× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ পৌর নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য

খেলা
Bangladesh lost three gold medals in Asian Archery
hear-news
player

এশিয়ান আর্চারিতে তিন স্বর্ণ হাতছাড়া বাংলাদেশের

এশিয়ান-আর্চারিতে-তিন-স্বর্ণ-হাতছাড়া-বাংলাদেশের রিকার্ভ ব্যক্তিগত ইভেন্টে রৌপ্য পান রোমান সানা। ফাইল ছবি
ইরাকের সুলেমানিয়ায় বিকেলে ব্যক্তিগত রিকার্ভ ইভেন্টের ফাইনালে নেমেছিলেন রোমান সানা। তবে ভারতের আর্চার মৃণাল চৌহানের কাছে হেরে যান বাংলাদেশের সেরা আর্চার। চৌহান ৬-২ সেটে ফাইনাল জিতে স্বর্ণ নিশ্চিত করেন।

স্বর্ণ ছাড়াই এশিয়ান আর্চারির মিশন শেষ করল বাংলাদেশ। ইরাকে আয়োজিত টুর্নামেন্টের শেষ দিন ৩টি স্বর্ণ জয়ের সম্ভাবনা থাকলেও ৩ ইভেন্টেই রৌপ্য জিতে সন্তুষ্ট থাকতে হয় রোমান-দিয়াদের।

ইরাকের সুলেমানিয়ায় বিকেলে ব্যক্তিগত রিকার্ভ ইভেন্টের ফাইনালে নেমেছিলেন রোমান সানা। তবে ভারতের আর্চার মৃণাল চৌহানের কাছে হেরে যান বাংলাদেশের সেরা আর্চার। চৌহান ৬-২ সেটে ফাইনাল জিতে স্বর্ণ নিশ্চিত করেন।

পুরুষদের ইভেন্টে রৌপ্য জয়ের পাশাপাশি ব্যক্তিগত নারী রিকার্ভে ব্রোঞ্জ জিতেছেন দিয়া সিদ্দিকী। ফাইনালে তার প্রতিপক্ষ ছিলেন বাংলাদেশেরই আরেক আর্চার বিউটি রায়। বিউটিকে হারিয়ে পদক জিতে নেন দিয়া।

শেষ দিন আরও দুটি ইভেন্টের ফাইনালে উঠেছিল বাংলাদেশ। রিকার্ভের দলগত নারী ও পুরুষ দুই ইভেন্টেই বাংলাদেশের সামনে সম্ভাবনা ছিল স্বর্ণের।

তবে ফাইনালে ভারতের কাছে হেরে রৌপ্য নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয় বাংলাদেশকে। সবমিলিয়ে এবারের আসরে ৪টি রৌপ্য ও ৪টি ব্রোঞ্জ জিতেছেন রোমান-দিয়ারা।

বাংলাদেশের বাকি ১টি রৌপ্য ও ৩টি ব্রোঞ্জ এসেছে কম্পাউন্ডের ৫টি ক্যাটাগরিতে।

আরও পড়ুন:
আর্চারি বিশ্বকাপ থেকে বিদায় রোমান সানাদের
বিকেএসপিকে হারিয়ে আর্চারি শিরোপা পুলিশের
রোমান সানাকে হারিয়ে চমক দেখালেন রাকিব

মন্তব্য

আরও পড়ুন

খেলা
Al Amin wins International Fight Night

আন্তর্জাতিক ফাইট নাইট বক্সিংয়ে আল আমিনের জয়

আন্তর্জাতিক ফাইট নাইট বক্সিংয়ে আল আমিনের জয় বাংলাদেশের বক্সার আল আমিন লড়ছেন নেপালের বক্সার ভারত চাঁদ। ছবি: বিবিএফ
বাংলাদেশের আল আমিন লড়েছেন ওয়াল্টার ওয়েইট ক্যাটাগরিতে। নেপালের ভারত চাঁদের বিপক্ষে আক্রমণাত্মক শুরু করেন দেশের অন্যতম সেরা এ বক্সার। ৩ রাউন্ডের লড়াই শেষে ৩৯-৩৭, ৪০-৩৬, ৪০-৩৬ পয়েন্টে নিজের ম্যাচ জিতে নেন।

