আইসিসির আচমকা সিদ্ধান্তে বদলে যাচ্ছে বাংলাদেশের ভাগ্য

player
আইসিসির আচমকা সিদ্ধান্তে বদলে যাচ্ছে বাংলাদেশের ভাগ্য

উইকেট শিকারের পর বাংলাদেশের উদযাপন। ছবি: এএফপি

বাছাইপর্বের বি-গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন দল খেলবে মূলপর্বের বি-গ্রুপে। যেখানে ভারত, পাকিস্তান, নিউজিল্যান্ড ও আফগানিস্তান খেলছে। আর রানার্স আপ খেলবে মূলপর্বের এ-গ্রুপে। যেখানে আছে ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া, সাউথ আফ্রিকা ও ‍ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

বাছাইপর্বের খেলা যখন চলমান তখন চলমান টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের নিয়মে হঠাৎ পরিবর্তন আনল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)। এতে মূলপর্বে খেলার নিয়ম বদলে যাচ্ছে; বদলে যাচ্ছে বাংলাদেশের ভাগ্যও।

আইসিসি আগে জানিয়েছিল, বাছাইপর্বে গ্রুপ-বি থেকে চ্যাম্পিয়ন বা রানার্সআপ যেকোনো একটি হলে মূলপর্বে বাংলাদেশ খেলবে ভারত-পাকিস্তান গ্রুপে। আচমকা এই নিয়মে পরিবর্তন এনেছে আইসিসি।

পরিবর্তিত নিয়মে, গ্রুপের রানার্স আপ ও চ্যাম্পিয়ন দল আলাদা আলাদা গ্রুপে খেলবে।

বুধবার এক বিবৃতির মাধ্যমে আইসিসি জানায়, বাছাইপর্বের বি-গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন দল খেলবে মূলপর্বের বি-গ্রুপে। যেখানে ভারত, পাকিস্তান, নিউজিল্যান্ড ও আফগানিস্তান খেলছে। আর রানার্স আপ খেলবে মূলপর্বের এ-গ্রুপে। যেখানে আছে ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া, সাউথ আফ্রিকা ও ‍ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

নিয়ম বদলানোয় বদলাচ্ছে বাংলাদেশের ভাগ্যও। এখন চ্যাম্পিয়ন হলে বাংলাদেশ খেলবে ভারত-পাকিস্তানের বি-গ্রুপে। আর রানার্স আপ হলে ইংল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়ার এ-গ্রুপে।

ওমানকে হারিয়ে মূলপর্বের আশা জিইয়ে রেখেছে বাংলাদেশ। সুপার টুয়েলভে যেতে পিএনজিকেও হারাতে হবে টাইগারদের। শুধু হারালে চলবে না, তাকিয়ে থাকতে হবে গ্রুপের শেষ ম্যাচে ওমান-স্কটল্যান্ড লড়াইয়েও।

আরও পড়ুন:
জয়ের কৃতিত্ব মাহেদী ও সাইফউদ্দিনকে দিলেন সাকিব
আগের ম্যাচের কষ্ট ভুলে ম্যাচ সেরা সাকিব
অনেক নাটকের পর বাংলাদেশের স্বস্তির জয়
অভিষেকেই নাঈমের ফিফটি
সাকিব-নাঈমের ব্যাটে চ্যালেঞ্জিং স্কোর বাংলাদেশের

শেয়ার করুন

মন্তব্য

আইসিসির বর্ষসেরা দলে সাকিব, মুশফিক ও মুস্তাফিজ

আইসিসির বর্ষসেরা দলে সাকিব, মুশফিক ও মুস্তাফিজ

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ব্যাট করছেন মুশফিকুর রহিম ও সাকিব আল হাসান। ছবি: এএফপি

সর্বোচ্চ তিনজন জায়গা পেয়েছেন বাংলাদেশ থেকে। দুইজন করে আছেন পাকিস্তান, সাউথ আফ্রিকা, আয়ারল্যান্ড ও শ্রীলঙ্কা থেকে।

আইসিসির বর্ষসেরা ওয়ানডে দলে জায়গা করে নিয়েছেন তিন বাংলাদেশি ক্রিকেটার। সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম ও মুস্তাফিজুর রহমান।

