× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

খেলা
Ronaldo wants to leave United in Messi panic
hear-news
player
google_news print-icon

‘মেসি আতঙ্কেই’ ইউনাইটেড ছাড়তে চান রোনালডো

মেসি-আতঙ্কেই-ইউনাইটেড-ছাড়তে-চান-রোনালডো
দেড় দশক ফুটবল মাঠে প্রতিদ্বন্দ্বী রোনালডো ও মেসি। ছবি: এএফপি
প্যারিস সেইন্ট জার্মেইয়ের (পিএসজি) হয়ে সামনের মৌসুমেও চ্যাম্পিয়নস লিগ খেলবেন লিওনেল মেসি। আর রোনালডো ইউনাইটেডের হয়ে খেলতে পারবেন না। রোনালডোর শঙ্কা এ সুযোগে মেসি তাকে গোলসংখ্যায় ছাড়িয়ে যেতে পারেন।

গত মৌসুমেই ইউভেন্তাস থেকে পুরনো ঠিকানা ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে ফিরে গিয়েছিলেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালডো। ৩৭ বছর বয়সী এ ফরোয়ার্ডের মৌসুম খারাপ যায়নি। ইউনাইটেডের হয়ে ২৪ গোল করেন এ পর্তুগিজ।

তাতে দলের খুব একটা লাভ হয়নি। ম্যান ইউ শিরোপা দৌড় তো বটেই চ্যাম্পিয়নস লিগে খেলার দৌড় থেকেই ছিটকে গেছে। ফলে ইউনাইটেডের হয়ে সামনের মৌসুমে ইউরোপের সেরা টুর্নামেন্টে আর খেলা হচ্ছে না রোনালডোর।

যে কারণে দল ছাড়তে চাচ্ছেন তিনি। এরই মধ্যে নতুন ম্যানেজার এরিক টেন হাখকে জানিয়ে দিয়েছেন সামনের মৌসুমে থাকছেন না। ইউনাইটেডের বর্তমান দল ও প্রজেক্টের ওপর ভরসা নেই, এমনটা জানিয়ে দল ছাড়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন রোনালডো।

তবে সাবেক ফুটবলার ও ফুটবল বিশেষজ্ঞ টনি কাসকারিনোর মতে কারণটা ভিন্ন। বরাবরই নিজের পরিসংখ্যান ও ব্যক্তিগত সাফল্য নিয়ে মজে থাকা রোনালডো ভয়ে আছেন মেসির পেছনে পড়ে যাওয়ার।

প্যারিস সেইন্ট জার্মেইয়ের (পিএসজি) হয়ে সামনের মৌসুমেও চ্যাম্পিয়নস লিগ খেলবেন লিওনেল মেসি। আর রোনালডো ইউনাইটেডের হয়ে খেলতে পারবেন না। রোনালডোর শঙ্কা এ সুযোগে মেসি তাকে গোলসংখ্যায় ছাড়িয়ে যেতে পারেন।

ক্রীড়াভিত্তিক রেডিও স্টেশন টকস্পোর্টের এক অনুষ্ঠানে কাসকারিনো রোবরার রাতে বলেন, ‘খেলোয়াড় হিসেবে রোনালডোর অহম বরাবরই ছিল। সে সব সময় সফল দলে খেলেছে। আমি অফ এয়ারে বলেছি যে, রোনালডোর যেহেতু ১৪১টি গোল আছে চ্যাম্পিয়নস লিগে আর মেসির ১২৫টি, সে কারণে সে চ্যাম্পিয়নস লিগ না খেলে থাকতে চায় না। সে চায় টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ গোলদাতা হতে। রোনালডো এমনই।’

রোনালডো না খেললে মেসি চ্যাম্পিয়নস লিগে ব্যবধান কমানোর সুযোগ পাবেন। যদিও এখন আর বিশুদ্ধ গোলস্কোরার হিসেবে খেলেন না মেসি, তারপরও গত মৌসুমে এ টুর্নামেন্টে ৫ গোল এসেছিল তার পা থেকে। এ মৌসুমে আরও ভালো করতে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ মেসি।

যে কারণে রোনালডোর ভয়টা অমূলক নয়। নিজেকে বরাবরই সেরা দাবি করে আসা এই পর্তুগিজ সুপারস্টার এখন মরিয়া নতুন দলের সন্ধানে।

আরও পড়ুন:
মেসির চেয়েও দামি লাউতারো
মেসিকেও দলে রাখতে চায় না পিএসজি
নেইমারের অপেক্ষায় নিউকাসলের ১০ নম্বর জার্সি
ফাঁস হলো মেসিদের বিশ্বকাপ জার্সি

