× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

খেলা
Sheikh Russells Independence Cup started with a draw
hear-news
player
google_news print-icon

ড্র দিয়ে স্বাধীনতা কাপ শুরু শেখ রাসেলের

ড্র-দিয়ে-স্বাধীনতা-কাপ-শুরু-শেখ-রাসেলের
শেখ রাসেলের গোল পোস্টে ফর্টিসের আক্রমণ। ছবি: বাফুফে
কুমিল্লায় অনুষ্ঠিত ম্যাচে ফর্টিস এফসির সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র করেছে শেখ রাসেল। ফর্টিসের হয়ে গোল করেন দানিলো আর শেখ রাসেলের হয়ে সমতা ফেরান এমফন সানডে।

ঘরোয়া ফুটবলের অন্যতম আসর স্বাধীনতা কাপের উদ্বোধনী ম্যাচে পয়েন্ট হারিয়েছে শেখ রাসেল কেসি। কুমিল্লায় অনুষ্ঠিত ম্যাচে ফর্টিস এফসির সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র করেছে শেখ রাসেল।

রোববার ম্যাচের আগে বেলা ২টায় কুমিল্লা ভাষাসৈনিক শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত স্টেডিয়ামে স্বাধীনতা কাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের উদ্বোধন করেন কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের মেয়র ও জেলা ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি আরফানুল হক রিফাত।

আনুষ্ঠানিকতা শেষে শুরু হয় ম্যাচ। শক্তিশালী শেখ রাসেলের বিপক্ষে এগিয়ে যায় নতুন আসা ফর্টিস। ৩৭ মিনিটে কর্নার থেকে আসা বলে লাফিয়ে হেড করে লক্ষ্যভেদ করেন ফর্টিসের ব্রাজিলিয়ান ডিফেন্ডার দানিলো।

পিছিয়ে যাওয়ার পর আরও আক্রমণাত্মক হয়ে ওঠে শেখ রাসেল। তবে প্রথমার্ধে গোলের দেখা পায়নি জুলফিকার মাহমুদ মিন্টুর দল।

বিরতির পর ম্যাচে সমতা ফেরাতে সময় নেয়নি শেখ রাসেল। ৫২ মিনিটে স্কোরলাইন ১-১ বানিয়ে দেন এমফন সানডে। প্রতিপক্ষের রক্ষণভাগে বল পাওয়ার পর দুই ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে বাঁ পায়ের প্লেসিং শটে লক্ষ্যভেদ করেন নাইজেরিয়ান এই ফরোয়ার্ড।

এরপর মরিয়া হয়ে জয়সূচক গোলের জন্য লড়তে থাকে শেখ রাসেল। তবে গোলের দেখা পায়নি। শেষ পর্যন্ত ১-১ সমতাতেই শেষ হয় ম্যাচ।

বিশেষ অতিথিদের সঙ্গে এই ম্যাচ উপভোগ করেন বাংলাদেশ জাতীয় দলের হেড কোচ হাভিয়ের কাবরেরা। আরও ছিলেন কুমিল্লা জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক নাজমুল আহসান ফারুক রোমেন, জেলা ফুটবল এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক শরিফুল ইসলাম খন্দকার বাদলসহ অন্যান্যরা।

১৪ নভেম্বর সোমবার একই ভেন্যুতে বসুন্ধরা কিংসের বিপক্ষে খেলবে ইয়ংমেনস ফকিরেরপুল ক্লাব।

আরও পড়ুন:
নতুনদের নিয়ে আবারও চ্যাম্পিয়ন হতে চান কোচ ছোটন
তারা খালি টাকা চায়: সালাউদ্দিন
জেমিকে ক্ষতিপূরণের নির্দেশ ফিফার, আপিলে যাবে বাফুফে

মন্তব্য

আরও পড়ুন

খেলা
Legendary footballer Peles condition is stable

পেলের অবস্থা স্থিতিশীল

পেলের অবস্থা স্থিতিশীল কিংবদন্তি ফুটবলার পেলে। ছবি: সংগৃহীত
৮২ বছর বয়সী পেলেকে সাও পাওলোর আলবার্ট আইনস্টাইন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এমন এক সময় এই কিংবদন্তি হাসপাতালে ভর্তি হলেন, যখন কাতারে বিশ্বকাপে লড়ছেন তার উত্তরসূরীরা।

শ্বাসতন্ত্রের সমস্যা নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হওয়া ব্রাজিলের কিংবদন্তি ফুটবলার পেলের অবস্থা স্থিতিশীল।

স্থানীয় সময় শুক্রবার চিকিৎসকদের বরাত দিয়ে এ তথ্য জানিয়েছে আল জাজিরা

৮২ বছর বয়সী পেলেকে সাও পাওলোর আলবার্ট আইনস্টাইন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এমন এক সময় এই কিংবদন্তি হাসপাতালে ভর্তি হলেন, যখন কাতারে বিশ্বকাপে লড়ছেন তার উত্তরসূরীরা।

