সারা দেশে ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেটের এক দাম

সারা দেশে ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেটের এক দাম

বর্তমানে ইউনিয়ন পর্যায়ে ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট সেবার কোন মূল্য নির্দিষ্ট না থাকায় শহর ও গ্রামের সেবার মান ও মূল্যে বিস্তর তফাৎ রয়েছে। গ্রাহক কম থাকায় অনেক আইএসপি ইউনিয়ন পর্যায়ে যেতে আগ্রহী হয় না। গেলেও অধিক অর্থ আদায় করে। নতুন ‘এক দেশ, এক রেট’ ট্যারিফের মাধ্যমে সকল ইউনিয়নের জন্য ইন্টারনেট ব্যান্ডউইথ মূল্যের সর্বোচ্চ সীমা নির্ধারণ করায় প্রান্তিক পর্যায়ের ব্যবহারকারীরা সাশ্রয়ী মূল্যে ইন্টারনেট সুবিধা পাবে বলে মনে বিটিআরসি।

আওয়ামী লীগ সরকারের নির্বাচনী ইশতেহার বাস্তবায়নের ধারাবাহিকতায় সারা দেশে এক দামে ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট সেবা নিশ্চিত করতে দাম নির্ধারণ করেছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন- বিটিআরসি।

‘এক দেশ, এক রেট’-এই প্রতিপাদ্য নিয়ে পাঁচ এমবিপিএস শেয়ার্ড ব্যান্ডউইথ প্যাকেজের মূল্য ৫০০ টাকা, ১০ এমবিপিএস প্যাকেজের মূল্য সর্বোচ্চ ৮০০ টাকা এবং ২০ এমবিপিএস ব্যান্ডউইথ প্যাকেজের মূল্য সর্বোচ্চ ১২০০ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে।

বিটিআরসির প্রধান সম্মেলনে কক্ষে রোববার বিকেলে কমিশনের চেয়ারম্যান শ্যাম সুন্দর সিকদারের সভাপতিত্বে এক অনুষ্ঠানে ‘এক দেশ, এক রেট’ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার।

এর মধ্য দিয়ে বিটিআরসি প্রথমবারের মতো প্রান্তিক পর্যায়ে সারা দেশের জন্য ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেটের ট্যারিফ নির্ধারণ করে। ফলে প্রান্তিক পর্যায়ের গ্রাহকরা এই নির্ধারিত মূল্যে ইন্টারনেট সেবা দাতাদের-আইএসপি কাছ থেকে ইন্টার সেবা নেবে।

এ সময় ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী বলেন, ‘করোনা মহামারির সময় ইন্টারনেটের গুরুত্ব সবাই উপলব্ধি করতে পেরেছে। ইউনিয়ন পর্যায়ে ইন্টারনেটের সেবার পাশাপাশি ঘরে ঘরে ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট পৌঁছে দেয়ার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। দেশের চরাঞ্চলে ও হাওড় এলাকায় বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের মাধ্যমে ইন্টারনেট সেবা দেয়া হচ্ছে।’

ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব আফজাল হোসেন বলেন, ‘আগে ইন্টারনেটের মূল্য নির্ধারণ করে না দেয়ায় এলাকাভিত্তিক বিভিন্ন প্যাকেজ বিদ্যমান ছিল। নতুন এক দেশ এক রেট নির্ধারণের ফলে প্রান্তিক গ্রাহকরা নির্দিষ্ট মূল্যে ইন্টারনেট সেবা পাবেন এবং এর ফলে ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর হারও বাড়বে।’

তবে ইন্টারনেট সেবাদানকারীরা যেন প্যাকেজে নির্দিষ্ট গতি পান সে বিষয় নজরদারির ওপর গুরুত্বারোপ করেন তিনি।

বিটিআরসি চেয়ারম্যান জনাব শ্যাম সুন্দর সিকদার বলেন, ‘বিটিআরসি টেলিযোগাযোগ খাত সংশ্লিষ্ট সবার সাথে আলোচনা অব্যাহত রেখে সমস্যা সমাধানে কাজ করে যাবে।’

কমিশনের ভাইস-চেয়ারম্যান সুব্রত রায় মৈত্র বলেন, ‘এক দেশে এক রেট ট্যারিফ নির্ধারণের ফলে ইন্টারনেট সেবা প্রদান ও গ্রহণের ক্ষেত্রে শৃঙ্খলা ফিরে আসবে।’

ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট দাম নির্ধারণ করে দেয়া স্বাগত জানিয়েছেন ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডার অ্যাসোসিয়েশন। সংগঠনটির সভাপতি আমিনুল হাকিম বলেন, ‘এর ফলে আইএসপিদের সঙ্গে ব্যবহারকারীদের দূরত্ব কমবে।’

ন্যাশনওয়াইড টেলিকমিউনিকেশন ট্রান্সমিশন নেটওয়ার্ক ও ইন্টারন্যাশনাল ইন্টারনেট গেটওয়ের ট্যাারিফ নির্ধারণের জন্য বিটিআরিসির প্রতি অনুরোধ জানান তিনি।

এ ছাড়াও বিটিসিএলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ড. রফিকুল মতিন এবং এনটিটিএন ও আইআইজি অপারেটরদের প্রতিনিধিরা বিটিআরসির পদক্ষেপকে স্বাগত জানান এবং ভবিষ্যতে এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় সহযোগিতার আশ্বাস দেন।

