বার্সেলোনার কোচ কুমান বরখাস্ত

player
বার্সেলোনার কোচ কুমান বরখাস্ত

ডাচ এই কোচকে বরখাস্তের বিষয়ে বার্সেলোনা এক বিবৃতিতে বলেছে, ‘রায়ো ভায়োকানোর বিপক্ষে হারের পর ক্লাব প্রেসিডেন্ট হোয়ান লাপোর্তা এই সিদ্ধান্ত তাকে (কুমানকে) জানিয়েছেন। রোনাল্ড কুমান বৃহস্পতিবার দলকে বিদায় জানাবেন।’

বার্সেলোনার কোচ হিসেবে দায়িত্ব নেয়ার ১৪ মাস পর বরখাস্ত হলেন রোনাল্ড কুমান। রায়ো ভায়োকানোর কাছে হারার রাতে এই সিদ্ধান্তের কথা জানায় কাতালান ক্লাবটি।

কুমানের অধীনে মোটেও ভালো সময় যাচ্ছিল না বার্সেলোনার। চলতি লা লিগায় এখন পর্যন্ত ১০ ম্যাচ খেলে দলটির পয়েন্ট মাত্র ১৫। সেই সঙ্গে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের গ্রুপ পর্বে দুবার হেরেছে দলটি।

ভায়োকানোর মাঠে হারার পর লা লিগার পয়েন্ট টেবিলে নবম স্থানে নেমে এসেছে বার্সেলোনা। শীর্ষে থাকা রিয়াল মাদ্রিদের সঙ্গে তাদের পার্থক্য দাঁড়িয়েছে ৬ পয়েন্টের।

গত চার ম্যাচের মধ্যে তিনটিতেই হেরেছে বার্সেলোনা। গত রোববার আগের ম্যাচটিতে নিজেদের মাঠে ক্লাসিকো লড়াইয়ে রিয়াল মাদ্রিদের কাছে হারে কুমানের দল।

ডাচ এই কোচকে বরখাস্তের বিষয়ে বার্সেলোনা এক বিবৃতিতে বলেছে, ‘রায়ো ভায়োকানোর বিপক্ষে হারের পর ক্লাব প্রেসিডেন্ট হোয়ান লাপোর্তা এই সিদ্ধান্ত তাকে (কুমানকে) জানিয়েছেন। রোনাল্ড কুমান বৃহস্পতিবার দলকে বিদায় জানাবেন।’

বার্সেলোনায় নিজের সক্ষমতার প্রমাণ দিতে পারছিলেন না নেদারল্যান্ডস, এভারটন ও সাউদাম্পটনের সাবেক কোচ কুমান। তার অধীনে এখন পর্যন্ত বার্সেলোনার সর্বোচ্চ অর্জন গত মৌসুমে পয়েন্ট টেবিলের তৃতীয় স্থানে থেকে লা লিগা শেষ করা।

দায়িত্ব নেয়ার পর বার্সেলোনা থেকেও তেমন আর্থিক সমর্থনও পাচ্ছিলেন না ৫৮ বছর বয়সী কোচ কুমান। অর্থনৈতিক সংকটের কারণেই ক্লাবের সবচেয়ে বড় তারকা লিওনেল মেসিকে ধরে রাখা সম্ভব হয়নি তার। নু ক্যাম্পের সঙ্গে দীর্ঘদিনের সম্পর্ক ছিন্ন করে আর্জেন্টাইন এই তারকা নাম লেখান পিএসজিতে।

টাকার অভাবে গ্রীষ্মকালীন দল-বদলেও নতুন কাউকে দলে টানা সম্ভব হয়নি বার্সেলোনার। মেস্ফিস ডেপাই, সের্হিও আগুয়েরো ও এরিক গার্সিয়ার মতো যেসব খেলোয়াড় এসেছেন তারা ফ্রি ট্রান্সফারে। আর সেভিয়া থেকে ধারে বার্সেলোনায় নাম লেখিয়েছেন স্ট্রাইকার লুক ডে জং।

