× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

খেলা
The dreams of female footballers started to come true in the village of Palichra
hear-news
player
print-icon

স্বপ্নাকে খেলতে দেয়ার বিরোধীরাও আনন্দে আত্মহারা

স্বপ্নাকে-খেলতে-দেয়ার-বিরোধীরাও-আনন্দে-আত্মহারা
শিরোপা জয়ের পর স্বপ্নার বাড়িতে মিষ্টি বিতরণ। ছবি: নিউজবাংলা
‘আমার মেয়ে যখন ক্লাস ফোরে পড়ে তখন স্কুল থাকি বাড়ি আসি বলে আমি ফুটবল খেলব। তখন রাগ হইসি পরে। তখন আমার ভাই আব্দুল লতিফ এসে তাকে নিয়ে যায়। সেই থেকে খেলে। মেয়েকে খব কষ্ট করি মানুষ করছি। আজ গর্ববোধ করতেছি।’

গ্রামের মেয়ে ফুটবল খেলবে, কেমন দেখায় ভেবে রাজি ছিলেন না বাবা, বাধা দিয়েছিলেন মা, স্বজন, পাড়া প্রতিবেশীও।

কিন্তু তিনি যে স্বপ্না, এসেছেন দেশবাসীর স্বপ্নকে সার্থক করতে। এসব বাধা কি তাকে ঠেকাতে পারে? ফুটবলে বাংলাদেশের সেরা সাফল্যের একটি এসেছে যাদের ঘামে, তাদের মধ্যে ১০ নম্বর জার্সিধারী স্বপ্নাকে নিয়ে এখন ঝরছে প্রশংসার ফুলঝুরি।

নেপাল থেকে শিরোপা নিয়ে ফিরবেন, সেই শিরোপা দুই হাতে তুলে ধরতে দেখে দেশবাসী উদ্বেল হবেন, এই বিষয়টি ভেবেই এখন আনন্দে আত্মহারা এককালে তাকে খেলতে দেয়ার বিরোধীরাই।

নেপালের সঙ্গে ইতিহাস গড়ে সাফ নারী চ্যাম্পিয়নশিপের শিরোপা জেতা দলে রংপুরের সদ্যপুস্কুরুনী পালিচড়ার মেয়ে সিরাত জাহান স্বপ্নার জন্য এখন হাসছে গোটা এলাকা।

স্বপ্নাকে খেলতে দেয়ার বিরোধীরাও আনন্দে আত্মহারা
সোমবার নেপালকে ৩-১ গোলে হারিয়ে সাফের শিরোপা জয়ে বাংলাদেশের মেয়েদের আনন্দ। ছবি: সংগৃহীত

সব 'মন্দ কথা' উড়িয়ে দিয়ে কিশোরীদের পায়ে এগিয়ে চলা ফুটবলে নতুন দিন এনে দিয়েছেন স্বপ্না। তাই, সারা দেশের উৎসবের রঙের সঙ্গে রঙিন হয়েছে রংপুরের নিভৃত এই পল্লীগ্রাম পালিচড়াও।

স্বপ্নার জন্য এখন গর্বিত রংপুরের মানুষ। তার পরিবার সিক্ত হচ্ছে মানুষের ভালোবাসা ও শুভেচ্ছায়।

পালিচড়ার জয়রাম গ্রামে স্বপ্নার বাড়িতে মঙ্গলবার সকালে গিয়ে দেখা যায়, উৎসুক মানুষের ভিড়। অনেকে মিষ্টি এনে বিলাচ্ছেন, হৈ-হুল্লোড় করে মেতেছেন গ্রামের মানুষজন। এ ছাড়া বাজার, দোকান, পাড়া-মহল্লা সবখানেই আলোচনার কেন্দ্রবিন্দু বিশ্ব জয় করা স্বপ্না। স্থানীয়দের গর্বের অন্ত নেই তাকে নিয়ে।

এই উৎসব সেখানে শুরু হয় আগের রাতেই। চলে মিষ্টি খাওয়াখাওয়ি।

স্থানীয় যুবক গোলজার হোসেন নিউজবাংলাকে বলেন, ‘আমরা তার জন্য খুশি। ২০১০ সালে এই গ্রামের মেয়েরা অনেক বাধা উপেক্ষা করে ফুটবল খেলা শুরু করে। আমরা স্বপ্ন দেখছিলাম বিশ্বজয়ের। সেটি পূরণ হয়েছে।

‘এই গ্রামের মেয়েদের জন্যই পালিচড়া এখন নতুন নাম পেয়েছে; সেটি হলো- নারী ফুটবলারদের গ্রাম। শিরোপা জয়ে আমরা এতটা খুশি, যা বলে প্রকাশ করা যাবে না।’

