ক্রাইস্টচার্চে প্রথম দিনটা নিউজিল্যান্ডের

player
ক্রাইস্টচার্চে প্রথম দিনটা নিউজিল্যান্ডের

দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে দেড়শ রানের জুটি গড়েন লাথাম ও কনওয়ে। ছবি: এএফপি

প্রথম দিন শেষে ব্ল্যাক ক্যাপদের সংগ্রহ ১ উইকেটে ৩৪৯ রান। ১৮৬ রানে অপরাজিত রয়েছেন অধিনায়ক টম লেইথাম। তাকে সঙ্গ দিচ্ছেন সেঞ্চুরি থেকে এক রান দূরে থাকা ডেভন কনওয়ে।

সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টের প্রথম দিনেই রানপাহাড়ে চড়ে বসেছে নিউজিল্যান্ড। প্রথম দিন শেষে ব্ল্যাক ক্যাপদের সংগ্রহ ১ উইকেটে ৩৪৯ রান। ১৮৬ রানে অপরাজিত রয়েছেন অধিনায়ক টম লেইথাম। তাকে সঙ্গ দিচ্ছেন সেঞ্চুরি থেকে এক রান দূরে থাকা ডেভন কনওয়ে।

হ্যাগলি ওভালে টসে জিতে বল করতে নেমে শুরু থেকেই লেইথাম ও ইয়ংয়ের ব্যাটিং তোপের মুখে পড়েন এবাদত-শরিফুলরা।

মাউন্ট মঙ্গানুইয়ে খেই হারিয়ে ফেলা নিউজিল্যান্ডের ওপেনাররা দ্বিতীয় টেস্টের শুরু থেকে এক প্রকার টেস্ট মেজাজ ভুলে শুরু করেন ব্যাটিং তাণ্ডব। কোনো উইকেট না হারিয়ে ৯২ রান করে দুই সেশন পার করে দেয় তারা।

স্বাগতিকদের উদ্বোধনী জুটিতে আসে ১৪৮ রান।

থিতু হয়ে বসা সেই জুটি ভেঙে ব্রেক থ্রু এনে দেন শরিফুল। ৫৪ রান করা উইল ইয়ংকে ফিরিয়ে ভাঙেন উদ্বোধনী জুটি।

সঙ্গীর বিদায়টা বিন্দুমাত্র প্রভাব ফেলেনি লেইথামের ব্যাটিংয়ে। দুইবার এলবিডব্লিউ আউট হয়ে রিভিউর মাধ্যমে জীবন ফিরে পেয়ে মারকুটে ব্যাটিংয়ে তুলে নেন ক্যারিয়ারের দ্বাদশ সেঞ্চুরি।

কিউই অধিনায়ক ১৩৩ বলে ১৭ বাউন্ডারির মাধ্যমে স্পর্শ করেন তিন অঙ্কের রান। এরপর কনওয়েকে সঙ্গে করে আবার শুরু করেন ব্যাটিং তাণ্ডব।

৬৪তম ওভারের শেষ বলে এবাদতকে চার মেরে দেড় শ রান পার লেইথাম। সেই সঙ্গে দলীয় সংগ্রহ পেরোয় ২৫০ ও শতরানের জুটি হয় কনওয়ের সঙ্গে।

৮৩ বলে ব্যক্তিগত অর্ধশতক তুলে নেন কনওয়েও। এই দুজনের ১৫০ রানের জুটিতে ভর করে দলীয় সংগ্রহ ৩০০ পার করে নিউজিল্যান্ড।

দিনের শেষ পর্যন্ত উইকেট পতন হয়নি নিউজিল্যান্ডের। এক উইকেট হারিয়েই ৩৪৯ রানের পুঁজি নিয়ে প্রথম দিনের খেলা শেষ হয় তাদের।

