× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট বাংলা কনভার্টার নামাজের সময়সূচি আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

খেলা
Cricket analysts also echoed Touhids allegations
google_news print-icon

তৌহিদের অভিযোগে সুর মেলালেন ক্রিকেট বিশ্লেষকরাও

তৌহিদের-অভিযোগে-সুর-মেলালেন-ক্রিকেট-বিশ্লেষকরাও
ওটনিয়েল বার্টম্যানের বলে এলবিডব্লিউ হলেও রিভিউ নিয়ে বেঁচে যান মাহমুদুল্লাহ। ছবি: ক্রিকবাজ
ম্যাচ শেষে সাংবাদিকদের অভিযোগে প্রথম সাড়া দেন হৃদয়। তিনি বলেন, ‘সত্যি কথা বলতে, এত টানটান একটি ম্যাচে আমাদের জন্য এটা একেবারেই ভালো কল ছিল না। আম্পায়ার আউট দিয়েছিলেন, কিন্তু এটা আমাদের জন্য বেশ খরুচে হয়ে গেল। এই চার রান পেলে ম্যাচের দৃশ্যপট বদলে যেতে পারত।’

মাত্র চার রানে হেরে স্বপ্নভঙ্গ হওয়ার পর আইসিসির আইন নিয়ে সমালোচনা করেন তৌহিদ হৃদয়। ম্যাচশেষে হতাশ কণ্ঠে তাকে বলতে শোনা যায়, ‘আইন তো আর আমার হাতে নেই।’

সোমবার দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে আম্পায়ারের একটি ভুল সিদ্ধান্তে চার রান পাওয়া থেকে বঞ্চিত হয় টাইগররা। কাকতালীয়ভাবে ওই চার রানেই হেরেছে বাংলাদেশ।

ঘটনাটি সপ্তদশ ওভারে। ওটনিয়েল বার্টম্যানের একটি ডেলিভারি মাহমুদউল্লাহর প্যাডে লেগে পেছন দিয়ে সীমানা পার হয়ে যায়। তবে বল প্যাডে লাগার পর ফিল্ডারদের দুর্বল আবেদনেও আঙুল তুলতে দেরি করেননি আম্পায়ার। পরে রিভিউ নিয়ে অবশ্য বেঁচে যান মাহমুদউল্লাহ। তবে ওই চার রান আর বাংলাদেশের স্কোরবোর্ডে যোগ হয়নি।

আইসিসির নিয়ম অনুসারে, আম্পায়ার আউট দেয়ার সঙ্গে সঙ্গে বলটি ডেড বল হিসেবে গণ্য হবে। ফলে চার রান থেকে বঞ্চিত হয় বাংলাদেশ। অথচ বলটি আউট ছিল না।

এই নিয়মের কঠোর সমালোচনা করেছেন বেশ কয়েকজন সাবেক ক্রিকেটার।

ইএসপিএন ক্রিকইনফোকে দেয়া সাক্ষাৎকারে ক্ষোভ ঝেড়েছেন তামিম। তিনি বলেন, ‘আইসিসি চাইলেই এই আইন পরিবর্তন করে বিতর্ক এড়াতে পারে।’

এই ধরনের পরিস্থিতিতে বলের গতিবিধি ও ব্যাটারদের রান নেওয়া পর্যন্ত আম্পায়ার অপেক্ষা করতে পারেন বলে মত তার।

‘আপনার হাতে তো সময় আছে। আপনি চাইলেই ২ সেকেন্ড অপেক্ষা করে দেখতে পারেন, বল কোথায় যাচ্ছে, বাউন্ডারি হলো কি না। এসব দেখেও আপনি সিদ্ধান্ত জানাতে পারেন।’

তামিমের মতে, ব্যাটসম্যান যদি আউট না হন, তাহলে ওই বলে হওয়া রান দেয়া উচিত।

তিনি বলেন, ‘আমার কথা হয়তো সমর্থকদের মতো শোনাচ্ছে। তবে চিন্তা করলে দেখবেন, ওই ৪ রান খুব গুরুত্বপূর্ণ হতে পারত। ধারাভাষ্যকাররাও এটি নিয়ে কথা বলছিলেন।

‘আমি মনে করি, আইসিসি এ ব্যাপারে ভেবে দেখতে পারে। চাইলেই এটি এড়ানো সম্ভব। এমন নয় যে, খুব বড় কোনো পরিবর্তন করতে হবে তাদের।’

