× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

খেলা
Yasir is doing well after a successful surgery
hear-news
player
google_news print-icon

সফল অস্ত্রোপচারে শঙ্কামুক্ত সৌদির ইয়াসির

সফল-অস্ত্রোপচারে-শঙ্কামুক্ত-সৌদির-ইয়াসির
ইনজুরির পর মাঠে পড়ে আছেন ইয়াসির। ছবি: এএফপি
ইয়াসির শাহরানির ইনজুরির ঘটনাটি ঘটে ম্যাচের শেষ দিকে এসে। আর্জেন্টাইন আক্রমণ প্রতিহত করতে লাফ দেন সৌদি গোলরক্ষক মোহাম্মদ আলওয়াসি। লাফ দিয়ে গোল বাঁচালেও দুর্ঘটনা ঘটিয়ে বসেন তিনি।

আর্জেন্টিনার বিপক্ষে ঐতিহাসিক জয়ের দিনে ভয়াবহ ইনজুরিতে পড়েছিলেন সৌদি আরবের ডিফেন্ডার ইয়াসির আল শেহরানি। সতীর্থ গোলরক্ষকের সঙ্গে সংঘর্ষে চোয়ালের হাড় ভেঙে যায় তার। আর সে কারণে তাকে যেতে হয়েছে অস্ত্রোপচারের মধ্য দিয়ে।

ম্যাচ শেষে দেশে উড়িয়ে নেয়া হয় ইয়াসিরকে। এরপর সৌদি যুবরাজের ব্যক্তিগত বিমানে করে জার্মানিতে অস্ত্রোপচারের জন্য নিয়ে যাওয়া হয় তাকে।

বুধবার রাতে ইয়াসিরের চোয়ালের অস্ত্রোপচার হয়। সফল অস্ত্রোপচারে সুস্থ আছেন তিনি।

বুধবার রাতে এক বিবৃতিতে বিষয়টি নিশ্চিত করেছে সৌদি ফুটবল ফেডারেশন।

ইয়াসির শাহরানির ইনজুরির ঘটনাটি ঘটে ম্যাচের শেষ দিকে এসে। আর্জেন্টাইন আক্রমণ প্রতিহত করতে লাফ দেন সৌদি গোলরক্ষক মোহাম্মদ আলওয়াসি। এতে গোল বাঁচালেও সতীর্থ ইয়াসিরকে আহত করে ফেলেন তিনি।

লাফ দেয়ার কারণে সৌদি গোলরক্ষকের হাঁটুর সঙ্গে বেশ জোরেই আঘাত লাগে ইয়াসিরের চোয়ালের। তৎক্ষণাৎ মাটিতে লুটিয়ে পড়েন এ ডিফেন্ডার। অনেকটা সময় মাটিতেই পড়ে থাকতে দেখা যায় তাকে।

মাঠেই প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়ার পর স্ট্রেচারে করে মাঠ থেকে তুলে নিয়ে যাওয়া হয় ইয়াসিরকে।

এক্স-রের পর দেখা যায় শাহরানির চোয়াল ও মুখের বাম দিকের হাড় ভেঙে গেছে। মুখের ভেতর রক্তক্ষরণ হওয়ায় তাকে অস্ত্রোপচার করার নির্দেশ দেন চিকিৎসক।

আরও পড়ুন:
গোলশূন্য ড্রয়ে শেষ মরক্কো-ক্রোয়েশিয়া ম্যাচ
ফাঁস হলো ব্রাজিলের একাদশ
প্রথমার্ধে সমানে সমান ক্রোয়েশিয়া ও মরক্কো
‘তোমরা জিতবে না’, মেসিকে মাঠেই জানান সৌদি ডিফেন্ডার
গত আসরের হতাশা ভুলে মাঠে নামছে জার্মানি

মন্তব্য

আরও পড়ুন

খেলা
Three teams are coming down with the possibility of winning Group F

গ্রুফ-এফ জয়ের সম্ভাবনা নিয়ে নামছে তিন দল

গ্রুফ-এফ জয়ের সম্ভাবনা নিয়ে নামছে তিন দল ছবি: সংগৃহীত
মরক্কো খেলবে কানাডার বিপক্ষে আর বেলজিয়াম লড়বে গতবারের ফাইনালিস্ট ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে। কানাডা ছাড়া নকআউট রাউন্ডে যাওয়ার সম্ভাবনা ধরে রেখেছে বাকি তিন দল।

