খাদের কিনারায় দাঁড়িয়ে ওমানের বিপক্ষে নামছে বাংলাদেশ

player
খাদের কিনারায় দাঁড়িয়ে ওমানের বিপক্ষে নামছে বাংলাদেশ

অনুশীলনে বাংলাদেশের জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা। ছবি: সংগৃহীত

দুই দলের মুখোমুখি পরিসংখ্যান এগিয়ে রাখবে বাংলাদেশকে। এর আগে ২০১৬ সালে প্রথমবারের মতো ওমানের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি খেলে বাংলাদেশ। সেবার টাইগাররা মাঠ ছাড়ে ৫৪ রানের জয় নিয়ে।

স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে ৬ রানে হেরে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের মূল পর্বে জায়গা করে নেয়ার মিশনে শুরুতেই বড় এক হোঁচট খেয়েছে বাংলাদেশ। পরিসংখ্যানটা এমন হয়ে দাঁড়িয়েছে যে, বাকি দুই ম্যাচের একটিতে পা হড়কালেই খাদে পড়তে হবে বাংলাদেশকে। বিশ্বকাপে খেলার স্বপ্ন বাদ দিয়ে ফিরে আসতে হবে দেশে।

সে হিসেবে খাদের একেবারে কিনারে দাঁড়িয়ে রয়েছে লাল সবুজের প্রতিনিধিরা। এমন অবস্থায় মঙ্গলবার স্বাগতিক ওমানের বিপক্ষে মাঠে নামতে যাচ্ছে বাংলাদেশ। ওমানের এল এমিরেতস স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা ৮টায় শুরু হবে ম্যাচটি।

র‍্যাঙ্কিংয়ে বাংলাদেশের চেয়ে বেশ নিচে থাকলেও সাম্প্রতিক পারফরম্যান্স বিবেচনায় বাংলাদেশের চেয়ে কিছুটা সুবিধাজনক অবস্থানে রয়েছে ওমান। স্বাগতিকদের রয়েছে ১০ উইকেটে জয়লাভ করে বিশ্বকাপের মিশন শুরু করার আত্মবিশ্বাস। আর বাংলাদেশের রয়েছে হারের তিক্ত অভিজ্ঞতা।

দুই দলের মুখোমুখি পরিসংখ্যান এগিয়ে রাখবে বাংলাদেশকে। এর আগে ২০১৬ সালে প্রথমবারের মতো ওমানের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি খেলে বাংলাদেশ। সেবার টাইগাররা মাঠ ছাড়ে ৫৪ রানের জয় নিয়ে।

পাঁচ বছরে বদলে গেছে অনেক কিছু। র‍্যাঙ্কিংয়ে নিচে থাকলেও মান বেড়েছে ওমানের। ঘরের মাঠে বাংলাদেশের জন্য তাই চ্যালেঞ্জিং হয়ে উঠতে পারে তারা।

আগের ম্যাচে সফলতা পাওয়ায় বাংলাদেশের বিপক্ষে ম্যাচে অপরিবর্তিত স্কোয়াড নিয়ে নামার সম্ভাবনা রয়েছে ওমানের।

অপরদিকে বাংলাদেশ দলে আসতে পারে একটি পরিবর্তন। বাদ পড়তে পারেন ওপেনার সৌম্য সরকার। তার জায়গায় আসতে পারেন নাঈম শেখ।

স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচের ভুলগুলো শুধরে নিয়ে ওমানের বিপক্ষে জয় বাগিয়ে নিয়ে বিশ্বকাপের লড়াইয়ে টিকে থাকতে চান জাতীয় দলের অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ।

রিয়াদ বলেন, ‘ব্যাটিংটা আমাদের খুবই হতাশাজনক হয়েছে। এটা আসলেই চিন্তার বিষয়। আমাদের আমাদের দুর্বলতাগুলো নিয়ে আরও বেশি কাজ করতে হবে। চেষ্টা করতে হবে এসব ভুল যেন সামনের ম্যাচে আর না হয়।’

সম্ভাব্য একাদশ: নাঈম শেখ, লিটন দাস, সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ, আফিফ হোসেন, নুরুল হাসান, সাইফউদ্দিন, মাহেদী হাসান, তাসকিন আহমেদ, মুস্তাফিজুর রহমান।

