× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট বাংলা কনভার্টার নামাজের সময়সূচি আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

খেলা
Zimbabwe lost the fourth T20 by 5 runs
google_news print-icon

চতুর্থ টি-টোয়েন্টিতেও জিম্বাবুয়েকে হারাল বাংলাদেশ

চতুর্থ-টি-টোয়েন্টিতেও-জিম্বাবুয়েকে-হারাল-বাংলাদেশ
জিম্বাবুয়েকে হোয়াইটওয়াশ করার পথে আরও এক ধাপ এগোলো বাংলাদেশ। ছবি: ক্রিকইনফো
টস হেরে নির্ধারিত ২০ ওভারে সবকটি উইকেট হারিয়ে ১৪৩ রান তোলে টাইগাররা। জবাবে খেলতে নেমে দুই বল বাকি থাকতেই ১৩৮ রানে অলআউট হয় জিম্বাবুয়ে।

প্রথম তিন ম্যাচ হারের পর চতুর্থ টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশকে স্বল্প রানে আটকাতে সমর্থ হয় জিম্বাবুয়ে। তবে ১৪৪ রানের সেই লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ৪ রানে হেরেছে তারা। এ জয়ের ফলে পাঁচ ম্যাচ সিরিজটি ৪-০’তে এগিয়ে গেল বাংলাদেশ।

শুক্রবার মিরপুরে টস হেরে নির্ধারিত ২০ ওভারে সবকটি উইকেট হারিয়ে ১৪৩ রান তোলে টাইগাররা। জবাবে খেলতে নেমে দুই বল বাকি থাকতেই ১৩৮ রানে অলআউট হয় জিম্বাবুয়ে।

বাংলাদেশের হয়ে সাকিব চারটি, মোস্তাফিজ তিনটি ও তাসকিন দুটি উইকেট নেন। অন্য উইকেটটি পান রিশাদ হোসেন।

স্বল্প পুঁজির পর যেমন শুরুর প্রয়োজন ছিল তাসকিন তা এনে দেন বাংলাদেশকে। প্রথম ওভারে রানের খাতা খোলার আগেই ব্রায়ান বেনেটকে বিদায় করেন দুর্দান্ত ফর্মে থাকা এ পেসার।

এরপর চতুর্থ ওভারে ফের দেখা যায় তাসকিনের উল্লাস। এবার তার শিকার জিম্বাবুয়ে অধিনায়ক রাজা। ৩.৫ ওভারে তাসকিনের শর্ট অব লেংথ ডেলিভারিটি পিচ করে ভেতরে ঢুকতে গেলে জায়গায় দাঁড়িয়ে অন সাইডে খেলার চেষ্টা করেন। তবে তাকে বোকা বানিয়ে স্ট্যাম্প গুঁড়িয়ে দেয় বল। ১০ বলে ১৭ রান করে রাজা ফিরে গেলে দলীয় ২৮ রানে ২ উইকেট হারায় সফরকারীরা।

পরের ওভারে মারুমানিকে ফেরান সাকিব। ৩২ রানে ৩ উইকেট হারানো জিম্বাবুয়ের বিপদে আরও বাড়ে ক্লাইভ মান্ডান্ডের বিদায়ে। জনাথন ক্যাম্পবেলের সঙ্গে বড় জুটি গড়ার ইঙ্গিত দিয়েও তা বেশিদূর নিয়ে যেতে ব্যর্থ হন তিনি। দশম ওভারে রিশাদের বলে লেগ বিফোরের ফাঁদে পড়ে ১৮ বলে ১২ রান করে সাজঘরের পথ ধরেন তিনি।

এরপর রায়ান বার্লকে নিয়ে উইকেটে থিতু হওয়ার চেষ্টা করেন ক্যাম্পবেল। খানিকটা সফলও হন তারা। পাঁচ ওভার পর বার্লও ফিরে যান; ভাঙে ৩৫ রানের জুটি। ৯২ রানে পাঁচ উইকেট হারানোর পর আর কোনো বড় জুটি গড়তে পারেনি জিম্বাবুয়ে। নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকে তারা। ওই ওভারেই জোড়া উইকেট নেন মোস্তাফিজ। এরপর ৩১ রান করা জনাথন ফিরে যান দলীয় ১০৩ রানে।

