× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

খেলা
Qatar did not get along with Senegal
hear-news
player
google_news print-icon

গোল পেলেও জয় পায়নি কাতার

গোল-পেলেও-জয়-পায়নি-কাতার
ম্যাচ শেষে সেনেগালের উদযাপন। ছবি: এএফপি
সেনেগালের বিপক্ষে কাতারকে হারতে হয়েছে ৩-১ গোলে। প্রথমার্ধে ১ গোলে পিছিয়ে থাকার পর দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে আরও এক গোল হজম করে স্বাগতিকরা। পরে এক গোল শোধ করলেও শেষদিকে সেনেগাল আরও একবার বল জড়ায় কাতারের জালে।

বিশ্বকাপের স্বাগতিক দেশ হিসেবে এত বাজে পারফরম্যান্স এর আগে দেখায়নি কোনো দলই। এবারের ফিফা বিশ্বকাপে কাতারের শুরুটা হয় ইকুয়েডরের বিপক্ষে হার দিয়ে। রেকর্ড গড়া সেই হারের পর নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচেও একই ভাগ্য বরণ করে নিতে হলো স্বাগতিকদের।

সেনেগালের বিপক্ষে কাতারকে হারতে হয়েছে ৩-১ গোলে। প্রথমার্ধে ১ গোলে পিছিয়ে থাকার পর দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে আরও এক গোল হজম করে তারা। পরে এক গোল শোধ করলেও শেষদিকে সেনেগাল আরও একবার বল জড়ায় কাতারের জালে।

ম্যাচের শুরু থেকেই স্বাগতিকদের চেপে ধরে সেনেগাল। বল দখল থেকে শুরু করে আক্রমণ সব কিছুতেই ছিল তাদের আধিপত্য। সেনেগালের ফুটবলারদের বিপক্ষে শুরু থেকেই রীতিমতো সংগ্রাম করতে হয়েছে তাদের।

তবে প্রথম গোলের দেখা পেতে তাদের অপেক্ষা করতে হয় ম্যাচের ৪১ মিনিট পর্যন্ত। বাঁ দিক থেকে দিয়াতার নেয়া ক্রস গোলপোস্টের কাছাকাছি থেকে মিস করেন খৌখি। কিন্তু সেটি রিসিভ করে দুর্দান্ত এক শটে জালের ঠিকানা খুঁজে নিয়ে দলকে লিড এনে দেন বৌলায়ে দিয়া।

বিরতি থেকে ফিরে তৃতীয় মিনিটেই ব্যবধান দ্বিগুণ করে সেনেগাল। কর্ণার থেকে নেয়া শট ডি বক্সের ছয় গজের ভেতর অরক্ষিত অবস্থায় পেয়ে যান ফামারা দিধু। সেখান থেকে ফ্লিক করে ব্যবধান বাড়ান সেনেগালের এই স্ট্রাইকার।

৭৮ মিনিটে বিশ্বকাপে প্রথম গোল পায় কাতার। আর সেই গোলের নায়ক মোহাম্মদ মুনতারি।

ব্যবধান কমানোর ৬ মিনিটের মাথায় ফের এগিয়ে যায় সেনেগাল। বাম্বা দিয়েংয়ের সুবাদে ব্যবধান বাড়ে সেনেগালের।

শেষদিকে বেশ কয়েকটি কর্ণার আর সুযোগ পেয়েও ব্যবধান বাড়াতে পারেনি সেনেগাল। আর সে কারণেই ৩-১ গোলের জয় নিয়ে সন্তুষ্ট চিত্তেই মাঠ ছাড় তারা।

আরও পড়ুন:
কাতার বিশ্বকাপের প্রথম লাল কার্ড হেনেসির
শেষ মুহূর্তের ভেলকিতে ওয়েলসকে হারাল ইরান
মেসিই সেই জাদুকর: ওচোয়া
বিশ্বকাপ আছে, ম্যারাডোনা নেই
কে ব্রাজিল আর কে আর্জেন্টিনার সমর্থক

মন্তব্য

আরও পড়ুন

খেলা
Mbappes double goal knocked out France

এমবাপের জোড়া গোলে ফ্রান্স নকআউট পর্বে

এমবাপের জোড়া গোলে ফ্রান্স নকআউট পর্বে জয় নিশ্চিতের সেই গোলের মুহূর্ত। ছবি: এএফপি
৮৫ মিনিটের মাথায় ডানদিক থেকে গ্রিজম্যানের দুর্দান্ত এক ক্রস থেকে জালের ঠিকানা খুঁজে নিয়ে দলকে এগিয়ে দেন এমবাপে। আর তাতেই জয়টা অনেকটাই সুনিশ্চিত হয়ে যায় তাদের।

