স্বাধীন বাংলা ফুটবল দলকে সম্মাননা দিল এনএসসি

player
স্বাধীন বাংলা ফুটবল দলকে সম্মাননা দিল এনএসসি

সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে স্বাধীন বাংলা ফুটবল দল। ছবি: সংগৃহীত

জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের শেখ কামাল মিলনায়তনে সোমবার আড়ম্বরপূর্ণ আয়োজনে সংবর্ধনা দেয়া হয় স্বাধীন বাংলা ফুটবল দলকে।

মহান মুক্তিযুদ্ধে অসামান্য অবদান রাখা স্বাধীন বাংলা ফুটবল দলের গর্বিত সদস্যদেরকে সংবর্ধনা দিয়েছে জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ (এনএসসি)।

সোমবার পরিষদের শেখ কামাল মিলনায়তনে এক আড়ম্বরপূর্ণ আয়োজনের মধ্য দিয়ে তাদেরকে এই সংবর্ধনা দেয়া হয়।

যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মো. আখতার হোসেনের সভাপতিত্বে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী এবং জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের চেয়ারম্যান জাহিদ আহসান রাসেল।

অনুষ্ঠানের শুরুতেই মহান মুক্তিযুদ্ধে জীবন উৎসর্গকারী সব শহীদের আত্মার মাগফিরাত কামনায় এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। এরপর স্বাধীন বাংলা ফুটবল দলের খেলোয়াড়দের ফুল দিয়ে বরণ করে নেয়া হয়।

অনুষ্ঠানে স্বাধীন বাংলা ফুটবল দলের বিষয়ে স্মৃতিচারণমূলক বক্তব্য দেন দলটির ম্যানেজার তানভীর মাজহারুল ইসলাম তান্না ও সংগঠক সাইদুর রহমান প্যাটেল।

এছাড়াও বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগের যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক মো. হারুনর রশীদ। মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন স্বাধীন বাংলা ফুটবল দলের অধিনায়ক জাকারিয়া পিন্টু।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী বলেন, 'জাতির পিতার জন্মশতবর্ষ ও মহান স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উদযাপনের এ মাহেন্দ্রক্ষণে জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান স্বাধীন বাংলা ফুটবল দলের গর্বিত সদস্যদের সংবর্ধনা দিতে পেরে আমি আনন্দিত ও গর্বিত৷ মহান মুক্তিযুদ্ধে ফুটবলকে অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করে তাঁরা বহির্বিশ্বে মুক্তিযুদ্ধের পক্ষে বিশ্ব জনমত সৃষ্টি করতে অনবদ্য ভূমিকা রেখেছিলেন।

‘একইসঙ্গে তারা অর্থ সংগ্রহ করে মুক্তিযোদ্ধাদের হাতে তুলে দেন। আজ তাদের সংবর্ধনা দিতে পেরে আমরা সম্মানিত বোধ করছি।’

স্বাধীন বাংলা ফুটবল দলকে রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ পুরস্কার ‘স্বাধীনতা পুরস্কার’ প্রদানের জন্য প্রধানমন্ত্রীকে অনুরোধ জানাবেন বলেও জানান যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী।

জাহিদ আহসান রাসেল বলেন, ‘এছাড়া যে সংগঠনের হাত ধরে দেশের ক্রীড়াঙ্গনের ভিত রচিত হয়েছিল সেই বাংলাদেশ ক্রীড়া সমিতিকে অচিরেই রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতি দেয়া হবে।’

নতুন প্রজন্মকে দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ করতে স্বাধীন বাংলা ফুটবল দলের প্রকৃত ইতিহাস নিয়ে পুস্তক প্রকাশের সময় এসেছে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

সভাপতির বক্তব্যে সিনিয়র সচিব আখতার হোসেন বলেন, ‘মহান মুক্তিযুদ্ধে বাঙালি জাতিকে উদ্বুদ্ধ করতে স্বাধীন বাংলা ফুটবল দলের গুরুত্ব অপরিসীম। তাদের কাছে আমরা চিরঋণী।’

অনুষ্ঠানে স্বাধীন বাংলা ফুটবল দলের সদস্যবৃন্দ, যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের সচিব পরিমল সিংহ, বিভিন্ন ক্রীড়া ফেডারেশনের নেতৃবৃন্দ ও ক্রীড়া সংগঠকরা উপস্থিত ছিলেন।’