স্বপ্নার বাবা মোকছার আলী একজন কৃষক। মেয়ের এই সাফল্যে আনন্দের সীমা নেই তারও। বলেন, ‘খুব আনন্দ লাগছে। আজকে বাংলাদেশ নারী ফুটবল দল জয়ী হয়েছে। এতে আমার মেয়ে খেলেছে। আমরা সবাই খুব খুশি। আমার মেয়ের জন্য সকলে দোয়া করবেন। সে যাতে দেশের জন্য আরও ভালো কিছু করতে পারে।’

ছোট থাকতে স্বপ্নার ফুটবলে আগ্রহ দেখে রাগ হয়েছিল মা লিপি বেগমের। পরে মামা এসে তাকে নিয়ে যায় খেলায়। সেই থেকে শুরু। এখন তাকে নিয়ে গর্ব করেন মা। চাওয়া মেয়ে আরও বড় হবে, আরও বড় স্বপ্ন ছুঁবে।

স্বপ্নাকে খেলতে দেয়ার বিরোধীরাও আনন্দে আত্মহারা
সাফে পাকিস্তানকে ৬-০ গোলে উড়িয়ে দেয়ার পর স্বপ্না-সাবিনাদের উল্লাস। ছবি: সংগৃহীত

বলেন, ‘আমার মেয়ে যখন ক্লাস ফোরে পড়ে তখন স্কুল থাকি বাড়ি আসি বলে আমি ফুটবল খেলব। তখন রাগ হইসি পরে। তখন আমার ভাই আব্দুল লতিফ এসে তাকে নিয়ো যায়। সেই থেকে খেলে। মেয়েকে খব কষ্ট করি মানুষ করছি। আজ গর্ববোধ করতেছি।

‘আমি খেলা দেখছি। রাত ১২টায় খুশিতে ঘুমাইছি। সকাল থাকি মেলা মানুষ আসোছে। আমার খুব ভালো লাগছে। আমার মেয়ে তিনটা। দুই মেয়েক বিয়ে দিছি। এই মেয়েকে খেলাধুলা করতেছে। আমার মেয়ে বড় হোক আমি এটা চাই।’

পরিবার রাজি না থাকলেও স্বপ্না ফুটবলের মাঠে আসতে পেরেছে মূলত তার মামার কারণে। মামা আব্দুল লতিফ কেমন খুশি আজ?

‘আমার বড় বোন স্বপ্নাকে খেলতে দিবেই না। আমি হাত ধরে ধরে তাকে মাঠে নিয়ে যেতাম। আজ আমার চেয়ে বেশি কেউ খুশি হয়নি। আমি চাই সে আরও বড় হোক।

‘তখন ইউএনও মোস্তাকিন বিল্লাহ ছিলেন। তার বড় অবদান আছে। তিনি অনেক কিছু করেছেন। বহু টাকা ব্যয় করেছেন’- এই কথা বলতে থাকা লতিফের মুখে তৃপ্তির আভা যে কেউ বুঝতে পারছিলেন।

স্বপানার বড় আব্বা (বড় চাচা) মকবুল হোসেন বলেন, ‘বঙ্গমাতা খেলা হয়েছে ২০১১ সালে। সেখানে স্বপ্না খেলে আজ এত দূরে। আমি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্য দোয়া করি। আজ আমাদের গ্রামে যেন ঈদের আনন্দ।’

এই পালিচড়ায় মেয়েদের ফুটবলে এগিয়ে যাওয়ার পেছনে সাবেক কোচ হারুণকে অবদান অনস্বীকার্য বললেন মামা মিজানুর রহমান পাইলট।

‘সাবেক কোচ হারুণ ভাইয়ের চেষ্টায় আজ আমাদের মেয়েরা সফল। এই পালিচড়ায় এখন জাতীয় টিমে চার জন খেলতেছে। পুরো ২২ জনের একটি টিম ছাড়াও বহু মেয়ে এখন ফুটবল খেলতেছে। আজ কী যে আনন্দ হচ্ছে!’

সদ্যপুস্কুরুনী যুব স্পোর্টিং ক্লাবের কোচ মিলন খান নিউজবাংলাকে বলেন, ‘এই গ্রাম নারী ফুটবলারদের গ্রাম। এর আগে কখনও সাফ চ্যাম্পিয়ন হতে পারেনি। এটাই প্রথম। স্বপ্না দশ নস্বর জার্সি পরে খেলেছে। তার এই সফলতায় আমরা খুশি। আনন্দিত। আমাদের পরিকল্পনা রয়েছে, তাকে বড় সংবর্ধনা দেয়ার।’

বাজারের বাসিন্দা বলেন আব্দুল মোাতালেব বলেন, ‘আবেদ আলী ক্যাশিয়ার ছিল বাচ্চাদের অভিভাবক। তিনি বাড়িতে মেয়েদের থাকা খাওয়া সবই করেছেন। তার বড় অবদান। তিনি আজ বেঁচে থাকলে খুব খুশি হতেন।’

রংপুর সদ্যপুষ্কুরনী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সোহেল রানা বলেন, ‘আমরা আজ গর্বিত। তার সফলতা আমাদের সফলতা। আরও কীভাবে এই পালিচড়াকে এগিয়ে নেয়া যায় সেটা নিয়ে কাজ করব আমরা।’