বিশ্বকাপের সর্বশেষ তিন আসরে একটা অলিখিত নিয়ম হয়ে দাঁড়িয়েছিল বিশ্বকাপজয়ী দলের গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায় নেয়াটা। কিন্তু কাতার বিশ্বকাপে এসে ফ্রান্সের হাত ধরে ভাঙল সেই রীতি। ডেনমার্ককে ২-১ গোলে হারিয়ে প্রথম দল হিসেবে শেষ ১৬-তে নাম লেখাল ফরাসিরা।

ম্যাচের শুরু থেকেই আক্রমণ, পাল্টা আক্রমণ চললেও দুই দলই পসরা সাজিয়ে বসে গোল মিসের। বারবার সুযোগ সৃষ্টি করেও গোলের দেখা মিলছিল না কারোই। যে কারণে প্রথমার্ধে গোলশূন্য থাকতে হয় দুই দলকেই।

তবে দ্বিতীয়ার্ধের শুরু থেকেই মাঠ নিজেদের দখলে নিয়ে নেয় ফরাসিরা। আর দ্বিতীয়ার্ধের ১৫ মিনিটের মাথায় দেখা পায় সফলতার।

ম্যাচের ৬১ তম মিনিটের মাথায় ডেডলক ভাঙ্গেন কিলিয়ান এমবাপে। বাম দিক থেকে ওয়ান টু করতে করতে ডি বক্সের দিকে এগিয়ে যান হার্নান্দেজ। বক্সের কাছাকাছি এসে কিলিয়ান এমবাপের সঙ্গে শুরু হয় তার পাসের আদান প্রদান।

আর সেখান থেকে ডি বক্সের ভেতর ফাঁকায় বল পেয়ে ডেনমার্কের জালে বল ঠুকে দলকে লিড এনে দেন এমবাপে।

তবে সমটায় ফিরতে বেশি সময় নেয়নি ডেনমার্ক। ৭ মিনিটের মাথায় এরিকসেনের কর্ণার কিক থেকে দুর্দান্ত এক হেডে জালের ঠিকানা খুঁজে নিয়ে দলকে সমতায় ফেরান আন্দ্রেস ক্রিস্টেনসেন।

৭২ মিনিটে বাম দিক থেকে আক্রমণে যায় ডেনমার্ক। ডি বক্সের বাম প্রান্ত থেকে দুর্দান্ত এক মাইনাস থেকে পেনাল্টি অঞ্চলে থাকা লিন্ডস্ট্রোম দুর্দান্ত এক শট নেন ফ্রান্সের গোলমুখে। কিন্তু শক্ত হাতে সেই আক্রমণ রুখে দিয়ে বিপর্যয় এড়ান ফ্রেঞ্চ গোলরক্ষক লরিস।

৭৮তম মিনিটে গ্রিজম্যানের করা ব্যাক টু ব্যাক তিনটি কর্ণার থেকে এগিয়ে যাওয়ার দুর্দান্ত সুযোগ পায় বর্তমান বিশ্বচ্যাম্পিয়নেরা। কিন্তু তিন বারই সুযোগ হাতছাড়া হয় তাদের।

তিন মিনিট পরেই ডান দিকে থেকে আক্রমণে ওঠে ডেনমার্ক। কিন্তু গোলপোস্টের কাছাকাছি থেকে নেয়া সেই শট হয় লক্ষ্যভ্রষ্ট।

তবে ৮৫ মিনিটের মাথায় ডানদিক থেকে গ্রিজম্যানের দুর্দান্ত এক ক্রস থেকে জালের ঠিকানা খুঁজে নিয়ে দলকে এগিয়ে দেন এমবাপে। আর তাতেই জয়টা অনেকটাই সুনিশ্চিত হয়ে যায় তাদের।

শেষদিকে আরও বেশকিছু সুযোগ পায় ফ্রান্স এগিয়ে যাওয়ার। কিন্তু ফিনিশিং আর ডেনমার্কের প্রবল ডিফেন্সে চিড় ধরাতে পারেন নি এমবাপে-গ্রিজম্যানরা। আর তাতেই ২-১ গোলের জয় নিয়ে শেষ ষোল নিশ্চিত হয় ফ্রান্সের।

আরও পড়ুন:
আর্জেন্টিনার দলে ৫ পরিবর্তন
সৌদির হারে বাড়ল আর্জেন্টিনার চাপ
আর্জেন্টিনার সামনে যেসব সমীকরণ
সেই মাঠে আবার নামছে আর্জেন্টিনা
বাঁচা-মরার লড়াইয়ে আর্জেন্টিনা

