আইপিএলে চলছে ফিজ ম্যাজিক

আইপিএলে চলছে ফিজ ম্যাজিক

মুস্তাফিজুর রহমান। ছবি: সংগৃহীত

নিজের চার ওভারের স্পেলে দিয়েছেন তিনি মোটের ওপর ২২ রান। নিয়েছেন দুটি উইকেট। তার বল থেকে আসেনি কোনো বাউন্ডারি। তবে ম্যাচে হেরে তার দল রাজস্থান রয়্যালস।

ঘরের মাঠে অস্ট্রেলিয়া নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে দুর্দান্ত পারফরম্যান্স দেখানোর পর ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগেও (আইপিএল) চলছে ফিজ ম্যাজিক। টুর্নামেন্টে নিজের প্রথম ম্যাচে ডেথ ওভারে দারুণ বল করে ম্যাচ ভাগ্য ঘুরিয়ে দেওয়ার পর, আলো ছড়িয়েছেন দ্বিতীয় ম্যাচে।

শনিবার দিল্লি ক্যাপিটালসের বিপক্ষে ম্যাচে ছন্দ ধরে রেখেছেন মুস্তাফিজুর রহমান। নিজের চার ওভারের স্পেলে দিয়েছেন তিনি মোটের ওপর ২২ রান। নিয়েছেন দুটি উইকেট। আর সেই সুবাদে রাজস্থান রয়্যালসের সামনে ১৫৫ রানের লক্ষ্য দাঁড় করেছে দিল্লি ক্যাপিটালস।

প্রথম ওভারে বল করতে এসে সাফল্য না পেলেও দ্বিতীয় ওভারে ঠিকই উইকেট পান মুস্তাফিজ। ফিজের কাটারে বোল্ড হয়ে সাজঘরে ফিরে যান ২৪ বলে ২৪ রান করা রিশাভ পান্ট।

তার তৃতীয় ওভারে দুর্দান্ত এক ইয়র্কারে শর্ট থার্ডে শাকারিয়ার তালুবন্দি হয়ে মাঠ ছাড়েন বিপজ্জনক হয়ে ওঠা শিমরন হেটমেয়ার। দুই বিপজ্জনক ব্যাটসম্যানকে ফেরত পাঠিয়ে দিল্লির রানের চাকা কিছুটা স্তিমিত করতে সক্ষম হন ফিজ।

চার ওভারে ফিজ ডট দিয়েছেন ৫টি বল। সেই সঙ্গে তার ২৪ বলের ভেতর একটি বলেও বাউন্ডারি মারতে পারেনি দিল্লির ব্যাটসম্যানরা। সিঙ্গেল এবং ডবলস নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয় তাদের।

মুস্তাফিজের এমন পারফরম্যান্সের দিন ব্যাটারদের ব্যর্থতায় ম্যাচ হেরে গেছে তার দল। দিল্লির দেয়া ১৫৫ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ছয় উইকেটে ১২১-এর বেশি করতে পারেনি রয়্যালস।

ফলে ৩৩ রানে ম্যাচ জিতে নেয় দিল্লি।

আরও পড়ুন:
আইপিএলে আবারও করোনার আঘাত
জয়ের পর শাস্তি পেলেন মুস্তাফিজদের অধিনায়ক
দুর্দান্ত ফিজ-তিয়াগিতে অবিশ্বাস্য জয় রাজস্থানের
সাকিবকে ছাড়াই মাঠে কলকাতা
পাঁচ মাস পর আবার শুরু আইপিএল

শেয়ার করুন

মন্তব্য

জাতীয় দলের প্রধান কোচ হচ্ছেন লেমস

জাতীয় দলের প্রধান কোচ হচ্ছেন লেমস

ঢাকা আবাহনীর কোচ মারিও লেমসকে দেয়া হচ্ছে জাতীয় দলের দায়িত্ব। ছবি: সংগৃহীত

সাফ পর্ব শেষে স্পেনে ফিরে যাচ্ছেন জাতীয় দলের অন্তর্বর্তীকালীন কোচ অস্কার ব্রুজন। জেমি ডে’কেও দায়িত্বে ফেরাতে চায় না ফেডারেশন। তাই দেশের ফুটবলে পরিচিত একজন মারিও লেমসকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।

