× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

খেলা
Dhaka need 114 runs to win against Khulna
hear-news
player
google_news print-icon

জয়ের জন্য ঢাকার দরকার ১১৪ রান

জয়ের-জন্য-ঢাকার-দরকার-১১৪-রান-
খুলনার ওপেনার তামিম ইকবালের উইকেট নিয়ে ঢাকার উদযাপন। ছবি: বিসিবি
ঢাকার হয়ে পেসার আল আমিন হোসেন ৪ ওভার বল করে ২৮ রান দিয়ে নেন ৪টি উইকেট। এ ছাড়া নাসির ও সানি নেন দুটি করে উইকেট।

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) ঢাকা ডমিনেটরসকে জয়ের জন্য ১১৪ রানের লক্ষ্য বেঁধে দিয়েছে খুলনা টাইগার্স।

মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে শনিবার টস জিতে ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রণ জানান ঢাকার অধিনায়ক নাসির হোসেন। ব্যাট করতে নেমে ৮ উইকেট হারিয়ে ১১৩ রানের পুঁজি দাঁড় করায় অধিনায়ক ইয়াসির আলির দল।

ব্যাটিংয়ের শুরুটা ভালো হয়নি খুলনার। দলীয় ১১ রানের মাথায় ঢাকার অধিনায়ক নাসির হোসেনের বলে আউট হয়ে সাজঘরে ফেরেন শারজিল খান। ১১ বল খেলে ৭ রান করে আউট হন তিনি। পরের ওভারেই আল আমিন হোসেনের বলে ৪ রান করে আউট হন মুনিম শাহরিয়ার।

এরপর বেশি সময় টিকতে পারেননি আরেক ওপেনার তামিম ইকবালও। বাউন্ডারি মারতে গিয়ে ১৫ বলে ৮ রান করে আরাফাত সানির বলে ক্যাচ আউট হন তিনি। ২৮ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে দারুণ চাপে পড়ে খুলনা।

এরপর দলের হাল ধরার চেষ্টা করেন ইয়াসির আলী ও পেইসার মোহাম্মদ সাইফুউদ্দিন। মাঝে আজম খানকে বোল্ড করে ফিরিয়ে দেন সানি।

১৪তম ওভারে ইয়াসির আলী আউট হন ২৫ বলে ২৪ রান করে। তিনি এক চার ও এক ছয়ের মারে এ রান করেন।

অন্যদিকে সাইফউদ্দিন ২৮ বলে ১৯ রান করলেও বাকিদের কেউই আর ঝোড়ো কোনো ইনিংস খেলতে পারেননি।

ঢাকার হয়ে পেসার আল আমিন হোসেন ৪ ওভার বল করে ২৮ রান দিয়ে নেন ৪টি উইকেট। এ ছাড়া নাসির ও সানি নেন দুটি করে উইকেট।

আরও পড়ুন:
খুলনায় ঝুট গুদামের আগুন নিয়ন্ত্রণে
চ্যাম্পিয়নদের হারিয়ে বিপিএল শুরু রংপুরের
রনির রেকর্ডে রংপুরের বোর্ডে ১৭৬

মন্তব্য

আরও পড়ুন

খেলা
Tamims departure from BPL

বিপিএল থেকে তামিমদের বিদায়

বিপিএল থেকে তামিমদের বিদায়
এই জয়ে ১০ ম্যাচে ১৪ পয়েন্ট নিয়ে কোয়ালিফায়ারের দৌড়ে ভালোভাবে টিকে রইল বরিশাল। ১০ ম্যাচে ২ জয়ে ৪ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে খুলনা। এক ম্যাচ কম খেলে তলানিতে আছে চট্টগ্রাম।

ফরচুন বরিশালের কাছে ৩৭ রানে হেরে গেছে খুলনা টাইগার্স। এর মাধ্যমে দিনের প্রথম ম্যাচে সাকিবদের কাছে হেরে বিপিএল থেকেও বিদায় নিতে হলো তামিম ইকবালদের।

