জকোভিচের চেয়ে অস্ট্রেলিয়ান ওপেন গুরুত্বপূর্ণ: নাদাল

player
জকোভিচের চেয়ে অস্ট্রেলিয়ান ওপেন গুরুত্বপূর্ণ: নাদাল

নোভাক জকোভিচ ও রাফায়েল নাদাল। ফাইল ছবি

জকোভিচ না থাকলেও অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে প্রভাব পড়বে না বলে মনে করছেন স্প্যানিশ টেনিস তারকা রাফায়েল নাদাল। সুইস তারকাকে ছাড়াও বছরের প্রথম গ্র্যান্ড স্ল্যামের জৌলুস কমবে না বলে মনে করছেন তিনি।

করোনাভাইরাস টিকা জটিলতার কারণে দ্বিতীয়বারের মতো নোভাক জকোভিচের ভিসা বাতিল করেছে অস্ট্রেলিয়ার সরকার। ফলে বছরের প্রথম গ্র্যান্ড স্ল্যাম অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে তার খেলা নিয়ে শঙ্কা আরও বেড়েছে।

বর্তমানে বিশ্বের ১ নম্বর টেনিস তারকাকে ছাড়াই যদি টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত হয় তাহলে বছরের প্রথম গ্র্যান্ড স্ল্যামের জৌলুস কমে যেতে পারে বলে শঙ্কা অনেকের।

তবে জকোভিচের থাকা না থাকায় অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে প্রভাব পড়বে না বলে মনে করছেন স্প্যানিশ টেনিস তারকা রাফায়েল নাদাল। সুইস তারকাকে ছাড়াও বছরের প্রথম গ্র্যান্ড স্ল্যামের জৌলুস কমবে না বলে মনে করছেন তিনি।

নাদাল বলেন, ‘খেলোয়াড়ের চেয়ে অস্ট্রেলিয়ান ওপেনটা বেশি গুরুত্বপূর্ণ। অস্ট্রেলিয়ান ওপেন এবারে দুর্দান্ত হবে সে (জকোভিচ) থাকুক আর নাই থাকুক। ব্যক্তিগতভাবে অবশ্যই সে খুবই ভালো একজন অ্যাথলেট, সেটিতে কোনো সন্দেহ নেই।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমি মনে করি, বিষয়টি অনেকদূর গড়িয়েছে। সত্যি বলতে আমি খুবই বিরক্ত সাম্প্রতিক সময়ের ঘটনাগুলোতে। আমি মনে করি, ওই বিষয়ের চেয়ে আমাদের খেলাটাকে বেশি প্রাধান্য দেয়া উচিত।’

গত ৫ জানুয়ারি অস্ট্রেলিয়ায় প্রবেশের পর জকোভিচের কাছে কোভিড টিকাসংক্রান্ত কোনো কাগজপত্র না থাকায় তাকে আটক করে ভিসা বাতিল করে দেশটির ইমিগ্রেশন কর্তৃপক্ষ।

পরবর্তী সময়ে জকোভিচের আইনজীবীরা আদালতের বিরুদ্ধে মামলা করলে গত সোমবার অস্ট্রেলিয়ার আদালত জকোভিচের ভিসা ও অন্যান্য কাগজপত্র ফিরিয়ে দিতে বলে।

এর চার দিনের মাথায় অস্ট্রেলিয়ার ইমিগ্রেশন মন্ত্রী অ্যালেক্স হক তার ভিসা দ্বিতীয় দফায় বাতিল করেন। শুক্রবার দুপুরে বার্তা সংস্থা এএফপি বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। ভিসা বাতিলের পর জকোভিচকে অস্ট্রেলিয়াতেই রাখা হয়েছে।

জকোভিচ এ সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আবারও মামলা করেছেন। যার সিদ্ধান্ত জানা যাবে রোববার। অস্ট্রেলিয়ার সরকার মামলায় জিতলে জকোভিচকে ফেরত পাঠাতে পারে তারা। সেই সঙ্গে পরবর্তী তিন বছর অস্ট্রেলিয়ার ভিসা পাবেন না সার্বিয়ান এ তারকা।