আরও পড়ুন:
নতুন ‘সার্কাসে’ গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন মোহামেডান
কিংস ও উত্তর বারিধারা পরের মৌসুমে ‘নিষিদ্ধ’
ওয়াকওভার পেয়ে নিজেদের মধ্যে ম্যাচ খেলল শেখ জামাল
ইনজুরি টাইমের রোমাঞ্চে সাইফকে রুখে দিল পুলিশ
যারা আসবে তাদের নিয়েই ফেড কাপ চলবে: মুর্শেদী

শেয়ার করুন

মন্তব্য

বার্সার বিদায়ের দিনে শেষ আটে রিয়াল

বার্সার বিদায়ের দিনে শেষ আটে রিয়াল

বার্সেলোনার বিপক্ষে জয়ের পর উচ্ছ্বসিত বিলবাও। ছবি: এএফপি

শেষ মুহূর্তের গোলে আথলেতিক বিলবাওয়ের কাছে ৩-২ গোলে হেরে কোপা দেল রে কাপ থেকে বিদায় নিতে হলো কাতালানদের। অপরদিকে এলচের বিপক্ষে ২-১ গোলে জয় পেয়ে শেষ আট নিশ্চিত করেছে রিয়াল মাদ্রিদ।

সময়টা নিজেদের সাপোর্টে নিতে পারছে না স্প্যানিশ জায়ান্ট বার্সেলোনা। শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে শেষ মুহূর্তের গোলে আথলেতিক বিলবাওয়ের কাছে ৩-২ গোলে হেরে কোপা দেল রে কাপ থেকে বিদায় নিতে হলো কাতালানদের। অপরদিকে এলচের বিপক্ষে ২-১ গোলে জয় পেয়ে শেষ আট নিশ্চিত করেছে রিয়াল মাদ্রিদ।

রোমাঞ্চে ঠাসা ম্যাচের দ্বিতীয় মিনিটেই লিড নেয় বিলবাও। ইকার মুনাইনের গোলে এগিয়ে যায় স্বাগতিকরা। পিছিয়ে পরে আক্রমণের তেজ বাড়িয়ে ২০ মিনিটে সমতায় ফেরে চাভি শিষ্যরা।

দুর্দান্ত এক গোলে ফার্নান্দো তোরেস ম্যাচে ফেরান দলকে।

৮৬ মিনিটের মাথায় ফের পিছিয়ে পরে বার্সা। ইনিয়াগো মার্তিনেস এগিয়ে দেন দলকে। অতিরিক্ত সময়ের যোগ করা তৃতীয় মিনিটে দানি আলভেসের পাসে জালের ঠিকানা খুঁজে নিয়ে দলকে আবার সমতায় ফেরান পেদ্রি।

কিন্তু শেষ রক্ষা হয়নি। ১০৬ তম মিনিটে ডি বক্সে হ্যান্ড বল হয় জোর্দি আলবার। সেখান থেকে সফল স্পট কিকে দলের জয় নিশ্চিত করেন মুনাইন। আর তাতেই শেষ ষোল থেকে বিদায় নিশ্চিত হয়ে যায় কাতালানদের।

এদিকে দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে শেষ সাত মিনিটের রোমাঞ্চে এলচের বিপক্ষে দুর্দান্ত এক জয় পেয়ে শেষ আট নিশ্চিত করেছে রিয়াল মাদ্রিদ।

পুরো ম্যাচ গোলের দেখা না পাওয়া দুই দল বদলে যায় ম্যাচের ১০২ মিনিটের সময়। নির্ধারিত সময়ের পুরোটা প্রতিপক্ষকে আটকে রাখলেও ১০৩ মিনিটের মাথায় পিছিয়ে পরে রিয়াল।

যদিও পাঁচ মিনিট পর ঠিকই সমতায় ফেরে তারা ইসকোর গোলে।

ম্যাচের সামগ্রিক অবস্থা যাচ্ছিল ড্রয়ের পথে। কিন্তু ১১৫ তম মিনিটে ইডেন অ্যাজারের নাটকীয় গোলে লিড পায় রিয়াল। শেষ পর্যন্ত সেই লিড ধরে রেখেই জয় নিয়ে শেষ আটে পৌঁছায় লস ব্লাঙ্কোস।

