তিন রানের হারে স্বপ্ন ভাঙল বাংলাদেশের

তিন রানের হারে স্বপ্ন ভাঙল বাংলাদেশের

হারের পর আফিফ হোসেনকে নিয়ে মাঠ ছাড়ছেন হতাশ মহামুদুল্লাহ রিয়াদ। ছবি: এএফপি

১৪৩ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে তিন রানে হেরেছে বাংলাদেশ। ১৪০ রানে থামে টাইগারদের ইনিংস। এ হারে বিশ্বকাপ সেমিফাইনালে খেলার স্বপ্ন শেষ হয়ে গেল বাংলাদেশের। পরের দুই ম্যাচে সাউথ আফ্রিকা ও অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে লড়বে মাহমুদুল্লাহর দল।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে জিতলে বিশ্বকাপের সেমিফাইনাল খেলার স্বপ্ন বেঁচে থাকত বাংলাদেশের। পুরো ম্যাচে সেই স্বপ্ন টিকে থাকল শেষ পর্যন্ত। এমনকী আন্ড্রে রাসেল যখন শেষ বল করতে দৌড় শুরু করেছেন তখনও আশায় বুক বেঁধে টাইগার ভক্তরা।

শেষ বলে চার রান নিতে পারেননি মাহমুদুল্লাহ। তিন রানের হারে উইন্ডিজের কাছে ম্যাচের সঙ্গে হাতছাড়া হয়েছে বিশ্বকাপ সেমির আশায়।

জয়ের জন্য শেষ ওভারে প্রয়োজন ছিল ১৩ রান। হাতে ছিল পাঁচ উইকেট। ক্রিজে ছিলেন আফিফ হোসেন ও মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ।

রাসেলের শেষ ওভারের প্রথম বলটি শর্ট ফাইন লেগে ঠেলে দিয়ে দুটো রান নিলেন আফিফ হোসেন। জয়ের জন্য দরকার তখন ৫ বলে ১১।

দ্বিতীয় বলটি স্লোয়ার দেয়ায় মিস করলেন আফিফ। উইকেটরক্ষক নিকোলাস পুরান বল থ্রো করার আগে একবার জায়গা পরিবর্তন করলেন আফিফ-রিয়াদ। প্রয়োজন তখন ৪ বলে ১০।

পরের তিন বলের প্রতিটিতে ২ রান করে নিয়ে জয়ের জন্য ব্যবধানটা ১ বলে চার রানে নিয়ে আসেন রিয়াদ। সে সময় ২৩ বলে ৩১ রানে অপরাজিত রিয়াদ।

শেষ বলটি ফুল টস পড়েছিল রিয়াদের সামনে। কিন্তু সেটি ব্যাটে লাগাতে ব্যর্থ হন টি-টয়েন্টি দলপতি। ফলাফল আরও একবার একবুক হতাশা ও ৩ রানের হারকে সঙ্গী করে মাঠ ছাড়তে হল ডমিঙ্গো শিষ্যদের। সেই সঙ্গে আরও একবার তীরে এসে তরী ডুবাতে হল বাংলাদেশকে।

জয়টা হয়তো বাগিয়ে নিয়েই মাঠ ছাড়তে বাংলাদেশ। কিন্তু সেখানে বাধা দেন জেসন হোল্ডার।

ডোয়াইন ব্রাভোর ১৯তম ওভারের শেষ বলটি লং অনে উড়িয়ে মারেন লিটন দাস। নিশ্চিত ছয়ের সেই শট লাফিয়ে ধরে লিটনকে মাঠ ছাড়া করেন হোল্ডার। তার আগে লিটন খেলেন ৪৩ বলে ৪৪ রানের ফর্মে ফেরা ইনিংস।

বাংলাদেশকে জয়ের মুখ দেখানোর মিশনে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারে প্রথমবারের মতো ওপেন করেন সাকিব আল হাসান। নাঈম শেখকে সঙ্গী করে প্রথম চার ওভারে বিনা উইকেটে তোলেন ২০ রান।

দলীয় ২১ রানে সাকিব বিদায় নেয়ার পর ১৭ রান করে সাজঘরে ফেরেন নাঈম। এরপর সৌম্যকে সঙ্গে নিয়ে ইনিংস মেরামতের মিশনে নামেন লিটন দাস।

১৩ বলে ১৭ করে সৌম্য বিদায় নিলে মুশফিককে নিয়ে ইনিংস এগিয়ে নেয়ার চেষ্টা করেন লিটন। বেরসিকের মতো স্কুপ খেলতে গিয়ে স্টাম্প হারান মুশি।