আরও পড়ুন:
লেইথাম-কনওয়ে জুটিতে নিউজিল্যান্ডের ৩০০ পার
১৩ বছর পর দলে নেই পঞ্চপাণ্ডবের কেউই
লেইথামের সেঞ্চুরিতে বড় সংগ্রহের পথে নিউজিল্যান্ড
সিরিজ জয়ে আবহাওয়া টাইগারদের অনূকুলে
পেইসারদের ওপর নির্ভর করছে নিউজিল্যান্ড

শেয়ার করুন

মন্তব্য

শেষ ওভারের নাটকে ভারতকে ক্লিন সুইপ সাউথ আফ্রিকার

শেষ ওভারের নাটকে ভারতকে ক্লিন সুইপ সাউথ আফ্রিকার

জয়ের পর সাউথ আফ্রিকার ক্রিকেটারদের উদযাপন। ছবি: আইসিসি

সাউথ আফ্রিকার দেয়া ২৮৮ রানের টার্গেটে নেমে ৪৯ ওভার ২ বলে অলআউট হয়ে যায় ভারত। শেষ ওভারে জয়ের জন্য ভারতের দরকার ছিল ৬ রান। উইকেটে থাকা ১০ ও ১১ নম্বর ব্যাটার ইউজভেন্দ্র চেহেল ও প্রাসিধ কৃষ্ণা নিতে পারেন ১ রান।

প্রথম দুই ম্যাচ জিতে আগে সিরিজ বগলদাবা করেছে সাউথ আফ্রিকা। নিয়মরক্ষায় পরিণত হওয়া শেষ ম্যাচে সান্ত্বনার জয় পাওয়া হয়নি ভারতের।

শেষ ওভারে রোমাঞ্চ ছড়ানো ম্যাচটা জিতে নিয়ে ভারতকে ক্লিন সুইপের স্বাদ দিয়েছে প্রোটিয়ারা।

এ জয়ে টেস্টের পর ওয়ানডে সিরিজের শিরোপাও নিয়ে গেল সাউথ আফ্রিকা। কেপ টাউনে শেষ ম্যাচে ভারতকে ৪ রানে হারিয়েছে স্বাগতিক দল।

সাউথ আফ্রিকার দেয়া ২৮৮ রানের টার্গেটে নেমে ৪৯ ওভার ২ বলে অলআউট হয়ে যায় ভারত। শেষ ওভারে জয়ের জন্য ভারতের দরকার ছিল ৬ রান। উইকেটে থাকা ১০ ও ১১ নম্বর ব্যাটার ইউজভেন্দ্র চেহেল ও প্রাসিধ কৃষ্ণা নিতে পারেন ১ রান।

শেষ ওভারের দ্বিতীয় বলে মিলারের হাতে ক্যাচ তুলে দেন চেহেল। তাতেই নিশ্চিত হয় সাউথ আফ্রিকার ৩-০ ব্যবধানে সিরিজ জয়।

বিকেলে টস জিতে সাউথ আফ্রিকাকে ব্যাটিংয়ে পাঠায় ভারত।

কুইন্টন ডি ককের ১২৪ রানের সেঞ্চুরি ও রাসি ফন ডার ডুসেনের হাফ সেঞ্চুরিতে ২৮৭ রান তোলে প্রোটিয়ারা।

সান্ত্বনার জয়ের খোঁজে টার্গেটে নেমে শুরুটা ভালোই করেছিল ভারত। শিখর ধাওয়ানের ৬১ ও ভিরাট কোহলির ৬৫ রানে সঠিক পথেই ছিল সফরকারী দল।

দুই সিনিয়র ব্যাটারের বিদায়ের পর থমকে যায় ভারতের আগ্রাসন।

তবে সাত নম্বরে নামা দিপক চাহারের ৩৪ বলে ৫৪ রানের ঝড়ো ইনিংসে জয়ের সুবাস পেতে শুরু করে তারা।