বর্তমানে ইউনিয়ন পর্যায়ে ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট সেবার কোন মূল্য নির্দিষ্ট না থাকায় শহর ও গ্রামের সেবার মান ও মূল্যে বিস্তর তফাৎ রয়েছে। গ্রাহক কম থাকায় অনেক আইএসপি ইউনিয়ন পর্যায়ে যেতে আগ্রহী হয় না। গেলেও অধিক অর্থ আদায় করে। নতুন ‘এক দেশ, এক রেট’ ট্যারিফের মাধ্যমে সকল ইউনিয়নের জন্য ইন্টারনেট ব্যান্ডউইথ মূল্যের সর্বোচ্চ সীমা নির্ধারণ করায় প্রান্তিক পর্যায়ের ব্যবহারকারীরা সাশ্রয়ী মূল্যে ইন্টারনেট সুবিধা পাবে বলে মনে বিটিআরসি।

ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেটের ট্যারিফ নির্ধারণে সংশ্লিষ্ট সকল অপারেটরদের ব্যয় ও বাজার বিশ্লেষণ, ইন্টারন্যাশনাল ইন্টারনেট গেটওয়ের ব্যান্ডউইথ মূল্য, ন্যাশনওয়াইড টেলিকমিউনিকেশন ট্রান্সমিশন নেটওয়ার্কের ট্রান্সমিশন মূল্য, পয়েন্ট অব প্রেজেন্স (পপ), ইক্যুইপমেন্ট, ক্যাপাসিটি ব্যাক-আপ ব্যবস্থা- সবকিছু মূল্যায়ন ও বিবেচনা করে প্রান্তিক পর্যায়ে সাশ্রয়ী ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট সেবার জন্য একটি যৌক্তিক ও গ্রহণযোগ্য ইন্টারনেট ট্যারিফ নির্ধারণ করা হয়েছে বলে জানিয়েছে বিটিআরসি।

শেয়ার করুন

মন্তব্য

১ জুলাই বন্ধ হচ্ছে না কোনো ফোনসেট

১ জুলাই বন্ধ হচ্ছে না কোনো ফোনসেট

বিটিআরসি দীর্ঘদিন ধরেই জানিয়ে আসছে যে, ৩০ জুনের পর থেকে অনিবন্ধিত মোবাইল ফোনসেট আর ব্যবহার করা যাবে না। এ নিয়ে গ্রাহক ও ব্যবসায়ীদের মধ্যে উদ্বেগ আছে।

৩০ জুন থেকে অনিবন্ধিত মোবাইল ফোন বন্ধের যে সিদ্ধান্ত হয়েছে, তাতে ব্যবহারকারীদের উদ্বিগ্ন হওয়ার কোনো কারণ নেই। টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি) জানিয়েছে, গ্রাহকরা যেসব ফোন কিনে ব্যবহার করছেন, সেগুলো স্বয়ংক্রিয়ভাবেই নিবন্ধিত হয়ে যাবে।

বৈধ পথে আমদানি হয়নি বা দেশে উৎপাদন হয়নি, এমন যেসব সেট দোকানে আছে, সেগুলোও আর ব্যবহার করা যাবে না, এমন নয়।

তবে ১ জুলাই থেকে এসব হ্যান্ডসেট যে মোবাইল অপারেটর নেটওয়ার্কে যুক্ত হবে, সেগুলো প্রাথমিকভাবে নেটওয়ার্কে সচল করে ন্যাশনাল ইকুইপমেন্ট আইডেন্টিটি রেজিস্টারের (এনইআইআর) মাধ্যমে হ্যান্ডসেটের বৈধতা যাচাই করা হবে।

বিষয়টি নিউজবাংলাকে নিশ্চিত করেছেন বিটিআরসির উপপরিচালক (মিডিয়া) জাকির হোসেন খান।

বিটিআরসি দীর্ঘদিন ধরেই জানিয়ে আসছে যে, ৩০ জুনের পর থেকে অনিবন্ধিত মোবাইল ফোনসেট আর ব্যবহার করা যাবে না। এ নিয়ে গ্রাহক ও ব্যবসায়ীদের মধ্যে উদ্বেগ আছে।

বাংলাদেশে গত কয়েক বছরে মোবাইল ফোন সংযোজনে কারখানা স্থাপন হলেও আগে পুরোটাই ছিল আমদানিনির্ভর। তবে বৈধপথে কর দিয়ে আমদানির পাশাপাশি চোরাচালানের মাধ্যমেও কম ফোনসেট আসেনি দেশে। মূলত এসব ফোনই অবৈধ বলে বিবেচনা করা হচ্ছে।

কিন্তু গ্রাহকরা তুলনামূলক কম দামে পাওয়া যায় বলে ওয়ারেন্টি না থাকলেও এসব সেট কিনেছেন। যদি এর সবই বন্ধ হয়ে যায়, তাহলে তারা বিপাকে পড়বেন কি না, এ নিয়ে আছে জিজ্ঞাসা। আবার বহু ব্যবসায়ী এসব ফোন কিনে তাদের দোকানে তুলেছেন। তারাও বিটিআরসির সিদ্ধান্ত নিয়ে উদ্বেগে আছেন।

তবে এক সপ্তাহ বাকি থাকতে মোবাইল ফোন অপারেটররা এসএমএস দিয়ে আশ্বস্ত করেছে যে, কোনো গ্রাহকের ফোনসেট বন্ধ হবে না। পরে বিটিআরসির কর্মকর্তাও বললেন একই কথা।