শ্রীলঙ্কায় চার জাতি ফুটবল টুর্নামেন্টে জাতীয় ফুটবল দলের প্রধান কোচের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে ঢাকা আবাহনীর কোচ মারিও লেমসকে।

জাতীয় দল ব্যবস্থাপনা কমিটি সূত্রে এ খবর জানা গেছে।

জাতীয় দলের কোচ পরিবর্তন হচ্ছে, তা আগেই ধারণা করা যাচ্ছিল। সাফ পর্ব শেষে স্পেনে ফিরে যাচ্ছেন জাতীয় দলের অন্তর্বর্তীকালীন কোচ অস্কার ব্রুজন। দীর্ঘ সময়জুড়ে দেশের ফুটবলে ব্যস্ত থাকায় পরিবারকে সময় দিতে দেশে ফিরে যাচ্ছেন তিনি।

এদিকে জেমি ডে’কেও দায়িত্বে ফেরাতে চায় না ফেডারেশন। তাই দেশের ফুটবলে পরিচিত একজন মারিও লেমসকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।

জেমিকে ওএসডি করার পর অস্কারকে দায়িত্ব দেয়ার আগে কোচের শর্টলিস্টে ছিল মারিও লেমসের নাম। অস্কারের অপশন না থাকায় পর্তুগিজ এ কোচকেই বাছাই করেছে জাতীয় দল ব্যবস্থাপনা কমিটি।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কমিটির এক সদস্য জানান, শুধু শ্রীলঙ্কার চার জাতি টুর্নামেন্টের জন্য দায়িত্ব পাচ্ছেন লেমস। ভিসা পেলেই দেশে ফিরবেন তিনি।

তিন মৌসুম ধরে আবাহনীর প্রধান কোচের দায়িত্ব পালন করে আসছেন লেমস। দায়িত্ব নেয়ার পর দলকে প্রথমবার এএফসি কাপের ইন্টার সেমি ফাইনালে খেলান এ কোচ।

তার অধীনে তৃতীয় অবস্থান নিয়ে সবশেষ বিপিএল আসর শেষ করেছিল আবাহনী।

জাতীয় ফুটবল দলের জন্য অপরিচিত নন মারিও লেমস। ২০১৭ সালে অ্যান্ড্রু ওর্ড যখন প্রধান কোচ ছিলেন, তখন জাতীয় দলের ফিটনেস ট্রেইনার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন এ পর্তুগিজ।

আগামী ২৫ নভেম্বর জাতীয় দলের ক্যাম্প শুরু করার পরিকল্পনা নিয়েছে কমিটি।

আরও পড়ুন:
আইপিএলে আবারও করোনার আঘাত
জয়ের পর শাস্তি পেলেন মুস্তাফিজদের অধিনায়ক
দুর্দান্ত ফিজ-তিয়াগিতে অবিশ্বাস্য জয় রাজস্থানের
সাকিবকে ছাড়াই মাঠে কলকাতা
পাঁচ মাস পর আবার শুরু আইপিএল

শেয়ার করুন

চ্যাম্পিয়নস লিগে মেসিবিহীন বার্সার প্রথম জয়

চ্যাম্পিয়নস লিগে মেসিবিহীন বার্সার প্রথম জয়

গোলের পর বার্সার উদ্‌যাপন। ছবি: এএফপি

ন্যু ক্যাম্পে ইউক্রেনের দল ডায়নামো কিয়েভকে এক গোলে হারিয়েছে বার্সেলোনা। একমাত্র গোলটি এসেছে জেরার্ড পিকের হেড থেকে।

মেসি চলে যাওয়ার পর থেকে যেন দাঁড়াতেই পারছিল না বার্সেলোনা। লা লিগ বা ইউয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগ—সবখানেই হোঁচট খেয়েই চলছিল। অবশেষে প্রায় ১০ মাস পর চ্যাম্পিয়নস লিগে জয়ের দেখা পেয়েছে পাঁচবারের শিরোপাজয়ীরা।

