× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

খেলা
Sanjida Farzanas big jump in ranking
hear-news
player
google_news print-icon

র‍্যাঙ্কিংয়ে বড় লাফ সানজিদা-ফারজানার

র‍্যাঙ্কিংয়ে-বড়-লাফ-সানজিদা-ফারজানার
দেশে ফেরার পর এয়ারপোর্টে নারী দলের ক্রিকেটাররা। ছবি: বিসিবি
১৩ ধাপ এগিয়ে বর্তমানে টি-টোয়েন্টি বোলারদের র‍্যাঙ্কিংয়ে ৬৬ নম্বরে অবস্থান করছেন জাতীয় দলের এই স্পিনার। ৪ ধাপ এগিয়ে যৌথভাবে ৬৬ নম্বরে রয়েছেন রুমানা আহমেদ।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের বাছাইপর্বে অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন হয়েছে বাংলাদেশের মেয়েরা। ব্যাট ও বল হাতে হ্যাটট্রিক শিরোপাধারীরা দেখিয়েছেন দুর্দান্ত পারফরম্যান্স। সে কারণে র‍্যাঙ্কিংয়ে উন্নতি হয়েছে টাইগ্রেসদের।

টুর্নামেন্টে সর্বোচ্চ ১০ উইকেট নেয়া বোলারদের ৪ জনই বাংলাদেশের। বোলারদের র‍্যাঙ্কিংয়ে লম্বা লাফ দিয়েছেন সানজিদা আক্তার মেঘলা।

বাছাইপর্বে ৫ ম্যাচে তিনি ঝুলিতে পুরেছেন ৭ উইকেট। বাংলাদেশের হয়ে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ উইকেটশিকারিও তিনি। সেই সুবাদে ১৩ ধাপ এগিয়ে বর্তমানে টি-টোয়েন্টি বোলারদের র‍্যাঙ্কিংয়ে ৬৬ নম্বরে অবস্থান করছেন জাতীয় দলের এই স্পিনার। ৪ ধাপ এগিয়ে যৌথভাবে ৬৬ নম্বরে রয়েছেন রুমানা আহমেদ।

লাল সবুজের প্রতিনিধিদের ভেতর ১৩ ধাপ অবনমন হয়েছে সালমা খাতুনের।

বাংলাদেশের হয়ে ব্যাট হাতে সর্বোচ্চ রান এসেছে অধিনায়ক নিগার সুলতানা জ্যোতির ব্যাট থেকে। টুর্নামেন্টের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১৮০ রান করেছেন তিনি। তবে দুর্দান্ত এই পারফরম্যান্সের পরও র‍্যাঙ্কিংয়ে পিছিয়েছেন তিনি ২ ধাপ। বর্তমানে টাইগ্রেস অধিনায়ক অবস্থান করছেন র‍্যাঙ্কিংয়ের ২৬ নম্বরে।

৭ ধাপ এগিয়ে ৪৬ নম্বরে অবস্থান করছেন জাতীয় দলের ব্যাটার ফারজানা হক। ৩ ধাপ পিছিয়ে ৩৬ নম্বরে অবস্থান করছেন মুর্শিদা খাতুন।

আর অলরাউন্ডার র‍্যাঙ্কিংয়ের সেরা দশে একমাত্র বাংলাদেশি হিসেবে রয়েছেন সালমা খাতুন। নিজের আগের অষ্টম অবস্থান ধরে রেখেছেন তারকা এই ক্রিকেটার।

আরও পড়ুন:
স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে অনায়াস জয় বাংলাদেশের
সাবিনাদের জয়ের আনন্দে ভেসে যাচ্ছেন জাহানারা-সাকিবরাও
আয়ারল্যান্ডকে হারিয়ে বাছাইপর্ব শুরু সালমাদের
চোটে বাছাইপর্ব শেষ জাহানারার, করোনা আক্রান্ত পিংকি
প্রথম নারী এফটিপিতে টাইগ্রেসরা খেলবে ৫০ ম্যাচ

মন্তব্য

আরও পড়ুন

খেলা
Kiwis started the series with Laitham Williamsons strong win

লেইথাম-উইলিয়ামসনের ব্যাটে জয় দিয়ে সিরিজ শুরু কিউইদের

লেইথাম-উইলিয়ামসনের ব্যাটে জয় দিয়ে সিরিজ শুরু কিউইদের নিউজিল্যান্ডের বড় জয়ের দুই নায়ক উইলিয়ামসন ও লেইথাম। ছবি: এএফপি
ভারতের দেয়া ৩০৭ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে কেইন উইলিয়ামসন ও টম লেইথামের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে ১৭ বল ও ৭ উইকেট হাতে রেখেই জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় নিউজিল্যান্ড।

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজ জিতে নিলেও ওয়ানডে সিরিজের শুরুতে হোঁচট খেয়েছে ভারত। স্বাগতিকদের বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডের প্রথমটিতে তারা হেরেছে ৭ উইকেটে।

ভারতের দেয়া ৩০৭ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে কেইন উইলিয়ামসন ও টম লেইথামের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে ১৭ বল ও ৭ উইকেট হাতে রেখে জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় নিউজিল্যান্ড।

অকল্যান্ডে টসে হেরে ব্যাট করতে নেমে দুর্দান্ত সূচনা করেন ভারতীয় দুই ওপেনার শিখর ধাওয়ান ও শুভমন গিল। উদ্বোধনী জুটিতে দলকে এনে দেন তারা ১২৪ রান।

ম্যাচের ২৪তম ওভারে ফার্গুসনের শিকার বনে ৬৫ বলে ৫০ করা গিলের বিদায়ের মধ্য দিয়ে ভাঙ্গে সেই জুটি। পরের ওভারে টিম সাউদি সাজঘরের পথ দেখিয়ে দেন ৭৭ বলে ৭২ রান করা ধাওয়ানকে।