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বিবৃতিতে জানিয়েছে, পেলের শ্বাসতন্ত্রের সংক্রমণ দেখা দিয়েছে। বৃহস্পতিবার থেকে তাকে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

এতে আরও জানানো হয়, তার শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল। তবে কিছুটা উন্নতিও দেখা যাচ্ছে। হাসপাতালে রেখেই আগামী কিছুদিন তাকে চিকিৎসা দেয়া হবে।

১৯৫৮, ১৯৬২ ও ১৯৭০ বিশ্বকাপজয়ী কিংবদন্তি এডসন অ্যারানটিস দো নাসিমেন্ট বিশ্বজুড়ে পরিচিত পেলে নামেই। তাকে বলা হয় সর্বকালের অন্যতম সেরা খেলোয়াড়।

কয়েক বছর ধরে ক্যান্সারের চিকিৎসা নিচ্ছেন পেলে। গত বছর তার কোলন টিউমারও ধরা পড়ে। শারীরিক অবস্থা আগের চেয়ে খারাপ হওয়ায় তাকে আর সেভাবে প্রকাশ্যে দেখা যায় না এখন।

বাবার অসুস্থতার খবর ছড়িয়ে পড়ার পর তার ভক্তদের আশ্বস্ত করেছেন পেলের মেয়ে কেলি নাসিমেন্তো। ইনস্টাগ্রামে এক পোস্টে তিনি লিখেছেন, বাবার শরীর নিয়ে গণমাধ্যমে বেশ উদ্বেগ। তবে জরুরি বা ভয়ঙ্কর কিছু নেই।

পেলের অসুস্থতার খবরে বিশ্বজুড়ে অসংখ্য ভক্ত উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। কাতারের স্টেডিয়াম থেকেও তার আরোগ্য কামনা করে বার্তা দেয়া হয়।

এ নিয়ে ইনস্টাগ্রামে শুভাকাঙক্ষী-ভক্তদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন পেলে। বৃহস্পতিবার পোস্টে তিনি লেখেন, এই ধরনের ইতিবাচক বার্তা পাওয়া সবসময়ই ভালো লাগে। এই শ্রদ্ধার জন্য কাতারকে ধন্যবাদ। যারা আমাকে ভালোবাসা পাঠিয়েছেন তাদের সবাইকে ধন্যবাদ।

আরও পড়ুন:
যুদ্ধ বন্ধ করুন: পুতিনকে পেলে
হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেলেন পেলে
ফের হাসপাতালে পেলে

মন্তব্য

খেলা
Brazil did not remain unbeaten in the knockout their partner Switzerland

অপরাজিত থাকল না ব্রাজিল, নকআউটে সঙ্গী সুইজারল্যান্ড

অপরাজিত থাকল না ব্রাজিল, নকআউটে সঙ্গী সুইজারল্যান্ড ব্রাজিলের বিপক্ষে ম্যাচজয়ী গোলের পর উচ্ছ্বসিত ক্যামেরুনের ভিনসেন্ট আবুবাকার। ছবি: টুইটার
গ্রুপ-জির শেষ ম্যাচে ক্যামেরুনের কাছে ১-০ গোলে হারের পরও শীর্ষস্থান ধরে রেখেই শেষ ষোলোতে যাচ্ছে ব্রাজিল। একই গ্রুপের আরেক ম্যাচে সার্বিয়াকে ৩-২ গোলে হারিয়ে শেষ ১৬তে তাদের সঙ্গী সুইজারল্যান্ড।

শেষ ম্যাচ হেরেই বিশ্বকাপের গ্রুপপর্ব শেষ করল ব্রাজিল। গ্রুপ-জির শেষ ম্যাচে ক্যামেরুনের কাছে ১-০ গোলে হারের পরও শীর্ষস্থান ধরে রেখে শেষ ষোলোতে নামবে তারা। একই গ্রুপের আরেক ম্যাচে সার্বিয়াকে ৩-২ গোলে হারিয়ে শেষ ১৬-তে ব্রাজিলের সঙ্গী হচ্ছে সুইজারল্যান্ড।

আর ব্রাজিলকে হারিয়েও গ্রুপে তৃতীয় হওয়ায় বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নিতে হলো ক্যামেরুনকে। তবে ব্রাজিলের বিপক্ষে তাদের জয়টি একটি অনন্য রেকর্ড। কারণ এই প্রথম আফ্রিকার কোনো দলের কাছে বিশ্বকাপে হারল ব্রাজিল।

ক্যামেরুনের বিপক্ষে গ্রুপের প্রথম দুই ম্যাচ জিতে আগেই নকআউট নিশ্চিত করে ফেলা ব্রাজিল একাদশে ছিল পরিবর্তনের ছড়াছড়ি। রক্ষণে এদার মিলিতাও ও মাঝমাঠে ফ্রেডকে ছাড়া আগের ম্যাচের শুরুর একাদশের ৯ জন খেলোয়াড়কে বিশ্রাম দেন ব্রাজিলের কোচ লিওনার্দো তিতে।