ক্রিকইনফোর ওই আয়োজনে থাকা দক্ষিণ আফ্রিকার সাবেক বোলার মরনে মরকেলের কণ্ঠেও শোনা যায় একই সুর।

তামিমের কথায় সমর্থন দিয়ে তিনি বলেন, ‘এমন হলে (পরিবর্তন) ফিল্ডাররাও বাউন্ডারি বা এক-দুই রানগুলো ঠেকানোর চেষ্টা করবে। খেলায় অবশ্যই কিছু একটা পরিবর্তন প্রয়োজন। আশা করছি, বিশ্বকাপের পর এটি নিয়ে ভাবা হবে।’

এদিকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পাকিস্তানের সাবেক পেসার ওয়াকার ইউনুসও এই নিয়মের সমালোচনা করেছেন।

আইসিসির নিয়মের বলি হয়ে বাংলাদেশের হারে আক্ষেপ করে তিনি বলেন, ‘এলবিডব্লিউতে ডেড বলের বিতর্কিত নিয়মটির ব্যাপারে (আইসিসির) পুনর্বিবেচনা করা উচিত। এ কারণে একটি অল্প রানের থ্রিলার ম্যাচ (দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে) হেরে গেল বাংলাদেশ।’

ম্যাচ শেষে সাংবাদিকদের অভিযোগে প্রথম সাড়া দেন হৃদয়। তিনি বলেন, ‘সত্যি কথা বলতে, এত টানটান একটি ম্যাচে আমাদের জন্য এটা একেবারেই ভালো কল ছিল না। আম্পায়ার আউট দিয়েছিলেন, কিন্তু এটা আমাদের জন্য বেশ খরুচে হয়ে গেল। এই চার রান পেলে ম্যাচের দৃশ্যপট বদলে যেতে পারত।’

তিনি বলেন, ‘এই ধরনের একটি ভেন্যুতে যেখানে লো স্কোরিং ম্যাচ হচ্ছে, এই চার রান বা দুটি ওয়াইডের কল, যা আমাদের পক্ষে দেয়া হলো না- এমন জায়গাগুলোতে (আম্পায়ারের) আরও উন্নতির জায়গা আছে।’

ক্রিকবাজের ম্যাচ-পরবর্তী আলোচনায়ও এ বিষয়টি নিয়ে বিশদ ব্যাখ্যা দেন নিউ জিল্যান্ডের সাবেক অলরাউন্ডার ও প্রখ্যাত ধারাভাষ্যকার সাইমন ডুল।

তিনি বলেন, ‘একবার ভাবুন তো, ফাইনাল ম্যাচে এমন কিছু হলো আর ভারত এর ভুক্তভোগী!

‘আমি জানি, খেলার নিয়ম পুরোপুরি বদলে ফেলা কঠিন। তবে এটা তেমন কোনো আইন নয়। কিছু একটা পরিবর্তন অবশ্যই দরকার।

‘ওই বল কোনোভাবেই স্ট্যাম্পে লাগত না, অথচ আম্পায়ার সঙ্গে সঙ্গে আঙুল তুলে দিলেন। এটা অনেকটা বন্দুকের ট্রিগারে চাপ দেয়ার মতো। খুবই বাজে সিদ্ধান্ত ছিল।’

আরও পড়ুন:
পারলেন না মাহমুদউল্লাহ, প্রোটিয়াদের বিপক্ষে আরও একবার হতাশ বাংলাদেশ

মন্তব্য

আরও পড়ুন

খেলা
Bangladesh advanced to the last eight after winning by 25 runs

২৫ রানে জিতে শেষ আটের দৌড়ে এগিয়ে গেল বাংলাদেশ

২৫ রানে জিতে শেষ আটের দৌড়ে এগিয়ে গেল বাংলাদেশ বিক্রমজিতের উইকেট নিয়ে মাহমুদউল্লাহর উদযাপন। ছবি: ক্রিকইনফো
বৃহস্পতিবার কিংসটাউনের আরনোস ভেল ক্রিকেট গ্রাউন্ডে টস হেরে শুরুতে ব্যাটিং করে পাঁচ উইকেট হারিয়ে ১৫৯ রান তোলে বাংলাদেশ। জবাবে ব্যাট করতে নেমে আট উইকেট হারিয়ে ১৩৪ রানে থামে নেদারল্যান্ডসের ইনিংস।

