বঙ্গবন্ধু চ্যাম্পিয়নশিপে শেরপুর-মানিকগঞ্জ ম্যাচ ড্র

player
বঙ্গবন্ধু চ্যাম্পিয়নশিপে শেরপুর-মানিকগঞ্জ ম্যাচ ড্র

ম্যাচের আগে শেরপুরে উদ্বোধনী র‍্যালি। ছবি: নিউজবাংলা

ম্যাচটি ৩-৩ গোলে ড্র হয়। প্রথমার্ধে শেরপুর জেলা দল ৩-১ গোলে এগিয়ে থাকলেও বিরতির পর মানিকগঞ্জ জেলা দল একের পর এক আক্রমণ চালিয়ে দুই গোল করে খেলায় সমতা ফেরায়।

বঙ্গবন্ধু জাতীয় চ্যাম্পিয়নশিপ ২০২১ এ ড্র করেছে শেরপুর জেলা ও মানিকগঞ্জ জেলা দল। মেঘনা গ্রুপের ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হয় শেরপুরের শহীদ মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতি স্টেডিয়ামে।

ম্যাচটি ৩-৩ গোলে ড্র হয়। শুক্রবার বিকেলে জেলা ফুটবল এ্যাসোসিয়েশনের (ডিএফএ) আয়োজনে ও জেলা ক্রীড়া সংস্থার সহযোগিতায় আয়োজিত হয় এই ম্যাচ। টুর্নামেন্টের ব্যবস্থাপনায় রয়েছে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে)।

খেলার প্রথমার্ধে শেরপুর জেলা দল ৩-১ গোলে এগিয়ে থাকলেও বিরতির পর মানিকগঞ্জ জেলা দল একের পর এক আক্রমণ চালিয়ে দুই গোল করে খেলায় সমতা ফেরায়।

কোনো দল আর গোলের দেখা পেলে ড্রতে শেষ হয় ম্যাচ। ৬ ডিসেম্বর শেরপুর জেলা দল মানিকগঞ্জে গিয়ে অ্যাওয়ে ম্যাচ খেলবে।

বঙ্গবন্ধু জাতীয় চ্যাম্পিয়নশীপ ২০২১ এর ম্যাচে মেঘনা গ্রুপে হোম-অ্যাওয়ে ভিত্তিতে আটটি দল খেলছে। শেরপুর ও মানিকগঞ্জ ছাড়া অন্য দলগুলো হলো ময়মনসিংহ, টাংগাইল, গাজীপুর, নেত্রকোনা, জামালপুর ও সিরাজগঞ্জ।

আরও পড়ুন:
লঙ্কায় সুযোগ না পাওয়ায় আক্ষেপ নেই নবাবের
হতাশার বৃত্ত পূরণ শেষে দেশে জামালরা
শেষ মুহূর্তের গোলে স্বপ্নভঙ্গ বাংলাদেশের

শেয়ার করুন

মন্তব্য

অবকাঠামো উন্নয়নই ফুটবল উন্নয়নের চাবি: কাবরেরা

অবকাঠামো উন্নয়নই ফুটবল উন্নয়নের চাবি: কাবরেরা

জাতীয় ফুটবল দলের হেড কোচ হাভিয়ের কাবরেরা। ছবি: বাফুফে

বারিধারা-মোহামেডানসহ দেশের অনেক ক্লাবেরই নেই নিজস্ব ট্রেনিং গ্রাউন্ড বা খেলার মাঠ। তাই ভারত-যুক্তরাষ্ট্র-স্পেনের ফুটবলে কাজ করা হাভিয়ের কাবরেরার কাছে এ দৃশ্যটা একটু অপরিচিত। দেশের ফুটবল উন্নয়নের জন্য অবকাঠামো উন্নয়নেই জোর দিলেন তিনি।