বেঞ্চের শক্তি পরখ করে নেয়ার উদ্দেশ্যেই তার এই ব্যাপক রদবদল। ক্যামেরুনের বিপক্ষে দলকে নেতৃত্ব দেন ৩৯ বছর বয়সী দানি আলভেস। এতে করে বিশ্বকাপে ব্রাজিলের সবচেয়ে বয়সী খেলোয়াড় ও অধিনায়কের রেকর্ড গড়েন এ রাইট ব্যাক।

নতুন চেহারার একাদশ নিয়েও ক্যামেরুনের বিপক্ষে নিজেদের আক্রমণাত্মক ঢংয়ে শুরু করে ব্রাজিল। ১৪তম মিনিটে গাব্রিয়েল মার্তিনেলির শট ঠেকিয়ে ক্যামেরুনকে নিরাপদে রাখেন গোলকিপার ডেভিস এপাসি।

বিরতির আগে আরও দুইবার গোলের কাছাকাছি গিয়েছিল ব্রাজিল। ৩৪ মিনিটে আলভেসের জোরালো শট বারের ওপর দিয়ে চলে যায়। আর চার মিনিট পর অ্যান্টনির নিচু শট বিপদে ফেলতে পারেনি এপাসিকে। প্রথমার্ধের অতিরিক্ত সময়ে মার্তিনেলির আরেকটি শট ঠেকিয়ে ব্রাজিলকে হতাশ করেন ক্যামেরুনের এ গোলকিপার।

বিরতির ঠিক আগে ক্যামেরুন দারুণ এক সুযোগ পায়। বাম প্রান্ত দিয়ে মুমি এনগামেলুর ক্রসে ব্রায়ান এমবেমুর জোরালো হেড রুখে দেন ব্রাজিলের গোলকিপার এদারসন।

দ্বিতীয়ার্ধেও একের পর এক সুযোগ পায় ব্রাজিল, কিন্তু কাজে লাগাতে পারেনি। ৫৭ মিনিটে মিলিতাও এর শট পোস্টে লেগে লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়।

ম্যাচের ৭৯ মিনিটে অ্যান্টনির বদলে রাফিনিয়া নামলে সুযোগ বাড়ে ব্রাজিলের। ৮৯ মিনিটে তার পাস থেকে বল পেয়ে পেদ্রো বারের ওপর দিয়ে উড়িয়ে দেন।

অতিরিক্ত সময়ে কাউন্টার অ্যাটাক থেকে গোল বের করে নেয় ক্যামেরুন। ৯২ মিনিটে জেরোম এমবেকেলির পাস থেকে ব্রাজিলকে চমকে দেন ভিনসেন্ট আবুবাকার।

তবে আগেই হলুদ কার্ড পাওয়া আবুবাকার, গোলের পর জার্সি খুলে উদযাপনের জন্য দ্বিতীয় হলুদ কার্ড পেয়ে মাঠের বাইরে চলে যান।

শেষ মুহূর্তে গোল হজম করে আর ম্যাচে সমতা ফেরানোর সময় পায়নি ব্রাজিল। ফলে বিশ্বকাপে প্রথম পরাজয়ের স্বাদ পায় সেলেকাওরা।


গ্রুপের আরেক ম্যাচে প্রথমার্ধে ২-২ গোলে সমতায় ছিল সার্বিয়া ও সুইজারল্যান্ড। সুইস তারকা জেরদান শাকিরির ২০ মিনিটের স্ট্রাইকের ৬ মিনিট পর সার্বিয়াকে সমতায় ফেরান আলেক্সান্ডার মিত্রোভিচ।

মিনিট দশেক পর দুসান ভ্লায়োভিচের গোলে লিড নিয়ে নেয় সার্বিয়া। বিরতির ঠিক আগে ৪৪ মিনিটে ব্রিল এমবোলোর গোলে সমতা ফেরায় সুইসরা।

দ্বিতীয়ার্ধের একেবারে শুরুতে ম্যাচের ৪৮তম মিনিটে রেমো ফ্রিউলারের গোলে ম্যাচভাগ্য নির্ধারণ করে দেয় সুইজারল্যান্ড। বাকি সময়ে সার্বিয়া আর গোলের দেখা না পেলে, ব্রাজিলের পর গ্রুপের দ্বিতীয় সেরা দল হয়ে নকআউটে পৌঁছে যায় সুইসরা।

এই দুই ম্যাচ দিয়ে শেষ হয়েছে কাতার বিশ্বকাপের গ্রুপপর্বের ম্যাচ। শনিবার থেকে শুরু হচ্ছে নকআউট পর্ব।

ব্রাজিল নকআউট পর্বে খেলবে সোমবার। তাদের প্রতিপক্ষ দক্ষিণ কোরিয়া। পর দিন ক্রিস্টিয়ানো রোনালডোর পর্তুগালের বিপক্ষে লড়বে সুইজারল্যান্ড।

আরও পড়ুন:
উরুগুয়েকে কাঁদিয়ে শেষ ষোলোতে কোরিয়া
বাংলাদেশি সমর্থকদের ধন্যবাদ জানালেন আর্জেন্টিনার কোচ
আর্জেন্টিনাকে পাত্তা দিচ্ছে না অস্ট্রেলিয়া