আরও পড়ুন:
‘তামিম ছাড়া আরও একজন বিশ্বকাপ খেলতে চায়নি’
স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে হার মানতে পারছেন না পাপন
ক্যামফারের বিশ্বরেকর্ডে জিতল আয়ারল্যান্ড
হতাশ বাংলাদেশের হাতে সময় বেশি নেই

শেয়ার করুন

মন্তব্য

টানা হাফ সেঞ্চুরিতে মুশফিককে ছাড়ালেন তামিম

টানা হাফ সেঞ্চুরিতে মুশফিককে ছাড়ালেন তামিম

তামিমের স্লগ সুইপ। ছবি: বিপিএল

চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের বিপক্ষে ৪২ বলে হাঁকান তিনি এই অর্ধশতক। দুর্দান্ত এই অর্ধশতকে তার ছিল দুটি ছক্কা ও ছয়টি চারের মার।

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) অষ্টম আসরটিকে যেন টি-টোয়েন্টিতে নিজের ফেরার মঞ্চ বানিয়ে নিয়েছেন তামিম ইকবাল। যে ফরম্যাটে নির্বাচকদের মতে ‘বাতিল’ হিসেবে ধরা হচ্ছিল, সেই ফরম্যাটে হাঁকালেন টানা দ্বিতীয় হাফ সেঞ্চুরি।

বিপিএলে শনিবার দ্বিতীয় ম্যাচে দুর্দান্ত এক অর্ধশতক হাঁকিয়েছেন তামিম ইকবাল। সেই সঙ্গে ছাড়িয়ে গেছেন বিপিএলে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক মুশফিকুর রহিমকে।

চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের বিপক্ষে ৪২ বলে হাঁকান তিনি এই অর্ধশতক। দুর্দান্ত এই অর্ধশতকে তার ছিল দুটি ছক্কা ও ছয়টি চারের মার। বর্তমানে বিপিএলে তামিমের রান ২ হাজার ৩২৬। আর মুশফিকের ২ হাজার ২৮০।

টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ারে এটি বাঁহাতি এই ওপেনারের ৪২তম অর্ধশতক। এর আগে বিপিএলের উদ্বোধনী দিনেই খুলনা টাইগার্সের বিপক্ষে ৪১ বলে তামিম হাঁকিয়েছিলেন ক্যারিয়ারের ৪১তম হাফ সেঞ্চুরিটি।

শেরেবাংলায় ইনিংসের শুরু থেকেই মারকুটে ব্যাট করছিলেন দেশসেরা এই ওপেনার। মোহাম্মদ শাহজাদকে সঙ্গে নিয়ে রানের তুবড়ি ছুটিয়ে সচল রাখেন ঢাকার রানের চাকা।

শাহজাদ তাকে ছেড়ে গেলেও বিচলিত হননি তামিম। দৃঢ় হাতে চালিয়ে যান ব্যাট। ইনিংসের ১১তম ওভারের পঞ্চম বলটি থার্ড ম্যানে ঠেলে দিয়ে দুবার জায়গা পরিবর্তন করেন তামিম। আর তাতেই বাগিয়ে নেন টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ারের ৪২তম অর্ধশতক।

তবে প্রথম ম্যাচের মতো এবারও বেশি দূর টেনে নিতে পারেননি তামিম তার ইনিংস। ৫২ রানে শরিফুলের শিকার হয়ে সাজঘরে ফিরতে হয় বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যানকে।

আরও পড়ুন:
‘তামিম ছাড়া আরও একজন বিশ্বকাপ খেলতে চায়নি’
স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে হার মানতে পারছেন না পাপন
ক্যামফারের বিশ্বরেকর্ডে জিতল আয়ারল্যান্ড
হতাশ বাংলাদেশের হাতে সময় বেশি নেই

শেয়ার করুন

প্রথম জয়ের জন্য ঢাকার দরকার ১৬২

প্রথম জয়ের জন্য ঢাকার দরকার ১৬২

ব্যাট করছেন সাব্বির রহমান। ছবি: বিপিএল

নির্ধারিত ২০ ওভারে আট উইকেট হারিয়ে চট্টগ্রামের সংগ্রহ ১৬১ রান।

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) ক্যাচ মিসের ম্যাচে মিনিস্টার ঢাকাকে ১৬২ রানের লক্ষ্য দিয়েছে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স। নির্ধারিত ২০ ওভারে আট উইকেট হারিয়ে চট্টগ্রামের সংগ্রহ ১৬১ রান।

শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে দিনের প্রথম ম্যাচে যেখানে ব্যাটাররা খাবি খাচ্ছিলেন রান বের করতে, সেখানে দ্বিতীয় ম্যাচে উইকেটের ভোল বদলে দিলেন চট্টগ্রামের ব্যাটাররা।

টস হেরে ব্যাট করতে নেমে ৬ রানে তারা হারায় ওপেনার কেনার লুইসকে। ২ রান করে সাজঘরে ফিরে যেতে হয় এই ব্যাটসম্যানকে।

এরপর আফিফ হোসেনকে সঙ্গে নিয়ে রানের গতি বাড়িয়ে দেন উইল জ্যাকস। ১২ বলে ১২ করে আফিফ বিদায় নেয়ার পর স্কোরশিটে ২ রান যোগ করতে সাজঘরের পথ ধরেন ২৪ বলে ৪১ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলা উইল জ্যাক।

পরপর দুই সেট ব্যাটারের বিদায়ে খেই হারায়নি সাগরিকার দলটি। বরং প্রবল বিক্রমে লড়াই চালিয়ে যেতে থাকে সাব্বির রহমান ও মেহেদী হাসান মিরাজের ব্যাটে ভর করে।

দলীয় ১০০ রানে ২৫ করা মেহেদী বিদায় নিলেও উইকেট আগলে থাকেন সাব্বির। তাকেও ফিরতে হয় ২৮ রান করে। রুবেলের দুর্দান্ত এক স্লোয়ারে খেই হারানোর সঙ্গে সঙ্গে স্টাম্পটাও হারান তিনি।

শেষদিকে বেনি হাওয়েলের ১৯ বলে ৩৭ রানের টর্নেডো ইনিংসে ভর করে ১৬১ রানের পুঁজি নিয়ে মাঠ ছাড়ে চট্টগ্রাম।

ঢাকার হয়ে তিনটি উইকেট নেন রুবেল হোসেন। একটি করে উইকেট নেন আরাফাত সানি, ইসুরু উদানা, শুভাগত হোম ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।

আরও পড়ুন:
‘তামিম ছাড়া আরও একজন বিশ্বকাপ খেলতে চায়নি’
স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে হার মানতে পারছেন না পাপন
ক্যামফারের বিশ্বরেকর্ডে জিতল আয়ারল্যান্ড
হতাশ বাংলাদেশের হাতে সময় বেশি নেই

শেয়ার করুন

খারাপ ট্র‍্যাকে চাইলেও পরিকল্পনা করা যায় না

খারাপ ট্র‍্যাকে চাইলেও পরিকল্পনা করা যায় না

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানসের ক্রিকেটারদের একাংশ। ছবি: বিপিএল

শেরে বাংলায় কোনো পরিকল্পনা কাজ করে না সেটি অকপটে স্বীকার করলেন কুমিল্লা অধিনায়ক ইমরুল কায়েস।

শেরে বাংলায় রহস্যময় চিরচেনা উইকেটে সিলেট সানরাইজার্সের বিপক্ষে রীতিমত খাবি খেতে হয়েছিল কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানসের ব্যাটারদের। বিদেশিদের কথা বাদ দিয়ে দেশের ক্রিকেটারদের পারফরম্যান্সের দিকে তাকালে দেখা যায় ইনিংসের সর্বোচ্চ ১৬ রান এসেছে নাহিদুল ইসলামের ব্যাট থেকে।

চিরচেনা শেরে বাংলার এই উইকেটে এমন বিপর্যস্ত পারফরম্যান্সের কারণ হিসেবে স্বভাবতই আঙ্গুল ওঠে পরিকল্পনার অভাবের দিকে। উঠলোও সেটি।

তবে শেরে বাংলায় পরিকল্পনা কাজ করে না সেটি অকপটে স্বীকার করলেন কুমিল্লা অধিনায়ক ইমরুল কায়েস। ম্যাচ শেষে সংবাদসম্মেলনে এমনটাই জানান তিনি।