বাংলাদেশ বক্সিং ফাউন্ডেশন আয়োজিত প্রথম আন্তর্জাতিক সাউথ এশিয়ান বক্সিং ফাইট নাইট টুর্নামেন্টে জয় পেয়েছেন বাংলাদেশের বক্সার আল আমিন। নেপালের বক্সারকে টেকনিক্যাল নক আউটে হারান বাংলাদেশ গেমসের স্বর্ণ জেতা এ বক্সার।

মিরপুর শহীদ সোহাওয়ার্দী ইনডোর স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ, ভারত ও নেপালের ১৪ জন বক্সার নিয়ে অনুষ্ঠিত হয় এ টুর্নামেন্ট। এর মূল আকর্ষণ ছিল শেষ ৩টি আন্তর্জাতিক বাউট।

বাংলাদেশের আল আমিন লড়েছেন ওয়াল্টার ওয়েইট ক্যাটাগরিতে। নেপালের ভারত চাঁদের বিপক্ষে আক্রমণাত্মক শুরু করেন দেশের অন্যতম সেরা এ বক্সার। ৩ রাউন্ডের লড়াই শেষে ৩৯-৩৭, ৪০-৩৬, ৪০-৩৬ পয়েন্টে নিজের ম্যাচ জিতে নেন।

দ্বিতীয় বাউটে লড়েন বাংলাদেশের হিরা মিয়া ও ভারতের হর্ষ গিল। আট রাউন্ডের বাউটের তৃতীয় রাউন্ডে হিরাকে নকআউট করে ম্যাচ জিতে নেন হর্ষ।

শেষ বাউটে বাংলাদেশের সুর কৃষ্ণ চাকমা ও নেপালের মহেন্দ্র বাহাদুর চাঁদ অংশগ্রহণ করেন। চার রাউন্ডের বাউটে জয়ী হন বাংলাদেশের সুর কৃষ্ণ চাকমা।

এর আগে শুরুতেই অনুষ্ঠিত হয় দেশীয় বক্সারদের প্রথম চারটি বাউট।

চার রাউন্ডের প্রথম বাউটে অংশগ্রহণ করেন বরিশালের আমিনুল ইসলাম আর রাজশাহীর মোহাম্মদ তুহিন। ফেদারওয়েট ক্যাটাগরিতে বাউট জেতেন বরিশালের আমিনুল ইসলাম। দ্বিতীয় বাউটের দ্বিতীয় রাউন্ডে জাহিদুল ইসলাম নকআউট করেন রিয়াজুলকে।

তৃতীয়টিতে খেলেন রাজশাহীর দুই বক্সার উৎসব আহমেদ ও মোহাম্মদ আকাশ। উৎসব ম্যাচে জয় পান। চার নম্বর ম্যাচে আবু তালহা হৃদয় হারান রিসাতুল মাহমুদ সিজানকে।

আরও পড়ুন:
তিন দেশের বক্সার নিয়ে শুরু হচ্ছে ফাইট নাইট
তালেবানের ভয়ে বেলগ্রেডে পালিয়ে ১১ আফগান বক্সার
ফিলিপাইনের প্রেসিডেন্ট হওয়ার দৌড়ে প্যাকিয়াও

মন্তব্য

খেলা
The womens sports body received a check of Tk 10 crore given by the Prime Minister

প্রধানমন্ত্রীর দেয়া ১০ কোটি টাকার চেক পেল মহিলা ক্রীড়া সংস্থা

প্রধানমন্ত্রীর দেয়া ১০ কোটি টাকার চেক পেল মহিলা ক্রীড়া সংস্থা প্রধানমন্ত্রীর অনুদানের চেক বিতরণ অনুষ্ঠান। ছবি:বাসস
জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের সম্মেলন কক্ষে মহিলা ক্রীড়া সংস্থার পক্ষে চেকটি গ্রহণ করেন সংস্থার সভানেত্রী ও জাতীয় সংসদের হুইপ মাহবুব আরা গিনি।

প্রধানমন্ত্রীর দেয়া ১০ কোটি টাকার বিশেষ বরাদ্দের চেক বাংলাদেশ মহিলা ক্রীড়া সংস্থার কাছে হস্তান্তর করেছেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মো. জাহিদ আহসান রাসেল।

বুধবার দুপুরে জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের সম্মেলন কক্ষে মহিলা ক্রীড়া সংস্থার পক্ষে চেকটি গ্রহণ করেন সংস্থার সভানেত্রী ও জাতীয় সংসদের হুইপ মাহবুব আরা গিনি।

