এবারের ব্যালন ডর আলাদা মেসির কাছে

player
এবারের ব্যালন ডর আলাদা মেসির কাছে

সপ্তম ব্যালন ডর ট্রফি হাতে লিওনেল মেসি। ছবি: এএফপি

প্যারিসে সপ্তম সোনার বল হাতে নেয়ার পর মেসি জানালেন এবারেরটাই সবচেয়ে তৃপ্তি দিচ্ছে তাকে। কারণটাও জানান ক্রীড়া বিশ্বের এ মহানায়ক। 

আগেও ছয়বার জিতেছেন বিশ্বসেরা ফুটবলারের জন্য বরাদ্দ এ ট্রফি। ২০০৯ থেকে ২০১২ পর্যন্ত টানা চারবার পেয়েছেন এ সম্মান। তারপরও লিওনেল মেসির কাছে এবারের জয়টাই সবচেয়ে উপভোগ্য।

তাকে সর্বকালের সেরা বলে মেনে নিয়েছেন অনেক বোদ্ধা। এবারের ব্যালন ডর জেতার সংখ্যায় আনুষ্ঠানিকভাবেই সেরা হয়ে উঠলেন মেসি। প্যারিসে সপ্তম সোনার বল হাতে নেয়ার পর মেসি জানালেন এবারেরটাই সবচেয়ে তৃপ্তি দিচ্ছে তাকে। কারণটাও জানান ক্রীড়া বিশ্বের এ মহানায়ক।

মেসি বলেন, ‘আগে যখনই এ পুরস্কার পেয়েছি, নিজের দেশের জন্য কিছু জিততে না পারার হতাশাটা কাঁটার মতো বিঁধেছে। কোপা আমেরিকা জেতার পর আজকের এ পুরস্কারটা আমি এটা উপভোগ করছি। জাতীয় দলের সবার সঙ্গে আমি এ সম্মান ভাগ করে নিতে চাই।

‘একই সঙ্গে আমার বার্সেলোনা ও প্যারিসের সতীর্থ ও কোচিং স্টাফকে ধন্যবাদ জানাতে চাই।’

ফুটবলপ্রেমীদের জন্য মন খারাপ করার মতো বিষয় হচ্ছে, মেসির বয়স এখন ৩৪। আর খুব বেশি দিন ফুটবল মাঠে হয়তো দেখা যাবে না মহান এ ফুটবল শিল্পীকে। তবে মেসি জানালেন বুটজোড়া তুলে রাখার কোনো পরিকল্পনা এখনও তার মাথায় আসেনি।

তিনি বলেন, ‘অনেকেই আমাকে জিজ্ঞেস করেছেন অবসর নিয়ে। আমি প্যারিসে খুব ভালো আছি। নতুন চ্যালেঞ্জ নিতে মুখিয়ে আছি। আমি জানি না আর কত দিন খেলতে পারব। আশা করি সেটা আরও অনেক দিন। কারণ আমি ফুটবল খেলতে ভালোবাসি।’

মেসির কাছে ব্যালনের রেসে হেরে গেছেন রবার্ট লেওয়ানডোভস্কি। মেসি সাধুবাদ জানালেন এই পোলিশ স্ট্রাইকারকে।

আর্জেন্টাইন অধিনায়ক বলেন, ‘রবার্টের মতো একজন খেলোয়াড়ের সঙ্গে এই পুরস্কারের জন্য লড়াই করতে পারাটা আমার জন্য গর্বের। গত বছরের ব্যালন ডরটা তার প্রাপ্য ছিল।’

আরও পড়ুন:
মেসির হাতে উঠল সপ্তম ব্যালন ডর
মেসি না লেভা: রাতে জানা যাবে কে পাচ্ছেন ব্যালন

শেয়ার করুন

মন্তব্য

শেষ আপিলও খারিজ, জেল খাটতেই হচ্ছে রবিনিয়োকে

শেষ আপিলও খারিজ, জেল খাটতেই হচ্ছে রবিনিয়োকে

ব্রাজিলের ক্লাব আতলেতিকো মিনেইরোর জার্সিতে রবিনিয়ো। ছবি: এএফপি

রায়ের বিরুদ্ধে আর আবেদন করতে পারবেন না রবিনিয়ো। এবার সাজা খাটতে হবে ৩৮ বছর বয়সী সাবেক ব্রাজিল তারকাকে। ইতালির আদালত জানিয়েছে, রবিনিয়ো চাইলে নিজ দেশের কারাগারে সাজা খাটতে পারেন।

