বঙ্গবন্ধুর স্মরণে ঢাকা ম্যারাথন ১০ জানুয়ারি

player
বঙ্গবন্ধুর স্মরণে ঢাকা ম্যারাথন ১০ জানুয়ারি

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ঢাকা ম্যারাথনের লোগো উন্মোচন অনুষ্ঠান। ছবি: নিউজবাংলা

প্রায় ৬০০ প্রতিযোগীর অংশগ্রহণে আয়োজিত হবে ঢাকা ম্যারাথন। হাফ ও ফুল দুই ফরম্যাটের এই প্রতিযোগিতা হবে একই দিনে।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষ্যে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর তত্ত্বাবধানে আয়োজিত হতে যাচ্ছে ঢাকা ম্যারাথন। ১০ জানুয়ারি হবে এই প্রতিযোগিতা।

প্রায় ৬০০ প্রতিযোগীর অংশগ্রহণে আয়োজিত হবে প্রতিযোগিতাটি। হাফ ও ফুল দুই ফরম্যাটের ম্যারাথন অনুষ্ঠিত হবে একই দিনে।

১০ জানুয়ারি ভোর সাড়ে পাঁচটায় দেশী বিদেশি ৬০০ প্রতিযোগীর অংশগ্রহণে আর্মি স্টেডিয়ামের সামনে থেকে শুরু হবে ম্যারাথনের দৌড়। সেটি শেষ হবে হাতিরঝিলে এসে।

ফুল ম্যারাথনের দৈর্ঘ্য ৪২.৫০ কি.মি. ও হাফ ম্যারাথনের দৈর্ঘ্য ২১.৯৭ কি.মি. ধরা হয়েছে।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ঢাকা ম্যারাথনের ফুল ম্যারাথনে অংশ নেবে ১০০ প্রতিযোগী। বাকিরা অংশ নেবে হাফ ম্যারাথনে।

পুরো প্রতিযোগিতাটি হচ্ছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর পৃষ্ঠপোষকতায়।

আরও পড়ুন:
স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে মেহেরপুরে মিনি ম্যারাথন
মেরিন ড্রাইভের আল্ট্রা ম্যারাথনে ৩০০ অ্যাথলিট
এবার ম্যারাথনে ‘লাস্ট’ হলেন যিনি
চায়ের দেশে হাফ ম্যারাথন
চীনে ম্যারাথনে গিয়ে ২১ জনের মৃত্যু

শেয়ার করুন

মন্তব্য

প্রধানমন্ত্রীর অনুদান পেলেন ৪ ক্রীড়াবিদ

প্রধানমন্ত্রীর অনুদান পেলেন ৪ ক্রীড়াবিদ

ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসানের বামে বক্সার মশাররফ ও ডানে দাবাড়ু রাণী হামিদ। ছবি: সংগৃহীত

এশিয়ান গেমসে বক্সিংয়ে ব্রোঞ্জজয়ী জাতীয় ক্রীড়া পুরস্কারপ্রাপ্ত মোশাররফ হোসেনকে অসুস্থতা ও পারিবারিক অস্বচ্ছলতার জন্য ৩০ লাখ টাকা এবং আন্তর্জাতিক গ্রান্ডমাস্টার দাবাড়ু রাণী হামিদকে ১০ লাখ টাকা প্রদান করা হয়েছে। এ ছাড়াও আরও দুই ক্রীড়া সংগঠককে ২২ লাখ টাকা দেয়া হয়।

অনাড়ম্বরপূর্ণ এক আয়োজনের মধ্যে দিয়ে দেশের চার ক্রীড়াবিদের হাতে প্রধানমন্ত্রীর আর্থিক অনুদানের চেক তুলে দেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল।

বুধবার জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের সম্মেলন কক্ষে এই আয়োজন করা হয়।

এ সময় প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক প্রদত্ত ৬২ লাখ টাকার আর্থিক অনুদানের চেক বিতরণ করা হয়।