মন্তব্য

খেলা
Argentinas final XI against Mexico

আর্জেন্টিনার দলে ৫ পরিবর্তন

আর্জেন্টিনার দলে ৫ পরিবর্তন অনুশীলনে আর্জেন্টিনার ফুটবলাররা। ছবি: এএফপি
বিশ্বকাপের দ্বিতীয় রাউন্ড নিশ্চিতের জন্য খাদের কিনারায় দাঁড়ানো আর্জেন্টিনার একাদশে এসেছে ৫ পরিবর্তন। মেক্সিকোর বিপক্ষে চূড়ান্ত দল ঘোষণা করেছে তারা।

বাঁচা মরার লড়াইয়ে আর্জেন্টিনার দলে বড় পরিবর্তন আসছে, সেটা আগে থেকেই আলোচনায়। তবে সে সময় জানা ছিলনা কারা থাকছেন চূড়ান্ত একাদশে।

ম্যাচের দুই ঘণ্টা আগে জানা গেল সেটিও। মেক্সিকোর বিপক্ষে বিশ্বকাপের দ্বিতীয় রাউন্ড নিশ্চিতের জন্য খাদের কিনারায় দাঁড়ানো আর্জেন্টিনার চূড়ান্ত একাদশে এসেছে ৫ পরিবর্তন।

সৌদির বিপক্ষে একাদশে থাকা পাপু গোমেস, নায়ুয়েল মোলিনা, ক্রিশ্চিয়ান রোমেরো, নিকোলাস তালিয়াফিকো ও লিয়ান্দ্রো পারেদেস বাদ পড়েছেন একাদশ থেকে।

এই পাঁচ ফুটবলারের পরিবর্তে দলে জায়গা হয়েছে গনসালো মনতিয়েল, লিসান্দ্রো মার্তিনেস, মার্কোস আকুনিয়া, গিদো রদ্রিগেস ও আলেক্সিস ম্যাকআলিস্টারের।

কাতারের লুসাইল স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় শনিবার রাত ১টায় হবে ম্যাচটি।

আর্জেন্টিনার একাদশ: এমিলিয়ানো মার্তিনেস, গনসালো মনতিয়েল, নিকোলাস ওতামেন্দি, লিসান্দ্রো মার্তিনেস, মার্কোস আকুনিয়া, রদ্রিগো দে পল, গিদো রদ্রিগেস, আলেক্সিস ম্যাকআলিস্টারের, লিওনেল মেসি, লাউতারো মার্টিনেজ ও আনহেল দি মারিয়া।

আরও পড়ুন:
সৌদির হারে বাড়ল আর্জেন্টিনার চাপ
চাপ সামলে জয় অস্ট্রেলিয়ার
আর্জেন্টিনার সামনে যেসব সমীকরণ
মেক্সিকোর বিপক্ষে একাধিক পরিবর্তন আর্জেন্টিনার একাদশে
বাঁচা-মরার লড়াইয়ে আর্জেন্টিনা

মন্তব্য

খেলা
Argentina on the edge of the abyss with Saudi loss to Poland

সৌদির হারে বাড়ল আর্জেন্টিনার চাপ

সৌদির হারে বাড়ল আর্জেন্টিনার চাপ পোল্যান্ডের গোল উদযাপন। ছবি: এএফপি
পোল্যান্ডের এই জয়ে খাদের কিনারায় পৌঁছে গেল আর্জেন্টিনা। এখন মেক্সিকোর বিপক্ষে জয় ছাড়া কোনো রাস্তাই খোলা নেই তাদের সামনে। যদিও এই ম্যাচের আগে ড্র করলেও আশা ছিল মেসিদের শেষ ষোলো নিশ্চিতের।

আর্জেন্টিনাকে হারিয়ে বিশ্বকাপের শুরুটা করলেও নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচেই সৌদি আরব দেখিয়ে দিল অঘটন প্রতিদিন ঘটে না। পোল্যান্ডের বিপক্ষে লেওয়ানডোভস্কির নৈপুণ্যে ২-০ গোলে হেরে গেছে সৌদি দল।

পোল্যান্ডের এই জয়ে খাদের কিনারায় পৌঁছে গেল আর্জেন্টিনা। এখন মেক্সিকোর বিপক্ষে জয় ছাড়া কোনো রাস্তাই খোলা নেই তাদের সামনে। যদিও এই ম্যাচের আগে ড্র করলেও আশা ছিল মেসিদের শেষ ষোলো নিশ্চিতের। আরবরা হেরে যাওয়ার এখন স্কালোনি শিষ্যদের সামনে জয় ছাড়া ভিন্ন পথ খোলা নেই দ্বিতীয় রাউন্ডে নাম লেখানোর।