মন্তব্য

আরও পড়ুন

খেলা
Singapore won Bangladesh by scoring 3 goals

৩ গোল দিল সিঙ্গাপুর, জিতল বাংলাদেশ

৩ গোল দিল সিঙ্গাপুর, জিতল বাংলাদেশ ম্যাচে দাপট দেখিয়ে জয় পেলেও গোল দিতে পারেনি বাংলাদেশ। ছবি: নিউজবাংলা
ম্যাচের শুরুটা দারুণ করে বাংলাদেশ। তবে অগোছালো ফুটবল খেলার কারণে গোলের সন্ধান তারা পায়নি। সিঙ্গাপুরের দুটি আত্মঘাতী গোলে ২-১ ব্যবধানে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে বাংলাদেশ।

এএফসি এশিয়ান কাপ অনূর্ধ্ব-১৭ বাছাইপর্বে সিঙ্গাপুরের বিপক্ষে অন্যরকম এক জয় পেল বাংলাদেশ। ম্যাচে সবগুলো গোল দিয়েছে সিঙ্গাপুর, তাতেই জয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছে লাল-সবুজের জার্সিধারীরা।

কমলাপুরে বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ সিপাহী মোস্তফা কামাল স্টেডিয়ামে বুধবার নিজেদের প্রথম ম্যাচে সিঙ্গাপুরের বিপক্ষে ২-১ গোলে জয় পেয়েছে বাংলাদেশ। তবে ম্যাচে বাংলাদেশ একটি গোলও দিতে পারেনি। প্রতিপক্ষের জালে বল পাঠানোর পাশাপাশি সিঙ্গাপুরের যুবারা করেছেন দুটি আত্মঘাতী গোল।

ম্যাচের শুরুটা দারুণ করে বাংলাদেশ। তৃতীয় মিনিটেই লিড নিতে পারত স্বাগতিকরা। ফরোয়ার্ড নাজিমুদ্দিনের দারুন একটি শটের বাধা হয়ে দাঁড়ায় সিঙ্গাপুরের গোলকিপার আইজ্যাক লি।

প্রথম সুযোগটি কাজে লাগাতে না পারলেও ম্যাচের ১০ মিনিটের মধ্যেই লিড পেয়ে যায় বাংলাদেশ। নাজিমুদ্দিন বক্সের ভেতরে মিরাজুলের দিকে বল ঠেলে দিলে তা বিপদমুক্ত করতে গিয়ে সিঙ্গাপুরের ডিফেন্ডার ব্রেয়ডেন গোহ উল্টো নিজেদের জালে বল পাঠিয়ে দেন। প্রতিপক্ষের দেয়া গোলেই ম্যাচের শুরুতে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে যায় বাংলাদেশ।

১৫তম মিনিটে আরও একটি সুযোগ মিস করে কোচ পল স্মলির লের শিষ্যরা। মিনিট পাঁচেক পর উল্টো প্রতিপক্ষের আক্রমণের মুখে পড়ে লাল সবুজের জার্সিধারীরা। অল্পের জন্য রক্ষা পায় সে যাত্রায়।

২৮ তম মিনিটে রাসুল রামলির পাস থেকে মুহাম্মদ শাইজোয়ানের দূরপাল্লার শটে হার মানেন বাংলাদেশ গোলকিপার সোহান। ফলে ১-১ সমতায় বিরতিতে যায় দুই দল।

দ্বিতীয়ার্ধে আক্রমণের ধার বাড়ায় বাংলাদেশ। একের পর এক আক্রমণে কোণঠাসা করে রাখে প্রতিপক্ষকে। তবে অগোছালো ফুটবল খেলার কারণে গোলের সন্ধান তারা পায়নি।

যোগ করা সময়ের শেষের দিকে জয়সূচক গোল আসে সেই সিঙ্গাপুরের খেলোয়াড়দের মাধ্যমেই। রাতুলের লম্বা থ্রোইন ক্লিয়ার করতে হেড করেছিলেন সিঙ্গাপুরের এক খেলোয়াড়। কিন্তু তার ব্যাক হেড গোলকিপার আইজ্যাক লির ধরলেও হাত ফসকে যায়। সিঙ্গাপুরের দুটি আত্মঘাতী গোলে ২-১ ব্যবধানে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে বাংলাদেশ।