ম্যাচ শেষ ওভারে গড়ালে জয়ের বন্দরে পৌঁছানো সম্ভব হয়নি তাদের। জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে সাউথ আফ্রিকা।

ম্যাচ ও সিরিজ সেরা হয়েছেন কুইন্টন ডি কক।

আরও পড়ুন:
লেইথাম-কনওয়ে জুটিতে নিউজিল্যান্ডের ৩০০ পার
১৩ বছর পর দলে নেই পঞ্চপাণ্ডবের কেউই
লেইথামের সেঞ্চুরিতে বড় সংগ্রহের পথে নিউজিল্যান্ড
সিরিজ জয়ে আবহাওয়া টাইগারদের অনূকুলে
পেইসারদের ওপর নির্ভর করছে নিউজিল্যান্ড

শেয়ার করুন

আইসিসির বর্ষসেরা টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটার রিজওয়ান

আইসিসির বর্ষসেরা টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটার রিজওয়ান

মোহাম্মদ রিজওয়ান। ছবি: সংগৃহীত

বর্ষসেরার হওয়ার লড়াইয়ে রিজওয়ানের সঙ্গে মনোনীত হয়েছিলেন ইংল্যান্ডের জস বাটলার, অস্ট্রেলিয়ার মিচেল মার্শ ও শ্রীলংকার ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা। তাদের পেছনে ফেলে সেরা হয়েছেন রিজওয়ান।

ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিলের (আইসিসি) ২০২১ সালের বর্ষসেরা টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটার নির্বাচিত হয়েছেন পাকিস্তানের উইকেটরক্ষক-ব্যাটার মোহাম্মদ রিজওয়ান।

বিশ্ব ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থটি রোববার গেল বছরের বর্ষসেরা টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটার হিসেবে রিজওয়ানের নাম ঘোষণা করেছে।

বর্ষসেরার হওয়ার লড়াইয়ে রিজওয়ানের সঙ্গে মনোনীত হয়েছিলেন ইংল্যান্ডের জস বাটলার, অস্ট্রেলিয়ার মিচেল মার্শ ও শ্রীলংকার ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা। তাদের পেছনে ফেলে সেরা হয়েছেন রিজওয়ান।

গত বছরটা টি-টোয়েন্টিতে স্বপ্নের মতো কেটেছে রিজওয়ানের। বছরের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক ছিলেন। ২৯ ম্যাচের ২৬ ইনিংসে ৭৩ দশমিক ৬৬ গড়ে ১৩২৬ রান করেন রিজওয়ান। যার মধ্যে ছিল ১টি সেঞ্চুরি ও ২টি হাফ-সেঞ্চুরি। স্ট্রাইক রেট ১৩৪ দশমিক ৮৯।

রিজওয়ানের একমাত্র সেঞ্চুরিটি ছিলো দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে। গেল বছরের ফেব্রুয়ারিতে লাহোরে ৬৪ বলে ৬টি চার ও ৭টি ছক্কায় অপরাজিত ১০৪ রান করেছিলেন রিজওয়ান।

সংযুক্ত আরব আমিরাতে অনুষ্ঠিত হওয়া সর্বশেষ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও ব্যাট হাতে দারুণ ছন্দে ছিলেন রিজওয়ান। ৬ ইনিংসে ২৮১ রান করেন তিনি। ৬ ইনিংসের তিনটিতেই হাফ-সেঞ্চুরি করেন তিনি।

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সেমিফাইনালের আগে আইসিইউতে ভর্তি হয়েছিলেন রিজওয়ান। আইসিইউ থেকে ফিরে সেমিতে ৬৭ রান করেও দলের হার ঠেকাতে পারেননি রিজওয়ান।