বল দখলের লড়াইয়ে ম্যাচের শুরুতে অবিশ্বাস্য রকমে এগিয়ে ছিল সৌদি আরব। প্রথম ৩০ মিনিট পোল্যান্ডের জালে বেশ কয়েকবার আক্রমণ চালালেও সফলতার মুখ দেখেনি তারা।

আর সেই সময়টাতে একেবারেই নিজেদের ছায়া হয়ে ছিল পোলিশরা। তবে ৩০ মিনিটের পর থেকে বদলে যায় দৃশ্যপট। মাঠের দখল নিজেদের করে নেয় পোল্যান্ড।

প্রথমার্ধে বল দখলের লড়াইয়ে এগিয়ে থাকলেও বিরতির আগমুহূর্তে এক গোল হজম করে বসে সৌদি। আর দ্বিতীয়ার্ধের শেষ দিকে আরও এক গোল।

৩৯ মিনিটের মাথায় মাঝমাঠ থেকে লম্বা পাস সৌদির প্রান্তে পেয়ে যান লেওয়ানডোভস্কি। সেখান থেকে দুর্দান্ত এক ক্রসে প্রথম যাত্রায় গোলের দেখা না পেলেও ফিরতি শটে জালের ঠিকানা খুঁজে নিয়ে ডেডলক ভাঙেন মিডফিল্ডার পিওটর জিয়েলিনিস্কি।

৪৪ মিনিটের মাথায় পোল্যান্ডের ডি বক্সে ইয়াসির আল-শাহরানি ফাউলের শিকার হলে পেনাল্টি পায় সৌদি। সমতায় ফেরার সুবর্ণ সুযোগ পেয়েও হাতছাড়া করে এরাবিয়ানরা।

পেনাল্টি মিস করেন সালিম আলদাওসারি। ওজিনে সিজিসনি শক্ত হাতে গোল ঠেকিয়ে দলকে রাখেন ট্র্যাকে। আর তাতেই এগিয়ে যাওয়ার সুবর্ণ সুযোগ হাতছাড়া হয় সৌদির।

এরপর বিরতির আগে বেশ কয়েকবার আশা জাগিয়েও ব্যবধান বাড়াতে পারেনি পোলিশরা। যার ফলে ১ গোলের লিড নিয়েই প্রথমার্ধ শেষ করতে হয় তাদের।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরু থেকেই চাপ আরও বাড়ায় লেওয়ানডোভস্কি বাহিনী। আক্রমণের পসরা সাজিয়ে বসে সৌদির বক্সে।

ব্যবধান বাড়াতে তাদের অপেক্ষা করতে হয় ৮২ মিনিট পর্যন্ত। এবারে বিশ্বকাপে নিজের গোলে খাতা খোলেন লেওয়ানডোভস্কি। সৌদির ডি বক্সের ঠিক বাইরে থেকেই ডিফেন্ডার আল মালকির অন্যমনস্ক থাকার সুযোগ নিয়ে বল ছিনিয়ে নেন পোলিশ এই স্ট্রাইকার। গোলরক্ষককে ভেলকি দিয়ে বল জালে জড়িয়ে ব্যবধান বাড়ান তিনি।

শেষ দিকে বেশ আক্রমণাত্মক হয়ে ওঠে সৌদি আরব। কিন্তু তাতে লাভ হয়নি কোনো। যে কারণে হারকে সঙ্গী করেই মাঠ ছাড়তে হয় তাদের।

আরও পড়ুন:
চাপ সামলে জয় অস্ট্রেলিয়ার
আর্জেন্টিনার সামনে যেসব সমীকরণ
সৌদি ফুটবলারদের রোলস রয়েস পাওয়ার খবরটি ভুয়া
মুহিন-ঝিলিকের ‘ছুটছে মেসি ছুটছে নেইমার’
মেক্সিকোর বিপক্ষে একাধিক পরিবর্তন আর্জেন্টিনার একাদশে

মন্তব্য

খেলা
Australia won the battle to survive in the World Cup

চাপ সামলে জয় অস্ট্রেলিয়ার

চাপ সামলে জয় অস্ট্রেলিয়ার অস্ট্রেলিয়ার ফরোয়ার্ড ম্যাথিউ লেকি সঙ্গে বল দখলের লড়াইয়ে তিউনিসিয়ার ফরোয়ার্ড ইউসেফ মেসকনি। ছবি: এএফপি
ম্যাচের ২১তম মিনিটে ডিউকের চমৎকার হেডে লিড নেয় অস্ট্রেলিয়া। সতীর্থের বাড়ানো ক্রস ডি-বক্সে পেয়ে গোলপোস্টকে পেছনের দিকে রেখে এবং সেদিকে না তাকিয়েই নিখুঁত হেড করেন এ ফরোয়ার্ড।