ইমরুল বলেন, ‘লো ট্র্যাকে আপনি চাইলেও পরিকল্পনা অনুযায়ী খেলতে পারবেন না। অনেক দেখেশুনে ব্যাট করা লাগে। বেশি দেখেশুনে খেলতে গিয়ে হয়তো ব্যাটসম্যান আউট হয়ে যায়, তখন একটা চাপ চলে আসে।’

দলের অবস্থা সবসময় এমন বিপর্যস্ত থাকবে না বলেও আশাবাদ ব্যক্ত করেন এই দলপতি। সেই সঙ্গে বড় স্কোরের ম্যাচে দৃশ্যপট বদলে যাবে বলেও জানান তিনি।

ইমরুল বলেন, ‘একটা দলের মাঝেমধ্যে এমন ম্যাচ কিন্তু হয়। প্রতিদিন কিন্তু হয় না। দল অনুযায়ী আমরা খুবই ভালো দল। প্রতিটা ব্যাটসম্যান তো প্রতিদিন এভাবে খেলবে না। কেউ না কেউ বড় ব্যাটসম্যান যারাই আছেন তারা বড় ইনিংস খেলবেন।’

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে নিজেদের প্রথম ম্যাচে সিলেটের দেয়া ৯৭ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে মোসাদ্দেকদের চোখ রাঙানি দেখেও ৮ বল ও দুই উইকেট হাতে রেখে জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানস।

আরও পড়ুন:
‘তামিম ছাড়া আরও একজন বিশ্বকাপ খেলতে চায়নি’
স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে হার মানতে পারছেন না পাপন
ক্যামফারের বিশ্বরেকর্ডে জিতল আয়ারল্যান্ড
হতাশ বাংলাদেশের হাতে সময় বেশি নেই

শেয়ার করুন

কুমিল্লাকে ভয় ধরিয়ে হারল সিলেট

কুমিল্লাকে ভয় ধরিয়ে হারল সিলেট

কুমিল্লার হয়ে উইকেটে ক্যামেরন ডেলপোর্ট ও ফাফ ডু প্লেসি। ছবি: বিপিএল

সিলেটের জোর লড়াইয়ের পর ৮ বল ও দুই উইকেট অক্ষত রেখে জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানস। স্কোর: সিলেট সানরাইজার্স ৯৬/২, কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানস ৯৭/৮।

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) তৃতীয় ম্যাচে জয়ের আশা জাগিয়েও হতাশ হতে হলো সিলেট সানরাইজার্সকে। সিলেটের চোখ রাঙানি দেখেও ৮ বল ও দুই উইকেট হাতে রেখে জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানস।

সিলেটের দেয়া সহজ লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে দলীয় ১৩ রানে সাজঘরে ফিরতে হয় তারকা ওপেনার ফাফ ডু প্লেসিকে। এরপর দলের স্কোরবোর্ডে ৫৫ রান তুলতে কুমিল্লা হারায় আরও চার উইকেট।

একে একে বিদায় নিতে হয় ক্যামেরন ডেলপোর্ট (১৬), মুমিনুল হক (১৫), ইমরুল কায়েস (২) ও আরিফুল হককে (৪)। এরপর কারিম জানাত কিছুটা প্রতিরোধ গড়ে তোলার চেষ্টা করলেও বেশি দূর নিয়ে যেতে পারেননি দলকে।

তাসকিনের শিকার হয়ে কারিম সাজঘরে ফেরার পর ফের ধস নামে কুমিল্লা শিবিরে। ৮৮ রানে আট উইকেট হারিয়ে শঙ্কা জাগায় পরাজয়ের।

তবে শেষ পর্যন্ত বিপদ হয়নি মাহিদুল ইসলাম অঙ্কন ও তানভীর ইসলামের কল্যাণে। হারতে বসা কুমিল্লাকে দুই উইকেটের জয় উপহার দিয়ে মাঠ ছাড়েন এই দুই টেইল এন্ডার।

সিলেটের হয়ে নাজমুল হাসান নেন তিনটি উইকেট। দুটি করে উইকেট নেন সোহাগ গাজি ও মোসাদ্দেক হোসেন। আর একটি উইকেট নেন তাসকিন আহমেদ।