সোমবার থেকে শুরু হচ্ছে অস্ট্রেলিয়ান ওপেন।

আরও পড়ুন:
দ্বিতীয়বারের মতো জকোভিচের ভিসা বাতিল করল অস্ট্রেলিয়া
মামলা জিতলেন জকোভিচ, থাকছেন অস্ট্রেলিয়ায়
টিকা ইস্যুতে অস্ট্রেলিয়ার ভিসা বাতিল জকোভিচের
টিকা নিলে বিধিনিষেধ শিথিল অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে
অপ্রতিরোধ্য জকোভিচের হাতে নবম অস্ট্রেলিয়ান ওপেন

শেয়ার করুন

মন্তব্য

টিকা না নিয়েও দুবাইয়ে খেলবেন জকোভিচ

টিকা না নিয়েও দুবাইয়ে খেলবেন জকোভিচ

নোভাক জকোভিচ। ছবি: এএফপি

দুবাই টুর্নামেন্টের ফাঁস হওয়া একটি তালিকায় দেখা যায়, ২১ থেকে ২৬ ফেব্রুয়ারির ইভেন্টে শীর্ষ বাছাই হিসেবে রাখা হয়েছে জকোভিচের নাম।

আগামী মাসে এটিপি দুবাই টেনিস টুর্নামেন্টে খেলবেন বিশ্বের এক নম্বর টেনিস তারকা নোভাক জকোভিচ। করোনা টিকা না নিয়ে বিতর্কের জন্ম দেয়া জকোভিচ দুবাই টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণের জন্য চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন বলে স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের রিপোর্টে বলা হয়েছে।

করোনার টিকা গ্রহণ না করায় অস্ট্রেলিয়া থেকে বলা যায় বিতাড়িত হয়েছেন তিনি। ফলে জয় করা হয়নি রেকর্ড ২১তম গ্র্যান্ড স্ল্যাম শিরোপা।

দুবাই টুর্নামেন্টের ফাঁস হওয়া একটি তালিকায় দেখা যায়, ২১ থেকে ২৬ ফেব্রুয়ারির ইভেন্টে শীর্ষ বাছাই হিসেবে রাখা হয়েছে জকোভিচের নাম।

এই মাসেই কোভিড বিতর্কে জড়িয়ে আইনি লড়াইয়ের পরও অস্ট্রেলিয় ওপেনে অংশগ্রহণ করতে পারেননি ৩৪ বছর বয়সী সার্বিয়ার এ তারকা।

ওই ঘটনায় বিশ্ব গণমাধ্যমের শিরোনাম হন জকোভিচ। মেলবোর্ন থেকে দুবাই হয়ে নিজ শহর বেলগ্রেডে ফেরা জকোভিচের পরবর্তী পদক্ষেপ সম্পর্কে ধোঁয়াশা ছিল সবার কাছে। এর আগে মেলবোর্নে রেকর্ড ৯ বার শিরোপা জিতেছেন তিনি।

ডিসেম্বরে করোনা পজিটিভ হওয়ার পরও একটি পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে মাস্ক ছাড়া উপস্থিত ছিলেন জকোভিচ।

টিকা গ্রহণ না করার পরও টেনিস অস্ট্রেলিয়া প্রাথমিকভাবে তাকে অংশগ্রহণের সুযোগ দিয়েছিল। তবে অস্ট্রেলীয় কর্তৃপক্ষ তাকে ভিসা প্রদানে রাজি হয়নি। পরে আইনের দ্বারস্থ হলেও কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্তকেই বহাল রাখে দেশটির ফেডারেল কোর্ট।

রাফায়েল নাদাল ও রজার ফেদেরারের সমান রেকর্ড ২০টি মেজর শিরোপাজয়ী জকোভিচের পরবর্তী গ্র্যান্ড স্ল্যাম শিরোপা জয় অনিশ্চয়তার মুখে পড়ে গেছে। ফ্রেঞ্চ ওপেন ও ইউএস ওপেনে তার অংশগ্রহণ হুমকিতে পড়েছে।

