জয়ে সন্তুষ্ট ব্রুজন, রেফারির নিন্দায় আমির

জয়ে সন্তুষ্ট ব্রুজন, রেফারির নিন্দায় আমির

ছবি: সংগৃহীত

বাংলাদেশের পারফরম্যান্সে সন্তুষ্ট জাতীয় দলের প্রধান কোচ অস্কার ব্রুজন। অন্যদিকে রেফারিকে এক হাত নিলেন লঙ্কান কোচ আমির আলাগিকের।

জয়ে সাফ মিশনের যাত্রা শুরু করেছে বাংলাদেশ। শ্রীলঙ্কাকে আধিপত্য বিরাজ করে হারালেও ফিনিশিং নিয়ে প্রশ্ন থেকেই গেছে। তবে বাংলাদেশের পারফরম্যান্সে সন্তুষ্ট জাতীয় দলের প্রধান কোচ অস্কার ব্রুজন। অন্যদিকে রেফারিকে এক হাত নিলেন লঙ্কান কোচ আমির আলাগিকের।

মালেতে শ্রীলঙ্কাকে তপুর একমাত্র পেনাল্টি গোলে হারিয়েছে বাংলাদেশ। এ ম্যাচে দাপট দেখিয়েছে টাইগাররা।

কৌশল অনুযায়ী ফুটবলারদের পারফরম্যান্সে সন্তুষ্ট টাইগারদের অন্তর্বর্তীকালীন কোচ অস্কার ব্রুজন।

দক্ষিণ এশিয়ান জোনে এক দশক কোচিংয়ে অভিজ্ঞতা থাকা এই স্প্যানিশ কোচ বলেন, ‘পুরো ম্যাচে আমরা আধিপত্য নিয়ে খেলেছি। প্রতিপক্ষের অর্ধেই বেশির ভাগ সময় বল ছিল। তারা বেশ রক্ষণাত্মক খেলেছে। আমরা বুঝতে পেরেছি যে দুই উইং দিয়ে খেলতে হবে। দ্বিতীয়ার্ধে কৌশলে পরিবর্তন আনতে হয়েছে। ভালো সমন্বয় করতে পেরেছি।’

জিতলেও দলের ভেতরে বদল দেখতে চান অস্কার। বলেন, ‘আমাদের যেটা বদল আনতে হবে সেটা হলো ফিনিশিংয়ের জায়গা। সেকেন্ড হাফে চার-পাঁচটা সুযোগ তৈরি করেছি, কিন্তু গোল করতে পারিনি। আমি সন্তুষ্ট পারফরম্যান্সে। তবে পরের ম্যাচগুলোতে হাফ চান্স পেলে সেটা কাজে লাগাতে হবে।’

হারের পর বাংলাদেশকে অভিনন্দন জানিয়ে ম্যাচের রেফারির সিদ্ধান্তে অসন্তুষ্টির কথা প্রকাশ্যে জানালেন শ্রীলঙ্কার বসনিয়ান কোচ আমির আলাগিক।

তিনি বলেন, ‘আমরা হেরেছি, কিন্তু লাল কার্ড খাওয়ার আগ পর্যন্ত আমাদের দলের কোনো সমস্যা ছিল না। সৎভাবে বলছি, আমি কখনও রেফারি নিয়ে মন্তব্য করিনি। কিন্তু আজকে লাল কার্ড নিয়ে রেফারির সিদ্ধান্ত দুঃখজনক ছিল।’

‘বিতর্কিত’ লাল কার্ডটি না হলে এক পয়েন্ট নিয়ে মাঠ ছাড়ত শ্রীলঙ্কা-এমনটাই উল্লেখ করে আমির বলেন, ‘দক্ষিণ এশিয়ায় যখন আমরা উন্নতি করার চেষ্টা করছি, কোনো কারণ ছাড়া ম্যাচ ধ্বংস করা হয়েছে। বেশ কয়েকবার এমন করা হয়েছে। ১০ জনে পরিণত নাহলে আমরা ড্র করতাম ম্যাচটা।’

সাফে বাংলাদেশের দ্বিতীয় ম্যাচ টুর্নামেন্টের সবচেয়ে শক্তিশালী দল ভারতের বিপক্ষে। এ ম্যাচে মানসিকভাবে বাংলাদেশ এগিয়ে থাকবে বলে জানালেন অস্কার ব্রুজন।