এরপর হুট করেই যেন ধস নেমে আসে ভারতের ব্যাটিং লাইন আপে। স্কোর বোর্ডে ৩৬ রান যোগ করতে মাঠ ছাড়তে হয় রিশাভ পান্ট ও সুরিয়াকুমার ইয়াদভকে। আর তাতেই ১৬০ রানে ৪ উইকেট নেই ভারতের।

সাঞ্জু স্যামসনকে সঙ্গে নিয়ে শক্ত হাতে দলকে টেনে নিয়ে যেতে থাকেন শ্রেয়াশ আইয়ার। ৯৬ রানের জুটি গড়ে দলকে টেনে নিয়তে যান বড় সংগ্রহের পথে।

সঙ্গী স্যামসন ৩৬ করে মাঠ ছাড়লেও ওয়াশিংটন সুন্দরকে নিয়ে দলীয় সংগ্রহ ৩০০ পার করেন আইয়ার। ৭৬ বলে ৮০ রান করে তাকে থামতে হয় সাউদির শিকার হয়ে।

শেষ পর্যন্ত ৭ উইকেট হারিয়ে নিউজিল্যান্ডকে ৩০৭ রানের চ্যালেঞ্জিং লক্ষ্য ছুঁড়ে দিতে সক্ষম হয় ভারত।

সাউদি ও ফার্গুসন নেন ৩টি করে উইকেট। আর অ্যাডান নিলনের ঝুলিতে যায় একটি উইকেট।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে দলীয় সংগ্রহ শতরান ছোঁয়ার আগেই তিন টপ অর্ডারকে হারিয়ে বসে নিউজিল্যান্ড। ফিন অ্যালেন ফেরেন ২২ করে। ডেভন কনওয়ে ২৪ আর ড্যারেল মিচেল করেন ১১ রান।

এরপরই ইডেন পার্কে ঝড় তোলেন টম লেইথাম। সঙ্গে নেন দলপতি উইলিয়ামসনকে।

এই দুজনের ব্যাটে ভর করে আর কোন উইকেট না হারিয়েই ১৭ বল হাতে রেখে জয় বাগিয়ে নেন স্বাগতিকরা।

লেইথাম অপরাজিত থাকেন ১৪৫ রানে। এটি তার ওয়ানডে ক্যারিয়ারের ৭ম সেঞ্চুরি। তবে সঙ্গী উইলিয়ামসন পাননি সেঞ্চুরির দেখা। ৯৪* করেই সন্তুষ্ট থাকতে হয় তাকে।

মন্তব্য

খেলা
Shakib Rabi returned to the ODI team without Shariful Mosaddek
বাংলাদেশ-ভারত সিরিজ

ওয়ানডে দলে ফিরলেন সাকিব- রাব্বি

ওয়ানডে দলে ফিরলেন সাকিব- রাব্বি ফাইল ছবি
বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগে রান না করেও জিম্বাবুয়ে সিরিজের পারফরম্যান্স দিয়ে ১৬ সদস্যের দলে টিকে গেছেন এনামুল হক বিজয়। অপরদিকে বিসিএলে পারফরম্যান্স দেখিয়েও নির্বাচকদের নজরে আসতে পারেননি মোহাম্মদ নাঈম শেখ।

৪ ডিসেম্বর থেকে মাঠে গড়াতে যাচ্ছে ভারতের বিপক্ষে বাংলাদেশের তিন ওয়ানডে ও দুই টেস্টের সিরিজ। সিরিজকে সামনে রেখে বৃহস্পতিবার ১৬ সদস্যের ওয়ানডে দল ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

সবশেষ জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজের দলটা ভারতের বিপক্ষেও মোটামুটি একই রকমের রেখেছে বোর্ড। এসেছে দুই পরিবর্তন।

জিম্বাবুয়ে সিরিজে দলের সঙ্গে ছিলেন না সাকিব আল হাসান ও ইয়াসির আলি রাব্বি। সাকিব ছিলেন ছুটিতে আর রাব্বি ইনজুরিতে। এই দুইজনকে ভারতের বিপক্ষে সিরিজে ফিরিয়েছে টিম ম্যানেজমেন্ট।

জিম্বাবুয়ের পক্ষে সিরিজের মাঝপথে দলে জায়গা পাওয়া এবাদত হোসেনও রয়েছেন ভারতের বিপক্ষের ওয়ানডে স্কোয়াডে। একইসঙ্গে টি-টোয়েন্টি সিরিজের মাঝপথে ছিটকে যাওয়া নুরুল হাসান সোহান ঢুকেছেন দলে।

ভারতের বিপক্ষে ১৬ জনের স্কোয়াডে জায়গা হয়নি জিম্বাবুয়ে সিরিজে দলে থাকা তিন ক্রিকেটার মোসাদ্দেক হোসেন, শরীফুল ইসলাম ও তাইজুল ইসলামের।

শরিফুলকে বাদ দেয়া হয়েছে এ-দলের হয়ে খেলার জন্য। রাব্বির দলে ফেরায় বাদ দেয়া হয়েছে মোসাদ্দেককে। আর তাইজুলকে টিম ম্যানেজমেন্টের পক্ষ থেকে বিবেচনা করা হচ্ছে শুধুমাত্র টেস্ট দলের জন্য।

এদিকে চলতি বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগে রান না করেও জিম্বাবুয়ে সিরিজের পারফরম্যান্স দিয়ে ১৬ সদস্যের দলে টিকে গেছেন এনামুল হক বিজয়। অপরদিকে বিসিএলে পারফরম্যান্স দেখিয়েও নির্বাচকদের নজরে আসতে পারেননি মোহাম্মদ নাঈম শেখ।