মন্তব্য

খেলা
16 teams will play against whom in the knockout

নকআউটে কে কার প্রতিপক্ষ

নকআউটে কে কার প্রতিপক্ষ কোরিয়ার বিপক্ষে গোলের পর পর্তুগালের রিকার্দো হোরতার উদযাপন। ছবি: টুইটার
শনিবার নেদারল্যান্ডস ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যকার ম্যাচ দিয়ে শুরু হচ্ছে বিশ্বকাপের শেষ ষোলোর প্রতিযোগিতা। গ্রুপপর্বের মতো এখানে আর দ্বিতীয় কোনো সুযোগ নেই দলগুলোর সামনে।

ব্রাজিলের হার ও সুইজারল্যান্ডের জয় দিয়ে শেষ হলো কাতার বিশ্বকাপের গ্রুপপর্ব। অংশগ্রহণকারী ৩২ দল থেকে বাদ পড়েছে অর্ধেক। রয়ে গেছে বাকি ১৬টি দল। এই ১৬ দল থেকেই নির্ধারিত হবে নতুন বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন।

বিশ্বকাপ জেতা দুই দল উরুগুয়ে ও জার্মানি গ্রুপ পর্ব থেকে বাদ পড়েছে। নকআউটের ১৬ দলের মধ্যে বিশ্বকাপ জয়ের স্বাদ পেয়েছে ব্রাজিল, ফ্রান্স, আর্জেন্টিনা, স্পেন ও ইংল্যান্ড। বাকি ৯ দলই আছে শিরোপাশূন্য।

শনিবার নেদারল্যান্ডস ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যকার ম্যাচ দিয়ে শুরু হচ্ছে বিশ্বকাপের শেষ ষোলোর প্রতিযোগিতা। গ্রুপপর্বের মতো এখানে আর দ্বিতীয় কোনো সুযোগ নেই দলগুলোর সামনে। হারলেই বাদ।

নকআউটে যোগ হচ্ছে অতিরিক্ত ৩০ মিনিট ও পেনাল্টি শুট আউট। অর্থাৎ নির্ধারিত ৯০ মিনিটে দুই দলের মধ্যে জয়ী নির্ধারণ করা না গেলে ম্যাচ গড়াবে অতিরিক্ত ৩০ মিনিটে। সেখানেও সমাধান না এলে পেনাল্টি শুট আউটে যাবে ম্যাচ।

নেদারল্যান্ডস-যুক্তরাষ্ট্রের ম্যাচের পর শনিবার নামছে আর্জেন্টিনাও। লিওনেল মেসির দলের প্রতিপক্ষ অস্ট্রেলিয়া।

পরদিন পোল্যান্ডকে মোকাবিলা করবে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্স। আর সাবেক চ্যাম্পিয়ন ইংল্যান্ড খেলবে সেনেগালের বিপক্ষে।

সোমবার নকআউটে নামছে টুর্নামেন্টের ফেভারিট ব্রাজিল। ওই দিন রাত ১টায় তারা লড়বে কোরিয়ার বিপক্ষে। তার আগে একই দিন রাত ৯টায় জাপান মুখোমুখি হবে ক্রোয়েশিয়ার।

মঙ্গলবার শেষ হবে নকআউট পর্ব। ঐদিন মরক্কো খেলবে স্পেনের বিপক্ষে আর পর্তুগাল নেবে সুইজারল্যান্ডের চ্যালেঞ্জ।

এরপর দুই দিনের বিরতি শেষে শুক্রবার থেকে শুরু কোয়ার্টার ফাইনালের লড়াই।

বিশ্বকাপের নকআউট রাউন্ড

শনিবার- ৩ ডিসেম্বর

নেদারল্যান্ডস- ইউএসএ: রাত ৯টা
আর্জেন্টিনা-অস্ট্রেলিয়া : রাত ১টা

রোববার - ৪ ডিসেম্বর

ফ্রান্স-পোল্যান্ড: রাত ৯টা
ইংল্যান্ড-সেনেগাল: রাত ১টা

সোমবার - ৫ ডিসেম্বর

জাপান-ক্রোয়েশিয়া: রাত ৯টা
ব্রাজিল-কোরিয়া: রাত ১টা

মঙ্গলবার - ৬ ডিসেম্বর

মরক্কো-স্পেন: রাত ৯টা
পর্তুগাল-সুইজারল্যান্ড: রাত ১টা

আরও পড়ুন:
উরুগুয়েকে কাঁদিয়ে শেষ ষোলোতে কোরিয়া
বাংলাদেশি সমর্থকদের ধন্যবাদ জানালেন আর্জেন্টিনার কোচ
আর্জেন্টিনাকে পাত্তা দিচ্ছে না অস্ট্রেলিয়া