তিনি বলেন, ‘আমরা যদি ম্যাচটা না জিততাম তাহলে তিন পয়েন্ট পাওয়া হতো না। ভারতের প্রথম ম্যাচ হবে আমাদের বিপক্ষে। সুতরাং আমরা মানসিকভাবে এগিয়ে থাকব।’

৪ সেপ্টেম্বর নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে ভারতের বিপক্ষে মাঠে নামবে বাংলাদেশ। টুর্নামেন্ট শুরুর দিনে অপর ম্যাচে স্বাগতিক মালদ্বীপকে এক গোলে হারিয়েছে নেপাল।

আরও পড়ুন:
লঙ্কা জয়ে সাফ মিশন শুরু বাংলাদেশের
নতুন ভূমিকায় তারিক, একাদশে ইয়াসিন-জুয়েল
শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ভিন্ন কিছু উপহার দিতে চায় বাংলাদেশ
প্রথম ম্যাচে ছিটকে গেলেন সোহেল ও রেজা
ডিফেন্স নয় অ্যাটাকে মনোযোগ বেশি বাংলাদেশের

শেয়ার করুন

মন্তব্য

সাফ শেষে ঢাকায় ফিরেছে জাতীয় দল

সাফ শেষে ঢাকায় ফিরেছে জাতীয় দল

দেশে ফিরেছে বাংলাদেশ জাতীয় দলের ফুটবলাররা। ছবি: বাফুফে

দেশে ফিরে খেলোয়াড়রা নিজ নিজ বাসায় চলে গেছেন। এক দিন বিরতি দিয়ে অনূর্ধ্ব ২৩ দলের ফুটবলাররা ১৯ অক্টোবর যোগ দেবেন ক্যাম্পে।

নেপালের বিপক্ষে ড্র করে ১৬ বছর পর সাফের ফাইনালে খেলার স্বপ্নভঙ্গ হয় বাংলাদেশের। সেই স্বপ্নভঙ্গের বেদনা নিয়ে রোববার দুপুর তিনটায় দেশে ফিরে এসেছেন জামাল ভুঁইয়ারা।

দেশে ফিরে খেলোয়াড়রা নিজ নিজ বাসায় চলে গেছেন। এক দিন বিরতি দিয়ে অনূর্ধ্ব ২৩ দলের ফুটবলাররা ১৯ অক্টোবর যোগ দেবেন ক্যাম্পে।

সকাল ১০ টায় তাদের আবাসিক ক্যাম্পে যোগ দেয়ার কথা রয়েছে।

এর আগে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দুর্দান্ত এক জয় দিয়ে সাফের মিশন শুরু করেছিল বাংলাদেশ। এরপর দ্বিতীয় ম্যাচে ভারতকে ১-১ গোলে রুখে দিয়েছিল অস্কার ব্রুজেনের শীষ্যরা।

নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে মালদ্বীপের বিপক্ষে হারকে সঙ্গী করে মাঠ ছাড়ে জামালরা। আর বাঁচা মরার ম্যাচে রেফারির বিতর্কিত সিদ্ধান্তে নেপালের সঙ্গে ড্র করে সাফ থেকে বিদায় নিতে হয়েছিল বাংলাদেশের।

যদিও সেই ম্যাচে ম্যাচ শেষে মাঠে প্রবেশ করে রেফারিদের পেনাল্টি সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ জানায় জামালরা।

তাতে লাভ হয়নি। বাস্তবতা মেনে নিয়ে আরও একবার সাফ থেকে বিদায় নিতে হয়েছে বাংলাদেশকে।

আরও পড়ুন:
লঙ্কা জয়ে সাফ মিশন শুরু বাংলাদেশের
নতুন ভূমিকায় তারিক, একাদশে ইয়াসিন-জুয়েল
শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ভিন্ন কিছু উপহার দিতে চায় বাংলাদেশ
প্রথম ম্যাচে ছিটকে গেলেন সোহেল ও রেজা
ডিফেন্স নয় অ্যাটাকে মনোযোগ বেশি বাংলাদেশের

শেয়ার করুন

ভারতের আইএসএলে খেলার লোভনীয় প্রস্তাব পেলেন তপু

ভারতের আইএসএলে খেলার লোভনীয় প্রস্তাব পেলেন তপু

সাফে তপু। ছবি: বাফুফে

আইএসএলের দল নর্থইস্ট ইউনাইটেড এফসির কোচ খালিদ জামিল এই প্রস্তাব দিয়েছেন তপুকে। সাফ চলাকালীন এই প্রস্তাব দেয়া হয় তপুকে। ভারতে খেলবেন কি খেলবেন না তা নিয়ে দ্বিধায় আছেন বসুন্ধরা কিংসের অধিনায়ক তপু।

