মুমিনুলদের বিশেষ অভিনন্দন সাকিবের

player
মুমিনুলদের বিশেষ অভিনন্দন সাকিবের

ফাইল ছবি

আমেরিকা থেকে এক টুইট বার্তায় সাকিব লেখেন,‘বাংলাদেশ ক্রিকেটের জন্য বছরটা কী দারুণভাবে শুরু হলো। অধিনায়ক, খেলোয়াড় ও কোচিং স্টাফকে বড় অভিনন্দন।’

নিউজিল্যান্ডের মাউন্ট মঙ্গানুইয়ে ইতিহাস সৃষ্টি করে জয় পেয়েছে বাংলাদেশ দল। স্বাগতিক দলকে ৮ উইকেটে হারিয়ে মিটিয়েছে ২২ বছরের আক্ষেপ। টানা ৩২ ম্যাচ হারের পর নিউজিল্যান্ডের মাটিতে তাদের হারাতে পেরেছে টাইগাররা।

অনন্য এ জয়ে দলকে অভিনন্দন জানাচ্ছেন সবাই। ক্রিকেট ভক্ত, বর্তমান ও সাবেক তারকা থেকে শুরু করে বিশ্লেষকদের সবাই শুভেচ্ছায় ভাসাচ্ছেন বাংলাদেশ দলকে।

মুমিনুল বাহিনীকে বিশেষ শুভেচ্ছা জানিয়েছেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানও। পারিবারিক কারণে ছুটি নেয়ায় এ সিরিজ খেলেননি সাকিব। তবে ঐতিহাসিক মুহূর্তে চোখ ঠিকই রেখেছেন টিভি পর্দায়।

আমেরিকা থেকে এক টুইট বার্তায় সাকিব লেখেন,‘বাংলাদেশ ক্রিকেটের জন্য বছরটা কী দারুণভাবে শুরু হলো। অধিনায়ক, খেলোয়াড় ও কোচিং স্টাফকে বড় অভিনন্দন।’

পরের আরেক টুইটে পেইসার ও ব্যাটারদের অভিনন্দন জানান বাংলাদেশের সাবেক টেস্ট অধিনায়ক।

তিনি লেখেন, ‘ফাস্ট বোলারদের কাছ থেকে দারুণ পারফরম্যান্স। ব্যাটাররাও চমৎকার খেলেছেন। দিনটা সবাই উপভোগ করুন। এ কৃতিত্ব সবার প্রাপ্য।’

ছুটিতে থাকায় নিউজিল্যান্ড সিরিজে খেলা হচ্ছে না বিশ্বসেরা এ তারকার। বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) দিয়ে মাঠের লড়াইয়ে ফেরার পর ঘরের মাঠে আফগানিস্তান সিরিজ দিয়ে জাতীয় দলে ফিরবেন সাকিব।

পরের মাসে দলের সঙ্গে যাবেন সাউথ আফ্রিকা সফরে।

আরও পড়ুন:
মুমিনুলদের রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রীর অভিনন্দন
নিউজিল্যান্ডকে হারিয়ে বাংলাদেশের ইতিহাস
এবাদতের হাত ধরেই ইতিহাস

শেয়ার করুন

মন্তব্য

বিপিএলের আয় ভাগাভাগি করবে না বিসিবি

বিপিএলের আয় ভাগাভাগি করবে না বিসিবি

বিপিএল ফ্র্যাঞ্চাইজি ফরচুন বরিশালের হয়ে কথা বলছেন সাকিব আল হাসান। ফাইল ছবি

গত ১০ বছরে ৭ আসরে বিপিএল থেকে বোর্ডের লাভ হয়েছে প্রায় ২০০ কোটি টাকা। সবশেষ এজিএমে বোর্ডের নিরীক্ষা বিভাগের দেয়া তথ্য মতে গত সাত আসরে বিপিএল থেকে বোর্ডের আয় ৩৫১ কোটি টাকা।

বিশ্বের অধিকাংশ বোর্ড যেখানে ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগের লভ্যাংশ দেয় টুর্নামেন্টের ফ্র্যাঞ্চাইজিদের, সেখানে ভিন্নচিত্র বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) বেলায়।