গ্রাহকের সেট স্বয়ংক্রিয় রেজিস্ট্রেশন, দোকান থেকে কেনা সেট বৈধ না হলে নিবন্ধন

বিটিআরসির উপপরিচালক জানান, ১ জুলাই থেকে কেনা হ্যান্ডসেটটি বৈধ হলে স্বয়ংক্রিয়ভাবে এনইআইআরে নিবন্ধিত হয়ে নেটওয়ার্কে সচল থাকবে। আর যদি বৈধ না হয় সে ক্ষেত্রে গ্রাহককে এসএমএস দিয়ে বিষয়টি অবহিত করা হবে।

ওই হ্যান্ডসেটটি পরীক্ষাকালীন তিন মাসের জন্য নেটওয়ার্কে সংযুক্ত রাখা হবে। এরপর সরকারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

বিটিআরসির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, আগামী ১ জুলাই থেকে পরীক্ষামূলকভাবে শুরু হচ্ছে ন্যাশনাল ইকুইপমেন্ট আইডেন্টিটি রেজিস্টারের (এনইআইআর) কাজ। গ্রাহকের জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর ও সিম নম্বরের সঙ্গে ব্যবহার করা মোবাইল ফোনের আইএমইআই সম্পৃক্ত করে এই নিবন্ধন করা হবে।

সেট বৈধ কি না, যেভাবে যাচাই করবে গ্রাহক

জুলাই থেকে যেকোনো মাধ্যমে মোবাইল কেনার আগে সেটির বৈধতা যাচাই করে নেয়ার পরামর্শ দিয়েছে বিটিআরসি। বৈধতা যাচাইয়ের জন্য মোবাইল ফোনের মেসেজ অপশনে গিয়ে KYD<স্পেস>১৫ ডিজিটের আইএমইআই নম্বর লিখে ১৬০০২ নম্বরে এসএমএস পাঠাতে হবে। ফিরতি মেসেজে মোবাইল হ্যান্ডসেটের বৈধতা সম্পর্কে জানতে পারবে গ্রাহক।

বিদেশ থেকে কেনা বা উপহার পাওয়া মোবাইল সেটগুলোকে নিবন্ধনের আওতায় আসতে হবে বলেও জানিয়েছে বিটিআরসি। নেটওয়ার্কে সংযুক্ত হবার ১০ দিনের মধ্যে অনলাইনে তথ্য প্রমাণ দিয়ে নিবন্ধন করা যাবে। ১০ দিনের মধ্যে নিবন্ধন হলে হ্যান্ডসেটটি বৈধ হিসেবে বিবেচিত হবে।

পরীক্ষামূলক সময়ের তিন মাসের মধ্যে ডি-রেজিস্ট্রেশন ছাড়াই হ্যান্ডসেট হস্তান্তর করা যাবে। একজন ব্যবহারকারী নিজ নামে নিবন্ধন করা যেকোনো সিম দিয়ে যেকোনো হ্যান্ডসেট ব্যবহার করতে পারবেন। পরীক্ষামূলক সময় পার হলে ডিরেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়া সম্পর্কে জানানো হবে।

শেয়ার করুন

টিকটক, লাইকি বন্ধে রিট

টিকটক, লাইকি বন্ধে রিট

রিটে প্রযুক্তিবিদ, শিক্ষাবিদ ও আইনজীবীদের সমন্বয়ে একটি কমিটি গঠন করে তরুণদের জন্য ক্ষতিকর গেম ও অ্যাপ বন্ধে বিটিআরসিকে নিয়মিত সুপারিশ করার কথা বলা হয়েছে।

দেশের সব অনলাইন প্ল্যাটফর্ম থেকে টিকটক, লাইকি, বিগো লাইভ, পাবজির মতো সব অ্যাপ ও অনলাইন গেম অবিলম্বে সরিয়ে ফেলার নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে রিট করা হয়েছে।

মানবাধিকার সংগঠন ল’ অ্যান্ড লাইফ ফাউন্ডেশনের পক্ষে বৃহস্পতিবার সুপ্রিম কোর্টের দুই আইনজীবী ব্যারিস্টার মোহাম্মদ হুমায়ন কবির পল্লব ও ব্যারিস্টার মোহাম্মদ কাওছার এ রিট করেন।

রিটে পাবজি, ফ্রি ফায়ার, লাইকি, বিগো লাইভসহ সম্ভাব্য ক্ষতিকর সব গেম ও অ্যাপ অবিলম্বে নিষিদ্ধ করে অনলাইন প্ল্যাটফর্ম থেকে প্রত্যাহার করার নির্দেশনা চাওয়া হয়েছে।

একই সঙ্গে এসব অ্যাপ ও গেমের আড়ালে শত শত কোটি টাকা পাচার ও লেনদেনে জড়িত ব্যক্তিদের চিহ্নিত করে আইনি পদক্ষেপ নেয়ার নির্দেশনা চাওয়া হয়েছে।

রিটে প্রযুক্তিবিদ, শিক্ষাবিদ ও আইনজীবীদের সমন্বয়ে একটি কমিটি গঠন করে তরুণদের জন্য ক্ষতিকর গেম ও অ্যাপ বন্ধে বিটিআরসিকে নিয়মিত সুপারিশ করার কথা বলা হয়েছে।

ডাক ও টেলিযোগাযোগসচিব, বিটিআরসির চেয়ারম্যান, শিক্ষাসচিব, স্বরাষ্ট্রসচিব, আইনসচিব, স্বাস্থ্যসচিব, পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি), বাংলাদেশ ব্যাংক, মোবাইল অপারেটর, বিকাশ ও নগদকে বিবাদী করা হয়েছে।