বিশ্বকাপের গ্রুপ-এফের ম্যাচে বৃহস্পতিবার রাত ৯টায় নামছে ক্রোয়েশিয়া, বেলজিয়াম, মরক্কো ও কানাডা। কানাডা ছাড়া নকআউট রাউন্ডে যাওয়ার সম্ভাবনা ধরে রেখেছে বাকি তিন দল।

মরক্কো খেলবে কানাডার বিপক্ষে আর বেলজিয়াম লড়বে গতবারের ফাইনালিস্ট ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে।

গ্রুপে পরিষ্কার ফেভারিট হিসেবে বিশ্বকাপ শুরু করে বেলজিয়াম। তবে, ফিফা র‍্যাঙ্কিংয়ে বিশ্বের দ্বিতীয় সেরা দলটি হতাশ করেছে নিজেদের প্রথম দুই ম্যাচে।

কানাডার সঙ্গে একমাত্র গোলের কষ্টার্জিত জয়ের পর তারা ২-০ গোলে হেরে যায় মরক্কোর কাছে। সবচেয়ে বড় যে ঝামেলায় তারা পড়েছে সেটা হলো অন্তর্কোন্দল।

মরক্কোর বিপক্ষে ম্যাচ শেষে বেলজিয়ামের তারকা মিডফিল্ডার কেভিন ডি ব্রুইনা দলের ডিফেন্ডারদের দিকে ইঙ্গিত করে বলেছিলেন যে, বেলজিয়ামের খেলোয়াড়রা বুড়ো হয়ে গেছে। তাদের পক্ষে আর বিশ্বকাপ জেতা সম্ভব নয়।

ডি ব্রুইনার এমন মন্তব্যের জবাবে দলের অভিজ্ঞ মিডফিল্ডার ইয়ান ভারটনগেন বলেন, শুধু ডিফেন্স নয় ফরোয়ার্ডরাও বুড়ো হয়ে গেছে যে কারণে গোল করতে পারে না।

ড্রেসিংরুমে লড়াইয়ের খবরও প্রকাশ করেছে ইউরোপিয়ান সংবাদমাধ্যমগুলো। তবে, কোচ রবার্তো মার্তিনেজের দাবি দলে ঐক্যের অভাব নেই।

শেষ ম্যাচে ক্রোয়েশিয়াকে হারালেই বিশ্বকাপের পরের পর্বে যেতে পারবে বেলজিয়াম। ড্র করলেও ক্ষীণ সম্ভাবনা থাকবে তবে সেক্ষেত্রে তাদের তাকিয়ে থাকতে হবে মরক্কোর ম্যাচের দিকে।

বিশ্বকাপে দারুণ খেলা মরক্কোর নকআউট নিশ্চিত করতে ড্র-ই যথেষ্ট হতে পারে যদি বেলজিয়াম জয় না পায়।

আর গ্রুপের শীর্ষে থাকা ক্রোয়েশিয়া ড্র বা জয়ে পৌঁছে যাবে শেষ ষোলোতে।

মন্তব্য

খেলা
Mexicos coach resigned
ফিফা বিশ্বকাপ

বিশ্বকাপ ব্যর্থতায় পদ ছাড়লেন মেক্সিকোর কোচ

বিশ্বকাপ ব্যর্থতায় পদ ছাড়লেন মেক্সিকোর কোচ সংবাদ সম্মেলনে মেক্সিকো জাতীয় দলের কোচ জেরার্দো মার্তিনো। ছবি: এএফপি
বিশ্বকাপের ব্যর্থ মিশন শেষে পদত্যগের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন আর্জেন্টাইন কোচ মার্তিনো। বিশ্বকাপে তিনিই কোচ দলের কোচ হিসেবে প্রথম পদত্যাগ করলেন।

বিশ্বকাপে নিয়মিতই দেখা যায় উত্তর ও মধ্য আমেরিকা অঞ্চলের দেশ মেক্সিকোকে। অভিজ্ঞ দল নিয়ে কাতার বিশ্বকাপে আসলেও শেষ পর্যন্ত সৌদি আরবের বিপক্ষে জয় পেলেও গ্রুপ পর্ব থেকেই এবারের বিশ্বকাপ মিশন শেষ করতে হয়েছে জেরার্দো মার্তিনোর দলের।