তিন রানের হারে স্বপ্ন ভাঙল বাংলাদেশের
বাংলাদেশের হয়ে ইনিংস ওপেন করেন সাকিব। ছবি: এএফপি

এরপর রিয়াদকে সঙ্গে নিয়ে জুটি গড়েন লিটন। এই জুটিতে জয়ের বন্দরের কাছাকাছি চলে যায় বাংলাদেশ। ৪৪ করে লিটন যখন বিদায় নেন বাংলাদেশের তখন প্রয়োজন ৬ বলে ১৩ রান।

শেষতক আর জয় ছিনিয়ে আনা সম্ভব হয়নি বাংলাদেশের। উইন্ডিজ বোলারদের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে ৩ রানের হার নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয় রিয়াদ-আফিফদের।

এর আগে শারজায় টস হেরে ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকে উইন্ডিজ ব্যাটারদের চেপে ধরে টাইগার বোলাররা। বাংলাদেশি বোলারদের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে পাওয়ার প্লেতে দুই উইকেটের খরচায় ২৯ রান তোলে উইন্ডিজ।

দলীয় ১২ রানে ক্যারিবীয় শিবিরে প্রথম আঘাত হানেন মুস্তাফিজ। ৬ রান করা এভন লুইসকে ফেরান মুশফিকের তালুবন্দি করে। ম্যাচের পঞ্চম ওভারে ক্রিস গেইলকে ফেরান মাহেদী হাসান।

মাহেদীর দ্বিতীয় শিকার হয়ে ফেরেন শিমরিন হেটমায়ার। তবে দুর্ভাগা ছিলেন আন্দ্রে রাসেল।

ম্যাচের ১৩তম ওভারে তাসকিনের বলে নন-স্ট্রাইকে থেকে রানআউট হন রাসেল। রস্টন চেসের ড্রাইভ তাসকিনের পায়ে লেগে নন-স্ট্রাইকের স্টাম্প ভেঙে দিলে শূন্য রানে ফিরতে হয় তাকে।

এরপর নিকোলাস পুরান ও চেসের ব্যাটে ভর করে দলীয় সংগ্রহ ১০০ ছাড়ায় উইন্ডিজ। দলের হাল ধরে দুইজনে মিলে গড়েন ৫৭ রানের জুটি।

ব্যক্তিগত ৪০ রানে শরিফুলের বল উড়িয়ে মারতে গিয়ে নাঈম শেখের হাতে আটকা পড়েন নিকোলাস পুরান।

সঙ্গীর বিদায় মেনে নিতে না পেরে পরের বলে স্টাম্প হারিয়ে সাজঘরের পথ ধরেন চেস। তার ব্যাট থেকে আসে ৩৯ রান।

তিন রানের হারে স্বপ্ন ভাঙল বাংলাদেশের
সৌম্যর সঙ্গে উইকেট উদযাপন করছেন মাহেদী হাসান। ছবি: এএফপি

শেষদিকে জেসন হোল্ডারের ঝড়ো ৫ বলে ১৫ রানের ইনিংসে ৭ উইকেট হারিয়ে ১৪২ রানের পুঁজি নিয়ে মাঠ ছাড়ে উইন্ডিজ।

প্রথম ১৫ ওভারে তাসকিন-মুস্তাফিজদের বোলিং তোপের মুখে ১৫টি বাউন্ডারি হাঁকাতে পারে উইন্ডিজের ব্যাটাররা।

শেষ ৫ ওভারে পাশার দান উল্টে ফেলেন তারা। শেষ পাঁচ ওভারে হোল্ডার-পোলার্ডদের ব্যাট থেকে এসেছে ছয়টি ছক্কার মার।

বাংলাদেশের হয়ে দুটি করে উইকেট নেন তাসকিন, মুস্তাফিজ ও মাহেদী।

ম্যাচ সেরা হন নিকোলাস পুরান।

আরও পড়ুন:
চোট নিয়ে বোলিংয়ের পর, ব্যাট হাতে ওপেনিংয়ে সাকিব
সেমির আশা বাঁচিয়ে রাখতে বাংলাদেশের চাই ১৪৩
তিন রানের হতাশা
সৌম্য-তাসকিনকে নিয়ে ফিল্ডিংয়ে বাংলাদেশ
৫-৬ বল পেলেও কাজে লাগাতে চান সোহান

