বিশ্বকাপে দ্বিতীয় ফিফটি নাঈমের

বিশ্বকাপে দ্বিতীয় ফিফটি নাঈমের

হাফ সেঞ্চুরির পথে শট খেলছেন নাঈম। ছবি: টুইটার

বিশ্বকাপের মূল পর্বে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ৪৪ বলে দুর্দান্ত এক অর্ধশতক হাঁকালেন নাঈম শেখ। ৫২ বলে ৬২ রান করে বিদায় নেন তিনি।

ওমানের বিপক্ষে বিশ্বকাপ অভিষেক হয় ওপেনার নাঈম শেখের। সেই ম্যাচে দলের বিপর্যয়ে হাল ধরে দুর্দান্ত হাফ সেঞ্চুরিতে তাক লাগিয়ে দেন তিনি।

পরের ম্যাচে পাপুয়া নিউগিনির বিপক্ষে রানের খাতা খোলার আগে বিদায় নেন এ বাঁহাতি।

এক ম্যাচ পর বিশ্বকাপের মূল পর্বে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ৪৪ বলে দুর্দান্ত এক অর্ধশতক হাঁকালেন নাঈম শেখ।

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে শুরু থেকে দেখেশুনে খেলেন দুই ওপেনার নাঈম ও লিটন দাস। ষষ্ঠ ওভারের পঞ্চম বলে ডাউন দ্য উইকেটে খেলে লাহুরু কুমারার তালুবন্দি হয়ে ফেরেন লিটন। তার আগে করেন ১৬ বলে ১৬।

এরপর সাকিব আল হাসানকে নিয়ে দলের গতি বাড়িয়ে দেন নাঈম। সপ্তম ওভারের তৃতীয় বলে বাংলাদেশ পূর্ণ করে অর্ধশতক। লঙ্কান শিবিরে তখন চলছিল ফিল্ডিং মিসের মহড়া।

অষ্টম ওভারের চতুর্থ বলে চামিকা কারুনারাত্নের বলে লেগ স্টাম্প হারিয়ে ১০ রান করে মাঠ ছাড়েন সাকিব।

ইনিংসের ১৪তম ওভারে মুশফিকের সঙ্গে ভুল বোঝাবুঝির শিকার হয়ে নিজের উইকেট হারাতে বসেছিলেন নাঈম। তবে লঙ্কান ফিল্ডারদের কল্যাণে সে যাত্রায় বেঁচে যান তিনি।

সে ওভারের চতুর্থ বলে চার হাঁকিয়ে ব্যক্তিগত অর্ধশতকের পাশাপাশি দলীয় স্কোর ১০০ পার করান নাঈম। চলতি বিশ্বকাপে এটি তার দ্বিতীয় ফিফটি। টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ারে চতুর্থ। ৫২ বলে ৬২ রান করে বিদায় নেন নাঈম।

আরও পড়ুন:
পাঁচ উইকেটের হারে মূল পর্ব শুরু বাংলাদেশের
শারজা জুজু কাটাতে টস হেরে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ
ক্রীড়ামোদীদের জেগে থাকার রাত
উইন্ডিজকে ধসিয়ে ইংল্যান্ডের মধুর প্রতিশোধ
টি-টোয়েন্টি মঞ্চে নিজেদের প্রমাণের সুযোগ বাংলাদেশের

শেয়ার করুন

মন্তব্য

দুই উইকেট নিয়ে মধ্যাহ্ন বিরতিতে বাংলাদেশ

দুই উইকেট নিয়ে মধ্যাহ্ন বিরতিতে বাংলাদেশ

আবিদ আলির উইকেট নেয়ার পর উচ্ছ্বসিত তাইজুল ইসলাম। ছবি: এএফপি

মধ্যাহ্ন বিরতিতে যাওয়ার আগে পাকিস্তানের সংগ্রহ দুই উইকেটের বিনিময়ে ৭৮ রান। ৬ রান নিয়ে উইকেটে রয়েছেন আজহার আলি। তার সঙ্গী বাবর আজম খেলছেন ৮ রানে।