ভারতের সর্বোচ্চ ফুটবলের আসর ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে খেলার প্রস্তাব পেয়েছেন জাতীয় ফুটবল দলের তারকা ডিফেন্ডার তপু বর্মন।

আইএসএলের দল নর্থইস্ট ইউনাইটেড এফসির কোচ খালিদ জামিল এই প্রস্তাব দিয়েছেন তপুকে।

সাফ চলাকালীন এই প্রস্তাব দেয়া হয় তপুকে। ভারতে খেলবেন কি খেলবেন না তা নিয়ে দ্বিধায় আছেন বসুন্ধরা কিংসের অধিনায়ক তপু।

এবারই প্রথম নয়, এর আগে বিশ্বকাপ বাছাইয়ে বাংলাদেশ-আফগানিস্তান ম্যাচের পর তপুকে প্রথমবার এই প্রস্তাব দিয়েছিলেন আইএসএলের গত আসরে তৃতীয় হয়ে লিগ শেষ করা আইএসএলের কোচ খালিদ জামিল।

সেই ম্যাচে আফগানিস্তানের বিপক্ষে একমাত্র গোলটি করে এক পয়েন্ট বাংলাদেশকে উপহার দিয়েছিলেন তপু।

বসুন্ধরা কিংসের হয়ে যে বেতন পান তার থেকে ভারতের দলে বেশি বেতন দেয়া হবে এমনটাই আশ্বস্ত করেছেন কোচ খালিদ জামিল বলে জানিয়েছেন তপু।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক তপুর এক কিংস সতীর্থ জানিয়েছেন, এই প্রস্তাব নিয়ে দ্বিধায় রয়েছেন তপু। বসুন্ধরা কিংসকে মৌখিক প্রতিশ্রুতি দিয়ে রাখায় সিদ্ধান্তহীনতায় ভুগছেন তিনি। তবে, নর্থইস্টের কোচ তাকে পুনর্বিবেচনা করে দেখার অনুরোধ করেছেন।

আইএসএলের আগামী মৌসুম শুরু হবে ১৯ নভেম্বর।

আরও পড়ুন:
লঙ্কা জয়ে সাফ মিশন শুরু বাংলাদেশের
নতুন ভূমিকায় তারিক, একাদশে ইয়াসিন-জুয়েল
শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ভিন্ন কিছু উপহার দিতে চায় বাংলাদেশ
প্রথম ম্যাচে ছিটকে গেলেন সোহেল ও রেজা
ডিফেন্স নয় অ্যাটাকে মনোযোগ বেশি বাংলাদেশের

শেয়ার করুন

‘দুই বছর পরপর ফুটবল বিশ্বকাপ অন্য খেলার জন্য হুমকি’

‘দুই বছর পরপর ফুটবল বিশ্বকাপ অন্য খেলার জন্য হুমকি’

নেইমার ও মেসি। ছবি: এএফপি

আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটির মতে, দ্বিবার্ষিক ফুটবল বিশ্বকাপ অলিম্পিক গেমসসহ নারী ফুটবল ক্যালেন্ডারেও দ্বন্দ্ব তৈরি করবে। এতে অন্যান্য খেলাধুলার বৈচিত্র্য ও উন্নতি ব্যহত হবে।

চার বছর থেকে সময় কমিয়ে দুই বছর পরপর ফুটবল বিশ্বকাপ আয়োজনের ভাবনা ফিফার। এ নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা চলছে বিশ্বজুড়ে। ফিফার এই পরিকল্পনাকে অন্যান্য খেলাধুলার জন্য হুমকি মনে করেছে আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটি।

তাদের মতে, দ্বিবার্ষিক ফুটবল বিশ্বকাপ অলিম্পিক গেমসসহ নারী ফুটবল ক্যালেন্ডারেও দ্বন্দ্ব তৈরি করবে। এতে অন্যান্য খেলাধুলার বৈচিত্র্য ও উন্নতি ব্যহত হবে।

কমিটির বলছে, এই পরিকল্পনা নারী ফুটবলের উন্নতির জন্য চ্যালেঞ্জিং হবে।

অক্টোবরের শুরুতে ইউয়েফা এবং ১০ ইউরোপিয়ান নারী লিগগুলোর মুখপাত্র জানায়, বিশ্বকাপের এই পরিকল্পনা ‘মারাত্মক ক্ষতিকর’ হবে।

