সাফে জামালই অধিনায়ক থাকছেন

সাফে জামালই অধিনায়ক থাকছেন

ছবি: বাফুফে

অস্কার ব্রুজন নিজেই জানালেন অধিনায়কে কোনো বদল আসছে না। সাফেও জামাল ভূঁইয়ার হাতেই অধিনায়কের আর্মব্যান্ড উঠছে।বৃহস্পতিবার সাংবাদিকদের এ কথা জানান স্প্যানিশ কোচ।

জাতীয় দলের কোচ হিসেবে বসুন্ধরা কিংসের কোচ অস্কার ব্রুজন দায়িত্ব নেয়ার পর অনেক পরিবর্তন দেখা গেছে। স্কোয়াড থেকে শুরু করে জাতীয় দলের কোচিং স্টাফেও বেশ কিছু পরিবর্তন এসেছে। এমন অবস্থায় আসন্ন সাফে অধিনায়কও বদল হতে যাচ্ছে বলে গুঞ্জন ছিল।

তবে, অস্কার ব্রুজন নিজেই জানালেন অধিনায়কে কোনো বদল আসছে না। সাফেও জামাল ভূঁইয়ার হাতেই অধিনায়কের আর্মব্যান্ড উঠছে।

বৃহস্পতিবার জাতীয় দলের প্রথমদিনের অনুশীলন শেষে সাংবাদিকদের এ কথা জানান স্প্যানিশ কোচ।

অধিনায়ক পরিবর্তন হবে কী না এমন প্রশ্নের অস্কার বলেন, ‘জামাল অধিনায়ক হিসেবে থাকছেন। আমরা পরিবর্তন করতে যাচ্ছি না। আমরা সবাই খুব খুশি। জামাল খুব ভালো কাজ করে। তাই আমি জানি না এই কথা কেনো আসছে। জামাল সেই অধিনায়ক যার সঙ্গে আমরা আলোচনা করেছি। জামাল সেই অধিনায়ক যাকে আমরা চাই।’

এ দিকে টানা কিরগিজস্তান সফর, এএফসি কাপ ও প্রিমিয়ার লিগ চলমান থাকায় খেলোয়াড়রা শারীরিকভাবে ক্লান্ত রয়ে গেছেন কিনা এমন প্রশ্নের উত্তরে অস্কর বলেন, ‘কিছু খেলোয়াড় তিন সপ্তাহ আগে লিগ শেষ করেছে। কিছু খেলোয়াড় এক সপ্তাহ আগে ও কিছু খেলোয়াড় তিন দিন আগে। এখন আমরা জিপিএস দিয়ে তাদের গতিবিধি ও শারীরিক অবস্থা দেখার চেষ্টা করব। তারপরেই জানাতে পারব ওরা কী অবস্থায় আছে।’

প্রথমবারের মতো অস্কার ব্রুজনের অধীনে মাঠের অনুশীলনে নেমেছে জাতীয় ফুটবল দল। প্রথম দিনে খেলোয়াড়দের নিজের পরিকল্পনা জানানো হয়েছে বলে জানান অস্কার ব্রুজন।

একই সঙ্গে ফুটবলারদেরকে পর্যবেক্ষণের মাধ্যমে চূড়ান্ত দল তৈরি করা হবে বলছেন স্প্যানিশ কোচ।

অস্কার বলেন, ‘আমরা তাদের পর্যবেক্ষণ করছি। তাদের অনুসরণ করছি, ভিডিও দেখছি। যে ফুটবল আইডিয়া নিয়ে কাজ করার জন্য নেমেছি সেটা বাস্তবায়নে সব খেলোয়াড় মাঠে নামার জন্য ফিট।’

২৮ সেপ্টেম্বর সাফে অংশ নিতে মালদ্বীপ যাচ্ছে জাতীয় দল। তার আগে চূড়ান্ত দল ঘোষণা করা হবে বলে জানিয়েছে বাফুফে।