এসব কারণে নতুন মৌসুমের জন্য নির্ভরযোগ্য দল গঠন করতে পারেনি কাতালান ক্লাবটি। তাই দেখতে হচ্ছে একের পর এক ব্যর্থতা।

ভায়োকানোর মাঠে হারের পর বিষয়টি স্বীকার করেন কুমান। তিনি বলেন, ‘লিগে বার্সেলোনা ভালো অবস্থানে নেই। দলটি ভারসাম্য হারিয়েছে। কার্যকর খেলোয়াড়দের হারানোর ফল ফুটে উঠছে। সাম্প্রতিক বছরগুলোতে অন্যান্য ক্লাব প্রতি মৌসুমেই শক্তিশালী হয়েছে। আমরা এটা পারিনি, এ বিষয়টিও ফুটে উঠেছে।’

আরও পড়ুন:
বার্সায় আরও ছয় বছর ফাতি
চ্যাম্পিয়নস লিগে মেসিবিহীন বার্সার প্রথম জয়
পেদ্রিকে কিনতে বার্সাকে দিতে হবে ১ হাজার কোটি
বার্সেলোনায় আসা নিয়ে আফসোস নেই ডিপায়ের
‘বার্সেলোনার সমস্যা একটা না, অনেক’

শেয়ার করুন

মন্তব্য

ফেভারিট ঢাকার রানের পাহাড় টপকে গেল খুলনা

ঢাকার দেয়া ১৮৪ রানের পাহাড়সম লক্ষ্য ৫ উইকেট ও ৬ বল হাতে রেখেই টপকে যায় মুশফিক বাহিনী

ফেভারিট ঢাকার রানের পাহাড় টপকে গেল খুলনা

খুলনা দলপতি মুশফিকুর রহিম। ছবি: সংগৃহীত

ফ্লেচারের ২৩ বলে ৪৫ ও রনির ৪২ বলে ৬১ রানের ইনিংসে ভর করে জয়ের পথে একধাপ এগিয়ে যায় মুশফিকের দল। শেষদিকে থিসারা পেরেরার ১৮ বলে ৩৬ ও মাহেদি হাসানের ৫ বলে ১২ রানে জয়ের দ্বারপ্রান্তে পৌঁছে যায় খুলনা।

কাগজ কলমের হিসেবে এবারের বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) অষ্টম আসরে শক্তিশালী দল গড়েছিল মিনিস্টার ঢাকা। পঞ্চ পাণ্ডবের তিন পাণ্ডব তামিম ইকবাল, মাশরাফি বিন মোর্ত্তজা ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদকে দলে ভেড়ানোর পাশাপাশি তারা টেনেছিল রুবেল হোসেন, নাঈম শেখ, এবাদত হোসেনের মত ক্রিকেটারদের।

কিন্তু এতো শক্তিশালী দল নিয়েও খুলনার বিপক্ষে পেরে উঠতে পারলো না মাহমুদউল্লাহ রিয়াদরা। মুশফিকুর রহিমের খুলনাকে ১৮৪ রানের লক্ষ্য ছুড়ে দিলেও জয় নিয়ে মাঠ ছাড়া সম্ভব হয়নি ঢাকার। পাহাড়সম সেই লক্ষ্য ৫ উইকেট ও ৬ বল হাতে রেখেই টপকে যায় মুশফিক বাহিনী।

বড় লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে দলীয় ৮ রানে ওপেনার তানজিদ হাসানকে হারালেও আন্দ্রে ফ্লেচার ও রনি তালুকদারের ব্যাটে ভর করে লড়াইয়ে ফেরে খুলনা।

ফ্লেচারের ২৩ বলে ৪৫ ও রনির ৪২ বলে ৬১ রানের ইনিংসে ভর করে জয়ের পথে একধাপ এগিয়ে যায় মুশফিকের দল। শেষদিকে থিসারা পেরেরার ১৮ বলে ৩৬ ও মাহেদি হাসানের ৫ বলে ১২ রানে জয়ের দ্বারপ্রান্তে পৌঁছে যায় খুলনা।