শেষ ১২ বলে জিম্বাবুয়ের প্রয়োজন ছিল ২১ রানের। বোলিংয়ে এসে ১৯তম ওভারের তৃতীয় বলে ফারাজ আকরামকে মোস্তাফিজ বিদায় করলে শেষ ওভারে শেষ ওভারে ১৪ রান করতে হতো সফরকারীদের।

শেষ ওভারে সাকিবের প্রথম দুই বলে এক রান হলেও পরের বলে ছক্কা হাঁকান মুজারাবানি। চতুর্থ বলটি ওয়াইড হলেও স্ট্যাম্পিং হয়ে ফিরে যান তিনি। পরের বলে এনগারাভাকে বোল্ড করে বাংলাদেশের চতুর্থ জয় নিশ্চিত করেন সাকিব।

চতুর্থ টি-টোয়েন্টিতেও জিম্বাবুয়েকে হারাল বাংলাদেশ

এর আগে প্রথম ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে দলকে দারুণ শুরু এনে দেন সৌম্য ও তানজিদ। এই দুই ওপেনারের দৃঢ়তায় উইকেট না হারিয়েই দলীয় সংগ্রহ ১০০ পার করে বাংলাদেশ।

তবে এর পরই লুক জঙ্গুয়ের বলে ক্যাচ হয়ে যান তানজিদ। দ্বাদশ ওভারের দ্বিতীয় বলে জঙ্গুয়ের স্লোয়ার ডেলিভারিতে লফটেড শট দিতে গিয়েছিলেন তানজিদ, কিন্তু ব্যাটের কানায় লেগে উপরে উঠে গেলে ব্যাকওয়ার্ড পয়েন্টে দৌঁড়ে গিয়ে ক্যাচটি লুফে নেন জনাথন ক্যাম্পবেল। ফেরার আগে সাতটি চার ও একটি ছক্কায় ৩৭ বলে ৫৪ রানের ইনিংস খেলে যান তানজিদ।

প্রথম ম্যাচে অপরাজিত ৬৭ রানের ইনিংসের পর চতুর্থ ম্যাচেও আরেকটি পঞ্চাশ পেরুনো ইনিংস খেললেন তানজিদ। এর ফলে কোনো দ্বিপাক্ষিক সিরিজে দুটি ফিফটি করা চতুর্থ বাংলাদেশি ব্যাটার বনে যান তিনি। তার আগে কেবল লিটন দাস, তামিম ইকবাল ও সৌম্য সরকার এ কীর্তি গড়তে পেরেছেন।

প্রথম উইকেট পড়ার সঙ্গে সঙ্গে শুরু হয়ে যায় বাংলাদেশের উইকেট বৃষ্টি। তানজিদের ফেরার পরপরই সাজঘরে ফেরেন সৌম্য। দ্বাদশ ওভারের শেষ বলে জঙ্গুয়ের ইয়র্কারে বিভ্রান্ত হন তিনি। বল তার প্যাডে লাগলে আম্পায়ার আঙুল তুলে দেন। ফলে ৩টি চার ও দুটি ছক্কায় ৩৪ বলে ৪১ রান করে ফিরে যান তিনিও।

এর তৌহিদ হৃদয়কে সঙ্গে নিয়ে খেলতে থাকেন অধিনায়ক শান্ত। তবে হৃদয়ও বেশিক্ষণ খেলতে পারেননি। চতুর্দশ ওভারের চতুর্থ বলে রাজার ডেলিভারি অন সাইডে ঘোরার মুখে হাত ঘুরিয়ে ছক্কা মারতে যান তিনি, কিন্তু মারে জোর না থাকায় ডিপ ব্যাকওয়ার্ড স্কয়ার লেগ অঞ্চলে দাঁড়িয়ে থাকা বেনেটের তালুবন্দি হয়ে সাজঘরে ফেরেন।

এর পরের ওভারে আবারও উল্লাসে মাতেন জিম্বাবুয়ের ফিল্ডাররা। জোড়া উইকেট শিকার করেন ব্রায়ান বেনেট। নিজের তৃতীয় ওভারের দ্বিতীয় বলে বেশ কয়েক মাস পর দলে ফেরা সাকিবকে বোল্ড করে দেন তিনি। শেষ বলে শান্তকে বোল্ড করে প্যাভিলিয়নের পথ দেখান।