দেশের প্রিমিয়ার লিগের ক্লাব উত্তর বারিধারার সঙ্গে সাক্ষাৎ করার কথা জাতীয় দলের হেড কোচ হাভিয়ের কাবরেরার। রাজধানী থেকে কিছুটা বিচ্ছিন্ন পূর্বাচল এক্সপ্রেস ওয়ের পথ ধরে ৩ শ’ ফিট আর পিঙ্ক সিটির পাশে। ওখানে একটা ভাড়া করা মাঠের মধ্যে চলছে বারিধারার অনুশীলন।

সেখানে দলের সঙ্গে পরিচয় পর্ব আর খেলোয়াড় বাছাইয়ের অংশ হিসেবে এই পথ পাড়ি দিয়ে মাঠে হাজির হন নতুন হেড কোচ।

এর আগে ঢাকা আবাহনীর খেলোয়াড়দের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন কোচ। বারিধারা-মোহামেডানসহ দেশের অনেক ক্লাবেরই নেই নিজস্ব ট্রেনিং গ্রাউন্ড বা খেলার মাঠ।

নিজস্ব মাঠ বা হোম ভেন্যু তো এখনও স্বপ্নের মতো ঘটনা। স্বভাবতই ভারত-যুক্তরাষ্ট্র-স্পেনের ফুটবলে কাজ করা হাভিয়ের কাবরেরার কাছে এ দৃশ্যটা একটু অপরিচিত।

তাই তার কাছে প্রশ্নটা ছিল এমন- কোনও দেশের সর্বোচ্চ লিগের দলগুলোর বেশিরভাগের নাই হোম গ্রাউন্ড। ভাড়া করে অনুশীলন করতে হয় দলগুলোকে। একজন ফুটবলের মানুষ হিসেবে বিষয়টি কীভাবে দেখেন?

জবাবে কী বলবেন সেটাই যেন খুঁজে পাচ্ছিলেন না যুক্তরাষ্ট্রের বার্সা একাডেমিকে কাজ করা এ স্প্যানিশ কোচ। তার মতে, দেশের ফুটবল উন্নয়নে অবকাঠামো উন্নয়নের বিকল্প নাই।

হাভিয়ের কাবরেরা বলেন, ‘যে কোনো দেশের জন্য অবকাঠামো উন্নয়ন হওয়া উচিৎ ফুটবল উন্নয়নের চাবি। আমি খুব একটা ভালো জানি না বাংলাদেশের অবস্থা সম্পর্কে। তাই নির্দিষ্ট করে বলতে পারছি না। শুধু এটি বলব যে দেশের ফুটবল উন্নয়নে অবকাঠামোর উন্নয়ন প্রয়োজন।’

বাংলাদেশ ফুটবলের সর্বোচ্চ লিগের এমন করুণ পরিণতির চেহারা যেন আরও একবার সামনে এলো নতুন হেড কোচের কথায়। হাভিয়েরের মতে- স্পেনের প্রতিটি শহরের সব জায়গায় খেলার মাঠে ভরা। যেখানে শূন্যতা ঘেরি বাংলাদেশের ফুটবল।

একটু ঘুরিয়ে হাভিয়ের বলেন, ‘স্পেনে আমাদের অনেক মাঠ আছে। প্রতিটি শহরের সব জায়গায় অনেক খেলার মাঠ পাবেন। আমি এখনও বাংলাদেশের সম্পর্কে ওতো জানি না। তাই প্রকৃত ব্যাখ্যাটা দিতে পারব না। যেটা গুরুত্বপূর্ণ তা হলো অবকাঠামোয় বিনিয়োগ করা।’

ঘরোয়া ফুটবলের এমন নাকাল অবস্থার ফল সরাসরি পড়ে জাতীয় দলের পারফরম্যান্সে। কোচ আসা-যাওয়ার খেলায় নতুন কোচ কী ম্যাজিকে বদলে দেবেন জাতীয় দলের ব্যর্থতার চেহারা সেটা এখনই বলা মুশকিল।

তবে আপাতত সাবেক জাতীয় দলের হেড কোচ জেমি ডে’র দলের অনেক কিছুই পরিবর্তন আসছে সেই আভাস দিয়েছেন হাভিয়ের কাবরেরা।