বৃহস্পতিবার দুপুরে প্রকাশিত দলে সর্বোচ্চ তিনজন জায়গা পেয়েছেন বাংলাদেশ থেকে। দুইজন করে আছেন পাকিস্তান, সাউথ আফ্রিকা, আয়ারল্যান্ড ও শ্রীলঙ্কা থেকে।

দলের ওপেনিংয়ে আছেন আয়ারল্যান্ডের পল স্টার্লিং ও সাউথ আফ্রিকার ইয়ানেমান মালান। তিন ও চারে খেলবেন পাকিস্তানের দুই ওয়ানডে স্পেশালিস্ট ফখর জামান ও বাবর আজম।

বাবরকে এ বিশ্ব একাদশের অধিনায়কও নির্বাচিত করেছে আইসিসি। অধিনায়কের পর ব্যাট হাতে নামবেন সাউথ আফ্রিকার হার্ড হিটার রাসি ফন ডার ডুসেন।

এরপরই আছেন বিশ্বসেরা সাকিব আল হাসান ও মুশফিকুর রহিম। উইকেটকিপারের দায়িত্ব থাকবেন মুশফিক।

শ্রীলঙ্কার স্পিনার ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা আছেন দলের স্পিন আক্রমণে। তার সঙ্গে থাকছেন আয়ারল্যান্ডের অফব্রেক বোলার সিমি সিং।

পেইসার বোলিং জুটিতে রয়েছেন বাংলাদেশের মুস্তাফিজুর রহমান ও শ্রীলঙ্কার দুষ্মন্ত চামিরা।

একাদশে অস্ট্রেলিয়া, ভারত, ইংল্যান্ড, নিউজিল্যান্ড, ওয়েস্ট ইন্ডিজ, আফগানিস্তান ও জিম্বাবুয়ে থেকে কেউ সুযোগ পাননি।

বুধবার সেরা টি-টোয়েন্টির সেরা একাদশ প্রকাশ করে আইসিসি। সেখানে সুযোগ পান মুস্তাফিজুর রহমান।

আরও পড়ুন:
জয়ের কৃতিত্ব মাহেদী ও সাইফউদ্দিনকে দিলেন সাকিব
আগের ম্যাচের কষ্ট ভুলে ম্যাচ সেরা সাকিব
অনেক নাটকের পর বাংলাদেশের স্বস্তির জয়
অভিষেকেই নাঈমের ফিফটি
সাকিব-নাঈমের ব্যাটে চ্যালেঞ্জিং স্কোর বাংলাদেশের

শেয়ার করুন

অ্যাশেজ জিতে র‍্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষে অস্ট্রেলিয়া

অ্যাশেজ জিতে র‍্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষে অস্ট্রেলিয়া

অ্যাশেজ জয়ের পর উচ্ছ্বসিত অস্ট্রেলিয়া টেস্ট দল। ছবি: এএফপি

অস্ট্রেলিয়া শীর্ষে ওঠায় এক নম্বর জায়গাটি ছাড়তে হয়েছে ভারতকে। তিন নম্বরে নেমে গেছে তারা। বাংলাদেশের সঙ্গে সিরিজ ড্র করা নিউজিল্যান্ড দুইয়ে উঠে এসেছে।

অ্যাশেজ সিরিজে ইংল্যান্ডকে ৪-০ ব্যবধানে নাস্তানাবুদ করার সুফলটা হাতেনাতে পেয়েছে অস্ট্রেলিয়া। আইসিসির সবশেষ প্রকাশিত র‍্যাঙ্কিংয়ে এক নম্বরে উঠে এসেছে প্যাট কামিন্সের দল।

অস্ট্রেলিয়া শীর্ষে ওঠায় এক নম্বর জায়গাটি ছাড়তে হয়েছে ভারতকে। তিন নম্বরে নেমে গেছে তারা। বাংলাদেশের সঙ্গে সিরিজ ড্র করা নিউজিল্যান্ড দুইয়ে উঠে এসেছে।

অ্যাশেজ সিরিজ হাতছাড়া হওয়া ইংল্যান্ড আছে র‍্যাঙ্কিংয়ের চারে।

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে দুই ম্যাচ সিরিজের প্রথম টেস্ট জেতা বাংলাদেশ আছে নবম স্থানে। জিম্বাবুয়ে আছে দশে।

ভারতকে ২-১ ব্যবধানে সিরিজে হারানো সাউথ আফ্রিকা আছে পাঁচ নম্বরে। আর ছয়ে আছে পাকিস্তান।