তার আগের ম্যাচে ইউরোপের শীর্ষ পুরুষ লিগ যৌথভাবে এক বিবৃতিতে এই পরিকল্পনার বিরুদ্ধে নিজেদের অবস্থান নেয়। তারা বলে, একই সময়ে পুরুষ ফুটবলের অন্য মেজর ইভেন্টও রয়েছে।

দুই বছর পরপর বিশ্বকাপ শুধু শারীরিক নয়, একই সঙ্গে খেলোয়াড়দের মানসিক অবস্থার উপরেও এর প্রভাব পড়বে বলে উল্লেখ করে ওআইসি জানায়, ‘প্লেয়ারদের শারীরিক ও মানসিক স্বাস্থ্যের উপর নেতিবাচক প্রভাব ফেলবে এই পরিকল্পনা।’

আরও পড়ুন:
লঙ্কা জয়ে সাফ মিশন শুরু বাংলাদেশের
নতুন ভূমিকায় তারিক, একাদশে ইয়াসিন-জুয়েল
শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ভিন্ন কিছু উপহার দিতে চায় বাংলাদেশ
প্রথম ম্যাচে ছিটকে গেলেন সোহেল ও রেজা
ডিফেন্স নয় অ্যাটাকে মনোযোগ বেশি বাংলাদেশের

শেয়ার করুন

রোনালডোকে নিয়েও বিপদ কাটছে না রেড ডেভিলদের

রোনালডোকে নিয়েও বিপদ কাটছে না রেড ডেভিলদের

লেস্টার সিটির কাছে হারের পর ইউনাইটেডের খেলোয়াড়েরা। ছবি: এএফপি

অ্যালেক্স ফার্গুসন যাওয়ার পর থেকেই দল বেহাল। শিরোপা খরায় ভুগছে দলটি। সবশেষ পাঁচ ম্যাচের মাত্র একটিতে জয় পেয়েছে প্রিমিয়ার লিগ ইতিহাসের সফলতম দলটি। আর হেরেছে তিনটিতে। বাকি এক ম্যাচ ড্র।

পর্তুগিজ মেগাস্টার ক্রিস্টিয়ানো রোনালডোকে নিয়েও ভাগ্য বদালচ্ছে না ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের জায়ান্ট ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের। প্রায় এক দশক আগে লিগে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল দলটি। আর চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জেতে না দলটি প্রায় এক যুগ সময় ধরে।

অ্যালেক্স ফার্গুসন যাওয়ার পর থেকেই দলের বেহাল অবস্থা কাটছে না। শিরোপা খরায় ভুগছে দলটি।

সবশেষ পাঁচ ম্যাচের মাত্র একটিতে জয় পেয়েছে প্রিমিয়ার লিগ ইতিহাসের সফলতম দলটি। আর হেরেছে তিনটিতে। বাকি একটা ম্যাচে ড্র।

এই যেমন সবশেষ ম্যাচে লেস্টার সিটির কাছে ৪-২ ব্যবধানে হেরেছে ওলে গানার শোলস্কায়ারের বাহিনী।

ম্যাচের পুরো সময় ছিলেন নিষ্প্রভ ছিলেন রোনালডো। বেহাল ছিল ইউনাইটেডও। ম্যাচের ৮২ মিনিট পর্যন্ত ২-২ সমতা থাকা ম্যাচটা লেস্টার সিটি পকেটে পুড়েছে শেষ মুহূর্তে দুটি গোল করে।

এই হারে পয়েন্ট টেবিলে পাঁচে নেমে এলো ইউনাইটেড। ৮ ম্যাচে তাদের ঝুলি পয়েন্ট ১৪।

দলের এমন অবস্থায় পরিবর্তন চান ইউনাইটেডের ফরাসি মিডফিল্ডার পল পগবা।

তিনি বলেন, ‘আমরা একইভাবে যাচ্ছি বহুদিন থেকে। কিন্তু এখনও সমস্যা খুঁজে পাইনি। আমরা সহজ ও হাস্যকার গোল হজম করেছি। আমাদের কিছু পরিবর্তন দরকার।’

এই পরিস্থিতির মধ্যে আগামী ২১ অক্টোবর চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ম্যাচে সেরি আর দল আতালান্তার বিপক্ষে মাঠে নামবে রোনালডোরা।