ফলে ১০১ রানে কোনো উইকেট না হারানো বাংলাদেশ ১২৩-এই পাঁচ উইকেট হারিয়ে বসে।

স্কোরবোর্ডে ৫ রান যোগ হতে না হতেই আবারও জোড়া উইকেট হারায় বাংলাদেশ। সাত বলে ছয় রান করে ফিরতে হয় জাকের আলীকে। ১৭তম ওভারের প্রথম বলেই এনগারাভার ডেলিভারিটি উঁচিয়ে মারতে গিয়ে থার্ড ম্যান অঞ্চেলে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন জাকের। পঞ্চম বলে রান আউট হয়ে যান তাসকিন আহমেদ।

এরপর ১৮তম ওভারে রিশাদ হোসেন, ১৯তম ওভারে তানজিম সাকিব এবং শেষ ওভারের শেষ বলে মোস্তাফিজুর আউট হন।

দলের হয়ে তানজিদের ৫৪ ও সৌম্যর ৪১ রানের ইনিংস দুটিই কেবল বলার মতো। এরপর তৌহিদ হৃদয় ছাড়া আর কেউই দুই অংকে পৌঁছাতে পারেনি।

জিম্বাবুয়ের হয়ে সর্বোচ্চ তিনটি উইকেট নেন জঙ্গুয়ে। দুটি করে উইকেট যায় এনগারাভা ও বেনেটের ঝুলিতে।

চার ওভারে মাত্র ১৯ রানের খরচায় তিন উইকেট নিয়ে ম্যাচসেরা হয়েছেন মোস্তাফিজ।

জিম্বাবুয়েকে হোয়াইটওয়াশের লক্ষ্যে রোববার বিকেল চারটায় পঞ্চম টি-টোয়েন্টিতে মাঠে নামবে বাংলাদেশ।

আরও পড়ুন:
বিনা উইকেটে একশ পার করেও ১৪৩ রানে অলআউট বাংলাদেশ
টসে হার, তিন পরিবর্তন নিয়ে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ

মন্তব্য

আরও পড়ুন

খেলা
Bangladesh defeated Nepal in the Super Eight
টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ

নেপালকে হারিয়ে সুপার এইটে বাংলাদেশ

নেপালকে হারিয়ে সুপার এইটে বাংলাদেশ নেপালকে হারিয়ে সুপার এইট নিশ্চিত করেছে বাংলাদেশ। ছবি: বাসস
দুই পেসার তানজিম হাসান ও মুস্তাফিজুর রহমানের বোলিং নৈপুণ্য ঈদুল আজহার দিন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের নবম আসরে সুপার এইট নিশ্চিত করল বাংলাদেশ। সোমবার গ্রুপ ‘ডি’তে নিজেদের চতুর্থ ও শেষ ম্যাচে বাংলাদেশ ২১ রানে হারিয়েছে নেপালকে।

গ্রুপ পর্বে নিজেদের শেষ ম্যাচ জিতেই সুপার এইট নিশ্চিত করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল।

দুই পেসার তানজিম হাসান ও মুস্তাফিজুর রহমানের বোলিং নৈপুণ্য ঈদুল আজহার দিন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের নবম আসরে সুপার এইট নিশ্চিত করল বাংলাদেশ। আজ গ্রুপ ‘ডি’তে নিজেদের চতুর্থ ও শেষ ম্যাচে বাংলাদেশ ২১ রানে হারিয়েছে নেপালকে। খবর বাসসের

এই জয়ে ৪ ম্যাচে ৩ জয় ও ১ হারে ৬ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের দ্বিতীয় স্থানে থেকে সুপার এইটে খেলবে বাংলাদেশ। নেপাল ছাড়াও গ্রুপ পর্বে শ্রীলঙ্কা ও নেদারল্যান্ডসকে হারিয়েছিল টাইগাররা। এই প্রথম টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের এক আসরে সর্বোচ্চ ৩ ম্যাচ জয়ের নজির গড়ল বাংলাদেশ।

গ্রুপ রানার্স-আপ হয়ে সুপার এইটে গ্রুপ-১ এ অস্ট্রেলিয়া (২১ জুন), ভারত (২২ জুন) ও আফগানিস্তানের (২৫ জুন) বিপক্ষে খেলবে বাংলাদেশ। ৪ ম্যাচে পূর্ণ ৮ পয়েন্ট নিয়ে এই গ্রুপ থেকে আগেই সুপার এইট নিশ্চিত করেছে দক্ষিণ আফ্রিকা।