মন্তব্য

খেলা
Korea made last sixteen after making Uruguay cry

উরুগুয়েকে কাঁদিয়ে শেষ ষোলোতে কোরিয়া

উরুগুয়েকে কাঁদিয়ে শেষ ষোলোতে কোরিয়া বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে যাওয়া নিশ্চিতের পর অশ্রুসজল অধিনায়ক লুইস সুয়ারেস। ছবি: এএফপি
উরুগুয়ে ২-০ গোলে ঘানাকে হারিয়ে কোরিয়ার সমান পয়েন্ট ও গোল ব্যবধানে সমান হলেও, ৩ ম্যাচে কোরিয়ার চেয়ে মোট গোল কম করায় ছিটকে যায়। কোরিয়া ২-১ গোলে নিজেদের ম্যাচে হারিয়েছে পর্তুগালকে।

শেষ ষোলো নিশ্চিতের লড়াইয়ে ঘানাকে ২ গোল দিয়ে রাউন্ড অফ সিক্সটিনে এক পা দিয়ে রেখেছিল উরুগুয়ে। আরেক ম্যাচে দক্ষিণ কোরিয়া ১-১ গোলে ড্র করতে যাচ্ছিল পর্তুগালের বিপক্ষে।

অতিরিক্ত সময়ে উরুগুয়ের স্বপ্ন ভেঙে দেন কোরিয়ান মিডফিল্ডার হুয়াং হিচান। পর্তুগালের সঙ্গে নিশ্চিত ড্রয়ের ম্যাচে অতিরিক্ত সময়ের প্রথম মিনিটে করে বসেন দুর্দান্ত এক গোল! আর এতেই পর্তুগালের বিপক্ষে ২-১ গোলে জয় বাগিয়ে উরুগুয়েকে ছিটকে দিয়ে শেষ ষোল নিশ্চিত হয় কোরিয়ার।

অন্য ম্যাচে উরুগুয়ে ২-০ গোলে ঘানাকে হারিয়ে কোরিয়ার সমান পয়েন্ট ও গোল ব্যবধানে সমান হলেও, ৩ ম্যাচে কোরিয়ার চেয়ে মোট গোল কম করায় ছিটকে যায়।

উরুগুয়েকে কাঁদিয়ে শেষ ষোলোতে কোরিয়া
ম্যাচ জয়ের পরও বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে যাওয়ায় হতাশ উরুগুয়ের ফুটবলাররা। ছবি: এএফপি


কাতারের এডুকেশন সিটি স্টেডিয়ামে ম্যাচের পঞ্চম মিনিটে লিড নেয় এক ম্যাচ হাতে রেখে দ্বিতীয় রাউন্ড নিশ্চিত করা পর্তুগাল। কোরিয়ার আক্রমণ ঠেকিয়ে পাল্টা আক্রমণে গিয়ে দলকে এগিয়ে দেন রিকার্ডো হোর্তা।

ডানদিক থেকে দিয়োগো দালোতের ক্রস বুঝে নিয়ে বক্সের ভেতরে থেকে সেকেন্ড পোস্টে জালের ঠিকানা খুঁজে নেন হোর্তা।

শুরুর ধাক্কা কাটিয়ে ম্যাচে ফিরতে বেশি সময় নেয়নি কোরিয়া। ২৭তম মিনিটে বাঁ দিক থেকে উড়ে আসা বল রোনালডোর গায়ে লেগে পড়ে গোললাইনের সামনে। সঙ্গে সঙ্গে বল জালে জড়িয়ে দলকে সমতায় ফেরান কিম ইয়ং-গুং।

প্রথমার্ধের বাকিটা সময় কোরিয়ার উপর চড়াও হলেও গোল বের করে আনতে পারেননি রোনালডো ও তার দল। বিরতি থেকে ফিরে ঢিমেতালে খেলা শুরু করে দুই দল। যার কারণে ম্যাচ যেতে থাকে নিশ্চিত ড্রয়ের দিকে।

অতিরিক্ত সময়ের প্রথম মিনিটে বদলে যায় দৃশ্যপট। কাউন্টার অ্যাটাক থেকে বল পেয়ে ৭০ গজ দৌড়ে হুয়াং হিনকে বল দেন কোরিয়ার অধিনায়ক হিউং-মিন সন। সেখান থেকে ডি বক্সের ভেতর ঢুকে দুর্দান্ত এক শটে জালের ঠিকানা খুঁজে নেন হিচান। আর তাতেই শেষ ষোলো অনেকটা নিশ্চিত হয়ে যায় কোরিয়ার।

এরপর আর গোলের দেখা মেলেনি কারো। যে কারণে ২-১ গোলের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ার পাশাপাশি শেষ ষোল নিশ্চিত হয় কোরিয়ার।

উরুগুয়েকে কাঁদিয়ে শেষ ষোলোতে কোরিয়া
নকআউট নিশ্চিতের পর কোরিয়ার ফুটবলারদের উচ্ছ্বাস। ছবি: এএফপি


গ্রুপের অপর ম্যাচে এক যুগ আগের প্রতিশোধ নেয়ার সুযোগ ছিল ঘানার সামনে। সে সুযোগ পেয়েও সেটি হাতছাড়া করে আফ্রিকানরা ম্যাচের ১৮তম মিনিটে।