এ ছাড়া ভারতের বিপক্ষে বিশ্বকাপের মঞ্চে পাকিস্তানের প্রথম জয়েও বড় অবদান ছিলো রিজওয়ানের। ভারতের ছুড়ে দেয়া ১৫২ রানের টার্গেট বিনা উইকেটে তুলে ফেলে পাকিস্তান। অধিনায়ক বাবর আজমের সাথে ১৫২ রানের জুটি গড়েন রিজওয়ান। ৫৫ বলে অপরাজিত ৭৯ রান করেছিলেন রিজওয়ান।

শুধু ব্যাট হাতেই নয়, উইকেটের পেছনেও ছন্দে ছিলেন রিজওয়ান। গত বছর ২৪টি ডিসমিসাল করেছেন তিনি। ২২টি ক্যাচ ও দু’টি স্টাম্পিং করেন তিনি।

আরও পড়ুন:
লেইথাম-কনওয়ে জুটিতে নিউজিল্যান্ডের ৩০০ পার
১৩ বছর পর দলে নেই পঞ্চপাণ্ডবের কেউই
লেইথামের সেঞ্চুরিতে বড় সংগ্রহের পথে নিউজিল্যান্ড
সিরিজ জয়ে আবহাওয়া টাইগারদের অনূকুলে
পেইসারদের ওপর নির্ভর করছে নিউজিল্যান্ড

শেয়ার করুন

বিপিএলের মধ্যেও টেস্ট সিরিজে চোখ সুজনের

বিপিএলের মধ্যেও টেস্ট সিরিজে চোখ সুজনের

বাংলাদেশ টেস্ট দল। ছবি: এএফপি

টেস্টে ভাল করার লক্ষ্যে পরিকল্পনা শুরু করেছেন জাতীয় দলের টিম ডিরেক্টর খালেদ মাহমুদ সুজন। চলতি বিপিএলে ফরচুন বরিশালের প্রধান কোচের দায়িত্ব পালন করছেন সাবেক এই ক্রিকেটার।

চলতি বছরের পুরোটা সময় জুড়ে ব্যস্ত থাকতে হবে জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের। ওয়ানডে টি-টোয়েন্টির পাশাপাশি ৫টি টেস্ট সিরিজ খেলতে হবে বাংলাদেশের। এর ভেতর তিনটি সিরিজ দেশের বাহিরে।

নিউজিল্যান্ডের মাটিতে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ দিয়ে বছর শুরু করে বাংলাদেশ। শুরুটা দুর্দান্ত হয় মুমিনুল বাহিনীর। নিউজিল্যান্ডের মাটিতে প্রথমবারের মতো পায় কিউই বধের স্বাদ।

সিরিজটি ড্র করে টাইগাররা। তারপরও এই ড্র বাংলাদেশের জন্য বড় অর্জন ছিল। সেই ধারাবাহিকতা ধরে রেখে বছরের বাকি সময়টা পার করতে চায় বাংলাদেশ।

আর সে লক্ষ্যে এখন থেকে পরিকল্পনা শুরু করেছেন জাতীয় দলের টিম ডিরেক্টর খালেদ মাহমুদ সুজন। চলতি বিপিএলে ফরচুন বরিশালের প্রধান কোচের দায়িত্ব পালন করছেন সাবেক এ অধিনায়ক।

টি-টোয়েন্টি দলের কোচ হিসেবে দায়িত্ব পালন করা অবস্থাতেও বাংলাদেশের টেস্ট নিয়ে পরিকল্পনা চালিয়ে যাচ্ছেন সুজন। রোববার সাংবাদিকদের এমনটাই জানান তিনি।

সুজন বলেন, ‘টেস্ট ম্যাচতো বড় একটা জায়গা। সামনে শ্রীলঙ্কা, সাউথ আফ্রিকা অনেকগুলো ট্যুর আছে। মানসিকভাবে প্রস্তুতি নিচ্ছি। চিন্তা করছি যে কীভাবে আমরা সাউথ আফ্রিকায় ভালো ক্রিকেট খেলব। শ্রীলঙ্কার সাথে আমরা যেহেতু ঘরে খেলব সেটাও মাথায় আছে। সবশেষ হোম সিরিজে পাকিস্তানের সাথে সেটাও ভালো খেলতে পারিনি।’

