যায়নি। এটা ভুল তথ্য। মানুষ গুজব ছড়াচ্ছে।’

মন্তব্য

তারুণ্য
Awami League leader beaten up in front of MP 3 expelled

এমপির সামনেই আওয়ামী লীগ নেতাকে মারধর, ৩ জন বহিষ্কার

এমপির সামনেই আওয়ামী লীগ নেতাকে মারধর, ৩ জন বহিষ্কার উজিরপুর উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনের সামনে মারধর ও লাঞ্চনার শিকার হন উপজেলা আওয়ামী লীগের জ্যেষ্ঠ সহ-সভাপতি ৪৫ বছর বয়সী ইদ্রিস সরদার। ছবি: নিউজবাংলা
রোববার সকাল ১০টার দিকে উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনের সামনে মারধর ও লাঞ্চনার শিকার হন উপজেলা আওয়ামী লীগের জ্যেষ্ঠ সহ-সভাপতি ৪৫ বছর বয়সী ইদ্রিস সরদার ।

বরিশাল -২ আসনের সংসদ সদস্য মো. শাহে আলমের সামনে উজিরপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ইদ্রিস সরদারের ওপর হামলার ঘটনায় দলটির তিন নেতাকে সাময়িকভাবে বহিষ্কার করা হয়েছে।

রোববার বিকেলে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. গিয়াস উদ্দিন বেপারীর সই করা এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে।

এতে বলা হয়েছে, উজিরপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের এক জরুরি সভার সিদ্ধান্ত মোতাবেক দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে বামরাইল ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আতিকুর রহমান পলাশ, শিকারপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ রিয়াজুল ইসলাম কাজী ও বামরাইল ইউনিয়ন যুবলীগের সদস্য জসিম উদ্দিন রুবেলকে সাময়িকভাবে সংগঠন থেকে বহিষ্কার করা হলো।

এ বিষয় উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. গিয়াস উদ্দিন বেপারি সাংবাদিকদের বলেন, উপজেলা পরিষদের সামনে যে ঘটনা ঘটেছে তা দুঃখ জনক। তদন্ত করে দোষীদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এর আগে রোববার সকাল ১০টার দিকে উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনের সামনে মারধর ও লাঞ্চনার শিকার হন উপজেলা আওয়ামী লীগের জ্যেষ্ঠ সহ-সভাপতি ৪৫ বছর বয়সী ইদ্রিস সরদার ।

তিনি জানান, হামলার ঘটনার আগ মুহুর্তে সংসদ সদস্য মো. শাহে আলমকে সালাম দিয়ে কুশল-বিনিময় করতে যান তিনি। তখন উজিরপুর উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান ইকবাল তাকে দেখে কটুক্তি করেন। এ নিয়ে বাগবিতণ্ডার এক পর্যায়ে এমপির সামনে হাফিজুরের অনুসারীরা মারধর শুরু করেন।



আরও পড়ুন:
ব‌রিশা‌ল নগরে ৫ হাজার ইজিবাইক অনুম‌তি পা‌চ্ছে
পুলিশের ওপর জেলেদের হামলা, আহত ১৬
তিন বছরের সাজা এড়াতে ৩০ বছর পালিয়ে
সৎ মায়ের ছোড়া গরম পানিতে প্রতিবন্ধী কিশোরের মৃত্যু!
বরিশালে সংবাদের জে‌রেই অপূর্বর ওপর হামলা

মন্তব্য

তারুণ্য
Smuggler arrested with 7 gold bars in Chuadanga

চুয়াডাঙ্গায় ৭টি স্বর্ণের বারসহ চোরাকারবারি আটক

চুয়াডাঙ্গায় ৭টি স্বর্ণের বারসহ চোরাকারবারি আটক বিজিবির অভিযানে স্বর্ণ বারসহ আটক চোরাকারবারি জুয়েল। ছবি: নিউজবাংলা
গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শনিবার সকালে জীবননগর উপজেলার মোল্লাবাড়ীর মোড় এলাকায় অভিযান চালিয়ে জীবন নামে একজনকে আটক করে বিজিবি। এ সময় তার কাছ থেকে স্কচটেপে মোড়ানো ৭টি স্বর্ণের বার উদ্ধার করা হয়, যার ওজন ৮২৯ দশমিক ২৭ গ্রাম (৭১ ভরি ৪ রতি)।

চুয়াডাঙ্গার জীবননগর সীমান্তে ৭টি স্বর্ণের বারসহ এক চোরাকারবারিকে আটক করেছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)। শনিবার দুপুরে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ঝিনাইদহের মহেশপুর-৫৮ বিজিবির সহকারী পরিচালক মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম।