উরুগুয়ের ডি বক্সে মোহেমদ কুদুস ফাউলের শিকার হলে পেনাল্টি পায় ঘানা। পেনাল্টি থেকে আন্দ্রে আইয়ুর নেয়া দুর্বল শট ঠেকিয়ে দিয়ে ২০১০ সালের ইতিহাসের পুনরাবৃত্তি ঘটান উরুগুইয়ান গোলকিপার সার্হিও রোশে।

২০১০ বিশ্বকাপে একই ঘটনার অবতারণা করেছিলেন ঘানার অধিনায়ক আসামোয়াহ জিয়ান। সেবার ডি বক্সে ইচ্ছাকৃতভাবে হাত দিয়ে গোল ঠেকিয়েছিলেন লুইস সুয়ারেস। যে কারণে পেনাল্টি পেয়েছিল ঘানা।

সেখান থেকে স্পট কিকে এগিয়ে যেতে পারত ঘানা। কিন্তু সেই শট বারে মেরে দলকে গোলবঞ্চিত করেছিলেন জিয়ান।

ঘানা গোল মিস করায় দ্বিগুণ উদ্যমে আক্রমণ শুরু করে উরুগুয়ে। ম্যাচের ২৩ মিনিটের মাথায়ই এগিয়ে যেতে পারতো তারা। কিন্তু ডি আরাসসেতার নেয়া শট ঘানার গোলরকিপারকে পরাস্ত করলেও গোললাইন থেকে অসাধারণ দক্ষতায় সেই শট ক্লিয়ার করেন মোহামেদ সালিসু। ফলে লিডের সুযোগ হাতছাড়া হয় উরুগুয়ের।

৩ মিনিট পর ঠিকই লিড নেয় উরুগুয়ে। ডান দিক থেকে সুয়ারেসের নেওয়া শট ঘানার গোলকিপার লরেন্স আতি-জিগি রুখে দিলেও ফিরতি বলে দুর্দান্ত এক হেডে ঘানার জাল কাপিয়ে দেন আরাসসেতা।

ব্যবধান দ্বিগুণ করতে বেশি সময় নেয়নি উরুগুয়ে। ৩২ মিনিটেই আবারও ওই আরাসসেতা এগিয়ে দেন দলকে।

উরুগুয়েকে কাঁদিয়ে শেষ ষোলোতে কোরিয়া
ম্যাচ শেষে হতাশ হয়ে মাঠ ছাড়ছেন উরুগুয়ের অধিনায়ক লুইস সুয়ারেস। ছবি: এএফপি

সুয়ারেসের ঠেলে দেয়া বলে কোনাকুনি শটে জালের ঠিকানা খুঁজে নিয়ে দলকে এগিয়ে দেন তিনি।

এরপর বাকিটা সময় আর গোলের দেখা মেলেনি উরুগুয়ের। যার ফলে ২-০ গোলে জয় নিয়ে সন্তুষ্ট থাকতে হয় সুয়ারেস-কাভানিদের।

জয় পেলেও লাভ হয়নি কোন। কেননা সমান পয়েন্ট নিয়ে গোল ব্যবধানে এগিয়ে থেকে ততক্ষণে উরুগুয়ের বিদায় নিশ্চিত করে দিয়েছে কোরিয়া।

আরও পড়ুন:
উরুগুয়েকে কাঁদিয়ে শেষ ষোলোতে কোরিয়া
বাংলাদেশি সমর্থকদের ধন্যবাদ জানালেন আর্জেন্টিনার কোচ
আর্জেন্টিনাকে পাত্তা দিচ্ছে না অস্ট্রেলিয়া

মন্তব্য

খেলা
Scaloni thanked the Bangladeshi Argentine fans

বাংলাদেশি সমর্থকদের ধন্যবাদ জানালেন আর্জেন্টিনার কোচ

বাংলাদেশি সমর্থকদের ধন্যবাদ জানালেন আর্জেন্টিনার কোচ ফাইল ছবি
অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে নকআউট পর্বের ম্যাচের আগে সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশি আর্জেন্টাইন সমর্থকদের ধন্যবাদ জানিয়েছেন এই কোচ।

বাংলাদেশ ও আর্জেন্টিনা। দুই দেশের দূরত্ব হাজার মাইলের। ফুটবলের কল্যাণে দুই দেশ মিলেছে এক বিন্দুতে। বিশ্বকাপের সময় বাংলাদেশি ভক্তদের উন্মাদনা নজর কেড়েছে ফিফা থেকে শুরু করে আর্জেন্টিনা ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের।

সেই তালিকা আরও লম্বা হল আর্জেন্টিনার কোচ লিওনেল স্কালোনির সুবাদে। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে নকআউট পর্বের ম্যাচের আগে সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশি আর্জেন্টাইন সমর্থকদের ধন্যবাদ জানিয়েছেন এই কোচ।

লাখো আবেগতাড়িত সমর্থকের জন্য নিজেকে গর্বিতও মনে করছেন সাবেক এই ফুটবলার।

স্কালোনি বলেন, ‘আমি রোমাঞ্চিত। অনেক আগে ডিয়েগো (ম্যারাডোনা), পরে মেসির কারণে সারা বিশ্বে আর্জেন্টিনার ফুটবলের সমর্থক বেড়েছে। আর্জেন্টিনার এই সমর্থকদের নিয়ে আমি গর্বিত। বাংলাদেশের মতো একটা দেশে আমাদের এত সমর্থক আছে। আমরা গর্বিত।’