ন্যু ক্যাম্পে ইউক্রেনের দল ডায়নামো কিয়েভকে এক গোলে হারিয়েছে বার্সেলোনা।

একমাত্র গোলটি এসেছে জেরার্ড পিকের হেড থেকে।

গ্রুপে বায়ার্ন মিউনিখের কাছে হার দিয়ে চ্যাম্পিয়নস লিগের মিশন শুরু করে মেসিবিহীন বার্সা। দ্বিতীয় ম্যাচে বেনফিকার কাছে হেরে কোণঠাসা হয়ে যায় রোনাল্ড কুমানের দল।

ডায়নামো ম্যাচে ঘরের মাঠে তাই জয়ে ফেরাটা খুবই জরুরি হয়ে পড়েছিল বার্সার জন্য। পরের রাউন্ডের আশা জিইয়ে রাখতে গ্রুপের সবচেয়ে সহজ প্রতিপক্ষ ডায়নামো ম্যাচে টার্গেট করেছে কাতালান জায়ান্টরা।

ম্যাচের ৩৬ মিনিটে জর্ডি আলবার ক্রস থেকে গোল করে দলকে এগিয়ে নেন জেরার্ড পিকে। গত বছরের ডিসেম্বরের পর এই প্রথম চ্যাম্পিয়নস লিগের আসরে মেসি ছাড়া কেউ বার্সার জার্সিতে গোলে নাম লেখাল।

শেষ পর্যন্ত পিকের গোলে জয়ের স্বস্তি নিয়ে মাঠ ছেড়েছে বার্সা।

এ জয়ে নকআউট পর্বে যাওয়ার আশা জিইয়ে রাখল কুমানের বাহিনী। তিন ম্যাচে এক জয় নিয়ে চার দলের গ্রুপে তিনে বার্সা। ৯ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে বায়ার্ন। আর বেনফিকা আছে দুইয়ে।

এ জয়ের স্বস্তি নিয়ে মেসিবিহীন বার্সা মুখোমুখি হবে রিয়াল মাদ্রিদের। মৌসুমের প্রথম এল ক্লাসিকো এটি।

আরও পড়ুন:
আইপিএলে আবারও করোনার আঘাত
জয়ের পর শাস্তি পেলেন মুস্তাফিজদের অধিনায়ক
দুর্দান্ত ফিজ-তিয়াগিতে অবিশ্বাস্য জয় রাজস্থানের
সাকিবকে ছাড়াই মাঠে কলকাতা
পাঁচ মাস পর আবার শুরু আইপিএল

শেয়ার করুন

রোনালডোর গোলে পাঁচ গোলের রোমাঞ্চ জিতল ইউনাইটেড

রোনালডোর গোলে পাঁচ গোলের রোমাঞ্চ জিতল ইউনাইটেড

গোলের পর সতীর্থদের সঙ্গে রোনালডোর উদ্‌যাপন। ছবি: টুইটার

ক্রিস্টিয়ানো রোনালডোর ট্রেডমার্ক হেডে ওল্ড ট্রাফোর্ডে ৩-২ ব্যবধানে জয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছে রেড ডেভিলরা।

ইউয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগ মানেই যেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালডোর গোল। আটালান্টার বিপক্ষে দুবার পিছিয়ে পড়েছিল ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড।

দারুণ প্রত্যাবর্তনে সমতায় থাকা ম্যাচটা যখন ড্রয়ে শেষ হতে চলেছিল, তখন ত্রাণকর্তা হিসেবে হাজির হয়ে দলকে জয় উপহার দিয়েছেন পর্তুগিজ সুপারস্টার।

তার ট্রেডমার্ক হেডে ওল্ড ট্রাফোর্ডে ৩-২ ব্যবধানে জয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছে রেড ডেভিলরা।

লিওনেল মেসির জোড়া গোলে পিএসজির জয়ের ঠিক এক দিন পর এমন করলেন রোনালডো। প্রায় দেড় যুগের দ্বৈরথটা যেন এবারও বজায় রেখেছে এ সুপারস্টার। প্রতিনিয়তই যেন একে অপরকে পুশ করে যাচ্ছেন মেসি-রোনালডো।

ঘরের মাঠে আটালান্টাকে আতিথ্য দেয় ইউনাইটেড। মারিও পাসালিচ এবং মেরিহ ডেমিরালের গোলে স্বাগতিকদের দুবার বড় ধাক্কা দেয় আটালান্টা। দুই গোলে পিছিয়ে থেকে বিরতিতে যায় ইউনাইটেড।