সপ্তম ও অষ্টম স্থানে যথাক্রমে শ্রীলঙ্কা ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

আইসিসি ওয়ার্ল্ড টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের পয়েন্ট টেবিলের অবশ্য একেবারে বিপরীত।

অস্ট্রেলিয়াকে দুইয়ে পাঠিয়ে লঙ্কানরা সেখানে আছে শীর্ষে। ইংল্যান্ড আছে সবার শেষে।

বাংলাদেশের অবস্থান সপ্তম।

আরও পড়ুন:
জয়ের কৃতিত্ব মাহেদী ও সাইফউদ্দিনকে দিলেন সাকিব
আগের ম্যাচের কষ্ট ভুলে ম্যাচ সেরা সাকিব
অনেক নাটকের পর বাংলাদেশের স্বস্তির জয়
অভিষেকেই নাঈমের ফিফটি
সাকিব-নাঈমের ব্যাটে চ্যালেঞ্জিং স্কোর বাংলাদেশের

শেয়ার করুন

চট্টগ্রামের অধিনায়কের দায়িত্বে মিরাজ

চট্টগ্রামের অধিনায়কের দায়িত্বে মিরাজ

চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের জার্সি উন্মোচন অনুষ্ঠান। ফাইল ছবি

শুক্রবার থেকে মাঠে গড়াতে যাচ্ছে বিপিএলের অষ্টম আসর। আর বুধবার রাতে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স ঘোষণা করল তাদের অধিনায়কের নাম। বন্দরনগরীর দলটির নেতৃত্বভার তুলে দেয়া হয়েছে অলরাউন্ডার মেহেদী হাসান মিরাজের কাঁধে। তার মাথায় অধিনায়কের ক্যাপ পরিয়ে দিয়েছেন দলের কোচ পল নিক্সন।

দলে নেই তেমন কোনো তারকা ক্রিকেটার। আর সে কারণেই হয়তো অধিনায়ক নির্ধারণ করতে লম্বা সময় লেগে গেল চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের। টুর্নামেন্ট শুরুর একদিন আগে তারা জানাল, কার হাতে উঠতে যাচ্ছে দলের দায়িত্বভার।

শুক্রবার থেকে মাঠে গড়াতে যাচ্ছে বিপিএলের অষ্টম আসর। আর বুধবার রাতে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স ঘোষণা করল তাদের অধিনায়কের নাম। বন্দরনগরীর দলটির নেতৃত্বভার তুলে দেয়া হয়েছে অলরাউন্ডার মেহেদী হাসান মিরাজের কাঁধে। তার মাথায় অধিনায়কের ক্যাপ পরিয়ে দিয়েছেন দলের কোচ পল নিক্সন।

দায়িত্ব গ্রহণের পর নিজের প্রতিক্রিয়ায় চ্যালেঞ্জার্স অধিনায়ক মিরাজ বলেন, ‘আলহামদুলিল্লাহ, আমি এ বছর চট্টগ্রামের হয়ে প্রথম খেলছি। চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স আমাকে যে সম্মান দিয়েছে। নিজের সেরাটা দিয়ে তার প্রতিদান দিতে চেষ্টা করব।’

একই সঙ্গে অভিজ্ঞ ক্রিকেটারদের সাহায্যও চেয়েছেন মিরাজ, ‘আমাদের বেশ কিছু অভিজ্ঞ খেলোয়াড় আছে। তাদের কাছে আমি সহযোগিতা চাই। কারণ আপনাদের অনেক অভিজ্ঞতা আছে। যেহেতু আমি প্রথম চট্টগ্রামের অধিনায়কত্ব করছি। আপনারা সবাই সহযোগিতা করলে আমার কাজটা সহজ হয়ে যাবে।’

সমর্থকদের উদ্দেশ্যে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স অধিনায়ক বলেন, ‘সমর্থকদের উদ্দেশে বলতে চাই আপনারা সবসময় আমাদের সমর্থন দিয়েছেন। আপনাদের সবাইকে ধন্যবাদ। আশা করি, সামনের দিনগুলোতেও থাকবেন।’

