× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

খেলা
Rubel and Shafiul are leaving red ball cricket
hear-news
player
google_news print-icon

লাল বলের ক্রিকেট ছাড়ছেন রুবেল ও শফিউল

লাল-বলের-ক্রিকেট-ছাড়ছেন-রুবেল-ও-শফিউল
বাংলাদেশ দলের নেট প্র্যাকটিসে রুবেল হোসেন ও শফিউল ইসলাম। ছবি: বিসিবি
বিষয়টি নিউজবাংলাকে রোববার সন্ধ্যায় নিশ্চিত করেছেন বিসিবির নির্বাচক হাবিবুল বাশার। বাশার জানান, দুই পেইসার ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টিতে ক্যারিয়ায় দীর্ঘায়িত করতে লাল বলে খেলা ছাড়তে চান। দুই জনই বিসিবিকে তাদের সিদ্ধান্তের কথা মৌখিকভাবে জানিয়েছেন।

টেস্ট ও ফার্স্ট ক্লাস ক্রিকেট ছেড়ে সাদা বলের ক্রিকেটে মনোযোগ দিতে চান বাংলাদেশ জাতীয় দলের দুই পেইসার রুবেল হোসেন ও শফিউল ইসলাম। বিসিবিকে তারা তাদের এ সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন।

বিষয়টি নিউজবাংলাকে রোববার সন্ধ্যায় নিশ্চিত করেছেন বিসিবির নির্বাচক হাবিবুল বাশার। বাশার জানান, দুই পেইসার ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টিতে ক্যারিয়ায় দীর্ঘায়িত করতে লাল বলে খেলা ছাড়তে চান। দুই জনই বিসিবিকে তাদের সিদ্ধান্তের কথা মৌখিকভাবে জানিয়েছেন।

বাশার বলেন, ‘রুবেল আমাদেরকে মৌখিকভাবে বলেছে। আমরা লিখিত চেয়েছি। ও সাদা বলের খেলায় মনোযোগ দিতে চায়। আর শফিউল বলেছে ও জাতীয় লিগে খেলবে না। টেস্ট থেকে অবসরের বিষয়েও আমাদের জানিয়েছে।’

এর ফলে বাংলাদেশের টেস্ট দলে শেষ হতে যাচ্ছে সিনিয়র দুই বোলারের ক্যারিয়ার। ক্যারিয়ারের শুরুতে টেস্ট দলে প্রায় নিয়মিত ডাক পেলেও সময়ের সঙ্গে তাসকিন আহমেদ, মুস্তাফিজুর রহমান, খালেদ আহমেদ ও এবাদত হোসেনদের কাছে জায়গা হারাতে হয় দুই জনকেই।

৩২ বছর বয়সী রুবেলের অভিষেক ২০০৯ সালে কিংসটনে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে। পরের ১৩ বছরের খেলেছেন মাত্র ২৭টি টেস্ট। ইনজুরির সঙ্গে বারবার লড়াই করতে হয়েছে এক সময়ে বাংলাদেশের দ্রুততম এ পেইসারকে।

২৭ টেস্টের ক্যারিয়ারের ৭৬.৭৭ গড়ে উইকেট নিয়েছেন ৩৬টি। সেরা বোলিং ১৬৬ রানে ৫ উইকেট। সেটা করেছিলেন ২০১০ সালে হ্যামিল্টনে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে। ওই একবারই ইনিংসে ৫ উইকেট নিয়েছেন। বাংলাদেশের হয়ে সবশেষ টেস্ট খেলেন ২০২০ সালে পাকিস্তানের বিপক্ষে রাওয়ালপিন্ডিতে।

রুবেলের সমবয়সী শফিউলের টেস্ট অভিষেক আরও এক বছর পর। ভারতের বিপক্ষে চট্টগ্রাম টেস্টে অভিষেকের পর তিনি খেলেছেন ১৭টি ম্যাচ। যার সবশেষটি ছিল ২০১৭ সালে সাউথ আফ্রিকার বিপক্ষে পচেফস্ট্রুমে।