এ ম্যাচে প্রথমে ব্যাট করে ১৯ দশমিক ৩ ওভারে ১০৬ রানে অলআউট হয় বাংলাদেশ। এরপর তানজিম-মুস্তাফিজের দারুণ বোলিংয়ে নেপালকে ৮৫ রানে গুটিয়ে দেয় টাইগাররা। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে এই প্রথম কোন দল এত কম রানের পুঁজি নিয়ে ম্যাচ জিতল। তানজিম ৪টি ও মুস্তাফিজ ৩ উইকেট নেন।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের সেন্ট ভিনসেন্টে টস হেরে প্রথমে ব্যাটিংয়ে নেমে ইনিংসের প্রথম বলে নেপালের পেসার সোমপাল কামির বলে ফিরতি ক্যাচ দিয়ে গোল্ডেন ডাক মারেন বাংলাদেশের ওপেনার তানজিদ হাসান।

দ্বিতীয় ওভারে নেপালের স্পিনার দিপ্রেন্দ্র সিংয়ের বলে বোল্ড হয়ে ব্যক্তিগত ৪ রানে সাজঘরে ফিরেন বাংলাদেশ অধিনায়ক নাজমুল হোসেন শান্ত।

৭ রানে ২ উইকেট হারিয়ে চাপে পড়া বাংলাদেশকে লড়াইয়ে ফেরানোর চেষ্টায় ব্যর্থ হন আরেক ওপেনার লিটন দাস ও আগের ম্যাচের হিরো সাকিব আল হাসান। ১০ রান করা লিটনকে নিজের দ্বিতীয় শিকার বানান সোমপাল।

লিটনের বিদায়ে ক্রিজে এসে দুটি চারে ইনিংস শুরু করলেও নেপালের অধিনায়ক রোহিত পাউডেলের বলে আউট হন ৯ রান করা তাওহিদ হৃদয়।

চতুর্থ উইকেটে ২০ বলে ২২ রানের জুটি গড়েন সাকিব ও মাহমুদুল্লাহ। নবম ওভারে মাহমুদুল্লাহর রান আউটে ভাঙে জুটি। দুটি চারে ১৩ রান করেন তিনি। নবম ওভারে দলীয় ৫২ রানে ৫ উইকেট হারায় বাংলাদেশ।

১১তম ওভারে পাউডেলের দ্বিতীয় শিকার হওয়ার আগে ২২ বলে ১৭ রান করেন সাকিব। এরপর তানজিম হাসান ৩ ও জাকের আলি ১২ রানে বিদায় নিলে ৭৫ রানে অষ্টম উইকেট হারায় বাংলাদেশ। শেষ দুই উইকেটে ৩১ রান যোগ করে বাংলাদেশের রান ১০০ পার করেন রিশাদ হোসেন, তাসকিন ও মুস্তাফিজ।

নবম উইকেটে রিশাদের সঙ্গে ১৩ ও শেষ উইকেটে মুস্তাফিজকে নিয়ে ১৮ রান তুলেন তাসকিন। এতে ১৯ দশমিক ৩ ওভারে ১০৬ রানে অলআউট হয় বাংলাদেশ। রিশাদ ১৩ ও মুস্তাফিজ ৩ রানে আউট হলেও, ১২ রানে অপরাজিত থাকেন তাসকিন। নেপালের সোমপাল কামি, পাউডেল, দিপেন্দ্র ও লামিচানে ২টি করে উইকেট নেন।

১০৭ রানের টার্গেটে খেলতে নেমে বাংলাদেশের পেসার তানজিম হাসানে তোপের মুখে পড়ে ২৬ রানে ৫ উইকেট হারায় নেপাল। ওপেনার কুশল ভার্তেল(৪), অনিল শাহ(০) , অধিনায়ক পাউডেল(১) ও সুন্দীপ জোরাকে (১) শিকার করেন তানজিম। এরমধ্যে নিজের দ্বিতীয় ওভারে ডাবল উইকেট মেডেন নেন তানজিম। পরের ওভারে আরও একটি মেডেন উইকেট নেন তানজিম।

তানজিমের সঙ্গে উইকেট শিকারে মেতে নেপালের ওপেনার আসিফ শেখকে ১৭ রানে বিদায় করেন মুস্তাফিজুর।

সপ্তম ওভারে ইনিংসের অর্ধেক ব্যাটার সাজঘরে ফেরত যাওয়ায় দ্রুতই হারের মুখে ছিটকে পড়ে নেপাল। কিন্তু ষষ্ঠ উইকেটে ৫৮ বলে ৫২ রান যোগ করে নেপালকে দারুণভাবে লড়াইয়ে ফেরান কুশল মাল্লা ও দিপেন্দ্র।