চেক হস্তান্তর করে ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ দেন, বরাবরের মতো নারী ক্রীড়াবিদদের পাশে থাকার জন্য। পুরুষদের পাশাপাশি নারীরাও ক্রীড়াক্ষেত্রে এগিয়ে যাবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

প্রতিমন্ত্রী যোগ করেন, ‘দেশের নারী ক্রীড়াঙ্গনের জন্য আজ একটি অবিস্মরণীয় দিন। আমাদের নারী ও ক্রীড়াবান্ধব প্রধানমন্ত্রী দেশের নারী ক্রীড়াবিদদের উন্নয়নে ক্রীড়াঙ্গনের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো ১০ কোটি টাকার বিশেষ বরাদ্দ প্রদান করেছেন। আমি বিশ্বাস করি, প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে দেশের ক্রীড়াঙ্গন আরও এগিয়ে যাবে।’

মন্তব্য

খেলা
For the first time in the country BBF is organizing professional boxing

তিন দেশের বক্সার নিয়ে শুরু হচ্ছে ফাইট নাইট

তিন দেশের বক্সার নিয়ে শুরু হচ্ছে ফাইট নাইট ফাইট নাইটের দুই বক্সার। ছবি: বিবিএফ
১৯মে রাজধানীর মিরপুরের শহীদ সোহরাওয়ার্দী ইনডোর স্টেডিয়ামে এই টুর্নামেন্ট শুরু হবে। বাংলাদেশ, নেপাল ও ভারতের মোট ১৪ জন বক্সার বিভিন্ন ওজন শ্রেণিতে এই টুর্নামেন্টে অংশ নেবেন।

দেশে প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে পেশাদারদের জন্য আন্তর্জাতিক বক্সিং আয়োজন ‘সাউথ এশিয়ান প্রফেশনাল বক্সিং ফাইট নাইট- দ্য আল্টিমেট গ্লোরি।’ ১৯মে রাজধানীর মিরপুরের শহীদ সোহরাওয়ার্দী ইনডোর স্টেডিয়ামে এই টুর্নামেন্ট শুরু হবে।

বাংলাদেশ, নেপাল ও ভারতের মোট ১৪ জন বক্সার বিভিন্ন ওজন শ্রেণিতে এই টুর্নামেন্টে অংশ নেবেন।

মঙ্গলবার রাজধানীর একটি হোটেলে সংবাদ সম্মেলন করে প্রফেশনাল বক্সিংয়ের আন্তর্জাতিক এই আয়োজন নিয়ে বিস্তারিত তুলে ধরে বিবিএফ। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ বক্সিং ফাউন্ডেশনের সভাপতি আদনান হারুন, ভারতের বক্সিং কাউন্সিলের প্রেসিডেন্ট ব্রিগেডিয়ার পিকেএম রাজা, নেপাল প্রফেশনাল বক্সিং কমিশনের প্রেসিডেন্ট ম্যাক্স মনোহর বাসনেত।

বাংলাদেশ বক্সিং ফাউন্ডেশনের সভাপতি আদনান হারুন বলেন, ‘দেশের বক্সারদের আন্তর্জাতিক প্লাটফর্ম দিতে এবং বক্সিংকে তাদের পেশা হিসেবে বেছে নিতে সুযোগ করে দেয়ার উদ্দেশ্য নিয়েই বিবিএফ যাত্রা করেছে। আমরা চাই দেশে যারা অ্যামেচার বক্সার আছে তাদেরকে প্রফেশনাল হিসেবে আন্তর্জাতিকভাবে পরিচয় করিয়ে দিতে।’

এই টুর্নামেন্টে বাংলাদেশ থেকে ১১ বক্সার, ভারতের একজন এবং নেপালের দুই জন অংশ নেবে। সেখানে মোট সাতটি ফাইট অনুষ্ঠিত হবে।

দেশের ওটিপি প্ল্যাটফর্ম 'বঙ্গবিডি'তে সরাসরি দেখা যাবে ফাইটগুলো।

বাংলাদেশ বক্সিং ফাউন্ডেশনের এই পেশাদার বক্সিংয়ে যাদের অভিষেক হবে তারা প্রাইজ মানি হিসেবে পাবেন ৫ হাজার টাকা করে। আর চ্যাম্পিয়ন পর্যায়ের ফাইটে প্রাইজ মানি থাকছে ২০ হাজার টাকা করে।