শুক্রবার শের-ই বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ১৯৪ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে তামিম ইকবাল-ইয়াসির আলি চৌধুরিদের ম্যাচ থেমে যায় ১৫৭ রানেই।

এই জয়ে ১০ ম্যাচে ১৪ পয়েন্ট নিয়ে কোয়ালিফায়ারের দৌড়ে ভালোভাবে টিকে রইল বরিশাল। ১০ ম্যাচে ২ জয়ে ৪ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে খুলনা। এক ম্যাচ কম খেলে তলানিতে আছে চট্টগ্রাম।

আগে ব্যাট করে ইফতেখার আহমেদের ফিফটি ও সাকিব আল হাসান-ফজলে মাহমুদের ঝড়ো ব্যাটিংয়ে ১৯৪ রান তোলে বরিশাল। ইয়াসির আলী রাব্বির ফিফটিও এড়াতে পারেনি খুলনার হার।

তামিম ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারে ওয়াসিম জুনিয়রের বলে বোল্ড হন ১ রানে। দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে খুলনাকে টেনে তোলার চেষ্টা করেন ওপেনার অ্যান্ড্রু বালবার্নি ও অধিনায়ক শাই হোপ। ১২ রানে থাকা বালবার্নিকে ফিরিয়ে ৪৪ রানের জুটি ভাঙেন খালেদ আহমেদ। পরের ওভারে সাকিবের শিকার হয়ে শূন্য রানে আউট মাহমুদুল হাসান জয়।

হোপ আজ থামেন ২৪ বলে ৩৭ রানে। ৫৪ রানে ৪ উইকেট হারায় খুলনা। নাহিদুলকে নিয়ে চেষ্টা করেছিলেন ইয়াসির। তাদের ৮১ রানের জুটি ভাঙে ২৪ করে নাহিদুল আউট হলে। ৩৫ বলে অর্ধশতক তুলে নেন ইয়াসির।

শেষদিকে আর কোনো ব্যাটসম্যান বড় ইনিংস খেলতে না পারলে খুলনার ইনিংস থামে ৮ উইকেট হারিয়ে ১৫৭ রানে। বরিশালের হয়ে করিম জানাত নেন ৪ উইকেট।

এর আগে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে বরিশালকে ঝড়ো শুরু এনে দেন দুই ওপেনার এনামুল হক বিজয় ও ফজলে। সাকিব ৪টি ছয় ও ১টি চারে ২১ বলে করেন ৩৬ রান। ইফতেখারের ৩১ বলে অপরাজিত ৫১ রানের সঙ্গে করিম জানাতের ৮ বলে ১৬ রানে ৫ উইকেটে ১৯৪ করে বরিশাল।

আরও পড়ুন:
সোহানকে জরিমানা, হারিসকে সতর্কবার্তা
সিলেটকে সরিয়ে শীর্ষে বরিশাল
মাশরাফির সিলেটের বিপক্ষে রংপুরের জয়

মন্তব্য

খেলা
England is coming to Bangladesh with a full strength team

পূর্ণশক্তির দল নিয়েই বাংলাদেশে আসছে ইংল্যান্ড

পূর্ণশক্তির দল নিয়েই বাংলাদেশে আসছে ইংল্যান্ড ইংল্যান্ড জাতীয় ক্রিকেট দল। ছবি: সংগৃহীত
তিন ওয়ানডে ও তিন টি-টোয়েন্টির সিরিজ খেলতে ইংল্যান্ডের ঢাকায় আসার কথা আগামী ২৪ ফেব্রুয়ারি। ১ মার্চ প্রথম ওয়ানডে দিয়ে শুরু মাঠের লড়াই।