তিনি যোগ করেন, ‘আমাদের সে সামর্থ্য আছে ভালো ক্রিকেট খেলার। বিপিএলের কারণে এখানে ব্যস্ত আছি। তারপরও মাথায় সেটা আছে। বোর্ডের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করছি যে বিপিএল শেষ হলে যেহেতু আফগানিস্তান আসবে। টেস্ট খেলোয়াড়দের সঙ্গে কীভাবে অনুশীলন করব, কোথায় ক্যাম্প হবে এগুলো সব মাথায় নিচ্ছি।’

বিপিএলের পরপরই বাংলাদেশ সফরে আসবে আফগানিস্তান। এরপর মার্চের শুরুতে বাংলাদেশ তিনটি ওয়ানডে ও দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলতে সাউথ আফ্রিকা যাবে। জুনে মুমিনুলরা ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফর করবে দুটি টেস্ট, তিনটি ওয়ানডে ও তিনটি টি-টোয়েন্টি খেলতে।

জুলাইয়ে বাংলাদেশ দুটি টেস্ট, তিনটি ওয়ানডে ও তিনটি টি-টোয়েন্টি খেলতে জিম্বাবুয়ে যাবে। সবশেষ আয়ারল্যান্ড সেপ্টেম্বরে বাংলাদেশ আসবে পূর্ণাঙ্গ সিরিজ খেলতে যেখানে থাকবে একটি টেস্ট।

আরও পড়ুন:
লেইথাম-কনওয়ে জুটিতে নিউজিল্যান্ডের ৩০০ পার
১৩ বছর পর দলে নেই পঞ্চপাণ্ডবের কেউই
লেইথামের সেঞ্চুরিতে বড় সংগ্রহের পথে নিউজিল্যান্ড
সিরিজ জয়ে আবহাওয়া টাইগারদের অনূকুলে
পেইসারদের ওপর নির্ভর করছে নিউজিল্যান্ড

শেয়ার করুন

বিপিএল মাতাতে ঢাকায় ক্রিস গেইল

বিপিএল মাতাতে ঢাকায় ক্রিস গেইল

টিম হোটেলে করোনা টেস্টের নমুনা দিচ্ছেন ক্রিস গেইল। ছবি: ফরচুন বরিশাল

টিম হোটেলে এসে এক ভিডিও বার্তায় গেইল বলেন, ‘ফরচুন বরিশাল, ইউনিভার্স বস ক্রিস গেইল বলছি। আমি সবার সঙ্গে দেখা করতে, খেলতে মুখিয়ে রয়েছি।’

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) অষ্টম আসর মাতাতে ঢাকা এসেছেন ইউনিভার্স বস খ্যাত ক্রিস গেইল। শনিবার সকাল ১১টায় ঢাকা এসে পৌঁছান তিনি।

বিপিএলের চলতি আসরে ফরচুন বরিশালের হয়ে খেলবেন তিনি।

হোটেলে আসার পর তার করোনা পরীক্ষা করানো হয়েছে। রিপোর্ট নেগেটিভ হলে দলের সঙ্গে বায়ো বাবলে প্রবেশ করবেন তিনি।

টিম হোটেলে এসে এক ভিডিও বার্তায় গেইল বলেন, ‘ফরচুন বরিশাল, ইউনিভার্স বস ক্রিস গেইল বলছি। আমি সবার সঙ্গে দেখা করতে, খেলতে মুখিয়ে রয়েছি।’

তিনি আরও বলেন, ‘প্রথম জয়ের জন্য সবাইকে অভিনন্দন। আগামী ম্যাচের জন্য শুভকামনা। আমি ভালো কিছু করতে মুখিয়ে রয়েছি। আমি আপনাদের সঙ্গে যোগ দিব।’