ওই সময় ওল্ড ট্রাফোর্ডজুড়ে দুয়োধ্বনি শুনতে হয় ইউনাইটেডের কোচ ওলে সোলশায়ারকে। দ্বিতীয়ার্ধে ম্যাচের দৃশ্যপট পাল্টায়। মার্কাস রাশফোর্ডের গোলে ব্যবধান কমায় ইউনাইটেড। হ্যারি ম্যাগিউরের গোলে সমতা। স্বস্তি ফিরে ওল্ড ট্রাফোর্ডে।

কিন্তু দারুণ প্রত্যাবর্তনের পর জয় হবে কি? উদ্ধারকর্তা হয়ে হাজির হলেন রোনালডো।

ম্যাচের ৮১ মিনিটে ট্রেডমার্ক হেডে বল জালে জড়িয়ে ট্রাফোর্ড সমর্থকদের উল্লাসে মাতান পর্তুগিজ মহাতারকা।

এ জয়ে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে উঠে গেল রোনালডোরা। তাদের পয়েন্ট ৬। আর তিন পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে আটালান্টা।

আরও পড়ুন:
আইপিএলে আবারও করোনার আঘাত
জয়ের পর শাস্তি পেলেন মুস্তাফিজদের অধিনায়ক
দুর্দান্ত ফিজ-তিয়াগিতে অবিশ্বাস্য জয় রাজস্থানের
সাকিবকে ছাড়াই মাঠে কলকাতা
পাঁচ মাস পর আবার শুরু আইপিএল

শেয়ার করুন

রানরেট মাথায় রেখে পিএনজিকে মোকাবিলা করবে টাইগাররা

রানরেট মাথায় রেখে পিএনজিকে মোকাবিলা করবে টাইগাররা

ওমানে অনুশীলনে বাংলাদেশ জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা। ছবি: বিসিবি

নিউগিনিকে হারিয়ে রানরেটের বিপত্তি এড়িয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়েই সুপার টুয়েলভ নিশ্চিত করতে বদ্ধপরিকর বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের বাছাইপর্বে স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে ছয় রানে হেরে সুপার টুয়েলভে খেলার সম্ভাবনায় ভাটা পড়ে বাংলাদেশের। দ্বিতীয় ম্যাচে ওমানের বিপক্ষে ২৬ রানের দুর্দান্ত জয় পাওয়ায় মূল পর্বে খেলার আশা জিইয়ে রেখেছেন লাল-সবুজের প্রতিনিধিরা।

বাছাইপর্বের শেষ ম্যাচে বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ মুখোমুখি হবে নবাগত পাপুয়া নিউ গিনির (পিএনজি)। আসন্ন এই ম্যাচের ফলাফলের ওপর নির্ভর করছে বাংলাদেশের বিশ্বকাপের ভবিষ্যৎ।

গ্রুপ-বিতে পয়েন্ট তালিকায় সবার ওপরে আছে স্কটল্যান্ড। ২ ম্যাচে তাদের পয়েন্ট চার। রান রেট ০.৫৭৫। দুইয়ে আছে ওমান। দুই ম্যাচে দুই পয়েন্টের সঙ্গে তাদের রান রেট ০.৬১৩। তিনে আছে বাংলাদেশ। ওমানের সমান দুই পয়েন্ট তাদের। তবে টাইগারদের রান রেট ০.৫০।

গ্রুপ-বির শেষ ম্যাচ ডেতে যদি স্কটল্যান্ড ওমানকে হারায় ও বাংলাদেশ পাপুয়া নিউ গিনির বিপক্ষে জয় পায় তাহলে জয়ী দুই দল খেলবে মূল পর্ব বা সুপার টুয়েলভে। বাংলাদেশ গ্রুপ রানার্স আপ ও স্কটল্যান্ড চ্যাম্পিয়ন হিসেবে কোয়ালিফাই করবে।