এছাড়া লিটন দাস, মুশফিকুর রহিম, আফিফ হোসেন ধ্রুব, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ অবধারিতভাবেই ওয়ানডে দলে জায়গা করে নিয়েছেন।

৪ ও ৭ ডিসেম্বর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে হবে সিরিজের প্রথম দুই ওয়ানডে। এরপর ১০ ডিসেম্বর সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডে হবে চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে।

বাংলাদেশের ওয়ানডে দল: তামিম ইকবাল (অধিনায়ক), লিটন দাস, এনামুল হক, সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম, আফিফ হোসেন, ইয়াসির আলী, মেহেদী হাসান মিরাজ, মোস্তাফিজুর রহমান, তাসকিন আহমেদ, হাসান মাহমুদ, ইবাদত হোসেন, নাসুম আহমেদ, মাহমুদউল্লাহ, নাজমুল হোসেন ও নুরুল হাসান।

আরও পড়ুন:
ড্রাফট শেষে যেমন হলো বিপিলের সাত দল
মেসির খেলা দেখতে মাঠে থাকবেন সাকিব
ভারত সিরিজের আগে কোচিং প্যানেল নিয়ে দোটানায় বিসিবি
দেরিতে পৌঁছানোয় তিন ক্লাবকে সিসিডিএমের জরিমানা

মন্তব্য

খেলা
Jadeja is not in the ODI against Bangladesh

বাংলাদেশের বিপক্ষে ওয়ানডেতে নেই জাদেজা

বাংলাদেশের বিপক্ষে ওয়ানডেতে নেই জাদেজা ভারতের জার্সিতে অলরাউন্ডার রবীন্দ্র জাদেজা। ফাইল ছবি/এএফপি
গত ৩১ আগস্ট হংকংয়ের বিপক্ষে জাতীয় দলের হয়ে খেলেছিলেন জাদেজা। তারপরই ডান হাঁটুর চোটে পড়েন তিনি। যে কারণে এশিয়া কাপ ও টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও দলের সঙ্গে যোগ দিতে পারেননি অন্যতম সেরা এই অলরাউন্ডার।

ডিসেম্বরের শুরুতে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ খেলতে বাংলাদেশে আসবে ভারত। হাঁটুর চোটের কারণে সে সিরিজে রভিন্দ্র জাদেজাকে পাচ্ছে না টিম ইন্ডিয়া। পুরোপুরি সেরে না উঠলেও এই অলরাউন্ডারকে রেখে বাংলাদেশের বিপক্ষে স্কোয়াড ঘোষণা করে ভারত। ঠিক সময়ে সেরে না ওঠায় দল থেকে ছিটকে গেলেন তিনি।

ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডে (বিসিসিআই) থেকে বুধবার জানানো হয়েছে, জাদেজা ছাড়াও বাংলাদেশের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজের স্কোয়াড থেকে ছিটকে গেছেন ইয়াশ দায়াল। পিঠের সমস্যায় ভুগছেন বাঁহাতি এই পেসার।

গত ৩১ আগস্ট হংকংয়ের বিপক্ষে জাতীয় দলের হয়ে খেলেছিলেন জাদেজা। তারপরই ডান হাঁটুর চোটে পড়েন তিনি। যে কারণে এশিয়া কাপ ও টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও দলের সঙ্গে যোগ দিতে পারেননি অন্যতম সেরা এই অলরাউন্ডার।

টেস্ট সিরিজের আগে সুস্থ না হলে সেখান থেকেও বাদ পড়তে পারেন জাদেজা। সে ক্ষেত্রে দলের সঙ্গে যুক্ত হতে পারেন পারেন বাঁহাতি স্পিনার সৌরভ কুমার। ভারত এ-দলের বাংলাদেশ সফরের স্কোয়াডে রয়েছেন তিনি।

তিনটি ওয়ানডে ও দুই টেস্ট খেলতে আগামী ১ ডিসেম্বর বাংলাদেশে আসবে ভারত দল। ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচটি শুরু হবে ৪ ডিসেম্বর। ৭ ও ১০ ডিসেম্বর হবে বাকি দুটি ম্যাচ। টেস্ট ম্যাচ দুটি মাঠে গড়াবে ১৪ ও ২২ ডিসেম্বর।

ভারতের ওয়ানডে দল: রোহিত শর্মা (অধিনায়ক) শিখর ধাওয়ান, লোকেশ রাহুল, ভিরাট কোহলি, রজত পাতিদার, শ্রেয়াস আইয়ার, রাহুল ত্রিপাঠি, রিশভ পান্ট, ইশান কিশান, আক্সার পাটেল, ওয়াশিংটন সুন্দার, শার্দুল ঠাকুর, মোহাম্মদ শামি, মোহাম্মদ সিরাজ, ইয়াস দয়াল ও দিপক চাহার।

আরও পড়ুন:
রোহিতের অধীনে পুরো শক্তির ভারত আসছে বাংলাদেশে
‘নতুন লক্ষ্য’ সৌরভের সামনে
১৫ বছর পর পাকিস্তান সফরের প্রস্তুতি নিচ্ছে ভারত