এশিয়ান গেমসে বক্সিংয়ে ব্রোঞ্জজয়ী ও জাতীয় ক্রীড়া পুরস্কারপ্রাপ্ত মোশাররফ হোসেনকে অসুস্থতা ও পারিবারিক অস্বচ্ছলতার জন্য ৩০ লাখ টাকা এবং আন্তর্জাতিক গ্রান্ডমাস্টার দাবাড়ু রাণী হামিদকে ১০ লাখ টাকা দেয়া হয়েছে।

এ ছাড়াও আরও দুই ক্রীড়া সংগঠককে ২২ লাখ টাকা দেয়া হয়।

উল্লেখ্য, বক্সার মোশাররফকে এর আগে মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকেও ২ লাখ টাকা দেয়া হয়েছিল।

চেক বিতরণকালে যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী বলেন, “মাননীয় প্রধানমন্ত্রী অত্যন্ত ক্রীড়াবান্ধব। তিনি ক্রীড়াবিদদের সুখে-দুঃখে সবসময় ছায়ার মতো পাশে থাকেন। তিনি ক্রীড়াসেবকদের কল্যাণে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর নিজ হাতে প্রতিষ্ঠিত ‘বঙ্গবন্ধু ক্রীড়াসেবী কল্যাণ ফাউন্ডেশন’ এ করোনাকালীন সময়ে ১০ কোটি টাকাসহ আরও ২০ কোটি টাকা মোট ৩০ কোটি টাকা সীডমানি প্রদান করেন।’

ক্রীড়াঙ্গনকে এভাবে এগিয়ে নেয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে প্রতিমন্ত্রী জানান, সরকার অচিরেই বঙ্গবন্ধু ক্রীড়াসেবী কল্যাণ ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে কোভিড-১৯ মহামারিতে ক্ষতিগ্রস্ত আরও ১০ হাজার ক্রীড়াসেবীকে ৫ কোটি টাকার বিশেষ আর্থিক অনুদান দেবেন।

চেক বিতরণ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের সচিব মেজবাহ উদ্দিন।

আরও পড়ুন:
স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে মেহেরপুরে মিনি ম্যারাথন
মেরিন ড্রাইভের আল্ট্রা ম্যারাথনে ৩০০ অ্যাথলিট
এবার ম্যারাথনে ‘লাস্ট’ হলেন যিনি
চায়ের দেশে হাফ ম্যারাথন
চীনে ম্যারাথনে গিয়ে ২১ জনের মৃত্যু

শেয়ার করুন

জয় দিয়ে অস্ট্রেলিয়ান ওপেন শুরু নাদাল-ওসাকার

জয় দিয়ে অস্ট্রেলিয়ান ওপেন শুরু নাদাল-ওসাকার

রাফায়েল নাদাল ও নাওমি ওসাকা। ছবি: টুইটার

অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের প্রথম রাউন্ডে যুক্তরাষ্ট্রের মার্কোস গিরোনকে ৬-১, ৬-৪, ৬-২ গেমে উড়িয়ে দেন নাদাল। আর নারীর একক ইভেন্টে কামিলা ওসোরিওকে ৬-৩, ৬-৩ গেমের সরাসরি সেটে হারান বর্তমান চ্যাম্পিয়ন নেওমি ওসাকা।

রেকর্ড ২১তম গ্র্যান্ড স্ল্যাম জয়ের লক্ষ্যে কোর্টে নেমে দাপটের সঙ্গে শুরুটা করেছেন রাফায়েল নাদাল। সোমবার থেকে শুরু হওয়া বছরের প্রথম গ্র্যান্ড স্ল্যাম অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের প্রথম রাউন্ডে যুক্তরাষ্ট্রের মার্কোস গিরোনকে ৬-১, ৬-৪, ৬-২ গেমে উড়িয়ে দিয়ে সহজেই দ্বিতীয় রাউন্ড নিশ্চিত করেছেন স্প্যানিশ এ তারকা।

করোনা প্রতিরোধী টিকা নিয়ে বিতর্কে অস্ট্রেলিয়ান কর্তৃপক্ষ দেশে ফেরত পাঠিয়ে দিয়েছে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন নোভাক জকোভিচকে। অন্যদিকে ইনজুরির কারণে খেলতে পারছেন না সুইস কিংবদন্তি রজার ফেডেরার।