রিটে বলা হয়, পাবজি ও ফ্রি ফায়ারের মতো গেমে বাংলাদেশের যুব সমাজ ও শিশু-কিশোররা ব্যাপকভাবে আসক্ত হয়ে পড়েছে। এর ফলে সামাজিক মূল্যবোধ, শিক্ষা, সংস্কৃতি বিনষ্ট হচ্ছে; ভবিষ্যৎ প্রজন্ম হয়ে পড়ছে মেধাহীন। এসব গেম দৃশ্যত যুব সমাজের সহিংসতা প্রশিক্ষণের কেন্দ্রবিন্দু হয়ে উঠছে।

রিটে উল্লেখ করা হয়, টিকটক, লাইকির মতো অ্যাপগুলো ব্যবহার করে দেশের শিশু-কিশোর ও যুবসমাজ বিভিন্ন অনৈতিক কর্মকাণ্ডে লিপ্ত হচ্ছে; অপরাধের সঙ্গে জড়িয়ে পড়ছে। সারা দেশে কিশোর গ্যাং কালচার তৈরি হচ্ছে।

টিকটক অনুসারীরা বিভিন্ন গোপনীয় জায়গায় পুল পার্টির নামে অনৈতিক বিনোদনে (শারীরিক সম্পর্ক) লিপ্ত হচ্ছে। এ ছাড়াও সম্প্রতি নারী পাচারের ঘটনা এবং বাংলাদেশ থেকে দেশের বাইরে অর্থপাচারের ঘটনা টিকটক, লাইকি ও বিগো লাইভের মাধ্যমে চলছে, যেটা অত্যন্ত আশঙ্কাজনক। এ ছাড়া দেশের শিশুরা বিভিন্ন অনলাইন গেমগুলোতে আসক্ত হয়ে যাচ্ছে। বিষয়টি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এবং তাৎপর্যপূর্ণ।

বিষয়টি মনিটর করার পাশাপাশি সময়ে সময়ে শিশুদের জন্য উপযোগী এবং যথাযথ অনলাইন গেমগুলোকে সুপারিশ করার জন্য একটি মনিটরিং টিম গঠন করা অত্যন্ত জরুরি বলে রিটে মত দেয়া হয়।

এর আগে এ বিষয়ে আইনি নোটিশ দেয়া হয়েছিল।

শেয়ার করুন

কারাগারে আত্মহত্যা অ্যান্টিভাইরাস স্রষ্টা ম্যাকাফির?

কারাগারে আত্মহত্যা অ্যান্টিভাইরাস স্রষ্টা ম্যাকাফির?

জনপ্রিয় অ্যান্টিভাইরাস সফটওয়্যার উদ্ভাবক জন ম্যাকাফির মরদেহ পাওয়া গেছে কারাগারে। ছবি: এএফপি

ম্যাকাফি আত্মহত্যা করে থাকতে পারেন বলে মনে করছেন তাকে উদ্ধারের পর চেতনা ফেরানোর চেষ্টাকারী কারা কর্মকর্তারা।

স্পেনে কারাগারের কক্ষ থেকে বুধবার উদ্ধার করা হয়েছে অ্যান্টিভাইরাস সফটওয়্যার ম্যাকাফির উদ্ভাবক জন ম্যাকাফির মরদেহ।

ম্যাকাফি আত্মহত্যা করে থাকতে পারেন বলে মনে করছেন তার চেতনা ফেরানোর চেষ্টাকারী কারা কর্মকর্তারা।

ডয়চে ভেলের প্রতিবেদনে জানানো হয়, করফাঁকির অভিযোগের বিষয়ে ব্যাখ্যা দিতে ম্যাকাফিকে যুক্তরাষ্ট্রে প্রত্যর্পণের পক্ষে রায় দিয়েছিল স্পেনের একটি আদালত।

গত বছরের অক্টোবরে ইস্তাম্বুলগামী একটি ফ্লাইটে ওঠার আগে স্পেনের বার্সেলোনা বিমানবন্দরে গ্রেপ্তার হন ম্যাকাফি। এর পর থেকে যুক্তরাজ্যে জন্ম নেয়া এ কম্পিউটার প্রোগ্রামার বন্দি ছিলেন স্পেনের কাতালোনিয়ার ব্রায়ানস-২ কারাগারে।

সেখান থেকে মরদেহ উদ্ধারের পর ম্যাকাফির আইনজীবী হাভিয়ের ভিয়ালবা বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে বলেন, এটি নিষ্ঠুর ব্যবস্থার ফল। ম্যাকাফিকে এত দীর্ঘসময় ধরে কারাগারে রাখার কোনো কারণই ছিল না।

এর আগে স্পেনের আদালত বুধবার জানিয়েছিল, প্রযুক্তিবিষয়ক উদ্যোক্তাকে যুক্তরাষ্ট্রের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে হস্তান্তর করা উচিত।

চলতি মাসের শুরুতে ভিডিওলিংকের মাধ্যমে শুনানিতে ম্যাকাফি বলেছিলেন, তার বিরুদ্ধে অভিযোগ রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। যুক্তরাষ্ট্রে প্রত্যর্পণ করা হলে তাকে বাকি জীবন কারাগারে কাটাতে হবে।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রসিকিউটরদের অভিযোগ, ৭৫ বছর বয়সী ম্যাকাফি পরামর্শ, বক্তৃতা ও ক্রিপ্টোকারেন্সির মাধ্যমে লাখ লাখ ডলার আয় করলেও গত চার বছরে জমা দেননি আয়কর রিটার্ন।