মন্তব্য

খেলা
Bangla Tigers started with Shakibs all round performance

সাকিবের অলরাউন্ড পারফরম্যান্সে জয়ে শুরু বাংলা টাইগার্সের

সাকিবের অলরাউন্ড পারফরম্যান্সে জয়ে শুরু বাংলা টাইগার্সের নিউ ইয়র্ক স্ট্রাইকার্সের বিপক্ষে উইকেট উদযাপন সাকিবদের। ছবি: সংগৃহীত
ব্যাট করতে নেমে বাংলা টাইগার্সকে দারুণ শুরু এনে দেন এভিন লুইস। দুই চার ও সাত ছক্কায় ২২ বলে ২৮ রান করে তিনি আউট হন রামপালের বলে। এ ছাড়া ১৭ বল খেলে ৩০ রান করেন কলিন মুনরো। শেষের দিকে নামা সাকিব আল হাসানের ব্যাটে ৬ বলে আসে অপরাজিত ১৩ রান।

আগে ব্যাট করে বড় সংগ্রহ দাঁড় করাল বাংলা টাইগার্স। ব্যাট হাতে রান পেলেন সাকিব আল হাসানও। এরপর বল হাতে তিনি এনে দিলেন সাফল্য। দলও পেল জয়।

সাকিব আল হাসানের অলরাউন্ড পারফরম্যান্সে জয়ে আবুধাবি টি-টেন লিগ শুরু করেছে বাংলা টাইগার্স।

শেখ জায়েদ স্টেডিয়ামে মঙ্গলবার শুরুতে ব্যাট করতে নেমে ৫ উইকেট হারিয়ে ১৩৫ রানের সংগ্রহ পায় বাংলা টাইগার্স। জবাব দিতে নেমে নির্ধারিত ১০ ওভার ব্যাট করে ৮ উইকেট হারিয়ে ১১২ রানের বেশি করতে পারেনি নিউ ইয়র্ক স্ট্রাইকার্স।

শুরুতে ব্যাট করতে নেমে বাংলা টাইগার্সকে দারুণ শুরু এনে দেন এভিন লুইস। ২ চার ও ৭ ছক্কায় ২২ বলে ২৮ রান করে তিনি আউট হন রামপালের বলে। এ ছাড়া ১৭ বল খেলে ৩০ রান করেন কলিন মুনরো। শেষদিকে নামা সাকিব আল হাসানের ব্যাটে ৬ বলে আসে অপরাজিত ১৩ রান।

বড় রান তাড়া করতে নেমে সাকিব আল হাসানের করা প্রথম ওভারেই উইকেট হারায় নিউ ইয়র্ক স্ট্রাইকার্স। ডিপ স্কয়ার লেগে সংযুক্ত আরব আমিরাতের ক্রিকেটার রোহান মোস্তফার হাতে ক্যাচ তুলে দিয়ে শূন্য রানে আউট হন মোহাম্মদ ওয়াসিম।

দ্বিতীয় ওভার অবশ্য দারুণ ছিল নিউ ইয়র্কের জন্য। জ্যাক বলের করা ওভারে আসে ২৫ রান। বোলিংয়ে এসে আবার একটি দারুণ ওভার করেন সাকিব। এবার তিনি দেন কেবল ৫ রান।

পরের ওভারের পঞ্চম বলে চার চার ও দুই ছক্কা হাঁকিয়ে ১৩ বল খেলে ৩৪ রান করে আউট হন আজম খান।

এরপর রোমারিও শেফার্ডের ব্যাটে চড়ে ভালোভাবেই এগিয়ে যাচ্ছিল নিউ ইয়র্ক, কিন্তু ম্যাচ বদলে যায় রোহান মোস্তাফার করা অষ্টম ওভারে। তিনি দেন মাত্র ৭ রান।

শেষ দুই ওভারে ৪৬ রান দরকার ছিল নিউ ইয়র্কের। পোলার্ড চেষ্টা করলেও জেতাতে পারেননি দলকে।

আরও পড়ুন:
আবুধাবি টি-টেনে বাংলাদেশের পাঁচ ক্রিকেটার
টি-টেনের প্লেয়ার্স ড্রাফটে তামিম
বাংলা টাইগার্সের হেড কোচ হলেন আফতাব
দেশে ফিরেছেন সাইফউদ্দিন
কুমিল্লায় শুরু স্বাধীনতা টি-টেন টুর্নামেন্ট

মন্তব্য

খেলা
At the end of the draft there are seven teams of Bipil
বিপিএল ২০২৩

ড্রাফট শেষে যেমন হলো বিপিলের সাত দল

ড্রাফট শেষে যেমন হলো বিপিলের সাত দল বিপিএলের প্লেয়ার্স ড্রাফট। ছবি: সংগৃহীত
এবারের আসরে দল পাননি মোহাম্মদ আশরাফুল ও সোহাগ গাজী। একইসঙ্গে সাবেক টেস্ট দলপতি মুমিনুল হককে নিতে আগ্রহ দেখায়নি কোন ফ্র‍্যাঞ্চাইজি। এছাড়া বিশ্বকাপজয়ী তরুণ ক্রিকেটার তানজিম হোসেন তামিমকেও দলে টেনে নেয়নি কেউই। 

৬ জানুয়ারি মাঠে গড়াতে যাচ্ছে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের নবম আসর। আসরের আগে বুধবার রাজধানীর একটি পাঁচ তারকা হোটেলে অনুষ্ঠিত হল প্লেয়ার্স ড্রাফট।

এবারের ড্রাফটে যে চমক থাকবে না সেটি আগে থেকেই অনুমেয় ছিল। প্রায় আড়াই ঘণ্টার এই ড্রাফট থেকে পছন্দের দেশি বিদেশি খেলোয়াড়দের নিয়ে দল সাজিয়েছে ফ্র‍্যাঞ্চাইজিগুলো।

এবারের আসরে দল পাননি মোহাম্মদ আশরাফুল ও সোহাগ গাজী। একইসঙ্গে সাবেক টেস্ট অধিনায়ক মুমিনুল হককে নিতে আগ্রহ দেখায়নি কোন ফ্র‍্যাঞ্চাইজি। এছাড়া বিশ্বকাপজয়ী তরুণ ক্রিকেটার তানজিম হোসেন তামিমকেও দলে টেনে নেয়নি কেউই।