এ সুযোগে মেলবোর্ন পার্কে শিরোপা জেতার পথে মূল দুই প্রতিদ্বন্দ্বীর সঙ্গে লড়াইয়ে নামতে হচ্ছে না নাদালকে। আর এতেই সর্বকালের সর্বোচ্চ গ্র্যান্ড স্ল্যাম রেকর্ড জেতার পথও অনেকটাই সুগম হয়ে গেছে নাদালের।

সাবেক চ্যাম্পিয়ন হিসেবে একমাত্র নাদালই এবারের ড্রতে টিকে রয়েছেন। বিশ্বের ৬৬ নম্বর বাছাই গিরোনের বিপক্ষে দুর্দান্ত এক সূচনা করে নাদালও নিজের লক্ষ্যের জানানই দিয়েছেন।

তৃতীয় রাউন্ড নিশ্চিতের ম্যাচে ষষ্ঠ বাছাই নাদাল ওয়াইল্ড কার্ড প্রাপ্ত থানাসাই কোকিনাকিও এবং কোয়ালিফায়ার ইয়ানিক হানমানের মধ্যকার বিজয়ীর মোকাবিলা করবেন।

এদিকে নারীদের বিভাগে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন নেওমি ওসাকা প্রথম রাউন্ডে কলম্বিয়ান কামিলা ওসোরিওকে ৬-৩, ৬-৩ গেমে সরাসরি সেটে পরাজিত করে দ্বিতীয় রাউন্ড নিশ্চিত করেছেন।

রড লেভার এরিনাতে কলম্বিয়ান প্রতিপক্ষের বিপক্ষে অনেকটা অপ্রত্যাশিত প্রতিরোধের মুখে পড়েছিলেন জাপানিজ নাম্বার ওয়ান। প্রথম সেটে ৫-০ গেমের লিড নিলেও পরপর দুটি সার্ভিস ব্রেক করে দারুণভাবে লড়াইয়ে ফিরে আসেন ওসোরিও, তবে শেষ পর্যন্ত আর তা ধরে রাখতে পারেননি।

ম্যাচ শেষে ১৩তম বাছাই ওসাকা বলেন, ‘এখানে খেলতে আসাটা সব সময়ই বিশেষ কিছু। মনে করি ওসোরিও দুর্দান্ত খেলেছে। সব মিলিয়ে এখানে আবারও খেলতে পেরে দারুণ খুশি।’

অপর ম্যাচে অলিম্পিকজয়ী বেলিন্ডা বেনচিচ ৬-৪, ৬-৩ গেমে ফ্রান্সের ক্রিস্টিনা মালডেনোভিচ এবং ১৫তম বাছাই এলিনা সেভিতোলিনা ৬-১, ৭-৬ (৭/৪) গেমে ফিওনা ফেরোকে হারান।

আরও পড়ুন:
স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে মেহেরপুরে মিনি ম্যারাথন
মেরিন ড্রাইভের আল্ট্রা ম্যারাথনে ৩০০ অ্যাথলিট
এবার ম্যারাথনে ‘লাস্ট’ হলেন যিনি
চায়ের দেশে হাফ ম্যারাথন
চীনে ম্যারাথনে গিয়ে ২১ জনের মৃত্যু

শেয়ার করুন

টেকেনি আপিল, অস্ট্রেলিয়া ছাড়লেন জকোভিচ

টেকেনি আপিল, অস্ট্রেলিয়া ছাড়লেন জকোভিচ

অস্ট্রেলিয়া ছাড়ছেন নোভাক জকোভিচ। ছবি: রয়টার্স

রোববার দুপুরে অস্ট্রেলিয়ার ফেডারেল কোর্ট জকোভিচের বিপক্ষে রায় দেয়। বার্তা সংস্থা এএফপি জানিয়েছে, রায়ে প্রধান বিচারপতি জেমস অলসপ বলেন, ‘আদালতের নির্দেশ দিচ্ছে যে, সংশোধিত আবেদনটি খরচসহ খারিজ করা হল।’

অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে খেলা হচ্ছে না নোভাক জকোভিচের। তাকে অস্ট্রেলিয়া থেকে ফিরে যেতে হয়েছে। দেশটিতে থাকার জন্য তিনি আদালতে যে আপিল করেছেন সেটি খারিজ করে দিয়েছে অস্ট্রেলিয়ার ফেডারেল কোর্ট।

রোববার দুপুরে অস্ট্রেলিয়ার ফেডারেল কোর্ট জকোভিচের বিপক্ষে রায় দেয়।

বার্তা সংস্থা এএফপি জানিয়েছে, রায়ে প্রধান বিচারপতি জেমস অলসপ বলেন, ‘আদালতের নির্দেশ দিচ্ছে যে, সংশোধিত আবেদনটি খরচসহ খারিজ করা হল। পরবর্তীতে দোষী সাব্যস্ত হলে তাকে আগামী ৩ বছর অস্ট্রেলিয়ার ভিসা দেয়া হবে না।’

৩৪ বছর বয়সী নোভাক জকোভিচ টেনিস ইতিহাসেরই অন্যতম সেরা খেলোয়াড়। ২০টি গ্র্যান্ড স্ল্যাম জিতে ইতিহাসের সবচেয়ে সফল তিন তারকার একজন এ সার্বিয়ান। অস্ট্রেলিয়ান ওপেন জিতেছেন ৯ বার।

এবারের টুর্নামেন্ট জিতলে রজার ফেডেরার ও রাফায়েল নাদালকে ছাড়িয়ে এককভাবে ২১টি গ্র্যান্ডস্ল্যাম নিয়ে এককভাবে সেরা বনে জেতেন তিনি। তবে আপাতত অস্ট্রেলিয়ান ওপেন খেলা হচ্ছে না তার। রেকর্ড ভাঙতে জকোভিচকে অপেক্ষায় থাকতে হবে উইম্বলডনের।

গত ৬ জানুয়ারি অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে খেলার উদ্দেশ্যে অস্ট্রেলিয়ায় আসেন ওয়ার্ল্ড নাম্বার ওয়ান জকোভিচ। অস্ট্রেলিয়ায় প্রবেশের জন্য কোভিড টিকা দেয়া ও সনদ প্রদর্শনের বাধ্যবাধকতা থাকলেও, অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে অংশগ্রহণের জন্য জকোভিচের ক্ষেত্রে এই আইন কিছুটা শিথিল করে গ্র্যান্ড স্ল্যাম কর্তৃপক্ষ।

টিকা দিয়েছেন কি না সেটি পরিষ্কার করে না জানানোর পরও তাকে এমন ছাড়পত্র দেয়ায় সমালোচনা ও ক্ষোভ দেখা দেয় অস্ট্রেলিয়ান নাগরিকদের মাঝে। দেশটির নাগরিকরা অভিযোগ করেন যে করদাতা নাগরিকদের সঙ্গে কড়াকড়ি করে সরকার বিদেশিদের ক্ষেত্রে ছাড় দিচ্ছে।

এরই পরিপ্রেক্ষিতে অস্ট্রেলিয়া পৌঁছানোর পর জকোভিচকে বিমানবন্দর থেকে বের হতে দেয়া হয়নি। তার ভিসা বাতিল করে ইমিগ্রেশন কর্তৃপক্ষের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

জকোভিচের আইনজীবীরা আদালতে এর বিরুদ্ধে মামলা করলে গত সোমবার অস্ট্রেলিয়ার আদালত জকোভিচের ভিসা ও অন্যান্য কাগজপত্র ফিরিয়ে দিতে বলেন।

এর চারদিনের মাথায় অস্ট্রেলিয়ার ইমিগ্রেশন মন্ত্রী অ্যালেক্স হক তার ভিসা দ্বিতীয় দফায় বাতিল করেন। জকোভিচ আপিল করেন দ্বিতীয় নিষেধাজ্ঞার বিরুদ্ধে।