আগামী শুক্রবার ভুটানের বিপক্ষে লড়বে বাংলাদেশ।

আরও পড়ুন:
২০২৬ বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের কাঠামো চূড়ান্ত করেছে এএফসি
তৃতীয় ম্যাচ জিতে আশা বাঁচিয়ে রাখল কিংস
এএফসি লাইসেন্স: নেপাল-ভুটান ৪টি, বাংলাদেশ ২টি
এএফসি কাপের দলে উচ্ছ্বাস ও জুলকারনাইন
লাল কার্ডই কপাল পুড়িয়েছে দাবি কিংস অধিনায়কের

মন্তব্য

খেলা
Choton was forced to become a coach

জোর করেই কোচ বানানো হয়েছিল ছোটনকে

জোর করেই কোচ বানানো হয়েছিল ছোটনকে বাংলাদেশ নারী দলের অনুশীলনে গোলাম রাব্বানী ছোটন। ফাইল ছবি/বাফুফে
১৯৮০-র দশকে ইয়ংমেন্স ফকিরেরপুল ও ওয়ারী ক্লাবের হয়ে মাঠ মাতানো ডিফেন্ডার ছিলেন ছোটন। ক্যারিয়ারের সায়াহ্নে তাকে স্থানীয় বড় ভাইদের অনুরোধে একরকম বাধ্য হয়ে শুরু করতে হয় কোচিং।

বাংলাদেশের নারী ফুটবল সাফল্যের নেপথ্যের সবচেয়ে বড় কারিগর তিনি। জাতীয় দলের সঙ্গে ওতপ্রোতভাবে জড়িয়ে গোলাম রাব্বানী ছোটনের নাম। দেশের অন্যতম সেরা এ কোচ নাকি কোচিং এ আসতেই চাননি! একরকম জোর করেই তাকে কোচিংয়ে আনা হয়েছে। নিউজবাংলাকে দেয়া সাক্ষাৎকারে নিজের কোচিং ক্যারিয়ার শুরুর আগের গল্পটা বলেন ছোটন।

১৯৮০-র দশকে ইয়ংমেন্স ফকিরেরপুল ও ওয়ারী ক্লাবের হয়ে মাঠ মাতানো ডিফেন্ডার ছিলেন ছোটন। ক্যারিয়ারের সায়াহ্নে তাকে স্থানীয় বড়ভাইদের অনুরোধে একরকম বাধ্য হয়ে শুরু করতে হয় কোচিং।

ছোটন নিউজবাংলাকে বলেন, ‘খেলোয়ার জীবনের পর থেকে আমার কোচিং ক্যারিয়ারে আসা। আমি ওয়ারীতে খেলতাম। সে সময় মতিঝিল টিঅ্যান্ডটি কলোনিতে থাকতাম। ওখানে একটা ক্লাব ছিল (টিঅ্যান্ডটি ক্লাব) ফোর্থ ডিভিশনের। ওয়ারীতে ৩-৪ বছর খেলার পর আমাকে ওই ক্লাবে নিয়ে আসা হয়। এরপর তাদের হয়ে খেলা শুরু করি।

‘ক্লাবে খেলা চলাকালীন অবস্থায় আমাকে একরকম জোর করে কোচিংয়ে আনা হয়। তো ওখান থেকেই আসলে আমার কোচিং ক্যারিয়ার শুরু।’

মতিঝিল টিঅ্যান্ডটি ক্লাবে খেলোয়াড়-কাম-কোচ হিসেবে দায়িত্ব পালন করতে করতেই ছোটনের ঝোঁক বাড়ে কোচিংয়ের দিকে। পেশাদার খেলা ছাড়ার পর পাকাপাকিভাবে কোচিংয়ে আসার সিদ্ধান্ত নেন তিনি।

ছোটন যোগ করেন, ‘আমার আসলে কোচিং করানোর কোনো ইচ্ছা ছিল না। জোর করে আমাকে কোচিংয়ে আনা হয়েছিল, যেখানে আমার খেলাটাই ছিল মূল্য। পরে সেটি শখে পরিণত হয়। সে সময় ওখানকার বড় ভাই ছিলেন টিঅ্যান্ডটি ক্লাবের সেক্রেটারি ফিরোজ ভাই ও বাবুল ভাই। তাদের ইচ্ছাতেই আমি কোচিং ক্যারিয়ার শুরু করি। পরে যখন ২০০২ সালে যখন খেলা ছাড়লাম তখন কোচ হিসেবে ক্যারিয়ার তৈরির স্থির করলাম।’

নারী দলের কোচিংয়ে আসার আগে ছেলেদের বয়সভিত্তিক দলে কোচিং করিয়েছেন ছোটন। জাতীয় দলের সঙ্গেও সম্পৃক্ত ছিলেন।