কারণ ফ্রান্স ও নিউ ইয়র্কে অন্যদের পাশাপাশি ক্রীড়াবিদদের জন্যও কোভিড স্ব্যস্থ্যবিধি কড়াকড়িভাবে বলবৎ রয়েছে।

এদিকে দুবাইয়ে প্রবেশের জন্য করোনার টিকা গ্রহণ বাধ্যতামূলক নয়। দেশটির শতভাগ নাগরিক ইতোমধ্যে টিকা নিয়েছে।

আরও পড়ুন:
দ্বিতীয়বারের মতো জকোভিচের ভিসা বাতিল করল অস্ট্রেলিয়া
মামলা জিতলেন জকোভিচ, থাকছেন অস্ট্রেলিয়ায়
টিকা ইস্যুতে অস্ট্রেলিয়ার ভিসা বাতিল জকোভিচের
টিকা নিলে বিধিনিষেধ শিথিল অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে
অপ্রতিরোধ্য জকোভিচের হাতে নবম অস্ট্রেলিয়ান ওপেন

শেয়ার করুন

নারীদের সেমিতে স্ফিয়নটেকের প্রতিপক্ষ কলিনস

নারীদের সেমিতে স্ফিয়নটেকের প্রতিপক্ষ কলিনস

কোয়ার্টার ফাইনাল জয়ের পর উচ্ছ্বসিত ইগা স্ফিয়নটেক। ছবি: এএফপি

শেষ আটের লড়াইয়ে বুধবার সাত নম্বর বাছাই স্ফিয়নটেকের প্রতিপক্ষ ছিলেন এসতোনিয়ার কাইয়া কানেপি। ৪-৬, ৭-৬ (৭-২), ৬-৩ গেমে ম্যাচ জিততে স্ফিয়নটেক সময় নেন ৩ ঘণ্টা। 

অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের নারী এককের সেমিফাইনালে মুখোমুখি হচ্ছেন ইগা স্ফিয়নটেক ও ড্যানিয়েলা কলিনস। আরেক সেমিতে অ্যাশলি বার্টির প্রতিপক্ষ ম্যাডিসন কিজ।

শেষ আটের লড়াইয়ে বুধবার সাত নম্বর বাছাই স্ফিয়নটেকের প্রতিপক্ষ ছিলেন এসতোনিয়ার কাইয়া কানেপি। অবাছাই প্রতিপক্ষের বিপক্ষে জয়টা সহজে আসেনি একটি গ্র্যান্ড স্ল্যাম জয়ী স্ফিয়নটেকের।

পোলিশ তারকাকে চমকে দিয়ে প্রথম সেট জিতে নেন কানেপি। দ্বিতীয় সেটেও চলে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই। ৭-২ পয়েন্টে টাইব্রেক জিতে সমতা ফেরান স্ফিয়নটেক।

তৃতীয় সেটে নিজের সেরা ছন্দে ফেরেন তিনি। কানেপিকে তেমন কোনো সুযোগ না দিয়ে সহজে সেট ও ম্যাচ নিজের করে নেন তিনি।

৪-৬, ৭-৬ (৭-২), ৬-৩ গেমে ম্যাচ জিততে স্ফিয়নটেক সময় নেন ৩ ঘণ্টা।

সেমিফাইনালে তার প্রতিপক্ষ যুক্তরাষ্ট্রের ড্যানিয়েলা কলিনসকে অবশ্য এতটা সংগ্রাম করতে হয়নি। সরাসরি ৭-৫, ৬-১ গেমে কলিনস হারান ফ্রান্সের অবাছাই আলিজ কঁনেতকে।

বৃহস্পতিবার নারী এককের সেমিফাইনালে মুখোমুখি হচ্ছেন দুই তারকা। তবে প্রথম সেমিফাইনালে লড়বেন ওয়ার্ল্ড নাম্বার ওয়ান অ্যাশলি বার্টি ও অবাছাই ম্যাডিসন কিজ।