বিশ্বকাপের ব্যর্থ মিশন শেষে পদত্যগের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন আর্জেন্টাইন কোচ মার্তিনো। বিশ্বকাপে তিনিই কোচ হিসেবে প্রথম পদত্যাগ করলেন।

সৌদি আরবের বিপক্ষে ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে মার্তিনো জানান, মেক্সিকো বাদ পড়ার পর তার চুক্তি শেষ হয়ে গেছে।

তিনি বলেন, ‘আমাদের এই ভয়ানক পারফরম্যান্স ও সমর্থকদের এমন হতাশায় ফেলার জন্য সবার প্রথমে আমি দায়ী। ভারপ্রাপ্ত কোচ হিসেবে এই ব্যর্থতার সম্পূর্ণ দায়বদ্ধতা আমার ওপর বর্তায়। আর ম্যাচ শেষে (সৌদি আরবের বিপক্ষে) রেফারি চূড়ান্ত বাঁশি বাজানোর সঙ্গে সঙ্গে আমার চুক্তি শেষ হয়ে গেছে।’

আর্জেন্টিনা ও বার্সেলোনার সাবেক কোচ মার্তিনো ২০১৯ সালে মেক্সিকো জাতীয় দলের দায়িত্ব নেন। বিশ্বকাপে দলকে নিয়ে আসলেও বিশ্বের সবচেয়ে বড় মঞ্চে ভালো খেলতে পারেনি মার্তিনোর শিষ্যরা।

গ্রুপ পর্বের প্রথম ম্যাচে পোল্যান্ডের সঙ্গে ড্রয়ের পর দ্বিতীয় ম্যাচে আর্জেন্টিনার বিপক্ষে হেরে বসে মেক্সিকো। আর শেষ ম্যাচে সৌদি আরবের সঙ্গে ২-১ গোলে জয় পেলেও গোল ব্যবধানে পিছিয়ে থাকার কারণে শেষ পর্যন্ত বিশ্বকাপের আসর থেকে বিদায় নিতে হয়েছে দলটির।

পোল্যান্ড ও মেক্সিকো সমান তিন ম্যাচ খেলে এক জয়, এক হার ও এক ড্রয়ে ৪ পয়েন্ট সংগ্রহ করে। গোল ব্যবধানে পোল্যান্ডের পয়েন্ট দাঁড়ায় ০ অন্যদিকে মেক্সিকোর -১। ফলে নকাআউট পর্বে পৌঁছে যায় লেওয়ানডোভস্কির পোল্যান্ড।

আরও পড়ুন:
মেক্সিকোর বিপক্ষে সৌদির গোলে নকআউটে পোল্যান্ড
মেসির পেনাল্টি মিসের পরও হেসেখেলে নকআউটে আর্জেন্টিনা
প্রথমার্ধে শেজনি দেয়াল ভাঙতে পারল না আর্জেন্টিনা
পোল্যান্ডের বিপক্ষে আর্জেন্টিনার একাদশে ৪ পরিবর্তন
ডেনমার্ককে হারিয়ে ফ্রান্সের সঙ্গে নকআউটে অস্ট্রেলিয়া

মন্তব্য

খেলা
Test night for Germany Spain and Japan

জার্মানি, স্পেন ও জাপানের পরীক্ষার রাত

জার্মানি, স্পেন ও জাপানের পরীক্ষার রাত ছবি: সংগৃহীত
জাপানের কাছে জার্মানির হারে পাল্টে যায় সব হিসাব। শুধু তা-ই নয় জাপানের বিপক্ষে কোস্টারিকার এক গোলের জয়ের পর গ্রুপের সমীকরণ এমন দাঁড়িয়েছে যে শেষ ম্যাচ ডেতে চার দলেরই সুযোগ থাকছে নকআউটে যাওয়ার।

ফিফা বিশ্বকাপে ফেভারিট হিসেবেই কাতারে পা রেখেছিল জার্মানি ও স্পেন। গ্রুপ-ই থেকে এই দুই দলের নকআউটে যাওয়াটা প্রায় নিশ্চিত ধরে নিয়েছিলেন বিশেষজ্ঞরা।