প্রায় সাড়ে ৬ বছর পর চলতি মাসে বাংলাদেশ সফরে আসেব ইংল্যান্ড। গুঞ্জন ছিল, পাকিস্তান সুপার লিগের কারণে একাধিক তারকা ক্রিকেটারকে পাবে না দলটি। তবে আজ জস বাটলারের নেতৃত্ব ঘোষিত দলে তারকা ক্রিকেটারদের প্রায় সবাই-ই আছেন। অ্যালেক্স হেলস, স্যাম বিলিংসরা না থাকলেও বাংলাদেশে আসছেন মঈন আলী, ডাভিড ম্যালান, জফরা আর্চার, স্যাম কারেন, আদিল রশিদ, ক্রিস ওকস, মার্ক উডের মতো অভিজ্ঞরা।

তিন ওয়ানডে ও তিন টি-টোয়েন্টির সিরিজ খেলতে ইংল্যান্ডের ঢাকায় আসার কথা আগামী ২৪ ফেব্রুয়ারি। ১ মার্চ প্রথম ওয়ানডে দিয়ে শুরু মাঠের লড়াই। বাংলাদেশ সফরে আসার আগে আজ দুই ফরম্যাটের জন্য ১৫ সদস্যের আলাদা দুটি দল ঘোষণা করেছে ইংল্যান্ড ও ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড (ইসিবি)।

ইংল্যান্ডের ওয়ানডে দল

জস বাটলার (অধিনায়ক), টম অ্যাবেল, রেহান আহমেদ, মঈন আলী, জফরা আর্চার, স্যাম কারেন, সাকিব মাহমুদ, ডাভিড ম্যালান, আদিল রশিদ, জেসন রয়, ফিল সল্ট, রিস টপলি, জেমস ভিনস, ক্রিস ওকস ও মার্ক উড।

ইংল্যান্ডের টি-টোয়েন্টি দল

জস বাটলার (অধিনায়ক), টম অ্যাবেল, রেহান আহমেদ, মঈন আলী, জফরা আর্চার, স্যাম কারেন, বেন ডাকেট, উইল জ্যাকস, ক্রিস জর্ডান, ডাভিড ম্যালান, আদিল রশিদ, ফিল সল্ট, রিস টপলি, ক্রিস ওকস ও মার্ক উড।

আরও পড়ুন:
হাথুরুসিংহেই বাংলাদেশের কোচ
বিসিবির হেড অফ প্রোগ্রামস ডেভিড মুর
ভেতরের কথা জানলে সাকিব এমনটা বলতেন না: বিসিবি
মার্চে বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের বিপক্ষে মাঠে নামছে বাংলাদেশ
পাকিস্তানের বিপক্ষে সিরিজ জয় ইংলিশদের

মন্তব্য

খেলা
Hathurusinghe is becoming the coach

হাথুরুসিংহেই বাংলাদেশের কোচ

হাথুরুসিংহেই বাংলাদেশের কোচ  বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের হেডকোচ হলেন চন্ডিকা হাথুরুসিংহে। ছবি: সংগৃহীত
২০১৪ থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত জাতীয় দলের দায়িত্বে ছিলেন হাথুরু।বাংলাদেশের ক্রিকেট ইতিহাসে স্মরণীয় কিছু সাফল্য এসেছে তার সময়েই।

গুঞ্জনই সত্যি হলো। তিন ফরম্যাটেই বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের হেডকোচ হলেন চন্ডিকা হাথুরুসিংহে। ২০ ফেব্রুয়ারি দেশে আসবেন লঙ্কান এ কোচ।

হাথুরুসিংহের সঙ্গে দুই বছরের চুক্তি হয়েছে বলে জানিয়েছেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন।

২০১৪ থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত জাতীয় দলের দায়িত্বে ছিলেন হাথুরু।বাংলাদেশের ক্রিকেট ইতিহাসে স্মরণীয় কিছু সাফল্য এসেছে তার সময়েই। ২০১৫ সালে পাকিস্তান, ভারত ও দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে টানা তিন ওয়ানডে সিরিজ জয়, সে বছরই বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে ওঠা ছাড়াও ২০১৭ চ্যাম্পিয়নস ট্রফির সেমিফাইনালে খেলেছিল বাংলাদেশ তার অধীনে।