৯ বছরের কারাদণ্ডের বিরুদ্ধে ইতালির আদালতে শেষবারের মতো আপিল করেছিলেন ব্রাজিলের সাবেক ফরোয়ার্ড রবিনিয়ো, কিন্তু সেই আবেদন খারিজ করে দিয়েছে আদালত।

এ রায়ের ফলে ধর্ষণের দায়ে ৯ বছরের সাজা খাটতেই হবে তাকে। একই সাজা পেয়েছেন রবিনিয়োর বন্ধু রিকার্দো ফালকাও।

২০১৩ সালে রবিনিয়ো ও ফালকাওয়ের বিরুদ্ধে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের মামলা হয়। ওই সময় ইতালির ক্লাব এসি মিলানে খেলতেন রবিনিয়ো।

রোমের এক বারে আলবেনিয়ার এক তরুণীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগ ওঠে রবিনিয়ো, রিকার্দোসহ ছয়জনের বিরুদ্ধে।

মামলায় দোষী সাব্যস্ত হওয়ায় ২০১৭ সালে রবিনিয়ো ও তার বন্ধুকে ৯ বছরের কারাদণ্ড দেয় আদালত।

গত প্রায় ৫ বছরে ওই রায়ের বিরুদ্ধে বারবার আপিল করেন রবিনিয়ো। সেটি প্রতিবারই খারিজ হয়।

শেষ আবেদনও খারিজ হলো এবার। আর আবেদন করতে পারবেন না তিনি। এবার সাজা খাটতে হবে ৩৮ বছর বয়সী সাবেক এ তারকাকে।

ইতালির আদালত জানিয়েছে, রবিনিয়ো চাইলে নিজ দেশের কারাগারে সাজা খাটতে পারেন।

২০০২ সালে ১৮ বছর বয়সে সান্তোসের হয়ে পেশাদার ফুটবলে অভিষেকের পর রিয়াল মাদ্রিদ, ম্যানচেস্টার সিটি ও এসি মিলানের মতো বিশ্বসেরা ক্লাবগুলোতে খেলেছেন রবিনিয়ো।

ব্রাজিলের ফুটবল সম্রাট পেলে তাকে নিজের উত্তরসূরি হিসেবে ঘোষণা দিয়েছিলেন।

আরও পড়ুন:
মেসির হাতে উঠল সপ্তম ব্যালন ডর
মেসি না লেভা: রাতে জানা যাবে কে পাচ্ছেন ব্যালন

শেয়ার করুন

নাখোশ রোনালডোকে নিয়ে জিতল ম্যান ইউ, লেস্টারকে হারাল স্পার্স

নাখোশ রোনালডোকে নিয়ে জিতল ম্যান ইউ, লেস্টারকে হারাল স্পার্স

সতীর্থদের সঙ্গে গোল উদযাপন করছেন মার্কাস র‍্যাশফোর্ড (বামে)। ছবি: এএফপি

১৯ ম্যাচে ৩৬ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের পাঁচে উঠে এসেছে টটেনহ্যাম। আর ২১ ম্যাচে ৩৫ পয়েন্ট নিয়ে ইউনাইটেড আছে টেবিলের সাতে। 

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে নিজ নিজ ম্যাচে জয় পেয়েছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ও টটেনহ্যাম হটস্পার। লেস্টার সিটিকে ৩-২ গোলে হারিয়েছে স্পার্স আর ব্রেন্টফোর্ডের মাঠে ইউনাইটেডের জয় ৩-১ গোলের।

ব্রেন্টফোর্ডের মাঠে বেশ ঢিমেতালে ছিল ইউনাইটেড। প্রথমার্ধে গুছিয়ে নিতে পারেনি রালফ রাগনিকের শিষ্যরা।