‘আরও অনেক দেশে আমাদের সমর্থক আছে। (তাদের জন্য) আমরা সেরাটা দেয়ার চেষ্টা করব। আমরা যদি সবশেষ দিনের মতো খেলতে পারি, তবে অনেক কিছু হতে পারে। তবে অনুভূতিটা দারুণ। বাংলাদেশের মানুষকে ধন্যবাদ।’

এর আগে বাংলাদেশি আর্জেন্টাইন সমর্থকেরা নজর কাড়ে ফিফার। আর্জেন্টিনা ও মেক্সিকোর ম্যাচের সময় আর্জেন্টিনার গোলে বাংলাদেশি ভক্তদের উল্লাসের ভিডিও নিজেদের অফিসিয়াল টুইটারে পোস্ট করেছিল বিশ্ব ফুটবল সংস্থা।

এরপর বাংলাদেশি ফ্যানদের উন্মাদনা নিয়ে পোস্ট দিয়েছে আর্জেন্টিনার জাতীয় ফুটবল দল। নিজেদের অফিসিয়াল টুইটার হ্যান্ডল থেকে বাংলাদেশি ভক্তদের আর্জেন্টিনাকে নিয়ে উচ্ছ্বাসের দিনটি ছবি পোস্ট করে তারা।

ছবির ক্যাপশনে লেখা হয়েছে, ‘আমাদের দলকে সমর্থন দেয়ার জন্য ধন্যবাদ। তোমরা আমাদের মতোই আবেগতাড়িত।’

আরও পড়ুন:
বাংলাদেশি সমর্থকদের ধন্যবাদ জানালেন আর্জেন্টিনার কোচ
আর্জেন্টিনাকে পাত্তা দিচ্ছে না অস্ট্রেলিয়া
বাংলাদেশকে ধন্যবাদ আর্জেন্টিনা দলের

মন্তব্য

খেলা
Before entering the field Messis shout is from the coach

আর্জেন্টিনাকে পাত্তা দিচ্ছে না অস্ট্রেলিয়া

আর্জেন্টিনাকে পাত্তা দিচ্ছে না অস্ট্রেলিয়া ম্যাচের আগে আর্জেন্টিনাকে অজি কোচ গ্রাহাম আর্নল্ডের হুংকার। ছবি: এএফপি/নিউজবাংলা
নক আউট পর্বে প্রতিপক্ষ আর্জেন্টিনাকে খুব একটা পাত্তা দিচ্ছেন না অজি কোচ গ্রাহাম আর্নল্ড। আলবেসেলেস্তাদের হারিয়ে শেষ আট নিশ্চিতের হুংকার তিনি দিয়ে রেখেছেন ম্যাচের দুইদিন আগেই।

বিশ্বকাপের শুরুটা দুই দলেরই হয়েছে হার দিয়ে। এরপর সমীকরণের বাধা টপকে নিশ্চিত হয়েছে রাউন্ড অফ সিক্সটিন। দল দুটির একটি আর্জেন্টিনা, অন্যটি অস্ট্রেলিয়া। কাতার বিশ্বকাপের নক আউট পর্বে এই দুই দল মুখোমুখি হবে কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করতে।

বিশ্বকাপের শুরুতে খেই হারিয়ে ফেলা আর্জেন্টিনা নিজের চিরাচরিত ছন্দে ফিরেছে গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে পোল্যান্ডের বিপক্ষে। আর ডেনমার্কের বিপক্ষে ১-০ গোলে জয়ের সুখস্মৃতি নিয়ে দ্বিতীয় রাউন্ডে উছেঠে অস্ট্রেলিয়া।

ক্রিকেটে অস্ট্রেলিয়া যতটা শক্তিধর, কাগজ কলমের হিসেবে ফুটবলে ঠিক ততোটা নয়। আর আর্জেন্টিনা তো লাতিন আমেরিকার শক্তিধর দল।

তারপরও নক আউট পর্বে প্রতিপক্ষ আর্জেন্টিনাকে খুব একটা পাত্তা দিচ্ছেন না অজি কোচ গ্রাহাম আর্নল্ড। আলবেসেলেস্তাদের হারিয়ে শেষ আট নিশ্চিতের হুংকার দিয়েছেন তিনি ম্যাচের দুইদিন আগেই।

টোকিও অলিম্পিকে আর্জেন্টিনাকে ২-০ গোলে হারিয়েছিল অস্ট্রেলিয়া। সেই জয়ের ধারা বিশ্বকাপে এসেও বজায় থাকবে বলে মন্তব্য করেছেন গ্রাহাম।