২৪ জানুয়ারি দেশে আসার কথা থাকলেও ক্রিস গেইল চলে এসেছেন এক দিন আগেই।

বাংলাদেশ সরকারের নিয়ম অনুযায়ী ২৪ ঘণ্টার ভেতর আরও একবার করোনা পরীক্ষা করানো হবে গেইলের। দুটি টেস্টে নেগেটিভ এলে তবেই তিনি খেলতে পারবেন এবারের বিপিএলে।

নিজেদের প্রথম ম্যাচে ইতিমধ্যেই চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের বিপক্ষে জয় পেয়েছে বরিশাল। নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে সোমবার ঢাকার বিপক্ষে লড়বে সাকিব আল হাসানের দল।

শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বেলা সাড়ে ১২টায় শুরু হবে ম্যাচটি।

আরও পড়ুন:
লেইথাম-কনওয়ে জুটিতে নিউজিল্যান্ডের ৩০০ পার
১৩ বছর পর দলে নেই পঞ্চপাণ্ডবের কেউই
লেইথামের সেঞ্চুরিতে বড় সংগ্রহের পথে নিউজিল্যান্ড
সিরিজ জয়ে আবহাওয়া টাইগারদের অনূকুলে
পেইসারদের ওপর নির্ভর করছে নিউজিল্যান্ড

শেয়ার করুন

ঢাকার বিরিয়ানিতে মজলেন ডু প্লেসি

ঢাকার বিরিয়ানিতে মজলেন ডু প্লেসি

ঢাকার বিরিয়ানি খাচ্ছেন ফাফ ডু প্লেসি। ছবি: কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানস

বাংলাদেশে আসার পর সংবাদমাধ্যমে দেয়া প্রথম সাক্ষাৎকারে প্লেসি জানিয়েছিলেন ঢাকার বিরিয়ানির স্বাদ তার মুখে লেগে রয়েছে। কথা দেন প্রথম ম্যাচ জয়ের পর বিরিয়ানি খেয়ে জয় উদযাপন করবেন তিনি।

বিশ্বের শীর্ষ ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগ দাপিয়ে এবার বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) খেলতে এসেছেন সাবেক সাউথ আফ্রিকান অধিনায়ক ফাফ ডু প্লেসি। বাংলাদেশে এসে তিনি স্থানীয় ভাষা রপ্তের পাশাপাশি মজেছেন দেশি খাবারে।

বাংলাদেশে আসার পরপরই ডু প্লেসি জানিয়েছিলেন ঢাকার বিরিয়ানির চেখে দেখতে চান। কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানসের হয়ে খেলতে আসার পর সুযোগ পেয়ে বিরিয়ানির স্বাদ নিয়েছেন এই প্রোটিয়া তারকা।

বাংলাদেশে আসার পর সংবাদমাধ্যমে দেয়া প্রথম সাক্ষাৎকারে প্লেসি জানিয়েছিলেন ঢাকার বিরিয়ানির স্বাদ তার মুখে লেগে রয়েছে। কথা দেন প্রথম ম্যাচ জয়ের পর বিরিয়ানি খেয়ে জয় উদযাপন করবেন তিনি।

শনিবার সিলেটের বিপক্ষে দুই উইকেটের জয় পেয়েছে ডু প্লেসির কুমিল্লা। আর তাই কথা মতো টিম হোটেলে গিয়ে বিরিয়ানি খেয়ে জয় উদযাপন করেছেন ৩৫ বছর বয়সী এই ব্যাটসম্যান।

শনিবার রাতে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের পক্ষ থেকে দেয়া ছবি ও ভিডিওতে দেখা যায় বেশ আনন্দ নিয়েই বিরিয়ানি উপভোগ করছেন ডু প্লেসি।

