× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

খেলা
Bangladesh lost the toss and bowled
hear-news
player
print-icon
বাংলাদেশ-জিম্বাবুয়ে সিরিজ

টসে হেরে বোলিংয়ে বাংলাদেশ

টসে-হেরে-বোলিংয়ে-বাংলাদেশ
টস করছেন দুই দলের অধিনায়ক। ছবি: টুইটার
হারারে স্পোর্টিং ক্লাবে বাংলাদেশ সময় বিকেল ৫টায় শুরু হচ্ছে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচ।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টিতে টসে জিতে ব্যাটিংয়ে নামছে জিম্বাবুয়ে। হারারে স্পোর্টিং ক্লাবে বাংলাদেশ সময় শনিবার বিকেল ৫টায় শুরু হচ্ছে ম্যাচটি।

বাংলাদেশের বিপক্ষে এখন পর্যন্ত একটিও টি-টোয়েন্টি সিরিজ জিততে পারেনি জিম্বাবুয়ে। ছয়টি সিরিজের তিনটিতে জয় পেয়েছে বাংলাদেশ। বাকি তিনটি হয়েছে ড্র।

তবে দুই দলের সর্বশেষ পাঁচ ম্যাচের পরিসংখ্যানে বেশ এগিয়ে ছয় বছর পর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে জায়গা করে নেয়া জিম্বাবুয়ে। নিজেদের শেষ পাঁচ ম্যাচের সব কটিতেই জয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছে রোডেশিয়ানরা। অন্যদিকে চার হারের বিপরীতে বাংলাদেশের অর্জন কেবল একটিতে জয়।

স্পষ্টই বোঝা যাচ্ছে, বাংলাদেশের জন্য হুমকির কারণ হতে পারে স্বাগতিকরা। মুখোমুখি পরিসংখ্যান আশার আলো দেখাচ্ছে বাংলাদেশকে। দুই দলের মোট ১৬ দেখায় ১১ বারই শেষ হাসি হেসেছে বাংলাদেশ। আর জিম্বাবুয়ের অর্জন পাঁচ জয়। এমনকি মুখোমুখি সর্বশেষ পাঁচ ম্যাচের চারটিতেই জয়ের দেখা পেয়েছে বাংলাদেশ।

এ সিরিজে বাংলাদেশ কোনো সিনিয়র খেলোয়াড়ের সার্ভিস পাচ্ছে না। জিম্বাবুয়ে শিবিরেও নেই তারকা পেইসার ব্লেসিং মুজারাবানি ও টেন্ডাই চাতারা। ইনজুরিতে তাদের ছিটকে দিয়েছে সিরিজ থেকে।

বাংলাদেশ একাদশ: লিটন দাস, এনামুল হক বিজয়, নাজমুল হোসেন শান্ত, মুনিম শাহরিয়ার, আফিফ হোসেন, নুরুল হাসান সোহান (অধিনায়ক, উইকেটরক্ষক), মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, শরিফুল ইসলাম, মুস্তাফিজুর রহমান, তাসকিন আহমেদ ও নাসুম আহমেদ।

জিম্বাবুয়ে একাদশ: রেগিস চাখাবা (উইকেটরক্ষক), ক্রেইগ আরভাইন (অধিনায়ক), সিন উইলিয়ামস, ওয়েসলি মাধভেরে, সিকান্দার রাজা, মিল্টন শুম্বা, রায়ান বার্ল, লুক জঙ্গয়ে, ওয়েলিংটন মাসাকাদজা, তানাকা চিবাঙ্গা ও রিচার্ড এনগারাভা।

আরও পড়ুন:
রাত পোহালেই শুরু অনূর্ধ্ব-১৬ দলের ভারত সিরিজ
মানসম্পন্ন নারী ক্রিকেটারের অভাব স্বীকার করলেন নিগার
সিরিজ জয়ে চোখ রেখে জিম্বাবুয়ের পথে টি-টোয়েন্টি দল
চিকিৎসা শেষে দেশে ফিরলেন সাইফউদ্দিন
নির্বাচক ছাড়াই জিম্বাবুয়ে সফর