তবে জাপানের কাছে জার্মানির হারে পাল্টে যায় সব হিসাব। শুধু তা-ই নয় জাপানের বিপক্ষে কোস্টারিকার এক গোলের জয়ের পর গ্রুপের সমীকরণ এমন দাঁড়িয়েছে যে শেষ ম্যাচ ডেতে চার দলেরই সুযোগ থাকছে নকআউটে যাওয়ার।

রাত ১টায় জাপানের মুখোমুখি হচ্ছে স্পেন আর কোস্টারিকাকে মোকাবিলা করবে জার্মানি।

২ ম্যাচে ৪ পয়েন্ট পাওয়া স্পেন যদি জাপানের সঙ্গে না হারে তাহলে তারা চলে যাবে শেষ ষোলোতে। হারলেও সম্ভাবনা থাকবে। কারণ স্পেনের গোল ব্যবধান +৭।

গ্রুপের তলানিতে থাকা জার্মানির কোস্টারিকার বিপক্ষে জয় ছাড়া অন্য পথ খোলা নেই। শুধু জিতলেই হবে না। বেশ বড় ব্যবধানে কোস্টারিকাকে হারাতে হবে চারবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের। কারণ তাদের গোল পার্থক্য-১।

কোস্টারিকার সামনেও থাকছে সুযোগ। জার্মানিকে হারালে আর স্পেন-জাপান ম্যাচ ড্র হলে তারাই হবে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন। আর স্পেন ও কোস্টারিকা নিজ নিজ ম্যাচে জিতলে এ দুই দলই যাবে নকআউটে।

৩ পয়েন্ট পাওয়া কোস্টারিকা নিজেদের প্রথম ম্যাচে ৭-০ গোলে হেরেছিল স্পেনের কাছে। যে কারণে গোল পার্থক্যে তারা বেশ খানিকটা পিছিয়ে। জাপানকে হারানোর ম্যাচে তারা করেছিল এক গোল। যে কারণে তাদের গোল ব্যবধান -৬।

জার্মানির সঙ্গে যদি কোস্টারিকা ড্র করে ও জাপান স্পেনের কাছে হেরে যায় তারপরও ৪ পয়েন্ট নিয়ে তারা গ্রুপ রানার্সআপ হয়ে নকআউটে পৌঁছাবে।

সব মিলিয়ে গ্রুপ-ই থেকে চার দলেরই সুযোগ থাকছে নকআউটে কোয়ালিফাই করার।

আরও পড়ুন:
মেসি আমাকে ক্ষমা করে দাও: মেক্সিকান বক্সার
আর্জেন্টিনার ভাগ্য বদলে দেয়া কে এই ম্যাকঅ্যালিস্টার
এ জয়ে ম্যারাডোনা অনেক খুশি হতেন: মেসি

মন্তব্য

খেলা
The Mexican boxer apologized to Messi

মেসি আমাকে ক্ষমা করে দাও: মেক্সিকান বক্সার

মেসি আমাকে ক্ষমা করে দাও: মেক্সিকান বক্সার লিওনেল মেসি ও সাউল আলভারেস। ছবি: সংগৃহীত
ড্রেসিং রুমে মেক্সিকোর জার্সি অবমাননা করার জন্য মেসির উপর চটেছিলেন মেক্সিকোর বক্সার সাউল আলভারেস। তার সেই অযাচিত অভিযোগের কারণে সারা বিশ্বের ফুটবলপ্রেমীদের রোষানলে পড়েন ওই বক্সার।

বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচ সৌদি আরবের বিপক্ষে হারের পর দ্বিতীয় ম্যাচে দারুণ ভাবে ঘুরে দাঁড়ায় আর্জেন্টিনা। মেক্সিকোর বিপক্ষে সেই ম্যাচে ২-০ গোলের জয়ের পর পুরো স্কোয়াড নেচেগেয়ে উদযাপন করে ড্রেসিংরুমে।

আর সেই উদযাপনেই বাধে বিপত্তি। ড্রেসিং রুমে মেক্সিকোর জার্সি অবমাননার অভিযোগ তুলে মেসির উপর চটেছিলেন মেক্সিকোর বক্সার সাউল আলভারেস। অযাচিত সেই অভিযোগের কারণে সারা বিশ্বের ফুটবলপ্রেমীদের রোষানলে পড়েন ওই বক্সার।