১০ বছর ধরে তাদের তত্ত্বাবধানে আয়োজিত হয়ে আসা বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) লভ্যাংশ তারা ভাগাভাগি করতে নারাজ ফ্র্যাঞ্চাইজিদের সঙ্গে। লভ্যাংশের পুরোটাই চলে যায় বোর্ডের তহবিলে।

যার কারণে ফ্র্যাঞ্চাইজিদের ভাগ্যে জোটে না টুর্নামেন্টের লাভের অংশ। কাগজ কলমের হিসাবে আর্থিক ক্ষতি জেনেই বিপিএলে দল নেয় ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলো।

বিপিএলের শুরু থেকে লভ্যাংশ ভাগের বিষয়টি ফ্র্যাঞ্চাইজিদের চাওয়া ছিল। বোর্ডের কাছে এ বিষয়ে সরাসরি জোরালো আবেদন তারা কখনও করতে পারেনি। কারণ বেশির ভাগ ফ্র্যাঞ্চাইজি টুর্নামেন্টে নিয়মিত ছিল না।

যারা নিয়মিত ছিল তারাও রেভেনিউ শেয়ারিংয়ের বিষয়ে বোর্ডের কাছে খুব একটা আগ্রহ দেখায়নি। এ বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে সবারই উত্তর ছিল, লাভের জন্য নয়, ক্রিকেটের উন্নয়নে বিপিএলে অংশ নিচ্ছেন তারা।

বর্তমান এ মডেলেই চলছে বিপিএল। ভবিষ্যতেও আয় ভাগাভাগির পথে হাঁটতে নারাজ বিসিবি। বুধবার সংবাদমাধ্যমকে এমনটা জানিয়েছেন বিসিবির পরিচালক ইসমাঈল হায়দার মল্লিক।

মল্লিক বলেন, ‘আসলে বিসিবি এখনও আয় ভাগাভাগি করার অবস্থায় নেই। কারণ বিসিবির আয় কম। বোর্ডের সিদ্ধান্ত হলো কোনো ধরনের রেভেনিউ শেয়ারিংয়ে যাবে না। ভবিষ্যতেও না।’

কম লাভের পরও গত ১০ বছরে ৭ আসরে বিপিএল থেকে বোর্ডের লাভ হয়েছে প্রায় ২০০ কোটি টাকা। সবশেষ এজিএমে বোর্ডের নিরীক্ষা বিভাগের দেয়া তথ্য মতে গত সাত আসরে বিপিএল থেকে বোর্ডের আয় ৩৫১ কোটি টাকা।

অপর দিকে টুর্নামেন্টটির মোট ব্যয় ১৫০ কোটি টাকার কাছাকাছি। কাগজ-কলমের হিসাবে লাভ ছাড়িয়েছে ২০০ কোটি টাকা।

আরও পড়ুন:
মুমিনুলদের রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রীর অভিনন্দন
নিউজিল্যান্ডকে হারিয়ে বাংলাদেশের ইতিহাস
এবাদতের হাত ধরেই ইতিহাস

শেয়ার করুন

৬ দলের মধ্যে বেশি পার্থক্য নেই: সাকিব

৬ দলের মধ্যে বেশি পার্থক্য নেই: সাকিব

বরিশালের হয়ে অনুশীলনে সাকিব আল হাসান। ছবি: বিপিএল

কাগজ-কলমের হিসাব যেটাই হোক না কেন, ছয় দলের ভেতর তেমন একটা পার্থক্য দেখছেন না ফরচুন বরিশাল অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। বুধবার শেরে বাংলায় ফরচুন বরিশালের অনুশীলন শেষে এমনটাই মন্তব্য করেন তিনি।

রাত পোহালেই পর্দা উঠছে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) অষ্টম আসরের। এবারের আসরে অংশ নিচ্ছে ছয়টি ফ্র্যাঞ্চাইজি। ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলো তাদের সর্বশক্তি নিয়ে শুক্রবার থেকে নামতে যাচ্ছে মাঠে।