সিরিজের শেষ টেস্টের শুরুর ঘণ্টা রাঙাতে না পারলেও সেশনের শেষটা স্বস্তির হয়েছে বাংলাদেশের। পাকিস্তানের দুই ওপেনারকে ফিরিয়ে মধ্যাহ্ন বিরতিতে গিয়েছে মুমিনুল বাহিনী।

মধ্যাহ্ন বিরতিতে যাওয়ার আগে পাকিস্তানের সংগ্রহ দুই উইকেটের বিনিময়ে ৭৮ রান। ৬ রান নিয়ে উইকেটে রয়েছেন আজহার আলি। তার সঙ্গী বাবর আজম খেলছেন ৮ রানে।

দুটি উইকেটই গিয়েছে তাইজুলের ঝুলিতে।

দিনের শুরুতে ব্যাট করতে নেমে দেখেশুনে খেলতে থাকে পাকিস্তান। শুরুতে বাংলাদেশি বোলাররা দুই ওপেনার আবিদ আলি ও আবদুল্লাহ শফিকের কাছে পাত্তা না পেলেও দ্বিতীয় ঘণ্টায় বদলে যায় দৃশ্যপট।

ব্যক্তিগত পঞ্চম ওভারে তাইজুলের শিকার বনে ২৫ রানে সাজঘরের পথ ধরতে হয় আবদুল্লাহ শফিককে। সাজঘরে ফেরার আগে আবিদ আলির সঙ্গে গড়েন ৫৯ রানের জুটি।

পাকিস্তান শিবিরে দ্বিতীয় আঘাতটিও হানেন তাইজুল। তাইজুলের স্পিন সামাল দিতে না পেরে ৩৯ রানে বোল্ড হয়ে ফেরেন এই ওপেনার।

সকালে টস জিতে মিরপুরের ফ্ল্যাট উইকেটে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন পাকিস্তানের অধিনায়ক বাবর আজম।

বাংলাদেশের হয়ে টেস্ট অভিষেক হয়েছে মাহমুদুল হাসান জয়ের। টাইগারদের ৯৯তম টেস্ট খেলোয়াড় হিসেবে ক্যাপ পেয়েছেন তিনি।

পাকিস্তান প্রথম টেস্টের একাদশে কোনো বদল আনেনি।

আরও পড়ুন:
পাঁচ উইকেটের হারে মূল পর্ব শুরু বাংলাদেশের
শারজা জুজু কাটাতে টস হেরে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ
ক্রীড়ামোদীদের জেগে থাকার রাত
উইন্ডিজকে ধসিয়ে ইংল্যান্ডের মধুর প্রতিশোধ
টি-টোয়েন্টি মঞ্চে নিজেদের প্রমাণের সুযোগ বাংলাদেশের

শেয়ার করুন

এবার বাংলাদেশের খেলোয়াড়ের নাম ভুল করল বিসিবি

এবার বাংলাদেশের খেলোয়াড়ের নাম ভুল করল বিসিবি

বিসিবির টিম শিটে খালেদ আহমেদের নাম ভুলে লেখা হয়েছে খালেদ হোসেইন। ছবি: নিউজবাংলা

সিরিজের শেষ টেস্ট শুরুর আগে জাতীয় দলের টিম পেইসার সৈয়দ খালিদ আহমেদের নাম লেখা হয় সৈয়দ খালিদ হোসেইন। সেই শিটে স্বাক্ষর ছিল অধিনায়ক মুমিনুল হক ও টিম ম্যানেজার নাফিস ইকবাল খানের।

পরাজয়ের বৃত্ত থেকে বের হতে পারছে না বাংলাদেশ জাতীয় দল। তাদের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে যেন ভুলের সাগরে হাবুডুবু খাচ্ছে দেশের ক্রিকেটের অভিভাবক সংস্থা বিসিবি।

পাকিস্তান সিরিজের শুরু থেকে একের পরেক ভুল করে চলেছে বিসিবি। একইসঙ্গে চোখে আঙ্গুল দিয়ে দেখিয়ে দিচ্ছে নিজেদের কাজে কতটা পেশাদারিত্ব মেনে চলছে তারা!