আরও পড়ুন:
সাফে চমকে দেবে বাংলাদেশ বিশ্বাস এলিটার
ব্রুজনের ৪-৩-৩ মনে ধরেছে জামালের
ব্রুজনের ভরসার প্রতিদান দিতে চান জুয়েল
জাতীয় দলে নতুন করে ডাক পেলেন আবাহনীর হৃদয়
কিংসলে ভাবাচ্ছেন ব্রুজনকে

শেয়ার করুন

মন্তব্য

সালাহর হ্যাটট্রিকে ইউনাইটেডকে ৫-০ গোলে হারাল লিভারপুল

সালাহর হ্যাটট্রিকে ইউনাইটেডকে ৫-০ গোলে হারাল লিভারপুল

হ্যাটট্রিকের পর মোহামেদ সালাহর উদযাপন। ছবি: টুইটার

সালাহর জাদুতে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডকে ৫-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে লিভারপুল। ইউনাইটেডের মাঠ ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে সালাহর তিন গোলের সঙ্গে স্কোর করেছেন নাবি কিটা ও দিয়োগো জোতা।

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের (ইপিএল) বিগ ম্যাচের আগে মোহামেদ সালাহ জানান, ব্যলন ডর জয়ের স্বপ্ন তার। মেসি, রোনালডোর পর নিজেকে বিশ্বসেরা ফুটবলার হিসেবে দেখতে চান তিনি।

তেমনটা ভাবার কারণও আছে। এবারের মৌসুমে দারুণ ছন্দে আছেন এই মিশরীয়। টানা নয় ম্যাচে গোল পেয়েছেন তিনি। আর ইউনাইটেডের বিপক্ষে হ্যাটট্রিক করে দলের বড় জয়ের নায়ক বনে গেলেন সালাহ।

সালাহর জাদুতে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডকে ৫-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে লিভারপুল। ইউনাইটেডের মাঠ ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে সালাহর তিন গোলের সঙ্গে স্কোর করেছেন নাবি কিটা ও দিয়োগো জোতা।

ম্যাচের শুরু থেকেই ইউনাইটেডকে নাস্তানাবুদকে করতে থাকে লিভারপুল। ১৫ মিনিটে দুই গোলের লিড নিয়ে নেয় সফরকারী দল।

পাঁচ মিনিটের সময় কাউন্টার অ্যাটাক থেকে দলকে লিড এনে দেন কিটা। অ্যাসিস্ট ছিল সালাহর। দশ মিনিটের মধ্যে লিড দ্বিগুন করে লিভারপুল।

ইউনাইটেডের রক্ষণভাগে লুক শ ও হ্যারি ম্যাগুয়ারের ভুলে বল পেয়ে যান কিটা। তিনি বল বাড়ান ট্রেন্ট আলেক্সান্ডার-আরনল্ডকে।

আরনল্ড সিক্স ইয়ার্ড বক্সে খুঁজে নেন জোতাকে। কাছ থেকে গোল করতে ভুল করেননি এই পর্তুগিজ।

দ্রুত দুই গোল হজম করে হতচকিত হয়ে পড়ে ইউনাইটেড। লিভারপুল সে সুযোগে চেপে ধরে সাবেক চ্যাম্পিয়নদের।

বিরতির আগে তিন নম্বর গোলের দেখা পেয়ে যায় সফরকারীরা। জোতার শট ইউনাইটেড গোলকিপার ঠেকিয়ে দিলে ফিরতি বল পেয়ে যান কিটা।

তার বাড়ানো বলে বক্সে থাকা সালাহ নিজের প্রথম গোল পান ম্যাচের। মিনিট সাতেক পর আবারও জোতা-সালাহ কম্বিনেশনে চতুর্থ গোল পেয়ে যায় লিভারপুল।

এবারে অ্যাসিস্ট ছিল জোতার আর গোলদাতা ছিলেন সালাহ। ৪-০ গোলের লিড নিয়ে বিরতিতে যায় লিভারপুল।

দ্বিতীয়ার্ধে বিপদ আরও বাড়ে স্বাগতিক দলের। জর্ডান হেন্ডারসনের বাড়ানো বল থেকে নিজের হ্যাটট্রিক পূর্ণ করেন সালাহ।

