× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ পৌর নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য

খেলা
After a decade and a half the BCB plans to award the best of the year
hear-news
player
print-icon

দেড় দশক পর বর্ষসেরা পুরস্কারের পরিকল্পনা বিসিবির

দেড়-দশক-পর-বর্ষসেরা-পুরস্কারের-পরিকল্পনা-বিসিবির সাউথ আফ্রিকার বিপক্ষে ম্যান অফ দ্য ম্যাচ ও সিরিজ হন তাসকিন আহমেদ। ছবি: এএফপি
১৫ বছর পর এসে আবারও বর্ষসেরা অ্যাওয়ার্ড নাইট আয়োজনের পরিকল্পনা করছে বিসিবি। এমনটা জানিয়েছেন বিসিবির ক্রিকেট অপারেশন্সের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ জালাল ইউনুস।

বিশ্বের প্রায় প্রতিটি ক্রিকেট বোর্ড বর্ষসেরা ক্রিকেটারদের পুরস্কৃত করে আসছে। ব্যতিক্রম বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের বেলায়। সবশেষ ২০০৭ সালে বিসিবি বর্ষসেরা ক্রিকেটারদের স্বীকৃতি দিতে আয়োজন করে বিসিবি অ্যাওয়ার্ডস নাইট। এরপর বন্ধ হয়ে গেছে এর কার্যক্রম।

সেবার সেরা ক্রিকেটার নির্বাচিত হন শাহরিয়ার নাফিস। সেরা বোলার ও অলরাউন্ডার হন মোহাম্মদ রফিক। এরপর ১৫ বছর এমন কোনো অনুষ্ঠান আয়োজন করেনি বোর্ড।

১৫ বছর পর এসে আবারও বর্ষসেরা অ্যাওয়ার্ড নাইট আয়োজনের পরিকল্পনা করছে বিসিবি। এমনটা জানিয়েছেন বিসিবির ক্রিকেট অপারেশন্সের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ জালাল ইউনুস।

তবে বোর্ড সিদ্ধান্ত নিতে পারছে না নতুন করে চলমান বছরের পুরস্কার দেয়া হবে নাকি আয়োজন না হওয়া বছরগুলোকেও বিবেচনায় এনে বড় পরিসরে আয়োজন করবে। মঙ্গলবার রাজধানীর ওসমানী মিলনায়তনে জাতীয় ক্রীড়া পুরস্কার নিতে গিয়ে সংবাদ মাধ্যমের সঙ্গে কথা বলেন জালাল ইউনুস।

তিনি বলেন, ‘অ্যাওয়ার্ড নাইটটা আমরা আগে করেছি। অনেকদিনের বিরতি হয়ে গেছে। প্রায় ১৫-১৬ বছর ধরে অ্যাওয়ার্ডটা দেওয়া হচ্ছে না। এটা নিয়ে কয়েকবার বোর্ড মিটিংয়ে কথা বলেছি। পেছন থেকে অ্যাওয়ার্ডগুলো দেয়া শুরু করব নাকি নতুন করে চলমান বছরের অ্যাওয়ার্ড দিব সেটা নিয়ে দ্বিধায় আছি। আমার মনে হয় আপনারা খুব শীঘ্রই এই অ্যাওয়ার্ড নাইটটা দেখতে পারবেন।’

এবার জাতীয় ক্রীড়া পুরস্কারে গত ৮ বছরের পুরস্কার এক সঙ্গে দেয়া হয়েছে। সাবেক ক্রিকেটার ও সংগঠক জালাল ইউনুস পুরস্কার পেয়েছেন ২০১৬ সালের সেরা ক্রীড়া সংগঠক হিসেবে। এই পুরস্কার তাকে মৃত্যুর আগ পর্যন্ত ক্রিকেট নিয়ে কাজ করতে অনুপ্রাণিত করবে বলে জানান তিনি।