ক্রিস্টিয়ানো রোনালডো শুরু থেকে খেললেও ছিলেন নিজের ছায়া হয়ে। কার্যকরী ছিলেন না ম্যাকটমিনেও।

দ্বিতীয়ার্ধে সফরকারী দলকে চাঙা করে তোলেন অ্যান্থনি এলাঙ্গা। এই টিনেজ তারকার প্রথম গোলে ৫৫ মিনিটে লিড নেয় ইউনাইটেড।

এর মিনিট ছয়েক পর আবারও ব্রেন্টফোর্ডের রক্ষণে আঘাত করে ইউনাইটেড। এবারে স্কোরার ছিলেন মেসন গ্রিনউড।

২-০ গোলে এগিয়ে যাওয়ার পর পয়েন্ট রক্ষায় মনোযোগী হন রাগনিক। নিস্প্রভ রোনালডোকে তুলে নিয়ে ডিফেন্ডার হ্যারি ম্যাগুয়ারকে নামান ইউনাইটেড বস।

এই সিদ্ধান্ত পছন্দ হয়নি রোনালডোর। মাঠ ছেড়ে যাওয়ার সময় কিছুটা ক্ষোভ প্রকাশ করেন পাঁচবার ব্যালন ডর জয়ী এ তারকা।

নাখোশ রোনালডোকে নিয়ে জিতল ম্যান ইউ, লেস্টারকে হারাল স্পার্স
দ্বিতীয়ার্ধে বদলি করার সিদ্ধান্তে সন্তুষ্ট ছিলেন না রোনালডো। ছবি: টুইটার

তাতে অবশ্য ইউনাইটেডের খেলায় কোনো প্রভাব পড়েনি। ৭৭ মিনিটে মার্কাস র‍্যাশফোর্ডের গোলে ম্যাচ ৩-০ ব্যবধানে নিশ্চিত করে ফেলে সাবেক চ্যাম্পিয়নরা।

শেষ দিকে স্বাগতিক দলের হয়ে আইভান টোনি এক গোল শোধ করলেও তা ম্যাচভাগ্যে বদল আনতে পারেনি।

৩-১ গোলের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে ইউনাইটেড।

রাতের আরেক ম্যাচে ছিল চরম নাটকীয়তা। লেস্টার সিটি নিজ মাঠে এগিয়ে ছিল শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত। তবে অতিরিক্ত সময়ে জোড়া গোল করে ম্যাচ বের করে নেয় টটেনহ্যাম।

লেস্টারকে ২৪ মিনিটে লিড এনে দেন প্যাটসন ডাকা। প্রথমার্ধে গোল শোধ করে দেন হ্যারি কেইন।

বিরতির পর ৭৬ মিনিটে জেমস ম্যাডিসনের গোলে দ্বিতীয়বার লিড নেয় লেস্টার। ম্যাচে ২-১ স্কোরলাইন ছিল ৯৪ মিনিট পর্যন্ত।

৯৫ ও ৯৭ মিনিটে স্টিভেন বার্গউইনের জোড়া গোলে অবিশ্বাস্য ভাবে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে সফরকারী দল।

এ জয়ে ১৯ ম্যাচে ৩৬ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের পাঁচে উঠে এসেছে টটেনহ্যাম। আর ২১ ম্যাচে ৩৫ পয়েন্ট নিয়ে ইউনাইটেড আছে টেবিলের সাতে।

আরও পড়ুন:
মেসির হাতে উঠল সপ্তম ব্যালন ডর
মেসি না লেভা: রাতে জানা যাবে কে পাচ্ছেন ব্যালন

শেয়ার করুন

নতুন কোচের চোখে ‘বিউটিফুল চ্যালেঞ্জ’

নতুন কোচের চোখে ‘বিউটিফুল চ্যালেঞ্জ’

জাতীয় ফুটবল দলের আনুষ্ঠানিক দায়িত্ব নিচ্ছেন হাভিয়ের কাবরেরা। ছবি: বাফুফে

নতুন কোচ আসলেই নতুন প্রত্যাশা যোগ হয়। এবার প্রত্যাশা দলকে অতীত ব্যর্থতা থেকে তুলে ওপরে তোলার। ডিসেম্বর পর্যন্ত চুক্তিবদ্ধ হয়েছে কাবরেরা। এর মাঝে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জটা তিনি পাচ্ছেন আগামী জুনে এশিয়ান কাপ বাছাইপর্বে।