তিনি বলেন, ‘আমি আগেও বলেছি। পুরো দলের প্রত্যেকটা বিভাগ নিয়ে বৈশ্বিক উপায়ে কাজ করব। কোনও স্পেসিফিক বিভাগ নয়, পুরো দল নিয়ে কাজ করব। টেকনিক্যাল সাইড থেকে শুরু করে ফিটনেস ট্রেইনার, বিশ্লেষক, মেডিক্যাল টিমসহ বৈশ্বিক একটা কাজ করতে চাই। সবাই মিলে কাজ করতে চাই।’

আরও পড়ুন:
লঙ্কায় সুযোগ না পাওয়ায় আক্ষেপ নেই নবাবের
হতাশার বৃত্ত পূরণ শেষে দেশে জামালরা
শেষ মুহূর্তের গোলে স্বপ্নভঙ্গ বাংলাদেশের

শেয়ার করুন

তপু বর্মণের সফল অস্ত্রোপচার

তপু বর্মণের সফল অস্ত্রোপচার

মুম্বাইয়ে অস্ত্রোপচারের পর তপু বর্মণ। ছবি: সংগৃহীত

ভারতের মুম্বাইয়ের কোকিলাবেন ধিরুবাই আম্বানি হাসপাতালে এ তারকা ডিফেন্ডারের সার্জারি করেন ভারতের বিখ্যাত চিকিৎসক দিনশো পার্দিওয়ালা।

অস্ত্রোপচার সফল হয়েছে জাতীয় ফুটবল দলের ফুটবলার তপু বর্মণের। সোমবার ভারতের মুম্বাইয়ের কোকিলাবেন ধিরুবাই আম্বানি হাসপাতালে এ তারকা ডিফেন্ডারের সার্জারি করেন ভারতের বিখ্যাত চিকিৎসক দিনশো পার্দিওয়ালা।

সার্জারি শেষে হাসপাতালে বিশ্রামে আছেন তপু বর্মণ। পার্দিওয়ালা ওই হাসপাতালের স্পোর্টস অর্থোপেডিক্সের পরিচালক।

আইসিসি থেকে শুরু করে কমনওয়েলথ গেমসে ভারতের অ্যাথলেটদের চিকিৎসক হিসেবে ছিলেন তিনি। ভারতের কিংবদন্তি ক্রিকেটার শচীন টেন্ডুলকার, শ্রীলঙ্কার মুত্তাইয়া মুরালিধরন, অলিম্পিকস পদকজয়ী ভারতের শাটলার সাইনা নেহওয়াল, অলিম্পিকস স্বর্ণজয়ী নিরাজ চোপরাসহ অনেক তারকা ক্রীড়াবিদের অস্ত্রোপচার করিয়েছেন ভারতের এ চিকিৎসক।

গত ১৮ জানুয়ারি মুম্বাইয়ে পৌঁছান তপু বর্মণ। ২১ জানুয়ারি চিকিৎসকের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। পরে তাকে অস্ত্রোপচারের নির্দেশনা দেয়া হয়। তার সঙ্গে বসুন্ধরা কিংসের ফিজিও সুফিয়ান সরকার আছেন দেখভালের জন্য।

গত বছরের ৪ ডিসেম্বর স্বাধীনতা কাপের একটি ম্যাচে ইনজুরিতে পড়েন তপু। কমলাপুর বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ সিপাহী মোস্তফা কামাল স্টেডিয়ামের টার্ফের মধ্যে বুটের স্পাইক আটকে গিয়ে বাম পায়ের হাঁটুর লিগামেন্টে চোট পান বসুন্ধরা কিংসের এ অধিনায়ক।

পরে স্থানীয় চিকিৎসকের পরামর্শে দেড় মাস বিশ্রামে ছিলেন। এ সময়ে পুনর্বাসনে ছিলেন এ ডিফেন্ডার। ক্লাবের চিকিৎসক দলের পরামর্শে জিম, সাইক্লিং ও সুইমিং করেন বলে নিউজবাংলাকে জানান তিনি।

