× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

খেলা
Sabina went to play in the Maldives league
hear-news
player
google_news print-icon

মালদ্বীপের লিগে খেলতে গেলেন সাবিনা

মালদ্বীপের-লিগে-খেলতে-গেলেন-সাবিনা
বিমানবন্দরে সাবিনা খাতুন। ছবি: সংগৃহীত
মালদ্বীপের ডিফেন্স ফোর্সের দল দিবেহি সিফাইং ক্লাবের হয়ে খেলবেন তিনি। এর আগে আরও তিনবার এই ক্লাবের হয়ে খেলেছেন সাবিনা।

পঞ্চমবারের মতো মালদ্বীপের ঘরোয়া লিগে খেলতে দেশ ছাড়লেন জাতীয় নারী ফুটবল দলের অধিনায়ক সাবিনা খাতুন। সাফজয়ী এই নারী ফুটবলার শুক্রবার দেশ ছেড়েছেন।

মালদ্বীপের ডিফেন্স ফোর্সের দল দিবেহি সিফাইং ক্লাবের হয়ে খেলবেন তিনি। এর আগে আরও তিনবার এই ক্লাবের হয়ে খেলেছেন সাবিনা।

মাত্র শেষ হওয়া সাফ নারী চ্যাম্পিয়নশিপে সেরা ফুটবলারের পুরস্কার পান সাবিনা। টুর্নামেন্টে সর্বোচ্চ গোলদাতা হিসেবে করেছেন ৮ গোল।

২০১৫ সালে প্রথম মালদ্বীপের ঘরোয়া ফুটবলে অংশ নিয়েছিলেন টাইগ্রেস দলপতি। সেবার মালদ্বীপের ডিফেন্স ফোর্সের হয়ে যাত্রা শুরু হয়েছিল তার।

পরের বছর তিনি খেলেন দিবেহি সিফাইং ক্লাবে। চার ম্যাচে ৩১ গোল করে সেবার সবাইকে তাক লাগিয়ে দিয়েছিলেন সাবিনা।

মালদ্বীপ ছাড়াও জাতীয় দলের এই ফুটবলার খেলেছেন ভারতের ঘরোয়া ফুটবলে। ২০১৮ সালে সেথু এফসিতে খেলে সাত ম্যাচে ৬ গোল করেছিলেন তিনি।

আরও পড়ুন:
খোলা বাসের স্বপ্ন পূরণ হচ্ছে সানজিদার
‘সেরা দলের প্রমাণ রেখেছে বাংলাদেশ’
সাবিনা-কৃষ্ণার জয়ে মুশফিকের ‘আলহামদুলিল্লাহ’
সাফ শিরোপা: ছেলেদের থেকে এগিয়ে মেয়েরা
বাংলাদেশ চ্যাম্পিয়ন

মন্তব্য

আরও পড়ুন

খেলা
The frenzy of Bangladeshi fans on the FIFA page

বাংলাদেশি ভক্তদের উন্মাদনা ফিফার টুইটারে

বাংলাদেশি ভক্তদের উন্মাদনা ফিফার টুইটারে ফটো কোলাজ: নিউজবাংলা
একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের জায়ান্ট স্ক্রিনে খেলার দেখার ভিডিও শেয়ার করেছে ফিফা। টুইটারে ভিডিওটি ১২ লাখেরও বেশি মানুষ দেখেছে।

ক্রিকেটে বাংলাদেশ বিশ্বকাপের মতো বড় আসরে খেলার সু্যোগ পেলেও ফুটবলে তা এখনও হয়ে উঠেনি। ফিফা বিশ্বকাপ নিয়ে বাংলাদেশের সমর্থকদের মাতামাতি দেখে মনে হতেই পারে ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা এ দেশেরই অংশ।

বিশ্বকাপের মতো বড় মঞ্চে বাংলাদেশ খেলার সু্যোগ না পেলেও ফুটবলের উন্মাদনা নজর কেড়েছে ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা ফিফার। একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের জায়ান্ট স্ক্রিনে খেলার দেখার ভিডিও শেয়ার করেছে ফিফা। টুইটারে ভিডিওটি ১২ লাখেরও বেশি মানুষ দেখেছে।

ফিফা ভিডিওটি শেয়ার করে ক্যাপশনে লিখে, ‘এটাই ফুটবলের শক্তি।’