আরও পড়ুন:
করোনা আক্রান্ত সাকিব, খেলবেন না প্রথম টেস্ট
বিজয়, মোসাদ্দেকরা বিসিবির প্রক্রিয়ার অংশ
মুশফিককে বাদ দেয়ার কথা ভাবছেন না নির্বাচকরা

মন্তব্য

আরও পড়ুন

খেলা
Tamim Mushfiq and Litons improvement in ranking

র‍্যাঙ্কিংয়ে উন্নতি তামিম, মুশফিক ও লিটনের

র‍্যাঙ্কিংয়ে উন্নতি তামিম, মুশফিক ও লিটনের ঢকা টেস্টে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে মুশফিক-লিটনের সেঞ্চুরি উদযাপন। ছবি: বিসিবি
৩৩ থেকে ২৭ তম অবস্থানে উঠে এসেছেন তামিম।  তিন ধাপ উঠে এসেছেন লিটন দাস। ৬৬২ রেটিং পয়েন্ট নিয়ে র‍্যাঙ্কিংয়ের ১৭ নম্বরে অবস্থান করছেন ডানহাতি এই ব্যাটার। ৪ ধাপ এগিয়ে ২৫ নম্বরে অবস্থান করছেন মুশফিকুর রহিম।

আইসিসি টেস্ট র‍্যাঙ্কিংয়ে ব্যাটিং তালিকায় উন্নতি হয়েছে বাংলাদেশের তামিম ইকবাল, মুশফিকুর রহিম ও লিটন দাসের। শ্রীলংকার বিপক্ষে চট্টগ্রাম টেস্টে বাংলাদেশের প্রথম ইনিংসে সেঞ্চুরি করেন তামিম ইকবাল ও মুশফিকুর রহিম।

তামিম ১৩৩ ও মুশফিক ১০৫ রান করেন। বাংলাদেশের প্রথম ব্যাটার হিসেবে ৫ হাজার রানও পূর্ণ করেন মুশফিক। ঐ ইনিংসে ৮৮ রান করেন লিটন। ফলে আইসিসি তালিকায় উন্নতি হয়েছে এ তিন ব্যাটারের।

বুধবার প্রকাশিত আইসিসির টেস্ট র‍্যাঙ্কিংয়ে ৩৩ থেকে ২৭ তম অবস্থানে উঠে এসেছেন তামিম। তিন ধাপ উঠে এসেছেন লিটন দাস। ৬৬২ রেটিং পয়েন্ট নিয়ে র‍্যাঙ্কিংয়ের ১৭ নম্বরে অবস্থান করছেন ডানহাতি এই ব্যাটার। ৪ ধাপ এগিয়ে ২৫ নম্বরে অবস্থান করছেন মুশফিকুর রহিম।

চট্টগ্রাম টেস্টে ছয় উইকেট নিয়েছিলেন নাঈম হাসান। একই সঙ্গে বল হাতে আলো ছড়ান সাকিবও।

দ্বিতীয় টেস্টে সেঞ্চুরির দেখা পেয়েছেন মুশফিক। শতক হাঁকিয়েছেন লিটন দাসও। দলকে খাদের কিনারা থেকে এই দুই ব্যাটার টেনে নিয়ে গেছেন নিরাপত্তার দিকে।

সিরিজ জুড়ে দুর্দান্ত পারফরম্যান্সের কারণে র‍্যাঙ্কিংয়ে উন্নতি হয়েছে তামিম, লিটন, মুশফিক, সাকিব ও নাঈমের।

হালনাগাদ হওয়া বোলারদের নতুন র‍্যাঙ্কিংয়ে একধাপ এগিয়েছেন সাকিব আল হাসান। ৫৭০ রেটিং পয়েন্ট নিয়ে তার অবস্থান ২৯ নম্বরে। আর র‍্যাঙ্কিংয়ে ৯ ধাপ উন্নতি করে ৫৩তে অবস্থান করছেন নাঈম।