আরও পড়ুন:
লঙ্কায় সুযোগ না পাওয়ায় আক্ষেপ নেই নবাবের
হতাশার বৃত্ত পূরণ শেষে দেশে জামালরা
শেষ মুহূর্তের গোলে স্বপ্নভঙ্গ বাংলাদেশের

শেয়ার করুন

মেসিকে সই করা জার্সি উপহার পোপের

মেসিকে সই করা জার্সি উপহার পোপের

পোপের প্রতিনিধির কাছ থেকে জার্সি উপহার নিচ্ছেন মেসি। ছবি: সংগৃহীত

ফুটবলের দারুণ ভক্ত পোপ ফ্রান্সিস। ক্যাথলিক খ্রিষ্টানদের সর্বোচ্চ ধর্মীয় এ নেতার জন্ম আর্জেন্টিনায়। স্বাভাবিকভাবে নিজ দেশ আর্জেন্টিনার ফুটবল দলের সমর্থক তিনি।

আর তার প্রিয় খেলোয়াড় যে আর্জেন্টাইন অধিনায়ক লিওনেল মেসি, সেটা আগেও বহুবার বলেছেন পোপ ফ্রান্সিস। মেসির সঙ্গে বেশ কয়েকবার দেখাও করেছেন ভ্যাটিকানের প্রধান।

আর্জেন্টিনা ও বার্সেলোনার জার্সি পোপকে উপহার দিয়েছেন মেসি। নতুন ক্লাব প্যারিস সেইন্ট জার্মেইয়ে (পিএসজি) যোগ দেয়ার পরও জার্সি পাঠাতে ভুল করেননি সাতবারের ব্যালন ডর জয়ী।

গত অক্টোবরেই ফ্রান্সের প্রধানমন্ত্রী জ্যঁ কাসটেক্সকে দিয়ে পোপের কাছে পিএসজির কাছে নিজের ৩০ নম্বর জার্সিটি সই করে পাঠিয়েছিলেন মেসি।

ওই উপহার পাওয়ার মাস তিনেক পর এবারে পোপ জার্সি পাঠালেন মেসিকে। সর্বকালের সেরা ফুটবলারের কাছে প্রতিনিধির হাতে ভ্যাটিকান সিটির অফিশিয়াল ক্রীড়া দল আথলেতিকা ভাতিকানার হলুদ জার্সি পাঠান পোপ। পাঠানোর আগে সই করতে ভোলেননি ৮৫ বছর বয়সী এ ধর্মীয় নেতা।

করোনাভাইরাসের আক্রমণ থেকে সুস্থ হয়ে পিএসজির হয়ে রোববার রাতে মাঠে নেমেছিলেন মেসি।

ম্যাচের পর পোপের পাঠানো উপহার সাদরে গ্রহণ করেন মেসি। পোপের প্রতিনিধি এমানুয়েল গোবিয়া তার হাতে জার্সি তুলে দেন।

মেসির সঙ্গে দেখা হওয়ার পর গোবিয়া এক টুইট বার্তায় লিখেছেন, ‘মেসি একজন ধর্মপ্রাণ ব্যক্তি। সে আমাকে বলেছে যে এ উপহারটা তার কাছে কতটা গুরুত্বপূর্ণ। আমরা একসঙ্গে প্রার্থনাও করেছি।’

পিএসজির হয়ে দ্বিতীয়ার্ধে বদলি হিসেবে নেমে গোল না পেলেও দলের ৪-০ গোলের বড় জয়ের পর বেশ চনমনে ছিলেন আর্জেন্টাইন মহাতারকা।

আরও পড়ুন:
লঙ্কায় সুযোগ না পাওয়ায় আক্ষেপ নেই নবাবের
হতাশার বৃত্ত পূরণ শেষে দেশে জামালরা
শেষ মুহূর্তের গোলে স্বপ্নভঙ্গ বাংলাদেশের