আরও পড়ুন:
নতুন ‘সার্কাসে’ গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন মোহামেডান
কিংস ও উত্তর বারিধারা পরের মৌসুমে ‘নিষিদ্ধ’
ওয়াকওভার পেয়ে নিজেদের মধ্যে ম্যাচ খেলল শেখ জামাল
ইনজুরি টাইমের রোমাঞ্চে সাইফকে রুখে দিল পুলিশ
যারা আসবে তাদের নিয়েই ফেড কাপ চলবে: মুর্শেদী

শেয়ার করুন

‘রোনালডো নিজেকে ক্লাবের চেয়েও বড় মনে করেন’

‘রোনালডো নিজেকে ক্লাবের চেয়েও বড় মনে করেন’

ম্যাচের ৭১ মিনিটে রোনালডোকে মাঠ থেকে তুলে নেয়া হয়। ছবি: এএফপি

ব্রেন্টফোর্ডের বিপক্ষে ম্যাচের ৭১ মিনিটে পর্তুগিজ সুপারস্টারকে তুলে নেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের হেড কোচ রালফ রাংগনিক। তখনও ২-০ গোলে এগিয়ে ছিল রেড ডেভিলরা।

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের সবশেষ ম্যাচে ক্রিস্টিয়ানো রোনালডোকে উঠিয়ে বদলি খেলোয়াড় নামানো এবং এ ঘটনায় পর্তুগিজ সুপারস্টারের প্রতিক্রিয়া আলোচনা-সমালোচনার জন্ম দিয়েছে।

ব্রেন্টফোর্ডের বিপক্ষে ম্যাচের ৭১ মিনিটে পর্তুগিজ সুপারস্টারকে তুলে নেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের হেড কোচ রালফ রাংগনিক। তখনও ২-০ গোলে এগিয়ে ছিল রেড ডেভিলরা।

তুলে নেয়ার পর বেঞ্চে বসার সময় নিজের প্রতিক্রিয়া দেখান রোনালডো। পরে তার সঙ্গে কথা বলতে দেখা যায় ইউনাইটেড কোচকে।

তার সঙ্গে কী কথা হয়েছিল, পরে সংবাদ সম্মেলনে তা ব্যাখ্যা করেন তিনি।

রালফ রাংগনিক বলেন, ‘আমি বলেছি, শোনো ক্রিস্টিয়ানো, তুমি এখন ৩৬। তোমার দারুণ শারীরিক অবস্থা আছে। কিন্তু তুমি যখন একজন হেড কোচ হবে তোমাকে তার চোখ থেকে দেখতে হবে।

‘আমার দায়িত্ব হলো দলের স্বার্থে সিদ্ধান্ত নেয়া। মনে করি রোনালডোও এভাবে চিন্তা করে।’

এ ঘটনায় ব্রিটিশ মিডিয়ার তীব্র সমালোচনার শিকার হয়েছেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালডো।

বিবিসির প্রধান ফুটবলার লেখক ফিল ম্যাকনালটি তার সমালোচনায় লেখেন, ‘রোনালডোর এমন প্রতিক্রিয়ার কোনো প্রয়োজন ছিল না। তিনি নিজেকে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের চেয়েও বড় মনে করেন।’

কোচের সিদ্ধান্তে সহমত পোষণ করে আয়ারল্যান্ডের সাবেক জাতীয় ফুটবলার অ্যান্ডি টাউনসেন্ড বলেন, ‘রোনালডোর এমন প্রতিক্রিয়ায় আমি হতবাক! দলের প্রথম কাজ হলো তিন পয়েন্ট নিশ্চিত করা। রোনালডোর এমন প্রতিক্রিয়ার পর কোচ তার সঙ্গে কথা বলতে গিয়েছিলেন। কিন্তু অভিব্যক্তি দেখে মনে হয়নি যে রোনালডো তা মেনে নিয়েছেন।’

আরও পড়ুন:
নতুন ‘সার্কাসে’ গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন মোহামেডান
কিংস ও উত্তর বারিধারা পরের মৌসুমে ‘নিষিদ্ধ’
ওয়াকওভার পেয়ে নিজেদের মধ্যে ম্যাচ খেলল শেখ জামাল
ইনজুরি টাইমের রোমাঞ্চে সাইফকে রুখে দিল পুলিশ
যারা আসবে তাদের নিয়েই ফেড কাপ চলবে: মুর্শেদী