১১ টেস্টে ৫৫.৪১ গড়ে ১৭ উইকেট নিয়েছে শফিউল। সেরা বোলিং ৮৬ রানে ৩ উইকেট।

আরও পড়ুন:
‘এ’ দলের আফগানিস্তান সিরিজ স্থগিত
চাপের মুহূর্তে স্কিল ভুলে যাই: হাসান
এক ম্যাচ খারাপ করে বাদ পড়েছেন, বিশ্বাস মাহেদীর

মন্তব্য

আরও পড়ুন

খেলা
2 0 series of Australia

২-০ ব্যবধানে সিরিজ অস্ট্রেলিয়ার

২-০ ব্যবধানে সিরিজ অস্ট্রেলিয়ার কাইল মায়ার্সকে আউট করে উচ্ছ্বসিত অস্ট্রেলিয়ার মিচেল স্টার্ক। ছবি: এএফপি
ওয়েস্ট ইন্ডিজকে দ্বিতীয় ম্যাচে ৩১ রানে হারিয়ে ২-০ ব্যবধানে সিরিজ জয় করে নেয় স্বাগতিক দল। অস্ট্রেলিয়ার দেয়া ১৭৯ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে ৮ উইকেটে ১৪৭ রানে থামে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ইনিংস।

দুই ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচেও সহজ জয় পেয়েছে অস্ট্রেলিয়া। ওয়েস্ট ইন্ডিজকে দ্বিতীয় ম্যাচে ৩১ রানে হারিয়ে ২-০ ব্যবধানে সিরিজ জয় করে নেয় স্বাগতিক দল।

অস্ট্রেলিয়ার দেয়া ১৭৯ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে ৮ উইকেটে ১৪৭ রানে থামে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ইনিংস।

ব্রিসবেনে টস জিতে অস্ট্রেলিয়াকে আগে ব্যাট করতে পাঠান উইন্ডিজ অধিনায়ক নিকোলাস পুরান। টপঅর্ডারের ক্যামেরন গ্রিন (১) ও অ্যারন ফিঞ্চ (১৫) ইনিংস বড় করতে না পারলেও অভিজ্ঞ ডেভিড ওয়ার্নার শুরু থেকে আক্রমণাত্মক খেলতে থাকেন।

স্টিভেন স্মিথ (১৭) ও গ্লেন ম্যাক্সওয়েলও (১) ব্যাট হাতে জ্বলে উঠতে পারেননি। ফলে, ইনিংস বড় করার দায়িত্ব নেন ওয়ার্নার। তাকে সঙ্গ দেন টিম ডেভিড।

৪১ বলে ৩ ছক্কায় ৭৫ রান করে আউট হন ওয়ার্নার। আর ডেভিডের ব্যাট থেকে আসে ২০ বলে ৪২। ম্যাথিউ ওয়েড করেন ১৪ বলে ১৬।

নির্ধারিত ২০ ওভারে ৭ উইকেটে ১৭৮ রান করে অস্ট্রেলিয়া। উইন্ডিজের হয়ে আলজারি জোসেফ ২১ রানে ৩টি আর ওবেড ম্যাকয় ৩৩ রানে ২ উইকেট নেন।

বড় টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালো হয়নি উইন্ডিজের। শুরুর ১০ ওভারে তারা হারায় কাইল মায়ার্স, ব্রেন্ডন কিং ও নিকোলাস পুরানের উইকেট। ১১তম ওভারে জনসন চার্লস বিদায় নিলে তাদের স্কোর দাঁড়ায় ৪ উইকেটে ৭৩।

সেখান থেকে আর ম্যাচে ফিরতে পারেনি সফরকারী দল। সর্বোচ্চ ২৯ রান আসে চার্লসের ব্যাট থেকে। ২৫ রান করেন আকিল হোসেন। ২৩ রান করে আউট হন কিং।