নিজ দেশের নামে ভুল, খেলা শুরুর সময়ে ভুলের পর এবারে বিসিবি ভুল করেছে ক্রিকেটারের নামে। বোর্ডের কল্যাণে বদলে গেছে খালেদ আহমেদের নাম।

সিরিজের শেষ টেস্ট শুরুর আগে জাতীয় দলের টিম পেইসার সৈয়দ খালিদ আহমেদের নাম লেখা হয় সৈয়দ খালিদ হোসেইন। সেই শিটে স্বাক্ষর ছিল অধিনায়ক মুমিনুল হক ও টিম ম্যানেজার নাফিস ইকবাল খানের।

এই ভুলের কারণ হতে পারে দুটি। এক, নিজের দলের ক্রিকেটারদের নাম জানা নেই বোর্ডের কর্মকর্তাদের। অথবা দায়সারাভাবে নিজেদের দায়িত্ব পালন করছেন তারা।

এর আগে চট্টগ্রামে সিরিজের প্রথম টেস্টের টিকিটে সকাল ১০টার পরিবর্তে খেলা শুরুর সময় দেয়া হয় রাত ১০টা।

সেখানে থেমে থাকেনি বসিবি। দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজের টেস্টে বাংলাদেশের টিম শিটের ছবিতে বাংলাদেশের ইংরেজি বানান ভুল করেছিল বিসিবি।

Bangladesh-এর পরিবর্তে সেখানে Bamgladesh লেখা হয়। সেখানেও স্বাক্ষর ছিল অধিনায়ক ও টিম ম্যানেজারের।

শুধু তাই নয়। সিরিজ শুরুর আগের দিন বিসিবির পক্ষ থেকে সংবাদকর্মীদের জন্য অ্যাক্রিডিটেশন কার্ড সরবরাহ করা হয়। সেখানে রিপোর্টারের ইংরেজি বানানেও ছিল ভুল। যদিও একদিন বাদেই সেটি পরিবর্তন করে নতুন কার্ড ইস্যু করা হয়।

আরও পড়ুন:
পাঁচ উইকেটের হারে মূল পর্ব শুরু বাংলাদেশের
শারজা জুজু কাটাতে টস হেরে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ
ক্রীড়ামোদীদের জেগে থাকার রাত
উইন্ডিজকে ধসিয়ে ইংল্যান্ডের মধুর প্রতিশোধ
টি-টোয়েন্টি মঞ্চে নিজেদের প্রমাণের সুযোগ বাংলাদেশের

শেয়ার করুন

দুই ওপেনারকে ফেরালেন তাইজুল

দুই ওপেনারকে ফেরালেন তাইজুল

আব্দুল্লাহ শফিকের উইকেট উদযাপন করছেন তাইজুল ইসলাম। ছবি: এএফপি

ব্যক্তিগত পঞ্চম ওভারে আবদুল্লাহ শফিককে ফিরিয়ে পরের ওভারে  ফিরিয়েছেন আবিদ আলিকে। সাজঘরে ফেরার আগে তার ব্যাট থেকে আসে ৩৯ রান।

পাকিস্তান লাইন আপে পরপর আঘাত হানলেন তাইজুল। ব্যক্তিগত পঞ্চম ওভারে আবদুল্লাহ শফিককে ফিরিয়ে পরের ওভারে ফিরিয়েছেন আবিদ আলিকে।