মন্তব্য

আরও পড়ুন

খেলা
Naeem Sheikhs century won this team

নাঈম শেখের সেঞ্চুরিতে ‘এ’ দলের জয়

নাঈম শেখের সেঞ্চুরিতে ‘এ’ দলের জয় বাংলাদেশ দলের জার্সিতে নাঈম শেখ। ফাইল ছবি
বাংলাদেশের করা ৬ উইকেটে ২৭৭ রানের জবাবে উইন্ডিজ দল ৯ উইকেটে ২৩৩ রানের বেশি করতে পারেনি।

ক্যারিবীয় সফরে প্রথম জয়ের দেখা পেয়েছে বাংলাদেশ ‘এ’ দল। ৩ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ‘এ’ দলকে ৪৪ রানে হারিয়েছে সফরকারীরা। বাংলাদেশের করা ৬ উইকেটে ২৭৭ রানের জবাবে উইন্ডিজ দল ৯ উইকেটে ২৩৩ রানের বেশি করতে পারেনি।

গ্রস আইলেটে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে শুরুতে সৌম্য সরকারের উইকেট হারালেও নাঈম শেখের আক্রমণাত্মক ইনিংসে বড় রানের দিকে এগোতে থাকে বাংলাদেশ।

৬ রান করে শারমন লুইসের বলে আউট হন সৌম্য। সঙ্গীর বিদায়ের পর সাইফ হাসান, মোহাম্মদ মিঠুন ও শাহাদাত হোসেনকে নিয়ে ছোট ছোট জুটি গড়ে সংগ্রহ বাড়াতে থাকেন নাঈম।

সাইফ ১৯, অধিনায়ক মিঠুন ২৮ ও শাহাদাত ২৪ রান করে আউট হন।

শেষ দিকে নাঈম ও সাব্বির রহমান মিলে দলের সংগ্রহ আড়াই শ ছাড়িয়ে নেন। নাঈম সেঞ্চুরি করে ১০৩ রানে আউট হন। আর সাব্বিরের ব্যাট থেকে আসে ৬২।

২৭৮ রানে ব্যাট করতে নেমে উইন্ডিজের শুরুটা ভালো হয়। জশুয়া সিলভা ও তেজনারায়ণ চন্দরপাল দলকে ৯৫ রানের উদ্বোধনী জুটি এনে দেন।

চন্দরপাল ৩৮ ও সিলভা ৬৮ রান করে আউট হন। এরপর আর কেউই দলের হাল ধরতে না পারলে জয় বঞ্চিত হয় ওয়েস্ট ইন্ডিজ ‘এ’ দল। টেডি বিশপের ৩১ ও ব্রায়ান চার্লসের ৩২ রানে ব্যবধানই শুধু কমিয়েছে স্বাগতিক দল।

বাংলাদেশের পক্ষে মুকিদুল ইসলাম ৩টি ও রেজাউর রহমান রাজা ২টি উইকেট নেন।

আরও পড়ুন:
টাইগারদের টি-টোয়েন্টি দলের টেকনিক্যাল কোচ শ্রীরাম
টি-টোয়েন্টি দলের দায়িত্ব হারাচ্ছেন ডোমিঙ্গো
সাকিবের আত্মবিশ্বাস চোখে লেগেছে পাপনের

মন্তব্য

খেলা
Proteas in favorable position at Lords

লর্ডসে সুবিধাজনক অবস্থায় প্রোটিয়ারা

লর্ডসে সুবিধাজনক অবস্থায় প্রোটিয়ারা ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ড্রাইভ খেলছেন সাউথ আফ্রিকার কেশাভ মহারাজ। ছবি: এএফপি
ইংল্যান্ডের চেয়ে ১২৪ রানে এগিয়ে আছে সাউথ আফ্রিকা। ৪১ রান নিয়ে উইকেটে আছেন মার্কো ইয়ানসেন। তার সঙ্গী কাগিসো রাবাডার সংগ্রহ ৩*।

লর্ডস টেস্টের দ্বিতীয় দিনশেষে সুবিধাজনক অবস্থায় আছে সাউথ আফ্রিকা। দিনশেষে তাদের সংগ্রহ ৭ উইকেটে ২৮৯ রান। ইংল্যান্ডের চেয়ে ১২৪ রানে এগিয়ে আছে তারা।