দেড় শ রানের আগেই থামে তাদের ইনিংস। অস্ট্রেলিয়ার হয়ে মিচেল স্টার্ক ২০ রানে ৪টি আর প্যাট কামিনস ৩২ রানে ২টি উইকেট নেন।

আরও পড়ুন:
উইন্ডিজের বিপক্ষে ঘাম ঝরানো জয় অস্ট্রেলিয়ার
দ্বিতীয় ম্যাচ জিতে সমতায় ফিরল ভারত
গ্রিন-ওয়েড ঝড়ে জয়ে শুরু অস্ট্রেলিয়ার

মন্তব্য

খেলা
After losing to Thailand Pakistan lost to India

থাইল্যান্ডের কাছে হারের পর ভারতকে হারাল পাকিস্তান

থাইল্যান্ডের কাছে হারের পর ভারতকে হারাল পাকিস্তান ভারতের উইকেট তুলে নেয়ার পর উচ্ছ্বসিত পাকিস্তানের নিদা দার। ছবি: এসিসি
সিলেটে অনুষ্ঠিত ম্যাচে ভারতকে ১৩ রানে হারিয়েছে পাকিস্তান। আগে ব্যাট করে ৬ উইকেটে ১৩৭ রান সংগ্রহ করে তারা। জবাবে ১৯.৪ ওভারে ১২৪ রানে গুটিয়ে যায় ভারত।

নারী এশিয়া কাপে থাইল্যান্ডের কাছে হেরে বিস্ময়ের জন্ম দিয়েছিল এশিয়ান হেভিওয়েট পাকিস্তান। নিজেদের পরের ম্যাচেই টুর্নামেন্টের ফেভারিট ভারতকে হারিয়ে জয়ের ধারায় ফিরেছে তারা।

সিলেটে অনুষ্ঠিত ম্যাচে ভারতকে ১৩ রানে হারিয়েছে পাকিস্তান। আগে ব্যাট করে ৬ উইকেটে ১৩৭ রান সংগ্রহ করে তারা। জবাবে ১৯.৪ ওভারে ১২৪ রানে গুটিয়ে যায় ভারত।

টস জিতে আগে ব্যাট করতে নেমে পাওয়ার প্লেতে ৩ উইকেটে হারিয়ে ধাক্কা খায় পাকিস্তান। তবে নিদা দার ও অধিনায়ক বিসমাহ মারুফের ব্যাটে ম্যাচে ফেরে তারা।

৩৫ বলে ৩২ রান করে আউট হন বিসমাহ। আর নিদা অপরাজিত থাকেন ৩৭ বলে ৫৬ রান করে। দুই ওপেনার মুনিবা আলি ও সিদরা আমিন ১৭ ও ১১ রান করে। আর কেউই দুই অঙ্কের রান করতে পারেননি।

ভারতের হয়ে দ্বিপ্তি শর্মা ২৭ রানে ৩টি ও পুজা ভাস্ত্রকার ২৩ রানে ২ উইকেট নেন।

মাঝারি লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকে ভারতীয় দল। ছোট ইনিংস খেলে একের পর এক আউট হন শাবিনেনি মেঘানা, স্মৃতি মান্ধানা, দিপ্তি শর্মা ও অধিনায়ক হারমানপ্রিত কর। ব্যাট হাতে শুরুটা ভালো হলেও কেউই ২০ রানের বেশি করতে পারেননি।

ভারতের পক্ষে সর্বোচ্চ ২৬ রান আসে রিচা ঘোষের ব্যাট থেকে। ২০ রান করেন দয়ালন হেমালথা।

লক্ষ্য থেকে ১৩ রান দূরে থামে ভারতের ইনিংস। পাকিস্তানের হয়ে নাসরা সান্ধু ৩০ রানে ৩টি ও সাদিয়া ইকবাল ও নিদা দার ২টি করে উইকেট নেন।