আরও পড়ুন:
লেইথাম-কনওয়ে জুটিতে নিউজিল্যান্ডের ৩০০ পার
১৩ বছর পর দলে নেই পঞ্চপাণ্ডবের কেউই
লেইথামের সেঞ্চুরিতে বড় সংগ্রহের পথে নিউজিল্যান্ড
সিরিজ জয়ে আবহাওয়া টাইগারদের অনূকুলে
পেইসারদের ওপর নির্ভর করছে নিউজিল্যান্ড

শেয়ার করুন

স্কটল্যান্ডকে উড়িয়ে হ্যাটট্রিক জয় বাংলাদেশের

স্কটল্যান্ডকে উড়িয়ে হ্যাটট্রিক জয় বাংলাদেশের

নারী দলের ক্রিকেটারদের উদযাপন। ছবি: বিসিবি

স্কটল্যান্ডের দেয়া ৭৮ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ৯ উইকেট ও ২৮ বল হাতে রেখেই জয় বাগিয়ে নেন টাইগ্রেসরা।

কমনওয়েলথ গেমসের নারী ক্রিকেটের বাছাইপর্বে নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে স্কটল্যান্ডকে ৯ উইকেটে উড়িয়ে হ্যাটট্রিক জয় বাগিয়ে নিয়েছে বাংলাদেশ। স্কটল্যান্ডের দেয়া ৭৮ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ৯ উইকেট ও ২৮ বল হাতে রেখেই জয় পায় টাইগ্রেসরা।

মালয়েশিয়ার কুয়ালালামপুরের কিনরারা একাডেমি ওভালে টস জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন স্কটিশ দলপতি ক্যাথেরিন ব্রেস। ব্যাট হাতে নেমে শুরুতেই বিপর্যয়ে পড়ে স্কটল্যান্ড।

দলীয় ৬ রানেই ওপেনার আব্বি আটকেনকে হারায় তারা। সেই থেকে শুরু ব্যাটিং বিপর্যয়ের।

উইকেটের একপ্রান্ত আগলে ধরে প্রথমে সারাহ ব্রেস ও মিডল অর্ডারে ক্যাটি ম্যাকগিল লড়াই করলেও অন্যপ্রান্ত থেকে মিলছিল না তেমন কোনো সাড়া। দলের হয়ে এই দুজনের পক্ষেই শুধু সম্ভব হয় দুই অঙ্কের রান ছোঁয়া।

সারাহের ব্যাট থেকে আসে ইনিংস সর্বোচ্চ ২৯ রান। আর ম্যাকগিল করেন ২২ রান।

শেষ পর্যন্ত নিয়মিত উইকেট পতনের পর ৭৭ রানেই স্কটিশদের রানের চাকা থামিয়ে দেন সালমা-সুরাইয়ারা।

বাংলাদেশের হয়ে দুটি করে উইকেট ঝুলিতে তোলেন সালমা খাতুন, সুরাইয়া আজমিন, নাহিদা আক্তার ও সানজিদা আক্তার মেঘলা।

ব্যাট করতে নেমে ইনিংসের প্রথম বলেই সাজঘরে ফেরেন বাংলাদেশের ওপেনার শামিমা সুলতানা। তবে এরপর আর বিপদ ঘটতে দেননি মুর্শিদা খাতুন ও ফারজানা হক। দুজনের অপরাজিত ৭৮ রানের জুটিতে ভর করে ২৮ বল হাতে রেখেই জয়ের দেখা পায় বাংলাদেশ।

মুর্শিদা অপরাজিত থাকেন ৫০ রানে, আর ফারজানা ২০ রানে।

সোমবার নিজেদের শেষ ম্যাচে শ্রীলঙ্কার মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। এ ম্যাচের মধ্য দিয়েই নিশ্চিত হবে কে হবে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন। এখন পর্যন্ত সমান পয়েন্ট নিয়ে রান রেটে এগিয়ে থাকায় টেবিলের শীর্ষে অবস্থান করছে শ্রীলঙ্কা। বাংলাদেশের অবস্থান দুইয়ে।