টি-টোয়েন্টিতে ১৬০ রানের লক্ষ্য খুব বেশি বড় না হলেও নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে ২৫ রানের জয় তুলে নিয়েছে বাংলাদেশ। এর ফলে শেষ আটে ওঠার দৌড়ে ডাচদের পেছনে ফেলে এক ধাপ এগিয়ে গেল টাইগাররা।

বৃহস্পতিবার কিংসটাউনের আরনোস ভেল ক্রিকেট গ্রাউন্ডে টস হেরে শুরুতে ব্যাটিং করে পাঁচ উইকেট হারিয়ে ১৫৯ রান তোলে বাংলাদেশ। জবাবে ব্যাট করতে নেমে আট উইকেট হারিয়ে ১৩৪ রানে থামে নেদারল্যান্ডসের ইনিংস।

বাংলাদেশের হয়ে রিশাদ হোসেন সর্বোচ্চ তিনটি উইকেট নেন। এর মধ্যে তার পঞ্চদশ ওভারে তার জোড়া উইকেটই ম্যাচের মোড় বাংলাদেশের দিকে ঘুরিয়ে দেয়। এছাড়া তাসকিন দুটি এবং মুস্তাফিজ, তানজিম সাকিব ও মাহমুদউল্লাহ পেয়েছেন একটি করে উইকেট।

ডাচদের হয়ে সাইব্র্যান্ড এঙ্গেলব্রেখট ৩৩, বিক্রমজিত সিং ২৬ ও স্কট এডওয়ার্ডস ২৫ রান করেন।

অপরাজিত ৬৪ রানের ইনিংসটির জন্য ম্যাচসেরার পুরস্কার পেয়েছেন সাকিব আল হাসান।

আরও পড়ুন:
যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষেও জিতে সুপার এইটে ভারত
কানাডার বিপক্ষে জিতে টিকে রইল পাকিস্তান
তৌহিদের অভিযোগে সুর মেলালেন ক্রিকেট বিশ্লেষকরাও
পারলেন না মাহমুদউল্লাহ, প্রোটিয়াদের বিপক্ষে আরও একবার হতাশ বাংলাদেশ

মন্তব্য

খেলা
Bangladesh set a target of 160 runs to the Dutch

ডাচদের ১৬০ রানের লক্ষ্য দিল বাংলাদেশ

ডাচদের ১৬০ রানের লক্ষ্য দিল বাংলাদেশ তৃতীয় ম্যাচে রান পেয়েছেন সাকিব। ছবি: ক্রিকইনফো
যুক্তরাষ্ট্র পর্বে প্রথম দুই ম্যাচে নিষ্প্রভ থাকলেও ওয়েস্ট ইন্ডিজে গিয়ে জ্বলে উঠেছে সাকিবের ব্যাট। তার অপরাজিত ৬৪ রানের ইনিংসটি টাইগারদের সর্বোচ্চ।

শেষ আটের দৌড়ে এগিয়ে যেতে নেদারল্যান্ডসকে ১৬০ রানের লক্ষ্য দিয়েছে বাংলাদেশ।

বৃহস্পতিবার কিংসটাউনের আরনোস ভেল ক্রিকেট গ্রাউন্ডে টস জিতে বাংলাদেশকে প্রথমে ব্যাটিং করার আমন্ত্রণ জানান ডাচ অধিনায়ক স্কট এডওয়ার্ডস। শুরুতে ব্যাটিং করে নির্ধারিত ২০ ওভার শেষে পাঁচ উইকেট হারিয়ে ১৫৯ রান তুলেছে বাংলাদেশ।

যুক্তরাষ্ট্র পর্বে প্রথম দুই ম্যাচে নিষ্প্রভ থাকলেও ওয়েস্ট ইন্ডিজে গিয়ে জ্বলে উঠেছে সাকিবের ব্যাট। তার অপরাজিত ৬৪ রানের ইনিংসটি টাইগারদের সর্বোচ্চ। ৯টি চারের সাহায্যে ৪৬ বলে এই রান করেন তিনি।

এছাড়া ওপেনার তানজিদ তামিম ৩৫ ও মাহমুদউল্লাহ ২৫ রান করেছেন।

ডাচদের হয়ে দুটি করে উইকেট নিয়েছেন আরিয়ান দত্ত ও ভ্যান মিকারেন।

আরও পড়ুন:
টস হেরে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ
যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষেও জিতে সুপার এইটে ভারত