হাথুরুসিংহের সময় টেস্ট ক্রিকেটেও কিছু সাফল্য পেয়েছে বাংলাদেশ। মিরপুরে ইংল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সিরিজ জয় এবং কলম্বোয় বাংলাদেশের শততম টেস্টে শ্রীলঙ্কাকে হারিয়েছিল টাইগাররা।

২০১৭ সালে বাংলাদেশ দলের দক্ষিণ আফ্রিকা সফর থেকে পদত্যাগ করেছিলেন হাথুরুসিংহে।

আরও পড়ুন:
বিসিবির হেড অফ প্রোগ্রামস ডেভিড মুর
যুক্তরাষ্ট্রকে হারিয়ে হ্যাটট্রিক জয় বাংলাদেশের মেয়েদের
তামিম ছন্দে, খুলনার প্রথম জয়
রোহিত-কোহলিকে ছাড়াই কিউইদের বিপক্ষে দল ঘোষণা ভারতের
দলীয় রান ৭১৪, একাই ৫০৮ স্কুলছাত্রের

মন্তব্য

খেলা
Sohan fined Harris warned

সোহানকে জরিমানা, হারিসকে সতর্কবার্তা

সোহানকে জরিমানা, হারিসকে সতর্কবার্তা বিপিএলে রংপুর রাইডার্সের অধিনায়ক নুরুল হাসান সোহান ও পেসার হারিস রউফ। ছবি: সংগৃহীত
বিপিএলের সিলেট পর্বের প্রথম ম্যাচে শুক্রবার সিলেট স্ট্রাইকার্সের বিপক্ষে খেলতে নেমেছিল রংপুর। সেই ম্যাচে সিলেটের ইনিংসের শেষ ওভারে রংপুরের পেসার রবিউল ইসলামের করা একটি নো বলের সিদ্ধান্ত নিয়ে আম্পায়ারের প্রতি অসন্তোষ প্রকাশ করেন সোহান-হারিস। এ জন্য বিসিবির কোড অফ কন্ডাক্টের লেভেল ১-এর অনুচ্ছেদ নম্বর ২.৮ ভঙ্গ করার অভিযোগ আনা হয়েছে তাদের বিরুদ্ধে।

আচরণবিধি লঙ্ঘনের দায়ে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) দল রংপুর রাইডার্সের অধিনায়ক নুরুল হাসান সোহানকে জরিমানা করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

একই দলের পেসার হারিস রউফকে সতর্ক করেছে বোর্ড।

বাংলাদেশ ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থার শনিবারের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি জানানো হয়েছে।

বিপিএলের সিলেট পর্বের প্রথম ম্যাচে শুক্রবার সিলেট স্ট্রাইকার্সের বিপক্ষে খেলতে নেমেছিল রংপুর। সেই ম্যাচে সিলেটের ইনিংসের শেষ ওভারে রংপুরের পেসার রবিউল ইসলামের করা একটি নো বলের সিদ্ধান্ত নিয়ে আম্পায়ারের প্রতি অসন্তোষ প্রকাশ করেন সোহান-হারিস। এ জন্য বিসিবির কোড অফ কন্ডাক্টের লেভেল ১-এর অনুচ্ছেদ নম্বর ২.৮ ভঙ্গ করার অভিযোগ আনা হয়েছে তাদের বিরুদ্ধে।

আইন ভাঙায় সোহানকে ম্যাচ ফির ৩০ শতাংশ জরিমানা করা হয়েছে। তার নামের পাশে যোগ হয়েছে দুটি ডিমেরিট পয়েন্ট।

এ নিয়ে চলতি বিপিএলে তিনটি ডিমেরিট পয়েন্ট পেলেন সোহান। কোড অফ কন্ডাক্টের অনুচ্ছেদ নম্বর ৭.৫ অনুযায়ী চারটি ডিমেরিট পয়েন্ট হলে এক ম্যাচ নিষিদ্ধ হবেন তিনি।