আরও পড়ুন:
দ্বিতীয়বারের মতো জকোভিচের ভিসা বাতিল করল অস্ট্রেলিয়া
মামলা জিতলেন জকোভিচ, থাকছেন অস্ট্রেলিয়ায়
টিকা ইস্যুতে অস্ট্রেলিয়ার ভিসা বাতিল জকোভিচের
টিকা নিলে বিধিনিষেধ শিথিল অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে
অপ্রতিরোধ্য জকোভিচের হাতে নবম অস্ট্রেলিয়ান ওপেন

শেয়ার করুন

পাঁচ সেটের থ্রিলার জিতে সেমিতে নাদাল

পাঁচ সেটের থ্রিলার জিতে সেমিতে নাদাল

কোয়ার্টার ফাইনাল জয়ের পর উচ্ছ্বসিত রাফায়েল নাদাল। ছবি: এএফপি

কোয়ার্টার ফাইনালে জমজমাট এক ম্যাচে নাদাল ৩-২ সেটে হারান ক্যানাডার ডেনিস শাপোভালোভকে। ৪ ঘণ্টা ৮ মিনিটের এ ম্যাচ নাদাল জিতেছেন ৬-৩, ৬-৪, ৪-৬, ৩-৬, ৬-৩ গেমে।

রেকর্ড ২১তম গ্র্যান্ড স্ল্যাম শিরোপার দিকে আরেক ধাপ এগোলেন রাফায়েল নাদাল। অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের সেমিফাইনালে পৌঁছেছেন ৫ম বাছাই এই স্প্যানিয়ার্ড।

কোয়ার্টার ফাইনালে জমজমাট এক ম্যাচে নাদাল ৩-২ সেটে হারান ক্যানাডার ডেনিস শাপোভালোভকে। ৪ ঘণ্টা ৮ মিনিটের এ ম্যাচ নাদাল জিতেছেন ৬-৩, ৬-৪, ৪-৬, ৩-৬, ৬-৩ গেমে।

এনিয়ে মোট সাতবার অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের সেমিফাইনালে কোয়ালিফাই করলেন নাদাল। বছরের প্রথম গ্র্যান্ড স্ল্যামের শিরোপা একবারই জিতেছেন তিনি। সেটা ২০০৯ সালে।

সেমিফাইনাল ও ফাইনাল জিতলেই রজার ফেডেরার ও নোভাক জকোভিচকে ছাপিয়ে ইতিহাসের সর্বোচ্চ ২১টি গ্র্যান্ড স্ল্যামের মালিক বনে যাবেন নাদাল।

শাপোভালোভের বিপক্ষে ম্যাচে প্রথম দুই সেটে চমৎকার ছন্দে ছিলেন এই টেনিস গ্রেট। তবে তৃতীয় সেটে পেটে সমস্যা দেখা যায়। চতুর্থ সেটে তাকে ওষুধ খাওয়ার পরামর্শ দেয় তার মেডিক্যাল টিম।

ম্যাচ শেষে নাদাল বলেন, ‘আমার পেটে সমস্যা হচ্ছিল। চিকিৎসকেরা আমার শরীরে আর কোথাও সমস্যা পাননি। পরে সমস্যা ঠিক করতে কয়েকটা ট্যাবলেট খেতে হয়।’

প্রথম দুই সেট হারের পর টানা দুই সেট জিতে দারুণভাবে ম্যাচে ফেরেন শাপোভালোভ। ২২ বছর বয়সী এই ক্যানাডিয়ানকে নিয়ে ম্যাচ শেষে প্রশংসা ঝরেছে নাদালের কণ্ঠে।

তিনি বলেন, ‘খুবই কঠিন একটা ম্যাচ ছিল। আমি এটার জন্য প্রস্তুত ছিলাম না। ডেনিস খুবই ভালো খেলেছে। সে খুবই প্রতিভাবান। খুবই আগ্রাসী ও অসাধারণ সার্ভ করছিল। আমি সেমিফাইনালে পৌঁছাতে পেরে খুবই খুশি।’