আরও পড়ুন:
তালেবানের ভয়ে বেলগ্রেডে পালিয়ে ১১ আফগান বক্সার
ফিলিপাইনের প্রেসিডেন্ট হওয়ার দৌড়ে প্যাকিয়াও
চলে গেলেন আলিকে চমকে দেয়া স্পিংক্স

মন্তব্য

খেলা
15 students of BKSP fell ill after eating dinner

‘রাতের খাবার খেয়ে’ অসুস্থ বিকেএসপির ১৫ শিক্ষার্থী

‘রাতের খাবার খেয়ে’ অসুস্থ বিকেএসপির ১৫ শিক্ষার্থী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন কক্সবাজার বিকেএসপির শিক্ষার্থীরা। ছবি: নিউজবাংলা
রামু উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসা কর্মকর্তা নোবেল কুমার বড়ুয়া বলেন, ‘রাত থেকে একে একে ১৫ জন শিক্ষার্থীকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তাদের পেটে ব্যথা ও ডায়রিয়ার চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। দুজনের অবস্থা উন্নতি হওয়ায় ছেড়ে দেয়া হয়েছে। সবাই জানিয়েছে, রাতের খাবার খাওয়ার পর থেকে এমনটা হচ্ছে।’

বাংলাদেশ ক্রীড়া শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের (বিকেএসপি) কক্সবাজারের রামু আঞ্চলিক কেন্দ্রের ১৫ শিক্ষার্থী অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। তাদের মধ্যে ১৩ জন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, শুক্রবার রাতের খাবার খাওয়ার পর থেকে ওই শিক্ষার্থীরা অসুস্থ হতে শুরু করেন।

বিকেএসপির কক্সবাজারের আঞ্চলিক কেন্দ্রের উপপরিচালক আতিকুজ্জামান রুশু নিউজবাংলাকে বলেন, ‘শুক্রবার রাতের খাবার খাওয়ার পর থেকে শিক্ষার্থীরা অসুস্থ হতে শুরু করে। তাদের অবস্থার অবনতি হলে ১৫ জনকে রামু উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হয়।

‘আমাদের ধারণা, ওই শিক্ষার্থীরা যেহেতু উত্তরের জেলাগুলো থেকে এসেছে তাই আবহাওয়ার পরিবর্তনে এমনটা হয়েছে।’

রামু উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসা কর্মকর্তা নোবেল কুমার বড়ুয়া বলেন, ‘রাত থেকে একে একে ১৫ জন শিক্ষার্থীকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তাদের পেটে ব্যথা ও ডায়রিয়ার চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। দুজনের অবস্থা উন্নতি হওয়ায় ছেড়ে দেয়া হয়েছে। সবাই জানিয়েছে, রাতের খাবার খাওয়ার পর থেকে এমনটা হচ্ছে।’

রুশু জানান, এটি বিকেএসপির নতুন কেন্দ্র। এখনও পুরোপুরি চালু হয়নি। ক্রিকেট ও ফুটবল খেলে এমন ৮০ জন শিক্ষার্থী অস্থায়ীভাবে আছেন।

আরও পড়ুন:
অঙ্কন ‘হত্যাকারীদের’ সর্বোচ্চ শাস্তি চান শিক্ষার্থীরা
গোপনে বিয়ের দেড় মাসেই জবি শিক্ষার্থীর মৃত্যু নিয়ে রহস্য
স্নাতক শেষে দুধ দিয়ে গোসল
৩ শিক্ষার্থী‌কে বহিষ্কারের সুপা‌রিশ
টিকার দ্বিতীয় ডোজ পায়নি প্রায় ২৪ লাখ শিক্ষার্থী

মন্তব্য

খেলা
BCB will give bonus to district divisional sports body

জেলা-বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থাকে বোনাস দেবে বিসিবি

জেলা-বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থাকে বোনাস দেবে বিসিবি কক্সবাজারের হোটেল রয়েল টিউলিপে শুক্রবার বিকেলে ক্রীড়া সংগঠকদের ঈদ পুনর্মিলনীতে বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। ছবি: সংগৃহীত
প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে জেলা ও বিভাগীয় ক্রীড়া সংগঠক পরিষদের নেতাদের সাক্ষাতের ব্যবস্থা করে দেয়ার প্রতিশ্রুতি দেন বিসিবি সভাপতি। ওই সময় রুটিন অনুদানের বাইরে বিসিবির পক্ষ থেকে একটি বিশেষ বোনাসের ঘোষণা দেন বোর্ড সভাপতি।