ম্যাচের ৫০ মিনিটে স্কোরলাইন দাঁড়ায় লিভারপুলের পক্ষে ৫-০। খারাপ হতে থাকা ম্যাচ আরও খারাপ হয়ে যায় ইউনাইটেডের।

৬০ মিনিটে সরাসরি লাল কার্ড দেখেন পল পগবা। ১০ জনের দলে পরিণত হয় ইউনাইটেড।

বাকি সময়ে ঘরের দল আতঙ্ক নিয়ে কাটালেও লিভারপুল খুব একটা গোল করায় আগ্রহ দেখায়নি। ম্যাচভাগ্য নিশ্চিত হয়ে যাওয়ায় নিজেদের স্ট্যামিনা বাঁচানোতে জোর দেন খেলোয়াড়রা।

ক্রিস্টিয়ানো রোনালডোসহ স্বাগতিক তারকাদের বাজে পারফরম্যান্সে ম্যাচে আর তেমন সুযোগ তৈরি করতে পারেনি ইউনাইটেড। শেষ আধঘণ্টায় আর গোলও করেনি লিভারপুল।

৫-০ গোলে হেরে মাঠ ছাড়ে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। এ জয়ে টেবিলের দুই নম্বরে উঠে এলো লিভারপুল। ইউনাইটেড আছে সাত নম্বরে।

আরও পড়ুন:
সাফে চমকে দেবে বাংলাদেশ বিশ্বাস এলিটার
ব্রুজনের ৪-৩-৩ মনে ধরেছে জামালের
ব্রুজনের ভরসার প্রতিদান দিতে চান জুয়েল
জাতীয় দলে নতুন করে ডাক পেলেন আবাহনীর হৃদয়
কিংসলে ভাবাচ্ছেন ব্রুজনকে

শেয়ার করুন

মৌসুমের প্রথম এল ক্লাসিকো জিতল রিয়াল মাদ্রিদ

মৌসুমের প্রথম এল ক্লাসিকো জিতল রিয়াল মাদ্রিদ

বার্সেলোনার বিপক্ষে জয়সূচক গোলের পর উচ্ছসিত ডাভিড আলাবা। ছবি: টুইটার

প্রথমার্ধে আলাবার করা গোলের সঙ্গে ইনজুরি টাইমে লুকাস ভাসকেসের গোলে বার্সেলোনাকে ২-১ ব্যবধানে হারায় রিয়াল। বার্সেলোনার হয়ে শেষ মুহূর্তে এক গোল শোধ করেন আগুয়েরো। এ জয়ে লিগ টেবিলের শীর্ষে পৌঁছে গেল রিয়াল মাদ্রিদ।

এ বছরই চুক্তির মেয়াদ শেষে বায়ার্ন মিউনিখ ছেড়ে রিয়াল মাদ্রিদে যোগ দেন ডাভিড আলাবা। বায়ার্নে থাকার সময়ে বিখ্যাত ৮-২ গোলে বার্সেলোনাকে হারানোর ম্যাচে তিনি ছিলেন। আর রিয়ালের জার্সিতে প্রথম এল ক্লাসিকোতেও বার্সাকে হারানোর অন্যতম নায়ক হয়ে থাকলেন এই ফুল ব্যাক।

প্রথমার্ধে তার করা গোলের সঙ্গে ইনজুরি টাইমে লুকাস ভাসকেসের গোলে বার্সেলোনাকে ২-১ ব্যবধানে হারায় রিয়াল। বার্সেলোনার হয়ে শেষ মুহূর্তে এক গোল শোধ করেন আগুয়েরো। এ জয়ে লিগ টেবিলের শীর্ষে পৌঁছে গেল রিয়াল মাদ্রিদ।

বার্সেলোনার মাঠ কাম্প ন্যুয়ে শুরু থেকে সমানে সমান লড়াই করে দুই দল। প্রথম সুযোগ পায় অতিথিরা।