এর আগে শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টসে জিতে সিলেটকে ব্যাটিংয়ে পাঠান কুমিল্লা দলপতি ইমরুল কায়েস। ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকেই প্রতিপক্ষকে চেপে ধরে ইমরুল বাহিনী।

দলীয় ৭ রানে শুরু সিলেটের ব্যাটিং-ধস। দলের ব্যাটসম্যানদের ভেতর সর্বোচ্চ ২০ রান আসে কলিন ইনগ্রামের ব্যাট থেকে। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান ১৯ রান আসে কুমিল্লার বোলারদের কল্যাণে।

এই অতিরিক্ত ১৯ রানের ভেতর ছিল ১৭টি ওয়াইড, একটি লেগ বাই ও একটি নো বল।

ব্যাটিং বিপর্যয়ের দিনে দলের হয়ে দুই অঙ্কের রান ছোঁয়া সম্ভব হয় রাভি বোপারা (১৭) ও সোহাগ গাজির (১২)। বাকিদের ফিরতে হয় এক অঙ্কের স্কোর নিয়েই।

নিয়মিত উইকেট পতন ও কুমিল্লার বোলারদের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে মাত্র ৯৬ রান তুলতে সক্ষম হয় সিলেট। আর কুমিল্লার সামনে দাঁড়ায় ৯৭ রানের সহজ লক্ষ্য।

কুমিল্লার হয়ে দুটি করে উইকেট নেন নাহিদুল ইসলাম, মুস্তাফিজুর রহমান ও শহিদুল ইসলাম। আর একটি করে উইকেট ঝুলিতে পুরেন তানভির ইসলাম, করিম জানাত ও মুমিনুল হক।

আরও পড়ুন:
‘তামিম ছাড়া আরও একজন বিশ্বকাপ খেলতে চায়নি’
স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে হার মানতে পারছেন না পাপন
ক্যামফারের বিশ্বরেকর্ডে জিতল আয়ারল্যান্ড
হতাশ বাংলাদেশের হাতে সময় বেশি নেই

শেয়ার করুন

তরুণদের নিয়ে কাজ করতে মুখিয়ে সিডন্স

টাইগারদের নতুন ব্যাটিং পরামর্শক ঢাকা আসছেন ১ ফেব্রুয়ারি

তরুণদের নিয়ে কাজ করতে মুখিয়ে সিডন্স

টাইগারদের নতুন ব্যাটিং পরামর্শক জেমি সিডন্স। ছবি: টুইটার

ঢাকা আসার সময়কাল জানিয়ে দিলেন সিডন্স নিজে। এক ভিডিওবার্তায় তিনি জানিয়েছেন আগামী সপ্তাহে বাংলাদেশে আসতে যাচ্ছেন। আর ফেব্রুয়ারির প্রথম দিন থেকে কাজ শুরু করতে চান অজি এই কোচ।

জাতীয় দলের ব্যাটিং পরামর্শক হিসেবে সিডন্সের দায়িত্ব নিতে আসার কথাটা ছিল বেশ আগের। বিসিবি জানিয়েছে, ফেব্রুয়ারিতে হতে যাওয়া আফগানিস্তান সিরিজ হতে যাচ্ছে জাতীয় দলের সাবেক এই কোচের প্রথম অ্যাসাইনমেন্ট।

তবে কোন সময়টায় জাতীয় দলের সঙ্গে যোগ দিতে তিনি বাংলাদেশে আসবেন, এ বিষয়ে কোনো তথ্য দেয়া হয়নি সে সময়ে বোর্ডের পক্ষ থেকে।

অবশেষে ঢাকা আসার সময়কাল জানিয়ে দিলেন সিডন্স নিজে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এক ভিডিওবার্তায় তিনি জানিয়েছেন আগামী সপ্তাহে বাংলাদেশে আসতে যাচ্ছেন। আর ফেব্রুয়ারির প্রথম দিন থেকে কাজ শুরু করতে চান অজি এই কোচ।