করফাঁকির অভিযোগ প্রমাণ হলে ম্যাকাফিকে ৩০ বছর পর্যন্ত কারাভোগ করতে হতো।

আশির দশক থেকে অ্যান্টিভাইরাস সফটওয়্যারের মাধ্যমে বিপুল অর্থ আয় করেন ম্যাকাফি। এরপর তিনি নিজেকে বিটকয়েন গুরু হিসেবে জাহির করেন।

শেয়ার করুন

টিকটক বন্ধে সরকারে আলোচনা

টিকটক বন্ধে সরকারে আলোচনা

ভারতে বাংলাদেশি তরুণীকে যৌন নির্যাতনের ভিডিও ফাঁসের পর আলোচনায় আসেন হৃদয় বাবু। তিনি ভারতে গ্রেপ্তার হয়েছেন।

সম্প্রতি ভারতে বাংলাদেশি তরুণীকে যৌন নির্যাতনের ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পর টিকটক-এর ফাঁদের মাধ্যমে নারী পাচারের একটি সংঘবদ্ধ চক্রের খোঁজ পাওয়া যায়। বাংলাদেশ ও ভারতে এই চক্রের বহুজন গ্রেপ্তার হয়েছে, যার মধ্যে নারীও আছেন।

চীনা ভিডিও শেয়ারিং অ্যাপ টিকটক-এর ফাঁদে ফেলে নারী পাচারের ঘটনা ফাঁস হওয়ার পর অ্যাপটি বন্ধে আলোচনা চলছে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

বুধবার দুপুরে কারা অধিদপ্তরে কারাবন্দি পোষ্যদের বঙ্গবন্ধু বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী এসব কথা বলেন। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে এই আয়োজন করা হয়।

মন্ত্রী বলেন, ‘তরুণ প্রজন্মকে বিপথগামী না করতে ভিডিও অ্যাপ টিকটক বন্ধে আলোচনা চলছে।’

উঠতি বয়সী তরুণ-তরুণীসহ সবাইকে সচেতন হওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

সম্প্রতি ভারতে বাংলাদেশি তরুণীকে যৌন নির্যাতনের ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পর টিকটক-এর ফাঁদের মাধ্যমে নারী পাচারের একটি সংঘবদ্ধ চক্রের খোঁজ পাওয়া যায়। বাংলাদেশ ও ভারতে এই চক্রের বহুজন গ্রেপ্তার হয়েছে, যার মধ্যে নারীও আছেন।

কেবল ভারত নয়, মালয়েশিয়া ও দুবাইয়েও নারী পাচারের তথ্য মিলেছে।

এই পরিপ্রেক্ষিতে মানবাধিকার সংগঠন ‘ল অ্যান্ড লাইফ’ ফাউন্ডেশন গত ১৯ জুন টিকটক ছাড়াও বিগো লাইভ, পাবজি, ফ্রি ফায়ার গেম, লাইকি এবং এ ধরনের অ্যাপগুলো বন্ধে সরকারকে আইনি নোটিশ পাঠায়।

ডাক ও টেলিযোগাযোগ সচিব, বিটিআরসির চেয়ারম্যান, শিক্ষা সচিব, স্বরাষ্ট্র সচিব, আইন সচিব, স্বাস্থ্য সচিব এবং পুলিশ প্রধানকে ই-মেইলযোগে এ নোটিশ পাঠানো হয়েছে।

নোটিশে বলা হয়, পাবজি এবং ফ্রি ফায়ারের মতো গেমে বাংলাদেশের যুবসমাজ এবং শিশু-কিশোররা ব্যাপকভাবে আসক্ত হয়ে পড়েছে। এর ফলে সামাজিক মূল্যবোধ, শিক্ষা, সংস্কৃতি বিনষ্ট হচ্ছে। এসব গেমস যুবসমাজকে সহিংসতার দিকে ঠেলে দিচ্ছে।

টিকটক বন্ধে সরকারে আলোচনা
ভারতে বাংলাদেশি তরুণীকে নির্যাতনের ভিডিও ফাঁসের পর টিকটক ব্যবহার করে নারীদের ফাঁদে ফেলে পাচারের বিষয়টি সামনে আসে

অন্যদিকে টিকটক, লাইকি অ্যাপস ব্যবহার করে দেশের শিশু-কিশোর এবং যুবসমাজ বিভিন্ন অনৈতিক কর্মকাণ্ডে লিপ্ত হচ্ছে। অপরাধের সঙ্গে জড়িয়ে পড়ছে এবং সারা দেশে কিশোর গ্যাং কালচার তৈরি হচ্ছে। টিকটক অনুসারীরা বিভিন্ন গোপনীয় জায়গায় ‘পুল পার্টির’ নামে অনৈতিক বিনোদন যৌন কার্যক্রমে লিপ্ত হচ্ছে।

এ ছাড়া সম্প্রতি নারী পাচারের ঘটনা এবং বাংলাদেশ থেকে দেশের বাইরে অর্থ পাচারের ঘটনায়ও টিকটক, লাইকি এবং বিগো লাইভের সম্পৃক্ততা পাওয়া গেছে। তা অত্যন্ত আশঙ্কাজনক এবং দেশের ও জনস্বার্থের পরিপন্থি। এটি শৃঙ্খলা ও মূল্যবোধ পরিপন্থি।