শেয়ার করুন

মেসিকে ছাড়াই আর্জেন্টিনার স্কোয়াড ঘোষণা

মেসিকে ছাড়াই আর্জেন্টিনার স্কোয়াড ঘোষণা

লিওনেল মেসি ও তার সতীর্থরা। ছবি: টুইটার

২৭ জনের পূর্ণাঙ্গ দলে আর বড় কোনো পরিবর্তন হয়নি। টটেনহ্যামের সেন্টার-ব্যাক ক্রিস্টিয়ান রোমেরো ইনজুরির কারণে জায়গা পাননি। একমাত্র আর্জেন্টাইন ক্লাব হিসেবে রিভার প্লেট থেকে দুজন খেলোয়াড় স্কালোনির দলে ডাক পেয়েছেন।

সম্প্রতি করোনামুক্ত হওয়া পিএসজির সুপারস্টার লিওনেল মেসিকে ছাড়াই বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের দল ঘোষণা করেছে আর্জেন্টিনা। ইতোমধ্যে ২০২২ কাতার বিশ্বকাপের টিকিট নিশ্চিত করেছে আলবিসেলেস্তেরা। এখন দক্ষিণ আমেরিকান বাছাইপর্বের শেষ দুটি ম্যাচে চিলি ও কলম্বিয়ার বিপক্ষে মাঠে নামবে সাবেক দুইবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনা।

আগামী ২৭ জানুয়ারি সান্তিয়াগোতে চিলির বিপক্ষে ম্যাচের পর ও ১ ফেব্রুয়ারি ঘরের মাঠে কলম্বিয়াকে আতিথ্য দেবে আর্জেন্টিনা। প্রতিপক্ষ দুই দলই বাছাইপর্বের টিকিট নিশ্চিতের মিশনে এখনও টিকে রয়েছে।

ডিসেম্বরে বড়দিনের ছুটিতে রোজারিওতে নিজ বাড়িতে গিয়ে করোনায় আক্রান্ত হন মেসি। ৫ জানুয়ারি পিএসজির পক্ষ থেকে এক বিবৃবিতে জানানো হয়, নেগেটিভ হয়ে মেসি প্যারিসে ফিরে এসেছেন।

চলতি সপ্তাহে সাতবারের ব্যালন ডি‘অর বিজয়ী এই আর্জেন্টাইন অধিনায়ক পিএসজির পূর্ণাঙ্গ অনুশীলনে ফিরেছেন। এই সময়ে মধ্যে মেসি ভানেসের বিপক্ষে ফরাসি কাপের ম্যাচ ছাড়াও লিগ ওয়ানে লিঁও ও ব্রেস্টের বিপক্ষে ম্যাচ দুটি মিস করেছেন।

লিঁওর বিপক্ষে মেসিবিহীন পিএসজি ১-১ গোলে ড্র করলেও শনিবার ব্রেস্টকে ২-০ গোলে পরাজিত করেছে।

সব মিলিয়ে আগস্টে পিএসজিতে যোগ দেবার পর মেসি ১০টি লিগ ম্যাচে অনুপস্থিত ছিলেন। রেইমসের বিপক্ষে রোববার তিনি ২০২২ সালের প্রথম ম্যাচে মাঠে নামতে যাচ্ছেন।

জাতীয় দলের কোচ লিওনেল স্কালোনির অধীনে মেসির পিএসজির অপর দুই সতীর্থ উইঙ্গার আনেহল ডি মারিয়া ও মিডফিল্ডার পারেদেস ডাক পেয়েছেন।

এ ছাড়া ২৭ জনের দলে আর বড় কোন পরিবর্তন হয়নি। টটেনহ্যামের সেন্টার-ব্যাক ক্রিস্টিয়ান রোমেরো ইনজুরির কারণে জায়গা পাননি। একমাত্র আর্জেন্টাইন ক্লাব হিসেবে রিভার প্লেট থেকে দুজন খেলোয়াড় স্কালোনির দলে ডাক পেয়েছেন।

তারা হলেন অভিজ্ঞ গোলরক্ষক ফ্রাংকো আরমানি ও ফরোয়ার্ড জুলিয়ান আলভারেজ। ২০২১ সালে আলভারেজ দক্ষিণ আমেরিকার বর্ষসেরা ফুটবলার মনোনীত হয়েছেন।

আর্জেন্টিনার পূর্ণাঙ্গ স্কোয়াড :