আর ওমান যদি স্কটল্যান্ডকে হারিয়ে দেয় আর বাংলাদেশ যদি পিএনজিকে হারায় তাহলে তিন দলের পয়েন্ট থাকবে চার। তবে রান রেটে পিছিয়ে যাওয়ায় স্কটল্যান্ড বিদায় নেবে বাছাইপর্ব থেকেই। সে ক্ষেত্রে রানরেটের ভিত্তিতে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে যেতে পারে বাংলাদেশ।

যদি বাংলাদেশ পিএনজির বিপক্ষে অঘটনের শিকার হয় তার পরও তাদের সামনে মূল পর্বে যাওয়ার সুযোগ থাকবে। সে ক্ষেত্রে বাংলাদেশের প্রার্থনা করতে হবে যেন ওমান স্কটল্যান্ডের কাছে বড় ব্যবধানে হারে।

এমন জটিল সমীকরণ সৃষ্টি করে বাংলাদেশ লড়বে ওমানের বিপক্ষে। স্বভাবতই মাহমুদুল্লাহ বাহিনীর লক্ষ্য থাকবে নবাগতদের বিপক্ষে জয় নিয়ে সুপার টুয়েলভ নিশ্চিত করার।

বৃহস্পতিবার পাপুয়া নিউগিনির বিপক্ষে প্রথমবারের মতো লড়বে বাংলাদেশ।

বাছাইপর্বের প্রথম ম্যাচে ওমানের কাছে পাত্তা না পেলেও দ্বিতীয় ম্যাচে স্কটল্যান্ডের ঘাম ঝরিয়ে দিয়েছে প্রথমবারের মতো শর্টার ফরম্যাটের বিশ্বকাপে জায়গা করে নেয়া দলটি। নিউগিনির বিপক্ষে সেই ম্যাচে জয় পেতে বেশ বেগ পেতে হয়েছিল স্কটিশদের।

সেই ম্যাচের আত্মবিশ্বাস কাজে লাগিয়ে আগে থেকেই বাংলাদেশকে ছোটোখাটো হুঁশিয়ারি দিয়ে রেখেছে পিএনজির তারকা ব্যাটার চার্লস আমিনি। স্কটল্যান্ড যেভাবে বাংলাদেশকে হারিয়ে যেমন অঘটনের জন্ম দিয়েছে, ঠিক সেভাবেই আরও একটি অঘটনের জন্ম দিয়ে বাংলাদেশকে হারাতে চায় তারা।

ম্যাচের আগের দিন সংবাদ সম্মেলনে আমিনি বলেন, ‘আমরা নিজেদের চেষ্টায় গর্বিত। প্রথম দুই ম্যাচ হেরেছি। তবে আমরা আশাবাদী যে এখনও আমাদের সুযোগ আছে। প্রথম ম্যাচে স্কটল্যান্ড একটা অঘটন ঘটিয়েছে। আমরাও প্রায় নিশ্চিত যে, একই ঘটনা ঘটাতে পারব আমরা।’

তবে নিউগিনিকে হারিয়ে রানরেটের বিপত্তি এড়িয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়েই সুপার টুয়েলভ নিশ্চিত করতে বদ্ধপরিকর বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান।

সাকিব বলেন, ‘আমরা পাপুয়া নিউগিনির সঙ্গে প্রত্যাশা অনুযায়ী ব্যবধান রেখে যদি জিতি তাহলে আমরা কোয়ালিফাই করব। ওমান-স্কটল্যান্ডের ম্যাচ আছে, একটি দল অবশ্যই হারবে সেখানে। যারা হারবে রান রেটে তারা পিছিয়ে যাবে। আমরা পাপুয়া নিউগিনিকে হারালে আমাদের রান রেট আরও ওপরে চলে যাবে। এখনও গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা আমাদের আছে। সেটা যদি না-ও হয়, আমরা কোয়ালিফাই করার মতো অবস্থানে আছি বলে আমার কাছে মনে হয়।’

বাছাইপর্বের প্রথম থেকেই পাওয়ার প্লে একদমই কাজে লাগাতে পারছেন না টাইগার ব্যাটাররা। পাওয়ার প্লেতে প্রতি ম্যাচেই ধুঁকতে হয়েছে সাকিব-মুশফিকদের। নিউগিনির বিপক্ষ ম্যাচে সেই বিষয়ে লক্ষ রেখে মাঠে নামবেন ও সেটির প্রমাণ দেবেন বলে আশাবাদী বাঁহাতি এই স্পিনার।