আরও পড়ুন:
স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে মেহেরপুরে মিনি ম্যারাথন
মেরিন ড্রাইভের আল্ট্রা ম্যারাথনে ৩০০ অ্যাথলিট
এবার ম্যারাথনে ‘লাস্ট’ হলেন যিনি
চায়ের দেশে হাফ ম্যারাথন
চীনে ম্যারাথনে গিয়ে ২১ জনের মৃত্যু

শেয়ার করুন

জকোভিচের চেয়ে অস্ট্রেলিয়ান ওপেন গুরুত্বপূর্ণ: নাদাল

জকোভিচের চেয়ে অস্ট্রেলিয়ান ওপেন গুরুত্বপূর্ণ: নাদাল

নোভাক জকোভিচ ও রাফায়েল নাদাল। ফাইল ছবি

জকোভিচ না থাকলেও অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে প্রভাব পড়বে না বলে মনে করছেন স্প্যানিশ টেনিস তারকা রাফায়েল নাদাল। সুইস তারকাকে ছাড়াও বছরের প্রথম গ্র্যান্ড স্ল্যামের জৌলুস কমবে না বলে মনে করছেন তিনি।

করোনাভাইরাস টিকা জটিলতার কারণে দ্বিতীয়বারের মতো নোভাক জকোভিচের ভিসা বাতিল করেছে অস্ট্রেলিয়ার সরকার। ফলে বছরের প্রথম গ্র্যান্ড স্ল্যাম অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে তার খেলা নিয়ে শঙ্কা আরও বেড়েছে।

বর্তমানে বিশ্বের ১ নম্বর টেনিস তারকাকে ছাড়াই যদি টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত হয় তাহলে বছরের প্রথম গ্র্যান্ড স্ল্যামের জৌলুস কমে যেতে পারে বলে শঙ্কা অনেকের।

তবে জকোভিচের থাকা না থাকায় অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে প্রভাব পড়বে না বলে মনে করছেন স্প্যানিশ টেনিস তারকা রাফায়েল নাদাল। সুইস তারকাকে ছাড়াও বছরের প্রথম গ্র্যান্ড স্ল্যামের জৌলুস কমবে না বলে মনে করছেন তিনি।

নাদাল বলেন, ‘খেলোয়াড়ের চেয়ে অস্ট্রেলিয়ান ওপেনটা বেশি গুরুত্বপূর্ণ। অস্ট্রেলিয়ান ওপেন এবারে দুর্দান্ত হবে সে (জকোভিচ) থাকুক আর নাই থাকুক। ব্যক্তিগতভাবে অবশ্যই সে খুবই ভালো একজন অ্যাথলেট, সেটিতে কোনো সন্দেহ নেই।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমি মনে করি, বিষয়টি অনেকদূর গড়িয়েছে। সত্যি বলতে আমি খুবই বিরক্ত সাম্প্রতিক সময়ের ঘটনাগুলোতে। আমি মনে করি, ওই বিষয়ের চেয়ে আমাদের খেলাটাকে বেশি প্রাধান্য দেয়া উচিত।’

গত ৫ জানুয়ারি অস্ট্রেলিয়ায় প্রবেশের পর জকোভিচের কাছে কোভিড টিকাসংক্রান্ত কোনো কাগজপত্র না থাকায় তাকে আটক করে ভিসা বাতিল করে দেশটির ইমিগ্রেশন কর্তৃপক্ষ।

পরবর্তী সময়ে জকোভিচের আইনজীবীরা আদালতের বিরুদ্ধে মামলা করলে গত সোমবার অস্ট্রেলিয়ার আদালত জকোভিচের ভিসা ও অন্যান্য কাগজপত্র ফিরিয়ে দিতে বলে।

এর চার দিনের মাথায় অস্ট্রেলিয়ার ইমিগ্রেশন মন্ত্রী অ্যালেক্স হক তার ভিসা দ্বিতীয় দফায় বাতিল করেন। শুক্রবার দুপুরে বার্তা সংস্থা এএফপি বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। ভিসা বাতিলের পর জকোভিচকে অস্ট্রেলিয়াতেই রাখা হয়েছে।