এ জয়ে ৪ ম্যাচে ভারতের সমান ৬ পয়েন্ট নিয়ে যৌথভাবে শীর্ষে থাকল পাকিস্তান। সমান ৪ পয়েন্ট নিয়ে এরপরই আছে বাংলাদেশ, শ্রীলঙ্কা ও থাইল্যান্ড।

আরও পড়ুন:
অভিষেকে স্মরণীয় কিছু করতে চাইছিলেন তৃষ্ণা
গাঙ্গুলীর সফর নিয়ে আনুষ্ঠানিক তথ্য নেই বিসিবির কাছে
বাংলাদেশের বোলারদের সামনে মুখ থুবড়ে পড়ল মালয়েশিয়া

মন্তব্য

খেলা
Sohan is disappointed with the middle order

মিডল অর্ডার নিয়ে হতাশ সোহান

মিডল অর্ডার নিয়ে হতাশ সোহান লিটন ও আফিফের ব্যাটে জয়ের স্বপ্ন দেখেছিল বাংলাদেশ। ছবি: এএফপি
শুরুটা খুব একটা ভালো না হলেও পাকিস্তানের দেয়া ১৬৮ লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে লিটন-আফিফের ব্যাটে স্বপ্ন দেখছিল টাইগাররা। কিন্তু দলীয় ৯৯ রানের ভেতর এই দুই ব্যাটার বিদায় নেয়ার পর নিশ্চিত হয়ে যায় বাংলাদেশের পরাজয়।

পাকিস্তানের কাছে ২১ রানে হেরে ত্রিদেশীয় সিরিজের শুরু করেছে। আরব আমিরাতের বিপক্ষে সিরিজ জয়ের রেশ কাটতে না কাটতে আরও একবার মিডল অর্ডার ব্যাটারদের ব্যর্থতায় পরাজয় গাথা রচিত হয়েছে টাইগারদের।

শুরুটা খুব একটা ভালো না হলেও পাকিস্তানের দেয়া ১৬৮ লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে লিটন-আফিফের ব্যাটে স্বপ্ন বুনছিল টাইগাররা। সেটি ছিল জয়ের স্বপ্ন। কিন্তু দলীয় ৯৯ রানের ভেতর এই দুই ব্যাটার বিদায় নেয়ার পর নিশ্চিত হয়ে যায় বাংলাদেশের পরাজয়।

মিডল অর্ডার কেবলমাত্র ইয়াসির আলি রাব্বি ছাড়া টি-টোয়েন্টির প্যাটার্নে ব্যাটিং করতে পারেননি কেউই।

আর এই পারফরম্যান্সে আরও একবার হতাশা প্রকাশ করেছেন জাতীয় দলের অধিনায়ক নুরুল হাসান সোহান। তার মতে মিডল অর্ডারদের এই ব্যাটিং ভোগান্তির কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে বাংলাদেশের জন্য।

সোহান বলেন, ‘আমরা খুবই হতাশ। বলারদের জন্য উইকেটটি ভালো ছিল, তারা সেটি কাজে লাগিয়েছে। আমাদের আরও কিছু ক্ষেত্রে উন্নতি করা দরকার।’

তিনি আরও বলেন, ‘মিডল অর্ডারের উইকেটগুলো আমাদের ব্যাটিংয়ে ভোগায়। লিটন আর রাব্বি ভালো ব্যাটিং করেছে। কিন্তু আমি বলতে চাই আমাদের আরও উন্নতি দরকার।’

আরও পড়ুন:
বাংলাদেশের বিপক্ষে ম্যাচের আগে দুঃসংবাদ কিউই শিবিরে
হার দিয়ে শুরু বাংলাদেশের
পেইসারদের ব্যর্থতায় পাকিস্তানের বোর্ডে ১৬৭
পাকিস্তানের বিপক্ষে নেই সাকিব, বোলিংয়ে বাংলাদেশ
পাকিস্তানের বিপক্ষে আজ মাঠে নামছে বাংলাদেশ