রংপুর জেলা ক্রীড়া সংস্থার সভাপতি ও জেলা প্রশাসক আসিব আহসান নিউজবাংলাকে বলেন, ‘আমরা স্বপ্নাকে সংবর্ধনা দেবো। আমি ইউএনওকে বলেছি তার পরিবারের খোঁজখবর নিতে। তা ছাড়া আমরা সেখানে একটি স্টেডিয়াম করতেছি। সেখানকার নারী ফুটবলারদের জন্য যা যা করার আমরা সবই চেষ্টা করব।’

আরও পড়ুন:
২ ঘণ্টা পর জয়ের খবর জানাল বাফুফে
বাংলাদেশের নারীর এ যেন এক স্পর্ধিত বিজয়গাথা
সব পুরস্কার বাংলাদেশের
‘আমার মেয়েকে যারা বাঁকা চোখে দেখত, তারা সম্মান দিচ্ছে’
সাবিনা-কৃষ্ণার জয়ে মুশফিকের ‘আলহামদুলিল্লাহ’

মন্তব্য

আরও পড়ুন

খেলা
Argentina won with Messis double goal

মেসির জোড়া গোলে টানা ৩৫ ম্যাচে জয় আর্জেন্টিনার

মেসির জোড়া গোলে টানা ৩৫ ম্যাচে জয় আর্জেন্টিনার জ্যামাইকার বিপক্ষে লিওনেল মেসির গোল উদযাপন। ছবি: এএফপি
৮৫তম মিনিটে মেসির উঁচু করে বাড়ানো বলে ঠিকমতো শট নিতে পারেননি তাগলিয়াফিকো। পরের মিনিটে ডি বক্সের বাইরে থেকে দারুণ ফিনিশিংয়ে লক্ষ্যভেদ করেন মেসি। ৮৯তম মিনিটে ফ্রি-কিকে আবার জালে জড়ান আর্জেন্টিনার এ অধিনায়ক।

ফিফা আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচে বদলি নেমে জোড়া গোল করেন আর্জেন্টাইন তারকা লিওনেল মেসি। তার সঙ্গে গোলের দেখা পান দলের আরেক তারকা ফরোয়ার্ড হুলিয়ান আলভারাস।

তাদের তিন গোলে জ্যামাইকার বিপক্ষে বড় জয় পেয়েছে আর্জেন্টিনা। এ নিয়ে টানা ৩৫ ম্যাচে অপরাজিত রইল দলটি।

বাংলাদেশ সময়ে বুধবার সকালে এই প্রীতি ম্যাচের জয়ের মধ্য দিয়ে কাতার বিশ্বকাপের প্রস্তুতি শেষ করল দুবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা।

ম্যাচের শুরুতে আর্জেন্টিনাকে চেপে ধরে জ্যামাইকা, তবে দ্রুতই ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নেয় আর্জেন্টিনা। ১৩তম মিনিটের মাথায় লিড নেয় দলটি।

শুরুতে এগিয়ে গেলেও আর কোনো গোলের দেখা পাচ্ছিল না লিওনেল স্কালোনির শিষ্যরা। প্রথমার্ধে বেশ কয়েকবার আক্রমণ করলেও দারুণভাবে প্রতিরোধ করে জ্যামাইকা।

১-০ গোলে এগিয়ে থেকে দ্বিতীয়ার্ধের খেলা শুরু করলে দ্রুতই ব্যবধান বড় করতে পারেনি মেসিবাহিনী। ৫৫তম মিনিটে লিসান্দ্রো মার্তিনেসের বদলি নামেন লিওনেল মেসি। তার নামার পরই পাল্টে যায় দৃশ্যপট। একের পর এক আক্রমণে যায় আর্জেন্টিনা।

৮৬তম ও ৮৯তম মিনিটে দুটি গোল করেন সাতবারের ব্যলন ডর জয়ী মেসি।

৮৫তম মিনিটে মেসির উঁচু করে বাড়ানো বলে ঠিকমতো শট নিতে পারেননি তাগলিয়াফিকো। পরের মিনিটে ডি বক্সের বাইরে থেকে দারুণ ফিনিশিংয়ে লক্ষ্যভেদ করেন মেসি। ৮৯তম মিনিটে ফ্রি-কিকে আবার জালে জড়ান আর্জেন্টিনার এ অধিনায়ক।

হ্যাটট্রিকের সুযোগও পেয়েছিলেন মেসি। তৃতীয়বারের মতো এক ভক্ত মাঠে ঢুকে যাওয়ায় শেষ পর্যন্ত আর সেই আক্রমণে হ্যাটট্রিকের সফলতা আসেনি মেসির।

দেশের হয়ে আর্জেন্টাইন এ তারকা ফরোয়ার্ডের গোল ৯০টি। আন্তর্জাতিক ফুটবলে মোখতার দাহারিকে পেছনে ফেলে সর্বোচ্চ গোল স্কোরের তালিকায় সেরা তিনে জায়গা করে নিয়েছেন মেসি।