আরও পড়ুন:
দ্বিতীয়বারের মতো জকোভিচের ভিসা বাতিল করল অস্ট্রেলিয়া
মামলা জিতলেন জকোভিচ, থাকছেন অস্ট্রেলিয়ায়
টিকা ইস্যুতে অস্ট্রেলিয়ার ভিসা বাতিল জকোভিচের
টিকা নিলে বিধিনিষেধ শিথিল অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে
অপ্রতিরোধ্য জকোভিচের হাতে নবম অস্ট্রেলিয়ান ওপেন

শেয়ার করুন

টাইব্রেকের বাধা টপকে কোয়ার্টার ফাইনালে নাদাল

টাইব্রেকের বাধা টপকে কোয়ার্টার ফাইনালে নাদাল

মানারিনোকে হারানোর পর উচ্ছ্বসিত রাফায়েল নাদাল। ছবি: এএফপি

তৃতীয় রাউন্ডে ফ্রান্সের আদ্রিয়ান মানারিনোকে সরাসরি সেটে হারিয়ে শেষ আট নিশ্চিত করেছেন ২০ গ্র্যান্ড স্ল্যাম জয়ী নাদাল। মানারিনোকে ৭-৬ (১৬-১৪), ৬-২, ৬-২ গেমে হারান এ স্প্যানিয়ার্ড।

তৃতীয় রাউন্ডে টাইব্রেকারের মুখোমুখি হতে হয়েছিল রাফায়েল নাদালকে। পরের রাউন্ডেও একই ভাগ্যের মুখোমুখি হতে হলো এ টেনিস গ্রেটকে।

তৃতীয় রাউন্ডে ফ্রান্সের আদ্রিয়ান মানারিনোকে সরাসরি সেটে হারিয়ে শেষ আট নিশ্চিত করেছেন ২০ গ্র্যান্ড স্ল্যাম জয়ী নাদাল। মানারিনোকে ৭-৬ (১৬-১৪), ৬-২, ৬-২ গেমে হারান এ স্প্যানিয়ার্ড।

মানারিনো শুরু করেন দুর্দান্তভাবে। নাদাল ঘামিয়ে ছাড়েন প্রথম সেটেই। হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের পর সেট গড়ায় টাইব্রেকে।

২৮ মিনিটের টাইব্রেকে ১৬-১৪ গেমে শেষ পর্যন্ত মানারিনোকে থামাতে সক্ষম হন নাদাল।

পরের দুই সেটে আর লড়াই করার মতো শক্তি ছিল না অবাছাই মানারিনোর। তেমন কোনো প্রতিরোধ গড়তে পারেননি তিনি।

২ ঘণ্টা ৪০ মিনিটে ম্যাচ জিতে অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে নিজের ১৪তম কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করেন নাদাল।

২০০৯ সালে শিরোপা জেতা নাদাল ম্যাচ শেষে জানান মানারিনোকে হারাতে ভাগ্যের সহায়তা দরকার ছিল তার।

তিনি বলেন, ‘টাইব্রেকারে আমি প্রচুর সুযোগ পেয়েছি। সেও প্রচুর সুযোগ পেয়েছে। শেষ দিকে ভাগ্য সহায় ছিল।

‘প্রথম সেটটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ ছিল। একই রকম গুরুত্বপূর্ণ ছিল দ্বিতীয় সেটের শুরুর সার্ভিস ব্রেক।’

কোয়ার্টার ফাইনালে নাদলের প্রতিপক্ষ কানাডার ডেনিস শাপোভালোভ।

আরও পড়ুন:
দ্বিতীয়বারের মতো জকোভিচের ভিসা বাতিল করল অস্ট্রেলিয়া
মামলা জিতলেন জকোভিচ, থাকছেন অস্ট্রেলিয়ায়
টিকা ইস্যুতে অস্ট্রেলিয়ার ভিসা বাতিল জকোভিচের
টিকা নিলে বিধিনিষেধ শিথিল অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে
অপ্রতিরোধ্য জকোভিচের হাতে নবম অস্ট্রেলিয়ান ওপেন