এর আগে টসে হেরে ব্যাট করতে নেমে দুই ওপেনার তামিম ইকবাল ও মোহাম্মদ শেহজাদের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে শক্ত ভিত গড়ে ঢাকা। উদ্বোধনী জুটি থেকেই আসে ৬৯ রান।

২৭ বলে ৪২ করা শেহজাদ রান-আউটের শিকার হলে ভাঙে সেই জুটি।

সঙ্গী বিদায় নিলেও উইকেট কামড়ে ধরে টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ারের ৪১তম হাফ সেঞ্চুরি তুলে নেন। খরচ করেন ৪১ বল। হাফ সেঞ্চুরি করে সেখানেই থেমে যান বাঁহাতি এই ওপেনার। কামরুল রাব্বির বলে নাভিন উল হকের হাতে ধরা দিয়ে সাজঘরে ফেরেন তিনি।

এরপর শেরেবাংলায় ঝড় তোলেন ঢাকা দলপতি মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। রাব্বির বলে তানজিদ হাসানের তালুবন্দি হয়ে মাঠ ছাড়ার আগে খেলেন ২০ বলে ৩৯ রানের ইনিংস।

এই তিন ব্যাটসম্যানের দুর্দান্ত ইনিংসে ভর করে নির্ধারিত ২০ ওভারে ১৮৩ রানের পুঁজি নিয়ে মাঠ ছাড়ে ঢাকা।

খুলনার হয়ে তিনটি উইকেট নেন কামরুল রাব্বি। আর একটি উইকেট যায় থিসারা পেরেরার ঝুলিতে।

আরও পড়ুন:
বার্সায় আরও ছয় বছর ফাতি
চ্যাম্পিয়নস লিগে মেসিবিহীন বার্সার প্রথম জয়
পেদ্রিকে কিনতে বার্সাকে দিতে হবে ১ হাজার কোটি
বার্সেলোনায় আসা নিয়ে আফসোস নেই ডিপায়ের
‘বার্সেলোনার সমস্যা একটা না, অনেক’

শেয়ার করুন

ভারতকে উড়িয়ে সিরিজ প্রোটিয়াদের

ভারতকে উড়িয়ে সিরিজ প্রোটিয়াদের

ভিরাট কোহলিকে আউট করার পর সাউথ আফ্রিকা দলের উচ্ছ্বাস। ছবি: এএফপি

দ্বিতীয় ওয়ানডে ৭ উইকেটে জিতে এক ম্যাচ বাকি রেখে ২-০ ব্যবধানে সিরিজ নিজেদের করে নিয়েছে সাউথ আফ্রিকা। জয়ের জন্য ভারতের দেয়া ২৮৮ রানের লক্ষ্য স্বাগতিক দল অনায়াসে ১১ বল ও ৭ উইকেট অক্ষত রেখে টপকে যায়।

ভারতের বিপক্ষে তিন ম্যাচ সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডে ৭ উইকেটে জিতে এক ম্যাচ বাকি রেখে ২-০ ব্যবধানে সিরিজ নিজেদের করে নিয়েছে সাউথ আফ্রিকা। জয়ের জন্য ভারতের দেয়া ২৮৮ রানের লক্ষ্য স্বাগতিক দল অনায়াসে ১১ বল ও ৭ উইকেট অক্ষত রেখে টপকে যায়।

পার্লে আগে ব্যাট করে ভারত সংগ্রহ করে ৬ উইকেটে ২৮৭ রান।

কেএল রাহুল টস জিতে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালো হয় ভারতের। রাহুল ও শিখর ধাওয়ান গড়েন ৬৩ রানের উদ্বোধনী জুটি। এইডেন মারক্রামের বলে ধাওয়ান ২৯ রান করে বিদায় নিলে ভাঙ্গে জুটি।

পরের ওভারে কেশভ মহারাজের বলে শূন্য রানে ভিরাট কোহলি বিদায় নিলে চাপে পড়ে ভারত। সেখান থেকে দলকে উদ্ধার করেন রাহুল ও রিশাভ পান্ট।

তৃতীয় উইকেটে ১১৫ রান যোগ করেন দুই ব্যাটার। ৫৫ রান করে সিসান্দা মাগালার বলে বিদায় নেন রাহুল।