এনআইডির দায়িত্ব স্বরাষ্ট্রে নেয়া যথার্থ

এ সময় এক প্রশ্নে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী নির্বাচন কমিশনের কাছ থেকে জাতীয় পরিচয়পত্রের দায়িত্ব নিয়ে নেয়ার বিষয়েও কথা বলেন।

২০০৭ সালে সেনা-সমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকারে আমলে দুই বছরে ছবিসহ ভোটার তালিকা ও জাতীয় পরিচয়পত্র করা হয়। তখন থেকে নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ই এই তথ্যভাণ্ডার এর দায়িত্বে ছিল।

তবে সম্প্রতি এনআইডির নিয়ন্ত্রণ স্বরাষ্ট্রে নেয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে। আর প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদা এখনও এতে সম্মতি দেননি।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘জাতীয় পরিচয়পত্র তৈরির দায়িত্ব নির্বাচন কমিশনের কাছ থেকে নিয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে দেয়া যথার্থ হয়েছে। এ বিষয়ে যেসব কথা হচ্ছে তা একেবারেই অবান্তর।’

তিনি বলেন, ‘আমরা জেনে-বুঝেই সবার মতামত নিয়ে এনআইডি সেবাকে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অধীনে দিয়েছি। বিশেষজ্ঞদের পরামর্শও নেয়া হয়েছে এ বিষয়ে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অধীনে এলে জাতীয় পরিচয়পত্র নিয়ে জটিলতা হবে না।’

অনুষ্ঠানে সারা দেশের ৫৯টি কারাগারে সর্বমোট ১০০০ জন কারাবন্দির সন্তানদের বঙ্গবন্ধু বৃত্তি দেয়া হয়।

দেশের সব কারাগারের কর্মীরা ভার্চুয়ালি অনুষ্ঠানে সংযুক্ত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন কারা মহাপরিদর্শক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোমিনুর রহমান মামুন। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা-৭ আসনের সংসদ সদস্য হাজি মো. সেলিম, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুরক্ষা বিভাগের সচিব মোকাব্বির হোসেন।

শেয়ার করুন

মেয়েদের ফেসবুক আইডি হ্যাক যে কৌশলে

মেয়েদের ফেসবুক আইডি হ্যাক যে কৌশলে

মামুন ফিশিং লিংক তৈরি করে বিভিন্ন ব্যক্তির ফেসবুক মেসেঞ্জারে পাঠাতেন। এই লিংকে ক্লিক করলে ফেসবুক ইন্টারফেস আসে। তখন সেই লিংকে ঢুকতে ফেসবুক আইডি এবং পাসওয়ার্ড দিলে মামুনের কাছে সেই একাউন্টের আইডি ও পাসওয়ার্ড চলে যায়।

ফিশিং লিংক ব্যবহার করে ফেইসবুক আইডি হ্যাক করে অপকর্মের অভিযোগে এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে ঢাকা মহানগর পুলিশের গোয়েন্দা সাইবার অ্যান্ড স্পেশাল ক্রাইম বিভাগ।

তার নাম মামুন মিয়া। তার কাছ থেকে প্রতারণার কাজে ব্যবহার করা মোবাইল উদ্ধার করে সাইবার পুলিশ। পরে তাকে আদালতে তোলা হলে দুই দিনের রিমান্ডে পাঠান বিচারক।

গত সোমবার রাতে সুনামগঞ্জ জেলার দোয়ারা বাজার এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে ধরা হয়। আর দুই দিন পর বুধবার ঢাকা মহানগর পুলিশের মিডিয়া সেন্টারে সংবাদ সম্মেলন করে বিস্তারিত জানানো হয়।

ডিএমপির গোয়েন্দা বিভাগের অতিরিক্ত কমিশনার এ কে এম হাফিজ আক্তার জানান, মামুন তথ্য প্রযুক্তি জ্ঞান সম্পর্কে পারদর্শী। তিনি স্থানীয়ভাবে প্রশিক্ষণ নেয়ার পাশাপাশি ইউটিউব ও গুগল ঘেটে ফেইসবুক আইডি হ্যাক করার ফিশিং প্রক্রিয়া রপ্ত করেন।

এরপর নিজেই ফিশিং লিংক তৈরি করে বিভিন্ন ব্যক্তির ফেসবুক মেসেঞ্জারে পাঠাতেন। এই লিংকে ক্লিক করলে ফেসবুক ইন্টারফেস আসে। তখন সেই লিংকে ঢুকতে ফেসবুক আইডি এবং পাসওয়ার্ড দিলে মামুনের কাছে সেই একাউন্টের আইডি ও পাসওয়ার্ড চলে যায়।

পরে তিনি সেই আইডি পাসওয়ার্ড দিয়ে ফেসবুকে ঢুকে পাসওয়ার্ড পাল্টে ফেলতেন। পরে সেই আইডি থেকে স্বজন ও বন্ধুদের কাছ থেকে বিভিন্ন অজুহাতে টাকা চাইতেন।

ভুক্তভোগীরা সেই আইডিতে নক করলে তিনি পাসওয়ার্ড জানাতে মোটা অংকের টাকা দাবি করতেন বলে জানায় পুলিশ।

একাধিক প্রবাসীসহ অসংখ্য নারী মামুনের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছিলেন পুলিশের কাছে।

পুলিশ কর্মকর্তা হাফিজ আক্তার বলেন, ‘মামুন কয়েকজন প্রবাসী নারীকে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়েছিলেন যে, তাকে ধরা সম্ভব না। সেই চ্যলেঞ্জ ধরে আমরা তাকে সুনামগঞ্জের হাওর এলাকায় খুঁজে পেয়েছি।’