মধ্যরাতে বিশ্ববিদ্যালয়য়ের হল রুমে ম্যাচটি উপভোগ করতে উপস্তিত ছিলেন কয়েক শ ফুটবল সমর্থক। ভিডিওতে দেখা যায় মেসি গোল করার সঙ্গে সঙ্গেই সবাই উল্লাসে মেতে উঠছেন। সমর্থকদের প্রিয়দল ও সুপারস্টার মেসি গোল করার আনন্দে লাফিয়ে ওঠেন।

বাংলাদেশি ভক্তদের উন্মাদনা ফিফার টুইটারে
২০১৮ সালে ফিফার ফেসবুক পেজে পোস্ট করা বাংলাদেশি সমর্থকদের ছবি।


আর্জেন্টিনা ও মেক্সিকোর ম্যাচটি কাতারের লুসাইল স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময়ে রোববার রাত ১টায় অনুষ্ঠিত হয়। ওই ম্যাচে মেক্সিকোর বিপক্ষে ২-০ গোলে জয়ে পেয়েছে লিওনেল মেসির দল। দুই গোলের একটি করেন ৭ বারের ব্যালন ডর জয়ী মেসি ও অন্যটি করেন বিশ্বকাপে প্রথম বার খেলতে আসা তরুণ রারকা এনজো ফার্নান্দেস।

এর আগে ২০১৮ সালেও রাশিয়া বিশ্বকাপেও ফিফার ভেরিফাড ফেসবুক পেজে স্বীকৃতি পেয়েছিল বাংলাদেশি সমর্থকদের উন্মাদনার ছবি।

আরও পড়ুন:
আর পেছনে তাকাতে চায় না দল: মেসি
মেসি ম্যাজিকে হাসি ফিরল আর্জেন্টিনার
এমবাপের জোড়া গোলে ফ্রান্স নকআউট পর্বে
আর্জেন্টিনার দলে ৫ পরিবর্তন
সৌদির হারে বাড়ল আর্জেন্টিনার চাপ

মন্তব্য

খেলা
Neymar posted a picture of his feet

নেইমারের পা ফুলে ঢোল

 নেইমারের পা ফুলে ঢোল ছবি কোলাজ: নিউজবাংলা
নেইমার তার পায়ের নতুন ছবি পোস্ট করেছেন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। ৩০ বছর বয়সী নেইমার ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে যে ছবি পোস্ট করেছেন তাতে সমর্থকদের মনে শঙ্কা আরও বাড়বে।

বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচে চোটে পড়েন ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড নেইমার জুনিয়র। সার্বিয়ার বিপক্ষে সেই ম্যাচের পর শঙ্কা জাগে গ্রুপ পর্বের বাকি খেলা নিয়ে। সে শঙ্কা শেষ পর্যন্ত সত্যি হয়েছে নেইমারের।

সার্বিয়ার বিপক্ষে ম্যাচে গোড়ালির চোটে পড়েন পিএসজির তারকা ফরোয়ার্ড নেইমার। ওই ম্যাচে এক নেইমারকেই ৯ বার ফাউল করেন প্রতিপক্ষের খেলোয়াড়রা। যা এই বিশ্বকাপে কোনো একক খেলোয়াড়ের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ।

এতে করে সুইজারল্যান্ড ও ক্যামেরুনের বিপক্ষে পরের দুই ম্যাচে নেইমারকে পাবেন না কোচ লিওনার্দো তিতে।

এই পরিস্থিতিতে নেইমার তার পায়ের নতুন ছবি পোস্ট করেছেন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। ৩০ বছর বয়সী নেইমার ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে যে ছবি পোস্ট করেছেন তাতে সমর্থকদের মনে শঙ্কা আরও বাড়বে।

ছবিতে দেখা যাচ্ছে তার গোড়ালি এখনও বেশ ফুলে আছে। এমন অবস্থায় বুটে যে তার পা ঢুকবে না, এটা নিশ্চিত করেই বলা যায়।

 নেইমারের পা ফুলে ঢোল

বৃহস্পতিবার সার্বিয়ান ডিফেন্ডার নিকোলা মিলেনকোভিচের বাজে একটি ট্যাকেলে নেইমার ডান গোড়ালির ইনজুরিতে পড়ে ৮০ মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেন। মাঠ থেকে বেরিয়ে ডাগআউটে নেইমারকে বেশ আবেগপ্রবণ মনে হয়েছিল।