শনিবার ঢাকায় পৌঁছানোর পর বুধবার আনুষ্ঠানিকভাবে জাতীয় ফুটবল দলের দায়িত্ব নিলেন হাভিয়ের কাবরেরা। প্রথমবার জাতীয় দলের দায়িত্ব পেয়ে রোমাঞ্চিত এ স্প্যানিশ কোচ। সামনে দেখছেন, ‘বিউটিফুল চ্যালেঞ্জ’।

কী সেই বিউটিফুল চ্যালেঞ্জ সেটা সংবাদমাধ্যমকে জানালেন জাতীয় দলের ২৩ তম এই বিদেশি কোচ।

হাভিয়ের কাবরেরা বলেন, ‘কঠিন সুন্দর একটা চ্যালেঞ্জ। আমার ইচ্ছা প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক একটা দল গড়া। ভালো পারফরম্যান্সের চেষ্টা করব। যতটা সম্ভব একটা কাঠামো তৈরি করতে চেষ্টা থাকবে। স্বাধীনতা কাপ ও ফেডারেশন কাপে আমি জাতীয় দলের ফুটবলারদের খেলা দেখেছি।

‘সাফের খেলাও দেখেছি। এই দলে কয়েকজন প্রতিভাবান ফুটবলার আছে। আমার মনে হয় আমরা প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ দল গড়তে পারব।’

নতুন কোচ আসলেই নতুন প্রত্যাশা যোগ হয়। এবার প্রত্যাশা দলকে অতীত ব্যর্থতা থেকে তুলে ওপরে তোলার। ডিসেম্বর পর্যন্ত চুক্তিবদ্ধ হয়েছে কাবরেরা। এর মাঝে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জটা তিনি পাচ্ছেন আগামী জুনে এশিয়ান কাপ বাছাইপর্বে।

আপাতত ধাপে ধাপে এগোতে চান এ স্প্যানিয়ার্ড। তিনি বলেন, ‘আপাতত মার্চের ম্যাচ নিয়েই ভাবছি। ম্যাচ ধরে ধরে এগোতে চাই। এরপর না হয় এশিয়া কাপ নিয়ে ভাবব। তবে এতটুকু বলতে চাই, যেখানেই খেলি লড়াই যেন থাকে।

‘সাফ কিংবা ফিফা, যে পর্যায়ের ম্যাচই হোক না কেন, আমরা লড়তে চাই। যদি ভালো একটা দল গড়তে না পারি তাহলে এত পরিশ্রম বৃথা।’

বার্সেলোনাসহ বিশ্বের বিভিন্ন একাডেমিতে কাজ করার অভিজ্ঞতা আছে নতুন কোচের। তবে ঘাটতি জাতীয় দলে কাজ করার। নতুন দেশের নতুন অভিজ্ঞতাকে কীভাবে নিজের কৌশলে সাজাবেন এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘আমার পদক্ষেপ হবে প্রতিযোগিতামূলক। খেলোয়াড়দের উন্নতি করানো যাতে তারা বুঝতে পারে খেলার প্রতি মুহুর্ত কী দাবি করে। এটা অত্যাবশকীয় নয় যে সবসময় বলের দখল রাখতে হবে। বল দখলের মাধ্যমেও তা হতে পারে।

‘অথবা ডিফেন্স লাইনের পিছনে কোনো জায়গা যেটার সুযোগ আমরা নিতে পারি। সরাসরি আক্রমণ করতে পারি অথবা বল ছাড়া হাই প্রেস করে বল সংগ্রহ করতে পারি। আমার মনে হয় না আমাদের একটি নির্দিষ্ট গেইম মডেল এ নেমে আসা উচিত।’

ঢাকায় আসার আগে কিছু অ্যাসাইন্টমেন্ট সেরে রেখেছেন কাবরেরা। সবশেষ ফেডারেশন কাপের খেলা দেখেছেন। গত সাফ ও চার জাতি টুর্নামেন্টও পর্যবেক্ষণ করেছেন তিনি।