পান্ট ৮৫ রান করে আউট হন তাবরেইজ শামসির বলে। শ্রেয়াস আইয়ারকেও ১১ রানে ফেরান এই স্পিনার।

টেইল এন্ডে শারদুল ঠাকুর ও রভিচন্দ্রন আশউইনের ব্যাটে আড়াই শ ছাড়ায় ভারতের সংগ্রহ।

৩৮ বলে ৪০ রানে অপরাজিত থাকেন ঠাকুর। আর আশউইনের ব্যাট থেকে আসে ২৪ বলে ২৫।

প্রোটিয়াদের পক্ষে শামসি ২টি ও মাগালা, মারক্রাম, মহারাজ ও আন্দিলে ফেলুকোয়েও ১টি করে উইকেট নেন।

জয়ের টার্গেটে নেমে উদ্বোধনী জুটি কাজ সহজ করে দেয় আফ্রিকানদের। ইয়ানেমান মালান ও কুইন্টন ডি কক ২২ ওভারে ১৩২ রানের জুটি গড়েন।

২২তম ওভারের শেষ বলে ৭৮ রান করে আউট হন ডি কক। কিছুক্ষণ পর ৯১ রানে ফেরেন সেঞ্চুরির আশায় থাকা মালান। তবে ততক্ষণে ম্যাচ ভারতের নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গেছে।

স্বাগতিক দলের হয়ে বাকি কাজটুকু শেষ করেন অধিনায়ক টেম্বা বাভুমা, এইডেন মারক্রাম ও রাসি ফন ডার ডুসেন।

মারক্রাম ও ডার ডুসেন ৩৭ রান করে অপরাজিত থাকেন আর বাভুমার ব্যাট থেকে আসে ৩৫। ১১ বল আগে জয় পেয়ে যায় সাউথ আফ্রিকা।

রোববার সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডে।

আরও পড়ুন:
বার্সায় আরও ছয় বছর ফাতি
চ্যাম্পিয়নস লিগে মেসিবিহীন বার্সার প্রথম জয়
পেদ্রিকে কিনতে বার্সাকে দিতে হবে ১ হাজার কোটি
বার্সেলোনায় আসা নিয়ে আফসোস নেই ডিপায়ের
‘বার্সেলোনার সমস্যা একটা না, অনেক’

শেয়ার করুন

বিপিএলের প্রথম ফিফটি তামিমের

তামিমের ৪২ বলে ৫০ রানের ইনিংসে ছিল ৭টি বাউন্ডারি

বিপিএলের প্রথম ফিফটি তামিমের

খুলনার বিপক্ষে তামিমের স্লগ সুইপ। ছবি: বিপিএল

বিপিএলের উদ্বোধনী দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে খুলনা টাইগার্সের বিপক্ষে দুর্দান্ত এক হাফ সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছেন দেশসেরা এই ওপেনার।

লম্বা সময় ধরে হাসছিল না তামিম ইকবালের ব্যাট। ইনজুরির কারণে টি-টোয়েন্টি খেলা হয়নি দীর্ঘদিন। মাঝে নেপালের এভারেস্ট প্রিমিয়ার লিগেও (ইপিএল) রান পাননি তেমন একটা।

আর সে কারণে তামিম-ভক্তদের মনে চাওয়া ছিল বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) অষ্টম আসরের মধ্য দিয়ে রানের ধারায় ফিরবেন তামিম।

ভক্তদের আবদারটা রাখলেন তামিম। বিপিএলের উদ্বোধনী দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে খুলনা টাইগার্সের বিপক্ষে দুর্দান্ত এক হাফ সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছেন দেশসেরা এই ওপেনার। তার অর্ধশতকে ভর করে মুশফিকের দলকে চ্যালেঞ্জিং স্কোরের হাতছানি দিচ্ছে ঢাকা।

খুলনার বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে দলকে দারুণ শুরু এনে দেন ঢাকার দুই ওপেনার তামিম ইকবাল ও মোহাম্মদ শেহজাদ।