আরও পড়ুন:
জ্যামাইকার বিপক্ষে নাও খেলতে পারেন মেসি
এমবাপেকে ভবিষ্যতের সেরা বললেন মেসি
মেসির জোড়া গোলে আর্জেন্টিনার জয়

মন্তব্য

খেলা
Spain beat Portugal in the finals with a last minute goal

শেষ মুহূর্তের গোলে পর্তুগালকে হারিয়ে ফাইনালসে স্পেন

শেষ মুহূর্তের গোলে পর্তুগালকে হারিয়ে ফাইনালসে স্পেন পর্তুগালের বিপক্ষে একমাত্র জয়সূচক গোল উদযাপন স্পেনের খেলোয়াড়দের। ছবি: এএফপি
পর্তুগালের ব্রাগায় মঙ্গলবার রাতে ‘এ’ লিগের দুই নম্বর গ্রুপের শেষ রাউন্ডে ১-০ গোলে জিতেছে স্প্যানিশরা। এতে করে টানা দ্বিতীয়বার নেশনস লিগের চার দলের ফাইনালসে উঠল দলটি।

পর্তুগালের স্বপ্ন ভেঙে এবার নেশনস লিগে শেষ দল হিসেবে ফাইনালসে উঠল স্পেন।

পর্তুগালের ব্রাগায় মঙ্গলবার রাতে ‘এ’ লিগের দুই নম্বর গ্রুপের শেষ রাউন্ডে ১-০ গোলে জিতেছে স্প্যানিশরা। এতে করে টানা দ্বিতীয়বার নেশনস লিগের চার দলের ফাইনালসে উঠল দলটি।

ম্যাচের শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক খেলার লক্ষ্যে মাঠে নামে কোচ ফের্নান্দো সান্তোসের দল। সেই অনুযায়ী শুরু থেকে আক্রমণাত্মক ফুটবল খেললেও শেষ পর্যন্ত জয় পাননি রোনালডো-জটারা।

প্রথমার্ধে রোনালডোদের অসংখ্য সুযোগ নষ্ট করার খেসারত দিতে হলো দ্বিতীয়ার্ধে। স্পেনের ওপর চাপ তৈরি করেও শেষ পর্যন্ত গোলের দেখা পায়নি দলটি। শেষের দিকে আক্রমণের তীব্রতা বাড়িয়ে কাঙ্ক্ষিত ৩ পয়েন্ট তুলে নিল স্পেন।

ম্যাচ শেষ হওয়ার দুই মিনিট আগে স্পেনের পক্ষে ব্যবধান গড়েন আলভারো মোরাতা। উইলিয়ামসের কাছ থেকে বল পেয়ে ডান পায়ের শটে ফাঁকা জালে গোলটি করেন আতলেতিকো মাদ্রিদের এ স্ট্রাইকার।

ছয় ম্যাচে তিন জয় ও দুই ড্রয়ে ১১ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপের শীর্ষে স্পেন। আর ১০ পয়েন্ট কম নিয়ে দুই নম্বরে পর্তুগাল।

স্পেনের সঙ্গে আগামী বছরের শিরোপা লড়াইয়ে জায়গা করে নেয়া অন্য তিন দল হলো ক্রোয়েশিয়া, ইতালি ও নেদারল্যান্ডস।

একই গ্রুপে রাতের আরেক ম্যাচে চেক রিপাবলিককে ২-১ গোলে হারিয়েছে সুইজারল্যান্ড। ৯ পয়েন্ট নিয়ে তাদের অবস্থান তিনে।

গ্রুপের তলানিতে থেকে ‘বি’ লিগে নেমে গেল চেক রিপাবলিক।

আরও পড়ুন:
হাঙ্গেরিকে উড়িয়ে ফাইনালসে ইতালি
নেশনস লিগের সেমিতে ক্রোয়েশিয়া ও নেদারল্যান্ডস
ঘরের মাঠে স্পেনের হারের দিনে বড় জয় পর্তুগালের

মন্তব্য

খেলা
Army felicitates victorious womens football team

সাফ জয়ী নারী ফুটবল দলকে সেনাবাহিনীর সংবর্ধনা

সাফ জয়ী নারী ফুটবল দলকে সেনাবাহিনীর সংবর্ধনা সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ কথা বলেন ফুটবলার ও কোচের সঙ্গে। ছবি: আইএসপিআর
ঢাকা সেনানিবাসের আর্মি মাল্টিপারপাস কমপ্লেক্সে আড়ম্বরপূর্ণ এই অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ। অনুষ্ঠানে জাতীয় নারী ফুটবল দলের খেলোয়াড়, কোচ ও সংশ্লিষ্ট সবাইকে ক্রেস্ট, উপহার সামগ্রী এবং এক কোটি টাকার চেক দেয়া হয়।