আরও পড়ুন:
মিরপুরে ৪ ঘণ্টা পর আবারও শুরু খেলা
বৃষ্টিতে ধুয়ে গেল দ্বিতীয় সেশন
প্রথম ইনিংসে যতটা সম্ভব বড় লিডের চেষ্টা থাকবে: লিটন

মন্তব্য

খেলা
The game rolled on the field 4 hours after the rain stopped

মিরপুরে ৪ ঘণ্টা পর আবারও শুরু খেলা

মিরপুরে ৪ ঘণ্টা পর আবারও শুরু খেলা তৃতীয় দিন শেষ সেশনে ব্যাট করছেন অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস। ছবি: এএফপি
বেলা ১২টায় বৃষ্টির কারণে বন্ধ হয়ে যায় খেলা। সেই সময় ঘোষণা করা হয় মধ্যাহ্ন বিরতিও। ৪০ মিনিট বিরতির জন্য নির্ধারিত থাকলেও বৃষ্টি না থামায় মাঠে নামা হয়নি ক্রিকেটারদের। একইসঙ্গে বৃষ্টিতে ধুয়ে যায় পুরো দ্বিতীয় সেশনের খেলা।

ঢাকা টেস্টের তৃতীয় দিন মধ্যাহ্ন বিরতির ঠিক আগ মুহূর্তে বৃষ্টি বাধায় বন্ধ হয়ে যায় খেলা। বৃষ্টিতে ৪ ঘণ্টা বন্ধ থাকার পর অবশেষে মাঠে নেমেছে দুই দল। বন্ধ হওয়ার আগ পর্যন্ত প্রথম সেশনে শ্রীলঙ্কার সংগ্রহ ছিল ৪ উইকেটের খরচায় ২১০ রান।

দ্বিতীয় টেস্টের তৃতীয় দিনের প্রথম ওভারে কাসুন রাজিথাকে ফিরিয়ে শুভসূচনা করেন এবাদত হোসেন। ওভারের দ্বিতীয় বলে তাকে বোল্ড করে পতন ঘটান লঙ্কানদের তৃতীয় উইকেটের।

এরপর উইকেটের একপ্রান্ত আগলে সেঞ্চুরির দিকে ব্যাট চালাতে শুরু করা দিমুথ করুনারত্নেকে ফেরান সাকিব। দুর্দান্ত এক আর্ম বলে বিভ্রান্ত হয়ে স্টাম্প হারান লঙ্কান দলপতি।

মাঠ ছাড়ার আগে তার ব্যাট থেকে আসে ৮০ রান। এর মধ্য দিয়ে ১৬৪ রানে চতুর্থ উইকেটের পতন ঘটে শ্রীলঙ্কার।

এরপর বেলা ১২টায় বৃষ্টির কারণে বন্ধ হয়ে যায় খেলা। সেই সময় ঘোষণা করা হয় মধ্যাহ্ন বিরতিও। ৪০ মিনিট বিরতির জন্য নির্ধারিত থাকলেও বৃষ্টি না থামায় মাঠে নামা হয়নি ক্রিকেটারদের। একইসঙ্গে বৃষ্টিতে ধুয়ে যায় পুরো দ্বিতীয় সেশনের খেলা।

বৃষ্টি থামার পর ২টা ৩৮ মিনিট থেকে শুরু হয় মাঠের কভার সরিয়ে নেয়ার প্রক্রিয়া। প্রায় ৪ ঘণ্টা বন্ধ থাকার পর বিকেল ৩টা ৫৮ মিনিটে শুরু হয় তৃতীয় সেশনের খেলা।

আরও পড়ুন:
৬ ডাক ও ২ সেঞ্চুরির অনন্য রেকর্ড মুশফিকদের
৩৬৫ রানে গুটিয়ে গেল বাংলাদেশ
চার উইকেট হারিয়ে মধ্যাহ্ন বিরতিতে বাংলাদেশ
মুশফিকের দেড় শতে বড় সংগ্রহের পথে বাংলাদেশ
দিনের শুরুতেই রাজিথার জোড়া আঘাত