৪১ রান নিয়ে উইকেটে আছেন মার্কো ইয়ানসেন। তার সঙ্গী কাগিসো রাবাডার সংগ্রহ ৩*।

৬ উইকেটে ১১৬ রানের সংগ্রহ নিয়ে দ্বিতীয় দিন শুরু করা ইংল্যান্ড ১৬৫ রানে গুটিয়ে যায়। দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৭৩ রান আসে অলি পোপের ব্যাট থেকে। সাউথ আফ্রিকার হয়ে কাগিসো রাবাডা ৫২ রানে ৫টি আর আনরিখ নরটিয়া ৬৩ রানে ৩টি উইকেট নেন।

নিজেদের প্রথম ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালো করে সাউথ আফ্রিকা। ডিন এলগার ও সারিল এরউই ৮৫ রানের জুটি গড়েন। ৪৬৭ রান করে এলগার আউট হলে ভাঙে সে জুটি।

এরপর কিগান পিটারসেন ও এইডেন মারক্রামকে নিয়ে জুটি গড়ার চেষ্টা করেন এরউই। পিটারসেন ২৪ ও মারক্রাম ১৬ রান করে আউট হন।

এরউই ছিলেন প্রোটিয়াদের পক্ষে সেরা ব্যাটার। তার ব্যাট থেকে ৭৩। কেশাভ মহারাজ করেন ৪১। মহারাজকে সঙ্গে নিয়ে ইয়ানসেন দলের লিড এক শ ছাড়িয়ে নিয়ে যান।

ইংল্যান্ডের হয়ে বেন স্টোকর ৫৩ রানে নেন ৩টি উইকেট।

আরও পড়ুন:
বৃষ্টিবিঘ্নিত লর্ডসে ব্যাটিং বিপর্যয়ে ইংল্যান্ড
২৪ বছর পর ইংল্যান্ডের মাটিতে প্রোটিয়াদের সিরিজ জয়
রুসো তাণ্ডবে সিরিজ সমতায় সাউথ আফ্রিকা

মন্তব্য

খেলা
Sriram is the T20 coach of Bangladesh until the World Cup

টাইগারদের টি-টোয়েন্টি দলের টেকনিক্যাল কোচ শ্রীরাম

টাইগারদের টি-টোয়েন্টি দলের টেকনিক্যাল কোচ শ্রীরাম বাংলাদেশের নতুন টি-টোয়েন্টি কোচ হতে যাচ্ছেন শ্রীরাম। ছবি: এএফপি
ভারতীয় কোচ শ্রীধরন শ্রীরামকে টি-টোয়েন্টি দলের দায়িত্ব দিতে যাচ্ছে বিসিবি। ভারতের সাবেক এ টেস্ট ক্রিকেটার বাংলাদেশ টি-টোয়েন্টি দলের টেকনিক্যাল কোচ হচ্ছেন।

টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশের বাজে সময় কাটাতে এবারে নতুন কোচের হাতে দলকে তুলে দিচ্ছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। ভারতীয় কোচ শ্রীধরন শ্রীরামকে টি-টোয়েন্টি দলের দায়িত্ব দিতে যাচ্ছে বিসিবি। ভারতের সাবেক এ টেস্ট ক্রিকেটার বাংলাদেশ টি-টোয়েন্টি দলের টেকনিক্যাল কোচ হচ্ছেন।

এতে করে কার্যত টি-টোয়েন্টি দলের ওপর থেকে রাসেল ডোমিঙ্গোর কর্তৃত্ব হ্রাস পেতে যাচ্ছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বোর্ডের একজন পরিচালক শুক্রবার নিউজবাংলাকে বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, ‘শ্রীধরন শ্রীরামকে বিশ্বকাপ পর্যন্ত কোচ হিসেবে বেছে নিয়েছি আমরা। টেস্ট দলকে নির্দেশনা দেয়ার কাজটা আপাতত চালিয়ে যাবেন ডমিঙ্গো।’

পরে শুক্রবার দুপুরে নিজ বাসভবনে সংবাদমাধ্যমকে বিষয়টির নিশ্চয়তা দেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। তিনি বলেন, শ্রীরাম টি-টোয়েন্টি দলে টেকনিক্যাল কোচের দায়িত্ব নিচ্ছেন।