মন্তব্য

খেলা
Bad news in the Kiwi camp ahead of the match against Bangladesh

বাংলাদেশের বিপক্ষে ম্যাচের আগে দুঃসংবাদ কিউই শিবিরে

বাংলাদেশের বিপক্ষে ম্যাচের আগে দুঃসংবাদ কিউই শিবিরে ফাইল ছবি
চোট পাওয়ার পর তার আঙ্গুলে এক্স রে করানো হয়। রিপোর্টে কনিষ্ঠা আঙ্গুলে ফ্র্যাকচার ধরা পড়ে।

বাংলাদেশ-পাকিস্তান ও নিউজিল্যান্ডের মধ্যকার চলতি ত্রিদেশীয় সিরিজের শুরতেই দুঃসংবাদ এল কিউই শিবিরে। অনুশীলনের সময় আঙ্গুলে চোট পাওয়ায় সিরিজ থেকে ছিটকে গেছেন কিউই ব্যাটার ড্যারিল মিচেল।

সিরিজের পাশাপাশি তার অনিশ্চিত আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপও। চোট পাওয়ার পর তার আঙ্গুলে এক্স রে করানো হয়। রিপোর্টে কনিষ্ঠা আঙ্গুলে ফ্র্যাকচার ধরা পড়ে।

প্রাথমিক অবস্থায় অন্তত দুই সপ্তাহ কিউই এই ব্যাটারকে থাকতে হবে মাঠের বাহিরে। এরপর ফের এক্স রে রিপোর্ট পর্যালোচনা করে বিশ্বকাপের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে বলে জানানো হয়েছে নিউজিল্যান্ড দলের মেডিক্যাল ইউনিটের পক্ষ থেকে।

শুক্রবার এক বিবৃতিতে বিষয়টি নিশ্চিত করেছে ক্রিকেট নিউজিল্যান্ড।

বিবৃতিতে কোচ গ্র্যারি স্টেড বলেন, ‘ক্রিকেটের উত্তেজনাপূর্ণ সময়ের আগে এই চোট পাওয়া ড্যারিলের জন্য সত্যিই হতাশাজনক। ড্যারিল আমাদের টি-টোয়েন্টি ইউনিটের একজন গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড় হয়ে উঠেছে এবং আমরা অবশ্যই ত্রি-সিরিজে তার অলরাউন্ড দক্ষতা মিস করতে যাচ্ছি।’

তিনি আরও বলেন, ‘আইসিসি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের জন্য মিচেলকে পাওয়া যাবে কিনা সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য কিছু সময়ের প্রয়োজন। বিশ্বকাপ দলটি ১৫ অক্টোবর অস্ট্রেলিয়ার উদ্দেশ্যে যাত্রা করবে।’

মিচেলের বদলি কে হতে যাচ্ছেন সেটি এখনও জানানো হয় নি নিউজিল্যান্ড বোর্ডের পক্ষ থেকে।

আরও পড়ুন:
হার দিয়ে শুরু বাংলাদেশের
পেইসারদের ব্যর্থতায় পাকিস্তানের বোর্ডে ১৬৭
পাকিস্তানের বিপক্ষে নেই সাকিব, বোলিংয়ে বাংলাদেশ
পাকিস্তানের বিপক্ষে আজ মাঠে নামছে বাংলাদেশ

মন্তব্য

খেলা
Bangladesh started with a loss

হার দিয়ে শুরু বাংলাদেশের

হার দিয়ে শুরু বাংলাদেশের সোহানকে ফিরিয়ে মোহাম্মদ ওয়াসিমের উদযাপন। ছবি: এএফপি। ছবি: এএফপি
পাকিস্তানের দেয়া ১৬৮ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ৮ উইকেট হারিয়ে ১৪৬ রান তুলতেই থামে বাংলাদেশের ইনিংসের চাকা। আর সেই সুবাদে ২১ রানের জয় পায় বাবর আজমের দল।