সাফ নারী ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপ-২০২২ জয়ী বাংলাদেশ জাতীয় নারী ফুটবল দলের গর্বিত সব খেলোয়াড়, কোচ ও কর্মকর্তাসহ সংশ্লিষ্টদের মঙ্গলবার সংবর্ধনা দিয়েছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী।

ঢাকা সেনানিবাসের আর্মি মাল্টিপারপাস কমপ্লেক্সে আড়ম্বরপূর্ণ এই অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ। অনুষ্ঠানে জাতীয় নারী ফুটবল দলের খেলোয়াড়, কোচ ও সংশ্লিষ্ট সবাইকে ক্রেস্ট, উপহার সামগ্রী এবং এক কোটি টাকার চেক দেয়া হয়।

আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তর (আইএসপিআর) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছে।

নেপালের কাঠমান্ডুতে ১৯ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিত সাফ নারী ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপে বাংলাদেশ জাতীয় নারী ফুটবল দল ফাইনালে শক্তিশালী নেপালকে ৩-১ গোলে হারিয়ে অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করে।

সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে সেনাবাহিনী প্রধান বলেন, ‘এই জয়ের অনুপ্রেরণা নিয়ে বাংলাদেশের নারী ফুটবল দল আগামীতে আরও এগিয়ে যেতে পারবে। বিশ্বের বুকে দেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করতে বাংলাদেশের নারী ফুটবলাররা বিশেষ ভূমিকা রাখবে বলে সবাই দৃঢ় আশাবাদী। সে সঙ্গে দেশের ক্রীড়াঙ্গনে এই সাফল্য নতুন প্রেরণার সঞ্চার করবে।’

অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের সভাপতি কাজী সালাউদ্দিন, জ্যেষ্ঠ সহ-সভাপতি আব্দুস সালাম মুর্শিদী এমপি, ফিফা কাউন্সিলের সদস্য ও বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের মহিলা উইং-এর চেয়ারম্যান মাহফুজা আক্তার কিরণ, বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর চিফ অফ জেনারেল স্টাফ (সিজিএস) লেফটেন্যান্ট জেনারেল আতাউল হাকিম সারওয়ার হাসান এবং সশস্ত্র বাহিনী বিভাগের প্রিন্সিপাল স্টাফ অফিসার (পিএসও) লেফটেন্যান্ট জেনারেল ওয়াকার-উজ-জামান ছাড়াও সামরিক বাহিনীর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, চ্যাম্পিয়ন দলের নারী ফুটবলারদের গর্বিত অভিভাবকগণ ও অন্য অতিথিবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন:
সাবিনা-কৃষ্ণার জয়ে মুশফিকের ‘আলহামদুলিল্লাহ’
সাফ শিরোপা: ছেলেদের থেকে এগিয়ে মেয়েরা
বাংলাদেশ চ্যাম্পিয়ন
বাংলাদেশের সামনে ইতিহাসের হাতছানি
অপরাজিত থেকেই ফাইনালে ছোটনের শিষ্যরা

মন্তব্য

খেলা
In the field of Nepal where girls champion boys returned with defeat

নেপালের যে মাঠে মেয়েরা চ্যাম্পিয়ন, সেখানে ছেলেদের হার

নেপালের যে মাঠে মেয়েরা চ্যাম্পিয়ন, সেখানে ছেলেদের হার বাংলাদেশের বিপক্ষে হ্যাটট্রিক করেছেন অঞ্জন বিস্ত। ছবি: টুইটার
ফিফা প্রীতি ম্যাচে নেপালের কাছে ৩-১ গোলে হেরেছে বাংলাদেশ। নেপালের পক্ষে প্রথমার্ধে হ্যাটট্রিক করে বাংলাদেশকে ম্যাচ থেকে ছিটকে দেন অঞ্জন বিস্ত। সফরকারীদের পক্ষে সান্ত্বনাসূচক গোল এসেছে সাজ্জাদ হোসেনের কাছ থেকে।

নেপালের মাটিতে যে মাঠে বাংলাদেশ নারী ফুটবল দল স্বাগতিকদের হারিয়েছিল, সেই মাঠে একই ব্যবধানে নেপালের কাছে হেরেছে বাংলাদেশের ছেলেরা। ৮ দিনের ব্যবধানে নারী দলের ইতিহাস গড়ার মাঠে ছেলেরা নাস্তানাবুদ হয়েছে স্বাগতিক দলের কাছে।

ফিফা প্রীতি ম্যাচে নেপালের কাছে ৩-১ গোলে হেরেছে বাংলাদেশ। নেপালের পক্ষে প্রথমার্ধে হ্যাটট্রিক করে বাংলাদেশকে ম্যাচ থেকে ছিটকে দেন অঞ্জন বিস্ত। সফরকারীদের পক্ষে সান্ত্বনাসূচক গোল এসেছে সাজ্জাদ হোসেনের কাছ থেকে।