পাপন বলেন, ‘শ্রীরামকে আমরা শর্টলিস্ট করেছিলাম ও তার সঙ্গে কথাও হয়েছে আমাদের। সে আসছে ২১ তারিখ দুপুরে। অবশ্যই হেড কোচের দায়িত্ব নিতে আসছে না। শ্রীরাম আসছে টেকনিক্যাল কনসালটেন্ট হিসেবে। সে বিশ্বকাপ পর্যন্ত এ দায়িত্বে থাকবে।’

সাবেক ভারতীয় ক্রিকেটার শ্রীধরন শ্রীরাম বোলিং কোচ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের ফ্র্যাঞ্চাইজি কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব ও রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরুতে। এরপর অস্ট্রেলিয়া জাতীয় দলের সহকারী কোচ হিসেবে কাজ করেন।

সাকিব-মুশফিকদের দায়িত্ব বুঝে নিতে আগামী এক-দুইদিনের মধ্যে ঢাকায় আসবেন শ্রীরাম।

নতুন টি-টোয়েন্টি কোচ হিসেবে নিয়োগ পাওয়া শ্রীরাম ২০০০ সালে অভিষেকের পর খেলেছেন ৮টি ওয়ানডে। আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারের তার সবশেষ ম্যাচটিও ছিল বাংলাদেশের বিপক্ষে।

পাশাপাশি তামিলনাড়ুর হয়ে রঞ্জি ট্রফিতে এক মৌসুমে হাজার রান করার রেকর্ড রয়েছে তার।

ক্রিকেট থেকে অবসরের পর কোচিংয়ে নাম লেখান শ্রীরাম। গত মাসে অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে ৬ বছরের চুক্তি শেষ হয় তার। এরপর বাংলাদেশের সঙ্গে কোচিং ক্যারিয়ারের নতুন ইনিংস শুরু করার সিদ্ধান্ত নেন তিনি।

আরও পড়ুন:
টি-টোয়েন্টি দলের দায়িত্ব হারাচ্ছেন ডোমিঙ্গো
সাকিবের আত্মবিশ্বাস চোখে লেগেছে পাপনের
পাওয়ার হিটিং কোচ হিসেবে কাজ করবেন সিডন্স

মন্তব্য

খেলা
Coming to the end of the Domingo chapter

টি-টোয়েন্টি দলের দায়িত্ব হারাচ্ছেন ডোমিঙ্গো

টি-টোয়েন্টি দলের দায়িত্ব হারাচ্ছেন ডোমিঙ্গো বাংলাদেশের হেড কোচ রাসেল ডমিঙ্গো ও ব্যাটিং পরামর্শক জেমি সিডন্স। ছবি: এএফপি
ভারতের ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক টুর্নামেন্ট শ্রীধরন শ্রীরামকেও টি-টোয়েন্টি কোচের প্রস্তাব দিয়েছে বোর্ড। এশিয়া কাপে ভালো করলে তার সঙ্গে চুক্তি বাড়াতেও প্রস্তুত বোর্ড। 

গত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে বাংলাদেশের পারফরম্যান্সের পর হেড কোচের অবস্থানটা কিছুটা হলেও নড়বড়ে হয়ে যায় রাসেল ডমিঙ্গোর। বোর্ডের সঙ্গে চুক্তি নবায়ন করে নিজেকে টিকিয়ে রাখেন তিনি। এরপরও জাতীয় দলে হেড কোচ হিসেবে তার ভূমিকা নিয়ে সমালোচনার কাঠগড়ায় তাকে দাঁড়াতে হয়েছে বারবার।

দেরিতে হলেও টনক নড়েছে বোর্ডের। ডমিঙ্গোকে বাদ দিয়ে এশিয়া কাপে নতুন কোচের হাতে জাতীয় দলকে তুলে দেয়ার পরিকল্পনা করছে বোর্ড।

নতুন কোচের এই দৌড়ে রয়েছেন বর্তমান ব্যাটিং পরামর্শক জেমি সিডন্স। বৃহস্পতিবার বোর্ড সভাপতির সঙ্গে আলাদাভাবে বৈঠকও করেছেন অজি এই কোচ। একইসঙ্গে ক্রিকেটারদের আনুষ্ঠানিক অনুশীলন শুরু হওয়ার আগেই সাকিব, মুশফিক, মিরাজ, বিজয়দের নিয়ে পাওয়ার হিটিংয়ের আলাদা সেশন শুরু করে দিয়েছে তিনি।