তিনি বলেন, ‘শুরুতে আমি ছেলেদের টিমের কোচ হিসেবে কাজ করি। বাফুফেতে যোগ দেই ২০০৬ সালে। তখন বিভিন্ন গ্রাসরুট লেভেল ও বয়সভিত্তিক দলের ট্রেনিং করিয়েছি। পরে ২০০৮ সালে সিনিয়র ন্যাশনাল টিমের অ্যাসিস্ট্যান্ট কোচ হিসেবে দায়িত্ব পালন করি।’

২০০৯ সালে ছোটন দায়িত্ব পান মেয়েদের দলের। এরপরই শুরু ইতিহাসের। একে একে সাফল্য আসে অনূর্ধ্ব ১৬, ২১ ও বয়সভিত্তিক অন্য টুর্নামেন্টে। তবে, শুরুতে এই কৃতিত্ব পাননি ছোটন। ‘মেয়েদের কোচ’ হিসেবে কটূ কথাও শুনতে হয়েছে তাকে।

ছোটন অবশ্য সেসব গায়ে মাখেননি। তার মতে, যেহেতু ওই সময় নারী ফুটবলের এতো প্রসার ও প্রচার ছিল না তাই অধিকাংশ মানুষের এ নিয়ে নেতিবাচক ধারণা ছিল।

ছোটন বলেন, ‘আসলে মেয়েরা তখন খেলতে পারতো না। মেয়েরা খেলতে পারছে না বলেই আমাকে নিয়ে তখন এসব কথা বলত। অনেকেই নারী দল বা মহিলারা ফুটবল খেলবে এই বিষয়টা অনেকে মানতে পারত না।’

আরও পড়ুন:
পেশাদার ফুটবলে এখনও আমরা পিছিয়ে: ছোটন
মালদ্বীপের লিগে খেলতে গেলেন সাবিনা
ফুলেল ভালোবাসায় বাড়ি ফিরলেন সানজিদা-রূপনারা

মন্তব্য

খেলা
Barca failed the Inter exam

‘ইন্টার’ পরীক্ষায় ফেল বার্সেলোনা

‘ইন্টার’ পরীক্ষায় ফেল বার্সেলোনা হার নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয়েছে বার্সেলোনাকে। ছবি: সংগৃহীত
ইন্টার মিলানের মাঠে হাকান চালানোলুর একমাত্র গোলে হার মেনেছে বার্সেলোনা। এতে করে গ্রুপের প্রথম ৩ ম্যাচ থেকে মাত্র ৩ পয়েন্ট নিয়ে বাদ পড়ার ঝুঁকিতে রয়েছে তারা।

চ্যাম্পিয়নস লিগে ইন্টার মিলানের বিপক্ষে বার্সেলোনার ম্যাচটি ছিল অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখার লড়াই। টিকে থাকার সে মিশনে ইন্টার পরীক্ষায় ফেল করল বার্সা। ইতালিয়ান জায়ান্টদের কাছে ১-০ গোলে হারতে হলো কাতালানদের।

এ হারে শঙ্কা জেগেছে গ্রুপ পর্ব থেকেই বার্সেলোনার বিদায়ের। ‘সি’ গ্রুপে থাকা বার্সা ৩ ম্যাচে এক জয় ও দুই হারে ৩ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের তিন নম্বরে আছে।

তিন ম্যাচের সবকটিতে জিতে ৯ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে বায়ার্ন মিউনিখ। ৬ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের দ্বিতীয় স্থানে ইন্টার।

ঘরের মাঠ সান সিরোতে ম্যাচের শুরু থেকেই অধিপত্য ছিল স্বাগতিক ইন্টার মিলানের। তবে পাল্টা আক্রমণে ম্যাচ জমিয়ে তোলে বার্সেলোনাও।

ম্যাচের সপ্তম মিনিটে প্রথম এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ সৃষ্টি করে মিলান। বার্সা গোলকিপার মার্ক আন্ড্রে-টার স্টেগানের কল্যাণে সে যাত্রায় বেঁচে যায় সফরকারীরা।

২৪ মিনিটে ইন্টার পেনাল্টির আবেদন করলেও ভিএআর দেখে সেটি প্রত্যাখ্যান করেন রেফারি। তবে প্রথমার্ধের যোগ করা অতিরিক্ত সময়ের দ্বিতীয় মিনিটে আর রক্ষা হয়নি বার্সার।

ইতালিয়ান লেফটব্যাক ফেদেরিকো দিমার্কোর অ্যাসিস্টে বল পেয়ে ডান পায়ের দূরপাল্লার শটে ম্যাচের একমাত্র গোলটি করেন তুর্কি অ্যাটাকিং মিডফিল্ডার হাকান চালানোলু।