গোলরক্ষক: ফ্রাংকো আরমানি, এমিলিয়ানো মার্টিনেজ, হুয়ান মুসো, এস্তেবান আনড্রাডা।

ডিফেন্ডার: নাহুয়েল মলিনা, গঞ্জালো মনটিয়েল, জার্মান পেজ্জেলা, নিকোলাস ওটামেন্ডি, লিসান্দ্রো মার্টিনেজ, লুকাস মার্টিনেজ কুয়ার্টা, নিকোলাস টাগলিয়াফিকো, মার্কোস এ্যাকুনা।

মিডফিল্ডার: লুকাস ওকাম্পো, রডরিগো ডি পল, লিনদ্রো পারেডেস, গুডিও রডরিগুয়েজ, গিওভান্নি লো সেলসো, এ্যালেক্সিস ম্যাক এ্যালিস্টার, এমিলিয়ানো বুয়েনডিয়া, আলেহান্দ্রো গোমেজ।

ফরোয়ার্ড: নিকোলাস গঞ্জালেজ, এ্যাঞ্জেল ডি মারিয়া, এ্যাঞ্জেল কোরেয়া, লটারো মার্টিনেজ, জুলিয়ান আলভারেজ, জোয়াকুইন কোরেয়া।

আরও পড়ুন:
নতুন ‘সার্কাসে’ গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন মোহামেডান
কিংস ও উত্তর বারিধারা পরের মৌসুমে ‘নিষিদ্ধ’
ওয়াকওভার পেয়ে নিজেদের মধ্যে ম্যাচ খেলল শেখ জামাল
ইনজুরি টাইমের রোমাঞ্চে সাইফকে রুখে দিল পুলিশ
যারা আসবে তাদের নিয়েই ফেড কাপ চলবে: মুর্শেদী

শেয়ার করুন

ফ্রান্সে টিকার নতুন বিধিতে বিপাকে চেলসি-মাদ্রিদ

ফ্রান্সে টিকার নতুন বিধিতে বিপাকে চেলসি-মাদ্রিদ

চেলসি ও রিয়াল মাদ্রিদ। ছবি: এএফপি

টিকার ‍দুই ডোজ না নেয়া থাকলে ফ্রান্সে ঢুকতে পারবেন না কোনো বিদেশি। আর তাতে বেশ বিপাকে পড়তে চলেছে চেলসি ও রিয়াল মাদ্রিদ। দুই দলেরই চ্যাম্পিয়নস লিগের অ্যাওয়ে ম্যাচ রয়েছে দেশটিতে।

ইউরোপের দেশ ফ্রান্সে কোভিড নিয়ে একটা নতুন আইন করা হয়েছে। সেই আইনের ফলে বিপাকে পড়তে চলেছে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের দল চেলসি ও লা লিগার ক্লাব রিয়াল মাদ্রিদ। আর তা হলো টিকার দুই ডোজ নেয়া না থাকলে ফ্রান্সে ঢুকতে পারবেন না কোনো বিদেশি।

এতেই বেশ বিপাকে পড়তে চলেছে চেলসি ও রিয়াল মাদ্রিদ। দুই দলেরই চ্যাম্পিয়নস লিগের অ্যাওয়ে ম্যাচ রয়েছে দেশটিতে। যে কারণে দুই ডোজ টিকা নেয়া ছাড়া খেলোয়াড়দের রেখেই ফ্রান্সে পা রাখতে হবে দুই ক্লাবকে।

ইউয়েফার বরাত দিয়ে বৃহস্পতিবার বিষয়টি নিশ্চিত করেছে ক্রীড়া বিষয়ক টিভি চ্যানেল ইএসপিএন।

আগামী ১৭ মার্চ ফরাসি দল লিলের সঙ্গে অ্যাওয়ে ম্যাচ খেলার কথা চ্যাম্পিয়নস লিগের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন চেলসির। আর ১৬ ফেব্রুয়ারি পিএসজির বিপক্ষে অ্যাওয়ে ম্যাচ আছে টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ শিরোপা জয়ী রিয়াল মাদ্রিদের।

এ অবস্থায় বিপাকে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ আয়োজক ইউয়েফাও। তারা বিবৃতিতে বলেছে, ‘বিষয়টি নিয়ে আমরা ফ্রান্সের কর্তৃপক্ষের সঙ্গে সমঝোতায় যাওয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে। যদি ব্যতিক্রম হিসেবে বা খেলার পরিধির বিষয়টা বিবেচনায় এনে টিকা না নেয়া খেলোয়াড়দের অনুমতি দেয়া হয় সেই চেষ্টা করা হচ্ছে।’