ইনজুরির প্রায় ২৪ ঘণ্টা পর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এক আবেগঘন পোস্টে নেইমার লিখেন, ‘এই জার্সিটি পরে আমি যে গর্ব ও ভালোবাসা অনুভব করি তা বর্ণনাতীত। যদি সৃষ্টিকর্তা আমাকে কোনো একটি নির্দিষ্ট দেশ বেছে নিতে বলেন যেখানে আমি জন্মাতে চাই তবে আমি আবারও ব্রাজিলকেই বেছে নেব।’

চোটের কাছে হার মানতে নারাজ নেইমার। তিনি বলেছেন ‘এটা যন্ত্রণা দেবে, তবে আমি ফিরে আসতে পারব। কারণ, আমি নিজ দেশ, সতীর্থ এবং নিজেকে সাহায্য করতে সম্ভাব্য সবকিছু করব।’

আরও পড়ুন:
মেসি ম্যাজিকে হাসি ফিরল আর্জেন্টিনার
এমবাপের জোড়া গোলে ফ্রান্স নকআউট পর্বে
আর্জেন্টিনার দলে ৫ পরিবর্তন
সৌদির হারে বাড়ল আর্জেন্টিনার চাপ
চাপ সামলে জয় অস্ট্রেলিয়ার

মন্তব্য

খেলা
Germany will enter the field against Spain in the fight for survival
ফিফা বিশ্বকাপ

টিকে থাকার লড়াইয়ে স্পেনের বিপক্ষে নামছে জার্মানি

টিকে থাকার লড়াইয়ে স্পেনের বিপক্ষে নামছে জার্মানি অনুশীলনে জার্মানির খেলোয়াড়রা। ছবি: এএফপি
২০১০ সালে বিশ্বচ্যাম্পিয়ন হবার পর থেকে আন্তর্জাতিক আসরে স্পেন নিজেদের মেলে ধরতে ব্যর্থ হয়। ২০১৪ ব্রাজিল বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্বের পর চার বছর আগে রাশিয়ায় শেষ ১৬ থেকে তাদের বিদায় নিতে হয়েছিল। তবে জার্মানীর বিপক্ষে জিততে পারলে আবারো প্রতিদ্বন্দ্বীতায় ফিরবে স্প্যানিশরা।

সৌদি আরবের কাছে আর্জেন্টিনার হারের পর বিশ্বকাপের আরেক পরাশক্তি দল জার্মানি হেরে বসে জাপানের কাছে। এশিয়ার দুই দেশের কাছে হেরে হট ফেভারিট দুই দল আর্জেন্টিনা ও জার্মানির শঙ্কা জাগে নক আউট পর্বে খেলা নিয়ে।

সে শঙ্কা কিছুটা কাটিয়ে মেক্সিকোর বিপক্ষে স্বস্তির জয়ে ঘুরে দাঁড়িয়েছে দুই বারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনা। এবার বিশ্বকাপে টিকে থাকার লড়াইয়ে স্পেনের বিপক্ষে মাঠে নামবে জার্মানি।

কাতারের আল বাইত স্টেডিয়ামে রোববার বাংলাদেশ সময় রাত ১টায় শুরু হবে ম্যাচটি, তবে জার্মানির বিপক্ষে এ ম্যাচে কাগজে কলমে এগিয়ে থাকবে স্পেন।

ম্যাচের আগে শুক্রবার সংবাদ সম্মেলনে স্ট্রাইকার হাভার্টজ জানান, খেলোয়াড়রা তাদের আত্মবিশ্বাস ধরে রেখেছেন। তবে কোস্টা রিকাকে ৭-০ গোলে উডিয়ে দেয়া স্পেনের বিপক্ষে জয় পাওয়াটাও সহজ হবে না বলেও মনে করেন চেলসির এ স্ট্রাইকার।

হাভার্টজ বলেন, ‘সবাই আমাদের পরিকল্পনা জানে এবং সেটা কিভাবে কাজে লাগাতে হবে সেটা নিয়েই আমরা কাজ করেছি। অবশ্যই আমাদের শতভাগ মনোযোগ এখন ফুটবলকে ঘিরে, অন্য কিছু নয়।’