জেলা ও বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থাকে দুই লাখ টাকা করে বোনাস দিতে যাচ্ছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

আনুষ্ঠানিকভাবে এই ঘোষণা দেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন।

কক্সবাজারে হোটেল রয়েল টিউলিপে শুক্রবার বিকেলে ক্রীড়া সংগঠকদের ঈদ পুনর্মিলনীতে ক্রিকেট বোর্ড থেকে পৃষ্ঠপোষকতার প্রতিশ্রুতি দেন বিসিবি সভাপতি।

পাপন বলেন, ‘আপনারা চার-পাঁচটা খেলা চিহ্নিত করেন। পাঁচ বছর মেয়াদি পরিকল্পনা তৈরি করে বিসিবিতে পাঠান। শাহেদ ভাইকে (বাংলাদেশ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশনের মহাসচিব) সঙ্গে নিয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে যাব। আমার ধারণা, আপনাদের সমস্যা থাকার কথা নয়।’

তিনি বলেন, ‘যেখানে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী এতটা খেলাধুলা বান্ধব, এ রকম একজন প্রধানমন্ত্রীকে পেয়ে যদি উনাকে কাজে লাগাতে না পারি, তার চেয়ে দুঃখজনক আর কী হতে পারে।

‘এই জায়গাটা কাজে লাগাতে হবে। উনার সঙ্গে কথা বলে আপনাদের সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করব।’

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে জেলা ও বিভাগীয় ক্রীড়া সংগঠক পরিষদের নেতাদের সাক্ষাতের ব্যবস্থা করে দেয়ারও প্রতিশ্রুতি দেন বিসিবি সভাপতি। ওই সময় রুটিন অনুদানের বাইরে বিসিবির পক্ষ থেকে একটি বিশেষ বোনাসের ঘোষণা দেন বোর্ড সভাপতি।

পাপন বলেন, ‘আজ এত সুন্দর একটা অনুষ্ঠানে আমাকে ডাকার জন্য আমি অত্যন্ত খুশি হয়েছি। শাহেদ ভাইয়ের সঙ্গে এর আগে কখনও এমন অনুষ্ঠানে যাইনি আমি।

‘সেই খুশি থেকে স্পেশাল বোনাস হিসেবে ২ লাখ টাকা করে দেয়ার ঘোষণা দিলাম।’

এর বাইরেও জটিল কিডডি রোগে আক্রান্ত শেরপুর জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক নাজিমুল হকের চিকিৎসায় বিসিবি থেকে ৫ লাখ টাকা আর্থিক অনুদানের ঘোষণা দেন সভাপতি।

এই ক্রীড়া সংগঠকের চিকিৎসায় জেলা ও বিভাগীয় ক্রীড়া সংগঠক পরিষদও ২ লাখ টাকা আর্থিক অনুদানের ঘোষণা দিয়েছে।

আরও পড়ুন:
নির্বাচনে ভিন্নতায় সন্তুষ্ট পাপন
আবার বিসিবিতে পাপন-সুজন
বিসিবিতে ভোট চলছে
আজ ক্রিকেট বোর্ডের নির্বাচন
নতুনদের নিয়ে আশাবাদী পাপন

মন্তব্য

খেলা
Combined in the bond of friendship in sports

খেলাধুলায় বন্ধুত্বের বন্ধনে মিলিত

খেলাধুলায় বন্ধুত্বের বন্ধনে মিলিত ব্যাচ ১৯৭৮ বনাম শিক্ষকদের মধ্যকার ভলিবল ম্যাচ। ছবি: নিউজবাংলা
খেলাধুলার ফাঁকে সিনিয়র-জুনিয়র ও ব্যাচের বন্ধুদের সঙ্গে ভ্রাতৃত্বের বন্ধনে একেকজন একেকভাবে সময় কাটান। বহুদিন পর প্রিয় বন্ধুদের কাছে পেয়ে বাঁধভাঙা প্রাণের উল্লাসে মেতে ওঠেন সবাই। জমে ওঠে হাসি, ঠাট্টা, গল্প আর আড্ডা।