মন্তব্য

খেলা
Bangladesh lost the toss and batted

টস হেরে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ

টস হেরে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে মাঠে নেমেছে বাংলাদেশ ও নেদারল্যান্ডস। ছবি: বিসিবি
ম্যাচের আগে খানিক বৃষ্টি হওয়ায় টস হতে আধঘণ্টা দেরি হয়ে যায়। তবে ভালো খবর এই যে, বৃষ্টি চলে গিয়ে তাড়াতাড়ি পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়েছে।

নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে মাঠে নেমেছে বাংলাদেশ ও নেদারল্যান্ডস। কিংসটাউনের আরনোস ভেল ক্রিকেট গ্রাউন্ডে টস জিতে বাংলাদেশকে প্রথমে ব্যাটিং করার আমন্ত্রণ জানিয়েছেন ডাচ অধিনায়ক স্কট এডওয়ার্ডস।

ম্যাচের আগে খানিক বৃষ্টি হওয়ায় টস হতে আধঘণ্টা দেরি হয়ে যায়। তবে ভালো খবর এই যে, বৃষ্টি চলে গিয়ে তাড়াতাড়ি পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়েছে।

নতুন মাঠ, আগে খেলার অভিজ্ঞতা নেই বলে সতর্কতামূলকভাবে আগে বোলিং করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন স্কট এডওয়ার্ডস। দলে একটি পরিবর্তন নিয়ে মাঠে নামছে তার দল। তেজা নিদামানুরুর পরিবর্তে আরিয়ান দত্তকে একাদশে রেখেছে নেদারল্যান্ডস।

অপরদিকে, আগে ব্যাটিং করতে সমস্যা নেই বলে জানিয়েছেন টাইগার অধিনায়ক নাজমুল হোসেন শান্ত। তবে সাবধানী ব্যাটিংয়ের কথা শুনিয়েছেন তিনি। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে খেলানো একাদশ অপরিবর্তিত রেখেই মাঠে নামছেন শান্ত।

টাইগার একাদশ: তানজিদ হাসান তামিম, নাজমুল হোসেন শান্ত, লিটন দাস, সাকিব আল হাসান, তৌহিদ হৃদয়, মাহমুদউল্লাহ, জাকের আলী, রিশাদ হোসেন, তাসকিন আহমেদ, তানজিম হাসান সাকিব, মুস্তাফিজুর রহমান।

ডাচ একাদশ: মাইকেল লেভিট, ম্যাক্স ওডাউড, বিক্রমজিৎ সিং, সাইব্র্যান্ড এঙ্গেলব্রেখ্ট, স্কট এডওয়ার্ডস (অধিনায়ক), বাস ডি লিড, লোগান ভ্যান বিক, টিম প্রিঙ্গল, আরিয়ান দত্ত, পল ভ্যান মিকারেন, ভিভিয়ান কিংমা।

আরও পড়ুন:
যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষেও জিতে সুপার এইটে ভারত
কানাডার বিপক্ষে জিতে টিকে রইল পাকিস্তান
তৌহিদের অভিযোগে সুর মেলালেন ক্রিকেট বিশ্লেষকরাও

মন্তব্য

খেলা
India also won against USA in Super Eight

যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষেও জিতে সুপার এইটে ভারত

যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষেও জিতে সুপার এইটে ভারত সূর্যকুমার ও শিবমের ব্যাটিং দৃঢ়তায় জয় পেয়েছে ভারত। ছবি: ক্রিকইনফো
প্রথম ইনিংসে ব্যাট করে ৮ উইকেটে ১১০ রান করে যুক্তরাষ্ট্র। জবাবে ব্যাট করতে নেমে ১০ বল হাতে রেখেই জয়ের বন্দরে পৌঁছায় ভারত।

টানা তিন ম্যাচ জিতে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সুপার এইট পর্ব নিশ্চিত করেছে ভারত। তৃতীয় ম্যাচে স্বাগতিক যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে ৭ উইকেটের জয় পেয়েছে রোহিত শর্মার দল।

বুধবার টস জিতে যুক্তরাষ্ট্রকে ব্যাটিংয়ে পাঠায় ভারত। প্রথম ইনিংসে ব্যাট করে ৮ উইকেটে ১১০ রান করে যুক্তরাষ্ট্র। জবাবে ব্যাট করতে নেমে ১০ বল হাতে রেখেই জয়ের বন্দরে পৌঁছায় ভারত।

দলের হয়ে সর্বোচ্চ অপরাজিত ৫০ রান করেন সূর্যকুমার যাদব। অপরপ্রান্তে ৩১ রানে অপরাজিত ছিলেন শিবম দুবে।