হারিসকে জরিমানা করা না হলেও একটি ডিমেরিট পয়েন্ট পেয়েছেন পাকিস্তানি এ পেসার। দুই ক্রিকেটার শাস্তি মেনে নেয়ায় আনুষ্ঠানিক শুনানির দরকার পড়েনি।

আরও পড়ুন:
আফিফ-রাসুলির ব্যাটিংয়ে দ্বিতীয় জয় চট্টগ্রামের
সাকিবের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে হ্যাটট্রিক জয় বরিশালের
রংপুরের দারুণ জয়, টানা তিন হার খুলনার
ঘরের মাঠে হার দিয়ে শুরু চট্টগ্রামের
ঘরের মাঠে চট্টগ্রামকে ২০৩ রানের টার্গেট দিল বরিশাল

মন্তব্য

খেলা
Barisal topped Sylhet

সিলেটকে সরিয়ে শীর্ষে বরিশাল

সিলেটকে সরিয়ে শীর্ষে বরিশাল এনামুল হক বিজয়ের ব্যাটে ভর করে জেতে বরিশাল ফরচুন। ছবি: সংগৃহীত
এনামুল হক বিজয় ও করিম জানাতের ঝোড়ো ব্যাটিংয়ে ৩ উইকেট ও ৪ বল হাতে রেখে জয় পেয়েছে বরিশাল। ফলে ৮ ম্যাচে ৬ জয়ে সিলেটের সমান ১২ পয়েন্ট হলেও রান রেটে এগিয়ে শীর্ষে সাকিবরা।

সিলেটে দিনের প্রথম ম্যাচে স্বাগতিকরা হারে রংপুর রাইডার্সের কাছে। আর মাশরাফি বিন মুর্তজার দলের হারের সুযোগ দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে নিয়েছে বরিশাল। চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সকে টানা চতুর্থ হারের স্বাদ দিয়েছে সাকিব আল হাসানের বরিশাল ফরচুন।

এনামুল হক বিজয় ও করিম জানাতের ঝোড়ো ব্যাটিংয়ে ৩ উইকেট ও ৪ বল হাতে রেখে জয় পেয়েছে বরিশাল। ফলে ৮ ম্যাচে ৬ জয়ে সিলেটের সমান ১২ পয়েন্ট হলেও রান রেটে এগিয়ে শীর্ষে সাকিবরা।

টস হেরে ব্যাট করতে নেমে ২০ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৬৮ করে চট্টগ্রাম। নিজের বিপিএল অভিষেক ম্যাচে আগ্রাসী ব্যাটিং করেন আইরিশ অলরাউন্ডার কার্টিস ক্যাম্ফার। ছয়ে নেমে ২৫ বলে খেলেন অপরাজিত ৪৫ রানের ইনিংস। ৪টি চারের সঙ্গে ছক্কা ছিল ২টি। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান আফিফ হোসেনের, জ্বরের কারণে যিনি সর্বশেষ ম্যাচে ব্যাট করতে পারেননি। ২৩ বলে ৩৭ করেন এই বাঁহাতি। ওপেনার ম্যাক্স ও’ডাউডের ব্যাট থেকে আসে ৩৩ রান।

বরিশালের হয়ে দুই পেসার খালেদ আহমেদ ও কামরুল ইসলাম ২টি করে উইকেট নেন। আগের ম্যাচের পর সাইড স্ট্রেইনের সমস্যায় ভোগা অলরাউন্ডার মেহেদী হাসান মিরাজ কাল ম্যাচের আগে ফিটনেস টেস্টে পাস করতে না পারায় আজ একাদশে ছিলেন না।