শেয়ার করুন

জাতীয় শুটিং কোচের বেতন-ভাতা দেবে পদ্মা ব্যাংক

জাতীয় শুটিং কোচের বেতন-ভাতা দেবে পদ্মা ব্যাংক

পদ্মা ব্যাংকের সঙ্গে শুটিং ফেডারেশনের চুক্তি সাক্ষার অনুষ্ঠানের মুহূর্ত। ছবি: সংগৃহীত

শনিবার গুলশানে বাংলাদেশ শ্যুটিং স্পোর্টস ফেডারেশন কার্যালয়ে জমকালো এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে পদ্মা ব্যাংক ও ফেডারেশনের মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়।

আগামী তিন বছরের জন্য নতুন সম্পর্কে আবদ্ধ হলো পদ্মা ব্যাংক ও বাংলাদেশ শ্যুটিং স্পোর্ট ফেডারেশন। ২০২৪ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত রাইফেলের নতুন কোচ মোহাম্মাদ জায়ের রেজাইয়ের দায়িত্ব নিয়েছে বেসরকারি প্রতিষ্ঠান পদ্মা ব্যাংক লিমিটেড।

নতুন ইরানি কোচের মাসিক সাড়ে ৬ হাজার ইউরো বেতন-সহ এই তিন বছর কোচের বিদেশ ভ্রমণের যাবতীয় খরচ বহন করবে পদ্মা ব্যাংক।

শনিবার গুলশানে বাংলাদেশ শ্যুটিং স্পোর্ট ফেডারেশন কার্যালয়ে জমকালো এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে পদ্মা ব্যাংক ও ফেডারেশনের মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন ফেডারেশনের সভাপতি লেফটেন্যান্ট জেনারেল আতাউল হাকিম সারোয়ার হাসান।

অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন ফেডারেশনের মহাসচিব ইন্তেখাবুল হামিদ। অনুষ্ঠানের সঞ্চালনা করেন মোহাম্মদ ফয়সাল আহসান উল্লাহ।

পদ্মা ব্যাংকের পক্ষে চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন চিফ অপারেটিং অফিসার জাবেদ আমিন। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পদ্মা ব্যাংকের সিনিয়র এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট ও হেড অব ব্রাঞ্চ সাব্বির মোহাম্মদ সায়েম, চিফ ফিন্যান্সিয়াল অফিসার বাদল কুমার নাথ-সহ বিভিন্ন বিভাগের কর্মকর্তারা।

চুক্তি সাক্ষর অনুষ্ঠান শেষে শুটিং ফেডারেশনের সঙ্গে পদ্মা ব্যাংকের সম্পৃক্ততা নিয়ে চিফ অপারেটিং অফিসার জাবেদ আমিন বলেন, ‘আগামী ২৯ জানুয়ারি আমাদের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী। তার কয়েকদিন আগে শুটিং ফেডারেশনের সঙ্গে সম্পৃক্ত হতে পেরে আমরা পদ্মা ব্যাংক পরিবার গর্বিত। চাইব স্পোর্টসের সঙ্গে এই ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে। নতুন কোচের মাধ্যমে বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক পর্যায়ে সুনাম কুড়িয়ে আনবে এই কামনা করি।’

পদ্মা ব্যাংককে কৃতজ্ঞতা জানিয়ে শুটিং স্পোর্ট ফেডারেশন সভাপতি লেফটেন্যান্ট জেনারেল আতাউল হাকিম সারোয়ার হাসান বলেন, ‘পদ্মা ব্যাংকের চেয়ারম্যান ড. চৌধুরী নাফিজ সরাফাত ও ব্যাংক পরিবারকে ধন্যবাদ জানাই পাশে থাকার জন্য। আশা করব এই ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখবে ব্যাংক।’

বাংলাদেশ শ্যুটিং স্পোর্ট ফেডারেশন এর আমন্ত্রণে ইরান থেকে রাইফেল কোচ মোহাম্মাদ জায়ের-রেজাই বাংলাদেশে এসেছেন।