সাজঘরে ফেরার আগে তার ব্যাট থেকে আসে ৩৯ রান। পাকিস্তানের সংগ্রহ দুই উইকেটে ৭০।

প্রথম ঘণ্টা উইকেটশূন্য থাকার পর দ্বিতীয় ঘণ্টার শুরুতে উইকেট পেয়েছে বাংলাদেশ। তাইজুলের শিকার বনে ২৫ রানে সাজঘরের পথ ধরতে হয়েছে আবদুল্লাহ শফিককে।

আবিদ আলির সঙ্গে ৫৯ রানের জুটি গড়ে তাইজুলের বলে বোল্ড হন শফিক।

টস জিতে মিরপুরের ফ্ল্যাট উইকেটে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন পাকিস্তানের অধিনায়ক বাবর আজম।

চট্টগ্রামে দিনের প্রথমভাগে বোলাররা রাজত্ব করলেও শেরে বাংলায় এসে বদলে যায় দৃশ্যপট। প্রথম সেশনের প্রথম ঘণ্টায় পাকিস্তানি দুই ওপেনার আবিদ আলি ও আবদুল্লাহ শফিককে টলাতে পারেনি স্বাগতিক বোলাররা।

প্রথম ঘণ্টায় ১৫ ওভার ব্যাটিং করেছে সফরকারীরা। এই ১৫ ওভারে তারা হাঁকিয়েছে নয়টি বাউন্ডারি। এর ভেতর ছিল আটটি চার, একটি ছয়।

প্রথম ঘণ্টা শেষে পাকিস্তানের স্কোর ছিল বিনা উইকেটে ৫৪ রান।

আরও পড়ুন:
পাঁচ উইকেটের হারে মূল পর্ব শুরু বাংলাদেশের
শারজা জুজু কাটাতে টস হেরে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ
ক্রীড়ামোদীদের জেগে থাকার রাত
উইন্ডিজকে ধসিয়ে ইংল্যান্ডের মধুর প্রতিশোধ
টি-টোয়েন্টি মঞ্চে নিজেদের প্রমাণের সুযোগ বাংলাদেশের

শেয়ার করুন

উইকেটশূন্য প্রথম ঘণ্টার পর তাইজুলের আঘাত

উইকেটশূন্য প্রথম ঘণ্টার পর তাইজুলের আঘাত

উইকেট শিকারের পর উদযাপন করছেন তাইজুল ইসলাম। ছবি: এএফপি

তাইজুলের শিকার বনে ২৫ রানে সাজঘরের পথ ধরতে হয়েছে আবদুল্লাহ শফিককে। আবিদ আলির সঙ্গে ৫৯ রানের জুটি গড়ে তাইজুলের বলে বোল্ড হন শফিক।

প্রথম ঘণ্টা উইকেটশূন্য থাকার পর দ্বিতীয় ঘণ্টার শুরুতে উইকেট পেয়েছে বাংলাদেশ। তাইজুলের শিকার বনে ২৫ রানে সাজঘরের পথ ধরতে হয়েছে আবদুল্লাহ শফিককে।

আবিদ আলির সঙ্গে ৫৯ রানের জুটি গড়ে তাইজুলের বলে বোল্ড হন শফিক।

টস জিতে মিরপুরের ফ্ল্যাট উইকেটে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন পাকিস্তানের অধিনায়ক বাবর আজম।

চট্টগ্রামে দিনের প্রথমভাগে বোলাররা রাজত্ব করলেও শেরে বাংলায় এসে বদলে যায় দৃশ্যপট। প্রথম সেশনের প্রথম ঘণ্টায় পাকিস্তানি দুই ওপেনার আবিদ আলি ও আবদুল্লাহ শফিককে টলাতে পারেনি স্বাগতিক বোলাররা।

প্রথম ঘণ্টায় ১৫ ওভার ব্যাটিং করেছে সফরকারীরা। এই ১৫ ওভারে তারা হাঁকিয়েছে নয়টি বাউন্ডারি। এর ভেতর ছিল আটটি চার, একটি ছয়।