এ বিষয় নিয়ে তিনি বলেন, ‘আমি সাফে বাংলাদেশের খেলা দেখেছি। আমার কাছে মনে হয়েছে খেলোয়াড়েরা আত্মবিশ্বাসের অভাবে ভুগেছে। মূল বিষয় হলো অনুশীলন। আর এখানেই পরিকল্পনার বিষয়টি আসে।

‘খেলোয়াড় গড়ে তুলতে পারাটা আমার কাছে গুরুত্বপূর্ণ। তরুণ ফুটবলার নিয়ে অনেক দিন কাজ করেছি। একই সঙ্গে এটাও মাথায় রাখতে হবে যে এই ফুটবলাররা যেন পেশাদার পর্যায়ে পারফরম্যান্স দেখাতে পারে। সুতরাং আমাদের মূল চেষ্টা থাকবে তাদের পারফরম্যান্স বাড়ানো।’

আরও পড়ুন:
মেসির হাতে উঠল সপ্তম ব্যালন ডর
মেসি না লেভা: রাতে জানা যাবে কে পাচ্ছেন ব্যালন

শেয়ার করুন

জামালের ভোট পাননি মেসি-রোনালডো

জামালের ভোট পাননি মেসি-রোনালডো

ক্রিস্টিয়ানো রোনালডো, জামাল ভূঁইয়া ও লিওনেল মেসি। ছবি: সংগৃহীত

ব্যলন ডরজয়ী লিওনেল মেসি আর ফিফার বিশেষ পুরস্কার পাওয়া ক্রিস্টিয়ানো রোনালডোর কাউকেই ভোট দেননি বাংলাদেশের জাতীয় ফুটবল দলের অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়া।

ফিফা বর্ষসেরার ফুটবলারের পুরস্কার জিতে নিয়েছেন বায়ার্ন মিউনিখের তারকা স্ট্রাইকার রবার্ট লেওয়ানডোভস্কি। জাতীয় দলের অধিনায়ক, কোচ ও ক্রীড়া সাংবাদিকদের ভোটে টানা দ্বিতীয়বার এ পুরস্কার বগলদাবা করেছেন পোলিশ এ ফুটবলার। মেসি-সালাহকে টপকে এ পুরস্কার জেতেন তিনি।

তিন জনের ছোট তালিকায় ছিলেন না ক্রিস্টিয়ানো রোনালডো।

ব্যলন ডরজয়ী লিওনেল মেসি আর ফিফার বিশেষ পুরস্কার পাওয়া ক্রিস্টিয়ানো রোনালডোর কাউকেই ভোট দেননি বাংলাদেশের জাতীয় ফুটবল দলের অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়া।

তার সেরা তিন ফুটবলারের তালিকায় আছেন লেওয়ানডোভস্কি। তবে ডেনমার্ক প্রবাসী এ বাংলাদেশি ফুটবলার প্রথম পছন্দ হিসেবে বেছে নেননি এ পোলিশ ফুটবলারকে। তার পছন্দের শীর্ষে আছেন চেলসির ফরাসি তারকা এনগোলো কান্তে।

দুইয়ে রেখেছেন আরেক ফরাসী ‍ফুটবলার কারিম বেনজেমাকে। তৃতীয় স্থানে রাখেন রবার্ট লেওয়ানডোভস্কিকে।

সেরা ফুটবলারের পাশাপাশি ফিফার বর্ষসেরা কোচের ক্ষেত্রে তিনজনকে বাছাই করেন জামাল।

তিনি শীর্ষে রেখেছেন ইতালিকে ইউরো জেতানো কোচ রবার্তো মানচিনিকে। মেসিকে ভোট না দিলেও তার সাবেক গুরু পেপ গার্দিওলাকে দুইয়ে রেখেছেন। তিনে রাখেন টটেনহ্যামের কোচ আন্তোনিও কন্তেকে।

আরও পড়ুন:
মেসির হাতে উঠল সপ্তম ব্যালন ডর
মেসি না লেভা: রাতে জানা যাবে কে পাচ্ছেন ব্যালন