বর্তমানে তিনি বাংলাদেশ জাতীয় রাইফেল দলকে প্রশিক্ষণ প্রদান করছেন। মোহাম্মাদ জায়ের রেজাই আন্তর্জাতিক শুটিং স্পোর্ট ফেডারেশন কর্তৃক লাইসেন্সপ্রাপ্ত একজন রাইফেল কোচ।

বাংলাদেশে আগমনের পূর্বে তিনি ইরান জাতীয় শুটিং দলের কোচিংয়ে সম্পৃক্ত ছিলেন। তার কোচিং মেয়াদে ৩৯টি আন্তর্জাতিক পদক ও ২টি অলিম্পিক মেডেল অর্জন করে ইরান।

মোহাম্মাদ জায়ের-রেজাই প্যারিস অলিম্পিক গেমস-২০২৪ পর্যন্ত বাংলাদেশ শুটিং দলের প্রধান রাইফেল কোচ হিসাবে দায়িত্ব পালন করবেন।

আরও পড়ুন:
দ্বিতীয়বারের মতো জকোভিচের ভিসা বাতিল করল অস্ট্রেলিয়া
মামলা জিতলেন জকোভিচ, থাকছেন অস্ট্রেলিয়ায়
টিকা ইস্যুতে অস্ট্রেলিয়ার ভিসা বাতিল জকোভিচের
টিকা নিলে বিধিনিষেধ শিথিল অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে
অপ্রতিরোধ্য জকোভিচের হাতে নবম অস্ট্রেলিয়ান ওপেন

শেয়ার করুন

ঘাম ঝরিয়ে চতুর্থ রাউন্ডে নাদাল

ঘাম ঝরিয়ে চতুর্থ রাউন্ডে নাদাল

তৃতীয় রাউন্ডের ম্যাচ জেতার পর উচ্ছ্বসিত রাফায়েল নাদাল। ছবি: এএফপি

কারেন কাচানভকে ৬-৩, ৬-২, ৩-৬ ও ৬-১ গেমে হারিয়ে চতুর্থ রাউন্ড নিশ্চিত করেন রাফায়েল নাদাল।

অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের চতুর্থ রাউন্ডে পৌঁছেছেন সাবেক চ্যাম্পিয়ন রাফায়েল নাদাল। তৃতীয় রাউন্ডে সহজ জয় পাননি ২০০৯ সালের চ্যাম্পিয়ন এ স্প্যানিশ গ্রেট।

ষষ্ঠ বাছাই নাদালকে ঘাম ঝরাতে হয়েছে রুশ প্রতিপক্ষ ও ২৮তম বাছাই কারেন কাচানভের বিপক্ষে। এক সেট হেরে ৩-১ সেটে ম্যাচ জিতে নেন নাদাল।

কাচানভের বিপক্ষে শুরুটা দারুণ করেন ২০ গ্র্যান্ড স্ল্যাম জয়ী এ তারকা। ৬-৩ গেমে সেট জিতে শুরু করেন নিজের তৃতীয় রাউন্ড।

দ্বিতীয় সেটেও রুশ প্রতিপক্ষকে পাত্তা দেননি নাদাল। ৬-২ গেমে সেট জিতে ২-০ ব্যবধানে লিড নিয়ে নেন।

তৃতীয় সেটে ঘুরে দাঁড়ান কাচানভ। ৬-৩ গেমে সেট জিতে ম্যাচে টিকে থাকেন ও নাদালকে চার সেট খেলতে বাধ্য করেন।

চতুর্থ সেটে অবশ্য নাদালের অভিজ্ঞতার সঙ্গে পেরে ওঠেননি কাচানভ। তাকে এক রকম উড়িয়ে নাদাল ম্যাচ জিতে নেন ৬-১ গেমে।

নাদালের মতো ঘাম ঝরাতে হয়নি টুর্নামেন্টের তৃতীয় বাছাই আলেক্সান্ডার এসফেরেফকে।

রোমানিয়ার রাদু আলবতকে সরাসরি ৬-৩, ৬-৪, ৬-৪ গেমে হারিয়ে চতুর্থ রাউন্ড নিশ্চিত করেন তিনি।