প্রথম ঘণ্টা শেষে পাকিস্তানের স্কোর ছিল বিনা উইকেটে ৫৪ রান।

আরও পড়ুন:
পাঁচ উইকেটের হারে মূল পর্ব শুরু বাংলাদেশের
শারজা জুজু কাটাতে টস হেরে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ
ক্রীড়ামোদীদের জেগে থাকার রাত
উইন্ডিজকে ধসিয়ে ইংল্যান্ডের মধুর প্রতিশোধ
টি-টোয়েন্টি মঞ্চে নিজেদের প্রমাণের সুযোগ বাংলাদেশের

শেয়ার করুন

প্রথম ঘণ্টায় উইকেটশূন্য টাইগাররা

প্রথম ঘণ্টায় উইকেটশূন্য টাইগাররা

উইকেটে দুই পাকিস্তানি ওপেনার আবিদ আলি ও আবদুল্লাহ শফিক। ছবি: এএফপি

প্রথম ঘণ্টা শেষে পাকিস্তানের স্কোর বিনা উইকেটে ৫৪ রান। ৩৩ রান নিয়ে উইকেটে রয়েছেন আবিদ আলি। তার সঙ্গে ২১ রান নিয়ে খেলছেন আবদুল্লাহ শফিক।

জয়ের ধারায় ফেরার মিশনে সিরিজের শেষ টেস্টের প্রথম ঘণ্টায় সফলতার মুখ দেখতে পায়নি বাংলাদেশ। পাকিস্তানের উদ্বোধনী জুটি ভাঙতে পারেননি সাকিব-তাইজুলরা।

প্রথম ঘণ্টা শেষে পাকিস্তানের স্কোর বিনা উইকেটে ৫৪ রান। ৩৩ রান নিয়ে উইকেটে রয়েছেন আবিদ আলি। তার সঙ্গে ২১ রান নিয়ে খেলছেন আবদুল্লাহ শফিক।

চট্টগ্রামে দিনের প্রথম ভাগে বোলাররা রাজত্ব করলেও শেরে বাংলায় এসে বদলে গেছে দৃশ্যপট। প্রথম সেশনের প্রথম ঘণ্টায় পাকিস্তানি দুই ওপেনার আবিদ আলি ও আবদুল্লাহ শফিককে টলাতে পারেননি স্বাগতিক বোলাররা।

প্রথম ঘণ্টায় ১৫ ওভার ব্যাটিং করেছে সফরকারীরা। এই ১৫ ওভারে তারা হাঁকিয়েছে ৯টি বাউন্ডারি। এর ভেতর ছিল আটটি চার, একটি ছয়।

টাইগারদের হয়ে বল করেছেন চার বোলার। এবাদত পাঁচ ওভার বোলিং করে দিয়েছেন ১৫ রান, খালেদের ৪ ওভারে ১৯ রান নিতে সক্ষম হয়েছেন পাকিস্তানি ব্যাটাররা।

ফেরার ম্যাচে সাকিব প্রথম ঘণ্টায় করেছেন ৩ ওভার। বিনিময়ে দিয়েছেন ৮ রান। আর তাইজুল ৩ ওভারে দিয়েছেন ১২ রান।

এর আগে শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টসে জিতে ব্যাট করতে নামে পাকিস্তান। সিরিজের প্রথম ম্যাচটিতে বাংলাদেশকে হারতে হয়েছিল আট উইকেটে।

আরও পড়ুন:
পাঁচ উইকেটের হারে মূল পর্ব শুরু বাংলাদেশের
শারজা জুজু কাটাতে টস হেরে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ
ক্রীড়ামোদীদের জেগে থাকার রাত
উইন্ডিজকে ধসিয়ে ইংল্যান্ডের মধুর প্রতিশোধ
টি-টোয়েন্টি মঞ্চে নিজেদের প্রমাণের সুযোগ বাংলাদেশের