শেয়ার করুন

মন্তব্য

মিরাজের বলে ফিরলেন বাবর

মিরাজের বলে ফিরলেন বাবর

ছবি: বিসিবি

দিনের শুরুতে তাইজুলের জোড়া আঘাতের পর পাকিস্তান শিবিরে তৃতীয় আঘাত হানলেন মেহেদি মিরাজ। ১০ রান করে ফেরেন পাকিস্তান অধিনায়ক।

দিনের শুরুতে তাইজুলের জোড়া আঘাতের পর পাকিস্তান শিবিরে তৃতীয় আঘাত হানলেন মেহেদি মিরাজ। মিরাজের স্পিনে বেসামাল হয়ে স্টাম্প হারিয়ে বাবর আজমের সাজঘরে ফেরার মধ্য দিয়ে প্রথম সেশনে তৃতীয় উইকেট হারাল সফরকারীরা।

১০ রান করে আউট হন পাকিস্তানের অধিনায়ক।

বিনা উইকেটে ১৪৫ রান নিয়ে তৃতীয় দিন শুরু করে দিনের প্রথম ওভারে তাইজুলের শিকার হয়ে এক রান যোগ করতে সাজঘরে ফেরেন আসাদুল্লাহ শফিক ও আজহার আলিকে।

দিনের প্রথম ওভারের পঞ্চম বলে তাইজুলের প্রথম শিকার হয়ে ফেরেন শফিক। পরের বলে এলবিডব্লিউয়ের ফাঁদে পড়ে রানের খাতা খোলার আগে মাঠ ছাড়েন আজহার আলি।

এর আগে প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশের করা ৩৩০ রানের জবাবে শক্ত অবস্থানে থেকে দিন শেষ করে পাকিস্তান।

দুই পাকিস্তানি ওপেনার আবিদ আলি ও আবদুল্লাহ শফিকের সামনে পাত্তা পাননি বাংলাদেশের বোলাররা।

ধৈর্য্যের সঙ্গে উইকেটে টিকে থেকে অর্ধশতক হাকান আবিদ। এরপর ব্যাট ছোটান সেঞ্চুরির দিকে। সেঞ্চুরিটা পেয়ে যেতেন যদি না আলো স্বল্পতার কারণে ৬ ওভার আগে খেলা বন্ধ না হত।

সঙ্গী শফিকও কম যাননি। তিনিও তুলে নেন ক্যারিয়ারের প্রথম অর্ধশতক। এই দুই ব্যাটসম্যানের ব্যাটে ভর করে বিনা উইকেটে ১৪৫ রানের পুঁজি নিয়ে দিন শেষ করে পাকিস্তান।

বাংলাদেশি বোলারদের পরিসংখ্যানে বলার মতো কিছু ছিল না। অধিনায়ক মুমিনুল হকসহ বল করেছেন পাঁচজন বোলার। কেউই উইকেটের দেখা পাননি।

আরও পড়ুন:
চোট নিয়ে বোলিংয়ের পর, ব্যাট হাতে ওপেনিংয়ে সাকিব
সেমির আশা বাঁচিয়ে রাখতে বাংলাদেশের চাই ১৪৩
তিন রানের হতাশা
সৌম্য-তাসকিনকে নিয়ে ফিল্ডিংয়ে বাংলাদেশ
৫-৬ বল পেলেও কাজে লাগাতে চান সোহান

শেয়ার করুন

দিনের শুরুতে তাইজুলের জোড়া আঘাত

দিনের শুরুতে তাইজুলের জোড়া আঘাত

ফাইল ছবি

দিনের প্রথম ওভারের পঞ্চম বলে তাইজুলের প্রথম শিকার হয়ে ফেরেন শফিক। পরের বলে এলবিডব্লিউয়ের ফাঁদে পড়ে রানের খাতা খোলার আগে মাঠ ছাড়েন আজহার আলি।

বিনা উইকেটে ১৪৫ রান নিয়ে তৃতীয় দিন শুরু করে দিনের প্রথম ওভারে পাকিস্তানের দুই উইকেট তুলে নিয়েছেন স্পিনার তাইজুল ইসলাম। স্কোরবোর্ডে এক রান যোগ করতে সাজঘরে ফেরেন আসাদুল্লাহ শফিক ও আজহার আলিকে।

দিনের প্রথম ওভারের পঞ্চম বলে তাইজুলের প্রথম শিকার হয়ে ফেরেন শফিক। পরের বলে এলবিডব্লিউয়ের ফাঁদে পড়ে রানের খাতা খোলার আগেই মাঠ ছাড়েন আজহার আলি।