এ প্রসঙ্গে সাকিব বলেন, ‘এটা অবশ্যই আমাদের জন্য উদ্বেগের বিষয়। আমাদের ওপরের দিকের ব্যাটসম্যানদের যে স্কিল আছে, সে অনুযায়ী পারফরম্যান্স দেখাতে পারেনি। আশা করি, পরের ম্যাচে প্রদর্শন করবে।’

বাংলাদেশ সময় বিকেল ৪টায় এমিরেতস স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হবে দুই দল। মাহমুদুল্লাহর দল নিশ্চিতভাবেই চাইবে অঙ্কের মারপ্যাঁচ এড়িয়ে বড় জয় নিয়ে পরের পর্ব নিশ্চিত করতে।

আরও পড়ুন:
আইপিএলে আবারও করোনার আঘাত
জয়ের পর শাস্তি পেলেন মুস্তাফিজদের অধিনায়ক
দুর্দান্ত ফিজ-তিয়াগিতে অবিশ্বাস্য জয় রাজস্থানের
সাকিবকে ছাড়াই মাঠে কলকাতা
পাঁচ মাস পর আবার শুরু আইপিএল

শেয়ার করুন

আয়ারল্যান্ডকে দাঁড়াতেই দিল না শ্রীলঙ্কা

আয়ারল্যান্ডকে দাঁড়াতেই দিল না শ্রীলঙ্কা

লঙ্কান ক্রিকেটারদের উইকেট উদযাপন। ছবি: আইসিসি

আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে ৭০ রানের বড় জয় নিয়ে সুপার টুয়েলভের দিকে এক পা দিয়ে রাখল দাশুন শানাকার দল। লঙ্কার করা ১৭১ রানের জবাবে ব্যাট করতে নেমে ১০১ রানে থামে আইরিশদের ইনিংস।

টি-টয়েন্টি বিশ্বকাপের বাছাইপর্বে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচেও জয় বাগিয়ে নিয়েছে শ্রীলঙ্কা। আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে ৭০ রানের বড় জয় নিয়ে সুপার টুয়েলভের দিকে এক পা দিয়ে রাখল দাশুন শানাকার দল।

আবুধাবির শেখ জায়েদ ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টসে জিতে শ্রীলঙ্কাকে ব্যাট করেতে পাঠান আইরিশ দলপতি অ্যান্ডি বলবার্নি।

ব্যাট করতে নেমে শুরুতে বড় রকমের ধাক্কা খায় লঙ্কানরা। দলীয় ৩ রানেই পল স্টার্লিং ও জশ লিটলের বোলিং তোপে সাজঘরে ফিরতে হয় কুশাল পেরেরা, দিনেশ চান্দিমাল ও আভিস্কা ফার্নান্দোকে।

এরপর ওপেনার পাথুম নিশাঙ্কা ও হাসারাঙ্গা ডি সিলভার অবিচ্ছেদ্য ১২৩ রানের জুটিতে ঘুরে দাঁড়ায় শ্রীলঙ্কা।

দলীয় ১৩১ রানে হাসারাঙ্গা ৪৭ বলে ৭১ রানের ঝোড়ো ইনিংস খেলে বিদায় নিলেও উইকেটে থেকে লড়াই চালিয়ে যান নিশাঙ্কা।

৪৭ বলে ৬১ রানের ইনিংস খেলে যখন নিশাঙ্কা মাঠ ছাড়েন ততক্ষণে চ্যালেঞ্জিং স্কোর দাঁড়িয়ে গেছে আয়ারল্যান্ডের সামনে। শেষ পর্যন্ত ৭ উইকেটের খরচায় ১৭১ রানে থামে শ্রীলঙ্কার ইনিংস।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে বলবার্নির ৪১ ও কার্টিস ক্যামফারের ২৪ ছাড়া লঙ্কান বোলারদের সামনে দাঁড়াতেই পারেননি কোনো আইরিশ ব্যাটার। ফলে ১০১ রানে থেমে যায় আয়ারল্যান্ডের রানের চাকা। আর শ্রীলঙ্কা মাঠ ছাড়ে ৭০ রানের বড় জয় নিয়ে।