ইএসপিএনকে দেয়া সাক্ষাৎকারে আর্নল্ড বলেন, ‘আমরা কি জিতব? অবশ্যই! গত বছরের টোকিও অলিম্পিকে আমি এই দলকে কোচিং করিয়েছি। সেখানে আর্জেন্টিনাকে ২-০ গোলে হারিয়ে দিয়েছিলাম আমরা। এটা হলুদ এবং হালকা নীল-সাদা জার্সির লড়াই। এগারো জনের বিপক্ষে এগারো জনের লড়াই।’

তিনি আরও বলেন, ‘আর মাত্র দুই দিন বাকি, লড়াইটা স্রেফ মানসিকতার। আমি মনে করি, পুরো বিশ্বকে দেখিয়ে দিয়েছি যে- আমরা একটা দল হয়ে খেলি। আমরা পরস্পরের প্রতি নিবেদিত।’

লিওনেল স্কালোনি শীষ্যদের হারাতে পারলেই নিশ্চিত কোয়ার্টার ফাইনাল। আর সেখানে প্রতিপক্ষ হিসেবে ব্রাজিলকে চান অজি এই কোচ।

গ্রাহাম বলেন, ‘আমরা সেরাদের বিপক্ষে খেলতে চাই। বিশ্বকাপে ৩২ দল খেলে, এখন আমরা শেষ ষোলোয়। সেরাদের বিপক্ষে খেলে আমরা নিজেদের পরীক্ষা করতে চাই এবং বাকি বিশ্বকে দেখাতে চাই আমাদের সংস্কৃতি। আমি সম্ভবত ৬ কিংবা ৮ মাস ধরে এটা বলে আসছি।’

আরও পড়ুন:
বাংলাদেশকে ধন্যবাদ আর্জেন্টিনা দলের
পর্তুগালের সঙ্গী হওয়ার সুযোগ তিন দলের
গ্রুপ জি-তে ব্রাজিলের নকআউট সঙ্গী নির্ধারণ কিছুক্ষণ পর
জাপান রূপকথায় জার্মানির বিদায়, নকআউটে স্পেন
৩৬ বছর পর নকআউটে মরক্কো, সঙ্গী ক্রোয়েশিয়া

মন্তব্য

খেলা
Bangladesh thanks to Argentina team

বাংলাদেশকে ধন্যবাদ আর্জেন্টিনা দলের

বাংলাদেশকে ধন্যবাদ আর্জেন্টিনা দলের বাংলাদেশি আর্জেন্টিনাভক্তদের উচ্ছ্বাস। ছবি: টুইটার
বাংলাদেশি ফ্যানদের উন্মাদনা নিয়ে পোস্ট দিয়েছে আর্জেন্টিনার জাতীয় ফুটবল দল। নিজেদের অফিসিয়াল টুইটার হ্যান্ডল থেকে বাংলাদেশি ভক্তদের আর্জেন্টিনাকে নিয়ে উচ্ছ্বাসের ৩টি ছবি পোস্ট করেছে তারা।

বাংলাদেশের ফুটবল ভক্তদের আর্জেন্টিনা প্রীতি ও উন্মাদনার খবর সোশ্যাল মিডিয়ার কল্যাণে পৌঁছে গেছে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে। গত সপ্তাহে বাংলাদেশের আর্জেন্টিনা ভক্তদের জমায়েত ও উল্লাসের ছবি পোস্ট করে ফিফা।

এরপর বাংলাদেশি ভক্তদের ধন্যবাদ জানিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট দেয় আর্জেন্টিনার প্রফেশনাল লিগ কর্তৃপক্ষ।

এবারে বাংলাদেশি ফ্যানদের উন্মাদনা নিয়ে পোস্ট দিয়েছে আর্জেন্টিনার জাতীয় ফুটবল দল। নিজেদের অফিসিয়াল টুইটার হ্যান্ডল থেকে বাংলাদেশি ভক্তদের আর্জেন্টিনাকে নিয়ে উচ্ছ্বাসের ৩টি ছবি পোস্ট করেছে তারা।

ছবির ক্যাপশনে লেখা হয়েছে, ‘আমাদের দলকে সমর্থন দেয়ার জন্য ধন্যবাদ। তোমরা আমাদের মতোই আবেগতাড়িত।’



১৭ ঘণ্টা আগে পোস্ট হওয়ার পর বিকাল সাড়ে ৫টা পর্যন্ত এটি লাইক হয়েছে ৬৭ হাজার বারেরও বেশি। রি-টুইট করা হয়েছে সাড়ে ৬ হাজার বারের বেশি।

আর্জেন্টিনার খেলা দেখতে রাজধানী ঢাকাসহ বাংলাদেশের বিভিন্ন স্থানে জড়ো হচ্ছেন ভক্তরা। ম্যাচের সময় তাদের উল্লাস ও উপস্থিতির আবেগ ছুঁয়ে গেছে গ্যারি লিনেকারের মতো ফুটবল কিংবদন্তিদেরও।

আরও পড়ুন:
পর্তুগালের সঙ্গী হওয়ার সুযোগ তিন দলের
বিশ্বকাপে আর না-ও দেখা যেতে পারে নেইমারকে
ব্রাজিলের সবচেয়ে বয়সী অধিনায়ক আলভেস

মন্তব্য

p
উপরে