২৪ মিনিটের সময় বার্সা গোলকিপার মার্ক-আন্ড্রে টের স্টেগানকে লাইন থেকে টেনে বের করার পরও গোলের দেখা পাননি ভিনিসিয়াস জুনিয়র। টের স্টেগানকে বারদুয়েক কাটিয়ে লক্ষ্যভেদ করতে ব্যর্থ হন এ ব্রাজিলিয়ান।

দুই মিনিট পর মাঠের অন্যপ্রান্তে সুযোগ পায় বার্সেলোনা। মেম্ফিস ডিপায় বক্সে বল বাড়ালে সেটি পেয়ে যান আনসু ফাতি। নিজে শট না নিয়ে বল ছাড়েন সার্জিনিয়ো ডেস্টের উদ্দেশে।

রিয়াল মাদ্রিদ গোলকিপার থিবো কোঁতোয়াকে একা পেয়েও লক্ষ্যভেদ করতে পারেননি ডেস্ট।

সুযোগ হাতছাড়া করার খেসারত দেয় বার্সেলোনা মিনিট সাতেক পর। কাউন্টার অ্যাটাক থেকে বার্সা বক্সের কাছে বল পেয়ে যান আলাবা। বাম পায়ের জোরালো শটে দলকে এগিয়ে নেন এ অস্ট্রিয়ান।

দুর্দান্ত ওই গোলে এগিয়ে থেকে বিরতিতে যায় রিয়াল মাদ্রিদ।

দ্বিতীয়ার্ধে ম্যাচে ফেরার মতো আক্রমণ রচনা করতে পারেনি বার্সেলোনা। ডিপায়, ফাতিরা রিয়ালের রক্ষণে ফাটল ধরাতে পারেননি।

রিয়ালও আক্রমণ রচনার চেয়ে গোল রক্ষা করায় বেশি মনোযোগী ছিল। তবে ইনজুরি টাইমের একেবারে শেষে লুকাস ভাসকেস দলের পক্ষে স্কোরলাইন ২-০ করে দেন আর নিশ্চিত করেন বার্সেলোনার পরাজয়।

এরপর ৯৮ মিনিটে বার্সেলোনার হয়ে বদলি হিসেবে নামা সার্হিও আগুয়েরো গোল করলেও সেটিতে ম্যাচভাগ্য পাল্টায়নি। ২-১ গোলে হেরে মাঠ ছাড়ে বার্সেলোনা।

হারের ফলে নয় ম্যাচে ১৫ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের আটে থাকল কাতালান ক্লাবটি। শিরোপা লড়াইয়ে ফিরতে হলে ঘুরে দাঁড়ানোর উপায় খুঁজে বের করতে হবে রোনাল্ড কুমানের দলকে।

আরও পড়ুন:
সাফে চমকে দেবে বাংলাদেশ বিশ্বাস এলিটার
ব্রুজনের ৪-৩-৩ মনে ধরেছে জামালের
ব্রুজনের ভরসার প্রতিদান দিতে চান জুয়েল
জাতীয় দলে নতুন করে ডাক পেলেন আবাহনীর হৃদয়
কিংসলে ভাবাচ্ছেন ব্রুজনকে

শেয়ার করুন

খেলা নিয়ে জুয়া: আইন চান ব্যারিস্টার সুমন

খেলা নিয়ে জুয়া: আইন চান ব্যারিস্টার সুমন

ব্যারিস্টার সুমন। ছবি: নিউজবাংলা

জুয়াড়ি ও ফিক্সারদের বিরুদ্ধে আওয়াজ উঠিয়েছেন ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন। ক্রিমিনাল অফেন্সে তাদের বিরুদ্ধে মামলার সুযোগ চান এই আইনজীবী।

দীর্ঘদিন ধরে ক্রীড়াজগতের বিভিন্ন অসংগতির বিরুদ্ধে সোচ্চার ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন। প্রায় সময়ই তাকে দেখা যায় ক্রীড়ার উন্নয়নে বিভিন্ন পদক্ষেপ নিতে।