শেয়ার করুন

ঢাকা টেস্টে ফিল্ডিংয়ে বাংলাদেশ, জয়ের অভিষেক

ঢাকা টেস্টে ফিল্ডিংয়ে বাংলাদেশ, জয়ের অভিষেক

টস করছেন দুই দলের অধিনায়ক। ফাইল ছবি

চট্টগ্রাম টেস্টের একাদশ থেকে ঢাকা টেস্টে তিনটি পরিবর্তন এনেছে টাইগাররা। একাদশে এসেছেন সাকিব আল হাসান, মাহমুদুল হাসান জয় ও খালেদ আহমেদ।

পরাজয়ের ধারাবাহিকতা থেকে বেরিয়ে আসতে পাকিস্তানের বিপক্ষে সিরিজের শেষ টেস্টে টস হেরে ফিল্ডিং করতে নামছে বাংলাদেশ। চট্টগ্রাম টেস্টের একাদশ থেকে ঢাকা টেস্টে তিনটি পরিবর্তন এনেছে টাইগাররা। একাদশে এসেছেন সাকিব আল হাসান, মাহমুদুল হাসান জয় ও খালেদ আহমেদ।

ম্যাচে অভিষেক হয়েছে টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান মাহমুদুল হাসান জয়ের। তিনি একাদশে খেলছেন টাইফয়েড আক্রান্ত সাইফ হাসানের বদলে।

হ্যামস্ট্রিং ইনজুরি কাটিয়ে দলে ফিরেছেন সাকিব আল হাসান। বিশ্বকাপের শেষ দুই ম্যাচের পর বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার ছিলেন না পাকিস্তানের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজেও। ফিটনেস ইস্যুতে সবুজ সংকেত পাননি প্রথম টেস্টেও।

সব শঙ্কা কাটিয়ে ঢাকা টেস্টে ফিরলেন দেশের ক্রিকেটের এই পোস্টারবয়। সাকিবকে জায়গা দিতে সরে দাঁড়াতে হয়েছে আগের টেস্টে অভিষেক হওয়া ইয়াসির রাব্বিকে।

সাকিব ফিরলেও পুরোপুরি ফিট না হওয়ায় ডাক পাননি পেইসার তাসকিন আহমেদ। দলের সঙ্গে অনুশীলন করলেও তাকে ছাড়াই একাদশ সাজিয়েছে টিম ম্যানেজমেন্ট।

এবাদত হোসেনের নতুন বলের সঙ্গীও বদল হয়েছে। আবু জায়েদের বদলে আড়াই বছর পর টেস্ট খেলতে নামছেন খালেদ আহমেদ।

দুই পরিবর্তন নিয়ে বাংলাদেশ মাঠে নামলেও অপরিবর্তিত স্কোয়াড নিয়ে মাঠে নামছে পাকিস্তান।

বাংলাদেশ একাদশ: সাদমান ইসলাম, মাহমুদুল হাসান জয়, নাজমুল হোসেন শান্ত, মুমিনুল হক (অধিনায়ক), মুশফিকুর রহিম, সাকিব আল হাসান, লিটন দাস, মেহেদি হাসান মিরাজ, তাইজুল ইসলাম, খালেদ আহমেদ ও এবাদত হোসেন।

পাকিস্তান একাদশ: আবিদ আলি, আব্দুল্লাহ শফিক, আজহার আলি, বাবর আজম (অধিনায়ক), মোহাম্মদ রিজওয়ান, ফাওয়াদ আলম, ফাহিম আশরাফ, হাসান আলি, সাজিদ খান, নুমান আলি ও শাহিন আফ্রিদি।

আরও পড়ুন:
পাঁচ উইকেটের হারে মূল পর্ব শুরু বাংলাদেশের
শারজা জুজু কাটাতে টস হেরে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ
ক্রীড়ামোদীদের জেগে থাকার রাত
উইন্ডিজকে ধসিয়ে ইংল্যান্ডের মধুর প্রতিশোধ
টি-টোয়েন্টি মঞ্চে নিজেদের প্রমাণের সুযোগ বাংলাদেশের