জকোভিচ এ সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আবারও মামলা করেছেন। যার সিদ্ধান্ত জানা যাবে রোববার। অস্ট্রেলিয়ার সরকার মামলায় জিতলে জকোভিচকে ফেরত পাঠাতে পারে তারা। সেই সঙ্গে পরবর্তী তিন বছর অস্ট্রেলিয়ার ভিসা পাবেন না সার্বিয়ান এ তারকা।

সোমবার থেকে শুরু হচ্ছে অস্ট্রেলিয়ান ওপেন।

আরও পড়ুন:
স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে মেহেরপুরে মিনি ম্যারাথন
মেরিন ড্রাইভের আল্ট্রা ম্যারাথনে ৩০০ অ্যাথলিট
এবার ম্যারাথনে ‘লাস্ট’ হলেন যিনি
চায়ের দেশে হাফ ম্যারাথন
চীনে ম্যারাথনে গিয়ে ২১ জনের মৃত্যু

শেয়ার করুন

দ্বিতীয়বারের মতো জকোভিচের ভিসা বাতিল করল অস্ট্রেলিয়া

দ্বিতীয়বারের মতো জকোভিচের ভিসা বাতিল করল অস্ট্রেলিয়া

নোভাক জকোভিচ। ফাইল ছবি

অস্ট্রেলিয়ার ইমিগ্রেশন মন্ত্রী অ্যালেক্স হক তার ভিসা দ্বিতীয় দফায় বাতিল করেছেন। শুক্রবার দুপুরে বার্তা সংস্থা এএফপি বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। সোমবার থেকে শুরু হতে যাওয়া অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে জকোভিচের অংশগ্রহণ এতে শঙ্কায় পড়েছে।

করোনাভাইরাস টিকা জটিলতার কারণে দ্বিতীয়বারের মতো নোভাক জকোভিচের ভিসা বাতিল করেছে অস্ট্রেলিয়ার সরকার। ফলে বছরের প্রথম গ্র্যান্ড স্ল্যাম অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে তার খেলা নিয়ে শঙ্কা আরও বাড়ল।

৫ জানুয়ারি অস্ট্রেলিয়ায় প্রবেশের পর জকোভিচের কারছে কোভিড টিকা সংক্রান্ত কোনো কাগজপত্র না থাকায় তাকে আটক করে ভিসা বাতিল করে দেশটির ইমিগ্রেশন কর্তৃপক্ষ।

জকোভিচ তার সাফাইয়ে বলেন, তার ক্ষেত্রে বিধিনিষেধ শিথিল করেছে অস্ট্রেলিয়ান ওপেন কর্তৃপক্ষ। তবে দেশটির সরকার সেটি কানে নেয়নি।

জকোভিচের আইনজীবীরা আদালতে এর বিরুদ্ধে মামলা করলে গত সোমবার অস্ট্রেলিয়ার আদালত জকোভিচের ভিসা ও অন্যান্য কাগজপত্র ফিরিয়ে দিতে বলেন।

এর চারদিনের মাথায় অস্ট্রেলিয়ার ইমিগ্রেশন মন্ত্রী অ্যালেক্স হক তার ভিসা দ্বিতীয় দফায় বাতিল করেছেন। শুক্রবার দুপুরে বার্তা সংস্থা এএফপি বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। সোমবার থেকে শুরু হতে যাওয়া অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে জকোভিচের অংশগ্রহণ এতে শঙ্কায় পড়েছে।

জকোভিচ এ সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আবারও মামলা করতে পারবেন। আর অস্ট্রেলিয়ার সরকার মামলায় জিতলে জকোভিচকে ফেরত পাঠাতে পারে তারা। ও পরবর্তী তিন বছর তিনি অস্ট্রেলিয়ার ভিসা পাবেন না।

আরও পড়ুন:
স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে মেহেরপুরে মিনি ম্যারাথন
মেরিন ড্রাইভের আল্ট্রা ম্যারাথনে ৩০০ অ্যাথলিট
এবার ম্যারাথনে ‘লাস্ট’ হলেন যিনি
চায়ের দেশে হাফ ম্যারাথন
চীনে ম্যারাথনে গিয়ে ২১ জনের মৃত্যু