তার ধারাবাহিকতায় এবারে জুয়াড়ি ও ফিক্সারদের বিরুদ্ধে আওয়াজ উঠিয়েছেন তিনি। ক্রিমিনাল অফেন্সে তাদের বিরুদ্ধে মামলার সুযোগ চান এই আইনজীবী।

নিউজবাংলাকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে সুমন বলেন, ‘এই যে ফুটবলে যে জুয়া খেলা হয় বা ম্যাচ ফিক্সিং হয়, বা যে কোনো খেলাতে, এগুলা আসলে ক্রিমিনাল অফেন্স। ফৌজদারি অপরাধ। কিন্তু এগুলো যখন ফুটবল ফেডারেশন বা ক্রিকেটের অ্যাসোশিয়েশনের অধীনে বিচার করা হয়, তখন এগুলোকে ক্রিমিনাল অফেন্সে বিচার করা হয় না। এদেরকে সিভিল পানিশমেন্ট দেয়া হয়।’

উপযুক্ত আইন না থাকায় অনেকেই এর সুবিধা নিয়ে নিজের পকেট ভরছেন দাবি সুমনের। তিনি বলেন, ‘আপনি ফুটবলের নাম দিয়ে ১ হাজার কোটি টাকা লুটপাট করবেন, জুয়া খেলবেন, মানি লন্ডারিং করবেন; এদের বিরুদ্ধে যদি ক্রিমিনাল কোনো ব্যবস্থা না নেন বা কেউ যদি মামলা না করে, তাহলে সে মনে করবে কী যে আমি ফুটবল না খেললাম, ব্যান থাকলাম কিন্তু এক হাজার কোটি টাকা তো বানিয়ে ফেলতে পারলাম।’

এ সব অপরাধীকে কেন ফৌজদারি মামলার আওতায় না হবে না সেটি তিনি কোর্টের মাধ্যমে জানতে চাইবেন বলে জানান নিউজবাংলাকে। একই সঙ্গে নতুন আইন প্রয়োগ করে বর্তমান আইন সংশোধনের পদক্ষেপও নিতে চান।

তিনি বলেন, ‘এগুলা তো আপডেটেড অফেন্স, আমাদের সিস্টেমটা এখনও ডেভেলপ হয়নি। আমরা সিস্টেমের ডেভেলপ করতে চাই। আইন শুরু করতে চাই সংসদের মাধ্যমে। যারা এ ধরণের অপরাধের সঙ্গে জড়িত তাদের বিরুদ্ধে কেন ফৌজদারি মামলা দায়ের করা হবে না সেটি জানতে চাই কোর্টের মাধ্যমে।’

আরও পড়ুন:
সাফে চমকে দেবে বাংলাদেশ বিশ্বাস এলিটার
ব্রুজনের ৪-৩-৩ মনে ধরেছে জামালের
ব্রুজনের ভরসার প্রতিদান দিতে চান জুয়েল
জাতীয় দলে নতুন করে ডাক পেলেন আবাহনীর হৃদয়
কিংসলে ভাবাচ্ছেন ব্রুজনকে

শেয়ার করুন

অন্যরকম অভিষেকের অপেক্ষায় মেসি

অন্যরকম অভিষেকের অপেক্ষায় মেসি

মার্শেইয়ের বিপক্ষে মাঠে নামার আগে অনুশীলনে লিওনেল মেসি। ছবি: টুইটার

বিশ্বকাপ, কোপা, চ্যাম্পিয়নস লিগ ফাইনাল, এল ক্লাসিকো বিশ্বের সব বড় ম্যাচে নাম লিখিয়েছেন মেসি। রোববার রাত ১২টা ৪৫ মিনিটে তার অভিষেক হচ্ছে ফ্রেঞ্চ ফুটবলের ধ্রুপদি ম্যাচ ‘ল্য ক্ল্যসিক’-এ।