ভিডিওবার্তায় সিডন্স বলেন, ‘স্বাগত সবাইকে। মাত্রই আমার পরবর্তী কাজের ঠিকানা বাংলাদেশের ভিসা পেলাম। দুই বছর সেখানে কাটানোর পরিকল্পনা রয়েছে। এই বছরের অক্টোবরে অস্ট্রেলিয়ায় আমাদের একটি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ আছে। আমি তরুণ কয়েকজন খেলোয়াড়কে নিয়ে কাজ করতে মুখিয়ে আছি।’

জাতীয় দলের পাশাপাশি জুনিয়র ডেভেলপমেন্ট প্রোগ্রামেও কাজ করবেন সিডন্স। জাতীয় দলের তরুণদের নিয়ে কাজ করতে মুখিয়ে রয়েছেন তিনি।

তিনি যোগ করেন, ‘জুনিয়র ডেভেলপমেন্ট প্রোগ্রামেও কাজ করব। তাদের প্রস্তুত করে আনন্দ পাই। ভিসা পেয়ে যাওয়ায় আগামী সপ্তাহে ফ্লাইট বুকিং দেব। আশা করি ১ ফেব্রুয়ারি থেকে আমি বাংলাদেশে কাজ করতে পারব। আগেও সেখানে কাজ করেছি। সেখানে কাজ করতে আমি ভালোবাসি।’

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে বাজে পারফরম্যান্সের কারণে বিশ্বকাপের পর ব্যাটিং কোচ অ্যাশওয়েল প্রিন্সের সঙ্গে চুক্তি বাড়ায়নি বিসিবি। সে সময় থেকে জেমি সিডন্সকে অন্তর্ভুক্ত করার জোর চেষ্টা চালায় বোর্ড।

২০০৭ সালের ২৮ অক্টোবর বাংলাদেশের কোচ হিসেবে দায়িত্ব নেন জেমি। জাতীয় দলের দায়িত্বে ছিলেন চার বছর।

২০১১ সালে চুক্তি শেষ হয়ে গেলেও থাকতে চেয়েছিলেন তিনি। তার চুক্তি নবায়ন না হওয়ায় বিসিবির সঙ্গে সম্পর্ক শেষ করে চলে যেতে হয়েছিল তাকে।

আরও পড়ুন:
‘তামিম ছাড়া আরও একজন বিশ্বকাপ খেলতে চায়নি’
স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে হার মানতে পারছেন না পাপন
ক্যামফারের বিশ্বরেকর্ডে জিতল আয়ারল্যান্ড
হতাশ বাংলাদেশের হাতে সময় বেশি নেই

শেয়ার করুন

সিলেটকে দাঁড়াতেই দিল না কুমিল্লা

নির্ধারিত ২০ ওভারে সিলেটের সংগ্রহ সবগুলো উইকেট হারিয়ে ৯৬ রান।

সিলেটকে দাঁড়াতেই দিল না কুমিল্লা

হতাশ হয়ে ফিরে যাচ্ছেন সিলেটের মোহাম্মদ মিঠুন। ছবি: কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানস

কুমিল্লার বোলারদের বোলিং তোপে ৯৬ রানেই গুটিয়ে গেছে মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতের দল।

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) চলতি আসরের তৃতীয় ম্যাচে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানসের সামনে দাঁড়াতেই পারল না সিলেট সানরাইজার্স। কুমিল্লার বোলারদের বোলিং তোপে ৯৬ রানেই গুটিয়ে গেছে মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতের দলের ইনিংস।

শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টসে জিতে সিলেটকে ব্যাটিংয়ে পাঠান কুমিল্লা দলপতি ইমরুল কায়েস। ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকেই প্রতিপক্ষকে চেপে ধরে ইমরুল বাহিনী।

দলীয় ৭ রানে শুরু সিলেটের ব্যাটিং ধস। দলের ব্যাটসম্যানদের ভেতর সর্বোচ্চ ২০ রান আসে কলিন ইনগ্রামের ব্যাট থেকে। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান ১৯ রান আসে কুমিল্লার বোলারদের কল্যাণে।

এই অতিরিক্ত ১৯ রানের ভেতর ছিল ১৭টি ওয়াইড, একটি লেগ বাই ও একটি নো বল।

ব্যাটিং বিপর্যয়ের দিনে দলের হয়ে দুই অঙ্কের রান ছোঁয়া সম্ভব হয় রাভি বোপারা (১৭) ও সোহাগ গাজির (১২)। বাকিদের ফিরতে হয় এক অঙ্কের স্কোর নিয়েই।