মন্তব্য

খেলা
Two teams at lunch break with rain on their heads

বৃষ্টিতে ধুয়ে গেল দ্বিতীয় সেশন

বৃষ্টিতে ধুয়ে গেল দ্বিতীয় সেশন বৃষ্টিতে মাঠ ছাড়ছেন বাংলাদেশ দলের খেলোয়াড়রা। ছবি: এএফপি
প্রথম সেশনে শ্রীলঙ্কার সংগ্রহ ৪ উইকেটের খরচায় ২১০ রান। এখনও বাংলাদেশের চেয়ে ১৫৫ রানে পিছিয়ে আছে লঙ্কানরা।

ঢাকা টেস্টের তৃতীয় দিন আঘাত হেনেছে বৃষ্টি। বেলা ১২টায় বৃষ্টি হানা দেয়ায় বন্ধ করে দেয়া হয় খেলা। আম্পায়াররা মধ্যাহ্ন বিরতির ঘোষণা করে দেন। এরপর বৃষ্টি না কমায় দ্বিতীয় সেশনেও আর খেলা হয়নি।

বুধবার প্রথম সেশনে শ্রীলঙ্কার সংগ্রহ ৪ উইকেটের খরচায় ২১০ রান। এখনও বাংলাদেশের চেয়ে ১৫৫ রানে পিছিয়ে আছে লঙ্কানরা।

দিনের প্রথম ওভারে কাসুন রাজিথাকে ফেরান এবাদত। ওভারের দ্বিতীয় বলে তাকে বোল্ড করে পতন ঘটান লঙ্কানদের তৃতীয় উইকেটের।

এরপর উইকেটের একপ্রান্ত আগলে সেঞ্চুরির দিকে ব্যাট চালাতে শুরু করা দিমুথ করুনারত্নেকে ফেরান সাকিব। দুর্দান্ত এক আর্ম বলে বিভ্রান্ত হয়ে স্টাম্প হারান লঙ্কান দলপতি।

মাঠ ছাড়ার আগে তার ব্যাট থেকে আসে ৮০ রান। এর মধ্য দিয়ে ১৬৪ রানে চতুর্থ উইকেটের পতন ঘটল শ্রীলঙ্কার।

এর আগে প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশের করা ৩৬৫ রানের জবাবে দ্বিতীয় দিন শেষে ২ উইকেট হারিয়ে লঙ্কানদের সংগ্রহ ১৪৩ রান। বাংলাদেশ দিনের দ্বিতীয় সেশনে ৩৬৫ রানে অলআউট হয়ে যায়।

আরও পড়ুন:
প্রথম ইনিংসে যতটা সম্ভব বড় লিডের চেষ্টা থাকবে: লিটন
নিজের ব্যাটিং পজিশন নিয়ে সন্তুষ্ট লিটন
দ্বিতীয় দিনশেষে সমানে সমান বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা

মন্তব্য

খেলা
Shakibs second blow in the Lankan camp

লঙ্কান শিবিরে দ্বিতীয় আঘাত সাকিবের

লঙ্কান শিবিরে দ্বিতীয় আঘাত সাকিবের উইকেট শিকারের পর সতীর্থদের সঙ্গে সাকিবের উদযাপন। ছবি: বিসিবি
উইকেটের এক প্রান্ত আগলে সেঞ্চুরির দিকে ব্যাট চালাতে শুরু করা দিমুথ কারুনারত্নেকে ফেরান সাকিব। দুর্দান্ত এক আর্ম বলে বিভ্রান্ত হয়ে স্টাম্প হারান লঙ্কান দলপতি।

ঘরের উইকেটের সুযোগ কাজে লাগিয়ে তৃতীয় দিনের প্রথম ঘণ্টাতেই লঙ্কানদের দুই উইকেট তুলে নিয়েছে বাংলাদেশ। শ্রীলঙ্কার শিবিরে দিনের শুরুতে এবাদতের আঘাতের পর উইকেট পেয়েছেন সাকিব আল হাসান।