এর আগে প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশের করা ৩৩০ রানের জবাবে শক্ত অবস্থানে থেকে দিন শেষ করে পাকিস্তান।

দুই পাকিস্তানি ওপেনার আবিদ আলি ও আবদুল্লাহ শফিকের সামনে পাত্তা পাননি বাংলাদেশের বোলাররা।

ধৈর্য্যের সঙ্গে উইকেটে টিকে থেকে অর্ধশতক হাকান আবিদ। এরপর ব্যাট ছোটান সেঞ্চুরির দিকে। সেঞ্চুরিটা পেয়ে যেতেন যদি না আলো স্বল্পতার কারণে ৬ ওভার আগে খেলা বন্ধ না হত।

সঙ্গী শফিকও কম যাননি। তিনিও তুলে নেন ক্যারিয়ারের প্রথম অর্ধশতক। এই দুই ব্যাটসম্যানের ব্যাটে ভর করে বিনা উইকেটে ১৪৫ রানের পুঁজি নিয়ে দিন শেষ করে পাকিস্তান।

বাংলাদেশি বোলারদের পরিসংখ্যানে বলার মতো কিছু ছিল না। অধিনায়ক মুমিনুল হকসহ বল করেছেন পাঁচজন বোলার। কেউই উইকেটের দেখা পাননি।

আরও পড়ুন:
চোট নিয়ে বোলিংয়ের পর, ব্যাট হাতে ওপেনিংয়ে সাকিব
সেমির আশা বাঁচিয়ে রাখতে বাংলাদেশের চাই ১৪৩
তিন রানের হতাশা
সৌম্য-তাসকিনকে নিয়ে ফিল্ডিংয়ে বাংলাদেশ
৫-৬ বল পেলেও কাজে লাগাতে চান সোহান

শেয়ার করুন

নিজেদের বোলিংকে দুর্বল মনে করছেন না লিটন

নিজেদের বোলিংকে দুর্বল মনে করছেন না লিটন

দ্বিতীয় দিনের খেলা শেষে মাঠ ছাড়ছেন বাংলাদেশ দলের ক্রিকেটাররা। ছবি: বিসিবি

বোলিং দিয়ে পাকিস্তানের শিবিরে আঘাত করতে সক্ষম হননি জাতীয় দলের বোলাররা। তারপরও বোলিং লাইন আপকে দুর্বল ভাবছেন না জাতীয় দলের ব্যাটসম্যান লিটন দাস।

প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশের করা ৩৩০ রানের জবাবে ব্যাট করতে নেমে বিনা উইকেটে ১৪৫ রানের পুঁজি তুলে দিন শেষ করেছে পাকিস্তান। প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশের চেয়ে ১৮৫ রানে পিছিয়ে রয়েছে সফরকারীরা।

পাকিস্তানের দুই ওপেনারের কাছে পাত্তা পায়নি জাতীয় দলের কোনো বোলার। তাইজুল-রাহিদের নির্বিষ বোলিংয়ে অর্ধশতক তুলে নেন দুইজনই।

দিন শেষে ৯৩ রান নিয়ে উইকেটে রয়েছেন আবিদ আলি। তার সঙ্গী আবদুল্লাহ শফিক অপরাজিত রয়েছেন ৫২ রান নিয়ে।

বোলিং দিয়ে পাকিস্তানের শিবিরে আঘাত করতে সক্ষম হননি জাতীয় দলের বোলাররা। তারপরও বোলিং লাইন আপকে দুর্বল ভাবছেন না জাতীয় দলের ব্যাটসম্যান লিটন দাস।

দিনের খেলা শেষে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এমনটা জানান।

লিটন বলেন, ‘আমি মনে করি না (তারা দুর্বল)। ইবাদত, রাহি সবাই তো টেস্ট বোলার। এর আগেও তারা সবাই দলের জন্য ভালো করেছে। সাহায্য করেছে। তাহলে এমন কথা কেন।’

আপাতদৃষ্টিতে ম্যাচে বাংলাদেশ ব্যাকফুটে হলেও লিটন সেটি মানতে নারাজ। এখনও ম্যাচে দুই দলের সম্ভাবনা দেখছেন জাতীয় দলের এই ব্যাটসম্যান।