আরব আমিরাতের বিপক্ষে সিরিজ জয়ের আত্মবিশ্বাস নিয়ে ত্রিদেশীয় সিরিজ খেলতে এসে মুখ থুবড়ে পড়ল বাংলাদেশ। সিরিজ জয়ের রেশ কাটতে না কাটতেই ব্যর্থতার গল্প বোনা শুরু হয়েছে লাল সবুজের প্রতিনিধিদের।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে প্রস্তুতি হিসেবে খেলা ত্রিদেশীয় সিরিজের শুরুটা বাংলাদেশের হয়েছে পরাজয়ের মধ্য দিয়ে। পাকিস্তানের বিপক্ষে নুরুল হাসান সোহান অ্যান্ড কোং হেরেছে ২১ রানে।

পাকিস্তানের দেয়া ১৬৮ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ৮ উইকেট হারিয়ে ১৪৬ রান তুলতেই থামে বাংলাদেশের ইনিংসের চাকা। আর সেই সুবাদে ২১ রানের জয় পায় বাবর আজমের দল।

চ্যালেঞ্জিং রান তাড়ার শুরুটাই ছিল নড়বড়ে। পাওয়ার প্লের ৬ ওভারের ভেতরই সাজঘরে ফিরে যান দুই ওপেনার মেহেদী হাসান মিরাজ ও সাব্বির রহমান। ১১ বলে ১০ রান করে সাজঘরের পথ ধরেন মিরাজ আর সাব্বির রহমান মাঠ ছাড়েন ১৮ বলে ১৪ রানের ইনিংস খেলে।

এরপর আফিফ হোসেনকে নিয়ে দলকে টেনে তোলার মিশনে নামেন লিটন কুমার দাস। এই দুই ব্যাটারের ব্যাটে ভর করে জয়ের স্বপ্ন দেখতে থাকে টাইগাররা।

কিন্তু দলীয় ৮৭ রানে লিটন ও ৯৯ রানে আফিফের বিদায়ের পর পরাজয়টা অনেকটাই সুনিশ্চিত হয়ে পড়ে বাংলাদেশের। লিটনের ব্যাট থেকে আসে ২৬ বলে ৩৫ রান আর আফিফ খেলেন ২৩ বলে ২৫ রানের ইনিংস।

শেষদিকে ইয়াসির আলি রাব্বি ক্রাইস্টচার্চে ঝড় তুললেও তার অপরাজিত ২১ বলে ৪২ রানের ইনিংসটা কমিয়েছে কেবল পরাজয়ের ব্যবধানটাই। শেষ পর্যন্ত ৮ উইকেট হারিয়ে স্কোরবোর্ডে ১৪৬ রান তোলে লাল সবুজের প্রতিনিধিরা।

এর আগে ক্রাইস্টচার্চে টসে জিতে বল করতে নেমে ম্যাচের শুরু থেকেই টাইগার বোলারদের দেখেশুনে খেললেও সময় বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে চড়াও হন পাকিস্তানি দুই ওপেনার মোহাম্মদ রিজওয়ান ও বাবর আজম।

হ্যাগলি ওভালেল পেইসবান্ধব উইকেটে এই দুই ব্যাটারের সামনে খাবি খাচ্ছিল মুস্তাফিজুর রহমান ও হাসান মাহমুদ। তাসকিন আহমেদ রানের গতি চেপে ধরলেও বাকি দুইজনের সুবাদে সেটি পুষিয়ে নিচ্ছিল পাকিস্তান।

ম্যাচের অষ্টম ওভারে পাক শিবিরে প্রথম আঘাত আসে স্পিনারের হাত ধরে। বাবর আজমকে ২২ রানে ফিরিয়ে ব্রেক থ্রু আনেন মেহেদী হাসান মিরাজ। ক্রাইস্টচার্চের উইকেট পেইসারদের পক্ষে থাকলেও নিয়ন্ত্রণ হাতে ছিল স্পিনারদের।