এ অর্ধে বার্সেলোনা মিডফিল্ডার পেদ্রি গোল করলেও রেফারি হ্যান্ডবলের কারণে ভিডিও অ্যাসিস্টেন্টের সাহায্য নিয়ে গোল বাতিল করে। পেদ্রি স্কোর করার আগে আনসু ফাতি হ্যান্ডবল করেছিলেন।

ম্যাচের একেবারে শেষ মুহূর্তে ইন্টার মিলানের বিপক্ষে বার্সেলোনার হ্যান্ডবলের আবেদন কানে তোলেননি রেফারি। ফলে, পেনাল্টি বঞ্চিত হয় বার্সেলোনা। ১-০ গোলের হার নিয়ে বাড়ি ফিরতে হয় তাদের।

গ্রুপে বায়ার্ন মিউনিখের কাছে হারের পর ইন্টার মিলানের কাছে হারল বার্সেলোনা। এতে করে গ্রুপের প্রথম ৩ ম্যাচ থেকে মাত্র ৩ পয়েন্ট নিয়ে বাদ পড়ার ঝুঁকিতে রয়েছে তারা।

আরও পড়ুন:
ইউভেন্তাসকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়নস লিগ শুরু পিএসজির
এক গ্রুপে ইন্টার, বায়ার্ন ও বার্সেলোনা
ইউয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগের ড্র বৃহস্পতিবার
চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ আটে চেলসি-রিয়াল মুখোমুখি
বড় জয়ে কোয়ার্টারে বায়ার্ন, হেরেও উতরে গেল লিভারপুল

মন্তব্য

খেলা
Were still lagging behind in professional football Choton

পেশাদার ফুটবলে এখনও আমরা পিছিয়ে: ছোটন

পেশাদার ফুটবলে এখনও আমরা পিছিয়ে: ছোটন ব্রাহ্মণবাড়িয়া এফসির বিপক্ষে নারী লিগের ম্যাচে চ্যাম্পিয়ন বসুন্ধরা কিংসের বল দখলের লড়াই। ছবি: বাফুফে
বসুন্ধরা কিংস ছাড়া অন্য কোনো ক্লাব নারীদের দল মাঠে নামাতে আগ্রহী নয়। ফলে, ফেডারেশনকে সার্ভিসেস ও আঞ্চলিক অ্যাকাডেমিগুলোর ভরসায় থাকতে হচ্ছে। বিষয়টা স্বীকার করছেন জাতীয় দলের হেড কোচ গোলাম রাব্বানী ছোটনও। তার মতে পেশাদার লিগ কাঠামো অর্জনে এখনও অনেক পিছিয়ে বাংলাদেশের নারী ফুটবল।

জাতীয় নারী ফুটবল দল ও বয়সভিত্তিক ফুটবল দলের সাফল্যে এখন ধারাবাহিক। সপ্তাহ দুয়েক আগে সাফ নারী চ্যাম্পিয়নশিপ জয় করে সাবিনা-ঋতুপর্নারা স্বাক্ষর রেখেছেন তাদের উন্নতি ও ধারাবাহিকতার। জাতীয় দলের স্বপ্ন এখন দক্ষিণ এশিয়া ছাড়িয়ে এশিয়া পর্যায়ে।

তবে, ঘরোয়া পর্যায়ে ফুটবলের অবস্থা এতটা উজ্জ্বল নয়। বিশেষ করে নারী ফুটবল লিগ পিছিয়ে অনেকটা। ৫ ডিসেম্বর বাফুফে এ বছর লিগ শুরু করার ঘোষণা দিলেও, বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) এ খেলা বসুন্ধরা কিংস ছাড়া অন্য কোনো ক্লাব নারীদের দল মাঠে নামাতে আগ্রহী নয়। ফলে, ফেডারেশনকে সার্ভিসেস ও আঞ্চলিক অ্যাকাডেমিগুলোর ভরসায় থাকতে হচ্ছে।

বিষয়টা স্বীকার করছেন জাতীয় দলের হেড কোচ গোলাম রাব্বানী ছোটনও। তার মতে পেশাদার লিগ কাঠামো অর্জনে এখনও অনেক পিছিয়ে বাংলাদেশের নারী ফুটবল।

নিউজবাংলাকে ছোটন বলেন, ‘পেশাদার ফুটবলে আমরা অবশ্যই পিছিয়ে আছি। আমাদের মহিলা ফুটবল শুরু হয়েছে অল্প কিছুদিনের হয়েছে। বিভিন্ন ক্লাবের সমন্বয়ে লিগ শুরু হয়েছে খুবই অল্প দিন।’