প্যারিস সেইন্ট জার্মেইয়ে (পিএসজি) যাওয়ার পর থেকে ভিন্ন রকম অভিজ্ঞতা হচ্ছে লিওনেল মেসির। বার্সেলোনায় ছিলেন দলের সেরা তারকা। পিএসজিতে নেইমার, এমবাপেদের সঙ্গে ভাগ করে নিতে হচ্ছে তারকাখ্যাতি। গোল করার ক্ষেত্রেও এমবাপের সঙ্গে টক্কর দিতে হচ্ছে ছয়বারের ব্যলন ডর জয়ীকে।

তারপরও ধীরে ধীরে পিএসজিকে নিজের ঘর বানিয়ে নিয়েছেন মেসি। প্যারিসিয়ানরা তাকে কেন্দ্র করেই সাজাচ্ছে নিজেদের কৌশল। ফ্রান্সে যাওয়ার পর নতুন এক অভিজ্ঞতা হতে যাচ্ছে মেসির। রাতে তিনি নামছেন ফ্রেঞ্চ ফুটবলের সবচেয়ে বড় ম্যাচে।

ক্যারিয়ারে বড় ম্যাচ কম খেলেননি মেসি। বিশ্বকাপ, কোপা, চ্যাম্পিয়নস লিগ ফাইনাল, এল ক্লাসিকো বিশ্বের সব বড় ম্যাচে নাম লিখিয়েছেন এই আর্জেন্টাইন জাদুকর। রোববার রাত ১২টা ৪৫ মিনিটে তার অভিষেক হচ্ছে ফ্রেঞ্চ ফুটবলের ধ্রুপদি ম্যাচ ‘ল্য ক্ল্যসিক’-এ।

মার্শেইয়ের মাঠে খেলতে যাচ্ছে পিএসজি। রিয়াল-বার্সা, লিভারপুল-ম্যানইউ ও বায়ার্ন-ডর্টমুন্ডের ম্যাচের মতোই ভক্তদের উত্তেজনা চরমে পৌঁছে এই দুই দলের লড়াই নিয়ে। মেসি যোগ হওয়ায় এবারের 'ক্ল্যসিক' পাচ্ছে বাড়তি মাত্রা।

পিএসজির হয়ে ম্যাচে ফিরছেন নেইমার। অর্থাৎ পুরো শক্তির দল নিয়েই মাঠে নামছে লিগের শীর্ষে থাকা পিএসজি।

১০ ম্যাচে ২৭ পয়েন্ট নিয়ে সবার ওপরে আছে মরিসিও পচেত্তিনোর দল। লিগে তারা হেরেছে মাত্র এক ম্যাচ।

অন্যদিকে, আর্জেন্টিনা জাতীয় দলের সাবেক কোচ হোর্হে সাম্পাওলি এখন মার্শেইর দায়িত্বে। যিনি মেসিদের দায়িত্বে ছিলেন ২০১৮ বিশ্বকাপে। আর্জেন্টিনা জাতীয় দলের সঙ্গে তার তিক্ত অভিজ্ঞতার কথা এখনও ভোলেননি ভক্তরা।

মার্শেই দলে মেসি-এমবাপের মতো বিশ্বসেরা না থাকলেও রয়েছেন দিমিত্রি পায়েত ও ম্যাথিউ গুয়েন্দোজির মতো ইউরোপীয় ফুটবলের অভিজ্ঞরা। সঙ্গে নিজের স্টেডিয়ামে দর্শকদের সমর্থন তো থাকছেই।

সবমিলিয়ে পিএসজি-মার্শেই হতে পারে বছরের অন্যতম সেরা লড়াই। দুই দলের সবশেষ ম্যাচে দর্শকশূন্য স্টেডিয়ামে মার্শেই জিতেছিল ১-০ গোলে।

আরও পড়ুন:
সাফে চমকে দেবে বাংলাদেশ বিশ্বাস এলিটার
ব্রুজনের ৪-৩-৩ মনে ধরেছে জামালের
ব্রুজনের ভরসার প্রতিদান দিতে চান জুয়েল
জাতীয় দলে নতুন করে ডাক পেলেন আবাহনীর হৃদয়
কিংসলে ভাবাচ্ছেন ব্রুজনকে