জাপানের কাছে পরাজয়ে স্পন্সরশিপ হারানোসহ ৩০ বছর ইতিহাসে এ ম্যাচটি সবচেয়ে কম টিভি রেটিং পেয়েছে। হাভার্টজ বিষয়গুলো স্বীকার করে নিয়ে বলেন, ‘আমরা জানি এই মুহূর্তে সবাই আমাদের সঙ্গে নেই। টিম মিটিংয়েও কোচ আমাদের সেই বার্তাটাই দেয়ার চেষ্টা করেছেন।’

এবারের বিশ্বকাপে দুই ইউরোপীয়ান হেভিওয়েট স্পেন ও জার্মানি এই প্রথম কোন ম্যাচে মুখোমুখি হতে যাচ্ছে। ২০০৬ সালের পর প্রথমবারের মতো স্পেন বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচে বড় ব্যবধানে জিতেছে। জার্মানীর বিপক্ষে জয়ের ধারাবাহিকতা ধরে রাখাই এখন স্পেনের মূল লক্ষ্য।

সর্বশেষ ২০২০ সালের নভেম্বরে ইউয়েফা নেশনস লিগে জার্মানির মুখোমুখি হয়েছিল স্পেন। সে ম্যাচে ৬-০ গোলে হেরেছিল জার্মানি। ১৯ বছরের মধ্যে শেষ সাতবারের মোকাবেলায় জার্মানী মাত্র একবার স্পেনকে হারিয়েছে। ২০১৪ সালের নভেম্বরে প্রীতি ম্যাচটিতে ১-০ গোলে জয়ী হয়েছিল জার্মানী।

২০১০ সালে বিশ্বচ্যাম্পিয়ন হবার পর থেকে আন্তর্জাতিক আসরে স্পেন নিজেদের মেলে ধরতে ব্যর্থ হয়। ২০১৪ ব্রাজিল বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্বের পর চার বছর আগে রাশিয়ায় শেষ ১৬ থেকে তাদের বিদায় নিতে হয়েছিল। তবে জার্মানীর বিপক্ষে জিততে পারলে আবারো প্রতিদ্বন্দ্বীতায় ফিরবে স্প্যানিশরা।

ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ে দশম স্থানে থাকা জার্মানী সব ধরনের প্রতিযোগিতায় শেষ ১০টি ম্যাচের মাত্র দুটিতে জয়ের দেখা পেয়েছে। কোচ হান্সি ফ্লিক স্বীকার করেছেন স্পেনের বিপক্ষে মাঠে নামার আগে তার দল অবশ্যই চাপে আছে। চারবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের এখন একটাই লক্ষ্য অন্তত গ্রুপ পর্ব থেকে যেন টানা দ্বিতীয়বারের মত বিদায় না ঘটে।

আরও পড়ুন:
সাকিব-তামিমদের পথে হাঁটলেন বাবর
সেরা ৫ বোলারের কেউই ভারত-পাকিস্তানের নন
যাত্রার সফল সমাপ্তিতে গর্বিত বাটলার
তারকাদের ভিড়ে টুর্নামেন্ট সেরা কারান
এক যুগ পর শিরোপা ইংল্যান্ডের

মন্তব্য

খেলা
There is only Messi in the fairys eyes

পরীর দু চোখে শুধুই মেসি

পরীর দু চোখে শুধুই মেসি টেলিভিশন পর্দায় মেসির সামনে পরীমনির উল্লাস। ছবি: সংগৃহীত
জয়ের উল্লাসে শামিল হয়েছেন পরীমনি। তাই তো রোববার ভোরে তিনি তার ফেসবুক অ্যাকাউন্টে লিখেছেন, ‘আল্লাহ রে আমার ঘুম আসতেছে না! মেসি গো মেসি! আমার দুই চোক্ষে শুধুই মেসিইইইইইইই…’

ঘুম আসছে না পরীমনির। অভিনেত্রী মনে করছেন, তার চোখে ফুটবল লেজেন্ড মেসি এসে বসে আছে। বোঝাই যাচ্ছে আর্জেন্টিনার এ সমর্থক কতটা আনন্দে আছেন।

শনিবার রাতে মেক্সিকোকে হারিয়ে ফিফা বিশ্বকাপে প্রথম জয় পেয়েছে আর্জেন্টিনা। আর এই উল্লাস শুরু হয় মেসির দেয়া গোলের মাধ্যমে।