শেয়ার করুন

কোভিড বিধিনিষেধ ভেঙেছিলেন জকোভিচ

কোভিড বিধিনিষেধ ভেঙেছিলেন জকোভিচ

নোভাক জকোভিচ। ফাইল ছবি

করোনা পজিটিভ হয়ে বিষয়টি গোপন রেখে সংবাদ সম্মেলন করেছিলেন জকোভিচ। যদিও তার রিপোর্ট এসেছিল সেই ঘটনার দুই দিন পর। শুধু সংবাদ সম্মেলন করেই থেমে থাকেননি জকোভিচ। পরদিন তিনি যোগ দিয়েছিলেন শিশুদের একটি অনুষ্ঠানে।

আলোচনা যেন শেষ হচ্ছে না সার্বিয়ান টেনিস তারকা নোভাক জকোভিচকে নিয়ে। অস্ট্রেলিয়ায় ভিসা জটিলতা নিয়ে সাম্প্রতিক সময়ে তোলপাড় তুলেছিলেন নাম্বার ওয়ান এই টেনিস তারকা। সেই ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই নতুন এক অঘটনের জন্ম দিলেন তারকা এই খেলোয়াড়।

এবারে করোনা বিধিনিষেধ ভেঙে আলোচনায় উঠে এলেন ৩৪ বছর বয়সী এই তারকা। করোনা পজিটিভ হয়ে বিষয়টি গোপন রেখে সংবাদ সম্মেলন করেছিলেন জকোভিচ। যদিও তার রিপোর্ট এসেছিল সেই ঘটনার দুই দিন পর।

শুধু সংবাদ সম্মেলন করেই থেমে থাকেননি জকোভিচ। পরদিন তিনি যোগ দিয়েছিলেন শিশুদের একটি অনুষ্ঠানে।

বিষয়টি ব্যক্তিগত ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করে জানিয়েছেন সার্বিয়ান এই তারকা। একই সঙ্গে বিষয়টিকে নিজের বোঝার ভুল হিসেবে দাবি করছেন তিনি।

সম্প্রতি টিকার ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট না থাকায় ও অস্ট্রেলিয়ান ওপেন কর্তৃপক্ষ তাকে টিকা ছাড়াই খেলার অনুমতি দিয়েছে বা শিথিল করেছে আইন এ-সংক্রান্ত কোনো কাগজ বা সনদ দেখাতে ব্যর্থ হওয়ায় অস্ট্রেলিয়ার বিমানবন্দরেই আটকে দেয়া হয় জকোভিচকে।

অস্ট্রেলিয়ার ভিক্টোরিয়া রাজ্যের বর্ডার প্যাট্রল সংস্থার অফিশিয়ালরা ঘণ্টা দুয়েক বিমানবন্দরে জকোভিচকে গত শুক্রবার ভোরে ভিসা বাতিল করে ইমিগ্রেশন কর্তৃপক্ষের কাছে হস্তান্তর করেছিল।

জকোভিচের পক্ষ থেকে জানানো হয়, তারা বিষয়টির বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ নেবেন ও তার ভিসা বাতিল ও ঢুকতে না দেয়ার বিরুদ্ধে আপিল করবেন।

সেই আপিলের পরিপ্রেক্ষিতে রায় আসে জকোভিচের পক্ষে। তার ভিসা বাতিল ও ইমিগ্রেশন সেন্টারে আটকে রাখাকে যুক্তিযুক্ত মনে করেনি অস্ট্রেলিয়ার আদালত।

সরকারের আদেশ বাতিল করে বিচারক অ্যান্থনি কেলি রায় দিয়েছেন যে আধা ঘণ্টার মধ্যে জকোভিচের কাগজপত্র ও পাসপোর্ট ফেরত দিতে হবে এবং তার অস্ট্রেলিয়ায় থাকতে কোনো বাধা নেই।