এমনকি বিষয়টি নিয়ে নিজ দেশের ফুটবলারাও আলভারেসের সমালোচনা করেন। অবশেষ নিজের ভুল বুঝেছেন তিনি। মেসির কাছে ক্ষমা চায়েছেন এই বক্সার।

তিনি টুইটে লিখেন, ‘এই গত কয়েকদিনে আমি নিজ দেশের প্রতি গভীর আবেগ ও ভালোবাসার তোড়ে ভেসে গিয়েছি। আমি এতে আচ্ছন্ন হয়ে অযাচিত একটি মন্তব্য করেছি যার জন্য মেসি ও আর্জেন্টিনার জনগণের কাছে ক্ষমা চাইতে চাইছি। প্রতিদিনই আমরা নতুন কিছু শিখি এবং এবার আমার শেখার পালা।’

এর আগে মেসিদের ড্রেসিং রুমের ভিডিও দেখে এই বক্সার দাবি করেন, উল্লাস করার সময় মেসি মেক্সিকোর জার্সিতে লাথি মেরেছেন। লিওনেল মেসির উদ্দেশে এক টুইটে আলভারেস লেখেন, ‘ঈশ্বর না করুন! তিনি যেন আমার মুষ্ঠির বাইরে থাকেন।’

পরের আরেকটি টুইটে আলভারেস দাবি করেন, মেসি শুধু জার্সিতে লাথি দেননি সেটা দিয়ে ফ্লোরও পরিষ্কার করেছেন।

ভিডিওতে দেখা যায়, মেসি বুট খোলার সময় অনিচ্ছাকৃতভাবে তার পা মেক্সিকোর জার্সিতে লাগে।

আলভারেসের দাবি করেন মেসি ইচ্ছা করে এমনটা করেছিলেন। তিনি আরেকটি টুইটে লেখেন, ‘আমি যেভাবে আর্জেন্টিনাকে সম্মান করি। তারও উচিত মেক্সিকোকে সম্মান করা। আমি পুরো দেশের কথা বলছি না, শুধু মেসি যে জঘন্য কাজ করেছে তার কথা বলছি।’

আরও পড়ুন:
প্রথমার্ধে শেজনি দেয়াল ভাঙতে পারল না আর্জেন্টিনা
পোল্যান্ডের বিপক্ষে আর্জেন্টিনার একাদশে ৪ পরিবর্তন
ডেনমার্ককে হারিয়ে ফ্রান্সের সঙ্গে নকআউটে অস্ট্রেলিয়া
বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের মাটিতে নামাল তিউনিসিয়া
‘হ্যান্ড অফ গডের’ পর এবারে ‘হেয়ার অফ গড’

মন্তব্য

খেলা
McAllister scored in the match against Argentinas Bachamara

আর্জেন্টিনার ভাগ্য বদলে দেয়া কে এই ম্যাকঅ্যালিস্টার

আর্জেন্টিনার ভাগ্য বদলে দেয়া কে এই
ম্যাকঅ্যালিস্টার আর্জেন্টিনার জার্সিতে আলেক্সিস ম্যাকঅ্যালিস্টার। ছবি: এএফপি
ম্যাকঅ্যালিস্টার আর্জেন্টিনোস জুনিয়র্সের পর বোকা জুনিয়র্সে ১৩টি ম্যাচ খেলে ২০১৯ সালে যোগ দেন ব্রাইটনে। ক্লাবটির গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড় হিসেবে নিজেকে পরিণত করতে সময় নেননি তিনি। ২০১৯ সালে আর্জেন্টিনার হয়ে অভিষেকের পর জাতীয় দলের জার্সিতে দশম ম্যাচে এসে পেলেন ক্যারিয়ারের প্রথম গোল।

সৌদি আরবের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচ হারের পর আর্জেন্টিনার জন্য নকআউট পর্বে খেলার সমীকরণটা বেশ জটিল হয়ে পড়ে, তবে শেষ পর্যন্ত গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়েই নকআউট পর্ব নিশ্চিত করেছে লাতিন আমেরিকার দলটি।