লিটন বলেন, ‘আপাতত পাকিস্তান ভালো অবস্থানে আছে। কারণ তারা কোন উইকেট হারায়নি। তাদের ১-২টা উইকেট তুলে নিলে মনে হতো খেলা দুই দিকেই আছে। আমরা কাল যদি দ্রুত উইকেট তুলে নিতে পারি তাহলে ম্যাচ অন্য রকম হবে।’

আরও পড়ুন:
চোট নিয়ে বোলিংয়ের পর, ব্যাট হাতে ওপেনিংয়ে সাকিব
সেমির আশা বাঁচিয়ে রাখতে বাংলাদেশের চাই ১৪৩
তিন রানের হতাশা
সৌম্য-তাসকিনকে নিয়ে ফিল্ডিংয়ে বাংলাদেশ
৫-৬ বল পেলেও কাজে লাগাতে চান সোহান

শেয়ার করুন

চট্টগ্রামে মুশফিকের তৃতীয় নার্ভাস নাইন্টিজ

চট্টগ্রামে মুশফিকের তৃতীয় নার্ভাস নাইন্টিজ

পাকিস্তানের বিপক্ষে উইকেটে মুশফিকুর রহিম। ছবি: এএফপি

সেঞ্চুরি থেকে মাত্র ৯ রান দূরত্বে ফাহিম আশরাফের বলে থামতে হয় মুশফিককে। আর তাতে টেস্টে চতুর্থবার ও সবমিলিয়ে আটবারের মতো নার্ভাস নাইন্টিতে সাজঘরে ফিরলেন জাতীয় দলের সাবেক এ অধিনায়ক।

নার্ভাস নাইন্টিজ। ব্যাটসম্যানদের জন্য আতঙ্কের অপর নাম। এই শব্দটার সঙ্গে যেন মুশফিকুর রহিমের রয়েছে বেশ গভীর এক সম্পর্ক। বাংলাদেশ জাতীয় দলের জার্সিতে সবচেয়ে বেশি নার্ভাস নাইন্টির শিকার এই ডানহাতি ব্যাটসম্যান।

পাকিস্তানের বিপক্ষে সিরিজের প্রথম টেস্টে মুশফিকের সামনে হাতছানি ছিল তামিম ইকবালকে টপকে টেস্ট ক্রিকেটে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক হিসেবে নিজের নাম লেখানোর।

কিন্তু বিধিবাম। সেটি টপকানো হয়ে উঠেনি মুশফিকের। সফলতার গল্প লেখতে লেখতে রচনা করলেন ব্যর্থতার কাব্য।

রেকর্ড মুশির হয়েছে ঠিকই। তবে সেটি ব্যর্থতার। সাকিবকে টপকে বাংলাদেশের হয়ে সর্বাধিকবার নার্ভাস নাইন্টিজে মাঠ ছাড়ার রেকর্ডের এখন মালিক মুশফিক।

এর আগে সব ফরম্যাট মিলিয়ে সাতবার নব্বইয়ের ঘরে থেকে সেঞ্চুরি বঞ্চিত হয়ে মাঠ ছাড়তে হয় বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানকে। শনিবার সিরিজের প্রথম টেস্টের দ্বিতীয় দিনে সাকিবকে টপকে সেই অনাকাঙ্ক্ষিত রেকর্ডের মালিক এখন মুশফিক।

সেঞ্চুরি থেকে মাত্র ৯ রান দূরত্বে ফাহিম আশরাফের বলে থামতে হয় মুশফিককে। আর তাতে টেস্টে চতুর্থবার ও সবমিলিয়ে আটবারের মতো নার্ভাস নাইন্টিতে সাজঘরে ফিরলেন জাতীয় দলের সাবেক এ অধিনায়ক।

যদিও মুশফিকের ফেরার বলটি নিয়ে আছে সংশয়। উইকেটরকিপারের হাতে ধরা পড়ার সময় বল ব্যাটে লেগেছিল কিনা দ্বিধা রয়েছে সেই বিষয়ে। একই সময় ব্যাট লেগেছে তার প্যাডে। আর সে কারণে দেখা দেয় সংশয়।

এই সাগরিকাতে ক্যারিয়ারের প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরির দেখা পেয়েছিলেন মুশফিক। এরপর থেকে চট্টলার এই মাঠকে আর নিজের করে নিতে পারেননি তিনি।

বারবার সাগরিকা হতাশার উপহার দিয়েছে মুশফিকুর রহিমকে। তার নার্ভাস নাইন্টিজের তিনটিই যে এ ভেন্যুতে।