ড্রাফটে দেশি ক্রিকেটারদের ছিল ৭ টি ক্যাটাগরি। ড্রাফটে নাম ছিল ২১৬ জনের; এ-ক্যাটাগরিতে ৩, বি-ক্যাটাগরিতে ৭, সি-ক্যাটাগরিতে ২৬, ডি-ক্যাটাগরিতে ৩৫, ই-ক্যাটাগরিতে ৭১, এফ-ক্যাটাগরিতে ৩৮ ও জি-ক্যাটাগরিতে জায়গা হয়েছে ৩৬ জনের।

এ থেকে জি ক্যাটাগরিতে ক্রিকেটারদের মূল্য নির্ধারণ করা হয় যথাক্রমে- ৮০ লাখ, ৫০ লাখ, ৩০ লাখ, ২০ লাখ, ১৫ লাখ, ১০ লাখ ও ৫ লাখ টাকা।

বিদেশী ৩৯৭ জন ক্রিকেটারকে ভাগ করা হয়েছে পাঁচ ক্যাটাগরিতে; এ-ক্যাটাগরিতে ৫, বি-ক্যাটাগরিতে ১৭, সি-ক্যাটাগরিতে ৩৬, ডি-ক্যাটাগরিতে ৬৪ ও ই-ক্যাটাগরিতে আছে ২৭৫ জন।

৫ ক্যাটাগরিতে মূল্য যথাক্রমে- ৮০ হাজার মার্কিন ডলার, ৬০ হাজার মার্কিন ডলার, ৪০ হাজার মার্কিন ডলার, ৩০ হাজার মার্কিন ডলার ও ২০ হাজার ডলার।

সিলেট স্টাইকার্স: বিপিএলের নতুন আসরে সিলেটের দায়িত্ব পেয়েছে সম্পূর্ণ নতুন এক ফ্র্যাঞ্চাইজি। ফিউচার স্পোর্টস লিমিটেড আগামী ৩ বছরের জন্য সিলেটের ফ্র্যাঞ্চাইজি হিসেবে বোর্ডের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হয়েছে।

জাতীয় দলের সফলতম অধিনায়ক মাশরাফি বিন মোর্ত্তজাকে আইকন খেলোয়াড় হিসেবে নিয়ে শুরুতে তারা তাক লাগিয়ে দিয়েছিল। একইসঙ্গে সরাসরি চুক্তিতে পাকিস্তানের মোহাম্মদ আমির, মোহাম্মদ হারিসকে দলে ভেড়ানোর পাশাপাশি লঙ্কান তারকা ধনঞ্জয়া ডি সিলভা, কামিন্দু মেন্ডিস ও থিসারা পেরেরাকে দলে টানে তারা।

আর ড্রাফট থেকে তারা মুশফিকুর রহিম, নাজমুল হোসেন শান্ত, রুবেল হোসেনের মতো সিনিয়রদের পাশাপাশি তানজিম সাকিব, তৌহিদ হৃদয়ের মতো তরুণদের টেনে নেয়।

সরাসরি চুক্তি: মাশরাফি বিন মর্তুজা, মোহাম্মদ আমির, মোহাম্মদ হারিস, রায়ান বার্ল, কামিন্দু মেন্ডিস, ধনঞ্জয়া ডি সিলভা, থিসারা পেরেরা।

ড্রাফট থেকে: মুশফিকুর রহিম, নাজমুল হোসেন শান্ত, রেজাউর রহমান রাজা, নাবিল সামাদ, তৌহিদ হৃদয়, রুবেল হোসেন, টম মুরর্জ, গুলবাদিন নায়েব, জাকির হোসেন, নাজমুল ইসলাম অপু, আকবর আলী, মোহাম্মদ শরিফুল্লাহ, তানজিম সাকিব।

ফরচুন বরিশাল: ফরচুন গ্রুপ লম্বা সময় ধরেই ফ্র্যাঞ্চাইজি হিসেবে রয়েছে বরিশাল দলের। দেশের ক্রিকেটের পোস্টারবয় সাকিব আল হাসানকে সরাসরি চুক্তিতে দলে ভিড়িয়েছিল তারা, যেটি ছিল অনেকটা অবধারিতই।

পাশাপাশি সরাসরি চুক্তিতে তারা টেনে নেয় পাকিস্তানি তারকা ক্রিকেটার ইফতেখার আহমেদ, মোহাম্মদ ওয়াসিম, আফগানিস্তানের ইব্রাহিদ জাদরান, করিম জানাত, ওমর কাদির, রাহামানুল্লাহ গুরবাজ ও নাভিদ উল হককে। তবে সবচেয়ে বড় চমক ছিল ক্যারিবীয় হিটার ব্যাটার রাহকিম কর্নওয়েলকে দলে টেনে নেয়াটা।

এছাড়া ফ্রাফট থেকে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মেহেদী হাসান মিরাজ, ইবাদত হোসেন, এনামুল হক বিজয়ের মতো তারকাদের নিয়ে বেশ শক্তিশালী দল সাজিয়েছে তারা।

সরাসরি চুক্তি: সাকিব আল হাসান, ইফতেখার আহমেদ, মোহাম্মদ ওয়াসিম, ইব্রাহিদ জাদরান, করিম জানাত, ওমর কাদির, রাহকিম কর্নওয়াল, কেসরিক উইলিয়ামস, রাহামানুল্লাহ গুরবাজ, নাভিদ উল হক।