কাতার বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে ফ্রান্সের বিপক্ষে ম্যাচের শুরুতে গোল পেয়ে জয়ের স্বপ্ন দেখলেও শেষ পর্যন্ত হার নিয়েই মাঠ ছাড়তে হয়েছিল তাদের। তবে দ্বিতীয় ম্যাচে বিশ্বকাপে টিকে থাকার লড়াইয়ে তিউনিশিয়ার বিপক্ষে জয় পেয়েছে অস্ট্রেলিয়া। পুরো ম্যাচে চাপে থাকলেও জয় হাতছাড়া করেনি তারা।

আল জানুব স্টেডিয়ামে মাঠে শনিবার বাংলাদেশ সময় বিকেল ৪ টায় মাঠে নামে দল দুটি। ম্যাচের প্রথমার্ধেই জয়সূচক একমাত্র গোলটি করেন মিচেল ডিউক।

ম্যাচের শুরুটা দারুণ করে দুই দলই। আক্রমণ ও পাল্টা আক্রমণে এগিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে দুই দল। তবে বল পজিশনে কিছুটা এগিয়ে ছিল অস্ট্রেলিয়া।

সেই সুবাদে সফলতাও আসে অস্ট্রেলিয়ার। ২১তম মিনিটে ডিউকের চমৎকার হেডে লিড নেয় অস্ট্রেলিয়া। সতীর্থের বাড়ানো ক্রস ডি-বক্সে পেয়ে গোলপোস্টকে পেছনের দিকে রেখে এবং সেদিকে না তাকিয়েই নিখুঁত হেড করেন এ ফরোয়ার্ড।

এর পর ম্যাচে ফিরতে মরিয়া হয়ে উঠে তিউনিশিয়া। কিন্তু ৪৪তম মিনিটে উল্টো আক্রমণের শিকার হয় দলটি। এবারও হেড থেকে গোল পাওয়ার সুযোগ ছিল ডিউকের। তিউনিশিয়ার গোলরক্ষক দারুণ ভাবে তা সেভ করেন।

তিউনিশিয়ার সামনেও সুযোগ এসেছিল সমতায় ফিরে বিরতিতে যাওয়ার। ইউসুফ মাসাকানি লক্ষ্য ঠিক রাখতে পারেননি।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরু থেকেই আক্রমণের চাপ বাড়িয়ে দেয় তিউনিশিয়া। ম্যাচজুড়ে বল দখল এবং আক্রমণে এগিয়ে থাকলেও দলটির সব প্রচেষ্টা ব্যর্থ হয় অস্ট্রেলিয়ার রক্ষণভাগে গিয়ে। ম্যাচের শেষ দিকে তো আর্নল্ডের দলকে কোণঠাসা করে রাখে তিউনিসিয়া। এরপরও কাঙ্ক্ষিত গোলের দেখা পায়নি।শেষ পর্যন্ত ১-০ গোলের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে গ্রাহাম আর্নল্ডের দল।

অস্ট্রেলিয়ার এই জয়ে জমে উঠেছে ডি গ্রুপের লড়াই। ২ ম্যাচে ৩ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট টেবিলের দুইয়ে আছে অস্ট্রেলিয়া। অন্যদিকে প্রথম ম্যাচে বড় জয়ে গ্রুপের শীর্ষে ফ্রান্স। দুই ম্যাচে এক পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের তলানিতে তিউনিশিয়া।

আরও পড়ুন:
এবার পোল্যান্ড বাধা টপকানোর চ্যালেঞ্জ সৌদির
ইংল্যান্ডের ড্রয়ে জমে উঠেছে গ্রুপের লড়াই
ডাচদের বিপক্ষে জয় পেল না ইকুয়েডর
আমি ফিরে আসব: নেইমার
গোল পেলেও জয় পায়নি কাতার

মন্তব্য

খেলা
Argentina has to do whatever it takes to win

আর্জেন্টিনার সামনে যেসব সমীকরণ

আর্জেন্টিনার সামনে যেসব সমীকরণ আর্জেন্টিনার জার্সিতে লিওনেল মেসি। ছবি: এএফপি
‘সি’ গ্রুপের প্রথম ম্যাচে আর্জেন্টিনাকে হারিয়ে ৩ পয়েন্ট নিয়ে বর্তমানে পয়েন্ট টেবিলের সবার ওপরে রয়েছে সৌদি আরব। সৌদির পরের দুই ম্যাচ পোল্যান্ড ও মেক্সিকোর বিপক্ষে। যেকোনো একটিতে জয় পেলেই শেষ ১৬ নিশ্চিত করার দৌড়ে এগিয়ে যাবে তারা।