আরও পড়ুন:
লঙ্কা জয়ে সাফ মিশন শুরু বাংলাদেশের
নতুন ভূমিকায় তারিক, একাদশে ইয়াসিন-জুয়েল
শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ভিন্ন কিছু উপহার দিতে চায় বাংলাদেশ
প্রথম ম্যাচে ছিটকে গেলেন সোহেল ও রেজা
ডিফেন্স নয় অ্যাটাকে মনোযোগ বেশি বাংলাদেশের

শেয়ার করুন

কষ্টের জয় চেলসি-সিটির, গোলোৎসব লিভারপুলের

কষ্টের জয় চেলসি-সিটির, গোলোৎসব লিভারপুলের

ছবি: এএফপি

ঘরের মাঠ ইতিহাদে বার্নলিকে ২-০ ব্যবধানে হারিয়েছে পেপ গার্দিওলার দল ম্যানচেস্টার সিটি। ওয়াটফোর্ডকে ৫-০ ব্যবধানে উড়িয়ে দিয়েছে ইয়োর্গেন ক্লপের বাহিনী। চেলসিও শেষ পর্যন্ত তিন পয়েন্ট নিশ্চিত করে মাঠ ছাড়ে। বেনফোর্ডকে হারায় তারা এক গোলে।

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে কষ্টার্জিত জয় পেয়েছে ম্যানচেস্টার সিটি ও চেলসি। উড়ন্ত জয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছে লিভারপুল।

পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষ চারের লড়াইটা জমজমাট হয়ে গেছে। এই তিন শ্বাস ফেলছে একে অপরের ঘাড়ে। সমর্থকদের হতাশ করেনি কেউ।

ঘরের মাঠ ইতিহাদে বার্নলিকে ২-০ ব্যবধানে হারিয়েছে পেপ গার্দিওলার দল ম্যানচেস্টার সিটি। দলের হয়ে গোল করেছেন বার্নার্দো সিলভা ও কেভিন ডি ব্রুইনা।

অ্যাওয়ে ম্যাচে জয়ের স্বস্তি নিয়ে মাঠ ছেড়েছে চেলসি ও লিভারপুল।

ওয়াটফোর্ডকে ৫-০ ব্যবধানে উড়িয়ে দিয়েছে ইয়োর্গেন ক্লপের বাহিনী। হ্যাটট্রিক করেন রবার্ত ফিরমিনিয়ো। দুর্দান্ত গোল পান মোহাম্মদ সালাহও।

লিভারপুলের জার্সিতে আফ্রিকার তৃতীয় ফুটবলার হিসেবে ১০০ গোলের মাইলফলক ছুঁয়েছেন সাদিও মানে। এর আগে এই মাইলফলক ছুঁয়েছেন দ্রগবা ও সালাহ।

দুই জায়ান্টের জয়ের দিনে টেবিলের শীর্ষে থাকা চেলসিও শেষ পর্যন্ত তিন পয়েন্ট নিশ্চিত করে মাঠ ছাড়ে। বেনফোর্ডকে হারায় তারা এক গোলে। একমাত্র গোলটি আসে চিলওয়েলের কাছ থেকে।

পয়েন্ট টেবিলে তাই শীর্ষ তিনে কোনো পরিবর্তন নেই। ১৯ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে চেলসি। এক পয়েন্ট কম নিয়ে দুইয়ে লিভারপুল। সমপরিমাণ পয়েন্ট কম নিয়ে তিনে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড।

আরও পড়ুন:
লঙ্কা জয়ে সাফ মিশন শুরু বাংলাদেশের
নতুন ভূমিকায় তারিক, একাদশে ইয়াসিন-জুয়েল
শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ভিন্ন কিছু উপহার দিতে চায় বাংলাদেশ
প্রথম ম্যাচে ছিটকে গেলেন সোহেল ও রেজা
ডিফেন্স নয় অ্যাটাকে মনোযোগ বেশি বাংলাদেশের

শেয়ার করুন

ভারতের হাতেই সাফের শিরোপা

ভারতের হাতেই সাফের শিরোপা

গোলের পর ভারতের উদযাপন। ফাইল ছবি

নেপালকে ৩-০ গোলে হারিয়ে অষ্টমবারের মতো শিরোপা জিতল ভারত। এর আগে ভারত শিরোপা জিতেছে ১৯৯৩, ১৯৯৭, ১৯৯৯, ২০০৫, ২০০৯, ২০১১ ও ২০১৫ সালে।

প্রথমবারের মতো সাফের শিরোপা হাতছানি দিচ্ছিল নেপালকে। কিন্তু তাদের ৩-০ গোলে উড়িয়ে দিয়ে সেই স্বপ্ন ভেঙে দিল ভারত।