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, ভারতে স্বর্ণ চোরাচালানের গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শনিবার সকালে জীবননগর উপজেলার মোল্লাবাড়ীর মোড় এলাকায় অভিযান চালায় বিজিবি। এসময় এক সন্দেহভাজন ব্যক্তিকে আটক করা হয়। তার কাছ থেকে স্কচটেপ দিয়ে মোড়ানো ৭টি স্বর্ণের বার উদ্ধার করা হয়, যার ওজন ৮২৯ দশমিক ২৭ গ্রাম (৭১ ভরি ৪ রতি)। আটক চোরাকারবারি জুয়েল হোসেন দর্শনার দক্ষিণ চাঁদপুর গ্রামের আব্দুল খালেকের ছেলে।

মহেশপুর-৫৮ বিজিবির সহকারী পরিচালক মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম জানান, স্বর্ণের বারগুলো শুল্ক কর ফাঁকি দিয়ে জীবননগর সীমান্ত দিয়ে ভারতে পাচারের জন্য নিয়ে যাচ্ছিলেন জুয়েল।

আরও পড়ুন:
প্রাইভেট কারে লুকানো ছিল ৪ কেজি স্বর্ণ
ভারতে পাচারকালে ৮ কেজি স্বর্ণ জব্দ

মন্তব্য

তারুণ্য
The democracy with which we fought the liberation war is in exile BNP

যে স্বপ্ন নিয়ে মুক্তিযুদ্ধ করেছিলাম সেই গণতন্ত্র নির্বাসনে: বিএনপি

যে স্বপ্ন নিয়ে মুক্তিযুদ্ধ করেছিলাম সেই গণতন্ত্র নির্বাসনে: বিএনপি মহান স্বাধীনতার দিবস উপলক্ষে রোববার দুপুরে রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের কবরে শ্রদ্ধা নিবেদন করছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। ছবি: নিউজবাংলা
বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘৫২ বছর আগে গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রের স্বপ্ন ও আশা-আকাঙ্ক্ষা নিয়ে আমরা মুক্তিযুদ্ধ করেছিলাম। সেই গণতন্ত্র আজ নির্বাসনে। গণতান্ত্রিক অধিকারগুলো কেড়ে নেয়া হয়েছে। এক কথায় কোনো অধিকার নেই।’

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতাকে টিকে রাখার জন্য নজিরবিহীন দুর্নীতি করছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

মহান স্বাধীনতার দিবস উপলক্ষে রোববার দুপুরে রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের কবরে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে সাংবাদিকদের তিনি একথা বলেন।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘গুম, খুনের মাধ্যমে তারা মানুষের মৌলিক অধিকার কেড়ে নিয়েছে। ৫২ বছর আগে গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রের স্বপ্ন ও আশা-আকাঙ্ক্ষা নিয়ে আমরা মুক্তিযুদ্ধ করেছিলাম। সেই গণতন্ত্র আজ নির্বাসনে। গণতান্ত্রিক অধিকারগুলো কেড়ে নেয়া হয়েছে। মানুষের ভোটের, কথা বলার ও লেখার অধিকার নেই। এক কথায় কোনো অধিকার নেই।’

তিনি বলেন, ‘পরিকল্পিতভাবে রাষ্ট্রের সব গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠান ভেঙে ফেলা হচ্ছে। নির্বাচন ব্যবস্থা ধ্বংস করে দিয়ে একদলীয় শাসন ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠার হীন প্রচেষ্টা নিয়ে আওয়ামী লীগ ফ্যাসিবাদী কার্যকলাপ চালাচ্ছে। তারা বাকশাল করছে। তবে এসবের বিরুদ্ধে আজ বাংলাদেশের মানুষ জেগে উঠেছে।’

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আজ আমরা গণতন্ত্র উদ্ধারের জন্য, খালেদা জিয়াকে মুক্ত করার জন্য, সরকারের পদত্যাগসহ ১০ দফা দাবিতে আন্দোলন করছি। দেশের মানুষ তার অধিকার, ভোটের অধিকার এবং শান্তিতে বসবাস করার অধিকার আদায়ে আন্দোলন শুরু করেছে।

‘আজকের এই দিনে দেশবাসীকে শুভেচ্ছা জানাচ্ছি। আশা করছি তারা গণতন্ত্র পুনঃরুদ্ধারের আন্দোলনে শরিক হবে।’

কবরে শ্রদ্ধা নিবেদনের সময় আরও উপস্থিত ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন, আব্দুল মঈন খান, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, নজরুল ইসলাম খান, ভাইস চেয়ারম্যান শাহজাহান ওমর, ডা. জাহিদ হোসেন প্রমুখ।