আরও পড়ুন:
স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে মেহেরপুরে মিনি ম্যারাথন
মেরিন ড্রাইভের আল্ট্রা ম্যারাথনে ৩০০ অ্যাথলিট
এবার ম্যারাথনে ‘লাস্ট’ হলেন যিনি
চায়ের দেশে হাফ ম্যারাথন
চীনে ম্যারাথনে গিয়ে ২১ জনের মৃত্যু

শেয়ার করুন

মামলা জিতলেন জকোভিচ, থাকছেন অস্ট্রেলিয়ায়

মামলা জিতলেন জকোভিচ, থাকছেন অস্ট্রেলিয়ায়

নোভাক জকোভিচ। ফাইল ছবি

সরকারের আদেশ বাতিল করে বিচারক অ্যান্থনি কেলি রায় দিয়েছেন যে আধা ঘণ্টার মধ্যে জকোভিচের কাগজপত্র ও পাসপোর্ট ফেরত দিতে হবে এবং তার অস্ট্রেলিয়ায় থাকতে কোনো বাধা নেই।

বিশ্বের এক নম্বর টেনিস তারকা নোভাক জকোভিচের ভিসা বাতিল ও তাকে ইমিগ্রেশন সেন্টারে আটকে রাখাকে যুক্তিযুক্ত মনে করেনি অস্ট্রেলিয়ার আদালত। ফলে দেশটিতে থাকতে আপাতত এই সার্বিয়ান তারকার কোনো বাধা নেই।

সরকারের আদেশ বাতিল করে বিচারক অ্যান্থনি কেলি রায় দিয়েছেন যে আধা ঘণ্টার মধ্যে জকোভিচের কাগজপত্র ও পাসপোর্ট ফেরত দিতে হবে এবং তার অস্ট্রেলিয়ায় থাকতে কোনো বাধা নেই।

বার্তা সংস্থা এএফপি জানিয়েছে, আদালত আরও রায় দিয়েছে যে জকোভিচের মামলার খরচও বহন করবে অস্ট্রেলিয়ার সরকার।

অস্ট্রেলিয়ায় প্রবেশের জন্য কোভিড টিকা দেয়া ও সনদ প্রদর্শনের বাধ্যবাধকতা থাকলেও, অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে অংশগ্রহণের জন্য জকোভিচের ক্ষেত্রে এই আইন কিছুটা শিথিল করে গ্র্যান্ড স্ল্যাম কর্তৃপক্ষ।

টিকা দিয়েছেন কি না সেটি পরিষ্কার করে না জানানোর পরও তাকে এমন ছাড়পত্র দেয়ায় সমালোচনা ও ক্ষোভ দেখা দেয় অস্ট্রেলিয়ান নাগরিকদের মাঝে। দেশটির নাগরিকরা অভিযোগ করেন যে করদাতা নাগরিকদের সঙ্গে কড়াকড়ি করে সরকার বিদেশিদের ক্ষেত্রে ছাড় দিচ্ছে।

এরই পরিপ্রেক্ষিতে গত শুক্রবার ভোরে অস্ট্রেলিয়া পৌঁছানোর পর জকোভিচকে বিমানবন্দর থেকে বের হতে দেয়া হয়নি। তার ভিসা বাতিল করে ইমিগ্রেশন কর্তৃপক্ষের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

বিচারক কেলি তার রায়ে আরও জানিয়েছেন, বিমানবন্দরে জকোভিচকে ঘণ্টার পর ঘণ্টা আটকে রাখার ও ভিসা বাতিলের কোনো যৌক্তিকতা ছিল না।

এই রায়ের ফলে ১৭ জানুয়ারি থেকে শুরু হতে যাওয়া বছরের প্রথম গ্র্যান্ড স্ল্যাম অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে খেলার সম্ভাবনা আরও উজ্জ্বল হলো।

আরও পড়ুন:
স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে মেহেরপুরে মিনি ম্যারাথন
মেরিন ড্রাইভের আল্ট্রা ম্যারাথনে ৩০০ অ্যাথলিট
এবার ম্যারাথনে ‘লাস্ট’ হলেন যিনি
চায়ের দেশে হাফ ম্যারাথন
চীনে ম্যারাথনে গিয়ে ২১ জনের মৃত্যু

শেয়ার করুন