উৎসবমুখর পরিবেশে ময়মনসিংহ জিলা স্কুল হোস্টেল মাঠে উদ্বোধন হয়ে গেল প্রথম এমজেডএস এক্স-স্টুডেন্টস ফুটসাল ও ভলিবল টুর্নামেন্ট।

এমজেডএস এক্স-স্টুডেন্টস স্পোর্টস ক্লাব আয়োজিত শুক্রবার সকালে টুর্নামেন্টের উদ্বোধন করেন স্কুলের প্রধান শিক্ষক মোহসিনা খাতুন। এ সময় স্কুলের প্রাক্তন শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

সকাল ৯টায় ব্যাচ ২০০৩ বনাম ২০০৭-এর ফুটসাল খেলা এবং সকাল ১০টায় ব্যাচ ১৯৭৮ বনাম শিক্ষকদের ভলিবল ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়।

প্রথম দিন এসএসসি ১৯৭১ থেকে ২০২১ পর্যন্ত ৪৫টি ব্যাচের মধ্যে ফুটসালে ২০টি এবং ভলিবলে সাতটি টিম অংশগ্রহণ করে।

খেলাধুলায় বন্ধুত্বের বন্ধনে মিলিত

খেলাধুলার ফাঁকে সিনিয়র-জুনিয়র ও ব্যাচের বন্ধুদের সঙ্গে ভ্রাতৃত্বের বন্ধনে একেকজন একেকভাবে সময় কাটান। বহুদিন পর প্রিয় বন্ধুদের কাছে পেয়ে বাঁধভাঙা প্রাণের উল্লাসে মেতে ওঠেন সবাই। জমে ওঠে হাসি, ঠাট্টা, গল্প আর আড্ডা।

আরও পড়ুন:
শেষ হলো কেএসআরএম গলফ টুর্নামেন্ট
দেশে প্রথমবারের মতো ই-স্পোর্টস টুর্নামেন্ট
শেষ হলো পুলিশ কমিশনারস টেনিস টুর্নামেন্ট

মন্তব্য

খেলা
Golartek playground is occupied by the police station

থানার দখলে গোলারটেক খেলার মাঠ

থানার দখলে গোলারটেক খেলার মাঠ এক যুগের বেশি সময় মিরপুরের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের গোলারটেক খেলার মাঠের এক অংশ জব্দকৃত গাড়ি দিয়ে দখলে করে রেখেছে দারুস সালাম থানা। ছবি: নিউজবাংলা
দারুস সালাম থানা গঠনের দুই বছর পর থেকে জব্দকৃত গাড়ি দিয়ে মাঠ ভরা শুরু হয়। এক যুগের বেশি সময় ধরে মিরপুরের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের গোলারটেক খেলার মাঠের এক অংশ এ থানার দখলে।

বছরের পর বছর যায়। গাড়ি কমে আর বাড়ে। আশ্বাসের পর আশ্বাস। তবুও গাড়িমুক্ত হয় না রাজধানীর মিরপুরের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের গোলারটেক খেলার মাঠ।

এক যুগ ধরে মাঠের একাংশ জব্দ করা গাড়ি দিয়ে দখল করে রেখেছে দারুস সালাম থানা।

শুধু পুলিশ নয়, অবৈধভাবে সরকারি জমিতে গড়ে উঠেছে জিবি এইচ বি ক্লাব আর সূচনা সমবায় সমিতির অফিস। এর মধ্যে সূচনার নামে জায়গা দখলের অভিযোগ উঠেছে কাউন্সিলর মুজিব সরোয়ার মাসুমের বিরুদ্ধে।

চার একর জায়গা নিয়ে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের সবচেয়ে বড় খেলার মাঠ এটি। স্থানীয়ভাবে এটি গোলারটেক মাঠ নামে পরিচিত। ২০০৮ সালের ২৩ আগস্ট মিরপুর থানার কিছু এলাকা নিয়ে দারুস সালাম থানা গঠন হয়।

থানার দখলে গোলারটেক খেলার মাঠ

শতাধিক জব্দকৃত গাড়ি দিয়ে গোলারটেক খেলার মাঠের এক অংশ দখল করে রেখেছে দারুস সালাম থানা। ছবি: নিউজবাংলা

স্থানীয়দের অভিযোগ, থানা গঠনের দুই বছর পরই জব্দকৃত গাড়ি দিয়ে তারা মাঠ ভরতে শুরু করে। সে হিসাবে এক যুগের বেশি সময় ধরে এই প্রক্রিয়া অব্যাহত আছে।