শ্রীলঙ্কার হয়ে তিনটি উইকেট নেন মাহেশ থিকসানা। দুটি করে উইকেট নেন লাহিরু কুমারা ও চামিক্যা করুনারত্নে। একটি করে উইকেট নেন দুশমান্থা চামিরা ও হাসারাঙ্গা ডি সিলভা।

আরও পড়ুন:
আইপিএলে আবারও করোনার আঘাত
জয়ের পর শাস্তি পেলেন মুস্তাফিজদের অধিনায়ক
দুর্দান্ত ফিজ-তিয়াগিতে অবিশ্বাস্য জয় রাজস্থানের
সাকিবকে ছাড়াই মাঠে কলকাতা
পাঁচ মাস পর আবার শুরু আইপিএল

শেয়ার করুন

এখনও গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হতে পারে বাংলাদেশ

এখনও গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হতে পারে বাংলাদেশ

ওমানের বিপক্ষে ব্যাটিংয়ে সাকিব আল হাসান ও নাঈম শেখ। ছবি: এএফপি

গ্রুপ-বির শেষ ম্যাচ ডেতে যদি স্কটল্যান্ড ওমানকে হারায় ও বাংলাদেশ পাপুয়া নিউ গিনির বিপক্ষে জয় পায় তাহলে জয়ী দুই দল খেলবে মূল পর্ব বা সুপার টুয়েলভে। বাংলাদেশ গ্রুপ রানার্স আপ ও স্কটল্যান্ড চ্যাম্পিয়ন হিসেবে কোয়ালিফাই করবে।

ওমানকে হারিয়ে বিশ্বকাপে টিকে থাকার স্বস্তি পাচ্ছে বাংলাদেশ। তবে গ্রুপ-বি থেকে চ্যাম্পিয়ন হয়ে যেতে পারবে কিনা সেটার জন্য তাদের নির্ভর করতে হচ্ছে নিজেদের ও প্রতিপক্ষের শেষ ম্যাচের ওপর।

বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ মুখোমুখি হচ্ছে পাপুয়া নিউ গিনির (পিএনজি)। একই দিন দ্বিতীয় ম্যাচে ওমান খেলবে স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে। এই দুই ম্যাচেই নির্ধারিত হবে গ্রুপ-বির ভাগ্য।

গ্রুপ-বিতে পয়েন্ট তালিকায় সবার ওপরে আছে স্কটল্যান্ড। ২ ম্যাচে তাদের পয়েন্ট চার। রান রেট ০.৫৭৫। দুইয়ে আছে ওমান। দুই ম্যাচে দুই পয়েন্টের সঙ্গে তাদের রান রেট ০.৬১৩। তিনে আছে বাংলাদেশ। ওমানের সমান দুই পয়েন্ট তাদের। তবে টাইগারদের রান রেট ০.৫০।

গ্রুপ-বির শেষ ম্যাচ ডেতে যদি স্কটল্যান্ড ওমানকে হারায় ও বাংলাদেশ পাপুয়া নিউ গিনির বিপক্ষে জয় পায় তাহলে জয়ী দুই দল খেলবে মূল পর্ব বা সুপার টুয়েলভে। বাংলাদেশ গ্রুপ রানার্স আপ ও স্কটল্যান্ড চ্যাম্পিয়ন হিসেবে কোয়ালিফাই করবে।

আর ওমান যদি স্কটল্যান্ডকে হারিয়ে দেয় আর বাংলাদেশ যদি পিএনজিকে হারায় তাহলে তিন দলের পয়েন্ট থাকবে চার। তবে রান রেটে পিছিয়ে যাওয়ায় স্কটল্যান্ড বিদায় নেবে বাছাইপর্ব থেকেই। সেক্ষেত্রে রানরেটের ভিত্তিতে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে যেতে পারে বাংলাদেশ।

যদি বাংলাদেশ পিএনজির বিপক্ষে অঘটনের শিকার হয় তারপরও তাদের সামনে মূল পর্বে যাওয়ার সুযোগ থাকবে।। সেক্ষেত্রে বাংলাদেশের প্রার্থনা করতে হবে যেন ওমান স্কটল্যান্ডের কাছে বড় ব্যবধানে হারে।