দিনের প্রথম ওভারেই কাসুন রাজিথাকে ফেরান এবাদত। দ্বিতীয় বলেই তাকে বোল্ড করে পতন ঘটান লঙ্কানদের তৃতীয় উইকেটের।

এরপর উইকেটের এক প্রান্ত আগলে সেঞ্চুরির দিকে ব্যাট চালাতে শুরু করা দিমুথ কারুনারত্নেকে ফেরান সাকিব। দুর্দান্ত এক আর্ম বলে বিভ্রান্ত হয়ে স্টাম্প হারান লঙ্কান দলপতি।

মাঠ ছাড়ার আগে তার ব্যাট থেকে আসে ৮০ রান। এর মধ্য দিয়ে ১৬৪ রানে চতুর্থ উইকেটের পতন ঘটল শ্রীলঙ্কার।

এর আগে প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশের করা ৩৬৫ রানের জবাবে দ্বিতীয় দিন শেষে ২ উইকেট হারিয়ে লঙ্কানদের সংগ্রহ ১৪৩ রান।

আরও পড়ুন:
দিনের শুরুতেই আঘাত এবাদতের
দুই ওভারে দুই উইকেট হারাল বাংলাদেশ

মন্তব্য

খেলা
Worship at the beginning of the day

দিনের শুরুতেই আঘাত এবাদতের

দিনের শুরুতেই আঘাত এবাদতের দিনের শুরুতে বাংলাদেশকে ব্রেকথ্রু এনে দিয়ে উদযাপন এবাদতের। ছবি: সংগৃহীত
১৪৩ রানে দুই উইকেট হারিয়ে সুবিধাজনক অবস্থানে থেকে দ্বিতীয় দিন শেষ করেছিল শ্রীলঙ্কা। তৃতীয় দিনের প্রথম বলে দিমুথ কারুনারত্নে সিঙ্গেল নিয়ে ব্যাট করতে পাঠান রাজিথাকে। দ্বিতীয় বলেই তাকে বোল্ড করেন এবাদত।

ঢাকা টেস্টের তৃতীয় দিনের শুরুতেই বাংলাদেশের হয়ে শুভ সূচনা করেছেন পেইসার এবাদত হোসেন। দিনের প্রথম ওভারেই কাসুন রাজিথাকে ফিরিয়ে পতন ঘটান লঙ্কানদের তৃতীয় উইকেটের। এর মধ্য দিয়ে ১৪৪ রানে তিন উইকেট হারাল শ্রীলঙ্কা।

১৪৩ রানে দুই উইকেট হারিয়ে সুবিধাজনক অবস্থানে থেকে দ্বিতীয় দিন শেষ করেছিল শ্রীলঙ্কা। তৃতীয় দিনের প্রথম বলে দিমুথ কারুনারত্নে সিঙ্গেল নিয়ে ব্যাট করতে পাঠান রাজিথাকে।

দ্বিতীয় বলেই তাকে বোল্ড করেন এবাদত। আর সেই সঙ্গে পতন ঘটান লঙ্কানদের তৃতীয় উইকেটের।

এর আগে প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশের করা ৩৬৫ রানের জবাবে দ্বিতীয় দিন শেষে ২ উইকেট হারিয়ে লঙ্কানদের সংগ্রহ ১৪৩ রান। বাংলাদেশ দিনের দ্বিতীয় সেশনে ৩৬৫ রানে অলআউট হয়ে যায়।