ত্রয়োদশ ওভারের পঞ্চম বলটি লং অনে ঠেলে দিয়ে একবার জায়গা পরিবর্তন করেন তামিম। আর তাতে তুলে নেন বিপিএলের চলতি আসরের প্রথম ফিফটি।

দুর্দান্ত এই ফিফটি করেন তামিম ৪২ বল খেলে। তার ইনিংসে ছিল সাতটি চারের মার। শর্টার ফরম্যাটের ক্যারিয়ারে এটি তার ৪১তম অর্ধশতক।

তবে নিজের ইনিংস এরপর বেশি দূর টেনে নিতে পারেননি তামিম। ৫০ করে তাকে থামতে হয় কামরুল রাব্বির শিকার হয়ে।

আরও পড়ুন:
বার্সায় আরও ছয় বছর ফাতি
চ্যাম্পিয়নস লিগে মেসিবিহীন বার্সার প্রথম জয়
পেদ্রিকে কিনতে বার্সাকে দিতে হবে ১ হাজার কোটি
বার্সেলোনায় আসা নিয়ে আফসোস নেই ডিপায়ের
‘বার্সেলোনার সমস্যা একটা না, অনেক’

শেয়ার করুন

ঘাম ঝরিয়ে চতুর্থ রাউন্ডে নাদাল

ঘাম ঝরিয়ে চতুর্থ রাউন্ডে নাদাল

তৃতীয় রাউন্ডের ম্যাচ জেতার পর উচ্ছ্বসিত রাফায়েল নাদাল। ছবি: এএফপি

কারেন কাচানভকে ৬-৩, ৬-২, ৩-৬ ও ৬-১ গেমে হারিয়ে চতুর্থ রাউন্ড নিশ্চিত করেন রাফায়েল নাদাল।

অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের চতুর্থ রাউন্ডে পৌঁছেছেন সাবেক চ্যাম্পিয়ন রাফায়েল নাদাল। তৃতীয় রাউন্ডে সহজ জয় পাননি ২০০৯ সালের চ্যাম্পিয়ন এ স্প্যানিশ গ্রেট।

ষষ্ঠ বাছাই নাদালকে ঘাম ঝরাতে হয়েছে রুশ প্রতিপক্ষ ও ২৮তম বাছাই কারেন কাচানভের বিপক্ষে। এক সেট হেরে ৩-১ সেটে ম্যাচ জিতে নেন নাদাল।

কাচানভের বিপক্ষে শুরুটা দারুণ করেন ২০ গ্র্যান্ড স্ল্যাম জয়ী এ তারকা। ৬-৩ গেমে সেট জিতে শুরু করেন নিজের তৃতীয় রাউন্ড।

দ্বিতীয় সেটেও রুশ প্রতিপক্ষকে পাত্তা দেননি নাদাল। ৬-২ গেমে সেট জিতে ২-০ ব্যবধানে লিড নিয়ে নেন।

তৃতীয় সেটে ঘুরে দাঁড়ান কাচানভ। ৬-৩ গেমে সেট জিতে ম্যাচে টিকে থাকেন ও নাদালকে চার সেট খেলতে বাধ্য করেন।

চতুর্থ সেটে অবশ্য নাদালের অভিজ্ঞতার সঙ্গে পেরে ওঠেননি কাচানভ। তাকে এক রকম উড়িয়ে নাদাল ম্যাচ জিতে নেন ৬-১ গেমে।

নাদালের মতো ঘাম ঝরাতে হয়নি টুর্নামেন্টের তৃতীয় বাছাই আলেক্সান্ডার এসফেরেফকে।

রোমানিয়ার রাদু আলবতকে সরাসরি ৬-৩, ৬-৪, ৬-৪ গেমে হারিয়ে চতুর্থ রাউন্ড নিশ্চিত করেন তিনি।

আরও পড়ুন:
বার্সায় আরও ছয় বছর ফাতি
চ্যাম্পিয়নস লিগে মেসিবিহীন বার্সার প্রথম জয়
পেদ্রিকে কিনতে বার্সাকে দিতে হবে ১ হাজার কোটি
বার্সেলোনায় আসা নিয়ে আফসোস নেই ডিপায়ের
‘বার্সেলোনার সমস্যা একটা না, অনেক’