শেয়ার করুন

৭ ভেন্যুতে এবার প্রিমিয়ার লিগ, নেই চট্টগ্রাম

৭ ভেন্যুতে এবার প্রিমিয়ার লিগ, নেই চট্টগ্রাম

৩ ফেব্রুয়ারি থেকে মাঠে গড়াচ্ছে প্রিমিয়ার লিগের ১৩ম আসর। ছবি: বাফুফে

ঢাকা ও ঢাকার বাইরে সবমিলে সাত ভেন্যুতে গড়াবে আসন্ন প্রিমিয়ার লিগ। এবার বসুন্ধরা স্পোর্টস কমপ্লেক্সের স্টেডিয়ামকে প্রথমবারের মতো ভেন্যু হিসেবে ঘোষণা দেয়া হলেও নেই চট্টগ্রাম স্টেডিয়াম।

জাতীয় দলের ইন্দোনেশিয়া সফর বাতিল হওয়ার পর প্রিমিয়ার লিগের খেলা সপ্তাহখানেক এগিয়ে আনার কথা শোনা ‍যাচ্ছিল। তবে, নির্ধারিত সময়ে মাঠে গড়াচ্ছে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের ১৩তম আসর।

ঢাকা ও ঢাকার বাইরে সবমিলে সাত ভেন্যুতে গড়াবে আসন্ন লিগের আসর। বসুন্ধরা স্পোর্টস কমপ্লেক্সের স্টেডিয়ামকে এবার প্রথমবারের মতো ভেন্যু হিসেবে ঘোষণা দেয়া হয়। কিন্তু ভেন্যু হিসেবে এবারও নেই চট্টগ্রাম।

নির্ধারিত সময় আগামী ৩ ফেব্রুয়ারি থেকে শীর্ষ ১২ ক্লাব নিয়ে শুরু হবে লিগ।

মঙ্গলবার বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন ভবনে (বাফুফের) পেশাদার লিগ কমিটির বৈঠকে ভেন্যু নিয়ে এই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়।

চূড়ান্ত সাত ভেন্যু হলো- গোপালগঞ্জের শেখ ফজলুল হক মনি স্টেডিয়াম, টঙ্গীর শহীদ আহসান উল্লাহ্ মাষ্টার স্টেডিয়াম, সিলেট জেলা স্টেডিয়াম, রাজশাহীর মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতি স্টেডিয়াম, কুমিল্লার শহীদ ধীরেন্দ্র নাথ স্টেডিয়াম, মুন্সিগঞ্জের বীরশ্রেষ্ঠ ফ্লাইট লেঃ মতিউর রহমান স্টেডিয়াম ও ঢাকার বসুন্ধরা স্পোর্টস কমপ্লেক্স।

এবার ঢাকার একমাত্র ভেন্যু হিসেবে থাকছে বসুন্ধরা স্পোর্টস কমপ্লেক্স। বাকি ছয় ভেন্যু ঢাকার বাইরে।

এর মধ্যে শুধু একটি ভেন্যুতে লিগের প্রথম রাউন্ডের খেলা হবে না। কুমিল্লার ভেন্যুকে প্রস্তুত করে দ্বিতীয় রাউন্ড থেকে লিগের খেলা শুরু হবে।

করোনাভাইরাসের তৃতীয় ঢেউয়ে সরকারের নির্দেশনা মেনে লিগ চলবে বলে জানায় পেশাদার লিগ কমিটি।

সভায় এ সময় উপস্থিত ছিলেন ক্লাবসমূহের কর্মকর্তারা। উপস্থিত ছিলেন পেশাদার লিগ কমিটির চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম মুর্শেদী।

আরও পড়ুন:
মেসির হাতে উঠল সপ্তম ব্যালন ডর
মেসি না লেভা: রাতে জানা যাবে কে পাচ্ছেন ব্যালন