শনিবার রাতে সাফের ফাইনালে নেপালকে বড় ব্যবধানে হারিয়ে অষ্টমবারের মতো শিরোপা ঘরে তুলে নেয় ভারত।

২০১৮ সাফের ফাইনালে মালদ্বীপের কাছে হেরে শিরোপা হাতছাড়া করে ভারত। তিন বছর পর সেটি পুনরুদ্ধার করল তারা।

চলতি বছরের সাফের আসরে প্রথমবারের মতো ফাইনালে ওঠে নেপাল। ম্যাচের শুরু থেকে তারা খেলছিল দুর্দান্ত ছন্দে। আক্রমণ পাল্টা আক্রমণে প্রথমার্ধ শেষ হলেও গোলের দেখা পায়নি কোনো দলই।

নেপালের প্রথম শিরোপা জয়ের স্বপ্নে ম্যাচের ৪৯তম মিনিটে বাদ সাধেন সুনিল ছেত্রি। দুর্দান্ত এক গোলে লিড এনে দেন সাত বারের চ্যাম্পিয়নদের।

এই গোল করে আন্তর্জাতিক গোলসংখ্যায় সর্বকালের অন্যতম সেরা ফুটবলার লিওনেল মেসিকে ছুঁয়ে ফেলেন ছেত্রি। মেসি ও ছেত্রি দুজনেরই আন্তর্জাতিক গোল এখন ৮০টি।

এক মিনিট পরই ব্যবধান বাড়ান সুরেশ সিং। আর অতিরিক্ত সময়ের প্রথম মিনিটেই নেপালের কফিনে শেষ পেরেকটি ঠুকে দিয়ে দলকে বড় জয় এনে দেন আবদুল সামাদ।

ম্যাচে ৬৫ শতাংশ বল নিজেদের দখলে রেখেছিল ভারত। নেপালের গোলপোস্টে নিয়েছে ১৯টি শট, যার ৮টি ছিল জাল বরাবর। অন্যদিকে ভারতের পোস্টে ৮টি শট নিয়েছে নেপাল।

সাফের শুরুতে যেই ভারতকে আটকে দিয়েছিল বাংলাদেশ, সেই ভারতের হাতেই উঠল সাফের শিরোপা।

এর আগে ভারত শিরোপা জিতেছে ১৯৯৩, ১৯৯৭, ১৯৯৯, ২০০৫, ২০০৯, ২০১১ ও ২০১৫ সালে।

আরও পড়ুন:
লঙ্কা জয়ে সাফ মিশন শুরু বাংলাদেশের
নতুন ভূমিকায় তারিক, একাদশে ইয়াসিন-জুয়েল
শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ভিন্ন কিছু উপহার দিতে চায় বাংলাদেশ
প্রথম ম্যাচে ছিটকে গেলেন সোহেল ও রেজা
ডিফেন্স নয় অ্যাটাকে মনোযোগ বেশি বাংলাদেশের

শেয়ার করুন

বীর মুক্তিযোদ্ধা দাদার জন্য দেশের হয়ে খেলতে চান ইউসুফ

বীর মুক্তিযোদ্ধা দাদার জন্য দেশের হয়ে খেলতে চান ইউসুফ

ট্রায়ালে লাল-সবুজ জার্সিতে ইউসুফ হক। ছবি: নিউজবাংলা

কোচ মারুফুল হকের অধীনে ট্রায়ালে আছেন ইউসুফ জুলকারনাইন হক। দেশকে নিয়ে স্বপ্ন, প্রত্যাশা আর ট্রায়াল অভিজ্ঞতার কথা ইউসুফ বলেছেন নিউজবাংলার সঙ্গে।

লাল-সবুজ জার্সিতে খেলার স্বপ্ন নিয়ে ইংল্যান্ড থেকে বাংলাদেশে ছুঁটে এসেছেন প্রবাসী ফুটবলার ইউসুফ জুলকারনাইন হক। কোচ মারুফুল হকের অধীনে ট্রায়ালে আছেন এই স্ট্রাইকার।

দেশকে নিয়ে স্বপ্ন, প্রত্যাশা আর ট্রায়াল অভিজ্ঞতার কথা ইউসুফ জানিয়েছেন নিউজবাংলাকে। দেশের ফুটবলে নতুন সেনসেশন ইউসুফের সঙ্গে সাক্ষাৎকারের চুম্বক তুলে ধরা হলো নিউজবাংলার পাঠকদের জন্য।

বাংলাদেশে এসে এবার অভিজ্ঞতা কেমন হচ্ছে?