ক্যাম্বোডিয়াকে ১-০ গোলে হারিয়ে দ্বিতীয় ফিফা ফ্রেন্ডলি খেলতে কাঠমান্ডুর মাঠে নেমেছিল বাংলাদেশ দল। আগের ম্যাচের আত্মবিশ্বাস কাজে লাগাতে পারেনি লাল-সবুজরা। বরং ডিফেন্সের দুর্বলতায় নেপালের কাছে প্রথমার্ধে ৩ গোল হজম করে বড় হারের মুখোমুখি জামাল-জিকোরা।

কাঠমান্ডুর দশরথ স্টেডিয়ামে নেপালের হয়ে ৩টি গোলই এসেছে অঞ্জন বিস্তর পা থেকে। ৩-০ গোলে পিছিয়ে থেকে বিরতিতে গেছে বাংলাদেশ দল।

ম্যাচে শুরুটা ভালো করেছিল বাংলাদেশ। ১৫ মিনিটে এগিয়ে যেতে পারতো তারা। তবে জামাল ভূঁইয়ার নেয়া ফ্রি-কিক নেপালের পোস্টে লেগে প্রতিহত হলে গোলবঞ্চিত হয় সফরকারী দল।

এর দুই মিনিট পর ফ্রি-কিকে গোল হজম করে বাংলাদেশ। বক্সের ভেতরে আসা বলে মাথা ছুঁইয়ে গোল করেন অঞ্জন বিস্ত।

২৬ মিনিটে বাংলাদেশকে আরও একবার ধাক্কা দেয় নেপাল। নেপালের ডান উইং থেকে বাড়ানো ক্রস বাংলাদেশের বক্সে পড়লে তা ক্লিয়ার করতে ব্যর্থ হয় সফরকারীদের ডিফেন্স। জটলা থেকে শট হলে গোলকিপার আনিসুর রহমান জিকো একবার তা প্রতিহত করেন। কিন্তু ফিরতি বলে কিক করে লক্ষ্যভেদ করেন বিস্ত।

বিস্ত নিজের হ্যাটট্রিক পূরণ করেন ৩৮ মিনিটে। ডি বক্সের বাইরে থেকে নেপালের নেয়া ফ্রি-কিক আবারও ক্লিয়ার করতে ব্যর্থ হয় বাংলাদেশের ডিফেন্স। অনেকটা লাফিয়ে উঠে নিজের ও দলের তৃতীয় গোল করেন বিস্ত।

৩-০ গোলে পিছিয়ে থেকে দ্বিতীয়ার্ধ শুরু করে বাংলাদেশ। এ অর্ধেও তাদেরকে চেপে ধরে নেপাল। কাউন্টার অ্যাটাকে খেলে চাপ থেকে মুক্ত হওয়ার চেষ্টা করে সফরকারীরা।

৫৪ মিনিটে তেমনই এক কাউন্টার অ্যাটাক থেকে বল পেয়ে যান রাকিব হোসেন। জায়গা ফাঁকা পেয়ে ডান প্রান্ত দিয়ে বেশ খানিকটা এগিয়ে যাওয়ার পর নেপালের বক্সে ক্রস ছাড়েন এ মিডফিল্ডার।

ফার পোস্টে ওঁত পেতে থাকা সাজ্জাদ হোসেন হেড করে ব্যবধান কমান বাংলাদেশের। পরের সময়টুকু মরিয়া আক্রমণ চালিয়ে যায় বাংলাদেশ। তবে গোলের দেখা পায়নি।

শেষ পর্যন্ত ৩-১ গোলে হার নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয় হাভিয়ের কাবরেরার দলকে।

আরও পড়ুন:
বিস্তর হ্যাটট্রিকে প্রথমার্ধে ৩-০ গোলে পিছিয়ে বাংলাদেশ
লাল-সবুজের আরেক জয় কম্বোডিয়ায়
বেতন বাড়ছে সাবিনা-কৃষ্ণাদের

মন্তব্য

খেলা
Messi may not play against Jamaica

জ্যামাইকার বিপক্ষে নাও খেলতে পারেন মেসি

জ্যামাইকার বিপক্ষে নাও খেলতে পারেন মেসি হন্ডুরাসের বিপক্ষে গোল করার পর উদযাপনে মেসি। ছবি: টুইটার
প্রীতি ম্যাচ হওয়ায় আর্জেন্টিনার কোচ লিওনেল স্কালোনি দলের সেরা তারকাকে নিয়ে ঝুঁকি নিতে চান না। মেসির জায়গায় আক্রমণভাগে সুযোগ পেতে পারেন উঠতি তারকা হুলিয়ান আলভারেস।

বিশ্বকাপের প্রস্তুতি হিসেবে কাল সকাল ৬টায় জ্যামাইকার বিপক্ষে মাঠে নামছে আর্জেন্টিনা। আলবিসেলেস্তেদের জন্য শঙ্কার খবর এই ম্যাচে নাও খেলতে পারেন লিওনেল মেসি।