এখন পর্যন্ত কাগজ-কলমের হিসাবে শক্তিশালী দল গঠন করেছে মিনিস্টার ঢাকা। দেশসেরা পাঁচ তারকার তিনজনই রয়েছেন এই দলে। মাশরাফি বিন মোর্ত্তজা, তামিম ইকবাল ও মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ।

মুশফিকুর রহিম রয়েছেন খুলনা টাইগার্সে আর সাকিব আল হাসান ফরচুন বরিশালে। মিস্টার ডিপেন্ডেবল মুশফিকুর রহিমের সঙ্গে খুলনায় রয়েছেন সৌম্য সরকার। আর কুমিল্লায় মুস্তাফিজুর রহমানের সঙ্গে থাকছেন লিটন দাস।

অপরদিকে বড় কোনো নাম নেই সিলেট ও চট্টগ্রামের দলে। তারুণ্যনির্ভর দল গড়েছে তারা।

কাগজ-কলমের হিসাব যেটাই হোক না কেন, ছয় দলের ভেতর তেমন একটা পার্থক্য দেখছেন না ফরচুন বরিশাল অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। বুধবার শেরে বাংলায় ফরচুন বরিশালের অনুশীলন শেষে এমনটাই মন্তব্য করেন তিনি।

একই সঙ্গে জয় দিয়ে টুর্নামেন্ট শুরু করতে চান বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার।

সাকিব সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ‘আশা করছি ভালো ম্যাচ দিয়ে বিপিএল শুরু হবে। টুর্নামেন্ট শুরুর আগে আসলে এগুলো বলা মুশকিল। বাকি ৬ দলের সঙ্গে আমাদের দলকেও একই রকম মনে হচ্ছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘একটা-দুইটা ম্যাচ গেলে অনেক বেশি বিশ্লেষণ করা সম্ভব। এখন মনে হচ্ছে খুবই ভারসাম্যপূর্ণ একটা দল। সবই নির্ভর করবে টুর্নামেন্ট শুরু হওয়ার পর।’

সাকিব বিশ্বের যে দলেই খেলেন শিরোপা জেতার বাড়তি চাপ থাকে। বিশ্বসেরা তারকাকে পাওয়ায় বরিশালের কাছ থেকে শিরোপার লড়াই প্রত্যাশা করছেন সবাই।

এ প্রসঙ্গে সাকিব বলেন, ‘৬টা দলই চ্যাম্পিয়ন হতে খেলবে। আমরাও ব্যতিক্রম না। যদি হতে পারি ভালো। কিন্তু না হতে পারলে কিছু করার থাকবে না। যেটা করতে পারি মাঠে আমাদের শতভাগ দিয়ে চেষ্টা করতে পারি। একটা দল হিসেবে খেলতে পারি। সাফল্যের জন্য যা যা করা দরকার করতে পারি।’

বিপিএলের উদ্বোধনী দিনেই চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের বিপক্ষে মাঠে নামবে সাকিবের বরিশাল। শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বেলা দেড়টায় শুরু হবে ম্যাচটি।

আরও পড়ুন:
মুমিনুলদের রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রীর অভিনন্দন
নিউজিল্যান্ডকে হারিয়ে বাংলাদেশের ইতিহাস
এবাদতের হাত ধরেই ইতিহাস

শেয়ার করুন

জাতীয় দলে কামব্যাক নয়, মুশফিকের ভাবনায় বিপিএল

জাতীয় দলে কামব্যাক নয়, মুশফিকের ভাবনায় বিপিএল

খুলনা টাইগার্সের হয়ে নেট অনুশীলনে মুশফিকুর রহিম। ছবি: বিপিএল

বিপিএল আসরকে জাতীয় দলে কামব্যাকের মঞ্চ হিসেবে মানতে নারাজ মুশফিকুর রহিম। ব্যক্তিগত লক্ষ্যের চেয়ে দলীয় লক্ষ্য তার কাছে বেশি গুরুত্বপূর্ণ।

জাতীয় দলের জার্সিতে শর্টার ফরম্যাটে মুশফিকের সময়টা খুব একটা ভালো যাচ্ছে না। পারফরম্যান্স দেখাতে না পারার কারণে পাকিস্তান সিরিজ থেকে বাদ পড়তে হয়েছিল তাকে।