নারী ফুটবলের ধারাবাহিক উন্নয়নের জন্য জাতীয় ও বয়সভিত্তিক দলের প্রজেক্টের পাশাপাশি ঘরোয়া লিগ ও ক্লাবগুলোকেও পেশাদারভাবে এগিয়ে আসতে হবে বলে মনে করেন ছোটন।

তিনি যোগ করেন, ‘দেশে অনেক শক্তিশালী লিগ হওয়ার প্রয়োজন। সবার অংশগ্রহণে যে সব পেশাদার দল রয়েছে তাদেরকে নিয়ে যখন কোনো লিগ হবে সে লিগ অনেক শক্তিশালী হবে। তো সবকিছু মিলিয়ে এখনও অনেক কাজ বাকি।’

ঘরোয়া পর্যায়ে খুব বড় স্বপ্ন না দেখলেও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে ছোটনের বিশ্বাস দল এশিয়ান পর্যায়েও ধারাবাহিক সাফল্য নিয়ে আসতে পারবে। তবে, সে জন্য নতুন পরিকল্পনা প্রয়োজন।

ছোটন বলেন, ‘আমাদের খেলোয়ার আছে। এদেরকে শুধু নেটওয়ার্কের আওতায় আনতে হবে। প্রত্যেকটা জেলা থেকে নতুন খেলোয়ার আসছে। এখানে আমাদের ৭০ জন খেলোয়াড় আছে। এর চেয়ে বেশি বাফুফে ভবনে রাখাও সম্ভব না।

এখন যেটা করা উচিত তা হলো, খেলোয়ারদের রাখার ব্যবস্থা করা। খেলোয়াড় খুঁজে বের করার পর তাদের উন্নয়ন ও প্রশিক্ষণের জন্য যে বিষয়গুলো থাকে সেগুলোর আয়োজন করা উচিত।’

তবে, এশিয়ান পর্যায়ে দ্রুত সাফল্যের আশা করতে নারাজ ছোটন। বাংলাদেশ নারী ফুটবলের সফল এ কোচের মতে সাফ অঞ্চলে সাফল্যের মতো এশীয় পর্যায়ে সাফল্যে পেতেও ধৈর্য্য ধরে কাজ করতে হবে।

ছোটন যোগ করেন, ‘২০১২ সালে মেয়েদের ফুটবল শুরুর পর ২০১৬ সালে ৩৫ জন খেলোয়াড় ছিল আমাদের। এখন আছে ৭০ জন। ৬ বছর ক্যাম্প করার পর যদি সাউথ এশিয়ার সেরা দল হওয়া যায় আর এটা যদি আরও ৬ বছর অব্যাহত রাখতে পারা যায় এবং সুযোগ-সুবিধা বৃদ্ধি করে খেলোয়াড়দের রাখা হয় তাহলে এশিয়ার মধ্যে একটি ভালো অবস্থানে যাওয়া যাবে।’

আরও পড়ুন:
মালদ্বীপের লিগে খেলতে গেলেন সাবিনা
ফুলেল ভালোবাসায় বাড়ি ফিরলেন সানজিদা-রূপনারা
সাফ জয়ী নারী ফুটবল দলকে সেনাবাহিনীর সংবর্ধনা

মন্তব্য

খেলা
Said goodbye to football Argentina star Higuain

ফুটবলকে বিদায় জানালেন ইগুয়েইন

ফুটবলকে বিদায় জানালেন ইগুয়েইন আর্জেন্টিনার জার্সিতে গনসালো ইগুয়েইন। ফাইল ছবি/এএফপি
ইন্টার মায়ামির হয়ে খেলা এ ফরোয়ার্ড আমেরিকার মেজর লিগ সকারের চলতি মৌসুম শেষে অবসর নেবেন।

আর্জেন্টাইন তারকা গনসালো ইগুয়েইন ৩৪ বছর বয়সেই বিদায় জানালেন পেশাদার ফুটবলকে। সোমবার সংবাদ সম্মেলনে ফুটবল থেকে নিজের অবসর ঘোষণা দেন তিনি। চলতি মৌসুমই হতে যাচ্ছে তার পেশাদার ক্যারিয়ারের শেষ।

ইন্টার মায়ামির হয়ে খেলা এ ফরোয়ার্ড আমেরিকার মেজর লিগ সকারের চলতি মৌসুম শেষে অবসর নেবেন।

গত মৌসুমে ইগুয়েইনের বাবা হোর্হে ইগুয়েইন জানিয়েছিলেন চলতি মৌসুম ইন্টার মিয়ামিতে কাটিয়ে তিনি ফুটবলকে বিদায় জানাবেন। সে সময় মুখ না খুললেও এবার আনুষ্ঠানিকভাবে বিদায় জানালেন এ তারকা।