আরও পড়ুন:
জয়ের কৃতিত্ব মাহেদী ও সাইফউদ্দিনকে দিলেন সাকিব
আগের ম্যাচের কষ্ট ভুলে ম্যাচ সেরা সাকিব
অনেক নাটকের পর বাংলাদেশের স্বস্তির জয়
অভিষেকেই নাঈমের ফিফটি
সাকিব-নাঈমের ব্যাটে চ্যালেঞ্জিং স্কোর বাংলাদেশের

শেয়ার করুন

বাভুমা-ডার ডুসেনের রেকর্ড জুটিতে হারল ভারত

বাভুমা-ডার ডুসেনের রেকর্ড জুটিতে হারল ভারত

বাভুমা ও ফন ডার ডুসেনের রেকর্ড জুটিতে জয় পায় সাউথ আফ্রিকা। ছবি: টুইটার

বাভুমা ও ফন ডার ডুসেনের সেঞ্চুরিতে ২৯৬ রান সংগ্রহ করে সাউথ আফ্রিকা। টার্গেটে নেমে দারুণ শুরুর পর বিপর্যয়ে পড়ে ২৬৫ রানে থেমে যায় ভারতের ইনিংস। ৩১ রানের জয় তুলে নেয় বাভুমারা।

পার্লের মাঠে প্রথম ওয়ানডেতে ভারতের বিপক্ষে চমৎকার দু’টি ইনিংস খেলেন সাউথ আফ্রিকার টেম্বা বাভুমা ও রাসি ফন ডার ডুসেন। গড়েন চতুর্থ উইকেটে সর্বোচ্চ ২০৪ রানের পার্টনারশিপের রেকর্ড। দুই ব্যাটারের দুই সেঞ্চুরির দিনে ভারতকে হারিয়েছে সাউথ আফ্রিকা।

এ জয়ে তিন ওয়ানডে সিরিজে লিড নিল প্রোটিয়ারা।

বাভুমা ও ফন ডার ডুসেনের সেঞ্চুরিতে ২৯৬ রান সংগ্রহ করে সাউথ আফ্রিকা। টার্গেটে নেমে দারুণ শুরুর পর বিপর্যয়ে পড়ে ২৬৫ রানে থেমে যায় ভারতের ইনিংস। ৩১ রানের জয় তুলে নেয় বাভুমারা।

টস জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়ে ৬৩ রানের মাথায় তিন উইকেট হারিয়ে অস্বস্তিতে পড়ে সাউথ আফ্রিকা। ২৭ রানে বিদায় নেন কুইন্টন ডি কক। ৬ রানে ইয়ানেমান মালান ও এইডেন মারক্রাম সাজঘরে ফেরেন ৪ রান করে।

এই অবস্থা থেকে দলকে শক্ত অবস্থানে নিয়ে যায় বাভুমা-ফন ডার ডুসেন জুটি। ২০৪ রানের পার্টনারশিপ উপহার দিয়েছে এ জুটি।

১৪৩ বলে ১১০ রান করে সাজঘরে ফেরেন বাভুমা। আর ৯৬ বলে ১২৯ রানের দুর্দান্ত অপরাজিত ইনিংস খেলেন ডুসেন। চার উইকেটে দল পৌঁছায় ২৯৬ রানে।

টার্গেটে নেমে লক্ষ্যের পথেই ছিল ভারত। শিখর ধাওয়ানের ৭৯ আর ভিরাট কোহলির ৫১ রানে ম্যাচে টিকে ছিল সফরকারিরা। তবে মাঝপথে ছন্দে পতন ঘটে তাদের।

কোহলি-ধাওয়ানের বিদায়ের পর থিতু হতে পারেননি রিশাভ পান্ট ও শ্রেয়াস আইয়ার। তারা ক্রিজ থেকে বিদায় নিলে ভারতের শেষ আশা শেষ হয়ে যায়।

টেইল এন্ডে বোলার শারদুল ঠাকুরের ৫০ রান হারের ব্যবধান কমিয়েছে ভারতের।

শেষ পর্যন্ত ৩১ রানের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে সাউথ আফ্রিকা। পরের ম্যাচে ঘুরে দাঁড়াতে চাইবে ভারত। আর সিরিজ বগলদাবা করতে চাইবে প্রোটিয়ারা। দ্বিতীয় ম্যাচটি মাঠে গড়াবে ২১ জানুয়ারি।