১০ বছর পর দেশে এসেছি। ভালো লাগছে। আমি এই দেশকে ভালবাসি। দেশের জন্য খেলার সুযোগ পেয়ে এখন পর্যন্ত বেশ ভালই লাগছে।

যুব দলের জন্য যখন প্রথম যখন ডাক পান তখন কেমন অনুভূতি ছিল?

প্রথমেই আমার দাদার কথা মনে হয়েছে। উনাকে আমি গত বছর হারিয়েছি। উনি দেশের জন্য যুদ্ধ করেছিলেন। আমিও দেশের হয়ে খেলতে চাই।

দাদা মুক্তিযোদ্ধা, আপনি জাতীয় দলের হয়ে খেলতে এসেছেন সবমিলে বিষয়টা আপনার পরিবারের জন্য কতখানি আবেগের?

আমি আব্বুর সঙ্গে কথা বলেছি। তিনি বলেছেন, দাদু বীর মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন। দেশের জন্য যুদ্ধ করেছেন। তিনি সবসময় দেশের মানুষদের কথা বলতেন। আমি শুনে সরাসরি বলেছি, দাদুর জন্য বাংলাদেশের জার্সি গায়ে দিয়ে খেলতে চাই।

আরও আগেই আসতে পারতেন। দেরি হওয়ার কারণ কী ছিল?

হ্যাঁ তা হয়তো পারতাম। তবে পাসপোর্ট ইস্যু ছিল। সবকিছু হাতে পেয়ে আসার ব্যাপার ছিল।

বাংলাদেশের ফুটবল ভক্তরা স্ট্রাইকার হিসেবে আপনাকে জাতীয় দলে দেখতে চায়। তার প্রথম ধাপ হিসেবে আপনি অনূর্ধ্ব ২৩ দলে ডাক পেয়েছেন। কেমন লাগছে?

আমি খুশি। জাতীয় দল হোক অথবা বয়সভিত্তিক দল হোক, বাংলাদেশের হয়ে খেলাটাই আমার কাছে গুরুত্বপূর্ণ। আমি খুশি বাংলাদেশে আসতে পেরেছি। এই জার্সিটা পড়তে পারছি। হাসতে পারছি। আমি অনেক খুশি।

খেলার প্রসঙ্গে আসি। ট্রায়াল কেমন যাচ্ছে?

সামান্য চাপ কাজ করছে। তবে চাপ নিয়ে কাজ করতে আমি ভালোবাসি। কারণ এটা আপনাকে আরও পরিশ্রম করতে সাহায্য করবে। এই দেশের গরম, আবহাওয়া একটু ভিন্ন। তবে আমি কিছু মনে করছি না। আমি খেলতে ভালোবাসি।

বাংলাদেশে আপনার প্রিয় খেলোয়াড় কে?

এটা বলা আমার জন্য কিছুটা কঠিন, কেননা সবার খেলা এক ধরনের নয়। জামাল ভূঁইয়ার খেলা আমার খুব ভালো লাগে। তিনি দলকে যেভাবে লিড দেন ভালো লাগে। তিনি অনেক দক্ষ খেলোয়াড়। খুব গুরুত্বপূর্ণ একজন ফুটবলার।

আপনি তো অ্যাটাকিং মিডফিল্ডার অথবা লেফট উইঙ্গার পজিশনে খেলেন। ট্রায়ালে দেরি করে অংশ নেয়ার ফলে পজিশন, দল ও কন্ডিশনের সাথে মানিয়ে নিতে পারাটা কেমন ছিল?

এটা কঠিন। পুরো দল বেশ কিছুদিন ধরেই অনুশীলন করছে এখানে। অবশ্যই আপনাকে এসে তাদের পর্যায়ে যেতে হবে। আশা করছি দ্রুত মানিয়ে নিব। পুরো দল আমাকে সাহায্য করছে। ক্যাম্পেও যেন আমি সহজ হতে পারি সে জন্য সবাই সাহায্য করেছেন।

আপনার রুমমেট কে?

জামিল।

আপনার কোচ মারুফুল হকের সাথে আপনার কথা হয়েছে ব্যক্তিগতভাবে?

হ্যাঁ। দেশে আসার আগে থেকেই তার সঙ্গে আমার কথা হচ্ছে। তিনি বলেছেন, আমরা একসাথে কাজ করার জন্য ‍মুখিয়ে আছি। আমি কখন আসছি সে বিষয়ে জানতে চেয়েছিলেন। এখন এসেছি। তিনি আমাকে দেশের হয়ে সেরাটা খেলাতে আমরা কাজ করছি।

আপনার কোচ আলাদা করে কোনো পরামর্শ দিয়েছে?