ড্রাফট থেকে: মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মেহেদী হাসান মিরাজ, ইবাদত হোসেন, এনামুল হক বিজয়, কামরুল ইসলাম রাব্বি, ফজলে মাহমুদ রাব্বি, হায়দার আলী, চতুরঙ্গা ডি সিলভা, খালেদ আহমেদ, সাইফ হাসান, কাজী অনিক, সানজামুল ইসলাম, সালমান হোসেন।

খুলনা টাইগার্স: খুলনার ফ্র্যাঞ্চাইজি মাইন্ড ট্রি লিমিটেড সরাসরি চুক্তিতে জাতীয় দলের ওয়ানডে দলপতি তামিমকে ভিড়িয়ে প্রথম চমক আনে। তামিম ছাড়াও ডিরেক্ট সাইনিংয়ে তারা দলে ভেড়ায় আভিস্কা ফার্নেন্দো, ওয়াহাব রিয়াজের মতো অভিজ্ঞ ক্রিকেটারকে।

এছাড়া ড্রাফট থেকে মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন, সাব্বির রহমান, ইয়াসির আলি রাব্বি, নাসুম আহমেদ, মুনিম শাহরিয়ারের পাশাপাশি দাসুন শানাকা, ভ্যান ডার ম্যাকক্রেইনকে দলে ভিড়িয়েছে তারা।

সরাসরি চুক্তি: তামিম ইকবাল, আভিস্কা ফার্নেন্দো, ওয়াহাব রিয়াজ, নাসিম শাহ, আজম খান।

ড্রাফট থেকে: মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন, ইয়াসির আলি রাব্বি, নাসুম আহমেদ, নাহিদুল ইসলাম, মুনিম শাহরিয়ার, সাব্বির রহমান, দাসুন শানাকা, ভ্যান ডার ম্যাকক্রেইন, শফিকুল ইসলাম, প্রীতিম কুমার, হাবিবুর রহমান সোহান, মাহমুদুল হাসান জয়।

চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স: বিপিএলের কারা খেলবেন চট্টগ্রাম দলে সেটি আগে থেকেই অনেকটা নির্ধারিত ছিল। কোন চমক ছাড়াই এবারও দল সাজিয়েছে তারা।

সরাসরি চুক্তি: আফিফ হোসেন, বিশ্ব ফার্নেন্দো, আশান প্রিয়ঞ্জন, কার্টিস ক্যাম্পের।

ড্রাফট থেকে: মৃত্যুঞ্জয় চৌধুরী, শুভাগত হোম চৌধুরী, মেহেদী হাসান রানা, ইরফান শুক্কুর, মেহেদি মারুফ, জিয়াউর রহমান, ম্যাক্সয়েল প্যাট্রিক, উন্মুক্ত চাঁদ, তাইজুল ইসলাম, আবু জায়েদ রাহী, ফরহাদ রেজা, তৌফিক খান তুষার।

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স: বিপিএলের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের ফ্র্যাঞ্চাইজির থাকার কথাই ছিল না এবারের আসরে। শেষ সময়ে নাটকের জন্ম দিয়ে দল নেয় তারা। আর দল পেয়েই এক্বের পর এক চমক দিতে শুরু করে দলটির ফ্র্যাঞ্চাইজি কুমিল্লা লিজেন্ডস লিমিটেড।

পাকিস্তানি তারকা মোহাম্মদ রিজওয়ান, শাহীন আফ্রিদি, হাসান আলি, খুশদিল শাহকে শুরুতেই সরাসরি চুক্তিতে দলে ভেড়ায় তারা। আফগান দলপতি মোহাম্মদ নবির পাশাপাশি কাটার মাস্টার মুস্তাফিজকেও সরাসরি চুক্তিতে দলে টেনে নেয় তারা।

সবাইকে অবাক করে কুমিল্লা দলপতি ইমরুল কায়েসকে সরাসরি চুক্তিতে না গিয়ে ড্রাফট থেকে টেনে নেয় কুমিল্লা। এছাড়াও ড্রাফট থেকে তারা টেনে নেয় লিটন দাস, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, মুকিদুল ইসলাম মুগ্ধ, মাহিদুল ইসলাম অঙ্কনকে। বিদেশিদের ভেতর তারা নিয়েছে শন উইলিয়ামস ও চ্যাডউইক ওয়ালটনকে।

সরাসরি চুক্তি: মোস্তাফিজুর রহমান, মোহাম্মদ রিজওয়ান, শাহীন আফ্রিদি, হাসান আলি, খুশদিল শাহ, মোহাম্মদ নবি, আবরার আহমেদ।

ড্রাফট থেকে: লিটন দাস, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, তানভীর ইসলাম, ইমরুল কায়েস, আশিকুজ্জামান, জাকের আলী অনিক, শন উইলিয়ামস, চ্যাডউইক ওয়ালটন, সৈকত আলী, আবু হায়দার রনি, নাইম হাসান, মুকিদুল ইসলাম মুগ্ধ, মাহিদুল ইসলাম অঙ্কন।

রংপুর রাইডার্স: বিপিএলে এক আসর বিরতির পর যুক্ত হয়েছে রংপুর রাইডার্স। নুরুল হাসান সোহান, শোয়েব মালিক, পাথুম নিশাঙ্কা, হারিস রউফ, সিকান্দার রাজা, মোহাম্মদ নাওয়াজের মতো তারকা ক্রিকেটারদের সরাসরি চুক্তিতে দলে ভেড়ানোর পর ড্রাফট থেকে তারা টেনে নেয় শেখ মেহেদী হাসান, হাসান মাহমুদ, নাঈম শেখ, রাকিবুল হাসান, শামীম পাটোয়ারিকে।