জয়ের উল্লাসে শামিল হয়েছেন পরীমনি। তাই তো রোববার ভোরে তিনি তার ফেসবুক অ্যাকাউন্টে লিখেছেন, ‘আল্লাহ রে আমার ঘুম আসতেছে না! মেসি গো মেসি! আমার দুই চোক্ষে শুধুই মেসিইইইইইইই…’

শুধু এটাই না, আর্জেন্টিনা-মেক্সিকো খেলা শেষেও ফেসবুকে পোস্ট করে উল্লাস করেছেন এই অভিনেত্রী। একটি ভিডিও পোস্ট করে তিনি লিখেছেন, ‘মেসি একটা ভালোবাসা।’

এক ভিডিওতে দেখা যায়, খেলা শেষে মেসি ক্যামেরার সামনে এসে অনুভূতি জানাচ্ছেন, আর পরী টিভিস্ক্রিনের সামনে গিয়ে মেসিকে দিচ্ছেন উরন্ত চুমু।

খেলার ৬৩ মিনিটের দিকে মেসি প্রথম গোল করলে ফেসবুকে পোস্ট করেন পরী। টিভির পর্দা থেকে তোলা একটি ছবি দিয়ে তিনি লেখেন, ‘ওহ মেসি, আই লাভ ইউ।’

আরও পড়ুন:
পরীর জন্য রাজের ‘জার্সি বদল’
আবারও রাজকে নিয়ে মিমকে খোঁচা পরীমনির
পরীর সমর্থন আর্জেন্টিনায়, রাজের ব্রাজিলে

মন্তব্য

খেলা
Enzo recognized himself

নিজেকে চেনালেন এনজো

নিজেকে চেনালেন এনজো বিশ্বকাপে নিজের প্রথম গোল উদযাপন করছেন আর্জেন্টাইন মিডফিল্ডার এনজো ফার্নান্দেস। ছবি: এএফপি
২০০৬ সালে যেটি করেছিলেন মেসি, ২০২২ সালে তা করে দেখালেন ফার্নান্দেস। সবচেয়ে কম বয়সে আর্জেন্টিনার হয়ে বিশ্বকাপে গোল করে রেকর্ড বুকে থাকলেন দ্বিতীয় হয়ে। তখন মেসির বয়স ছিল ১৯ বছর আর ফার্নান্দেস জালের দেখা পেলেন ২১ বছর বয়সে।

বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে সৌদি আরবের কাছে হেরে শঙ্কা জাগে নক আউট পর্বে ওঠা নিয়ে। সেই শঙ্কা কাটিয়ে দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়িয়েছে আর্জেন্টিনা। বিশ্বকাপে টিকে থাকার লড়াইয়ে মেক্সিকোর বিপক্ষে ২-০ গোলের স্বস্তির জয় পেল দুই বারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা।

গুরুত্বপূর্ণ এ ম্যাচে দলের হয়ে গোল করেছেন লিওনেল মেসি ও এনজো ফার্নান্দেস। মেসির পর আর্জেন্টিনার হয়ে ফার্নান্দেস গড়েছেন সবচেয়ে কম বয়সে গোল করার কীর্তি। সেই সঙ্গে গুরুত্বপূর্ণ এই ম্যাচে দলকে সাহায্য করে গড়েছেন রেকর্ডও।

বিরতির পর তখনও কোনো গোলের দেখা পায়নি মেসি-দি মারিয়ারা। সে সময়ে কোচ লিওনেল স্কালোনি গিদো রদ্রিগেসের জায়গায় নামান এনজো ফার্নান্দেসকে। আর সেই সুযোগের সবটুকু লুফে নেন প্রথমবার বিশ্বকাপ খেলতে আসা এনজো।

২০০৬ সালে যেটি করেছিলেন মেসি, ২০২২ সালে তা করে দেখালেন ফার্নান্দেস। সবচেয়ে কম বয়সে আর্জেন্টিনার হয়ে বিশ্বকাপে গোল করে রেকর্ড বুকে থাকলেন দ্বিতীয় হয়ে। তখন মেসির বয়স ছিল ১৯ বছর আর ফার্নান্দেস জালের দেখা পেলেন ২১ বছর বয়সে।

আর্জেন্টাইন এই মিডফিল্ডার বর্তমানে লিগ পর্তুগাল ও চ্যাম্পিয়নস লিগে বেনফিকার হয়ে খেলছেন। ক্লাবটির হয়ে ১৩ ম্যাচ খেলে একটি গোল করেছেন তিনি। এ ছাড়া তিনি খেলেছেন আর্জেন্টিনার ক্লাব রিভার প্লেটের হয়ে।