শেয়ার করুন

রিয়ালের ড্রয়ের রাতে বার্সেলোনার স্বস্তির জয়

রিয়ালের ড্রয়ের রাতে বার্সেলোনার স্বস্তির জয়

ম্যাচের একমাত্র গোল করার পর ডি ইয়ংকে ঘিরে সতীর্থদের উল্লাস। ছবি: এএফপি

নিজ মাঠে এলচের সঙ্গে ২-২ গোলে ড্র করেছে রিয়াল মাদ্রিদ আর দেপোর্তিভো আলাভেসের মাঠে ১-০ গোলে জিতেছে বার্সেলোনা।

স্প্যানিশ লা লিগায় রিয়াল মাদ্রিদের ড্রয়ের রাতে স্বস্তির জয় পেয়েছে বার্সেলোনা। নিজ মাঠে এলচের সঙ্গে ২-২ গোলে ড্র করেছে রিয়াল আর দেপোর্তিভো আলাভেসের মাঠে ১-০ গোলে জিতেছে বার্সা।

এলচের বিপক্ষে বিপদে পড়ে রিয়াল। নিজ মাঠ সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে ২-০ গোলে পিছিয়ে পড়ে মাদ্রিদের জায়ান্টরা।

৪২ মিনিটে এলচের প্রথম গোল করেন লুকাস বোয়ে আর ৭৬ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুন করেন পেরে মিজা।

মাত্র ১৫ মিনিট বাকি থাকতে ২-০ গোলে পিছিয়ে যাওয়ার পর হারের শঙ্কায় ছিলেন স্বাগতিক দলের সমর্থকেরা।

তাদেরকে স্বস্তি দেন লুকা মডরিচ। ৮২ মিনিটে এ অভিজ্ঞ তারকার পেনাল্টি গোলে লাইফলাইন পায় মাদ্রিদ।

আর ইনজুরি টাইমের ৯২ মিনিটে এদার মিলিতাওয়ের গোলে নিজ মাঠে এক পয়েন্ট রেখে দিতে সমর্থ হয় কার্লো আনচেলত্তির দল।

ম্যাচ ২-২ গোলে ড্র হওয়ায় ২২ ম্যাচে ৫০ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের শীর্ষেই থাকল রিয়াল তবে দুইয়ে থাকা সেভিয়ার সঙ্গে তাদের পয়েন্ট পার্থক্য কমে দাঁড়িয়েছে চারে।

রাতের আরেক ম্যাচে আলাভেসের মাঠে দারুণ ফুটবল খেলতে পারেনি বার্সেলোনা। প্রথমার্ধ গোলশূন্য থাকার পর দ্বিতীয়ার্ধেও খেলা ছিল নিস্প্রাণ।

অবশেষে ৮৭ মিনিটে ম্যাচে প্রাণ ফেরান ফ্র্যাংকি ডি ইয়ং। এই ডাচম্যানের শেষ মুহূর্তের গোলে তিন পয়েন্ট নিশ্চিত করে বার্সেলোনা।

এ জয়ে টেবিলের পাঁচে উঠে এসেছে চাভি এর্নান্দেসের দল। ২১ ম্যাচে তাদের সংগ্রহ ৩৫ পয়েন্ট।

আরও পড়ুন:
লঙ্কায় সুযোগ না পাওয়ায় আক্ষেপ নেই নবাবের
হতাশার বৃত্ত পূরণ শেষে দেশে জামালরা
শেষ মুহূর্তের গোলে স্বপ্নভঙ্গ বাংলাদেশের

শেয়ার করুন

মেসির ফেরার ম্যাচে বড় জয় পিএসজির

মেসির ফেরার ম্যাচে বড় জয় পিএসজির

সতীর্থদের সঙ্গে দলের জয় উদযাপন করছেন লিওনেল মেসি। ছবি: এএফপি

ফ্রেঞ্চ লিগ ওয়ানের ম্যাচে রেঁসকে ৪-০ গোলে উড়িয়ে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষস্থান আরও মজবুত করেছে প্যারিসিয়ানরা। ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধে বদলি হিসেবে নেমেছেন মেসি।