১৭তম ওভারের চতুর্থ বলে মাল্লাকে আউট করে বাংলাদেশকে গুরুত্বপূর্ণ ব্রেক-থ্রু এনে দেন মুস্তাফিজ।

দলীয় ৭৮ রানে মুস্তাফিজের ব্রেক-থ্রুর পর আর লড়াই করতে পারেনি নেপাল। ১৯ দশমিক ২ ওভারে ৮৫ রানে গুটিয়ে যায় তারা। দিপেন্দ্র দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২৫ রান করেন।

৪ ওভারে ২ মেডেনে ৭ রানে ৪ উইকেট নিয়ে ম্যাচ সেরা হন বাংলাদেশের তানজিম। ১০ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি এটিই ক্যারিয়ার সেরা বোলিং তার। এ ছাড়া শততম ম্যাচে মুস্তাফিজ ৪ ওভারে ৭ রানে ৩, সাকিব ৯ রানে ২ এবং তাসকিন ১ উইকেটে নেন।

মন্তব্য

খেলা
Rain broke Pakistans dreams in the US Super Eight

পাকিস্তানের স্বপ্ন ভাঙল বৃষ্টি, সুপার এইটে যুক্তরাষ্ট্র

পাকিস্তানের স্বপ্ন ভাঙল বৃষ্টি, সুপার এইটে যুক্তরাষ্ট্র ভেজা মাঠের কারণে কয়েক ঘণ্টা অপেক্ষা করেও ম্যাচটি পরিত্যক্ত হয়। ছবি: সংগৃহীত
শুক্রবার আয়ারল্যান্ড জিতলেই কেবল শেষ আটের স্বপ্ন বেঁচে থাকত পাকিস্তানের। এরপর গ্রুপপর্বের শেষ ম্যাচে ভাগ্য নিজেদের নিয়ন্ত্রণে নিয়ে তা পরিবর্তনের চেষ্টা করতে হতো বাবর আজমের দলের। তবে বৃষ্টিতে ম্যাচটি ভেসে যাওয়ায় তাদের সেই স্বপ্নভঙ্গ হয়েছে।

বিশ্বকাপে প্রথমবার অংশ নিয়েই সুপার এইটে খেলার যোগ্যতা অর্জন করল স্বাগতিক দেশ যুক্তরাষ্ট্র। এই স্বপপূরণে নিজেদের শেষ ম্যাচে আইরিশদের বধ করতে হতো তাদের। তবে বৃষ্টি এসে বিনা কষ্টেই যুক্তরাষ্ট্রের স্বপ্নপূরণ করে দিয়েছে।

এতে কপাল পুড়েছে পাকিস্তানের। যুক্তরাষ্ট্র ও ভারতের বিপক্ষে প্রথম দুই ম্যাচ হেরে তাদের সুপার এইটে ওঠার সম্ভাবনা জটিল সমীকরণের মধ্যে পড়ে যায়।

শুক্রবার আয়ারল্যান্ড জিতলেই কেবল শেষ আটের স্বপ্ন বেঁচে থাকত পাকিস্তানের। এরপর গ্রুপপর্বের শেষ ম্যাচে ভাগ্য নিজেদের নিয়ন্ত্রণে নিয়ে তা পরিবর্তনের চেষ্টা করতে হতো বাবর আজমের দলের। তবে বৃষ্টিতে ম্যাচটি ভেসে যাওয়ায় তাদের সেই স্বপ্নভঙ্গ হয়েছে। চার ম্যাচে তিন পয়েন্ট নিয়ে ‘এ’ গ্রুপের দ্বিতীয় দল হিসেবে সুপার এইটে উঠেছে যুক্তরাষ্ট্র।

বৃষ্টির কারণে এ ম্যাচে টস হতে দেরি হয়। প্রাথমিকভাবে রাত আটটার পরিবর্তে সাড়ে ৮টায় টস হওয়ার সিদ্ধান্ত হলেও ভেজা মাঠের কারণে কয়েক ঘণ্টায় বেশ কয়েকবার মাঠের অবস্থা পরীক্ষা করেন দুই আম্পায়ার। তবে শেষ পর্যন্ত খেলার সম্মতি দিতে ব্যর্থ হন তারা।