মেক্সিকোর বিপক্ষে ম্যাচে ফার্নান্দেসকে গোল করতে সহায়তা করা মেসিও এ দিন গড়েছেন ভিন্ন রেকর্ড।

আর্জেন্টিনা জার্সিতে পঞ্চম বিশ্বকাপে এসে ছুঁয়েছেন কিংবদন্তি ডিয়েগো ম্যারাডোনাকে। বিশ্বকাপে ম্যারাডোনার ২১ ম্যাচে ৮ গোলের কীর্তি সমান ম্যাচেই ছুঁয়ে এখন সামনে এগোনোর সুযোগ পাচ্ছেন মেসি।

মেক্সিকোর বিপক্ষে বাঁচা-মরার ম্যাচে গোল করে মেসি বসেছেন কম বয়সী ও বেশি বয়সী ফুটবলার হিসেবে গোল করার যৌথ রেকর্ডে। ১৯৬৬ সালের পর গোল পাওয়া কোনো বর্ষীয়ান হিসেবেও নাম লিখিয়েছেন তিনি। গোল এনেছেন ৩৫ বছর ১৫৫ দিন বয়সে।

আরও পড়ুন:
সৌদির হারে বাড়ল আর্জেন্টিনার চাপ
চাপ সামলে জয় অস্ট্রেলিয়ার
আর্জেন্টিনার সামনে যেসব সমীকরণ
সৌদি ফুটবলারদের রোলস রয়েস পাওয়ার খবরটি ভুয়া
মুহিন-ঝিলিকের ‘ছুটছে মেসি ছুটছে নেইমার’

মন্তব্য

খেলা
Relief at Messis awakening in DU

মেসিদের জাগরণে স্বস্তি ঢাবিতে

মেসিদের জাগরণে স্বস্তি ঢাবিতে মাঠে উদযাপনে টিম আর্জেন্টিনা। ছবি: এএফপি
আমজাদ হোসেন হৃদয় নামের এক ছাত্র বলেন, ‘আজকের খেলায় মেসির কাছে আমাদের প্রত্যাশা ছিল। নিজে গোল দেয়া এবং ফার্নান্দেসকে দিয়ে করানো গোলটা দেখে কিছুটা স্বস্তি অনুভব করছি। মার্টিনেজের সেভটাও দেখার মতো ছিল।’

বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে সৌদি আরবের সঙ্গে হেরে খাদের কিনারায় চলে গিয়েছিল আর্জেন্টিনা। সেখান থেকে উঠে আসতে বিকল্প ছিল না জয়ের।

কাতারের লুসাইল আইকনিক স্টেডিয়ামে অধরা সেই জয়ের লক্ষ্যে মাঠে নেমেছিলেন মেসি, ফার্নান্দেসরা, কিন্তু বাংলাদেশ সময় শনিবার মধ্যরাতের ম্যাচের প্রথমার্ধ পর্যন্ত বুক চিনচিন করছিল দর্শকদের। তীর্থের কাকের মতো গোলের অপেক্ষায় ছিলেন তারা।

সে অপেক্ষার অবসান হয় দ্বিতীয়ার্ধে। দলপতি লিওনেল মেসির নীরবতা ভাঙানো গোলে প্রাণ ফেরে দর্শকদের। এরপর এনজো ফার্নান্দেসের দ্বিতীয় গোলে আসে স্বস্তি, যা বহাল ছিল রেফারির শেষ বাঁশি পর্যন্ত।

মেক্সিকোর বিপক্ষে আর্জেন্টিনার গুরুত্বপূর্ণ এ জয়ে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের দর্শকদের মতো প্রাণ ফেরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) টিএসসি, মুহসীন হলের মাঠে বড় পর্দায় খেলা দেখা দর্শকদের। গভীর রাতে তাদের মুখ থেকে বের হয় চাপা অভিমান আর আনন্দের কথা।

বাঁশি বাজিয়ে, মোটরসাইকেলে শোডাউন করে, আর্জেন্টিনার পতাকা গায়ে প্যাঁচিয়ে, নেচে-গেয়ে মেসিদের জয় উদযাপন হয় ঢাবি ক্যাম্পাসে। অনেকে স্লোগান দিতে দিতে ফেরেন হল আর বাসায়।