ম্যাচের আগে সবার নজর ছিল লিওনেল মেসির দিকে। আর্জেন্টাইন তারকা করোনাভাইরাসের আক্রমণ থেকে সুস্থ হওয়ার পর এ ম্যাচ দিয়ে মাঠে ফিরবেন এমনটা আগেই জানিয়েছেন পিএসজি ম্যানেজার মরিসিও পচেত্তিনো।

ভক্তদের আগ্রহ ছিল নিজ মাঠে মেসি কি শুরুর একাদশে সুযোগ পান না বেঞ্চে থাকেন তা নিয়ে।

মেসি ম্যাচ শুরু করেননি। দ্বিতীয়ার্ধে বদলি হিসেবে নেমেছেন। তাতে বড় জয় পেতে সমস্যা হয়নি প্যারিস সেইন্ট জার্মেইয়ের (পিএসজি)।

ফ্রেঞ্চ লিগ ওয়ানের ম্যাচে রেঁসকে ৪-০ গোলে উড়িয়ে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষস্থান আরও মজবুত করেছেন প্যারিসিয়ানরা।

নিজ মাঠে মার্কো ভেরাত্তির ৪৪ মিনিটের গোলে লিড নিয়ে বিরতিতে যায় পিএসজি। বিরতি থেকে ফিরে এসে রেঁসের জালে ঢোকায় আরও তিন গোল।

দ্বিতীয়ার্ধে লিড দ্বিগুন করেন স্বাগতিকরা। ৬২ মিনিটে নতুন ক্লাবের হয়ে প্রথম গোল করেন সার্হিও রামোস। পরের মিনিটে দলের সঙ্গে যোগ দেন লিওনেল মেসি।

পচেত্তিনো আনহেল দি মারিয়াকে বদলে মেসিকে নামান। মেসি নামার পর আরও দুই গোল বাগিয়ে নেয় পিএসজি। ৬৭ মিনিটে ভোট ফেসের আত্মঘাতী গোল ও ৭৫ মিনিটে দানিলো পেরেইরার স্ট্রাইকে নিশ্চিত হয় পিএসজির দারুণ জয়।

এ জয়ে ২২ ম্যাচে ৫৩ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের শীর্ষস্থান আরও মজবুত করল পচেত্তিনোর দল। দ্বিতীয় স্থানে থাকা নিসের চেয়ে ১১ পয়েন্ট এগিয়ে তারা।

দলের এমন পার্ফরম্যান্সে উচ্ছ্বসিত পচেত্তিনো। ম্যাচ শেষে সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ‘ভালো একটা ম্যাচ ছিল। তিন পয়েন্ট নিশ্চিত করা গেছে। যারা অনেক দিন গোল পায় না তারাও গোল করেছে।’

আরও পড়ুন:
লঙ্কায় সুযোগ না পাওয়ায় আক্ষেপ নেই নবাবের
হতাশার বৃত্ত পূরণ শেষে দেশে জামালরা
শেষ মুহূর্তের গোলে স্বপ্নভঙ্গ বাংলাদেশের

শেয়ার করুন

‘মেসির সমালোচনাকারীরা ফুটবল বোঝেন না’

‘মেসির সমালোচনাকারীরা ফুটবল বোঝেন না’

এল ক্লাসিকো লড়াইয়ে লিওনেল মেসি ও কারিম বেনজেমা। ছবি: এএফপি

মেসির এমন ম্লান সময়ে পাশে আছেন কারিম বেনজেমা। একটু অবাক করার মতোই ব্যাপার! মেসির চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ক্লাব রিয়াল মাদ্রিদের জার্সিতে খেলা এ ফরাসি ফরোয়ার্ড পক্ষ নিচ্ছেন নিয়েছেন মেসির। সমালোচকদের একহাত নিতেও দ্বিধা করেননি তিনি।