আরও পড়ুন:
চোট নিয়ে বোলিংয়ের পর, ব্যাট হাতে ওপেনিংয়ে সাকিব
সেমির আশা বাঁচিয়ে রাখতে বাংলাদেশের চাই ১৪৩
তিন রানের হতাশা
সৌম্য-তাসকিনকে নিয়ে ফিল্ডিংয়ে বাংলাদেশ
৫-৬ বল পেলেও কাজে লাগাতে চান সোহান

শেয়ার করুন

আক্সার-আশউইনের স্পিনে ঘুরে দাঁড়াল ভারত

আক্সার-আশউইনের স্পিনে ঘুরে দাঁড়াল ভারত

ভারতের বিপক্ষে নিস্ফল আবেদনের পর নিউজিল্যান্ডের কাইল জেমিসন। ছবি: এএফপি

আক্সারের পাঁচ আর আশউইনের তিন উইকেটে নিউজিল্যান্ডকে ২৯৬ রানে থামাতে সমর্থ হয় ভারত। দ্বিতীয় ইনিংসে নেমে এক উইকেট হারিয়ে ১৪ রান করে দিনের সমাপ্তি ডেকেছেন অধিনায়ক আজিঙ্কা রাহানে।

দুই স্পিনার আক্সার প্যাটেল আর রভিচন্দ্রন আশউইনের স্পিন জাদুতে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ঘুরে দাঁড়িয়েছে ভারত। তৃতীয় দিনে ব্ল্যাক ক্যাপদের গুটিয়ে ৬৩ রানের লিড নিয়ে দিন শেষ করেছে স্বাগতিক দল।

আক্সারের পাঁচ আর আশউইনের তিন উইকেটে নিউজিল্যান্ডকে ২৯৬ রানে থামাতে সমর্থ হয় ভারত। দ্বিতীয় ইনিংসে নেমে এক উইকেট হারিয়ে ১৪ রান করে দিনের সমাপ্তি ডেকেছেন অধিনায়ক আজিঙ্কা রাহানে।

কানপুরে প্রথম ইনিংসে শ্রেয়াস আয়ারের সেঞ্চুরি ও শুভমান গিল ও জাডেজার ফিফটিতে ৩৪৫ রান তোলে ভারত। নিজেদের প্রথম ইনিংসে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুটা ভালো করলেও, ছন্দ ধরে রাখতে পারেনি নিউজিল্যান্ড।

টম লেইথাম আর উইল ইয়াংয়ের ১৫১ রানের জুটিতে দুর্দান্ত শুরু পায় ব্ল্যাক ক্যাপস। পাঁচ রানের আক্ষেপকে সঙ্গী করে ৯৫ রানে ক্রিজ ছাড়েন লেইথাম। আর ৮৯ রানে বিদায় নেন উইল ইয়াং।

তাদের বিদায়ের পর ধারাবাহিকভাবে উইকেট হারাতে থাকে উইলিয়ামসনের দল। সর্বোচ্চ ২৩ রানের ইনিংস আসে পেইস বোলিং অলরাউন্ডার কাইল জেমিসনের ব্যাট থেকে। অধিনায়ক কেইন উইলিয়ামসনের ব্যাট থেকে আসে ১৮।

নিউজিল্যান্ড থামে ২৯৬ রানে। টানা পঞ্চম ইনিংসে পাঁচ উইকেট নিয়ে ভারতের হয়ে রেকর্ড গড়েন স্পিনার আক্সার প্যাটেল।

নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে নেমে ১৪ রানের মাথায় এক উইকেট হারিয়েছে ভারত। জেমিসনের বলে বোল্ড হয়ে ১ রান করে সাজঘরে ফেরেন ওপেনার শুভমান গিল। ৪ রানে মায়াঙ্ক আগারওয়াল আর ৯ রানে অপরাজিত থেকে দিন শেষ করেন চেতেশ্বর পুজারা।

আরও পড়ুন:
চোট নিয়ে বোলিংয়ের পর, ব্যাট হাতে ওপেনিংয়ে সাকিব
সেমির আশা বাঁচিয়ে রাখতে বাংলাদেশের চাই ১৪৩
তিন রানের হতাশা
সৌম্য-তাসকিনকে নিয়ে ফিল্ডিংয়ে বাংলাদেশ
৫-৬ বল পেলেও কাজে লাগাতে চান সোহান