যুক্তরাষ্ট্রের হয়ে সৌরভ নেত্রাভালকার দুটি উইকেট নেন। বাকি উইকেটটি যায় আলী খানের ঝুলিতে।

প্রথম ইনিংসের অসাধারণ বোলিং পারফর্ম্যান্সে ম্যাচসেরা হয়েছেন আর্শদীপ সিং।

এ ম্যাচে হারলেও সুপার এইটের আশা শেষ হয়ে যায়নি যুক্তরাষ্ট্রের। আগামী শুক্রবার গ্রুপপর্বের শেষ ম্যাচে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে মাঠে নামবে তারা। শেষ আটে খেলতে ওই ম্যাচে তাদের জয় পেতেই হবে।

আরও পড়ুন:
আর্শদীপের বোলিং তোপের পর ১১০ রানে থামল যুক্তরাষ্ট্র
সুপার এইটের লক্ষ্যে আগে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত ভারতের

মন্তব্য

খেলা
USA stopped at 110 after Arshdeeps bowling cannon

আর্শদীপের বোলিং তোপের পর ১১০ রানে থামল যুক্তরাষ্ট্র

আর্শদীপের বোলিং তোপের পর ১১০ রানে থামল যুক্তরাষ্ট্র উইকেট পড়লেও ভারতীয় বোলারদের শাসন করে গেছেন যুক্তরাষ্ট্রের ব্যাটাররা। ছবি: ক্রিকেইনফো
টস হেরে প্রথমে ব্যাটিং করে ৮ উইকেট হারিয়ে ভারতকে ১১১ রানের লক্ষ্য দিয়েছে স্বাগতিকরা।

জিতলেই শেষ আট নিশ্চিত- এমন সমীকরণ নিয়ে মাঠে নেমেছে স্বাগতিক যুক্তরাষ্ট্র ও ভারত। টস হেরে প্রথমে ব্যাটিং করে ৮ উইকেট হারিয়ে ভারতকে ১১১ রানের লক্ষ্য দিয়েছে স্বাগতিকরা।

এদিন শুরুতেই জোড়া উইকেট শিকার করা আর্শদীপ অসাধারণ বোলিং নৈপুণ্য দেখিয়েছেন। চার ওভারে মাত্র ৯ রান দিয়ে চারটি উইকেট সংগ্রহ করেছেন তিনি। তবে বল হাতে এদিন বুমরাহ ছিলেন নিষ্প্রভ।

অপরদিকে, যুক্তরাষ্ট্রের হয়ে সর্বোচ্চ ২৭ রান করেছেন নীতীশ কুমার। স্টিভেন টেইলর ২৪ ও কোরি অ্যান্ডারসন করেছেন ১৪ রান।

আরও পড়ুন:
সুপার এইটের লক্ষ্যে আগে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত ভারতের

মন্তব্য

খেলা
Indias decision to field first for the Super Eight

সুপার এইটের লক্ষ্যে আগে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত ভারতের

সুপার এইটের লক্ষ্যে আগে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত ভারতের যুক্তরাষ্ট্র-ভারত টস মুহূর্ত। ছবি: ক্রিকইনফো
আর এক ম্যাচ জিতলেই প্রথমবার বিশ্বকাপে অংশ নিয়েই সুপার এইট নিশ্চিত হয়ে যাবে- এমন সমীকরণ নিয়ে ভারতের বিপক্ষে মাঠে নামছে যুক্তরাষ্ট্র। প্রথম দুই ম্যাচ জিতে ভারতের সামনেও একই সমীকরণ।

কানাডাকে হারিয়ে চলমান টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পর্দা উন্মোচন করা স্বাগতিক যুক্তরাষ্ট্র দ্বিতীয় ম্যাচেই ঘটায় অঘটন। শক্তিশালী পাকিস্তানকে হারিয়ে দুইয়ে দুই হয়ে যায় তাদের। এবার ক্রিকেটে নবাগত দেশটির সামনে ভারত।

আর এক ম্যাচ জিতলেই প্রথমবার বিশ্বকাপে অংশ নিয়েই সুপার এইট নিশ্চিত হয়ে যাবে- এমন সমীকরণ নিয়ে ভারতের বিপক্ষে মাঠে নামছে যুক্তরাষ্ট্র। প্রথম দুই ম্যাচ জিতে ভারতের সামনেও একই সমীকরণ।