শেয়ার করুন

জয় দিয়ে বিপিএল শুরু করল সাকিবের বরিশাল

জয় দিয়ে বিপিএল শুরু করল সাকিবের বরিশাল

চট্টগ্রামের উইকেট উদযাপনে ফরচুন বরিশাল। ছবি: বিপিএল

চট্টগ্রামের দেয়া ১২৬ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ৮ বল আগে ৪ উইকেটে জয় তুলে নেয় সাকিব আল হাসানের দল। দল হেরে গেলেও ম্যাচসেরা হয়েছেন চট্টগ্রামের অধিনায়ক মেহেদী মিরাজ।

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের উদ্বোধনী ম্যাচে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের বিপক্ষে ৪ উইকেটের জয় পেয়েছে ফরচুন বরিশাল। চট্টগ্রামের দেয়া ১২৬ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ৮ বল আগে ৪ উইকেটে জয় তুলে নেয় সাকিব আল হাসানের দল।

শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টসে জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন বরিশাল অধিনায়ক সাকিব। বল করতে নেমে শুরু থেকে তারুণ্য নির্ভর চট্টগ্রামকে চেপে ধরে বরিশালের বোলাররা।

ছক্কা দিয়ে ম্যাচ ও মৌশুম শুরু করা কেনার লুইস দুই বল পর নাঈম হাসানের শিকার হয়ে সাজঘরে ফেরেন। দুই অঙ্কের ঘরে পৌঁছানোর আগে ফেরেন আফিফ হোসেন, সাব্বির রহমান ও অধিনায়ক মেহেদী মিরাজ।

শামিম পাটোয়ারি ও নাঈম ইসলামকে ফিরিয়ে অল্পতে চট্টগ্রামকে আটকে দেয়ার শঙ্কা জাগান বরিশালের বোলাররা। কিন্তু উইকেট আগলে রাখেন বেনি হাওয়েল। অপরপ্রান্তে আসা যাওয়ার মিছিল চলতে থাকলেও টিকে থেকে দলকে এগিয়ে নেন তিনি।

তার ২০ বলে ৪১ রানের টর্নেডো ইনিংসে ভর করে ৮ উইকেটে ১২৫ রানের পুঁজি পায় সাগরিকার দলটি।

দলের হয়ে তিনটি উইকেটে নেন আলজারি জোসেফ। দুটি নেন নাঈম হাসান। আর একটি করে উইকেট শিকার করেন সাকিব আল হাসান, জেইক লিনটট ও ডোয়াইন ব্রাভো।

সাকিব এক উইকেট পেলেও ৪ ওভারে দেন মাত্র ৯ রান।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে বরিশাল শুরুতে হারায় তাদের ওপেনার নাঈম শেখকে। মেহেদী মিরাজের স্পিন ঘুর্ণিতে একে একে নাজেহাল হতে হয় সাকিব আল হাসান, তৌহিদ হৃদয় ও ইরফান শুক্কুরকে।

ম্যাচের পুরোটা সময় নিয়ন্ত্রণ নিজেদের কাছে রাখলেও ১৫ তম ওভারে মেহেদী মিরাজের তিন আঘাতে শঙ্কা জেগেছিল বরিশালের ম্যাচ হাতছাড়া হয়ে যাবার।

১৫তম ওভারের দ্বিতীয় বলে থিতু হয়ে বসা সৈকত আলিকে ৩৯ রানে থামিয়ে দেন মিরাজ। পরের বলে ফেরান ১৬ রান করা ইরফান শুক্কুরকে। আর সেই ওভারের শেষ বলে ফেরেন সালমান হোসেন।

তবে বিপদ ঘটতে দেননি ব্রাভো ও জিয়াউর রহমান। দলকে ৪ উইকেটের জয় এনে দেন ৮ বল বাকি থাকতে।