কাতার বিশ্বকাপে অন্যতম হট ফেভারিট দল আর্জেন্টিনা। তবে সৌদি আরবের সঙ্গে প্রথম ম্যাচ হেরে নকআউট পর্বে যেতে কিছুটা বেগ পেতে হবে দুইবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের। জয়ের বিকল্প চিন্তা করলে বিদায়ঘণ্টাও বাজতে পারে মেসি-মার্তিনেসদের।

কেননা, বিশ্বকাপের গ্রুপ ‘সি’-তে পোল্যান্ডের বিপক্ষে ড্র করে এখন জয় পেতে মরিয়া মেক্সিকো। যে কারণে শনিবারের ম্যাচ দুটি আর্জেন্টিনা ও মেক্সিকোর জন্য বেশ গুরুত্বপূর্ণ। অন্যদিকে বার্সেনোর ‘গোল মেশিন’ লেওয়ানডোভস্কিও চাইবেন নিজের দল পোল্যান্ডকে সেরা ১৬ তে নিয়ে যেতে।

‘সি’ গ্রুপের প্রথম ম্যাচে আর্জেন্টিনাকে হারিয়ে ৩ পয়েন্ট নিয়ে বর্তমানে পয়েন্ট টেবিলের সবার ওপরে রয়েছে সৌদি আরব। সৌদির পরের দুই ম্যাচ পোল্যান্ড ও মেক্সিকোর বিপক্ষে। যেকোনো একটিতে জয় পেলেই শেষ ১৬ নিশ্চিত করার দৌড়ে এগিয়ে যাবে তারা।

এ অবস্থায় এখন সৌদি আরবের বিপক্ষে দুই দলই আগের চেয়ে বেশি সতর্ক হয়ে মাঠে নামবে।

তবে শেষ ষোলো নিশ্চিত করতে পরের দুই ম্যাচে জিততে হবে দক্ষিণ আমেরিকার দেশ আর্জেন্টিনাকে। গ্রুপের অন্য দলগুলো বাকি ম্যাচে জয় পেলে সমীকরণ আরও কঠিন হতে পারে মেসিদের।

প্রথম ম্যাচে মেক্সিকো ড্র করে পোল্যান্ডের সঙ্গে। পরের দুই ম্যাচে পোল্যান্ড জিতে গেলে তাদের পয়েন্ট হবে ৭। একই রকম হিসাব ধরা যেতে পারে মেক্সিকোর ক্ষেত্রেও।

তবে আর্জেন্টিনার বিপক্ষে যদি তারা হেরে যায় ও সৌদি আরবের সঙ্গে জিতে যায় তবে তাদের পয়েন্ট হবে ৪। সে ক্ষেত্রেও তাদের সুযোগ থাকতে পারে পরের রাউন্ডে যাওয়ার, যদি পোল্যান্ডও পরের দুই ম্যাচের একটিতে হারে ও অপরটিতে ড্র করে।

সে ক্ষেত্রে গোল ব্যবধানে যে দল এগিয়ে থাকবে সেই দলই যেতে পারে পরের রাউন্ডে।

আবার পোল্যান্ড-মেক্সিকো যদি পরের দুই ম্যাচে একটি করে ড্র ও জয় পায় তবে আর্জেন্টিনাকে জয় পেতে হবে বকি দুই ম্যাচেই।

আরেক সমীকরণে আর্জেন্টিনা যদি মেক্সিকো ও পোল্যান্ড বিপক্ষে দুই ম্যাচেই হেরে বসে, তবে গ্রুপের অন্য দলগুলোর হাতে সুযোগ থাকবে পরের রাউন্ডে যাওয়ার।

সে ক্ষেত্রে ৪ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হবে সৌদি আরব। পোল্যান্ড ও মেক্সিকো উভয়েরই পয়েন্ট হবে ৩। আর গোল ব্যবধানে যে দল এগিয়ে থাকবে তাদের মধ্যে যেকোনো একটি দল চলে যাবে সেরা ১৬তে।

আরও পড়ুন:
বাঁচা-মরার লড়াইয়ে আর্জেন্টিনা
এবার পোল্যান্ড বাধা টপকানোর চ্যালেঞ্জ সৌদির
ইংল্যান্ডের ড্রয়ে জমে উঠেছে গ্রুপের লড়াই
ডাচদের বিপক্ষে জয় পেল না ইকুয়েডর
আমি ফিরে আসব: নেইমার