বাবর আজমকে হারানোর শোক কাটাতে শান মাসুদকে নিয়ে রানের গতি বাড়ান মোহাম্মদ রিজওয়ান। কিন্তু দলীয় ৯৪ রানে নাসুমের শিকার হয়ে মাসুদের ফেরার মধ্য দিয়ে ভাঙ্গে সেই জুটি। ২২ বলে ৩১ করা মাসুদকে ফিরিয়ে নাসুম স্পর্শ করেন স্বীকৃত ক্রিকেটে ২৫০ উইকেটের মাইলফলক।

৬ রান করে হায়দার আলি ও ৪ রান করে আসিফ আলিকে ফিরতে হয় তাসকিনের শিকার হয়ে। তবে উইকেটের একপ্রান্ত আগলে ধরে ঠিকই আগ্রাসন চালিয়ে যাচ্ছিলেন মোহাম্মদ রিজওয়ান। তার অপরাজিত ৫০ বলে ৭৮ রানের ইনিংসে ভর করে বাংলাদেশের সামনে ১৬৭ রানের পুঁজি দাঁড় করায় পাকিস্তান।

বাংলাদেশের হয়ে ২৫ রানের খরচায় দুটি উইকেট নেন তাসকিন। একটি করে উইকেট নেন হাসান মাহমুদ, নাসুম আহমেদ ও মেহেদী হাসান মিরাজ।

আরও পড়ুন:
পেইসারদের ব্যর্থতায় পাকিস্তানের বোর্ডে ১৬৭
পাকিস্তানের বিপক্ষে নেই সাকিব, বোলিংয়ে বাংলাদেশ
পাকিস্তানের বিপক্ষে আজ মাঠে নামছে বাংলাদেশ

মন্তব্য

খেলা
Pretorias last World Cup

বিশ্বকাপ শেষ প্রিটোরিয়াসের

বিশ্বকাপ শেষ প্রিটোরিয়াসের ফাইল ছবি
বাম হাতের বুড়ো আঙুলে ফ্র্যাকচারের কারণে প্রিটোরিয়াসকে বাদ দেয়া হয়েছে ভারতের বিপক্ষে চলমান ওয়ানডে সিরিজ থেকে। একই সঙ্গে তাকে বাদ দেয়া হয়েছে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ থেকেও।

বিশ্বকাপের আগ মুহূর্তে বড় দুঃসংবাদ এল সাউথ আফ্রিকা শিবিরে। টি-টোয়েন্টির আসন্ন বৈশ্বিক আসরে খেলার সম্ভাবনা শেষ প্রোটিয়া অলরাউন্ডার ডোয়াইন প্রিটোরিয়াসের। আঙ্গুলের ইনজুরি তাকে ছিটকে দিয়েছে অস্ট্রেলিয়া বিশ্বকাপ থেকে।

বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে বিষয়টি নিশ্চিত করেছে ক্রিকেট সাউথ আফ্রিকা।

বাম হাতের বুড়ো আঙুলে ফ্র্যাকচারের কারণে প্রিটোরিয়াসকে বাদ দেয়া হয়েছে ভারতের বিপক্ষে চলমান ওয়ানডে সিরিজ থেকে। একই সঙ্গে তাকে বাদ দেয়া হয়েছে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ থেকেও।

তার পরিবর্তে দলে ডাক পেতে পারেন মার্কো জানসেন ও আন্দিলে ফেলুকওয়াওয়ের মধ্যে যে কোন একজন। এই দুইজনই টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের রিজার্ভ হিসেবে আছেন।

ডানহাতি এই অলরাউন্ডার গত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে সাউথ আফ্রিকার সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি ছিলেন (যৌথভাবে)।

প্রিটোরিয়াস চলতি বছর পর্যন্ত টি-টোয়েন্টি খেলেছেন ৮টি। এই ৮ ম্যাচে ২০.৬৬ গড়ে ১২টি উইকেট নিয়েছেন। পাশাপাশি ব্যাট হাতেও দ্রুত রান তুলে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছেন।