দল হেরে গেলেও ম্যাচসেরা হয়েছেন চট্টগ্রামের অধিনায়ক মেহেদী মিরাজ।

আরও পড়ুন:
বার্সায় আরও ছয় বছর ফাতি
চ্যাম্পিয়নস লিগে মেসিবিহীন বার্সার প্রথম জয়
পেদ্রিকে কিনতে বার্সাকে দিতে হবে ১ হাজার কোটি
বার্সেলোনায় আসা নিয়ে আফসোস নেই ডিপায়ের
‘বার্সেলোনার সমস্যা একটা না, অনেক’

শেয়ার করুন

অস্ট্রেলিয়ান ওপেন থেকে চ্যাম্পিয়ন ওসাকার বিদায়

অস্ট্রেলিয়ান ওপেন থেকে চ্যাম্পিয়ন ওসাকার বিদায়

অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের তৃতীয় রাউন্ডে প্রতিপক্ষ অ্যামান্ডা আমিনিসিমোভার বিপক্ষে রিটার্ন শট খেলছেন নেওমি ওসাকা। ছবি: এএফপি

তৃতীয় রাউন্ড থেকে বিদায় নিয়েছেন পঞ্চম বাছাই ওসাকা। যুক্তরাষ্ট্রের অ্যামান্ডা আনিসিমোভার কাছে ৪-৬, ৬-৩, ৭-৬ (১০-৫) গেমে ম্যাচ হেরে যান এ জাপানিজ তারকা।

বছরের প্রথম গ্র্যান্ড স্ল্যাম অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের তৃতীয় রাউন্ড থেকে বিদায় নিয়েছেন গত আসরের চ্যাম্পিয়ন নেওমি ওসাকা। তৃতীয় রাউন্ড থেকে বিদায় নিয়েছেন পঞ্চম বাছাই এ জাপানিজ তারকা।

তৃতীয় রাউন্ডে ওসাকার প্রতিপক্ষ ছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের অ্যামান্ডা আনিসিমোভা। দশম বাছাই আনিসিমোভার বিপক্ষে শুরুটা ভালোই করেন ওসাকা। সেট জিতে নেন ৬-৪ গেমে।

দ্বিতীয় সেটে কামব্যাক করেন আনিসিমোভা। ওসাকাকে চমকে দিয়ে ৬-৩ গেমে সেট জিতে সমতা ফেরান ম্যাচে।

তৃতীয় সেটে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হয়। খেলা গড়ায় টাইব্রেকে। ৭-৬ (১০-৫) গেমে সেট ও ম্যাচ জিতে এবারের আসরের সবচেয়ে বড় অঘটন উপহার দেন আনিসিমোভা।

ম্যাচ হেরে ওসাকা তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় জানান তার পক্ষে প্রতিটি টুর্নামেন্টের সব ম্যাচ জেতা সম্ভব নয়।

ওসাকা বলেন, ‘আমি ঈশ্বর নই। সব ম্যাচ জেতা সম্ভব না আমার পক্ষে। কোনো একটা টুর্নামেন্ট জেতা আসলেই দারুণ একটা বিষয়। কিন্তু বছরের শুরুতে আমি প্রতিবারই টুর্নামেন্ট জিতব- এমনটা ভাবাও ঠিক নয়।’

ওসাকা হেরে গেলেও সহজে ম্যাচ জিতে চতুর্থ রাউন্ডে পৌঁছেছেন অ্যাশলি বার্টি। ইতালির ৩০তম বাছাই ক্যামিলা জর্জিকে ৬-২, ৬-৩ গেমে হারান শীর্ষ বাছাই বার্টি।

আরও পড়ুন:
বার্সায় আরও ছয় বছর ফাতি
চ্যাম্পিয়নস লিগে মেসিবিহীন বার্সার প্রথম জয়
পেদ্রিকে কিনতে বার্সাকে দিতে হবে ১ হাজার কোটি
বার্সেলোনায় আসা নিয়ে আফসোস নেই ডিপায়ের
‘বার্সেলোনার সমস্যা একটা না, অনেক’