মন্তব্য

খেলা
The news of Saudi footballers getting Rolls Royce is fake

সৌদি ফুটবলারদের রোলস রয়েস পাওয়ার খবরটি ভুয়া

সৌদি ফুটবলারদের রোলস রয়েস পাওয়ার খবরটি ভুয়া মেসিদের বিপক্ষে জয়ের কারণে সৌদি ফুটবলাররা গাড়ি উপহার পাননি। ছবি কোলাজ: নিউজবাংলা
এক ব্রিটিশ সাংবাদিকের প্রশ্ন ছিল, আমরা শুনেছি আর্জেন্টিনার বিপক্ষে জয়ের পর আপনি একটি বিলাসবহুল গাড়ি পেয়েছেন? এটা কি সত্যি? গাড়ি পেয়ে থাকলে আপনি কোন রং পছন্দ করলেন? জবাবে হাসিমাখা মুখে সালেহ আলশেহরি বলেন, ‘এ খবর সত্যি নয়। এ ধরনের কোনো ঘটনা ঘটেনি।’

কাতার বিশ্বকাপে হট ফেভারিট আর্জেন্টিনার বিপক্ষে জয় পাওয়া সৌদি ফুটবল দলের সদস্যদের সবাই রোলস রয়েস গাড়ি উপহার পাচ্ছেন- এমন খবর দিয়েছে বেশ কয়েকটি আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম।

এসব প্রতিবেদনে বলা হয়, সৌদি ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমান ফুটবলারদের একটি করে রোলস রয়েস গাড়ি উপহার দিচ্ছেন।

তবে সৌদি আরবের জাতীয় ফুটবল দলের সদস্য সালেহ আলশেহরি এই তথ্য গুজব বলে উড়িয়ে দিয়েছেন।

সৌদিভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আরব নিউজের প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

এক সংবাদ সম্মেলনে সৌদি ফুটবলার সালেহ আলশেহরি বলেন, ‘আমরা এখানে এসেছি দেশের সেবা করতে এবং সেরাটা দিতে এসেছি। এটাই আমাদের সবচেয়ে বড় অর্জন।’

সংবাদ সম্মেলনে সালেহ আলশেহরির উদ্দেশে এক ব্রিটিশ সাংবাদিকের প্রশ্ন ছিল, ‘আমরা শুনেছি আর্জেন্টিনার বিপক্ষে জয়ের পর আপনি একটি বিলাসবহুল গাড়ি পেয়েছেন? এটা কি সত্যি? গাড়ি পেয়ে থাকলে আপনি কোন রং পছন্দ করলেন?’

জবাবে হাসিমাখা মুখে সালেহ আলশেহরি বলেন, ‘এ খবর সত্যি নয়। এ ধরনের কোনো ঘটনা ঘটেনি। আমরা এখানে কেবল দেশের সেবায় এসেছি।’

সৌদি আরবের কাছে মঙ্গলবার নিজেদের প্রথম ম্যাচে ২-১ গোলে হেরেছে লিওনেল মেসির দল। বিশ্বকাপের আগে টানা ৩৬ ম্যাচ অপরাজিত থাকা আর্জেন্টিনা হোঁচট খায় এশিয়ান জায়ান্টদের বিপক্ষে।

আরও পড়ুন:
ডাচদের বিপক্ষে জয় পেল না ইকুয়েডর
আমি ফিরে আসব: নেইমার
গোল পেলেও জয় পায়নি কাতার
ছিটকে গেলেন নেইমার
কাতার বিশ্বকাপের প্রথম লাল কার্ড হেনেসির

মন্তব্য

খেলা
Argentina is again in the field of defeat to Saudi

সেই মাঠে আবার নামছে আর্জেন্টিনা

সেই মাঠে আবার নামছে আর্জেন্টিনা সৌদি আরব ও আর্জেন্টিনা ম্যাচের আগে লুসাইল আইকনিক স্টেডিয়াম। ছবি: এএফপি
কাতারের লুসাইল আইকনিক স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় শনিবার রাত ১টায় শুরু হবে ম্যাচটি। এর আগে বৃহস্পতিবার রাতে ব্রাজিল ও সার্বিয়ার ম্যাচটিও এই মাঠে হয়েছিল। সে ম্যাচে ব্রাজিল ২-০ গোলে জয় পায়।

কাতার বিশ্বকাপে শিরোপার অন্যতম দাবিদার হিসেবে বিবেচনা করা হচ্ছে দক্ষিণ আমেরিকার দেশ আর্জেন্টিনাকে। লিওনেল মেসির সঙ্গে অভিজ্ঞ ও তরুণদের নিয়ে গঠন করা দলটি বদ্ধপরিকর মেসির হাতে শিরোপা তুলে দিতে। এতে করে পাঁচবারের ব্যালন ডরজয়ী মেসির হাত ধরে ৩৬ বছরের শিরোপা-খরার আক্ষেপ ঘোচানোর স্বপ্ন এবার সমর্থকদের।