সংবাদ সম্মেলনে ফেসবুক আইডি হ্যাক প্রতিরোধে পুলিশের কিছু পরামর্শও দিয়েছে। সেগুলো হলো:

১. যাচাই না করে কোন ধরনের URL লিংক ক্লিক করা থেকে বিরত থাকা;

২. কোন URL লিংকে ক্লিক করার পর কোন ফেসবুক পেজে বা অন্য কোথাও রিডাইরেক্ট হলে লগইনের জন্য ফেসবুক আইডি/ পাসওয়ার্ড প্রদান করা থেকে বিরত থাকা;

৩. ফেসবুক আইডিতে টু-ফ্যাক্টর অথেনটিকেশনের সঙ্গে একটি ই-মেইল এড্রেস যোগ করে রাখা;

৪. Authorized logins অপশন চেক করা;

৫. ফেসবুক আইডি বা ম্যাসেঞ্জারে একান্ত ব্যাক্তিগত তথ্য ছবি আদান প্রদান, ভিডিও কথপোকথন থেকে বিরত থাকা;

৬. মোবাইলে আসা নোটিফিকেশনে Yes/No ক্লিক করার পূর্বে ভালোভাবে পড়ে নেয়া;

এবং

৭. ফেসবুকে তিন থেকে পাঁচ জন ট্রাস্টেড কনটাক্ট যোগ করা।

শেয়ার করুন

অনলাইন শপিংয়ের চার ফিচার আনল ফেসবুক

অনলাইন শপিংয়ের চার ফিচার আনল ফেসবুক

অনলাইন শপিংয়ের চার ফিচার আনল ফেসবুক । ছবিঃ সংগৃহীত

ফিচার চারটি হলো ইনস্টাগ্রাম ভিজ্যুয়াল সার্চ, মার্কেটপ্লেস শপ, হোয়াটসঅ্যাপ শপ ও অ্যাডভার্টাইজমেন্ট।

ই-কমার্স তথা অনলাইন শপিংয়ের গ্রাহককে আরও আকৃষ্ট করতে ও অনলাইনে বিক্রি বাড়াতে ফেইসবুক নতুন চারটি ফিচার আনার ঘোষণা দিয়েছে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বুধবার এক পোস্টে এ তথ্য জানান প্রতিষ্ঠানটির সহ-প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মার্ক জাকারবার্গ।

এ ছাড়া ‘ফেসবুক ফর বিজনেস’ এ বিষয়টি নিয়ে একটি নিবন্ধও প্রকাশ করেছে ফেসবুক নিউজরুম।

ফিচার চারটি হলো ইনস্টাগ্রাম ভিজ্যুয়াল সার্চ, মার্কেটপ্লেস শপ, হোয়াটসঅ্যাপ শপ ও অ্যাডভার্টাইজমেন্ট।

জাকারবার্গ প্রত্যাশা করেন, অনলাইন শপিংয়ের ক্ষেত্রে যুগান্তকারী পরিবর্তন আনতে এই ফিচারগুলো কাজ করবে। এতে অনলাইনে ক্রেতা ও বিক্রেতা উভয়ে উপকৃত হবেন।

ইনস্টাগ্রাম ভিজ্যুয়াল সার্চ

ইনস্টাগ্রাম ব্যবহারকারীরা ইনস্টাগ্রাম ভিজ্যুয়াল সার্চে তাদের চাহিদা অনুযায়ী পণ্যের নাম লিখে সার্চ করতে পারবেন। আমরা অনেকেই জানি, প্রায় সময়ই মার্ক জাকারবার্গ ধূসর রংয়ের টি-শার্ট ব্যবহার করেন। তাই এ বিষয়ে মার্ক জাকারবার্গ মজা করে বলেন যে, ‘আমি এখানে একটি ধূসর রঙের টি-শার্ট সার্চ দেব।’

অনলাইন শপিংয়ের চার ফিচার আনল ফেসবুক
ছবিঃ ফেসবুক ফর বিজনেস

মার্কেটপ্লেস শপ

বিশ্বব্যাপী প্রতি মাসে ১০০ কোটিরও বেশি মানুষ ফেসবুক মার্কেটপ্লেস ব্যবহার করেন। সে কারণে অনলাইন শপ থেকে ফেইসবুক মার্কেটপ্লেসে আসার উপায় সহজ করে তুলতে ফেসবুক শিগগিরই একটি নতুন ফিচার আনবে যার নাম মার্কেটপ্লেস শপ। জাকারবার্গ আশা করছেন, ফিচারটির মাধ্যমে ব্যবহারকারীর কাছে ফেইসবুক মার্কেটপ্লেস আরও সহজ হয়ে উঠবে।

হোয়াটসঅ্যাপ শপ

শিগগিরই হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীরা অ্যাপটিতে ছোটখাটো দোকানের মাধ্যমে পণ্য কেনা-বেচা করতে পারবেন। অনলাইন শপের মাধ্যমে পণ্য কেনার আগেই বিক্রেতার সঙ্গে ক্রেতা চ্যাট করার সুবিধা পাবেন এই ফিচারে। এটি সেট-আপ করতে হবে ফেসবুক, হোয়াটসঅ্যাপ ও ইনস্টাগ্রাম সমন্বয়ে।