এর ফলে পাকিস্তানের পাশাপাশি কানাডা ও আয়ারল্যান্ডেরও সব সমীকরণ শেষ হয়ে গেছে।

আরও পড়ুন:
২৫ রানে জিতে শেষ আটের দৌড়ে এগিয়ে গেল বাংলাদেশ
যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষেও জিতে সুপার এইটে ভারত
কানাডার বিপক্ষে জিতে টিকে রইল পাকিস্তান

মন্তব্য

খেলা
Bangladesh advanced to the last eight after winning by 25 runs

২৫ রানে জিতে শেষ আটের দৌড়ে এগিয়ে গেল বাংলাদেশ

২৫ রানে জিতে শেষ আটের দৌড়ে এগিয়ে গেল বাংলাদেশ বিক্রমজিতের উইকেট নিয়ে মাহমুদউল্লাহর উদযাপন। ছবি: ক্রিকইনফো
বৃহস্পতিবার কিংসটাউনের আরনোস ভেল ক্রিকেট গ্রাউন্ডে টস হেরে শুরুতে ব্যাটিং করে পাঁচ উইকেট হারিয়ে ১৫৯ রান তোলে বাংলাদেশ। জবাবে ব্যাট করতে নেমে আট উইকেট হারিয়ে ১৩৪ রানে থামে নেদারল্যান্ডসের ইনিংস।

টি-টোয়েন্টিতে ১৬০ রানের লক্ষ্য খুব বেশি বড় না হলেও নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে ২৫ রানের জয় তুলে নিয়েছে বাংলাদেশ। এর ফলে শেষ আটে ওঠার দৌড়ে ডাচদের পেছনে ফেলে এক ধাপ এগিয়ে গেল টাইগাররা।

বৃহস্পতিবার কিংসটাউনের আরনোস ভেল ক্রিকেট গ্রাউন্ডে টস হেরে শুরুতে ব্যাটিং করে পাঁচ উইকেট হারিয়ে ১৫৯ রান তোলে বাংলাদেশ। জবাবে ব্যাট করতে নেমে আট উইকেট হারিয়ে ১৩৪ রানে থামে নেদারল্যান্ডসের ইনিংস।

বাংলাদেশের হয়ে রিশাদ হোসেন সর্বোচ্চ তিনটি উইকেট নেন। এর মধ্যে তার পঞ্চদশ ওভারে তার জোড়া উইকেটই ম্যাচের মোড় বাংলাদেশের দিকে ঘুরিয়ে দেয়। এছাড়া তাসকিন দুটি এবং মুস্তাফিজ, তানজিম সাকিব ও মাহমুদউল্লাহ পেয়েছেন একটি করে উইকেট।

ডাচদের হয়ে সাইব্র্যান্ড এঙ্গেলব্রেখট ৩৩, বিক্রমজিত সিং ২৬ ও স্কট এডওয়ার্ডস ২৫ রান করেন।

অপরাজিত ৬৪ রানের ইনিংসটির জন্য ম্যাচসেরার পুরস্কার পেয়েছেন সাকিব আল হাসান।

আরও পড়ুন:
যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষেও জিতে সুপার এইটে ভারত
কানাডার বিপক্ষে জিতে টিকে রইল পাকিস্তান
তৌহিদের অভিযোগে সুর মেলালেন ক্রিকেট বিশ্লেষকরাও
পারলেন না মাহমুদউল্লাহ, প্রোটিয়াদের বিপক্ষে আরও একবার হতাশ বাংলাদেশ

মন্তব্য

খেলা
Bangladesh set a target of 160 runs to the Dutch

ডাচদের ১৬০ রানের লক্ষ্য দিল বাংলাদেশ

ডাচদের ১৬০ রানের লক্ষ্য দিল বাংলাদেশ তৃতীয় ম্যাচে রান পেয়েছেন সাকিব। ছবি: ক্রিকইনফো
যুক্তরাষ্ট্র পর্বে প্রথম দুই ম্যাচে নিষ্প্রভ থাকলেও ওয়েস্ট ইন্ডিজে গিয়ে জ্বলে উঠেছে সাকিবের ব্যাট। তার অপরাজিত ৬৪ রানের ইনিংসটি টাইগারদের সর্বোচ্চ।