আরও পড়ুন:
জয়ের কৃতিত্ব মাহেদী ও সাইফউদ্দিনকে দিলেন সাকিব
আগের ম্যাচের কষ্ট ভুলে ম্যাচ সেরা সাকিব
অনেক নাটকের পর বাংলাদেশের স্বস্তির জয়
অভিষেকেই নাঈমের ফিফটি
সাকিব-নাঈমের ব্যাটে চ্যালেঞ্জিং স্কোর বাংলাদেশের

শেয়ার করুন

বাংলাদেশ ছেড়ে ইংলিশ ক্লাবের দায়িত্বে গিবসন

বাংলাদেশ ছেড়ে ইংলিশ ক্লাবের দায়িত্বে গিবসন

বাংলাদেশের বোলিং কোচ থাকাকালীন ওটিস গিবসন। ছবি: সংগৃহীত

তিন বছরের চুক্তিতে ইয়র্কশায়ারে যোগ দেবেন বাংলাদেশের সাবেক বোলিং কোচ ওটিস গিবসন। ফেব্রুয়ারির শেষ দিকে দলের সঙ্গে কাজ শুরু করবেন এ পেইস বোলিং কোচ। এর মধ্য দিয়ে বাংলাদেশের সঙ্গে চুক্তির সমাপ্তি ঘটল গিবসনের।

ইংল্যান্ডের কাউন্টি ক্লাব ইয়র্কশায়ারের প্রধান কোচের দায়িত্ব পেলেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের ওটিস গিবসন। তিন বছরের চুক্তিতে ইয়র্কশায়ারে যোগ দেবেন বাংলাদেশের সাবেক এ পেইস বোলিং কোচ। ফেব্রুয়ারির শেষ দিকে দলের সঙ্গে কাজ শুরু করবেন তিনি।

ইয়র্কশায়ার ক্রিকেটের অন্তবর্তীকালীন ব্যবস্থাপনা পরিচালক ড্যারেন গফের কাছে রিপোর্ট করবেন গিবসন। প্রথম দলের পারফরমেন্স এবং পরিচালনার জন্য দায়িত্ব পাবেন তিনি। শিগগিরই গিবসনের দু’জন সহকারী কোচও নিয়োগ করা হবে।

অভিজ্ঞতার ভাণ্ডার নিয়ে ইয়র্কশায়ারে যোগ দিচ্ছেন গিবসন। এর আগে ওয়েস্ট ইন্ডিজ, সাউথ আফ্রিকা, ইংল্যান্ড ও বাংলাদেশের বোলিং কোচ ছিলেন তিনি।

১৭ বছরের ক্রিকেট ক্যারিয়ারে দেশের হয়ে ২টি টেস্ট, ১৫টি ওয়ানডে খেলেছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের অলরাউন্ডার গিবসন। ২০১২ সালে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জয়ী ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলের দায়িত্বে ছিলেন তিনি। ইংল্যান্ডের দু’টি অ্যাশেজ জয়েও ভূমিকা ছিল তার। বিশ্বজুড়ে খেলোয়াড় তৈরিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালনও করেছেন গিবসন।

কাউন্টি ক্রিকেটেও দল পরিচালনার অভিজ্ঞতাও রয়েছে ৫২ বছর বয়সী গিবসনের। এর আগে লাল এবং সাদা বলে ডারহাম, গ্ল্যামারগন এবং লিসেস্টারশায়ারের প্রতিনিধিত্ব করেছেন তিনি। ২০০৭ সালে ডারহামের হয়ে হ্যাম্পশায়ারের বিপক্ষে এক ইনিংসে দশ উইকেট নিয়ে ইতিহাস তৈরি করেছিলেন গিবসন।

দুই বছরের চুক্তিতে ২০২০ সালের ২১ জানুয়ারি বাংলাদেশ দলে যোগ দেন গিবসন। গত দুই বছরে বাংলাদেশের পেসারদের তৈরিতে সহায়তা করেছেন তিনি। এ মাসে নিউজিল্যান্ডের মাটিতে বাংলাদেশ পেসারদের পারফরম্যান্স ছিল চোখে পড়ার মতো। পেসারদের নৈপুণ্যে প্রথমবারের মত নিউজিল্যান্ডের মাটিতে কিউইদের বধ করে টাইগাররা।

ইয়র্কশায়ের দায়িত্ব পেয়ে গিবসন বলেন, ‘আমি সত্যিই সম্মানিত ও উদ্বেলিত। ইংলিশ কাউন্টি ক্রিকেটে এটি অন্যতম সম্মানজনক ভূমিকা এবং প্রতিভাবান খেলোয়াড়দের নিয়ে ক্লাবকে এগিয়ে নিতে, আমি সত্যিই অধীর অপেক্ষায় আছি।’