অ্যাডভার্টাইজমেন্ট

জাকারবার্গ জানান, অনলাইন শপের বিজ্ঞাপন দেয়ার জন্য অ্যাডভার্টাইজমেন্ট ফিচার চালু করা হবে।

ফেসবুকে তিনি বলেন, অ্যাডভার্টাইজমেন্টের মাধ্যমে অনলাইন শপের পরিমাণ আরও বাড়বে।

শেয়ার করুন

বিটকয়েনের দাম ৫ মাসে সর্বনিম্ন

বিটকয়েনের দাম ৫ মাসে সর্বনিম্ন

বিটকয়েনের দাম আরও কমে প্রতিটি ৩০ হাজার ডলারের নিচে নেমেছে। ফাইল ছবি

ব্যাপক জনপ্রিয় মুদ্রাটি গত এপ্রিলে সর্বোচ্চ ৬৪ হাজার ৮৭০ ডলারে পৌঁছানোর পর এবার দাম কমে দাঁড়িয়েছে ২৮ হাজার ৮৯০ ডলার।

কিপ্টোকারেন্সি বিটকয়েনের দামে আরও পতন দেখা গেছে। ভার্চুয়াল মুদ্রাটির দাম গত পাঁচ মাসের বেশি সময়ের পর সর্বনিম্ন হয়েছে। মুদ্রাটির বিষয়ে চীন কঠোর অবস্থানের ঘোষণা দেয়ার পর এবার প্রতি বিটকয়েনের দাম কমে ৩০ হাজার ডলারের নিচে নেমেছে।

বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়, ব্যাপক জনপ্রিয় মুদ্রাটি গত এপ্রিলে সর্বোচ্চ ৬৪ হাজার ৮৭০ ডলারে পৌঁছানোর পর এবার দাম কমে দাঁড়িয়েছে ২৮ হাজার ৮৯০ ডলার।

যা এই দুই মাসের ব্যবধানে দাম ৫০ শতাংশ কমে গেছে।

চীনের ব্যাংক ও পেমেন্ট প্লাটফর্মগুলো বলছে তারা আর ডিজিটাল মুদ্রাটির লেনদেন সাপোর্ট করবে না।

চীনের সিচুয়ান প্রদেশে শুক্রবার বিটকয়েন মাইনিং বন্ধে যে আদেশ দেয়া হয়, সেটি অনুসরণ করেই এমন ব্যবস্থ নিয়েছে।

সোমবার চীনের কেন্দ্রীয় ব্যাংক জানিয়েছে, তারা সম্প্রতি বেশ কয়েকটি বড় ব্যাংক ও অর্থপ্রদানকারী সংস্থাগুলোকে ক্রিপ্টোকারেন্সির ব্যবসাযর বিষয়ে কঠোর পদক্ষেপ নেয়ার আহ্বান জানিয়েছে।

পিপলস ব্যাংক অফ চায়না এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, ব্যাংকগুলোকে ক্রিপ্টোকারেন্সি লেনদেনের জন্য বাণিজ্য, ক্লিয়ারিং ও নিষ্পত্তির মতো পণ্য বা পরিষেবা না দেয়ার জন্য বলা হয়েছিল।

চীনের তৃতীয় বৃহত্তম এগ্রিকালচার ব্যাংক অফ চাইনা বলেছে, তারা পিবিওসির নির্দেশনা মেনে কাজ করবে। এমনকি অবৈধ ক্রিপ্টোকারেন্সি মাইনিংয়ের মতো কাজে যারা জড়িত থাকবে তাদের বিষয়ে গ্রাহকদের সতর্ক করতেও কাজ করবে।

চীনের পোস্টাল সেভিংস ব্যাংকও জানিয়েছে, তারা ক্রিপ্টোকারেন্সি লেনদেন আর করবে না।

চীনের শীর্ষস্থানীয় মোবাইল ও অনলাইন পেমেন্ট প্লাটফর্ম আলি পে’র মূর প্রতিষ্ঠান চীনের আর্থিক প্রযুক্তি জায়ান্ট অ্যান্ট গ্রুপ বলেছে, তারার অবৈধ ক্রিপ্টোকারেন্সি লেনদেনের বিষয়টি নজরদারি করবে।

চীনের দক্ষিণপূর্বাঞ্চলের সিচুয়ান প্রদেশ কর্তৃপক্ষ শুক্রবার বিটকয়েন মাইনিং বন্ধ ঘোষণা করলে এমন ব্যবস্থা নিতে শুরু করে সংশ্লিষ্টরা।

ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের মতে, বিশ্বের মোট বিটকয়েনের ৬৫ শতাংশই গত বছর উৎপাদন করে চীন। যার বেশিরভাগই কার হয় সিচুয়ান প্রদেশ থেকে।

প্রযুক্তিক্ষেত্রে চীনের যে কয়েকটি অঞ্চল সবচেয়ে অগ্রসর তার মধ্যে সিচুয়ান প্রদেশ অন্যতম।

বিটকয়েনের দাম কমলেও গত কয়েক মাসে বেড়েছে ডজকয়েনের দাম। বিশেষ করে টেসলা প্রতিষ্ঠাতা ইলোন মাস্কের একটি টুইটের পর থেকে জনপ্রিয় হতে থাকে মুদ্রাটি।

মাস্ক তার মহাকাশ প্রতিষ্ঠান স্পেসএক্সের চাঁদে অভিযান পরিচালনার ব্যয় ডজকয়েনে করবেন ঘোষণা দিলে মুদ্রাটির দাম বাড়ে।

শেয়ার করুন