টিম ম্যানেজমেন্টের যুক্তি ছিল যে টানা ম্যাচ খেলায় পাকিস্তানের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজে দলে রাখা হয়নি মুশফিককে।

যে কারণে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের অষ্টম আসরে দুর্দান্ত পারফরম্যান্স দেখিয়ে জাতীয় দলে ফেরার লক্ষ্য মুশফিকের থাকাটাই স্বাভাবিক। কিন্তু বিপিএল আসরকে জাতীয় দলে কামব্যাকের মঞ্চ হিসেবে মানতে নারাজ মুশফিকুর রহিম।

বিপিএল ইতিহাসে ৮৫ ম্যাচে ৩৭.২৭ গড়ে ২ হাজার ২৭৪ রান নিয়ে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক মুশফিক। এবারের আসরেও সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক হয়ে শীর্ষস্থান ধরে রাখতে বদ্ধপরিকর জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক।

বুধবার খুলনা টাইগার্সের অনুশীলনের পর সংবাদমাধ্যমকে এমনটাই জানান মুশফিক।

মুশফিক বলেন, ‘আমি কামব্যাক বা জাতীয় দল নিয়ে চিন্তা করছি না। আমি চিন্তা করছি টি-টোয়েন্টি বিপিএল ফরম্যাট নিয়ে। বিপিএলে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক আমি। আমার কাছে এটা অন্যরকম চ্যালেঞ্জ, যেন ওই জায়গাটা ধরে রাখতে পারি।’

‘ভবিষ্যতে কী হবে না হবে, তা নিয়ে একদমই ভাবি না। চেষ্টা করি দলের জন্য। এটাই আমার জন্য যথেষ্ট। যেহেতু দল আমাকে সরাসরি সই করিয়েছে, তার প্রতিফলন যেন মাঠে দিতে পারি এতটুকুই চিন্তা করছি।’

বিপিএল টি-টোয়েন্টির সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক হলেও সেঞ্চুরির দেখা পাননি মুশফিক। সেটা নিয়ে আক্ষেপ নেই এ অভিজ্ঞ ব্যাটারের। দলের জয়ে অবদান রাখতে চান যতটা সম্ভব।

তিনি বলেন, ‘ব্যক্তিগত লক্ষ্যের চেয়ে দলগত লক্ষ্য আমার কাছে অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ। গত বছর রানার-আপ হয়েছি। দুবার এক শর কাছে গিয়েও শতক পাইনি। তবে ওই দুই ম্যাচই জিতেছি। এটাই বেশি জরুরি। এবারও চেষ্টা করব সামনে থেকে নেতৃত্ব দেওয়ার। একই সঙ্গে ম্যাচ উইনিং ইনিংস খেলতে চাই, যাতে দল ভালো ফল পায়।’

বিপিএলের উদ্বোধনী দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে মিনিস্টার ঢাকার বিপক্ষে লড়বে মুশফিকের খুলনা। শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় গড়াবে ম্যাচটি।

আরও পড়ুন:
মুমিনুলদের রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রীর অভিনন্দন
নিউজিল্যান্ডকে হারিয়ে বাংলাদেশের ইতিহাস
এবাদতের হাত ধরেই ইতিহাস

শেয়ার করুন

আইসিসির বর্ষসেরা দলে সাকিব, মুশফিক ও মুস্তাফিজ

আইসিসির বর্ষসেরা দলে সাকিব, মুশফিক ও মুস্তাফিজ

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ব্যাট করছেন মুশফিকুর রহিম ও সাকিব আল হাসান। ছবি: এএফপি

সর্বোচ্চ তিনজন জায়গা পেয়েছেন বাংলাদেশ থেকে। দুইজন করে আছেন পাকিস্তান, সাউথ আফ্রিকা, আয়ারল্যান্ড ও শ্রীলঙ্কা থেকে।

আইসিসির বর্ষসেরা ওয়ানডে দলে জায়গা করে নিয়েছেন তিন বাংলাদেশি ক্রিকেটার। সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম ও মুস্তাফিজুর রহমান।