ভারতের ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক টুর্নামেন্ট শ্রীধরন শ্রীরামকেও টি-টোয়েন্টি কোচের প্রস্তাব দিয়েছে বোর্ড। এশিয়া কাপে ভালো করলে তার সঙ্গে চুক্তি বাড়াতেও প্রস্তুত বোর্ড।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বোর্ডের একজন পরিচালক নিউজবাংলাকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, এ বিষয়ে শনিবার চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

বিসিবির ওই পরিচালক বলেন, ‘টি-টোয়েন্টিতে কোচ হিসেবে বোর্ডের পছন্দ দুইজন। একজন হল আমাদের সিডন্স আর আরেকজন ভারতের শ্রীধরণ শ্রীরাম। এই দুইজনের ভেতর আলোচনা করে একজনকে নেব আমরা। কাল বোর্ডসভা আছে। সেখানে আনুষ্ঠানিক সিদ্ধান্ত নেয়া হবে এ বিষয়ে।’

অস্ট্রেলিয়া প্রবাসী শ্রীরাম আইপিএলের দল রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরু ও কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের বোলিং কোচ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। সবশেষ অস্ট্রেলিয়া জাতীয় দলের সহকারী কোচ হিসেবে ছিলেন তিনি। আইপিএলের সঙ্গে যুক্ত থাকায় তার প্রতি বেশি আকর্ষণ রয়েছে বোর্ডের।

নতুন পরিকল্পনায় টি-টোয়েন্টি থেকে সরে গেলেও সিডন্সকে টেস্ট ও ওয়ানডের দায়িত্ব রাখা হবে।

আরও পড়ুন:
সাকিবের আত্মবিশ্বাস চোখে লেগেছে পাপনের
পাওয়ার হিটিং কোচ হিসেবে কাজ করবেন সিডন্স
খুদে ভক্তকে ক্রিকেট সরঞ্জাম ও জার্সি উপহার সাকিবের

মন্তব্য

খেলা
Pakistan won the series with Haris Nawaz bowling

হারিস-নাওয়াজের বোলিংয়ে সিরিজ জয় পাকিস্তানের

হারিস-নাওয়াজের বোলিংয়ে সিরিজ জয় পাকিস্তানের নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে বল করছেন পাকিস্তানের স্পিনার মোহাম্মদ নাওয়াজ। ছবি: পিসিবি
৩ ম্যাচ সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডেতে নেদারল্যান্ডসকে ৭ উইকেটে হারিয়ে সিরিজ ২-০ ব্যবধানে জিতে নিয়েছে পাকিস্তান।

এক ম্যাচ বাকি থাকতেই নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে ৩ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ জিতে নিয়েছে পাকিস্তান। নেদারল্যান্ডসের করা ১৮৬ রানের স্কোরকে ৯৮ বল অক্ষত রেখে ও ৩ উইকেট হারিয়ে টপকে যায় সফরকারী দল।

রটারডামে টস জিতে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয় স্বাগতিক নেদারল্যান্ডস। পাকিস্তানের দুই পেইসার নাসিম শাহ ও হারিস রাউফের বোলিং তোপে শুরুতেই বিপাকে পড়ে ডাচরা। ৮ রানে ৩ উইকেট হারায় তারা।

ভিক্রামজিত সিং ও ওয়েসলি বারেসিকে যথাক্রমে ১ ও ৩ রানে আউট করেন নাসিম। আর ১ রান করা ম্যাক্স-ও-ডাউডের উইকেট তুলে নেন রাউফ।

চতুর্থ উইকেটে ১১৩ রানের জুটি গড়ে দলকে সামাল দেন টম কুপার ও বাস ডে লিডে। ৬৬ রান করে মোহাম্মদ নাওয়াজের বলে কুপার আউট হলে ভাঙে এ জুটি।

এরপর শুরু হয় উইকেটের মিছিল। লোগান ফন বিক ছাড়া আর কোনো ব্যাটারই দুই অঙ্কের রান করতে পারেননি। এক প্রান্ত আগলে রেখে ফিফটি তুলে নেন ডি লিডে। ৮৯ রান করে শেষ ব্যাটার হিসেবে আউট হন তিনি। ফন বিক করেন ১৩।