দোহার নাইন সেভেন্টিফোর স্টেডিয়ামে পোল্যান্ডের বিপক্ষে বাঁচা-মরার লড়াইয়ে ২-০ গোলে জয় পেয়েছে নিওনেল স্কালোনির দল।

দলের তারকা ফরোয়ার্ড লিওনেল মেসি পেনাল্টি মিস করে যখন নায়ক থেকে খলনায়ক হওয়ার অপেক্ষায়, তখন ত্রাণকর্তার ভূমিকায় অবতীর্ণ হন আলেক্সিস ম্যাকঅ্যালিস্টার। ৪৬তম মিনিটে তার গোলে ডেডলক ভাঙে আর্জেন্টিনা।

ম্যারাডোনার ক্লাব আর্জেন্টিনোস জুনিয়র্সে বেড়ে ওঠা ম্যাকঅ্যালিস্টারের ছোটবেলা থেলেই স্বপ্ন ছিল লিওনেল মেসির সতীর্থ হয়ে খেলার। ২৩ বছর বয়সী এই তরুণ নিজের স্বপ্নটা পূরণ করলেন আর্জেন্টিনার পোস্টার বয় মেসির বিশ্বকাপ জয়ের স্বপ্নটা বাঁচিয়ে রেখে।

ম্যারাডোনার সঙ্গে অবশ্য বেশ কিছু মিল রয়েছে ম্যাকঅ্যালিস্টারের। একই শহর বুয়েন্স এইরেসে তাদের জন্ম। ফুটবল ক্যারিয়ারের শুরুটা দুজনেরই একই ক্লাবে। এমনকি ম্যারাডোনার মতোই বোকা জুনিয়র্সের হয়েও কিছুদিন খেলেছিলেন তিনি।

ম্যাকঅ্যালিস্টারের বাবা কার্লোস জেভিয়ার অ্যালিস্টার ছিলেন ম্যারাডোনারই সতীর্থ। বাবা ফুটবলার হওয়ার সুবাদে ৬ বছর বয়স থেকে ফুটবল খেলা শুরু করেন ব্রাইটনের এ মিডফিল্ডার।

ম্যাকঅ্যালিস্টার বর্তমানে প্রিমিয়ার লিগের ক্লাব ব্রাইটনের হয়ে খেলছেন। ২০২০ সালে ক্লাবে খেলা শুরু করলেও করোনাভাইরাস মহামারির কারণে সেভাবে খেলার সুযোগ পাননি তিনি। ২০২১-২২ মৌসুমে ক্লাবের হয়ে দারুণ পারফরম্যান্স করেন তিনি। তাকে আর্জেন্টিনা দলের ভবিষ্যৎও ভাবা হচ্ছে।

আর্জেন্টিনোস জুনিয়র্সের পর বোকা জুনিয়র্সে ১৩টি ম্যাচ খেলে ২০১৯ সালে ব্রাইটনে যোগ দেন ম্যাকঅ্যালিস্টার। ক্লাবটির গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়ে নিজেকে পরিণত করতে সময় নেননি তিনি।

২০১৯ সালে আর্জেন্টিনার হয়ে অভিষেকের পর জাতীয় দলের জার্সিতে দশম ম্যাচে এসে পেলেন ক্যারিয়ারের প্রথম গোল। সে গোলও আবার বিশ্বকাপের মঞ্চে বাঁচা-মরার লড়াইয়ে।

আরও পড়ুন:
পোল্যান্ডের বিপক্ষে আর্জেন্টিনার একাদশে ৪ পরিবর্তন
ডেনমার্ককে হারিয়ে ফ্রান্সের সঙ্গে নকআউটে অস্ট্রেলিয়া
বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের মাটিতে নামাল তিউনিসিয়া
‘হ্যান্ড অফ গডের’ পর এবারে ‘হেয়ার অফ গড’
মেসিকে থামানোর উপায় জানেন না পোল্যান্ডের কোচ