যদি অনুমতি না মেলে তাহলে বিকল্প হিসেবে নিরপেক্ষ ভেন্যুতে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ম্যাচগুলো খেলানোর পরিকল্পনা করা হচ্ছে।

আরও পড়ুন:
নতুন ‘সার্কাসে’ গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন মোহামেডান
কিংস ও উত্তর বারিধারা পরের মৌসুমে ‘নিষিদ্ধ’
ওয়াকওভার পেয়ে নিজেদের মধ্যে ম্যাচ খেলল শেখ জামাল
ইনজুরি টাইমের রোমাঞ্চে সাইফকে রুখে দিল পুলিশ
যারা আসবে তাদের নিয়েই ফেড কাপ চলবে: মুর্শেদী

শেয়ার করুন

ফিফা থেকে ক্ষতিপূরণ পাচ্ছেন গোলকিপার সোহেল

ফিফা থেকে ক্ষতিপূরণ পাচ্ছেন গোলকিপার সোহেল

জাতীয় দলের জার্সিতে গোলকিপার শহীদুল আলম সোহেল। ছবি: সংগৃহীত

‘ফিফা ক্লাব প্রটেকশন স্কিম'-এর আওতায় ফিফার নিকট আর্থিক সাহায্যের আবেদন করে বাফুফে। ফিফা একাধিক কিস্তিতে সব মিলিয়ে ১ লাখ ৪৭ হাজার টাকা অনুদান প্রদানে সম্মতি দিয়েছে।

ফুটবলের সর্বোচ্চ সংস্থা ফিফা থেকে আর্থিক ক্ষতিপূরণ পাচ্ছেন জাতীয় দলের গোলকিপার শহীদুল আলম সোহেল। ফিফা একাধিক কিস্তিতে ১ লাখ ৪৭ হাজার টাকা দেবে তাকে।

এক বিবৃতিতে বৃহস্পতিবার বিকেলে বিষয়টি নিশ্চিত করেছে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে)।

বিশ্বকাপ ও এশিয়ান কাপ বাছাই পর্বের ম্যাচের প্রস্তুতির সময় ২০২০ সালের ২০ নভেম্বর ইনজুরিতে পড়েছিলেন সোহেল। যার ফলে ক্লাব পর্যায়ে তার সার্ভিস পায়নি ঢাকা আবাহনী।

এরই পরিপ্রেক্ষিতে ‘ফিফা ক্লাব প্রটেকশন স্কিম'-এর আওতায় ফিফার নিকট আর্থিক সাহায্যের আবেদন করে বাফুফে।

ফিফা একাধিক কিস্তিতে সব মিলিয়ে ১ লাখ ৪৭ হাজার টাকা অনুদান প্রদানে সম্মতি দিয়েছে।

ফিফা থেকে এই ক্ষতিপূরণের টাকা আবাহনীর ব্যাংক অ্যাকাউন্টে জমা হবে।

এর আগেও এই স্কিমের আওতায় ২০১৭ সালে বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলের খেলোয়াড় আতিকুর রহমান ফাহাদ ও মাসুক মিয়া জনির ইনজুরির জন্য আর্থিক ক্ষতিপূরণ দিয়েছিল ফিফা।

বর্তমানে জাতীয় দলের ফুটবলার বিশ্বনাথ ঘোষের বিষয়টি ফিফার কাছে প্রক্রিয়াধীন আছে। আবেদন পাস হলে আর্থিক ক্ষতিপূরণ পাবেন বসুন্ধরা কিংসের এ ডিফেন্ডার।

গত বছরের মার্চে নেপালে অনুষ্ঠিত ‘থ্রি নেশন্স কাপ ২০২১’-এ ইনজুরিতে পড়েছিলেন বিশ্বনাথ।

আরও পড়ুন:
নতুন ‘সার্কাসে’ গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন মোহামেডান
কিংস ও উত্তর বারিধারা পরের মৌসুমে ‘নিষিদ্ধ’
ওয়াকওভার পেয়ে নিজেদের মধ্যে ম্যাচ খেলল শেখ জামাল
ইনজুরি টাইমের রোমাঞ্চে সাইফকে রুখে দিল পুলিশ
যারা আসবে তাদের নিয়েই ফেড কাপ চলবে: মুর্শেদী