বৃহস্পতিবার দুপুরে প্রকাশিত দলে সর্বোচ্চ তিনজন জায়গা পেয়েছেন বাংলাদেশ থেকে। দুইজন করে আছেন পাকিস্তান, সাউথ আফ্রিকা, আয়ারল্যান্ড ও শ্রীলঙ্কা থেকে।

দলের ওপেনিংয়ে আছেন আয়ারল্যান্ডের পল স্টার্লিং ও সাউথ আফ্রিকার ইয়ানেমান মালান। তিন ও চারে খেলবেন পাকিস্তানের দুই ওয়ানডে স্পেশালিস্ট ফখর জামান ও বাবর আজম।

বাবরকে এ বিশ্ব একাদশের অধিনায়কও নির্বাচিত করেছে আইসিসি। অধিনায়কের পর ব্যাট হাতে নামবেন সাউথ আফ্রিকার হার্ড হিটার রাসি ফন ডার ডুসেন।

এরপরই আছেন বিশ্বসেরা সাকিব আল হাসান ও মুশফিকুর রহিম। উইকেটকিপারের দায়িত্ব থাকবেন মুশফিক।

শ্রীলঙ্কার স্পিনার ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা আছেন দলের স্পিন আক্রমণে। তার সঙ্গে থাকছেন আয়ারল্যান্ডের অফব্রেক বোলার সিমি সিং।

পেইসার বোলিং জুটিতে রয়েছেন বাংলাদেশের মুস্তাফিজুর রহমান ও শ্রীলঙ্কার দুষ্মন্ত চামিরা।

একাদশে অস্ট্রেলিয়া, ভারত, ইংল্যান্ড, নিউজিল্যান্ড, ওয়েস্ট ইন্ডিজ, আফগানিস্তান ও জিম্বাবুয়ে থেকে কেউ সুযোগ পাননি।

বুধবার সেরা টি-টোয়েন্টির সেরা একাদশ প্রকাশ করে আইসিসি। সেখানে সুযোগ পান মুস্তাফিজুর রহমান।

আরও পড়ুন:
মুমিনুলদের রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রীর অভিনন্দন
নিউজিল্যান্ডকে হারিয়ে বাংলাদেশের ইতিহাস
এবাদতের হাত ধরেই ইতিহাস

শেয়ার করুন

অ্যাশেজ জিতে র‍্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষে অস্ট্রেলিয়া

অ্যাশেজ জিতে র‍্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষে অস্ট্রেলিয়া

অ্যাশেজ জয়ের পর উচ্ছ্বসিত অস্ট্রেলিয়া টেস্ট দল। ছবি: এএফপি

অস্ট্রেলিয়া শীর্ষে ওঠায় এক নম্বর জায়গাটি ছাড়তে হয়েছে ভারতকে। তিন নম্বরে নেমে গেছে তারা। বাংলাদেশের সঙ্গে সিরিজ ড্র করা নিউজিল্যান্ড দুইয়ে উঠে এসেছে।

অ্যাশেজ সিরিজে ইংল্যান্ডকে ৪-০ ব্যবধানে নাস্তানাবুদ করার সুফলটা হাতেনাতে পেয়েছে অস্ট্রেলিয়া। আইসিসির সবশেষ প্রকাশিত র‍্যাঙ্কিংয়ে এক নম্বরে উঠে এসেছে প্যাট কামিন্সের দল।

অস্ট্রেলিয়া শীর্ষে ওঠায় এক নম্বর জায়গাটি ছাড়তে হয়েছে ভারতকে। তিন নম্বরে নেমে গেছে তারা। বাংলাদেশের সঙ্গে সিরিজ ড্র করা নিউজিল্যান্ড দুইয়ে উঠে এসেছে।

অ্যাশেজ সিরিজ হাতছাড়া হওয়া ইংল্যান্ড আছে র‍্যাঙ্কিংয়ের চারে।

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে দুই ম্যাচ সিরিজের প্রথম টেস্ট জেতা বাংলাদেশ আছে নবম স্থানে। জিম্বাবুয়ে আছে দশে।

ভারতকে ২-১ ব্যবধানে সিরিজে হারানো সাউথ আফ্রিকা আছে পাঁচ নম্বরে। আর ছয়ে আছে পাকিস্তান।