বার্সেলোনা থেকে প্যারিস সেইন্ট জার্মেইয়ে (পিএসজি) নাম লেখানোর পর খাপ খাওয়ানোর লড়াইয়ে ব্যতিব্যস্ত লিওনেল মেসি। গোল বা অ্যাসিস্ট সবকিছু মিলিয়ে নিজের নামের সুবিচার করতে পেরেছেন এমনটা বলার উপায় নেই। জার্সি বদলে যেন খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না গোলমেশিন মেসিকে।

তাই অনেকেই সমালোচনার প্রশ্নে বিদ্ধ করছেন এ আর্জেন্টাইন মহাতারকাকে।

তবে মেসির এমন ম্লান সময়ে পাশে আছেন কারিম বেনজেমা। একটু অবাক করার মতোই ব্যাপার! মেসির চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ক্লাব রিয়াল মাদ্রিদের জার্সিতে খেলা এ ফরাসি ফরোয়ার্ড পক্ষ নিচ্ছেন নিয়েছেন মেসির। সমালোচকদের একহাত নিতেও দ্বিধা করেননি তিনি।

ফ্রান্সের টিভি চ্যানেল টেলিফুটকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে বেনেজমা বলেন, ‘মেসিকে নিয়ে যারা সমালোচনা করেন, তারা ফুটবল বোঝেন না।

‘তিনি যখন গোল করেন না, তখনও মাঠে তার খেলা দেখুন। তাকে সমালোচনা করা যায় না।’

সব মিলিয়ে এবার পিএসজির জার্সিতে লিগ ওয়ানে ১১ ম্যাচে ১ গোল মেসির। অ্যাসিস্ট ৪টি। এক যুগেরও বেশি সময় বার্সায় খেলা মেসি পিএসজিতে অনেকটাই রঙহীন। পারফরম্যান্সকে কোনোভাবেই মেসিসুলভ বলা যায় না।

তবে নতুন ক্লাবে মেসির এ লড়াইটাকে ব্যাখ্যা করেছেন বেনজেমা। তিনি বলেন, ‘মেসি খাপ খাওয়ানোর সময়ের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে। তাকে সময় দিতে হবে।’

পিএসজির জার্সিতে যেমন অনুজ্জ্বল আর্জেন্টিনার জার্সিতে অতটাই উজ্জ্বল মেসি। গত বছর আর্জেন্টিনাকে কোপা আমেরিকা জিতিয়েছেন।

জিতেছেন ফুটবল ইতিহাসের সর্বোচ্চ ব্যালন ডর। সাতবার এ পুরস্কার বগলদাবা করেন তিনি। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৫ বার ক্রিস্টিয়ানো রোনালডোর।

মেসি ও বেনজেমা আবারও মুখোমুখি হতে চলেছে সামনে। ১৬ ফেব্রুয়ারি ইউয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগের ম্যাচে মেসির পিএসজির মুখোমুখি হবে বেনজেমার রিয়াল মাদ্রিদ।

আরও পড়ুন:
লঙ্কায় সুযোগ না পাওয়ায় আক্ষেপ নেই নবাবের
হতাশার বৃত্ত পূরণ শেষে দেশে জামালরা
শেষ মুহূর্তের গোলে স্বপ্নভঙ্গ বাংলাদেশের

শেয়ার করুন

বিপ্লব-কায়সারকে নিয়ে স্কাউটিংয়ের পরিকল্পনা নতুন কোচের

বিপ্লব-কায়সারকে নিয়ে স্কাউটিংয়ের পরিকল্পনা নতুন কোচের

আইভান রাজলগ, বিপ্লব ভট্টাচার্য্য, হাভিয়ের কাবরেরা, মাসুদ পারভেজ কায়সার (ছবির বাম থেকে ডানে)। ছবি: বাফুফে