সরাসরি চুক্তি: নুরুল হাসান সোহান, শোয়েব মালিক, পাথুম নিশানকা, হারিস রউফ, সিকান্দার রাজা, মোহাম্মদ নাওয়াজ, জেফ্রি ভ্যান্ডার্সি।

ড্রাফট থেকে: শেখ মেহেদী হাসান, হাসান মাহমুদ, নাঈম শেখ, রাকিবুল হাসান, শামীম পাটোয়ারি, রিপন মণ্ডল, হাশমতউল্লাহ উমরজাই, অ্যারেন জোনস, রনি তালুকদার, পারভেজ হোসেন ইমন, রবিউল হক, আলাউদ্দিন বাবু।

ঢাকা ডমিনেটর্স: বিপিএলের আসর বসবে আর ঢাকার ফ্র্যাঞ্চাইজি নিয়ে নাটক হবে না সেটি আশা করাটাও যেন ভুল। অতীতের ‘ঐতিহ্য’ বজায় রেখে নবম আসরেও ঢাকার ফ্র্যাঞ্চাইজি নিয়ে হয় নাটক।

শুরুতে ফ্র্যাঞ্চাইজি হিসেবে প্রগতি গ্রুপকে বোর্ড নির্বাচিত করলেও হুট করেই সেটি বাতিল করে বোর্ড। ফের শুরু হয় নতুন ফ্র্যাঞ্চাইজি খোঁজার মিশন। দুই দিন বাদেই রূপা ফ্যাব্রিক্স লিমিটেডকে দায়িত্ব দিলেও ড্রাফটের তিন দিন আগে তাদের ফ্র্যাঞ্চাইজিশিপও বাতিল করে বোর্ড।

আর ড্রাফটের আগের দিন তাদেরকেই আবার দেয়া হয় দলের দায়িত্ব। ফ্র্যাঞ্চাইজি হিসেবে শেষ সময়ে দায়িত্ব পেলেও খুব একটা খারাপ হয়নি তাদের দল সাজানো।

সরাসরি চুক্তিতে তারা দলে ভিড়িয়েছে তাসকিন আহমেদ, চামিকা করুনারত্নে ও দিলশান মুনাওয়ারাকে। আর ড্রাফট থেকে মোহাম্মদ মিঠুন, সৌম্য সরকার, আরাফাত সানি, নাসির হোসেন, আল-আমিন হোসেনের পাশাপাশি শান মাসুদ, আহমেদ শেহজাদ, উসমান ঘানিকে দলে টেনে নেয় তারা।

সরাসরি চুক্তি: তাসকিন আহমেদ, চামিকা করুনারত্নে, দিলশান মুনাওয়ারা।

ড্রাফট থেকে: মোহাম্মদ মিঠুন, সৌম্য সরকার, শরিফুল ইসলাম, আরাফাত সানি, নাসির হোসেন, আল-আমিন হোসেন, শান মাসুদ, আহমেদ শেহজাদ, অলক কাপালি, মুনির হোসেন খান, আরিফুল হক, মুক্তার আলী, মিজানুর রহমান, দেলোয়ার হোসেন, উসমান ঘানি, সালমান ইরশাদ।

আরও পড়ুন:
ঢাকার মালিকানা পেল রূপা ফ্যাব্রিকস
ক্রিকেটারদের ব্যস্ত রাখতেই শুরু হচ্ছে বিসিএল
বিসিএলে জাতীয় দলের তারকা মেলা, দল পাননি সাব্বির

মন্তব্য

খেলা
Indias series win in rain

বৃষ্টিতে সিরিজ জয় ভারতের

বৃষ্টিতে সিরিজ জয় ভারতের নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজ জয়ের পর উচ্ছ্বসিত ভারতের ক্রিকেটাররা। ছবি: টুইটার
৪ ওভারে ১৭ রান দিয়ে ৪ উইকেট নিয়ে ম্যাচসেরা হন ভারতের মোহাম্মদ সিরাজ। আগের ম্যাচে ৫১ বলে ১১১ রান করে সিরিজসেরা হন ভারতের সুরিয়াকুমার ইয়াদভ।

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচ ভেসে যায় বৃষ্টিতে। দ্বিতীয় ম্যাচে ৬৫ রানে জয় তুলে নেয় সফরকারী ভারত।

শেষ ম্যাচটি আবারও পণ্ড হতে বসে বৃষ্টির কারণে। শেষ পর্যন্ত ম্যাচ আর মাঠে না গড়ালে বৃষ্টি আইনে ম্যাচ ড্র হয়। এতে করে ১-০ ব্যবধানে সিরিজ জিতে নেয় হার্দিক পান্ডিয়ার দল।

নিউজিল্যান্ডের নেপিয়ারে মঙ্গলবার তৃতীয় ম্যাচের শুরুতে নিউজিল্যান্ড ব্যাট করার সুুযোগ পেলেও বৃষ্টির জন্য মাঠ ছাড়তে হয় ভারতকে। পরে বৃষ্টির কারণে ম্যাচ মাঠে না গড়ালে ডাকওয়ার্থ-লুইস স্টার্ন পদ্ধতিতে ম্যাচটি ড্র ঘোষণা করা হয়।

শুরুতে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ১৯ ওভার ৪ বলে সব উইকেট হারিয়ে ১৬০ রান সংগ্রহ করে নিউজিল্যান্ড।

ব্যাট করতে নেমে কিউইদের হয়ে চার ব্যাটার ছাড়া বাকিদের কেউই ছুঁতে পারেননি দুই অঙ্ক। তিনে নামা মার্ক চ্যাপম্যান ১২ রান করে ফিরলে দলের হাল ধরেন ডেভন কনওয়ে ও গ্লেন ফিলিপস। দুজনেই হাঁকান ফিফটি।