এত স্বপ্ন নিয়ে কাতারে আসা দলটি বিশ্ব মঞ্চে নিজেদের প্রথম ম্যাচে সোদি আরবের বিপক্ষে ২-১ গোলের ব্যবধানে হেরে বসে। এমন হারে শঙ্কা জাগে সুপার সিক্সটিন রাউন্ডে ওঠা নিয়ে। এমন সমীকরণে বাঁচামরার লড়াইয়ে মেক্সিকোর বিপক্ষে একই মাঠে নামবে দুইবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা।

সেই মাঠে আবার নামছে আর্জেন্টিনা

যে মাঠে সৌদি আরবের সঙ্গে হার দিয়ে বিশ্বকাপ মিশন শুরু করেছিল, সেই মাঠেই মেক্সিকোর বিপক্ষে নামছেন মেসি-দি মারিয়ারা।

কাতারের লুসাইল আইকনিক স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময়ে শনিবার রাত ১টায় শুরু হবে ম্যাচটি। এর আগে বৃহস্পতিবার রাতে ব্রাজিল ও সার্বিয়ার ম্যাচটিও এই মাঠে অনুষ্ঠিত হয়েছিল। সে ম্যাচে ব্রাজিল ২-০ গোলে জয় পায়।

সেই মাঠে আবার নামছে আর্জেন্টিনা

আইকনিক এই স্টেডিয়ামে মেসি-নেইমারদের পর খেলতে নামবেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালডো। পর্তুগালের তারকা এই খেলোয়াড় তার দল নিয়ে ২৮ নভেম্বর বাংলাদেশ সময় রাত ১টায় মাঠে নামবেন উরুগুয়ের বিপক্ষে।

২০১০ সালে ‘ফিফা বিশ্বকাপ ২০২২’ আয়োজনের দায়িত্ব পেয়ে নিজেদের সক্ষমতাকে বিশ্বের কাছে তুলে ধরার প্রয়াস জাগে কাতারের। সেই ধারাবাহিকতায় বিশ্বকাপের জন্য তৈরি করা হয় মোট আটটি স্টেডিয়াম।

সেই মাঠে আবার নামছে আর্জেন্টিনা

আগামী ১৮ ডিসেম্বর চলতি আসরের ফাইনাল ম্যাচসহ গ্রুপ পর্বের বেশ কয়েকটি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে লুসাইল স্টেডিয়ামে। এ ছাড়া সেমিফাইনালের ভেন্যুও নির্ধারণ করা হয়েছে এই স্টেডিয়ামে।

আর্জেন্টনা ও ব্রাজিলের ম্যাচের মতোই সব টিকিট আগেই বিক্রি হয়ে যায় এই ম্যাচের। ৮০ হাজারেরও বেশি ধারণক্ষমতার মাঠটিতে আগের দুই ম্যাচেও সব আসন দর্শকে পূর্ণ ছিল।

সেই মাঠে আবার নামছে আর্জেন্টিনা

দোহার ১৫ কিলোমিটার উত্তরে দুই লাখ জনসংখ্যার পরিকল্পিত একটি শহর লুসাইল। এর নকশা করেছে যুক্তরাজ্যের ফার্ম ফস্টার্স, যা তৈরিতে কাতারের ব্যয় হয়েছে ৭৬৭ মিলিয়ন ডলার। প্রাথমিকভাবে ২০১৪ সালে কাজ শুরু হলেও আনুষ্ঠানিকভাবে কাজ শুরু হয় ২০১৭ সালের ১১ এপ্রিল। শেষ হয় ২০২১ সালের ২২ নভেম্বর।

সেই মাঠে আবার নামছে আর্জেন্টিনা

বিশ্বকাপের পর এই স্টেডিয়ামটিকে সামাজিক কর্মকাণ্ডের বড় একটি স্থান হিসেবে রূপান্তরের পরিকল্পনা রয়েছে। এ কারণে ৮০ হাজার ধারণক্ষমতাসম্পন্ন স্টেডিয়ামটির বেশির ভাগ আসন উঠিয়ে ফেলা হবে।

আরও পড়ুন:
ডাচদের বিপক্ষে জয় পেল না ইকুয়েডর
আমি ফিরে আসব: নেইমার
গোল পেলেও জয় পায়নি কাতার
ছিটকে গেলেন নেইমার
কাতার বিশ্বকাপের প্রথম লাল কার্ড হেনেসির

মন্তব্য

p
উপরে