শেয়ার করুন

মেসিকে হারিয়ে ফিফার বর্ষসেরা লেওয়ানডোভস্কি

মেসিকে হারিয়ে ফিফার বর্ষসেরা লেওয়ানডোভস্কি

পুরস্কার হাতে লেওয়ানডোভস্কি। ছবি: টুইটার

পুরস্কার ঘোষণার সময় অনলাইনে ছিলেন আর্জেন্টাইন মহাতারকা মেসি। আফ্রিকান কাপ চলায় অনুষ্ঠানে ছিলেন না সালাহ। ফিফার সভাপতি জিয়ান্নি ইনফান্তিনো মঞ্চে এসে পুরস্কার ঘোষণা করেন। লেওয়ানডোভস্কির হাতে তুলে দেয়া হয় ফিফার সেরা খেলোয়াড়ের ট্রফি।

লিওনেল মেসি ও মোহামেদ সালাহকে টপকে ফিফা বর্ষসেরা পুরুষ ফুটবলারের পুরস্কার বাগিয়ে নিয়েছেন বায়ার্ন মিউনিখের পোলিশ স্ট্রাইকার রবার্ট লেওয়ানডোভস্কি।

টানা দ্বিতীয়বার এ পুরস্কার নিজের করে নিলেন এই তারকা ফুটবলার।

সোমবার বাংলাদেশ সময় রাত দেড়টার দিকে ফিফার প্রধান কার্যালয় জুরিখে এ পুরস্কার দেয়া হয়।

পুরস্কারের জন্য তিনজনের শর্টলিস্ট করা হয়। এই ছোট তালিকায় লেওয়ানডোভস্কি ছাড়াও ছিলেন সাতবারের ব্যালন ডর জয়ী মেসি ও লিভারপুলের ইজিপশিয়ান কিং খ্যাত সালাহ।

পুরস্কার ঘোষণার সময় অনলাইনে ছিলেন আর্জেন্টাইন মহাতারকা মেসি। আফ্রিকান কাপ চলায় অনুষ্ঠানে ছিলেন না সালাহ।

ফিফার সভাপতি জিয়ান্নি ইনফান্তিনো মঞ্চে এসে পুরস্কার ঘোষণা করেন। লেওয়ানডোভস্কির হাতে তুলে দেয়া হয় ফিফার সেরা খেলোয়াড়ের ট্রফি।

২০২১ সালটা দুর্দান্ত কেটেছে লেওয়ানডোভস্কির। ক্লাব ও জাতীয় দলের জার্সিতে ৪৭ ম্যাচে ৫৮ গোল করেন এ স্ট্রাইকার। গেল বছর দুটি রেকর্ড ভেঙেছেন তিনি।

বায়ার্ন মিউনিখের জার্সিতে এক মৌসুমে গার্ড মুলারের গড়া রেকর্ড ভেঙে ৪১ গোল করেন। সঙ্গে এক ক্যালেন্ডার বছরে সর্বোচ্চ ৪৩ গোল করেন।

আন্তর্জাতিক ফুটবলের সবচেয়ে বেশি গোলের রেকর্ড ভাঙ্গায় পর্তুগিজ ফরোয়ার্ড ক্রিস্টিয়ানো রোনালডো পান ফিফা স্পেশাল অ্যাওয়ার্ড। আর বর্ষসেরা কোচের ট্রফি জেতেন চেলসিকে ইউয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগ জেতানো ম্যানেজার টমাস টুখেল।

ফিফা বর্ষসেরা নারী পুরস্কার বাগিয়ে নিয়েছেন বার্সেলোনার ট্রেবলজয়ী স্প্যানিশ ফুটবলার আলেক্সিয়া পুতেলাস।

আরও পড়ুন:
মেসির হাতে উঠল সপ্তম ব্যালন ডর
মেসি না লেভা: রাতে জানা যাবে কে পাচ্ছেন ব্যালন

শেয়ার করুন

নতুন কোচে সাফল্য আসবে বিশ্বাস সালাউদ্দিনের

নতুন কোচে সাফল্য আসবে বিশ্বাস সালাউদ্দিনের

নতুন কোচ হাভিয়ের কাবরেরার সঙ্গে বৈঠকে কাজী সালাউদ্দিন। ছবি: বাফুপে

লাল-সবুজদের নিয়ে নতুন কোচের পরিকল্পনা মনে ধরেছে বাফুফে বস কাজী সালাউদ্দিনের। তার বিশ্বাস, নতুন কোচের অধীনেই সাফল্য পাবে বাংলাদেশ।