ঢাকা উত্তর সিটির মেয়র আতিকুল ইসলামসহ স্থানীয়রা এই মাঠ গাড়িমুক্ত করার দাবি জানিয়ে আসার পর থানার পক্ষ থেকে আশ্বাস দেয়া হয়, তবে এর বাস্তবায়ন দেখা যায়নি।

পুলিশ কর্মকর্তারা জানান, মামলার জব্দকৃত আলামত হিসেবে গাড়িগুলো ওখানেই রাখা হয়েছে। থানার নিজস্ব কোনো জায়গা নাই। জায়গা পেলেই গাড়িগুলো সরিয়ে ফেলা হবে।

তারা আরও জানান, বিকল্প জায়গা দেয়ার জন্য সিটি করপোরেশনকে চিঠি দিয়েছেন তারা, কিন্তু জায়গা পাওয়া যায়নি।

অন্যদিকে ঢাকা উত্তর সিটির প্রধান সম্পত্তি কর্মকর্তা এ বিষয়ে জানেনই না।

ক্লাবের নামে জায়গা দখলের বিষয়ে স্থানীয় কাউন্সিলর জানান, সরকারের প্রয়োজন হলে তারা সবাই উঠে যাবে।

সম্প্রতি এই মাঠে গিয়ে দেখা যায়, মাঠের দক্ষিণ-পশ্চিম অংশে রাখা হয়েছে জব্দকৃত যানবাহন। ১০টি ট্রাক, এক ডজনের মতো বাস। এ ছাড়া সিএনজিচালিত অটোরিকশা, মিনিবাস, প্রাইভেট কার, পিকআপ ভ্যান, লেগুনা, মোটরসাইকেল, রিকশা মিলিয়ে ৫০টির বেশি যানবাহন পড়ে আছে।

অন্য পাশে জিবি এইচ বি ক্লাব আর সূচনা সমবায় সমিতি অফিস। তার পাশে বিরাট অংশজুড়ে স্থানীয় প্রভাবশালীরা স্থায়ী ব্যাডমিন্টন কোর্ট তৈরি করে নেট দিয়ে ঘিরে রেখেছেন। মাঠে খেলতে আসা মানুষজন সে জায়গাটি ব্যবহার করতে পারছেন না।

থানার দখলে গোলারটেক খেলার মাঠ

গোলারটেক খেলার মাঠের এক অংশ দারুস সালাম থানার দখলে। ছবি: নিউজবাংলা

রাসেল আহমেদ রাকিব নামের একজন বলেন, ‘ওই দিকে গাড়ি রাখায় কেউ খেলতে আসে না৷ পাঁচ থেকে ছয় বছর ধরে এ রকম গাড়ি দেখছি। কারে বলব? বললে লাভ হবে কী?’

এক বছর ধরে গোলারটেক মাঠের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা আনসার সদস্য মানিক খান নিউজবাংলাকে বলেন, ‘গাড়ির কোর্টে মামলা আছে। তাই এইখানে ফালাইয়া রাখছে। দারুস সালাম থানার গাড়ি এটা৷’

গোলারটেক মাঠে খেলতে আসা মোহাম্মাদপুর সরকারি কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র শাহরিয়ার মনন নিউজবাংলাকে বলেন, ‘মিরপুর এলাকায় খেলার মাঠ কোথাও নেই। পুলিশ জনগণের বন্ধু, তারা যখন জায়গা দখল করে, জনগণ কোথায় যাবে? আমরা মাঠে খেলার জায়গা চাই।’

সেন্ট জোসেফ কলেজে উচ্চ মাধ্যমিক পড়ুয়া মারুফ হোসেন বলেন, ‘পাশে থানা হওয়ার কিছুদিন পর থেকে এই মাঠে একটা একটা করে গাড়ি ঢুকতেছে। এটা মাঠের জায়গা; থানার জায়গা না।

‘পাশেই সহকারী পুলিশ কমিশনার দারুস সালাম জোনের জায়গা আছে। সেইখানে গাড়ি রাখুক। আমাদের মাঠে কেন? রাজনৈতিক প্রভাবশালীরা ব্যাডমিন্টন কোর্ট বানায় তা নেট (জাল) দিয়ে দখল করছে। বাগবাড়ি, হরিরামপুর এলাকার প্রভাবশালীরা এটা করছে।’