৫৪ রান আসে গ্লেন ফিলিপসের ব্যাট থেকে। আর ৪৯ বলে ৫৯ রান করে বিদায় নেন কওনয়ে।

পরে ড্যারিয়েল মিচেল ছাড়া কেউই ছুঁতে পারেননি দুই অঙ্কের ঘর। তিনি করেন ১০ রান।

ভারতের পক্ষে ৪টি করে ‍উইকেট নেন সিরাজ ও আর্শদীপ সিং। একটি উইকেট পান হার্শাল প্যাটেল।

জয়ের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই উইকেট যায় ভারতীয় ওপেনার ইশান কিশানের। ১০ রান করে কিশান আউট হলে ১১ রান করে ফেরেন আরেক ওপেনার রিশভ পান্ট।

তিনে ব্যাট করতে নেমে সুরিয়াকুমার ইয়াদভের ব্যাটও আলো ছড়াতে পারেনি। ১৩ রান করে সাজঘরে ফিরেন তিনি।

অধিনায়ক হার্দিক পান্ডিয়া এসে দলের হাল ধরার চেষ্টা করলে শুরু হয় বৃষ্টি। পরে ম্যাচ ড্র ঘোষণা করা হয়।

১৮ বলে ৩০ রান করে অপরাজিত ছিলেন পান্ডিয়া। অপর প্রান্তে দীপক হোদা ৯ রান করে অপরাজিত থাকেন।

ভারতের পক্ষে ৪ ওভারে ১৭ রান দিয়ে ৪ উইকেট নিয়ে ম্যাচসেরা হন মোহাম্মদ সিরাজ।

আগের ম্যাচে ৫১ বলে ১১১ রান করে সিরিজসেরা হন ভারতের সুরিয়াকুমার ইয়াদভ।

আরও পড়ুন:
১৮-তে ভোট দেয়া ‘বৈষম্যমূলক’: নিউজিল্যান্ডের আদালত
সুরিয়াকুমার ঝড়ে সিরিজে এগিয়ে গেল ভারত
ভারতের বিপক্ষে নিউজিল্যান্ড দলে নেই বোল্ট-গাপটিল

মন্তব্য

খেলা
World Cup winner Hales wants to improve his spin by playing T Ten

টি-টেনে স্পিনে উন্নতি করতে চান হেইলস

টি-টেনে স্পিনে উন্নতি করতে চান হেইলস ইংলিশ ক্রিকেটার অ্যালেক্স হেলস। ছবি: এএফপি
অ্যালেক্স হেইলস বলেন, ‘উপমহাদেশের পিচে আপনি স্পিনের প্রবণতা দেখবেন না। আপনাকে এখানে নিজের ম্যাথডে মানিয়ে নিতে হবে। আমার মনে হয় ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেটারদের জন্য মূল বিষয় এটা। আপনি যখন ভিন্ন কন্ডিশন ও দেশে বছরজুড়ে টুর্নামেন্ট খেলবেন, আপনার খেলার কিছু জায়গায় সবসময়ই নড়াচড়া করতে হবে। অন্যথায় আপনি খেলা থেকে ছিটকে পড়বেন।’

বর্তমানে ক্রিকেটের অন্যতম বিধ্বংসী ব্যাটার অ্যালেক্স হেইলস। জীবনে নানা উত্থান-পতনের সাক্ষী হয়েছেন। তবে ব্যাট হাতে মাঠে নামলেই তিনি দেখিয়েছেন নিজের ধ্বংসাত্মক রূপ। একই ব্যাপার টিম আবু ধাবির হয়ে টি-টেন লিগেও দেখাতে চান তিনি। ইংল্যান্ডের হয়ে বিশ্বকাপ জেতা ব্যাটার টি-টেন খেলে উন্নতি করতে চান স্পিনে।

তিনি বলেছেন, ‘আগে যে দুই মৌসুম খেলেছি সেটা খুব পছন্দ করেছি। আমার মনে হয়েছে প্রতিবারই আরও ভালো খেলোয়াড় হিসেবে টুর্নামেন্ট শেষ করেছি, বিশেষত টি-টোয়েন্টি খেলার সময়ে। টি-টেনে আপনার প্রথম বল থেকেই মনোযোগ রাখতে হবে। সবসময়ই এটা টি-টোয়েন্টিতে সাহায্য করে বলে আমার মনে হয়। আবুধাবি টি-টেন খুব ভালো একটা টুর্নামেন্ট যেটা মানসম্পন্ন ক্রিকেটারদের আকর্ষণ করছে। আবু জায়েদ স্টেডিয়ামে খেলার ব্যাপারে মুখিয়ে আছি, এখানে ভালো কিছু স্মৃতি আছে আমার।’

‘উপমহাদেশের পিচে আপনি স্পিনের প্রবণতা দেখবেন না। আপনাকে এখানে নিজের ম্যাথডে মানিয়ে নিতে হবে। আমার মনে হয় ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেটারদের জন্য মূল বিষয় এটা। আপনি যখন ভিন্ন কন্ডিশন ও দেশে বছরজুড়ে টুর্নামেন্ট খেলবেন, আপনার খেলার কিছু জায়গায় সবসময়ই নড়াচড়া করতে হবে। অন্যথায় আপনি খেলা থেকে ছিটকে পড়বেন।’

আরও পড়ুন:
আল আমিনের বিরুদ্ধে ফের মামলা
এনসিএলের শিরোপা রংপুরের
দেরিতে পৌঁছানোয় তিন ক্লাবকে সিসিডিএমের জরিমানা
ঢাকার মালিকানা পেল রূপা ফ্যাব্রিকস
ভারতের বিপক্ষে নিউজিল্যান্ড দলে নেই বোল্ট-গাপটিল

মন্তব্য

p
উপরে