মন্তব্য

খেলা
Maradona would have been very happy with this win Messi

এ জয়ে ম্যারাডোনা অনেক খুশি হতেন: মেসি

এ জয়ে ম্যারাডোনা অনেক খুশি হতেন: মেসি কিংবদন্তি ফুটবলার দিয়েগো ম্যারাডোনার সঙ্গে আর্জেন্টিনার মহাতারকা ফুটবলার লিওনেল মেসি। ছবি: সংগৃহীত
মেসি বলেন, ‘আমি এই রেকর্ডের বিষয়টি সম্প্রতি জানতে পেরেছি। এই ধরনের সফলতার রেকর্ড অর্জন করতে পারায় আমি আনন্দিত। আজ বেঁচে থাকলে ম্যারাডোনা অনেক বেশি আনন্দিত হতেন। কারণ তিনি আমাকে অনেক স্নেহ করতেন। আমার ভালো ও মঙ্গলে তিনি অত্যন্ত খুশি হতেন।’

পোল্যান্ডের বিপক্ষে গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে আর্জেন্টিনাকে সফল নেতৃত্ব দিয়ে বিশ্বকাপের শেষ ষোলোতে নিয়ে আসতে পারায় লিওনেল মেসির ওপর অত্যন্ত খুশি হতেন দিয়েগো ম্যারাডোনা।

কাতার বিশ্বকাপে বুধবার রাতে গ্রুপপর্বে পোল্যান্ডের বিরুদ্ধে বাঁচা-মরার এই ম্যাচে ২-০ গোলে জয়ের পর প্রতিক্রিয়ায় এমনটি জানিয়েছেন দেশটির মহাতারকা ফুটবলার লিওনেল মেসি।

বিশ্বকাপে ২২তম ম্যাচ খেলার মধ্য দিয়ে মেসি তার দেশের কিংবদন্তি ফুটবলার দিয়েগো ম্যারাডোনাকে টপকে যান। দুই বছর আগে এই কিংবদন্তি ফুটবলারের মৃত্যু হয়।

মেসি বলেন, ‘আমি এই রেকর্ডের বিষয়টি সম্প্রতি জানতে পেরেছি। এই ধরনের সফলতার রেকর্ড অর্জন করতে পারায় আমি আনন্দিত। আজ বেঁচে থাকলে ম্যারাডোনা অনেক বেশি আনন্দিত হতেন। কারণ তিনি আমাকে অনেক স্নেহ করতেন। আমার ভালো ও মঙ্গলে তিনি অত্যন্ত খুশি হতেন।’

পেনাল্টি মিসের পর এই ম্যাচ জয়ে অনেক বেশি স্বস্তি প্রকাশ করেছেন এই আর্জেন্টাইন ক্যাপ্টেন। এটি তার ক্যারিয়ারে ৩৯তম পেনাল্টি মিসের ঘটনা ছিল।

মেসি বলেন, ‘গ্রুপপর্বের প্রথম ম্যাচে সৌদি আরবের বিপক্ষে ২-০ গোলের বেদনাদায়ক পরাজয়ের পর এই ম্যাচে জয়ের মধ্য দিয়ে আমরা আমাদের প্রধান লক্ষ্য অর্জন করতে পেরেছি। আমরা গ্রুপপর্ব টপকে নকআউটে এসেছি।’

বুধবার দলের শেষ গ্রুপ ম্যাচে পেনাল্টি মিস করেন লিওনেল মেসি। তার পেনাল্টি ঠেকিয়েও শেষ রক্ষা হয়নি পোল্যান্ডের গোলকিপার ভইচেক শেজনি ও তার দলের।

পোল্যান্ডকে গুড়িয়ে দিয়ে ২-০ গোলে ম্যাচ জিতে সি-গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হিসেবে নকআউটে পৌঁছে যায় আর্জেন্টিনা। শেষ ষোলোতে তারা খেলবে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে।

সৌদি আরবের বিপক্ষে অনাকাঙ্খিত হার দিয়ে শুরু করা আর্জেন্টিনা নিজেদের শেষ গ্রুপ ম্যাচে খেলেছে বিশ্বসেরা দলের মতোই।

কঠিন সমীকরণে আটকে থেকে বিশ্বকাপে টিকে থাকার ম্যাচে বুধবার রাতে পোল্যান্ডের বিপক্ষে মাঠে নামে আর্জেন্টিনা।

গ্রুপ পর্বে নিজেদের শেষ ম্যাচে জয় বাগিয়ে নিতে ব্যর্থ হলে শেষ ষোলোতে খেলা অনিশ্চিত হয়ে যেত দুইবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের।