আরও পড়ুন:
দ্বিতীয়বারের মতো জকোভিচের ভিসা বাতিল করল অস্ট্রেলিয়া
মামলা জিতলেন জকোভিচ, থাকছেন অস্ট্রেলিয়ায়
টিকা ইস্যুতে অস্ট্রেলিয়ার ভিসা বাতিল জকোভিচের
টিকা নিলে বিধিনিষেধ শিথিল অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে
অপ্রতিরোধ্য জকোভিচের হাতে নবম অস্ট্রেলিয়ান ওপেন

শেয়ার করুন

অস্ট্রেলিয়ান ওপেন থেকে চ্যাম্পিয়ন ওসাকার বিদায়

অস্ট্রেলিয়ান ওপেন থেকে চ্যাম্পিয়ন ওসাকার বিদায়

অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের তৃতীয় রাউন্ডে প্রতিপক্ষ অ্যামান্ডা আমিনিসিমোভার বিপক্ষে রিটার্ন শট খেলছেন নেওমি ওসাকা। ছবি: এএফপি

তৃতীয় রাউন্ড থেকে বিদায় নিয়েছেন পঞ্চম বাছাই ওসাকা। যুক্তরাষ্ট্রের অ্যামান্ডা আনিসিমোভার কাছে ৪-৬, ৬-৩, ৭-৬ (১০-৫) গেমে ম্যাচ হেরে যান এ জাপানিজ তারকা।

বছরের প্রথম গ্র্যান্ড স্ল্যাম অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের তৃতীয় রাউন্ড থেকে বিদায় নিয়েছেন গত আসরের চ্যাম্পিয়ন নেওমি ওসাকা। তৃতীয় রাউন্ড থেকে বিদায় নিয়েছেন পঞ্চম বাছাই এ জাপানিজ তারকা।

তৃতীয় রাউন্ডে ওসাকার প্রতিপক্ষ ছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের অ্যামান্ডা আনিসিমোভা। দশম বাছাই আনিসিমোভার বিপক্ষে শুরুটা ভালোই করেন ওসাকা। সেট জিতে নেন ৬-৪ গেমে।

দ্বিতীয় সেটে কামব্যাক করেন আনিসিমোভা। ওসাকাকে চমকে দিয়ে ৬-৩ গেমে সেট জিতে সমতা ফেরান ম্যাচে।

তৃতীয় সেটে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হয়। খেলা গড়ায় টাইব্রেকে। ৭-৬ (১০-৫) গেমে সেট ও ম্যাচ জিতে এবারের আসরের সবচেয়ে বড় অঘটন উপহার দেন আনিসিমোভা।

ম্যাচ হেরে ওসাকা তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় জানান তার পক্ষে প্রতিটি টুর্নামেন্টের সব ম্যাচ জেতা সম্ভব নয়।

ওসাকা বলেন, ‘আমি ঈশ্বর নই। সব ম্যাচ জেতা সম্ভব না আমার পক্ষে। কোনো একটা টুর্নামেন্ট জেতা আসলেই দারুণ একটা বিষয়। কিন্তু বছরের শুরুতে আমি প্রতিবারই টুর্নামেন্ট জিতব- এমনটা ভাবাও ঠিক নয়।’

ওসাকা হেরে গেলেও সহজে ম্যাচ জিতে চতুর্থ রাউন্ডে পৌঁছেছেন অ্যাশলি বার্টি। ইতালির ৩০তম বাছাই ক্যামিলা জর্জিকে ৬-২, ৬-৩ গেমে হারান শীর্ষ বাছাই বার্টি।

আরও পড়ুন:
দ্বিতীয়বারের মতো জকোভিচের ভিসা বাতিল করল অস্ট্রেলিয়া
মামলা জিতলেন জকোভিচ, থাকছেন অস্ট্রেলিয়ায়
টিকা ইস্যুতে অস্ট্রেলিয়ার ভিসা বাতিল জকোভিচের
টিকা নিলে বিধিনিষেধ শিথিল অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে
অপ্রতিরোধ্য জকোভিচের হাতে নবম অস্ট্রেলিয়ান ওপেন

শেয়ার করুন