আরও পড়ুন:
পাকিস্তানের বিশ্বকাপ দলে ফিরলেন আফ্রিদি, বাদ ফখর
বাংলাদেশের বিপক্ষে পাকিস্তান দলের মেন্টর হেইডেন
প্রোটিয়া ও আফগানদের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচ সাকিবদের
৩ বছর পর ইংল্যান্ড দলে হেইলস
অভিজ্ঞ ও তরুণদের নিয়ে বিশ্বকাপের দল ঘোষণা নেদারল্যান্ডসের

মন্তব্য

খেলা
Bangladesh bowling without Shakib

পাকিস্তানের বিপক্ষে নেই সাকিব, বোলিংয়ে বাংলাদেশ

পাকিস্তানের বিপক্ষে নেই সাকিব, বোলিংয়ে বাংলাদেশ টস করছেন বাংলাদেশ দলপতি নুরুল হাসান সোহান। ছবি: বিসিবি
বৃহস্পতিবার সিপিএল মিশন শেষ করে দলের সঙ্গে যোগ দেয়ায় নিয়মিত অধিনায়ক সাকিব আল হাসানকে ছাড়াই পাকিস্তানের বিপক্ষে মাঠে নেমেছে বাংলাদেশ। তার পরিবর্তে দলকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন সহ অধিনায়ক নুরুল হাসান সোহান।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে শেষবারের মতো নিজেদের ঝালিয়ে নিতে নিউজিল্যান্ড ও পাকিস্তানের সঙ্গে টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলছে বাংলাদেশ। সিরিজের প্রথম ম্যাচেই শুক্রবার বাংলাদেশ মাঠে নেমেছে পাকিস্তানের বিপক্ষে। যেখানে টসে জিতে বাবর আজমদের বোলিংয়ে পাঠিয়েছে টাইগাররা।

বৃহস্পতিবার সিপিএল মিশন শেষ করে দলের সঙ্গে যোগ দেয়ায় নিয়মিত অধিনায়ক সাকিব আল হাসানকে ছাড়াই পাকিস্তানের বিপক্ষে মাঠে নেমেছে বাংলাদেশ। তার পরিবর্তে দলকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন সহ অধিনায়ক নুরুল হাসান সোহান।

এখন পর্যন্ত শর্টার ফরম্যাটে মোট ১৬ বার দেখা হয়েছে দুই দলের। এই ১৬ দেখায় ১৩ বার জয়ের হাসি হেসেছে পাকিস্তান। বিপরীতে বাংলাদেশের অর্জন দুই জয়। একটি ম্যাচ পরিত্যক্ত হয়েছে বৃষ্টির বাধায়।

দুই দলের শেষ ৫ দেখায় ৪ বারই জিতেছে বাবর আজমের দল। একটি ম্যাচ পরিত্যাক্ত হয়েছে। পাকিস্তানের বিপক্ষে তৃতীয় জয়ের সন্ধানে ক্রাইস্টচার্চে বোলিং করছে বাংলাদেশ।

বাংলাদেশ একাদশ: মেহেদী হাসান মিরাজ, সাব্বির রহমান, আফিফ হোসেন ধ্রুব, মোসাদ্দেক হোসেন, লিটন দাস, ইয়াসির আলী রাব্বি, নুরুল হাসান সোহান (অধিনায়ক, উইকেটরক্ষক), তাসকিন আহমেদ, হাসান মাহমুদ, মোস্তাফিজুর রহমান ও নাসুম আহমেদ।

পাকিস্তান একাদশ: বাবর আজম, মোহাম্মদ রিজওয়ান, শান মাসুদ, ইফতিখার আহমেদ, শাদাব খান, হায়দার আলি, আসিফ আলি, মোহাম্মদ নওয়াজ, মোহাম্মদ ওয়াসিম, হারিস রউফ, শাহনাওয়াজ ধানি।

আরও পড়ুন:
পাকিস্তানের বিপক্ষে আজ মাঠে নামছে বাংলাদেশ
শিরোপা ছুঁয়ে দেখা হলো না বাংলাদেশের

মন্তব্য

p
উপরে