শেষ আটের দৌড়ে এগিয়ে যেতে নেদারল্যান্ডসকে ১৬০ রানের লক্ষ্য দিয়েছে বাংলাদেশ।

বৃহস্পতিবার কিংসটাউনের আরনোস ভেল ক্রিকেট গ্রাউন্ডে টস জিতে বাংলাদেশকে প্রথমে ব্যাটিং করার আমন্ত্রণ জানান ডাচ অধিনায়ক স্কট এডওয়ার্ডস। শুরুতে ব্যাটিং করে নির্ধারিত ২০ ওভার শেষে পাঁচ উইকেট হারিয়ে ১৫৯ রান তুলেছে বাংলাদেশ।

যুক্তরাষ্ট্র পর্বে প্রথম দুই ম্যাচে নিষ্প্রভ থাকলেও ওয়েস্ট ইন্ডিজে গিয়ে জ্বলে উঠেছে সাকিবের ব্যাট। তার অপরাজিত ৬৪ রানের ইনিংসটি টাইগারদের সর্বোচ্চ। ৯টি চারের সাহায্যে ৪৬ বলে এই রান করেন তিনি।

এছাড়া ওপেনার তানজিদ তামিম ৩৫ ও মাহমুদউল্লাহ ২৫ রান করেছেন।

ডাচদের হয়ে দুটি করে উইকেট নিয়েছেন আরিয়ান দত্ত ও ভ্যান মিকারেন।

আরও পড়ুন:
টস হেরে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ
যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষেও জিতে সুপার এইটে ভারত

মন্তব্য

খেলা
Bangladesh lost the toss and batted

টস হেরে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ

টস হেরে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে মাঠে নেমেছে বাংলাদেশ ও নেদারল্যান্ডস। ছবি: বিসিবি
ম্যাচের আগে খানিক বৃষ্টি হওয়ায় টস হতে আধঘণ্টা দেরি হয়ে যায়। তবে ভালো খবর এই যে, বৃষ্টি চলে গিয়ে তাড়াতাড়ি পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়েছে।

নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে মাঠে নেমেছে বাংলাদেশ ও নেদারল্যান্ডস। কিংসটাউনের আরনোস ভেল ক্রিকেট গ্রাউন্ডে টস জিতে বাংলাদেশকে প্রথমে ব্যাটিং করার আমন্ত্রণ জানিয়েছেন ডাচ অধিনায়ক স্কট এডওয়ার্ডস।

ম্যাচের আগে খানিক বৃষ্টি হওয়ায় টস হতে আধঘণ্টা দেরি হয়ে যায়। তবে ভালো খবর এই যে, বৃষ্টি চলে গিয়ে তাড়াতাড়ি পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়েছে।

নতুন মাঠ, আগে খেলার অভিজ্ঞতা নেই বলে সতর্কতামূলকভাবে আগে বোলিং করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন স্কট এডওয়ার্ডস। দলে একটি পরিবর্তন নিয়ে মাঠে নামছে তার দল। তেজা নিদামানুরুর পরিবর্তে আরিয়ান দত্তকে একাদশে রেখেছে নেদারল্যান্ডস।

অপরদিকে, আগে ব্যাটিং করতে সমস্যা নেই বলে জানিয়েছেন টাইগার অধিনায়ক নাজমুল হোসেন শান্ত। তবে সাবধানী ব্যাটিংয়ের কথা শুনিয়েছেন তিনি। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে খেলানো একাদশ অপরিবর্তিত রেখেই মাঠে নামছেন শান্ত।

টাইগার একাদশ: তানজিদ হাসান তামিম, নাজমুল হোসেন শান্ত, লিটন দাস, সাকিব আল হাসান, তৌহিদ হৃদয়, মাহমুদউল্লাহ, জাকের আলী, রিশাদ হোসেন, তাসকিন আহমেদ, তানজিম হাসান সাকিব, মুস্তাফিজুর রহমান।

ডাচ একাদশ: মাইকেল লেভিট, ম্যাক্স ওডাউড, বিক্রমজিৎ সিং, সাইব্র্যান্ড এঙ্গেলব্রেখ্ট, স্কট এডওয়ার্ডস (অধিনায়ক), বাস ডি লিড, লোগান ভ্যান বিক, টিম প্রিঙ্গল, আরিয়ান দত্ত, পল ভ্যান মিকারেন, ভিভিয়ান কিংমা।

আরও পড়ুন:
যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষেও জিতে সুপার এইটে ভারত
কানাডার বিপক্ষে জিতে টিকে রইল পাকিস্তান
তৌহিদের অভিযোগে সুর মেলালেন ক্রিকেট বিশ্লেষকরাও