নিয়মিত উইকেট পতন ও কুমিল্লার বোলারদের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে মাত্র ৯৬ রান তুলতে সক্ষম হয় সিলেট। আর কুমিল্লার সামনে দাঁড়ায় ৯৭ রানের সহজ লক্ষ্য।

কুমিল্লার হয়ে দুটি করে উইকেট নেন নাহিদুল ইসলাম, মুস্তাফিজুর রহমান ও শহিদুল ইসলাম। আর একটি করে উইকেট ঝুলিতে পুরেন তানভির ইসলাম, করিম জানাত ও মুমিনুল হক।

আরও পড়ুন:
‘তামিম ছাড়া আরও একজন বিশ্বকাপ খেলতে চায়নি’
স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে হার মানতে পারছেন না পাপন
ক্যামফারের বিশ্বরেকর্ডে জিতল আয়ারল্যান্ড
হতাশ বাংলাদেশের হাতে সময় বেশি নেই

শেয়ার করুন

আইপিএলে সবচেয়ে দামি খেলোয়াড়ের তালিকায় সাকিব-ফিজ

আইপিএলে সবচেয়ে দামি খেলোয়াড়ের তালিকায় সাকিব-ফিজ

মুস্তাফিজুর রহমান ও সাকিব আল হাসান। ছবি: সংগৃহীত

বেঙ্গালুরুতে আগামী ১২ ও ১৩ ফেব্রুয়ারি হবে টুর্নামেন্টের নিলাম অনুষ্ঠান। যেখানে সাকিব-মোস্তাফিজরা রয়েছেন নিলামের সর্বোচ্চ ভিত্তি মূল্যে। সর্বোচ্চ ভিত্তি মূল্য ধরা হয়েছে ২ কোটি রুপি।

আসন্ন ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) আসরটা রেকর্ড হতে চলেছে। ১০ দল নিয়ে প্রথমবার হতে চলেছে জনপ্রিয় এই টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট।

বেঙ্গালুরুতে আগামী ১২ ও ১৩ ফেব্রুয়ারি হবে টুর্নামেন্টের নিলাম অনুষ্ঠান। যেখানে সাকিব আল হাসান ও মুস্তাফিজুর রহমান রয়েছেন নিলামের সর্বোচ্চ ভিত্তি মূল্যে।

এবার আইপিএলের নিলামের সর্বোচ্চ ভিত্তি মূল্য ধরা হয়েছে ২ কোটি রুপি। এই ভিত্তি মূল্যের তালিকায় আছেন সবমিলে ৪৯ ক্রিকেটার। সেই তালিকায় আছে বাংলাদেশের দুই ক্রিকেটার সাকিব ও মোস্তাফিজ।

এ তালিকায় আছেন ভারতের ১৭ জন এবং বিদেশি ক্রিকেটার ৩২ জন।

দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ভিত্তিমূল্য দেড় কোটি, তৃতীয় সর্বোচ্চ ভিত্তিমূল্য ১ কোটি রুপি।

সবমিলে এবার নিলামে ১ হাজার ২১৪ জন ক্রিকেটারের তালিকা তৈরি করেছে আইপিএল কর্তৃপক্ষ।

বাংলাদেশ থেকে এবার ৯ জন ক্রিকেটার নিলামে অংশ নিচ্ছেন।

তাছাড়া নেপালের ১৫, আমেরিকার ১৪, জিম্বাবুয়ের ২, নামিবিয়ার ৫, ওমানের ৩ ও ভুটান, নেদারল্যান্ডস, স্কটল্যান্ড ও আরব আমিরাতের আছে ১ জনের নাম। বাকী ৮৯৬ জন ভারতীয় ক্রিকেটার।

আরও পড়ুন:
‘তামিম ছাড়া আরও একজন বিশ্বকাপ খেলতে চায়নি’
স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে হার মানতে পারছেন না পাপন
ক্যামফারের বিশ্বরেকর্ডে জিতল আয়ারল্যান্ড
হতাশ বাংলাদেশের হাতে সময় বেশি নেই

শেয়ার করুন