শেয়ার করুন

মোল্লাহাটে ৪ দলীয় ফুটবল টুর্নামেন্ট

মোল্লাহাটে ৪ দলীয় ফুটবল টুর্নামেন্ট

বাগেরহাটের মোল্লাহাটে এমপি শেখ হেলাল উদ্দিন ৪ দলীয় ফুটবল টুর্নামেন্ট শুরু হয়েছে। ছবি: নিউজবাংলা

উদ্বোধনী খেলায় মুখোমুখি হয় আটজুরি ইউনিয়নের শেখ রাসেল ফুটবল দল ও কোদালিয়া ইউনিয়ন ফুটবল দল। টাইব্রেকারে কোদালিয়া ইউনিয়ন ফুটবল দলকে হারিয়ে উদ্বোধনী খেলায় বিজয়ী হয়েছে শেখ রাসেল ফুটবল দল।

বাগেরহাটের মোল্লাহাটে শুরু হয়েছে এমপি শেখ হেলাল উদ্দিন ফুটবল টুর্নামেন্ট শুরু হয়েছে। চার দলের এ টুর্নামেন্টের উদ্বোধন করেন বাগেরহাটের পুলিশ সুপার কেএম আরিফুল হক।

রোববার সকাল সাড়ে ১০টায় মোল্লাহাটে খলিলুর রহমান ডিগ্রি কলেজ মাঠে শুরু হয় টুর্নামেন্টের খেলা।

টুর্নামেন্টে আটজুরি ইউনিয়নের শেখ রাসেল ক্লাব, কোদালিয়া ইউনিয়ন ফুটবল দল, গাওলা ইউনিয়ন ফুটবল দল এবং উদয়পুর ইউনিয়নের শেখ আবু নাসের ফুটবল দল অংশ গ্রহণ করেছে। প্রতিটি দলে রয়েছেন ঢাকা লিগের দেশি ও বিদেশি খেলোয়াড়।

উদ্বোধনী খেলায় মুখোমুখি হয় আটজুরি ইউনিয়নের শেখ রাসেল ফুটবল দল ও কোদালিয়া ইউনিয়ন ফুটবল দল। টাইব্রেকারে কোদালিয়া ইউনিয়ন ফুটবল দলকে হারিয়ে উদ্বোধনী খেলায় বিজয়ী হয়েছে শেখ রাসেল ফুটবল দল।

আরও পড়ুন:
সাফে চমকে দেবে বাংলাদেশ বিশ্বাস এলিটার
ব্রুজনের ৪-৩-৩ মনে ধরেছে জামালের
ব্রুজনের ভরসার প্রতিদান দিতে চান জুয়েল
জাতীয় দলে নতুন করে ডাক পেলেন আবাহনীর হৃদয়
কিংসলে ভাবাচ্ছেন ব্রুজনকে

শেয়ার করুন

তারকাশূন্য এল ক্লাসিকো

তারকাশূন্য এল ক্লাসিকো

ক্লাসিকোর আগে অনুশীলনে রিয়াল মাদ্রিদ। ছবি: টুইটার

বার্সেলোনার মাঠ কাম্প ন্যুয়ে বাংলাদেশ সময় রাত ৮.১৫ মিনিটে প্রথমবার মৌসুমে মুখোমুখি হচ্ছে রিয়াল মাদ্রিদ ও বার্সেলোনা।

বছর চারেক আগেও বিশ্বের সবচেয়ে বড় ক্লাব ফুটবল ম্যাচ ধরা হতো এটিকে। শুরুর সপ্তাহদুয়েক আগে থেকে বিশ্বের তাবৎ সংবাদমাধ্যমের শিরোনামে থাকত ম্যাচের খুঁটিনাটি। বিশ্বের সেরা দুই দলের ফুটবলাররাও তেতে থাকতেন বছরজুড়ে।

‘এল ক্লাসিকোর’ সেই জৌলুস এখন আর নেই। রিয়াল মাদ্রিদ আর বার্সেলোনার ধ্রুপদী লড়াই এখন শুধু আটকে ঐতিহ্যের আর লা লিগার বড় ম্যাচের মোড়কে। বার্সেলোনার মাঠ কাম্প ন্যুয়ে বাংলাদেশ সময় রাত ৮.১৫ মিনিটে প্রথমবার মৌসুমে মুখোমুখি হচ্ছে এই দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বি।