ঢাকায় পৌঁছে দুই দিনের কোয়ারেন্টিন শেষে সোমবার বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের সভাপতি কাজী সালাউদ্দিনের সঙ্গে বৈঠক করেছেন জাতীয় ফুটবল দলের নতুন কোচ হাভিয়ের কাবরেরা। এই বৈঠকে কোচের কাছে বাংলাদেশ দল নিয়ে প্রত্যাশার কথা জানিয়েছেন বাফুফে বস।

জাতীয় দলের ব্যবস্থাপনা কমিটির চেয়ারম্যান কাজী নাবিল আহমেদকে নিয়ে এ বৈঠকে কোচের পরিকল্পনাও শোনেন কাজী সালাউদ্দিন।

লাল-সবুজদের নিয়ে নতুন কোচের পরিকল্পনা মনে ধরেছে বাফুফে বসের। তার বিশ্বাস, নতুন কোচের অধীনেই সাফল্য পাবে বাংলাদেশ।

বৈঠক শেষে গণমাধ্যমকে তিনি বলেন, ‘কোচকে ভালোই লেগেছে। নাবিল (কাজী নাবিল আহমেদ) আর আমি মিলে যখন আলোচনা করি তখনই ভালো লাগে। সে (কাবরেরা) একজন সক্রীয় কোচ। কথাবার্তা বলে মনে হয়েছে তাকে নিয়ে আমরা সাফল্য পাব।’

বিভিন্ন ফুটবল অ্যাকাডেমিতে কাজ করলেও হাভিয়ের কাবরেরার কোনো জাতীয় দলের অভিজ্ঞতা নাই। কোচিং ক্যারিয়ারে এই প্রথম কোনো জাতীয় দলের কোচিংয়ের দায়িত্ব নিচ্ছেন স্প্যানিশ কোচ।

নতুন এই চ্যালেঞ্জটা কীভাবে নেবেন কোচ জানতে চাইলে কাজী সালাউদ্দিন বলেন, ‘আমাদের দেশে জাতীয় দলের কোচিং করার অভিজ্ঞতা নিয়ে শুধু টম স্টাইনফেটই এসেছিলেন। এটা তাদের জন্য ভালো সুযোগ।

‘এখানে তারা ভালো করলে তাদের ক্যারিয়ারও উঁচুতে উঠবে। জাতীয় দলে আশা বড় গর্বের বিষয়। ওই গর্ব নিয়েই কাবরেরা এসেছেন।’

কোচের কাছে একটা অনুরোধ রেখেছেন বাফুফে বস। জয়ের প্রত্যাশার সঙ্গে জাতীয় দলের একটা ভুলের পুনরাবৃত্তির ইতি ঘটাতে অনুরোধ করেছেন কাজী সালাউদ্দিন।

তিনি বলেন, ‘অবশ্যই জয়। তাকে (কাবরেরা) বলেছি, ম্যাচের শেষ চার-পাঁচ মিনিটে আমাদের দল জেতা ম্যাচ জিততে পারে না। প্লিজ নিশ্চিত করুন যাতে এমনটা না ঘটে।’

১১ মাসের চুক্তিতে দায়িত্ব পাওয়া এই কোচ এখন খেলোয়াড় বাছাইয়ের কাজে মনোযোগ দেবেন। মাঠে বসে আসন্ন প্রিমিয়ার লিগের খেলা দেখবেন। ৩ ফেব্রুয়ারি থেকে মাঠে গড়ানোর কথা লিগের প্রথম পর্ব।

আগামী মার্চ মাসের ফিফা উইন্ডোতে জাতীয় দলকে নিয়ে প্রীতি ম্যাচ খেলার পরিকল্পনা বাংলাদেশের। সেজন্য লিগে পারফরম্যান্স দেখে খেলোয়াড় বাছাই করবেন হাভিয়ের কাবরেরা।

আরও পড়ুন:
মেসির হাতে উঠল সপ্তম ব্যালন ডর
মেসি না লেভা: রাতে জানা যাবে কে পাচ্ছেন ব্যালন

শেয়ার করুন