রান তাড়ায় বরিশালকে দারুণ শুরু এনে দেন বিজয়। উদ্বোধনী জুটিতে সাইফ হাসান ১০ করে আউট হলেও অর্ধশতক তুলে নেন বিজয়। ৬টি করে চার-ছয়ে ৫০ বলে করেন ৭৮ রান। এরপর অবশ্য সাকিব ৩ রান আর মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ কোনো বল না খেলে শূন্য রানে আউট হলে চাপে পড়ে বরিশাল।

শেষ দিকে জানাতের ১২ বলে ৩১ রানের তাণ্ডবের সঙ্গে সালমান হোসেনের ১৪ বলে ১৮ রানে জয় পায় বরিশাল। চট্টগ্রামের হয়ে দারুণ বোলিংয়ে ১৭ রানে ৪ উইকেট নেন বাঁহাতি স্পিনার নাহিদুরজামান।

আরও পড়ুন:
মাশরাফির সিলেটের বিপক্ষে রংপুরের জয়
বিপিএল খেলা ওয়াহাব পাকিস্তানের মন্ত্রী
সেমিফাইনাল স্বপ্নে টসের থাবা
নাসিমের বোলিং তাণ্ডব, ঢাকার ষষ্ঠ হার
আফ্রিদির চেয়ারে হারুন

মন্তব্য

খেলা
Mashrafes win against Sylhet Rangpur

মাশরাফির সিলেটের বিপক্ষে রংপুরের জয়

মাশরাফির সিলেটের বিপক্ষে রংপুরের জয় খেলার একটি মুহূর্ত। ছবি: সংগৃহীত
আগে ব্যাট করতে নেমে ৯২ রানে গুটিয়ে যাওয়া সিলেট স্ট্রাইকার্স ম্যাচ হেরেছে ৬ উইকেটে। এর ফলে ৮ পয়েন্ট নিয়ে তালিকার চার নম্বরে অবস্থান আরও পোক্ত করল রংপুর। তবে হারলেও ৮ ম্যাচে ১২ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে সিলেট।

সিলেটে প্রথম দিনের প্রথম ম্যাচে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) রংপুর রাইডার্সের বিপক্ষে নেমেছিল সিলেট স্ট্রাইকার্স। তবে মাশরাফি বিন মুর্তজাদের সমীকরণটা মিলল না ঠিকঠাক।

আগে ব্যাট করতে নেমে ৯২ রানে গুটিয়ে যাওয়া সিলেট স্ট্রাইকার্স ম্যাচ হেরেছে ৬ উইকেটে। এর ফলে ৮ পয়েন্ট নিয়ে তালিকার চার নম্বরে অবস্থান আরও পোক্ত করল রংপুর। তবে হারলেও ৮ ম্যাচে ১২ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে সিলেট।

শুক্রবার সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে শুরুতে ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে সিলেট। পাওয়ার প্লে-র ৬ ওভারে আসে ১৬ রান। ১২ রানেই পড়েছে সিলেটের ষষ্ঠ উইকেট। ১৮ রানে পড়ল সপ্তম উইকেটও!

রংপুরের বোলারদের সামনে অসহায় হয়ে পড়েন নাজমুল হোসেন শান্ত, জাকির হাসান, তৌহিদ হৃদয়, মুশফিকুর রহিম, টম মোরেসরা। সুবিধা করতে পারেননি ইমাদ, ওয়াসিম থিসারা পেরেরাও।

অষ্টম উইকেটে তানজিম হাসান সাকিব ও মাশরাফির গড়া ৪৮ রানের জুটিতে বিপিএলের ইতিহাসে সর্বনিম্ন রানে অলআউট হওয়ার লজ্জা থেকে রক্ষা পায় সিলেট। তানজিম ৩৬ বলে ৪১ ও মাশরাফি ২১ বলে ২১ ছাড়া আর কেউই দুই অঙ্ক ছুঁতে পারেননি। ২০ ওভার শেষে ৯ উইকেট হারিয়ে সিলেট থামে ৯২ রানে।

রংপুরের হয়ে আজমতউল্লাহ ওমরজাই ও হাসান মাহমুদ ৩টি করে উইকেট নিয়েছেন, শেখ মেহেদী হাসান নিয়েছেন ২ উইকেট।