শেয়ার করুন

২০২২ বিশ্বকাপে ভারত-পাকিস্তানের গ্রুপে বাংলাদেশ

২০২২ বিশ্বকাপে ভারত-পাকিস্তানের গ্রুপে বাংলাদেশ

মাঠে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের খেলোয়াড়রা। ফাইল ছবি

আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ হিসেবে থাকছে ভারত, পাকিস্তান ও সাউথ আফ্রিকা।

চলতি বছর অস্ট্রেলিয়াতে বসতে যাচ্ছে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আসর। এই আসরে বাংলাদেশের সরাসরি খেলার খবর পুরোনো। বাকি ছিল কোন গ্রুপে খেলবে, সেই তথ্য।

অবশেষে জানানো হলো সেটিও। আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ হিসেবে থাকছে ভারত, পাকিস্তান ও সাউথ আফ্রিকা।

গ্রুপ ‘বি’তে বাংলাদেশের বাকি দুই প্রতিপক্ষ হিসেবে থাকছে বাছাইপর্বে গ্রুপ বির জয়ী দল ও গ্রুপ ‘এ’র রানার আপ দল।

অপরদিকে ‘এ’ গ্রুপে সরাসরি খেলার সুযোগ মিলছে ইংল্যান্ড, নিউজিল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া ও আফগানিস্তানের। এই গ্রুপের বাকি দুই দল হিসেবে থাকছে বাছাইপর্বের গ্রুপ ‘এ’ জয়ী দল ও গ্রুপ ‘বি’র রানার আপ দল।

টি-টোয়েন্টি র‍্যাঙ্কিংয়ে সেরা আটে থাকায় আসন্ন বিশ্বকাপ সরাসরি খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছে বাংলাদেশ।

আগামী অক্টোবরে অস্ট্রেলিয়াতে বসতে যাচ্ছে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের চলতি বছরের আসর। ২২ অক্টোবর থেকে শুরু হবে বিশ্ব ক্রিকেটের এই মহারণ। উদ্বোধনী দিনেই খেলবে তাসমানিয়া দ্বীপপুঞ্জের দুই দেশ নিউজিল্যান্ড ও স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়া।

এদিকে মূল পর্বের খেলা ২২ অক্টোবর শুরু হলেও বিশ্বকাপের আনুষ্ঠানিকতা শুরু হবে ১৬ অক্টোবর। শ্রীলঙ্কা, ওয়েস্ট ইন্ডিজ, স্কটল্যান্ড ও নামিবিয়ার সঙ্গে আঞ্চলিক কোয়ালিফাইং খেলে আসা আরও চারটি দল লড়বে মূল পর্বে জায়গা করে নিতে।

বাংলাদেশ তাদের প্রথম ম্যাচে ২৪ অক্টোবর লড়বে বাছাইপর্বে উতরে ওঠা গ্রুপ ‘এ’ রানার আপ দলের বিপক্ষে। ২৭ অক্টোবর দ্বিতীয় ম্যাচে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ সাউথ আফ্রিকা।

তৃতীয় ম্যাচে ৩০ অক্টোবর বাংলাদেশ লড়বে বাছাইপর্বের গ্রুপ ‘বি’ জয়ী দলের বিপক্ষে। এরপর নিজেদের সুপার টুয়েলভের শেষ দুই ম্যাচে ২ নভেম্বর ও ৬ নভেম্বর বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ হিসেবে খেলবে ভারত ও পাকিস্তান।

৯ ও ১০ নভেম্বর হবে সেমিফাইনালের ম্যাচ দুটি। আর ১৩ নভেম্বর ফাইনালের মধ্য দিয়ে পর্দা নামবে টুর্নামেন্টের।

আরও পড়ুন:
বার্সায় আরও ছয় বছর ফাতি
চ্যাম্পিয়নস লিগে মেসিবিহীন বার্সার প্রথম জয়
পেদ্রিকে কিনতে বার্সাকে দিতে হবে ১ হাজার কোটি
বার্সেলোনায় আসা নিয়ে আফসোস নেই ডিপায়ের
‘বার্সেলোনার সমস্যা একটা না, অনেক’

শেয়ার করুন