আরও পড়ুন:
দুই ওভারে দুই উইকেট হারাল বাংলাদেশ

মন্তব্য

খেলা
The first inning will have to try to have as big a lead as possible Liton

প্রথম ইনিংসে যতটা সম্ভব বড় লিডের চেষ্টা থাকবে: লিটন

প্রথম ইনিংসে যতটা সম্ভব বড় লিডের চেষ্টা থাকবে: লিটন বাংলাদেশের বিপক্ষে শট খেলছেন ওশাদা ফার্নান্দো। ছবি: এএফপি
কাগজ-কলমের হিসাবে বেশ সুবিধাজনক অবস্থানে থেকে দিন শেষ করলেও জাতীয় দলের উইকেটরক্ষক ব্যাটার লিটন দাস মনে করছেন বাংলাদেশের চেয়ে এখনও শ্রীলঙ্কা অনেক পিছিয়ে রয়েছে।

বাংলাদেশের করা প্রথম ইনিংসে ৩৬৫ রানের জবাবে ব্যাট করতে নেমে ২২২ রানে পিছিয়ে থেকে দ্বিতীয় দিনের খেলা শেষ করেছে শ্রীলঙ্কা। দলীয় সংগ্রহ ১৪৩ রান তুলতে তাদের হারাতে হয়েছে মাত্র দুটি উইকেট।

কাগজ-কলমের হিসাবে বেশ সুবিধাজনক অবস্থানে থেকে দিন শেষ করলেও জাতীয় দলের উইকেটকিপার ব্যাটার লিটন দাস মনে করছেন বাংলাদেশের চেয়ে এখনও শ্রীলঙ্কা অনেক পিছিয়ে রয়েছে।

হোম অফ ক্রিকেটে প্রথম দুই দিনের খেলার প্রথম সেশনে বোলারদের রাজত্ব থাকলেও দিন বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে পাল্লাটা ভারী হয় ব্যাটারদের দিকে। আর তৃতীয় দিনের শুরুতে সেই সুযোগটা কাজে লাগিয়ে দ্রুত কয়েকটি উইকেট তুলে নিয়ে নিজেদের আরও একধাপ এগিয়ে দেয়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন লিটন।

পাশাপাশি প্রথম ইনিংসেই লিডের বাগিয়ে নেয়ার দিকে চোখ রেখেই তৃতীয় দিনের খেলা শুরু করতে চান তিনি।

লিটন বলেন, ‘এখনও শ্রীলঙ্কা অনেকটা পিছিয়ে আছে। আমরা কাল সকালে যদি এক-দুটি উইকেট নিতে পারি তো অনেরকখানি এগিয়ে থাকব। এখানে প্রথম ইনিংসটা খুব গুরুত্বপূর্ণ। ওরা যদি আমাদের ক্লোজ হয় বা এগিয়ে যায় তাহলে আমরা ব্যাকফুটে পড়ে যাব। তো এই ইনিংসে যতখানি লিড নেয়া যায় সেই চেষ্টা থাকবে।’

আরও পড়ুন:
মুশফিকের দেড় শতে বড় সংগ্রহের পথে বাংলাদেশ
দিনের শুরুতেই রাজিথার জোড়া আঘাত
প্রধানমন্ত্রীর ক্রিকেটপ্রেম দেখে মুগ্ধ আইসিসি সভাপতি: পাপন
ডমিঙ্গোর দেখা সেরা জুটি
বিপর্যয় সামলে ঢাকা টেস্টের নিয়ন্ত্রণে বাংলাদেশ

মন্তব্য

খেলা
Liton is satisfied with his batting position

নিজের ব্যাটিং পজিশন নিয়ে সন্তুষ্ট লিটন

নিজের ব্যাটিং পজিশন নিয়ে সন্তুষ্ট লিটন সেঞ্চুরির পথে শট খেলছেন লিটন দাস। ছবি: এএফপি
চলতি বছর ৬টি টেস্টে লিটন খেলেছেন ৯টি ইনিংস। এর ভেতর তার রয়েছে ২টি সেঞ্চুরি। সেই সঙ্গে সাউথ আফ্রিকা সিরিজ বাদে নিউজিল্যান্ড ও শ্রীলঙ্কা সিরিজে তার ব্যাট থেকে এসেছে দৃষ্টিনন্দন ইনিংস।