তিনি সবসময়ই আমাকে পরামর্শ দিচ্ছেন। তার বলার পদ্ধতি আমার কাছে খুব ভালো লেগেছে। আমি যেখানে ভুল করছি সেখানে তিনি কথা শোনাচ্ছেন না। বলছেন, ‘আবার যাও। আমি চাই না তুমি বলো যে আমি তোমার আত্মবিশ্বাস শেষ করে দিয়েছি। আমি তাকে পছন্দ করেছি অনেক’।

আপনার সবথেকে বড় শক্তি আপনার ড্রিবলিং ও ড্রিবলিং থেকে গোলে শট নেয়া। কিন্তু আমাদের দেশের ফুটবলাররা ফিজিক্যালি খেলতে পছন্দ করেন। এই ব্যাপারটি আপনি কিভাবে দেখছেন?

আমি যখন ফিজিক্যালি প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পারব না তখন আমাকে স্মার্ট হতে হবে। যদি ইচ্ছা থাকে তাহলে উপায় থাকবে। সুতরাং তারা ফিজিক্যাল খেললে আমি বুদ্ধি দিয়ে খেলব।

ফুটবলে এখন আপনার আইডল কে?

নেইমার। সে আমার স্বপ্নের ফুটবলার।

তাহলে আপনি নেইমার থেকে অনুপ্রাণিত?

তার খেলার কৌশলে আমি মুগ্ধ। তাছাড়া রোনালডোও আমাকে অনুপ্রাণিত করেন। কারণ তার মানসিকতা ও তিনি কঠোর পরিশ্রম করেন।

আপনি তো ইংলিশ জায়ান্ট চেলসির ট্রায়ালে গিয়েছেন। কেমন ছিল সেই গল্পটা?

আমি চেলসিতে যাই ট্রায়াল দিতে। যখন আমি ছোট ছিলাম ইপসউইচ এফসি আমার সঙ্গে চুক্তি করতে চাওয়ার পর আমি তাদের সঙ্গে খেলতে রাজি হই।

নিজেকে আগামী ৫ বছর পর কোথায় দেখতে চান?

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে খেলতে চাই। ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের হয়ে খেলতে চাই।

আপনি তো ইংল্যান্ডে খেলেছেন, ওই জায়গার ফুটবল থেকে এসে এখানে কীভাবে মানিয়ে নিচ্ছেন?

ভিন্ন দুইটা ধরন। বাংলাদেশে কাউন্টার অ্যাটাক ফুটবল খেলে। আমি এই ধরনের খেলা পছন্দ করি। ইংল্যান্ডে সব ধরনের খেলাই হয়। স্কিল, স্পিড, স্ট্যামিনা সব। বাংলাদেশে ফিজিক্যাল, স্পিড এসব। আমি এই স্টাইলের সঙ্গে মানিয়ে নেয়ার চেষ্টা করছি। যদি সুযোগ পাই তাহলে ভবিষ্যতে ট্রফি উপহার দিতে চাই।

বাংলাদেশের ফুটবলে মাঠে বল পেতে হলে অনেক জোরে ডাকতে হয়। এক্ষেত্রে কিছুটা কমতি দেখছেন নিজের?

বল পেতে হলে আমাকেও ডাকতে হবে। চেষ্টা করছি এভাবে ডাকতে। ট্রেনিং শেষে এগুলো নিয়ে কাজ হয়। এটা নিয়ে প্রথম কাজ করছি।

চূড়ান্ত দলে সুযোগ পাওয়া ব্যাপারে কতটা আশাবাদী?

আমার সেরাটা দিতে চাই। বাকিটা আল্লাহর উপরে ছেড়ে দিতে চাই। তিনি যদি চান আমি বাংলাদেশের হয়ে খেলি আমি খেলব।

আরও পড়ুন:
লঙ্কা জয়ে সাফ মিশন শুরু বাংলাদেশের
নতুন ভূমিকায় তারিক, একাদশে ইয়াসিন-জুয়েল
শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ভিন্ন কিছু উপহার দিতে চায় বাংলাদেশ
প্রথম ম্যাচে ছিটকে গেলেন সোহেল ও রেজা
ডিফেন্স নয় অ্যাটাকে মনোযোগ বেশি বাংলাদেশের

শেয়ার করুন