শেয়ার করুন

আইসিসির চার্টার্ড বিমানে ফিরছেন নিগার-সালমারা

আইসিসির চার্টার্ড বিমানে ফিরছেন নিগার-সালমারা

হারারেতে টুর্নামেন্টের অবসরে হালকা মেজাজে বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দলের সদস্যরা। ছবি: বিসিবি

আইসিসি বিশেষ চার্টার্ড বিমানে অংশগ্রহণকারী দলের খেলোয়াড়দের দুবাই পর্যন্ত পৌঁছে দেবে। সেখান থেকে নিজস্ব বোর্ডের অধীনে দেশে ফিরবেন ক্রিকেটাররা। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) দুবাই থেকে নারী ক্রিকেট দলকে দেশে ফেরানোর ব্যবস্থা নিচ্ছে। 

করোনাভাইরাসের নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রনের সংক্রমণের শঙ্কায় বাতিল করা হয়েছে জিম্বাবুয়েতে চলমান নারী বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের বাকি ম্যাচগুলো। আইসিসি দলগুলোকে হারারে থেকে দেশে ফেরার ব্যবস্থা করে দিচ্ছে।

আইসিসি বিশেষ চার্টার্ড বিমানে অংশগ্রহণকারী দলের খেলোয়াড়দের দুবাই পর্যন্ত পৌঁছে দেবে। সেখান থেকে নিজস্ব বোর্ডের অধীনে দেশে ফিরবেন ক্রিকেটাররা।

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) দুবাই থেকে নারী ক্রিকেট দলকে দেশে ফেরানোর ব্যবস্থা গ্রহণ করছে। বিসিবি নারী ক্রিকেট উইংয়ের ইনচার্জ তৌহিদ মাহমুদ বিষয়টি নিউজবাংলাকে নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, ‘আইসিসির পরিকল্পনা রয়েছে চার্টার্ড বিমানে দলগুলোকে দুবাই নিয়ে যাবে। সেখান থেকে আমরা আমাদের দলকে দেশে ফিরিয়ে আনব। এখন পর্যন্ত এটাই পরিকল্পনা আমাদের।’

বাছাইপর্ব বাতিল হওয়ায় র‍্যাঙ্কিং অনুযায়ী সরাসরি মূল পর্বে সুযোগ পেয়েছে বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

২০২২ সালের মার্চে নারী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ হবে নিউজিল্যান্ডে। এরই মধ্যে কোয়ালিফাই করেছে নিউজিল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড, সাউথ আফ্রিকা ও ভারত। তাদের সঙ্গে যোগ দিচ্ছে বাংলাদেশ, ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও পাকিস্তান।

আইসিসি এক বিজ্ঞপ্তিতে শনিবার বিকেলে বাছাইপর্ব বাতিলের বিষয়টি নিশ্চিত করে। তারা জানান ওমিক্রন সংক্রমণের কারণে অনেক দেশ ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা দিচ্ছে। ফলে নারী ক্রিকেটারদের দেশে ফেরা নিয়ে শঙ্কায় আছে সংস্থাটি।

আইসিসি আরও জানায় বিশ্বকাপের মূল পর্বের মাত্র চার মাস বাকি থাকায় বাছাইপর্ব নতুন সূচিতে আয়োজন করা সম্ভব হচ্ছে না।

আফ্রিকার দেশ বতসোয়ানায় ১১ নভেম্বর প্রথম ‘বি.১.১.৫২৯’ ভ্যারিয়েন্টটি শনাক্ত হয়, যাকে এখন আনুষ্ঠানিকভাবে ‘ওমিক্রন’ বলছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। করোনার নতুন এই ধরনটি এরই মধ্যে সাউথ আফ্রিকাতেও শনাক্ত হয়েছে। দেশটির জোহানেসবার্গ ও প্রিটোরিয়াতে এই ভ্যারিয়েন্টে আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ১২০০।

সাউথ আফ্রিকা, নামিবিয়া, জিম্বাবুয়ে, বতসোয়ানা, লেসোথোর মতো দেশগুলোর নাগরিকের ওপর ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত দেশগুলো।

আরও পড়ুন:
চোট নিয়ে বোলিংয়ের পর, ব্যাট হাতে ওপেনিংয়ে সাকিব
সেমির আশা বাঁচিয়ে রাখতে বাংলাদেশের চাই ১৪৩
তিন রানের হতাশা
সৌম্য-তাসকিনকে নিয়ে ফিল্ডিংয়ে বাংলাদেশ
৫-৬ বল পেলেও কাজে লাগাতে চান সোহান