সংবাদ সম্মেলনে ইগুয়েইন বলেন, 'পেশাদার ফুটবলে সাড়ে ১৭ বছর কাটিয়েছি। এই সময়ের মধ্যে ফুটবল আমাকে অনেক কিছুই দিয়েছে। আমার ক্যারিয়ার মানেই ফুটবল যা আমার সব কিছু। আমাকে যারা সমর্থন যুগিয়েছেন সবাইকে জানাই ধন্যবাদ। বিদায়ের সময় এসেছে। তাই আমি ফুটবলকে বিদায় জানাচ্ছি।'

তার অবসরের বিষয়টি ক্লাব কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছিলেন আরও মাস চারেক আগেই। গত কয়েক বছর ভেবে তিনি এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলেও জানান।

ইগুয়েইন বলেন, ‘অবসরের বিষয়টি নিয়ে কয়েক বছর ধরে ভেবেছি। ফুটবল খেলাটা আমি উপভোগ করি, আনন্দ পাই, আর আমি আমার ভাই ফেডের কাছাকাছি থাকার জন্যই এটি শুরু করেছিলাম।'

ইগুয়েইনের বাবা আর্জেন্টাইন হলেও তিনি জন্মগ্রহণ করেন ফ্রান্সে। সে সূত্রে খেলার সুযোগ পেয়েছিলেন ফ্রান্স জাতীয় দলে। তবে শেষ পর্যন্ত বেছে নিয়েছিলেন বাবার দেশ আর্জেন্টিনাকে।

ক্লাব ক্যারিয়ারে তিনি খেলেছেন রিয়াল মাদ্রিদ, রিভারপ্লেট, নাপোলি, ইউভেন্তাস, এসি মিলান ও চেলসির মতো ক্লাবে।

রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে সবচেয়ে বেশি গোল করেছেন ইগুয়েইন। আর্জেন্টিনার ইতিহাসের ষষ্ঠ সর্বোচ্চ গোলদাতা ইগুয়েইনের গোল সংখ্যা ৩১টি। ক্লাব ক্যারিয়ারে ৭০৮ ম্যাচে গোল করেছেন ৩৩৩টি।

২০১৪ সালের বিশ্বকাপ ফাইনালে জার্মানির বিপক্ষে একেবারে সহজ গোল মিস করে ভক্তদের সমালোচনার শিকার হন ইগুয়েইন।

আরও পড়ুন:
৯ ডিসেম্বর শুরু প্রিমিয়ার লিগ ফুটবল
নিজ এলাকায় ফুটবলার কৃষ্ণা ও কোচ ছোটনকে সংবর্ধনা-উপহার
বীরের বেশে পাহাড়ে চারকন্যা

মন্তব্য

খেলা
What to watch on TV today including the Barcelona game

বার্সেলোনার খেলাসহ টিভিতে আজ যা দেখবেন

বার্সেলোনার খেলাসহ টিভিতে আজ যা দেখবেন প্রতীকী ছবি
ইউয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগে মঙ্গলবার ইন্টার মিলানের বিপক্ষে মাঠে নামছে বার্সেলোনা। অন্যদিকে খেলা আছে মিউনিখ ও লিভারপুলের।

ক্রিকেট

নারীদের এশিয়া কাপ
শ্রীলঙ্কা-থাইল্যান্ড
সকাল ৯টা, স্টার স্পোর্টস টু।

ভারত-সংযুক্ত আরব আমিরাত
বেলা দেড়টা, স্টার স্পোর্টস টু।

তৃতীয় টি-টোয়েন্টি
ভারত-সাউথ আফ্রিকা
সন্ধ্যা সাড়ে ৭টা, টি স্পোর্টস ও স্টার স্পোর্টস ওয়ান।

ফুটবল

ইউয়েফা ইয়ুথ লিগ

মার্শেই-স্পোর্তিং লিসবন
সন্ধ্যা ৬টা, সনি টেন টু।

ইন্টার মিলান-বার্সেলোনা
রাত ৮টা, সনি টেন টু।

ইউয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগ

বায়ার্ন-প্লজেন
রাত পৌনে ১১টা, সনি টেন টু।

লিভারপুল-রেঞ্জার্স
রাত ১টা, সনি টেন ওয়ান।

ইন্টার মিলান-বার্সেলোনা
রাত ১টা, সনি টেন টু।

ফ্রাঙ্কফুর্ট-টটেনহাম
রাত ১টা, সনি টেন থ্রি।

পোর্তো-লেভারকুসেন
রাত ১টা, সনি সিক্স

আরও পড়ুন:
প্রিমিয়ার লিগের খেলাসহ টিভিতে আজ যা দেখবেন
টিভিতে আজ যেসব খেলা দেখবেন
ভারত ও পাকিস্তানের ম্যাচসহ টিভিতে আজকের খেলা