আরও পড়ুন:
মানবাধিকার নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিবেদনে লজ্জিত হই: ফখরুল
শওকত মাহমুদকে বিএনপি থেকে বহিষ্কার
সুপ্রিম কোর্টে নির্বাচনি ব্যবস্থার শেষ দেখছেন ফখরুল
ভারতীয় হাইকমিশনারের বাসায় নৈশভোজের আমন্ত্রণে বিএনপির প্রতিনিধি দল
নির্বাচনি আতঙ্কে শান্তিপূর্ণ পরিবেশ নষ্টের ষড়যন্ত্রে বিএনপি: কাদের

মন্তব্য

তারুণ্য
Death of woman in RAB custody allegation of torture

র‍্যাব হেফাজতে নারীর মৃত্যু, নির্যাতনের অভিযোগ

র‍্যাব হেফাজতে নারীর মৃত্যু, নির্যাতনের অভিযোগ চন্ডীপুর ইউনিয়ন ভূমি অফিসের অফিস সহকারী সুলতানা জেসমিন। ছবি: নিউজবাংলা
সুলতানার ছেলে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়া শাহেদ হোসেন সৈকত বলেন, আমার মা চক্রান্তের শিকার হয়েছে। র‍্যাবের হেফাজতে নির্যাতন চালানোয় তার মৃত্যু হয়েছে।

প্রতারণার অভিযোগে আটক নওগাঁ সদর উপজেলার চন্ডীপুর ইউনিয়ন ভূমি অফিসের অফিস সহকারী সুলতানা জেসমিন (৪৫) র‍্যাব হেফাজতে মারা গেছেন। স্বজনদের অভিযোগ, নির্যাতনের কারণে তার মৃত্যু হয়েছে।

গত বুধবার বেলা ১১টার দিকে নওগাঁ শহরের মুক্তির মোড় এলাকা থেকে র‍্যাবের হাতে আটক হন জেসমিন। তিনি শুক্রবার সকাল ৯টার দিকে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে মারা যান।

র‍্যাবের ভাষ্য, জেসমিনের বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগ ছিল। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাকে আটক করা হয়েছিল।

মৃত জেসমিনের মামা ও নওগাঁ পৌরসভার সাবেক কাউন্সিলর নাজমুল হক (মন্টু) বলেন, ‘আমার ভাগ্নিকে র‍্যাব আটকের পর বিভিন্ন জায়গায় খোঁজখবর নিতে থাকি। পরে জানতে পারি যে, সে নওগাঁ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। সেখানে গিয়ে দেখি র‍্যাবের লোকজন তার চারপাশে। এর কিছুক্ষণ পর তাকে রাজশাহী হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে সে মারা যান। ’

জেসমিনের পরিবারের ভাষ্য , জেসমিনের সঙ্গে তার স্বামীর ডিভোর্স হয় ১৭ বছর আগে। এরপর সে তার এক সন্তানকে অত্যন্ত কষ্ট করে অভাব অনটনের মধ্য দিয়ে লালন-পালন করছিল। তার বিরুদ্ধে কখনো কোনো দুর্নীতি কিংবা অনিয়মের অভিযোগ কেউ করতে পারেননি।

মৃতের ছেলে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী শাহেদ হোসেন সৈকত বলেন, ‘আমার মা চক্রান্তের শিকার হয়েছে। র‍্যাবের হেফাজতে নির্যাতন চালানোয় আমার মায়ের মৃত্যু হয়েছে। ’

এ বিষয়ে র‍্যাব-৫-এর কোম্পানি কমান্ডার মেজর নাজমুস সাকিব বলেন, সুলতানার বিরুদ্ধে আর্থিক প্রতারণার একটি অভিযোগ পায় র‍্যাব। তার ব্যাংক হিসাবে অস্বাভাবিক লেনদেনের অভিযোগ ছিল। ব্যাংক স্টেটমেন্ট দেখে র‍্যাব অভিযোগের সত্যতা পায়। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য র‍্যাবের হেফাজতে নেয়া হয়। কিন্তু আটকের পরপরই তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন। পরে দ্রুত তাকে নওগাঁ সদর হাসপাতালে নেয়া হয়। প্রাথমিক চিকিৎসার পর চিকিৎসকেরা তাকে রাজশাহীতে নেয়ার পরামর্শ দেন। কিন্তু রাজশাহীতে নেওয়ার পর তার অবস্থা আরও খারাপ হয়। শুক্রবার রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্ট্রোক করে তিনি মারা যান। আইনি প্রক্রিয়া শেষে শনিবার দুপুরে স্বজনদের কাছে লাশ হস্তান্তর করা হয়।