শেয়ার করুন

ওমিক্রনে বাতিল বাছাইপর্ব, বিশ্বকাপে বাংলাদেশ নারী দল

ওমিক্রনে বাতিল বাছাইপর্ব, বিশ্বকাপে বাংলাদেশ নারী দল

পাকিস্তানের বিপক্ষে জয়ের পর উচ্ছ্বসিত বাংলাদেশ নারী দলের সদস্যরা। ছবি: আইসিসি

২০২২ সালের মার্চে নারী বিশ্বকাপ হবে নিউজিল্যান্ডে। এরই মধ্যে কোয়ালিফাই করেছে নিউজিল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড, সাউথ আফ্রিকা ও ভারত। তাদের সঙ্গে যোগ দিচ্ছে বাংলাদেশ, ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও পাকিস্তান।

করোনাভাইরাসের নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রনের সংক্রমণের কারণে বাতিল করা হয়েছে জিম্বাবুয়েতে চলমান আইসিসি নারী ওয়ানডে বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব। র‍্যাঙ্কিং অনুযায়ী মূল পর্বে সুযোগ পেয়েছে বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

টুর্নামেন্টের বি-গ্রুপের পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে ছিল বাংলাদেশ। যুক্তরাষ্ট্র ও পাকিস্তানকে হারায় নিগার সুলতানার দল। হেরে যায় থাইল্যান্ডের কাছে।

তাতে সমস্যায় পড়তে হয়নি রুমানা-সালমাদের। আইসিসি র‍্যাঙ্কিংয়ে এগিয়ে থাকায় প্রথমবারের মতো ওয়ানডে বিশ্বকাপ খেলবে বাংলাদেশের নারী ক্রিকেট দল।

২০২২ সালের মার্চে নারী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ হবে নিউজিল্যান্ডে। এরই মধ্যে কোয়ালিফাই করেছে নিউজিল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড, সাউথ আফ্রিকা ও ভারত। তাদের সঙ্গে যোগ দিচ্ছে বাংলাদেশ, ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও পাকিস্তান।

আইসিসি এক বিজ্ঞপ্তিতে শনিবার বিকেলে বাছাইপর্ব বাতিলের বিষয়টি নিশ্চিত করে। বিশ্ব ক্রিকেটের অভিভাবক সংস্থার পক্ষ থেকে জানানো হয় বিশ্বকাপের মূল পর্বের মাত্র চার মাস বাকি থাকায় বাছাইপর্ব নতুন সূচিতে আয়োজন করা সম্ভব হচ্ছে না।

আইসিসির হেড অফ ইভেন্টস ক্রিস টেটলি এক বিবৃতিতে বলেন, ‘এই আসরের বাকি খেলাগুলো বাতিল করতে হচ্ছে দেখে আমরা অত্যন্ত দুঃখিত। তবে খুব সংক্ষিপ্ত সময়ে আফ্রিকার অনেকগুলো দেশের কাছ থেকে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা এসেছে। যে কারণে অংশগ্রহণকারী দেশগুলো দেশে ফিরতে না পারার একটা শঙ্কা ছিল।’

আফ্রিকার দেশ বতসোয়ানায় ১১ নভেম্বর প্রথম ‘বি.১.১.৫২৯’ ভ্যারিয়েন্টটি শনাক্ত হয়, যাকে এখন আনুষ্ঠানিকভাবে ‘ওমিক্রন’ বলছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। করোনার নতুন এই ধরনটি এরই মধ্যে সাউথ আফ্রিকাতেও শনাক্ত হয়েছে। দেশটির জোহানেসবার্গ ও প্রিটোরিয়াতে এই ভ্যারিয়েন্টে আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ১২০০।

সাউথ আফ্রিকা, নামিবিয়া, জিম্বাবুয়ে, বতসোয়ানা, লেসেথোর মতো দেশগুলোর নাগরিকের ওপর ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত দেশগুলো।

আরও পড়ুন:
চোট নিয়ে বোলিংয়ের পর, ব্যাট হাতে ওপেনিংয়ে সাকিব
সেমির আশা বাঁচিয়ে রাখতে বাংলাদেশের চাই ১৪৩
তিন রানের হতাশা
সৌম্য-তাসকিনকে নিয়ে ফিল্ডিংয়ে বাংলাদেশ
৫-৬ বল পেলেও কাজে লাগাতে চান সোহান

শেয়ার করুন