শুরুতে ছিলেন পুরোদস্তুর টপ অর্ডার ব্যাটার। সেখান থেকে ওপেনার। এই পজিশনে খুব একটা সন্তোষজনক রানের দেখা মিলছিল না জাতীয় দলের উইকেটকিপার ব্যাটার লিটন দাসের। ব্যাট হাতে ব্যর্থতার বেড়াজাল ছিঁড়ে বের হতেই পারছিলেন না ডানহাতি এই ব্যাটার।

এরপর ব্যাটিং অর্ডারের পরিবর্তন এনে তাকে নিয়মিত খেলানো হয় ৭ নম্বরে। এর পর থেকেই যেন খোলস ছেড়ে বেরিয়ে আসতে শুরু করেন লিটন। যার ফল চোখের সামনে।

চলতি বছর ৬টি টেস্টে লিটন খেলেছেন ৯টি ইনিংস। এর ভেতর তার রয়েছে ২টি সেঞ্চুরি। সেই সঙ্গে সাউথ আফ্রিকা সিরিজ বাদে নিউজিল্যান্ড ও শ্রীলঙ্কা সিরিজে তার ব্যাট থেকে এসেছে দৃষ্টিনন্দন ইনিংস।

ব্যাটিং অর্ডারের পরিবর্তন এনে পারফরম্যান্স দেখাতে পারায় খুশি জাতীয় দলের এই ক্রিকেটার। নিজের ব্যাটিং পজিশন নিয়ে বেশ সন্তুষ্টও তিনি। মিরপুর টেস্টে তার ও মুশফিকুর রহিমের ২৭১ রানের রেকর্ড ষষ্ঠ উইকেট জুটিতে ভর করে খাদের কিনারা থেকে বড় সংগ্রহের পথ খুঁজে পায় বাংলাদেশ। এই ম্যাচে লিটন খেলেন ১৪১ রানের দুর্দান্ত এক ইনিংস।

হোম অফ ক্রিকেটে দ্বিতীয় দিনের খেলা শেষে লিটন বলেন, ‘আমি যে এ বছর রান করলাম। কততে নেমে করছি? ভালো আছি, যেখানেই আছি।’

টপ অর্ডার হিসেবে আসলেও বনে গিয়েছেন পুরোদস্তুর লোয়ার মিডল অর্ডার ব্যাটার। দলে বাকিরা উপযুক্ত ব্যাটিং পজিশনে খেলছেন বলে তিনি নিজের ওপরের পজিশনে খেলার সম্ভাবনা দেখছেন না বলেও জানান তিনি।

লিটন বলেন, ‘আস্তে আস্তে আসতেছি তো, সুযোগ আসবে। যখন বড় ভাইরা কেউ না কেউ খেলবে না, তখন আমাকে সুযোগ দেওয়া হবে। এখন আমি সুযোগ দেখছি না ওপরে আসার মতো।’

তিনি আরও বলেন, ‘চেষ্টা তো সব সময় করি। কিন্তু কিছু সময় ব্যর্থ হই, কিছু সময় সফল হই। এটাই ক্রিকেট, এভাবেই চলতে থাকবে। আজকে ভালো করতেছি, কালকে আবার খারাপ হলে হতেও পারে। এটা মেনেই জীবন। এভাবেই চলতে থাকবে।’

আরও পড়ুন:
মুশফিকের দেড় শতে বড় সংগ্রহের পথে বাংলাদেশ
দিনের শুরুতেই রাজিথার জোড়া আঘাত
প্রধানমন্ত্রীর ক্রিকেটপ্রেম দেখে মুগ্ধ আইসিসি সভাপতি: পাপন
ডমিঙ্গোর দেখা সেরা জুটি
বিপর্যয় সামলে ঢাকা টেস্টের নিয়ন্ত্রণে বাংলাদেশ

মন্তব্য

p
উপরে