সপ্তম ও অষ্টম স্থানে যথাক্রমে শ্রীলঙ্কা ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

আইসিসি ওয়ার্ল্ড টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের পয়েন্ট টেবিলের অবশ্য একেবারে বিপরীত।

অস্ট্রেলিয়াকে দুইয়ে পাঠিয়ে লঙ্কানরা সেখানে আছে শীর্ষে। ইংল্যান্ড আছে সবার শেষে।

বাংলাদেশের অবস্থান সপ্তম।

আরও পড়ুন:
মুমিনুলদের রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রীর অভিনন্দন
নিউজিল্যান্ডকে হারিয়ে বাংলাদেশের ইতিহাস
এবাদতের হাত ধরেই ইতিহাস

শেয়ার করুন

চট্টগ্রামের অধিনায়কের দায়িত্বে মিরাজ

চট্টগ্রামের অধিনায়কের দায়িত্বে মিরাজ

চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের জার্সি উন্মোচন অনুষ্ঠান। ফাইল ছবি

শুক্রবার থেকে মাঠে গড়াতে যাচ্ছে বিপিএলের অষ্টম আসর। আর বুধবার রাতে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স ঘোষণা করল তাদের অধিনায়কের নাম। বন্দরনগরীর দলটির নেতৃত্বভার তুলে দেয়া হয়েছে অলরাউন্ডার মেহেদী হাসান মিরাজের কাঁধে। তার মাথায় অধিনায়কের ক্যাপ পরিয়ে দিয়েছেন দলের কোচ পল নিক্সন।

দলে নেই তেমন কোনো তারকা ক্রিকেটার। আর সে কারণেই হয়তো অধিনায়ক নির্ধারণ করতে লম্বা সময় লেগে গেল চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের। টুর্নামেন্ট শুরুর একদিন আগে তারা জানাল, কার হাতে উঠতে যাচ্ছে দলের দায়িত্বভার।

শুক্রবার থেকে মাঠে গড়াতে যাচ্ছে বিপিএলের অষ্টম আসর। আর বুধবার রাতে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স ঘোষণা করল তাদের অধিনায়কের নাম। বন্দরনগরীর দলটির নেতৃত্বভার তুলে দেয়া হয়েছে অলরাউন্ডার মেহেদী হাসান মিরাজের কাঁধে। তার মাথায় অধিনায়কের ক্যাপ পরিয়ে দিয়েছেন দলের কোচ পল নিক্সন।

দায়িত্ব গ্রহণের পর নিজের প্রতিক্রিয়ায় চ্যালেঞ্জার্স অধিনায়ক মিরাজ বলেন, ‘আলহামদুলিল্লাহ, আমি এ বছর চট্টগ্রামের হয়ে প্রথম খেলছি। চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স আমাকে যে সম্মান দিয়েছে। নিজের সেরাটা দিয়ে তার প্রতিদান দিতে চেষ্টা করব।’

একই সঙ্গে অভিজ্ঞ ক্রিকেটারদের সাহায্যও চেয়েছেন মিরাজ, ‘আমাদের বেশ কিছু অভিজ্ঞ খেলোয়াড় আছে। তাদের কাছে আমি সহযোগিতা চাই। কারণ আপনাদের অনেক অভিজ্ঞতা আছে। যেহেতু আমি প্রথম চট্টগ্রামের অধিনায়কত্ব করছি। আপনারা সবাই সহযোগিতা করলে আমার কাজটা সহজ হয়ে যাবে।’

সমর্থকদের উদ্দেশ্যে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স অধিনায়ক বলেন, ‘সমর্থকদের উদ্দেশে বলতে চাই আপনারা সবসময় আমাদের সমর্থন দিয়েছেন। আপনাদের সবাইকে ধন্যবাদ। আশা করি, সামনের দিনগুলোতেও থাকবেন।’

আরও পড়ুন:
মুমিনুলদের রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রীর অভিনন্দন
নিউজিল্যান্ডকে হারিয়ে বাংলাদেশের ইতিহাস
এবাদতের হাত ধরেই ইতিহাস