শেয়ার করুন

শেষ আপিলও খারিজ, জেল খাটতেই হচ্ছে রবিনিয়োকে

শেষ আপিলও খারিজ, জেল খাটতেই হচ্ছে রবিনিয়োকে

ব্রাজিলের ক্লাব আতলেতিকো মিনেইরোর জার্সিতে রবিনিয়ো। ছবি: এএফপি

রায়ের বিরুদ্ধে আর আবেদন করতে পারবেন না রবিনিয়ো। এবার সাজা খাটতে হবে ৩৮ বছর বয়সী সাবেক ব্রাজিল তারকাকে। ইতালির আদালত জানিয়েছে, রবিনিয়ো চাইলে নিজ দেশের কারাগারে সাজা খাটতে পারেন।

৯ বছরের কারাদণ্ডের বিরুদ্ধে ইতালির আদালতে শেষবারের মতো আপিল করেছিলেন ব্রাজিলের সাবেক ফরোয়ার্ড রবিনিয়ো, কিন্তু সেই আবেদন খারিজ করে দিয়েছে আদালত।

এ রায়ের ফলে ধর্ষণের দায়ে ৯ বছরের সাজা খাটতেই হবে তাকে। একই সাজা পেয়েছেন রবিনিয়োর বন্ধু রিকার্দো ফালকাও।

২০১৩ সালে রবিনিয়ো ও ফালকাওয়ের বিরুদ্ধে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের মামলা হয়। ওই সময় ইতালির ক্লাব এসি মিলানে খেলতেন রবিনিয়ো।

রোমের এক বারে আলবেনিয়ার এক তরুণীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগ ওঠে রবিনিয়ো, রিকার্দোসহ ছয়জনের বিরুদ্ধে।

মামলায় দোষী সাব্যস্ত হওয়ায় ২০১৭ সালে রবিনিয়ো ও তার বন্ধুকে ৯ বছরের কারাদণ্ড দেয় আদালত।

গত প্রায় ৫ বছরে ওই রায়ের বিরুদ্ধে বারবার আপিল করেন রবিনিয়ো। সেটি প্রতিবারই খারিজ হয়।

শেষ আবেদনও খারিজ হলো এবার। আর আবেদন করতে পারবেন না তিনি। এবার সাজা খাটতে হবে ৩৮ বছর বয়সী সাবেক এ তারকাকে।

ইতালির আদালত জানিয়েছে, রবিনিয়ো চাইলে নিজ দেশের কারাগারে সাজা খাটতে পারেন।

২০০২ সালে ১৮ বছর বয়সে সান্তোসের হয়ে পেশাদার ফুটবলে অভিষেকের পর রিয়াল মাদ্রিদ, ম্যানচেস্টার সিটি ও এসি মিলানের মতো বিশ্বসেরা ক্লাবগুলোতে খেলেছেন রবিনিয়ো।

ব্রাজিলের ফুটবল সম্রাট পেলে তাকে নিজের উত্তরসূরি হিসেবে ঘোষণা দিয়েছিলেন।

আরও পড়ুন:
নতুন ‘সার্কাসে’ গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন মোহামেডান
কিংস ও উত্তর বারিধারা পরের মৌসুমে ‘নিষিদ্ধ’
ওয়াকওভার পেয়ে নিজেদের মধ্যে ম্যাচ খেলল শেখ জামাল
ইনজুরি টাইমের রোমাঞ্চে সাইফকে রুখে দিল পুলিশ
যারা আসবে তাদের নিয়েই ফেড কাপ চলবে: মুর্শেদী

শেয়ার করুন

নাখোশ রোনালডোকে নিয়ে জিতল ম্যান ইউ, লেস্টারকে হারাল স্পার্স

নাখোশ রোনালডোকে নিয়ে জিতল ম্যান ইউ, লেস্টারকে হারাল স্পার্স

সতীর্থদের সঙ্গে গোল উদযাপন করছেন মার্কাস র‍্যাশফোর্ড (বামে)। ছবি: এএফপি

১৯ ম্যাচে ৩৬ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের পাঁচে উঠে এসেছে টটেনহ্যাম। আর ২১ ম্যাচে ৩৫ পয়েন্ট নিয়ে ইউনাইটেড আছে টেবিলের সাতে। 