মন্তব্য

তারুণ্য
Farmers who are deprived of bumper crops are wholesalers

বাম্পার ফলনেও বঞ্চিত কৃষক, পাইকারের পোয়াবারো

বাম্পার ফলনেও বঞ্চিত কৃষক, পাইকারের পোয়াবারো মাঠ থেকে বাজারে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে তরমুজ। ছবি: নিউজবাংলা
একটি বড় তরমুজ মাঠ থেকে কেনা পড়ে ৮০ থেকে ১২০ টাকায়। সেটি বাজারে নিয়ে বিক্রি ২৫০ থেকে ৩০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

ফেনীর সোনাগাজীর বিস্তীর্ণ চরাঞ্চলে বিগত বছরের মতো এবারও তরমুজের বাম্পার ফলন হয়েছে। গ্রীষ্মকালের জনপ্রিয় সুস্বাদু এই ফলটির উৎপাদন ভালো হলেও লাভের একটি বড় অংশ খেয়ে চলে যায় পাইকারদের পকেটে। এতে ন্যায্য দাম পাওয়া নিয়ে শঙ্কায় পড়েছেন স্থানীয় কৃষকরা।

তারা বলছেন, তরমুজের চাষাবাদ ব্যয়বহুল হওয়ায় ধার-দেনার পাশাপাশি পাইকারদের থেকে অগ্রিম টাকা নিতে হয়। এতে তাদের তেমন একটা লাভ হয় না। এ বিষয়টি বিবেচনা করে আগামী বছর থেকে সহায়তার আশ্বাস দিয়েছে স্থানীয় কৃষি বিভাগ।

ফেনী জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, জেলায় পাঁচ বছর আগে তরমুজ চাষের সম্ভাব্যতা যাচাইয়ে উপকূলীয় উপজেলা সোনাগাজীতে মাত্র ৫০ হেক্টর জমিতে তরমুজ চাষ হয়েছিল। এ বছর কৃষি বিভাগের লক্ষ্যমাত্রা ৩ শ ৮১ হেক্টরের বিপরীতে চাষ হয়েছে দ্বিগুণেরও বেশি জমিতে ।

স্থানীয় তরমুজ চাষি আইয়ুব নবী ফরহাদ বলেন, এ অঞ্চলে উৎপাদিত ওশেন সুগার, গ্লোরি, বাংলালিংক, ব্ল্যাক বেরি জাতের তরমুজ আকারে অনেক বড় ও সুস্বাদু হওয়ায় বাজারেও রয়েছে এর বেশ চাহিদা। চলতি বছর আমি ২২০ একর জমিতে তরমুজ চাষ করেছি। সব মিলিয়ে এতে প্রায় এক কোটি ২০ লাখ টাকা ব্যয় হয়েছে।

সোনাগাজীর বিস্তীর্ণ চরাঞ্চলে তরমুজ চাষের জন্য কৃষকদের অগ্রিম টাকা দিয়ে রাখেন আব্দুল কাদির পাইকার। তিনি বলেন, আমরা কৃষকদের অগ্রিম টাকা দিয়ে দিই। এ টাকা অনেকদিন পড়ে থাকে। আবার আমরা মাঠ থেকে পরিবহন ও শ্রমিক খরচ করে তা বাজারে নিয়ে যাই।

সরেজমিনে দেখ যায়, একটি বড় তরমুজ মাঠ থেকে কেনা পড়ে ৮০ থেকে ১২০ টাকায়। সেটি বাজারে নিয়ে বিক্রি ২৫০ থেকে ৩০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

এ নিয়ে কৃষক ইব্রাহিম মিয়া বলেন, সরকারি ঋণ সহায়তা না পাওয়ায় ধার-দেনা আর দাদন পরিশোধ নিয়ে চিন্তিত আছি আমরা। পাইকাররা সিন্ডিকেট করে। আমরা ন্যায্য দাম পাই না।

ফেনী জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মো. একরাম উদ্দিন বলেন, ফেনী নদীর বিস্তৃর্ণ চরাঞ্চলের পলিমাটি তরমুজ চাষের জন্য অত্যন্ত উপযোগী। এখানে তরমুজের ভালো ফলন হয়। এবার আমরা প্রণোদনা না দিলেও আমরা কৃষকদের পরামর্শ দিয়েছি। আগামী বছর থেকে আমরা প্রণোদনা দেয়ার কথা ভাবছি।

আরও পড়ুন:
১২ কেজির তিন তরমুজ ১০০ টাকা!
দাম কমেছে তরমুজের, শঙ্কায় চাষিরা
‘সিন্ডিকেট করে’ বাড়ানো হচ্ছে তরমুজবাহী ট্রাকের ভাড়া
হতাশার তরমুজ!
প্রকাশ্যে চাঁদাবাজি, জানে না প্রশাসন

মন্তব্য

p
উপরে