তবে নিশ্চিত ভাবেই সমীকরণের মারপ্যাঁচে যেতে চাইবেন না সাকিব-মুশফিকরা। পিএনজিকে হারিয়ে সুপার টুয়েলভ নিশ্চিত করতে চাইবে টাইগাররা।

আরও পড়ুন:
আইপিএলে আবারও করোনার আঘাত
জয়ের পর শাস্তি পেলেন মুস্তাফিজদের অধিনায়ক
দুর্দান্ত ফিজ-তিয়াগিতে অবিশ্বাস্য জয় রাজস্থানের
সাকিবকে ছাড়াই মাঠে কলকাতা
পাঁচ মাস পর আবার শুরু আইপিএল

শেয়ার করুন

ভিসের হাত ধরে বিশ্বকাপে নামিবিয়ার ইতিহাস

ভিসের হাত ধরে বিশ্বকাপে নামিবিয়ার ইতিহাস

নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে ব্যাট করছেন ভিসে। ছবি: আইসিসি

চ্যালেঞ্জিং স্কোরের জবাবে ব্যাট করতে নেমে ৫২ রানেই তিন উইকেট হারিয়ে বসে নামিবিয়া। এরপর অধিনায়ক এরাসমুসকে সঙ্গে নিয়ে ৯৩ রানের জুটি গড়ে ডেভিড ভিসে দলকে নিয়ে যান জয়ের দোরগোড়ায়।

বাবা নামিবিয়ার নাগরিক হলেও জন্মসূত্রে ডেভিড ভিসে সাউথ আফ্রিকান। খেলেছেন প্রোটিয়া জাতীয় দলেও। কোলপ্যাক চুক্তির কারণে সাউথ আফ্রিকার জাতীয় দলের হয়ে ক্যারিয়ার শেষ হয়ে যার এ অলরাউন্ডারের।

সাউথ আফ্রিকার হয়ে খেলতে না পারলেও ক্রিকেটের সত্ত্বাটা বেঁচে ছিল ভিসের। সেকারণে নাম লেখান নামিবিয়ার জাতীয় দলে। তার হাত ধরেই বিশ্বকাপে ইতিহাস গড়ল দলটি।

ভিসের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে বাছাইপর্বে শক্তিশালী নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে ৬ উইকেটের জয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছে নামিবিয়া। বিশ্বকাপে প্রথম জয়ের পাশাপাশি নবাগত দলটি বাঁচিয়ে রাখল বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভে খেলার আশা।

আবুধাবির শেখ জায়েদ ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টসে জিতে নেদারল্যান্ডসকে ব্যাটিংয়ে পাঠায় নবাগত নামিবিয়া। ব্যাট করতে নেমে ওপেনার ম্যাক্স ও’ডয়েডের ৫৬ বলে ৭০ ও কলিন অ্যাকারম্যানের ৩২ বলে ৩৫ রানের ইনিংসে ভর করে ৪ উইকেটের খরচায় ১৬৪ রানের পুঁজি পায় ডাচরা।

চ্যালেঞ্জিং স্কোরের জবাবে ব্যাট করতে নেমে ৫২ রানেই তিন উইকেট হারিয়ে বসে নামিবিয়া। এরপর অধিনায়ক গেরহার্ড এরাসমুসকে সঙ্গে নিয়ে ৯৩ রানের জুটি গড়ে ডেভিড ভিসে দলকে নিয়ে যান জয়ের দোরগোড়ায়।

এরাসমুস বিদায় নিলেও লড়াই চালিয়ে যান ভিসে শেষতক দলকে ৬ উইকেটের দুর্দান্ত জয় এনে দিয়ে থামেন তিনি। অপরাজিত থাকেন ৪০ বলে ৬৬ করে।

আরও পড়ুন:
আইপিএলে আবারও করোনার আঘাত
জয়ের পর শাস্তি পেলেন মুস্তাফিজদের অধিনায়ক
দুর্দান্ত ফিজ-তিয়াগিতে অবিশ্বাস্য জয় রাজস্থানের
সাকিবকে ছাড়াই মাঠে কলকাতা
পাঁচ মাস পর আবার শুরু আইপিএল

শেয়ার করুন