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে নিজ নিজ ম্যাচে জয় পেয়েছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ও টটেনহ্যাম হটস্পার। লেস্টার সিটিকে ৩-২ গোলে হারিয়েছে স্পার্স আর ব্রেন্টফোর্ডের মাঠে ইউনাইটেডের জয় ৩-১ গোলের।

ব্রেন্টফোর্ডের মাঠে বেশ ঢিমেতালে ছিল ইউনাইটেড। প্রথমার্ধে গুছিয়ে নিতে পারেনি রালফ রাগনিকের শিষ্যরা।

ক্রিস্টিয়ানো রোনালডো শুরু থেকে খেললেও ছিলেন নিজের ছায়া হয়ে। কার্যকরী ছিলেন না ম্যাকটমিনেও।

দ্বিতীয়ার্ধে সফরকারী দলকে চাঙা করে তোলেন অ্যান্থনি এলাঙ্গা। এই টিনেজ তারকার প্রথম গোলে ৫৫ মিনিটে লিড নেয় ইউনাইটেড।

এর মিনিট ছয়েক পর আবারও ব্রেন্টফোর্ডের রক্ষণে আঘাত করে ইউনাইটেড। এবারে স্কোরার ছিলেন মেসন গ্রিনউড।

২-০ গোলে এগিয়ে যাওয়ার পর পয়েন্ট রক্ষায় মনোযোগী হন রাগনিক। নিস্প্রভ রোনালডোকে তুলে নিয়ে ডিফেন্ডার হ্যারি ম্যাগুয়ারকে নামান ইউনাইটেড বস।

এই সিদ্ধান্ত পছন্দ হয়নি রোনালডোর। মাঠ ছেড়ে যাওয়ার সময় কিছুটা ক্ষোভ প্রকাশ করেন পাঁচবার ব্যালন ডর জয়ী এ তারকা।

নাখোশ রোনালডোকে নিয়ে জিতল ম্যান ইউ, লেস্টারকে হারাল স্পার্স
দ্বিতীয়ার্ধে বদলি করার সিদ্ধান্তে সন্তুষ্ট ছিলেন না রোনালডো। ছবি: টুইটার

তাতে অবশ্য ইউনাইটেডের খেলায় কোনো প্রভাব পড়েনি। ৭৭ মিনিটে মার্কাস র‍্যাশফোর্ডের গোলে ম্যাচ ৩-০ ব্যবধানে নিশ্চিত করে ফেলে সাবেক চ্যাম্পিয়নরা।

শেষ দিকে স্বাগতিক দলের হয়ে আইভান টোনি এক গোল শোধ করলেও তা ম্যাচভাগ্যে বদল আনতে পারেনি।

৩-১ গোলের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে ইউনাইটেড।

রাতের আরেক ম্যাচে ছিল চরম নাটকীয়তা। লেস্টার সিটি নিজ মাঠে এগিয়ে ছিল শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত। তবে অতিরিক্ত সময়ে জোড়া গোল করে ম্যাচ বের করে নেয় টটেনহ্যাম।

লেস্টারকে ২৪ মিনিটে লিড এনে দেন প্যাটসন ডাকা। প্রথমার্ধে গোল শোধ করে দেন হ্যারি কেইন।

বিরতির পর ৭৬ মিনিটে জেমস ম্যাডিসনের গোলে দ্বিতীয়বার লিড নেয় লেস্টার। ম্যাচে ২-১ স্কোরলাইন ছিল ৯৪ মিনিট পর্যন্ত।

৯৫ ও ৯৭ মিনিটে স্টিভেন বার্গউইনের জোড়া গোলে অবিশ্বাস্য ভাবে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে সফরকারী দল।

এ জয়ে ১৯ ম্যাচে ৩৬ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের পাঁচে উঠে এসেছে টটেনহ্যাম। আর ২১ ম্যাচে ৩৫ পয়েন্ট নিয়ে ইউনাইটেড আছে টেবিলের সাতে।

আরও পড়ুন:
নতুন ‘সার্কাসে’ গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন মোহামেডান
কিংস ও উত্তর বারিধারা পরের মৌসুমে ‘নিষিদ্ধ’
ওয়াকওভার পেয়ে নিজেদের মধ্যে ম্যাচ খেলল শেখ জামাল
ইনজুরি টাইমের রোমাঞ্চে সাইফকে রুখে দিল পুলিশ
যারা আসবে তাদের নিয়েই ফেড কাপ চলবে: মুর্শেদী

শেয়ার করুন