সরকারি জমিতে ক্লাব বানানোর ব্যাপারে তিনি বলেন, ‘এই ক্লাব থাকতে পারে। এরা খেলাধুলার আয়োজন করে।’

এ বিষয়ে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের স্থানীয় কাউন্সিলর মুজিব সারোয়ার মাসুম নিউজবাংলাকে জানান, গাড়ি সরানোর ব্যাপারে তিনি অনেক চেষ্টা করেছেন। মেয়র চেষ্টা করেছেন। পুলিশের যুগ্ম কমিশনারের সঙ্গে কথা হয়েছে। ডিসি ট্রাফিকের সঙ্গে কথা হয়েছে। তারা শুধু আশ্বাস দিয়েছেন, কিন্তু কাজ হয়নি।

তিনি বলেন, ‘মেয়র নিজে মাঠে আইসা তারপর কথা বলছে। তবুও মাঠ থেকে গাড়ি সরায় নাই।’

কাউন্সিলরের বিরুদ্ধেও মাঠ দখলের অভিযোগ

সূচনা সমবায় সমিতির নামে ব্যক্তিগত অফিস বানিয়ে মাঠের একাংশ দখলের অভিযোগ উঠেছে কাউন্সিলর মুজিব সারোয়ার মাসুমের বিরুদ্ধে। তিনি অবশ্য এ অভিযোগ মানতে নারাজ।

‘সূচনা সমবায় সমিতির নামে আপনার বিরুদ্ধে জায়গা দখলের অভিযোগ রয়েছে?’

এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘এই মাঠ যখন পাবলিকের দখলে ছিল, তখনকার সমবায় সমিতি অফিস। ৩০ বছর আগে। তখন এখানে মাঠই ছিল না। এটা বস্তি ছিল।

‘বস্তি উচ্ছেদ করে মাঠ রক্ষায় সমিতি ও ক্লাবের অবদান আছে। সমবায় সমিতি ও ক্লাব মাঠের জায়গা দখল করে নাই; বরং মাঠ প্রতিষ্ঠা করছে। সরকারের যখন প্রয়োজন হবে, তখন এরা উঠে যাবে।’

পুলিশ বলছে দুই ধরনের কথা

দারুস সালাম থানার ওসি তোফায়েল আহমেদ নিউজবাংলার কাছে দাবি করেন, গোলারটেক মাঠের সব গাড়ি দারুস সালাম থানা রাখেনি। স্থানীয় কাউন্সিলরের গাড়িই বেশি।

পুলিশের মিরপুর বিভাগের উপকমিশনার (ডিসি) আ স ম মাহাতাব উদ্দিন নিউজবাংলাকে বলেন, ‘এই গাড়িগুলো দারুস সালাম থানার নয়, মামলার আলামত। আলামত বিষয়টা কোর্টের ব্যাপার। আমরা কোর্টে চিঠিও দিয়েছি।

‘সিটি করপোরেশনের কাছে জায়গাও চেয়েছি। আদালতকে অবগত করার পাশাপাশি সিটি করপোরেশনের কাছে জায়গাও চেয়েছি আলামতগুলো রাখতে। জায়গা পেলে গাড়িগুলো সরে যাবে। ১০ বছরেও সিটি করপোরেশন জায়গা না দিলে আমরা কী করব?’

সিটি করপোরেশন জানে না মাঠ দখল হয়েছে

মিরপুরে ৯ নম্বর ওয়ার্ডের মাঠ ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের, তবে উত্তর সিটি করপোরেশনের প্রধান সম্পত্তি কর্মকর্তা জানেনই না তাদের মালিকানাধীন মাঠ দখল হয়েছে।

মাঠ দখলের বিষয়ে জানতে চাইলে উত্তর সিটির প্রধান সম্পত্তি কর্মকর্তা (যুগ্ম সচিব) মোজাম্মেল হক নিউজবাংলাকে বলেন, ‘আমার জানা নেই। লিখিত অভিযোগ আসলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

আরও পড়ুন:
বাস টার্মিনাল দখলে শ্রমিকদের ২ গ্রুপে ধাওয়া
বীর মুক্তিযোদ্ধার জমি ‘দখল’
কুড়িগ্রামে স্কুলের জায়গা দখল করে দোকান
রাজধানীতে মন্দির সংলগ্ন ঘরে হামলার অভিযোগ

মন্তব্য

উপরে