আরও পড়ুন:
পেনাল্টি মিসকেই শাপে বর মনে করছেন মেসি
মেক্সিকোর বিপক্ষে সৌদির গোলে নকআউটে পোল্যান্ড
মেসির পেনাল্টি মিসের পরও হেসেখেলে নকআউটে আর্জেন্টিনা

মন্তব্য

খেলা
This years cup will be picked up by Messi

‘আশা করছি এবারের কাপটা মেসির হাতেই উঠবে’

‘আশা করছি এবারের কাপটা মেসির হাতেই উঠবে’ আর্জেন্টিনার দুটি গোলে উল্লাসে মেতে ওঠেন শেরপুরের সমর্থকরা। ছবি: নিউজবাংলা
আর্জেন্টিনার সমর্থক শেরপুর প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ও ক্রীড়া সংগঠক মো. মেরাজ উদ্দিন বলেন, ‘সৌদি আরবের সঙ্গে প্রথম ম্যাচ হারার পর অনেকেই মনে করেছিল আর্জেন্টিনার বিশ্বকাপ মিশন শেষ হয়েছে। এমন অনেক খেলোয়াড় আছেন, যাদের একজনকে আটকালে অন্যরা জ্বলে ওঠেন। আমরা আশা করছি, এবারের কাপটা মেসির হাতেই উঠবে।’

কাতার বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে সৌদি আরবের কাছে হারের পর মেক্সিকোর বিপক্ষে আর্জেন্টিনা বড় জয় পেলেও স্বস্তিতে ছিল না সমর্থকরা। কঠিন সমীকরণে আটকে যাওয়ার পর পোল্যান্ডের বিপক্ষেও জ্বলে ওঠেন দলের খেলোয়াড়রা।

মেসির পেনাল্টি মিসের পর সমর্থকদের কপালে চিন্তার ভাঁজ পড়লেও পরবর্তী সময়ে দুটি গোলে উল্লাসে মেতে ওঠেন শেরপুরের সমর্থকরা। আর্জেন্টিনার পতাকা নিয়ে স্লোগানে স্লোগানে মুখর হয় শেরপুরের বিভিন্ন এলাকা। এ ছাড়াও বিভিন্ন জায়গায় বড় পর্দায় দেখানো হয় খেলা।

ভক্তরা আশা করছেন এবারের বিশ্বকাপটা মেসির হাতেই উঠবে। সামনে আরও ভালো খেলবে প্রিয় দল আর্জেন্টিনা- এ আশায় বুক বাঁধছেন মেসি ভক্তরা।

আর্জেন্টিনার সমর্থক শেরপুর প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ও ক্রীড়া সংগঠক মো. মেরাজ উদ্দিন বলেন, ‘সৌদি আরবের সঙ্গে প্রথম ম্যাচ হারার পর অনেকেই মনে করেছিল আর্জেন্টিনার বিশ্বকাপ মিশন শেষ হয়েছে। কিন্তু আর্জেন্টিনার দলে মেসি, দিবালা, ডি মারিয়া, আলবারেস, মার্টিনেস, ডিপলসহ এমন সব খেলোয়াড় আছেন, যাদের একজনকে আটকালে অন্যরা জ্বলে ওঠেন। আমরা আশা করছি, এবারের কাপটা মেসির হাতেই উঠবে।’

অপর সমর্থক হাসানুর রহমান আলাল বলেন, ‘আমরা এবার আর্জেন্টিনা কাপ পাব- এটাই আশা করছি।’

সমর্থক শাহিন বলেন, ‘সৌদির কাছে হঠাৎ হেরে গিয়ে আর্জেন্টিনা আরও বেশি শক্তিশালী হয়ে উঠেছে। কাজেই বিশ্বকাপ এবার মেসির হাতেই উঠবে।’

আরও পড়ুন:
বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের মাটিতে নামাল তিউনিসিয়া
‘হ্যান্ড অফ গডের’ পর এবারে ‘হেয়ার অফ গড’
মেসিকে থামানোর উপায় জানেন না পোল্যান্ডের কোচ
স্বাগতিক হিসেবে সবচেয়ে বাজে রেকর্ড কাতারের
সৌদির কপাল খুলতে দরকার কঠিন হিসাব-নিকাশ

মন্তব্য

p
উপরে