আসন্ন পাকিস্তান সুপার লিগে (পিএসএল) মুলতান সুলতানদের সঙ্গে চুক্তি শেষ হলে কাউন্টিতে যোগ দিবেন গিবসন।

আরও পড়ুন:
জয়ের কৃতিত্ব মাহেদী ও সাইফউদ্দিনকে দিলেন সাকিব
আগের ম্যাচের কষ্ট ভুলে ম্যাচ সেরা সাকিব
অনেক নাটকের পর বাংলাদেশের স্বস্তির জয়
অভিষেকেই নাঈমের ফিফটি
সাকিব-নাঈমের ব্যাটে চ্যালেঞ্জিং স্কোর বাংলাদেশের

শেয়ার করুন

আইসিসির বর্ষসেরা টি-টোয়েন্টি দলে মুস্তাফিজ

আইসিসির বর্ষসেরা টি-টোয়েন্টি দলে 
মুস্তাফিজ

মুস্তাফিজুর রহমান। ছবি: সংগৃহীত

আইসিসি টি-টোয়েন্টি টিম অফ দ্য ইয়ার: জশ বাটলার, মোহাম্মদ রিজওয়ান (উইকেটকিপার), বাবর আজম (অধিনায়ক), এইডেন মারক্রাম, মিচেল মার্শ, ডেভিড মিলার, তাবরেইজ শামসি, জশ হেইজলউড, ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা, মুস্তাফিজুর রহমান ও শাহিন শাহ আফ্রিদি।

বাংলাদেশের একমাত্র ক্রিকেটার হিসেবে আইসিসির বর্ষসেরা টি-টোয়েন্টি দলে স্থান পেয়েছেন পেইসার মুস্তাফিজুর রহমান।

২০২১ সালে যেসব খেলোয়াড় ব্যাট, বল কিংবা অলরাউন্ড নৈপুণ্যে মুগ্ধ করেছেন তাদের মধ্যে সেরা ১১ জনকে নিয়ে গঠন করা হয়েছে ‘আইসিসি টিম অফ দ্য ইয়ার’।

মুস্তাফিজুরকে টিম অফ দ্য ইয়ারে স্থান পাওয়া প্রসঙ্গে আইসিসি লিখেছে, ‘বাংলাদেশের বাঁ-হাতি এই পেইসার ২০২১ সালের টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে তার বুদ্ধিমত্তা দিয়ে পেসের পরিবর্তন ও বৈচিত্র্য দেখিয়েছেন।

‘২০ ম্যাচ থেকে ১৭.৩৯ গড়ে ২৮ উইকেট নিয়ে তিনি সামনে থেকেই বোলিংয়ের নেতৃত্ব দিয়েছেন। মাত্র ৭.০০ ইকোনমি রেটে বল করে ব্যাটারদের কঠিন পরীক্ষাতেও ফেলেছেন তিনি।’

টি-টোয়েন্টি দলের অধিনায়ক করা হয়েছে পাকিস্তানের বাবর আজমকে। দলে তিনি সতীর্থ দুই ক্রিকেটার মোহাম্মদ রিজওয়ান ও শাহিন শাহ আফ্রিদিকে পেয়েছেন। এই বছরের টি-টোয়েন্টি দলে স্থান হয়নি ভারতীয় কোনো ক্রিকেটারের।

আইসিসি টি-টোয়েন্টি টিম অফ দ্য ইয়ার:

জশ বাটলার, মোহাম্মদ রিজওয়ান (উইকেটকিপার), বাবর আজম (অধিনায়ক), এইডেন মারক্রাম, মিচেল মার্শ, ডেভিড মিলার, তাবরেইজ শামসি, জশ হেইজলউড, ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা, মুস্তাফিজুর রহমান ও শাহিন শাহ আফ্রিদি।

আরও পড়ুন:
জয়ের কৃতিত্ব মাহেদী ও সাইফউদ্দিনকে দিলেন সাকিব
আগের ম্যাচের কষ্ট ভুলে ম্যাচ সেরা সাকিব
অনেক নাটকের পর বাংলাদেশের স্বস্তির জয়
অভিষেকেই নাঈমের ফিফটি
সাকিব-নাঈমের ব্যাটে চ্যালেঞ্জিং স্কোর বাংলাদেশের