৪৪.১ ওভারে ১৮৬ রানে গুটিয়ে যায় নেদারল্যান্ডসের ইনিংস। পাকিস্তানের হয়ে নাওয়াজ ৪২ রানে ও রাউফ ১৬ রানে ৩টি করে উইকেট নেন।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে, ১১ রানের মধ্যে দুই পাকিস্তানি ওপেনার ফখর জামান ও ইমাম উল হকের উইকেট তুলে নিয়ে ম্যাচে ফিরে আসার ইঙ্গিত দেয় নেদারল্যান্ডস।

তৃতীয় উইকেটে ৮৮ রান করে পাকিস্তানকে জয়ের পথে ফেরান বাবর আজম ও মোহাম্মদ রিজওয়ান। ৫৭ রান করে আরিয়ান দাতের বলে আউট হন আজম। এরপর আর সাফল্য পাননি ডাচ বোলাররা।

রিজওয়ানের ৬৯* ও আগা সালমানের ৫০* রানের ইনিংসে জয় পায় সফরকারী দল। ম্যাচ সেরা হয় নাওয়াজ। একই ভেন্যুতে তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডে হবে রোববার।

আরও পড়ুন:
ফখর-বাবরদের ব্যাটিং নৈপুণ্যে পাকিস্তানের জয়
সিরিজে সমতা ফেরানোর স্বপ্ন দেখছে শ্রীলঙ্কা
পাকিস্তানকে রেকর্ড জয় পাইয়ে দিলেন শফিক

মন্তব্য

খেলা
India started the series by defeating Zimbabwe by 10 wickets

জিম্বাবুয়েকে ১০ উইকেটে হারিয়ে সিরিজ শুরু ভারতের

জিম্বাবুয়েকে ১০ উইকেটে হারিয়ে সিরিজ শুরু ভারতের শন উইলিয়ামসকে আউট করার পর উচ্ছ্বসিত ভারতের পেইসার মোহাম্মদ সিরাজ। ছবি: এএফপি
জিম্বাবুয়ের করা ১৮৯ রানকে সবগুলো উইকেট ও ১১৫ বল অক্ষত রেখে টপকে গেছে সফরকারী দল। ফলে ১০ উইকেটের বড় জয় দিয়ে সিরিজ শুরু করেছে তারা।

বড় জয় দিয়ে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ শুরু করেছে ভারত। জিম্বাবুয়ের করা ১৮৯ রানকে সবগুলো উইকেট ও ১১৫ বল অক্ষত রেখে টপকে গেছে সফরকারী দল। ফলে ১০ উইকেটের বড় জয় দিয়ে সিরিজ শুরু করেছে তারা।

হারারেতে বৃহস্পতিবার টস হেরে ব্যাট করতে নেমে ভারতীয় সিমারদের তোপে বিপাকে পড়ে জিম্বাবুয়ের ব্যাটিং লাইনআপ। ১০.১ ওভারে ৩১ রানে স্বাগতিক দল হারায় ৪ উইকেট। সেখান থেকে আর ম্যাচে ফিরতে পারেনি আফ্রিকান দলটি।

শুরুর ৩ উইকেট নিয়ে জিম্বাবুয়েকে ধাক্কা দেন দিপক চাহার। আর চতুর্থ উইকেট নেন মোহাম্মদ সিরাজ।

শেষ পর্যন্ত রেজিস চাকাবভা, ব্র্যাড ইভানস ও রিচার্ড এনগারাভার ব্যাটে দুই শর কাছাকাছি পৌঁছাতে সক্ষম হয় জিম্বাবুয়ে। চাকাবভা সর্বোচ্চ ৩৫, এনগারাভা ৩৪ ও ইভানস ৩৩ রান করেন। ৪০.৩ ওভারে ১৮৯ রানে অলআউট হয় স্বাগতিক দল।।

ভারতের হয়ে ৩টি করে উইকেট নেন প্রাসিধ কৃষ্ণা, দিপক চাহার ও আক্সার প্যাটেল।

১৯০ রানের লক্ষ্য খুব একটা ছোট না হলেও ভারতীয় দুই ওপেনার সেটা বানিয়ে দেন একেবারে মামুলি।

শিখর ধাওয়ান ও শুভমান গিল জিম্বাবুয়ের বোলারদের কোনো সুযোগই দেননি। দুজনই হাফ সেঞ্চুরি পূর্ণ করে অপরাজিত থাকেন।