আর্জেন্টাইন সংবাদমাধ্যম টিওয়াইসি স্পোর্টস জানিয়েছে, বুধবারের ম্যাচে মেসির খেলার সম্ভাবনা কম। শারীরিকভাবে সুস্থ নন আর্জেন্টিনার অধিনায়ক। দলের একাধিক সূত্রের বরাত দিয়ে তারা জানিয়েছে মেসি ঠান্ডা জ্বরে ভুগছেন।

প্রীতি ম্যাচ হওয়ায় আর্জেন্টিনার কোচ লিওনেল স্কালোনি দলের সেরা তারকাকে নিয়ে ঝুঁকি নিতে চান না। মেসির জায়গায় আক্রমণভাগে সুযোগ পেতে পারেন উঠতি তারকা হুলিয়ান আলভারেস।

জ্যামাইকার বিপক্ষে শুধু মেসিই নন, একাদশে একাধিক পরিবর্তন আনতে যাচ্ছেন স্কালোনি। দলের নিয়মিত রদ্রিগো দে পল, লিয়ান্দ্রো পারেদেস ও মারকোস আকুনিয়া বিশ্রাম পেতে পারেন। তাদের জায়গায় খেলবেন গিদো রদ্রিগেস, আলেক্সিস ম্যাক্যালিস্টার ও নিকোলাস তালিয়াফিকো।

এছাড়া আগের ম্যাচে বিশ্রাম পাওয়া এমিলিয়ানো মার্তিনেস, আনহেল দি মারিয়া ও ক্রিশ্চিয়ান রোমেরো সুযোগ পেতে পারেন একাদশে।

আমেরিকার নিউজার্সির রেড বুল অ্যারেনায় অনুষ্ঠিত হবে ম্যাচ। এরপর মেসিদের ফিরতে হবে ইউরোপীয় ফুটবলের নিয়মিত খেলায়।

আরও পড়ুন:
এমবাপেকে ভবিষ্যতের সেরা বললেন মেসি
মেসির জোড়া গোলে আর্জেন্টিনার জয়
মেসি জাতীয় দলের হয়ে সব ম্যাচ খেলতে চান: স্কালোনি

মন্তব্য

খেলা
Bangladesh trailed by 3 0 goals in the first half with a huge hat trick

বিস্তর হ্যাটট্রিকে প্রথমার্ধে ৩-০ গোলে পিছিয়ে বাংলাদেশ

বিস্তর হ্যাটট্রিকে প্রথমার্ধে ৩-০ গোলে পিছিয়ে বাংলাদেশ বাংলাদেশের বিপক্ষে হ্যাটট্রিকের পর উচ্ছ্বসিত অঞ্জন বিস্ত। ছবি: সংগৃহীত
ডিফেন্সের দুর্বলতায় নেপালের কাছে প্রথমার্ধে ৩ গোল হজম করে বড় হারের মুখোমুখি জামাল-জিকোরা।

ক্যাম্বোডিয়াকে ১-০ গোলে হারিয়ে দ্বিতীয় ফিফা ফ্রেন্ডলি খেলতে কাঠমান্ডুর মাঠে নেমেছিল বাংলাদেশ দল। আগের ম্যাচের আত্মবিশ্বাস কাজে লাগাতে পারেনি লাল-সবুজরা। বরং ডিফেন্সের দুর্বলতায় নেপালের কাছে প্রথমার্ধে ৩ গোল হজম করে বড় হারের মুখোমুখি জামাল-জিকোরা।

নেপালের হয়ে ৩টি গোলই এসেছে অঞ্জন বিস্তর পা থেকে। ৩-০ গোলে পিছিয়ে থেকে বিরতিতে গেছে বাংলাদেশ দল।

ম্যাচে শুরুটা ভালো করেছিল বাংলাদেশ। ১৫ মিনিটে এগিয়ে যেতে পারতো তারা। তবে জামাল ভূঁইয়ার নেয়া ফ্রি-কিক নেপালের পোস্টে লেগে প্রতিহত হলে গোলবঞ্চিত হয় সফরকারী দল।

এর দুই মিনিট পর ফ্রি-কিকে গোল হজম করে বাংলাদেশ। বক্সের ভেতরে আসা বলে মাথা ছুঁইয়ে গোল করেন অঞ্জন বিস্ত।

২৬ মিনিটে বাংলাদেশকে আরও একবার ধাক্কা দেয় নেপাল। নেপালের ডান উইং থেকে বাড়ানো ক্রস বাংলাদেশের বক্সে পড়লে তা ক্লিয়ার করতে ব্যর্থ হয় সফরকারীদের ডিফেন্স। জটলা থেকে শট হলে গোলকিপার আনিসুর রহমান জিকো একবার তা প্রতিহত করেন। কিন্তু ফিরতি বলে কিক করে লক্ষ্যভেদ করেন বিস্ত।

বিস্ত নিজের হ্যাটট্রিক পূরণ করেন ৩৮ মিনিটে। ডি বক্সের বাইরে থেকে নেপালের নেয়া ফ্রি-কিক আবারও ক্লিয়ার করতে ব্যর্থ হয় বাংলাদেশের ডিফেন্স। অনেকটা লাফিয়ে উঠে নিজের ও দলের তৃতীয় গোল করেন বিস্ত।