শেয়ার করুন

বাভুমা-ডার ডুসেনের রেকর্ড জুটিতে হারল ভারত

বাভুমা-ডার ডুসেনের রেকর্ড জুটিতে হারল ভারত

বাভুমা ও ফন ডার ডুসেনের রেকর্ড জুটিতে জয় পায় সাউথ আফ্রিকা। ছবি: টুইটার

বাভুমা ও ফন ডার ডুসেনের সেঞ্চুরিতে ২৯৬ রান সংগ্রহ করে সাউথ আফ্রিকা। টার্গেটে নেমে দারুণ শুরুর পর বিপর্যয়ে পড়ে ২৬৫ রানে থেমে যায় ভারতের ইনিংস। ৩১ রানের জয় তুলে নেয় বাভুমারা।

পার্লের মাঠে প্রথম ওয়ানডেতে ভারতের বিপক্ষে চমৎকার দু’টি ইনিংস খেলেন সাউথ আফ্রিকার টেম্বা বাভুমা ও রাসি ফন ডার ডুসেন। গড়েন চতুর্থ উইকেটে সর্বোচ্চ ২০৪ রানের পার্টনারশিপের রেকর্ড। দুই ব্যাটারের দুই সেঞ্চুরির দিনে ভারতকে হারিয়েছে সাউথ আফ্রিকা।

এ জয়ে তিন ওয়ানডে সিরিজে লিড নিল প্রোটিয়ারা।

বাভুমা ও ফন ডার ডুসেনের সেঞ্চুরিতে ২৯৬ রান সংগ্রহ করে সাউথ আফ্রিকা। টার্গেটে নেমে দারুণ শুরুর পর বিপর্যয়ে পড়ে ২৬৫ রানে থেমে যায় ভারতের ইনিংস। ৩১ রানের জয় তুলে নেয় বাভুমারা।

টস জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়ে ৬৩ রানের মাথায় তিন উইকেট হারিয়ে অস্বস্তিতে পড়ে সাউথ আফ্রিকা। ২৭ রানে বিদায় নেন কুইন্টন ডি কক। ৬ রানে ইয়ানেমান মালান ও এইডেন মারক্রাম সাজঘরে ফেরেন ৪ রান করে।

এই অবস্থা থেকে দলকে শক্ত অবস্থানে নিয়ে যায় বাভুমা-ফন ডার ডুসেন জুটি। ২০৪ রানের পার্টনারশিপ উপহার দিয়েছে এ জুটি।

১৪৩ বলে ১১০ রান করে সাজঘরে ফেরেন বাভুমা। আর ৯৬ বলে ১২৯ রানের দুর্দান্ত অপরাজিত ইনিংস খেলেন ডুসেন। চার উইকেটে দল পৌঁছায় ২৯৬ রানে।

টার্গেটে নেমে লক্ষ্যের পথেই ছিল ভারত। শিখর ধাওয়ানের ৭৯ আর ভিরাট কোহলির ৫১ রানে ম্যাচে টিকে ছিল সফরকারিরা। তবে মাঝপথে ছন্দে পতন ঘটে তাদের।

কোহলি-ধাওয়ানের বিদায়ের পর থিতু হতে পারেননি রিশাভ পান্ট ও শ্রেয়াস আইয়ার। তারা ক্রিজ থেকে বিদায় নিলে ভারতের শেষ আশা শেষ হয়ে যায়।

টেইল এন্ডে বোলার শারদুল ঠাকুরের ৫০ রান হারের ব্যবধান কমিয়েছে ভারতের।

শেষ পর্যন্ত ৩১ রানের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে সাউথ আফ্রিকা। পরের ম্যাচে ঘুরে দাঁড়াতে চাইবে ভারত। আর সিরিজ বগলদাবা করতে চাইবে প্রোটিয়ারা। দ্বিতীয় ম্যাচটি মাঠে গড়াবে ২১ জানুয়ারি।

আরও পড়ুন:
মুমিনুলদের রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রীর অভিনন্দন
নিউজিল্যান্ডকে হারিয়ে বাংলাদেশের ইতিহাস
এবাদতের হাত ধরেই ইতিহাস

শেয়ার করুন