ধাওয়ান করেন ৮১* ও গিলের ব্যাট থেকে আসে ৮২*। ৩০.৫ ওভারে নির্দিষ্ট লক্ষ্যে পৌঁছে যায় ভারত। ম্যাচসেরা হন দিপক চাহার।

শনিবার একই ভেন্যুতে হবে সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচ।

আরও পড়ুন:
জিম্বাবুয়ে সফরে যাচ্ছেন না কোহলি
শেষ ওভারের জয়ে সিরিজ ভারতের
এশিয়া কাপ ও বিশ্বকাপ জেতার অপেক্ষায় কোহলি

মন্তব্য

খেলা
Shakibs confidence is evident in Papans eyes

সাকিবের আত্মবিশ্বাস চোখে লেগেছে পাপনের

সাকিবের আত্মবিশ্বাস চোখে লেগেছে পাপনের মিরপুরে এশিয়া কাপের প্রস্তুতিতে সাকিব আল হাসান। ছবি: বিসিবি
সাংবাদিকদের পাপন বলেন, তার সঙ্গে প্রায় সব খেলোয়াড়ের নিয়মিত কথা হয়। তবে এশিয়া কাপের আগে সাকিবকে বাড়তি আত্মবিশ্বাসী মনে হচ্ছে তার।

এশিয়া কাপের প্রস্তুতির এরই মধ্যে অনুশীলন শুরু করেছেন সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিমরা। মিরপুরে শুক্রবার থেকে আনুষ্ঠানিক ক্যাম্প শুরু হলেও, অনেকেই নিজ উদ্যোগে ৪-৫ দিন আগে অনুশীলন শুরু করেছেন। বৃহস্পতিবার মিরপুরে তাদের অনুশীলন দেখেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন।

এশিয়া কাপের দল ঘোষণার আগ পর্যন্ত সাকিবের সঙ্গে দ্বন্দ্বে ছিল বোর্ড। তবে সেটা কাটিয়ে ওঠায় ক্রিকেটেই পূর্ণ মনোনিবেশ করেছেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার।

সাংবাদিকদের পাপন বলেন, তার সঙ্গে প্রায় সব খেলোয়াড়ের নিয়মিত কথা হয়। তবে এশিয়া কাপের আগে সাকিবকে বাড়তি আত্মবিশ্বাসী মনে হচ্ছে তার।

তিনি বলেন, ‘সাকিবের সঙ্গে আমার নিয়মিত কথা হয়। সোহানের সঙ্গে হয়। লিটন দাসের সঙ্গে হয়। আমি মোটামুটি সবার সঙ্গেই কথা বলি। আজকে জানতে চাচ্ছিলাম ওর (সাকিবের) কী মনে হচ্ছে।

‘একটা জিনিস দেখলাম, সাকিব আত্মবিশ্বাসী। ও তো সব সময় আত্মবিশ্বাসী থাকে। টুর্নামেন্টের আগে এই আত্মবিশ্বাস থাকাটা জরুরি। এর মানে আমরা জিততে পারব।’

এশিয়া কাপের মতো বড় টুর্নামেন্টে দলের কাছ থেকে আত্মবিশ্বাসী পারফরম্যান্স আশা করেন পাপন। হার-জিতের চেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে লড়াকু মানসিকতা।

বিসিবি সভাপতি যোগ করেন, ‘হারা বা জেতা নিয়ে আমার কথা না। কিন্তু খেলার মধ্যে জিততে পারব বিশ্বাসটা খুব গুরুত্বপূর্ণ। এটা আমি দেখতে পেয়েছি তাতে আমি খুশি। ওখানে আমরা কী করতে পারি সেটা নিয়ে আলোচনা হয়েছে। আমার কাছে মনে হয়েছে দল এবার ভালো খেলার চেষ্টা করবে।’

আরও পড়ুন:
পাওয়ার হিটিং কোচ হিসেবে কাজ করবেন সিডন্স
খুদে ভক্তকে ক্রিকেট সরঞ্জাম ও জার্সি উপহার সাকিবের
গুরু ফাহিমের সামনে অনুশীলনে সাকিব-মুশফিক

মন্তব্য

p
উপরে