আরও পড়ুন:
লেইথাম-কনওয়ে জুটিতে নিউজিল্যান্ডের ৩০০ পার
১৩ বছর পর দলে নেই পঞ্চপাণ্ডবের কেউই
লেইথামের সেঞ্চুরিতে বড় সংগ্রহের পথে নিউজিল্যান্ড
সিরিজ জয়ে আবহাওয়া টাইগারদের অনূকুলে
পেইসারদের ওপর নির্ভর করছে নিউজিল্যান্ড

শেয়ার করুন

ইংল্যান্ডকে হারিয়ে সিরিজ শুরু ওয়েস্ট ইন্ডিজের

ইংল্যান্ডকে হারিয়ে সিরিজ শুরু ওয়েস্ট ইন্ডিজের

হোল্ডারের উইকেট উদযাপন। ছবি: সংগৃহীত

১৯.৪ ওভার খেলে সব উইকেট হারিয়ে ১০৩ রানের পুঁজি নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয় ইংল্যান্ডকে। জবাবে ব্যাট করতে নেমে দেখে-শুনে ব্যাটিং করে এক উইকেট হারিয়ে ১৭.১ ওভারে জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় সফরকারী ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ শুরু হার দিয়ে হলো ইংল্যান্ডের। সিরিজের প্রথম ম্যাচে সফরকারী ওয়েস্ট ইন্ডিজের সামনে অসহায় আত্মসমর্পণ করতে হয়েছে তাদের। জেসন হোল্ডারের ক্যারিয়ার সেরা বোলিংয়ের সামনে ধসে পড়তে হয়েছে ইংলিশ ব্যাটারদের।

আগে ব্যাট করে পুরো ২০ ওভার খেলা সম্ভব হয়নি ইংল্যান্ডের পক্ষে। ১৯.৪ ওভার খেলে সব উইকেট হারিয়ে ১০৩ রানের পুঁজি নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয় তাদের।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে দেখে-শুনে ব্যাটিং করে এক উইকেট হারিয়ে ১৭.১ ওভারে জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় সফরকারী ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

ব্রিজটাউনে টসে জিতে ইংল্যান্ডকে ব্যাটিংয়ে পাঠায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ব্যাট করতে নেমে জেসন হোল্ডার, শেলডোন কটরেলরা চেপে ধরেন জেসন রয়-মঈন আলিদের।

দলীয় ৬ রানে শুরু। নিয়মিত বিরতিতে পড়তে থাকা সেই উইকেটের বন্যা থামে ১০৩ রানে।

ক্যারিবীয়দের হয়ে ৭ রানের খরচায় ৪ উইকেট ঝুলিতে পুরেন হোল্ডার। দুটি উইকেট নেন কটরেল। আর একটি করে উইকেট শিকার করেন আকিল হোসেন, ফ্যাবিয়ান অ্যালেন, রোমারিও শেপার্ড।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে ওপেনার শাই হোপ ও ব্রেন্ডন কিংয়ের উদ্বোধনী জুটিতেই জয়ের শক্ত ভিত গড়ে নেন সফরকারীরা। দলীয় ৫২ রানে শাই হোপ সাজঘরে ফিরলেও দলকে বড় জয় এনে দিয়ে কিং ও নিকোলাস পুরান মিলে।

আরও পড়ুন:
লেইথাম-কনওয়ে জুটিতে নিউজিল্যান্ডের ৩০০ পার
১৩ বছর পর দলে নেই পঞ্চপাণ্ডবের কেউই
লেইথামের সেঞ্চুরিতে বড় সংগ্রহের পথে নিউজিল্যান্ড
সিরিজ জয়ে আবহাওয়া টাইগারদের অনূকুলে
পেইসারদের ওপর নির্ভর করছে নিউজিল্যান্ড

শেয়ার করুন