শেয়ার করুন

মায়াঙ্কের ব্যাটে বড় সংগ্রহের পথে ভারত

মায়াঙ্কের ব্যাটে বড় সংগ্রহের পথে ভারত

সেঞ্চুরির পর মায়াঙ্ক আগারওয়ালের উদযাপন। ছবি: এএফপি

প্রথম দিন শেষে ভারতের সংগ্রহ ৪ উইকেটে ২২১ রান। ১২০ রান করে উইকেটে রয়েছেন মায়াঙ্ক আগারওয়াল। ২৫ রান করা ঋদ্ধিমান সাহা তাকে সঙ্গ দিচ্ছেন।

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টে মায়াঙ্ক আগারওয়ালের ব্যাটিং নৈপুণ্যে প্রথম ইনিংসে বড় সংগ্রহের ইঙ্গিত দিচ্ছে ভারত। প্রথম দিন শেষে স্বাগতিকদের সংগ্রহ ৪ উইকেটে ২২১ রান।

১২০ রান করে উইকেটে রয়েছেন মায়াঙ্ক আগারওয়াল। ২৫ রান করা ঋদ্ধিমান সাহা তাকে সঙ্গ দিচ্ছেন।

মুম্বাইয়ের ওয়াংখেরে স্টেডিয়ামে টসে জিতে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা দুর্দান্ত হয় ভারতের। মায়াঙ্ক আগারওয়াল ও শুভমন গিলের উদ্বোধনী জুটিতে দলের স্কোরবোর্ডে যুক্ত হয় ৮০ রান।

৪৪ রানে শুভমন গিলের বিদায়ের পর বদলে যায় দৃশ্যপট। ৩০ তম ওভারের দ্বিতীয় বলে রানের খাতা খোলার আগে সাজঘরে ফিরতে হয় চেতেশ্বর পুজারাকে। ডাউন দ্য উইকেটে এসে আজাজ প্যাটেলকে মারতে গিয়ে বোল্ড হন পুজারা।

তিন বল পর একই হাল হয় ভিরাট কোহলির। প্যাটেলকে ডিফেন্স করতে গিয়ে এলবিডব্লিউয়ের ফাঁদে পড়ে আরও একবার রানের খাতা খোলার আগে মাঠ ছাড়তে হয় তাকে। রিভিউ নিয়েও শেষ রক্ষা হয়নি ভারতের অধিনায়কের।

দ্রুত তিন উইকেট পতনের পর বিপর্যয় এড়াতে এগিয়ে আসেন মায়াঙ্ক। সঙ্গে নেন শ্রেয়াস আইয়ারকে।

এই দুই জনের অবিচ্ছেদ্য ৮০ রানের জুটি ভাঙেন প্যাটেল। দলীয় ১৬০ রানে আইয়ারকে মাত্র ১৮ রানে টম ব্লান্ডলের তালুবন্দি করে ফেরান এই স্পিনার।

উইকেট আগলে রেখে রানের চাকা সচল রাখেন মায়াঙ্ক। তুলে নেন ক্যারিয়ারের তৃতীয় সেঞ্চুরি।

দিনের শেষভাগে আর উইকেট হারায়নি ভারত। শেষতক ২২১ রানের পুঁজি নিয়েই দিন শেষ করে স্বাগতিকরা।

ব্ল্যাক ক্যাপদের হয়ে ৪ উইকেট নেন এজাজ প্যাটেল।

আরও পড়ুন:
পাঁচ উইকেটের হারে মূল পর্ব শুরু বাংলাদেশের
শারজা জুজু কাটাতে টস হেরে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ
ক্রীড়ামোদীদের জেগে থাকার রাত
উইন্ডিজকে ধসিয়ে ইংল্যান্ডের মধুর প্রতিশোধ
টি-টোয়েন্টি মঞ্চে নিজেদের প্রমাণের সুযোগ বাংলাদেশের

শেয়ার করুন