মন্তব্য

খেলা
India also won against USA in Super Eight

যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষেও জিতে সুপার এইটে ভারত

যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষেও জিতে সুপার এইটে ভারত সূর্যকুমার ও শিবমের ব্যাটিং দৃঢ়তায় জয় পেয়েছে ভারত। ছবি: ক্রিকইনফো
প্রথম ইনিংসে ব্যাট করে ৮ উইকেটে ১১০ রান করে যুক্তরাষ্ট্র। জবাবে ব্যাট করতে নেমে ১০ বল হাতে রেখেই জয়ের বন্দরে পৌঁছায় ভারত।

টানা তিন ম্যাচ জিতে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সুপার এইট পর্ব নিশ্চিত করেছে ভারত। তৃতীয় ম্যাচে স্বাগতিক যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে ৭ উইকেটের জয় পেয়েছে রোহিত শর্মার দল।

বুধবার টস জিতে যুক্তরাষ্ট্রকে ব্যাটিংয়ে পাঠায় ভারত। প্রথম ইনিংসে ব্যাট করে ৮ উইকেটে ১১০ রান করে যুক্তরাষ্ট্র। জবাবে ব্যাট করতে নেমে ১০ বল হাতে রেখেই জয়ের বন্দরে পৌঁছায় ভারত।

দলের হয়ে সর্বোচ্চ অপরাজিত ৫০ রান করেন সূর্যকুমার যাদব। অপরপ্রান্তে ৩১ রানে অপরাজিত ছিলেন শিবম দুবে।

যুক্তরাষ্ট্রের হয়ে সৌরভ নেত্রাভালকার দুটি উইকেট নেন। বাকি উইকেটটি যায় আলী খানের ঝুলিতে।

প্রথম ইনিংসের অসাধারণ বোলিং পারফর্ম্যান্সে ম্যাচসেরা হয়েছেন আর্শদীপ সিং।

এ ম্যাচে হারলেও সুপার এইটের আশা শেষ হয়ে যায়নি যুক্তরাষ্ট্রের। আগামী শুক্রবার গ্রুপপর্বের শেষ ম্যাচে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে মাঠে নামবে তারা। শেষ আটে খেলতে ওই ম্যাচে তাদের জয় পেতেই হবে।

আরও পড়ুন:
আর্শদীপের বোলিং তোপের পর ১১০ রানে থামল যুক্তরাষ্ট্র
সুপার এইটের লক্ষ্যে আগে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত ভারতের

মন্তব্য

খেলা
USA stopped at 110 after Arshdeeps bowling cannon

আর্শদীপের বোলিং তোপের পর ১১০ রানে থামল যুক্তরাষ্ট্র

আর্শদীপের বোলিং তোপের পর ১১০ রানে থামল যুক্তরাষ্ট্র উইকেট পড়লেও ভারতীয় বোলারদের শাসন করে গেছেন যুক্তরাষ্ট্রের ব্যাটাররা। ছবি: ক্রিকেইনফো
টস হেরে প্রথমে ব্যাটিং করে ৮ উইকেট হারিয়ে ভারতকে ১১১ রানের লক্ষ্য দিয়েছে স্বাগতিকরা।

জিতলেই শেষ আট নিশ্চিত- এমন সমীকরণ নিয়ে মাঠে নেমেছে স্বাগতিক যুক্তরাষ্ট্র ও ভারত। টস হেরে প্রথমে ব্যাটিং করে ৮ উইকেট হারিয়ে ভারতকে ১১১ রানের লক্ষ্য দিয়েছে স্বাগতিকরা।

এদিন শুরুতেই জোড়া উইকেট শিকার করা আর্শদীপ অসাধারণ বোলিং নৈপুণ্য দেখিয়েছেন। চার ওভারে মাত্র ৯ রান দিয়ে চারটি উইকেট সংগ্রহ করেছেন তিনি। তবে বল হাতে এদিন বুমরাহ ছিলেন নিষ্প্রভ।

অপরদিকে, যুক্তরাষ্ট্রের হয়ে সর্বোচ্চ ২৭ রান করেছেন নীতীশ কুমার। স্টিভেন টেইলর ২৪ ও কোরি অ্যান্ডারসন করেছেন ১৪ রান।

আরও পড়ুন:
সুপার এইটের লক্ষ্যে আগে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত ভারতের

মন্তব্য

p
উপরে