মন্তব্য

খেলা
Real could not even against 10 man Osasuna

বেনজেমার পেনাল্টি মিসে রিয়ালের ড্র

বেনজেমার পেনাল্টি মিসে রিয়ালের ড্র ওসাসুনার গোলে ভিনিসিয়াসের আক্রমণের প্রচেষ্টা। ছবি: সংগৃহীত
১০ জনের ওসাসুনার বিপক্ষে স্বাগতিকদের মাঠ ছাড়তে হয়েছে ১-১ গোলে ড্র করে। পেনাল্টি মিসের সুবাদে জয় হাতছাড়া হয় বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের।

ঘরের মাঠে সহজ প্রতিপক্ষ পেয়েও জয়ের দেখা মিলল না রিয়াল মাদ্রিদের। ১০ জনের ওসাসুনার বিপক্ষে স্বাগতিকদের মাঠ ছাড়তে হয়েছে ১-১ গোলে ড্র করে। পেনাল্টি মিসের সুবাদে জয় হাতছাড়া হয় বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের।

সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে ম্যাচের শুরু থেকে চলে আক্রমণ আর প্রতি আক্রমণ। প্রথম গোলের দেখা পেতে স্বাগতিক সমর্থকদের অপেক্ষা করতে হয় ৪২তম মিনিট পর্যন্ত।

প্রথমার্ধ শেষ হওয়ার মিনিট তিনেক আগে দলকে লিড এনে দেন ভিনিসিয়াস জুনিয়র। ডাভিড আলাবার করা কর্নার থেকে জালের ঠিকানা খুঁজে নিয়ে সমর্থকদের আনন্দে ভাসান ব্রাজিলিয়ান এই তারকা।

সমতায় ফিরতে বেশি সময় নেয়নি ওসাসুনা। বিরতি থেকে ফিরে পাঁচ মিনিটের মাথায় সমতায় ফেরেন তারা। রিয়াল সমর্থকদের গ্যালারি নিশ্চুপ করে দিয়ে দলকে আনন্দে ভাসান কিকে গার্সিয়া।

উনাই গার্সিয়ার ক্রসে ডি-বক্সে লাফিয়ে উঠে হেডে বল জালে জড়ান স্প্যানিশ এই ফরোয়ার্ড।

ম্যাচের ৭৮ মিনিটের মাথায় ডি বক্সের ভেতর ফাউল করায় লাল কার্ড দেখতে হয় ওসাসুনা ডিফেন্ডার দাভিদ গার্সিয়াকে। আর তাতে ১০ জনের দলে পরিণত হয় সফরকারীরা।

ডি বক্সে ফাউলের সুবাদে ৭৯ মিনিটে পেনাল্টি পায় রিয়াল। কিন্তু কারিম বেনজেমার করা শট বার পোস্টে লাগায় গোল হাতছাড়া হয় স্বাগতিকদের।

ভাগ্য দেবতা এদিন হয়ত মুখ ফিরিয়ে নিয়েছিলেন রিয়ালের থেকে। যে কারণে ৮১ মিনিটে বেনজেমার আরও একটি গোল বাতিল হয় অফসাইডে। এরপর বেশ কিছু আক্রমণ করেও গোলের দেখা পায়নি রিয়াল।

ফলে এক পয়েন্ট নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয় স্প্যানিশ চ্যাম্পিয়নদের। একইসঙ্গে হারাতে হয় টেবিলের শীর্ষস্থান।

৭ ম্যাচে ৬ জয় ও ১ ড্রয়ে ১৯ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের দুইয়ে রিয়াল মাদ্রিদ। সমান ম্যাচে সমান পয়েন্ট নিয়ে গোল ব্যবধানে এগিয়ে থাকায় টেবিলের শীর্ষস্থানে উঠে গেল বার্সেলোনা।

আরও পড়ুন:
৯ ডিসেম্বর শুরু প্রিমিয়ার লিগ ফুটবল
নিজ এলাকায় ফুটবলার কৃষ্ণা ও কোচ ছোটনকে সংবর্ধনা-উপহার
বীরের বেশে পাহাড়ে চারকন্যা
মালদ্বীপের লিগে খেলতে গেলেন সাবিনা
ফুলেল ভালোবাসায় বাড়ি ফিরলেন সানজিদা-রূপনারা

মন্তব্য

p
উপরে