বুধবার নিউ ইয়র্কের নাসাউ কাউন্টি আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস জিতে প্রথমে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ভারতের অধিনায়ক রোহিত শর্মা।

এই ম্যাচে ভারতের জয় দেখতে উদগ্রীব হয়ে থাকবে পাকিস্তান ও দলটির ভক্তরা। কারণ যুক্তরাষ্ট্র জিতলেই পাকিস্তানের সুপার এইট খেলার স্বপ্ন শেষ হয়ে যাবে। তবে ভারত হারলেও শেষ ম্যাচে কানাডাকে হারিয়ে শেষ আট নিশ্চিত করার সুযোগ থাকবে।

এই ম্যাচে ভারতের একাদশ অপরিবর্তিত থাকলেও যুক্তরাষ্ট্র দুটি পরিবর্তন নিয়ে মাঠে নামছে। মোনাঙ্কের পরিবর্তে শায়ান জাহাঙ্গীর এবং নস্টুশের পরিবর্তে শ্যাডলি ভ্যান শাল্কউইককে নিয়ে মাঠে নামছেন অ্যারন জোন্স।

ভারত একাদশ: রোহিত শর্মা (অধিনায়ক), বিরাট কোহলি, ঋষভ পান্ত, সূর্যকুমার যাদব, শিবম দুবে, হার্দিক পান্ডিয়া, রবীন্দ্র জাদেজা, অক্ষর প্যাটেল, জাসপ্রীত বুমরাহ, আরশদীপ সিং, মোহাম্মদ সিরাজ।

যুক্তরাষ্ট্র একাদশ: স্টিভেন টেলর, শায়ান জাহাঙ্গীর, অ্যান্ড্রিস গাউস, অ্যারন জোন্স (অধিনায়ক), নীতীশ কুমার, কোরি অ্যান্ডারসন, হারমিত সিং, শ্যাডলি ভ্যান শাল্কউইক, জসদীপ সিং, সৌরভ নেত্রাভালকার, আলী খান।

আরও পড়ুন:
অ্যারনের ব্যাটে ভর করে কানাডার সংগ্রহ ১০৬
তৌহিদের অভিযোগে সুর মেলালেন ক্রিকেট বিশ্লেষকরাও
পারলেন না মাহমুদউল্লাহ, প্রোটিয়াদের বিপক্ষে আরও একবার হতাশ বাংলাদেশ

মন্তব্য

খেলা
Pakistan survived by winning against Canada

কানাডার বিপক্ষে জিতে টিকে রইল পাকিস্তান

কানাডার বিপক্ষে জিতে টিকে রইল পাকিস্তান
প্রথম ইনিংসে সাত উইকেটে ১০৬ রান করে সাদ বিন জাফরের দল। জবাবে ব্যাট করতে নেমে ১৫ বল হাতে রেখেই দুই উইকেট হারিয়ে জয়ের বন্দরে পৌঁছায় পাকিস্তান।

তৃতীয় ম্যাচে এসে অবশেষে জয়ের দেখা পেয়েছে পাকিস্তান। কানাডার বিপক্ষে ৭ উইকেটের বড় ব্যবধানে জয় পেয়েছে তারা।

মঙ্গলবার নিউ ইয়র্কের নাসাউ কাউন্টি স্টেডিয়ামে টস জিতে কানাডাকে শুরুতে ব্যাট করতে পাঠান বাবর আজম। প্রথম ইনিংসে সাত উইকেটে ১০৬ রান করে সাদ বিন জাফরের দল। জবাবে ব্যাট করতে নেমে ১৫ বল হাতে রেখেই দুই উইকেট হারিয়ে জয়ের বন্দরে পৌঁছায় পাকিস্তান।

দলের হয়ে মোহাম্মদ রিজওয়ান অপরাজিত সর্বোচ্চ ৫৩ রান করেন। আর বাবর আজম করেন ৩৩ রান।

কানাডার হয়ে দুটি উইকেট নেন ডিলন হেইলিগার। বাকি উইকেটটি নেন জেরেমি গর্ডন।

৫৩ রানের অনবদ্য ইনিংস খেলায় ম্যাচসেরার পুরস্কার ওঠে রিজওয়ানের হাতে।

আরও পড়ুন:
অ্যারনের ব্যাটে ভর করে কানাডার সংগ্রহ ১০৬
পারলেন না মাহমুদউল্লাহ, প্রোটিয়াদের বিপক্ষে আরও একবার হতাশ বাংলাদেশ

মন্তব্য

p
উপরে