কাবরেরার কোচিং প্যানেলে সহকারী কোচ হিসেবে নিয়োগ দেয়া হলো মাসুদ পারভেজ কায়সারকে এবং গোলকিপার প্রশিক্ষক হিসেবে নিযুক্ত করা হয়েছে জাতীয় দলের সাবেক গোলকিপার বিপ্লব ভট্টাচার্যকে। আর ফিটনেস কোচ হিসেবে সর্বশেষ হেড কোচ জেমি ডের সঙ্গে থাকা আইভান রাজলগকে দায়িত্ব অব্যাহত রাখতে বলা হয়েছে।

জাতীয় ফুটবল দলের হেড কোচ নিয়োগের পর কে হবেন সহকারী কোচ, এটিই এখন আলোচনার বিষয়। নিকট অতীতে বিদেশি হেড কোচরা নিজের মতো বিদেশি সহকারী কোচ নিয়ে এসেছিলেন। এবার হাভিয়ের কাবরেরার সেই চাহিদা ছিল না।

এরই ধারাবাহিকতায় কাবরেরার কোচিং প্যানেলে সহকারী কোচ হিসেবে নিয়োগ দেয়া হলো মাসুদ পারভেজ কায়সারকে এবং গোলকিপার প্রশিক্ষক হিসেবে নিযুক্ত করা হয়েছে জাতীয় দলের সাবেক গোলকিপার বিপ্লব ভট্টাচার্যকে।

আর ফিটনেস কোচ হিসেবে সর্বশেষ হেড কোচ জেমি ডের সঙ্গে থাকা আইভান রাজলগকে দায়িত্ব অব্যাহত রাখতে বলা হয়েছে।

তাদের নিয়ে খেলোয়াড় বাছাইয়ে মনোযোগ জাতীয় দলের নতুন হেড কোচ হাভিয়ের কাবরেরা।

রোববার বাফুফে ভবনে তিনি বলেন, ‘বিদেশি স্টাফের প্রয়োজনীয়তা দেখছি না। আমি দুই সহকারী পেয়েছি কায়সার ও বিপ্লবকে। তাদের জাতীয় দলের কাজ করার অভিজ্ঞতা আছে। তাদের সঙ্গে আলোচনা করে ভালোই লাগল। একসঙ্গে আমরা খেলোয়াড় বাছাইসহ বিভিন্ন পরিকল্পনা করব।’

স্কাউটিং বা খেলোয়াড় বাছাইয়ের অংশ হিসেবে ঘরোয়া ফুটবলের ক্লাবগুলো ঘুরে দেখছেন কাবরেরা। এখন থেকে পুরো কোচিং প্যানেল নিয়ে ক্লাব পরিদর্শন করবেন এ স্প্যানিশ কোচ। গত শুক্রবার ঢাকা আবাহনীর খেলোয়াড়দের সঙ্গে পরিচয় পর্ব সেরেছেন।

রোববার বাফুফের এলিট ফুটবল অ্যাকাডেমি পরিদর্শনে গিয়েছিলেন। নিজেও বার্সেলোনাসহ অনেক ক্লাবের অ্যাকাডেমিতে কোচ হিসেবে কাজ করা হাভিয়ের বাফুফের অ্যাকাডেমি সম্পর্কে ইতিবাচক কথাই বললেন।

তিনি বলেন, ‘অ্যাকাডেমি কার্যক্রম, প্রক্রিয়া সম্পর্কে জানলাম। সঠিক পথেই অ্যাকাডেমি রয়েছে।’

স্কাউটিংয়ের অংশ হিসেবে আগামীকাল সোমবার উত্তর বারিধারা ক্লাব পরিদর্শন করবেন কাবরেরা গং।

আরও পড়ুন:
লঙ্কায় সুযোগ না পাওয়ায় আক্ষেপ নেই নবাবের
হতাশার বৃত্ত পূরণ শেষে দেশে জামালরা
শেষ মুহূর্তের গোলে স্বপ্নভঙ্গ বাংলাদেশের

শেয়ার করুন