মেসিদের জাগরণে স্বস্তি ঢাবিতে

এমন মুহূর্তে কথা হয় কিছু আর্জেন্টিনাপ্রেমীর সঙ্গে। তাদের একজন ঢাবি ছাত্র নাসিমুল হুদা বলেন, ‘আমাদের প্রত্যাশা আরেকটু বেশি ছিল। তারপরও জয় পেয়েছি দেখে ভালো লাগছে।

‘প্রথমার্ধের খেলায় আমরা মোটেও সন্তুষ্ট হতে পারিনি। যখন খেলা দেখছিলাম, তখন প্রচণ্ড রাগ উঠছিল। কারণ আর্জেন্টিনা এত বাজে খেলবে, সেটা মানতে পারছিলাম না। তাদের আরও ভালো খেলা উচিত ছিল।’

আরেক ছাত্র সিদ্দিক ফারুক বলেন, ‘প্রথমার্ধে মন খারাপ থাকলেও মেক্সিকোর এত ডিফেন্সের ভেতর মেসির গোল এবং ফার্নান্দেসকে দিয়ে করানো গোলটা অসাধারণ ছিল, তবে আমাদের খেলায় আরও অনেক উন্নতি করা দরকার। এই খেলা দিয়ে আমরা ফাইনালের স্বপ্ন দেখার সাহস করতে পারি না।’

আমজাদ হোসেন হৃদয় নামের এক ছাত্র বলেন, ‘আজকের খেলায় মেসির কাছে আমাদের প্রত্যাশা ছিল। নিজে গোল দেয়া এবং ফার্নান্দেসকে দিয়ে করানো গোলটা দেখে কিছুটা স্বস্তি অনুভব করছি। মার্টিনেজের সেভটাও দেখার মতো ছিল।

‘আশা করছি পোল্যান্ডের ম্যাচে আমরা জিতব। আমি অনেক বেশি করে চাইছি, কাতার বিশ্বকাপটা আর্জেন্টিনার হোক।’

এসইএস শাহিনের কাছে মেক্সিকোর বিপক্ষে ম্যাচটি ছিল ফাইনাল। এতে জয়ের পর তার ভাষ্য, ‘আর্জেন্টিনার সামনে দুইটা ফাইনাল ছিল। একটাতে আজ জিতেছে; আরেকটা আগামী বৃহস্পতিবার।

‘সেটাতেও জিতবে বলে আশা আছে, তবে দলের অবস্থা দেখে মনে হচ্ছে, কেউই ফর্মে নাই। তারপরও আমি আশা ছাড়তে চাই না।’

আর্জেন্টিনার বহুল প্রতীক্ষিত এ জয়ের উচ্ছ্বাসের ঢেউ দেখা গেছে ছাত্রীদের হলে। হল গেটের ভেতর থেকে ‘মেসি মেসি’ স্লোগান দিতে দেখা যায় ছাত্রীদের।

প্রিয় দলের খেলা বড় পর্দায় দেখবে বলে অনেক ছাত্রী নির্ধারিত সময় রাত ১০টার মধ্যে হলে ঢোকেননি। খেলা শেষে তারা বাইরে বন্ধুদের সঙ্গে গল্প করে, আড্ডা দিয়ে রাত কাটিয়েছেন।

এমনই একজন তাসনুভা জাহান নিউজবাংলাকে বলেন, ‘রাত ১০টায় হল বন্ধ হয়ে যায়। সেখানে বড় পর্দায় খেলা দেখার ব্যবস্থা নেই। সবার সঙ্গে বড় পর্দায় খেলা দেখার মজাটাই অন্যরকম। আর সেটা যদি হয় প্রিয় দলের, তাহলে আনন্দটা দ্বিগুণ হয়।

‘তাই আজকে খেলা শেষে বান্ধবীদের সঙ্গে ক্যাম্পাসেই গল্প, আড্ডা করতে করতে রাত কাটাতে হবে।’

তিনি বলেন, ‘আজকে মেসি জিতেছে; অনেক খুশি। এবার অন্তত বিশ্বকাপটা মেসির হোক।’