রংপুরের ওপেনার নাঈম শেখ ১৮ রানে আউট হলেও এক প্রান্ত ধরে খেলেন আরেক ওপেনার রনি তালুকদার। মোহাম্মদ নাওয়াজের সঙ্গে অবিচ্ছেদ্য ২৫ রানের জুটিতে দলকে ৬ উইকেটের জয় এনে দেন রনি। নাওয়াজ করেন ১৩ বলে ১৮ রান। ৪১ রানে অপরাজিত থাকেন রনি তালুকদার।

আরও পড়ুন:
নাসিমের বোলিং তাণ্ডব, ঢাকার ষষ্ঠ হার
দারাজ অ্যাপে প্রতিদিন বিপিএল দেখছেন ১০ লাখ মানুষ
তামিম ছন্দে, খুলনার প্রথম জয়

মন্তব্য

খেলা
BPL playing for Khulna Wahab Pakistan Minister

বিপিএল খেলা ওয়াহাব পাকিস্তানের মন্ত্রী

বিপিএল খেলা ওয়াহাব পাকিস্তানের মন্ত্রী চলতি বিপিএলে খুলনা টাইগার্সের হয়ে খেলছেন পাকিস্তানের ওয়াহাব রিয়াজ। ছবি: এএফপি
লাহোরে গভর্নর বালিগ উর রেহমানের বাসভবনে বৃহস্পতিবার নবনির্বাচিত মন্ত্রীদের শপথগ্রহণ হয়। বিপিএলে ব্যস্ত থাকায় সেখানে উপস্থিত ছিলেন না ওয়াহাব।

খুলনা টাইগার্সের হয়ে বিপিএলে ব্যস্ত সময় পার করছেন পাকিস্তানের ওয়াহাব রিয়াজ। এরমধ্যেই পেলেন মন্ত্রী হওয়ার খবর ।

ডনের প্রতিবেদনে বলা হয়, পাকিস্তানের পাঞ্জাব প্রদেশের ভারপ্রাপ্ত ক্রীড়ামন্ত্রীর দায়িত্ব দেয়া হয়েছে ওয়াহাবকে। লাহোরে গভর্নর বালিগ উর রেহমানের বাসভবনে বৃহস্পতিবার নবনির্বাচিত মন্ত্রীদের শপথগ্রহণ হয়। বিপিএলে ব্যস্ত থাকায় সেখানে উপস্থিত ছিলেন না ওয়াহাব।

এদিকে পাকিস্তানি সংবাদমাধ্যম জিও টিভিকে ৩৭ বছর বয়সী এই পেসার নিশ্চিত করেছেন, যথাসময়ে দেশের সবচেয়ে বড় প্রদেশের ক্রীড়ামন্ত্রীর দায়িত্ব বুঝে নেবেন তিনি।

ওয়াহাবসহ মোট ১১ জনকে পাঞ্জাবের অন্তর্বর্তীকালীন মন্ত্রীত্বের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।

পাকিস্তানের হয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ১৫৬ ম্যাচ খেলে ২৩৭ উইকেট শিকার করেছেন ওয়াহাব। এবারের বিপিএলে বিশ্বের ষষ্ঠ বোলার হিসেবে টি-টোয়েন্টি সংস্করণে ৪০০ উইকেটের মাইলফলক ছুঁয়েছেন তিনি।

আরও পড়ুন:
১৬ ঘণ্টায়ও বিদ্যুৎ ফেরেনি পাকিস্তানে
আফ্রিদির চেয়ারে হারুন
ভিক্ষার থালা নিয়ে ঘুরছে পাকিস্তান: ইমরান
জাতীয় গ্রিডে বিপর্যয়, অন্ধকারে পাকিস্তান
বিসিবির কেন্দ্রীয় চুক্তি: তিন ফরমেটে মিরাজ

মন্তব্য

p
উপরে