শেয়ার করুন

কোয়ারেন্টিন জটিলতায় অস্ট্রেলিয়া যাচ্ছে না নিউজিল্যান্ড

কোয়ারেন্টিন জটিলতায় অস্ট্রেলিয়া যাচ্ছে না নিউজিল্যান্ড

ফাইল ছবি

চলতি মাসের ২৪ তারিখ থেকে তিন ওয়ানডে ও এক টি-টোয়েন্টি ম্যাচের সিরিজটি মাঠে গড়ানোর কথা ছিল। সিরিজ শেষ করে ৯ ফেব্রুয়ারি দেশে ফেরার কথা ছিল অস্ট্রেলিয়ার।

করোনা পরিস্থিতির ঊর্ধ্বগতির কারণে অস্ট্রেলিয়া সিরিজ বাতিল করেছে নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড (এনজেডসি)। নিউজিল্যান্ডের করোনা প্রটোকলের কড়াকড়ির কারণে সিরিজটি স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে এনজেডসি।

চলতি মাসের ২৪ তারিখ থেকে তিন ওয়ানডে ও এক টি-টোয়েন্টি ম্যাচের সিরিজটি মাঠে গড়ানোর কথা ছিল। সিরিজ শেষ করে ৯ ফেব্রুয়ারি দেশে ফেরার কথা ছিল অস্ট্রেলিয়ার।

দুই বোর্ডের পারস্পরিক সমঝোতার ভিত্তিতেই স্থগিত করা হয়েছে সিরিজটি। এমনটাই জানানো হয়েছে দুই বোর্ডের পক্ষ থেকে।

ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার প্রধান নির্বাহী নিক হকলি এক বিবৃতিতে বলেন, ‘আমরা খুবই হতাশ যে পূর্বনির্ধারিত ম্যাচটি স্থগিত রাখতে হচ্ছে। আমরা নিউজিল্যান্ড বোর্ডের সাথে বসে পুনরায় সিরিজ আয়োজন করার চেষ্টা করব।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমরা নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডকে ধন্যবাদ দিতে চাই, কেননা তারা সব সময় সিরিজ আয়োজনের পক্ষে ছিল। দেশে ফিরে দীর্ঘ সময় কোয়ারিন্টিনে থাকতে হবে বলেই এমন সিদ্ধান্ত নিতে হয়েছে তাদের। এটা সত্যি যে এই মুহূর্তে তাদের পক্ষে অস্ট্রেলিয়া সফর সম্ভব ছিল না।’

তবে নিউজিল্যান্ড সফরে না গেলেও ফেব্রুয়ারিতে শ্রীলঙ্কা সিরিজ নিয়ে পরিকল্পনা করছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া।

হকলি বলেন, ‘আমরা জানি, সমর্থকরা সিরিজটির অপেক্ষায় ছিল। কিন্তু বৈশ্বিক বিপর্যয়ের উপর আমাদের কারো নিয়ন্ত্রণ নেই। তবে বর্তমানে আমরা আগামী মাসে অনুষ্ঠিতব্য শ্রীলঙ্কা সিরিজ আয়োজন নিয়ে ভাবছি।’

নিউজিল্যান্ড বোর্ডের প্রধান নির্বাহী ডেভিড হোয়াইট বলেন, ‘আমরা সবাই জানি, করোনা ইস্যুতে আমাদের সরকার কতটা কঠোর। ১০ দিনের বাধ্যতামূলক আইসোলেশন এই মুহূর্তে অনেক কঠিন আমদের জন্য। আমরা আমাদের সরকারের কাছে অনুরোধ জানিয়েছিলাম। কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত সরকার আমাদের এই মুহূর্তে সফর না করার পরামর্শ দিয়েছে।’

আরও পড়ুন:
জয়ের কৃতিত্ব মাহেদী ও সাইফউদ্দিনকে দিলেন সাকিব
আগের ম্যাচের কষ্ট ভুলে ম্যাচ সেরা সাকিব
অনেক নাটকের পর বাংলাদেশের স্বস্তির জয়
অভিষেকেই নাঈমের ফিফটি
সাকিব-নাঈমের ব্যাটে চ্যালেঞ্জিং স্কোর বাংলাদেশের

শেয়ার করুন