আরও পড়ুন:
চাপ সামলে জয় অস্ট্রেলিয়ার
আর্জেন্টিনার সামনে যেসব সমীকরণ
সৌদি ফুটবলারদের রোলস রয়েস পাওয়ার খবরটি ভুয়া
মুহিন-ঝিলিকের ‘ছুটছে মেসি ছুটছে নেইমার’
সেই মাঠে আবার নামছে আর্জেন্টিনা

মন্তব্য

খেলা
The team does not want to look back Messi

আর পেছনে তাকাতে চায় না দল: মেসি

আর পেছনে তাকাতে চায় না দল: মেসি মেক্সিকোর বিপক্ষে বল পায়ে লিওনেল মেসি। ছবি: টুইটার
ম্যাচ শেষে তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় মেসি জানান, এখন আর সৌদি ম্যাচ নিয়ে ভাববার অবকাশ নেই। দলের এখন এগিয়ে যাবার সময়।

৩৬ বছরের শিরোপা খরা ঘোচাতে কাতারে পা রাখে আর্জেন্টিনা। সঙ্গে ছিল অধিনায়ক লিওনেল মেসির শেষ বিশ্বকাপে স্মরণীয় করে রাখার বাড়তি আগ্রহ। প্রথম ম্যাচে সৌদি আরবের কাছে হারের পর যেন পাল্টে যায় হিসাব-নিকাশ। ওই এক হারে যেন জাতীয় দুর্যোগ নেমে আসে আর্জেন্টিনায়। দেখা দেয় গ্রুপপর্ব থেকে বিদায় নেয়ার শঙ্কা।

দ্বিতীয় ম্যাচেই তালিসমান লিওনেল মেসির নেতৃত্বে দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়িয়েছে আর্জেন্টিনা। মেক্সিকোকে ২-০ গোলে হারিয়ে টুর্নামেন্টে নিজেদের প্রথম পয়েন্ট শুধু নয়, অর্জন করেছে আত্মবিশ্বাসও।

ম্যাচ শেষে তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় মেসি জানান, এখন আর সৌদি ম্যাচ নিয়ে ভাববার অবকাশ নেই। দলের এখন এগিয়ে যাওয়ার সময়।

মেসি বলেন, ‘এখন হাল ছেড়ে দেয়া যাবে না। পুরো টুর্নামেন্ট পড়ে আছে। আর ভুল করা যাবে না। আমরা জানতাম দর্শক এমনভাবেই আমাদের সমর্থন দেবে। তাদের মর্যাদা রাখতে পেরেছি।’

মেক্সিকোর বিপক্ষে ৬৪ মিনিটে গোল করে ম্যাচের ডেডলক ভাঙেন মেসি। আর ৮৭ মিনিটে তার অ্যাসিস্ট থেকেই দ্বিতীয় গোল করেন এনজো ফার্নান্দেস।

এই ম্যাচে গোল করে কিংবদন্তি অধিনায়ক ডিয়েগো ম্যারাডোনার পাশে বসলেন মেসি। ২ নম্বর টেন-এর গোলসংখ্যাই এখন ৮। একই সঙ্গে আর্জেন্টিনার হয়ে বিশ্বকাপে সবচেয়ে বেশি বয়সে এক ম্যাচে গোল ও অ্যাসিস্টের রেকর্ডও করেন তিনি।

তবে দলের এমন গুরুত্বপূর্ণ জয়ের পর ব্যক্তিগত অর্জন নিয়ে ভাবছেন না মেসি। তার দাবি আর্জেন্টিনার বিশ্বকাপ মাত্র শুরু হলো।

মেসি বলেন, ‘প্রথম ম্যাচে নানা কারণে আমাদের হারতে হয়েছে। আমরা জানতাম আজকে জিততেই হবে ও কীভাবে জিতব সেটাও জানতাম। আজ আমাদের বিশ্বকাপ শুরু হলো।

‘মেক্সিকো শক্ত প্রতিপক্ষ। আমাদের কাজটা সহজ ছিল না। প্রথমার্ধে আমরা চাপ সয়ে গেছি। দ্বিতীয়ার্ধে আমরা স্নায়ুচাপ সামলে নিয়েছি ও নিজেদের খেলাটা খেলতে পেরেছি।’

আরও পড়ুন:
মেসি ম্যাজিকে হাসি ফিরল আর্জেন্টিনার
এমবাপের জোড়া গোলে ফ্রান্স নকআউট পর্বে
আর্জেন্টিনার দলে ৫ পরিবর্তন

মন্তব্য

p
উপরে