আরও পড়ুন:
লাল-সবুজের আরেক জয় কম্বোডিয়ায়
বেতন বাড়ছে সাবিনা-কৃষ্ণাদের
সালাউদ্দিন বিমানবন্দরে যাচ্ছেন না

মন্তব্য

খেলা
Withdrawal of the case footballer Ankhis land is intact

মামলা প্রত্যাহার, ফুটবলার আঁখির জমি নিষ্কণ্টক

মামলা প্রত্যাহার, ফুটবলার আঁখির জমি নিষ্কণ্টক মা-বাবার সঙ্গে ফুটবলার আঁখি। ফাইল ছবি
সিরাজগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট লুৎফুন নাহার জানান, বাদী পক্ষ মামলাটি প্রত্যাহারের আবেদন করেছে। ফলে মামলাটি খারিজ হয়ে গেছে। বর্তমানে ফুটবলার আঁখিকে বরাদ্দ দেয়া ওই জমি সম্পূর্ণ নিষ্কণ্টক।

নারী ফুটবলার আঁখি খাতুনকে প্রধানমন্ত্রীর দেয়া ৮ শতাংশ জমির ওপর করা মামলা প্রত্যাহার করে নেয়া হয়েছে। সোমবার দুপুরে মামলার বাদী হাজী মকরম প্রামানিক সিরাজগঞ্জ অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট বরাবর মামলাটি প্রত্যাহারের আবেদন করেন।

অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট লুৎফুন নাহার জানান, বাদী পক্ষ মামলাটি প্রত্যাহারের আবেদন করেছে। ফলে মামলাটি খারিজ হয়ে গেছে। বর্তমানে ফুটবলার আঁখিকে বরাদ্দ দেয়া ওই জমি সম্পূর্ণ নিষ্কণ্টক।

শাহজাদপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তরিকুল ইসলাম বলেন, ‘সাফ উইমেন্স চ্যাম্পিয়নশিপ জয়ী ফুটবলার আঁখির জন্য প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে ১ নম্বর খাস খতিয়ানভুক্ত ৮ শতাংশ জমির একটি প্লট বরাদ্দ দেয়া হয়। ৪ জুন পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব কবির বিন আনোয়ার জমির দলিল হস্তান্তর করেন।

‘সম্প্রতি হাজী মকরম প্রামাণিক নামে এক ব্যক্তি ওই জমি তাদের দখলে রয়েছে দাবি করে মামলা করেন। তবে মামলার তফসিলে তিনি খতিয়ান উল্লেখ বা জমিটির মালিকানা দাবি করেননি। সোমবার দুপুরে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে বাদী নিজেই মামলাটি প্রত্যাহারের আবেদন করলে মামলাটি খারিজ হয়ে যায়।

ফুটবলে অবদান এবং দরিদ্র পরিবারের কথা বিবেচনা করে তিন বছর আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নিদের্শনায় আঁখিকে জমি বরাদ্দ দেয়া হয়েছিল। কিন্তু সেই জমির মালিকানা দাবি করে শাহজাদপুরের একজন ব্যবসায়ী মামলা করেন।

বিষয়টি নিয়ে নিউজবাংলায় সংবাদ প্রচারের পর সিরাজগঞ্জ জেলা প্রশাসন ওই জমির বরাদ্দ বাতিল করে ১ নম্বর খাস খতিয়ানভুক্ত ৮ শতাংশ নতুন জমি আঁখির নামে বরাদ্দ দেয়। পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব কবির বিন আনোয়ার ৪ জুন আঁখির পরিবারের কাছে ওই জমির দলিল হস্তান্তর করেন।

এদিকে সম্প্রতি আঁখি খাতুনকে বরাদ্দ দেয়া সেই জমির দখল নিয়ে হাজী মকরম প্রামানিক আদালতে মামলা করেন। মামলায় আঁখিসহ পাঁচজনকে বিবাদী করা হয়।

বুধবার রাতে মামলার নোটিশ নিয়ে সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) মামুনুর রশিদ ও কনস্টেবল আবু মুসা আঁখির গ্রামের বাড়িতে গেলে তার বাবার সঙ্গে বিতণ্ডা হয়। এক পর্যায়ে আঁখির বাবাকে পুলিশ শাসায় এবং থানায় নিয়ে যাওয়ার হুমকি দেয় বলে অভিযোগ করা হয়। এ নিয়ে সিরাজগঞ্জসহ দেশব্যাপী সমালোচনার ঝড় ওঠে। পরবর্তীতে ওই দুই পুলিশ সদস্যকে প্রত্যাহার করে নেয়া হয়। এ ঘটনার পাঁচদিন পর স্ব-ইচ্ছায় বাদী মামলাটি প্রত্যাহার করে নিয়েছেন।

মন্তব্য

p
উপরে