২০১৭ সালে রিয়াল মাদ্রিদ থেকে ক্রিস্টিয়ানো রোনালডোর বিদায়ে শুরু। ২০২১ সালে লিওনেল মেসি যখন বার্সেলোনা ছাড়লেন তখন এল ক্লাসিকো তো বটেই পুরো লা লিগার জনপ্রিয়তা নিয়েই চিন্তিত হয়ে পড়ে কর্তৃপক্ষ।

এক সময় ক্লাসিকো মাতাতেন রোনালডো, রামোস, কাসিয়াস, মেসি, চাভি, ইনিয়েস্তা, সুয়ারেসরা। সেখানে এখন তারকার খাতায় জোর করে বসাতে হয় বেনজেমা, ভিনিসিয়াস, ফাতিদের।

ক্লাসিকোর বৈশ্বিক আকর্ষণ কমে গেলেও দুই ক্লাবের সমর্থকদের কাছে ম্যাচের গুরুত্ব কমছে না। বরং দুই দলের কাছে ম্যাচের গুরুত্ব দুই রকম।

টেবিলের তিনে থাকা রিয়াল আজ জিতলে শীর্ষে ওঠার সুযোগ পাবে। আর আটে থাকা বার্সেলোনার সামনে সুযোগ থাকবে তিনে উঠে আসার ও শিরোপা লড়াইয়ে টিকে থাকার।

ক্লাসিকোতে হারলে বিপর্যস্ত রোনাল্ড কুমানের বিদায় ঘণ্টা বেজে যেতে পারে। মেসিকে ছাড়া ম্যাচ জিততে সংগ্রাম করতে হচ্ছে বার্সেলোনা বসকে।

রিয়ালের বিপক্ষে ফেলিপে কোতিনিয়ো ও উসমান ডেম্বলেকে একাদশে রাখছেন না কুমান তা প্রায় নিশ্চিত। মেম্ফিস ডিপায়, লুক ডি ইয়ং ও আনসু ফাতির ওপরই নির্ভর করবেন কুমান।

তারকাশূন্য এল ক্লাসিকো
অনুশীলনের ফাঁকে বার্সেলোনার খেলোয়াড়রা। ছবি: টুইটার

অন্যদিকে, সেরা তারকাদেরই পাচ্ছে রিয়াল। বেনজেমার সঙ্গে আক্রমণে থাকছেন ভিনিসিয়াস জুনিয়র। টনি ক্রুস, কাসেমিরো ও লুকা মডরিচের অভিজ্ঞতায় নিশ্চিত ভাবে এগিয়ে থাকবে রিয়াল মাদ্রিদ।

দুই দলের সবশেষ তিন ম্যাচে তিনবারই জিতেছে রিয়াল মাদ্রিদ। পরিসংখ্যানকে নিজেদের দিকে আরও ভারী করতে চাইবে লস ব্লাঙ্কোস। অন্যদিকে, বার্সেলোনার কোচের ভবিষ্যত নির্ভর করছে আজকের ম্যাচের ওপর।

বার্সেলোনা একাদশ: টের স্টেগান, আলবা, পিকে, গার্সিয়া, রবার্তো, ফ্র্যাংকি ডি ইয়ং, গাভি, বুস্কেটস, লুক ডি ইয়ং, ডিপায়, ফাতি

রিয়াল একাদশ: কোঁতোয়া, নাচো, মিলিতাও, আলাবা, মেন্ডি, কাসেমিরো, ক্রুস, মডরিচ, রদ্রিগো, ভিনিসিয়াস, বেনজেমা।

আরও পড়ুন:
সাফে চমকে দেবে বাংলাদেশ বিশ্বাস এলিটার
ব্রুজনের ৪-৩-৩ মনে ধরেছে জামালের
ব্রুজনের ভরসার প্রতিদান দিতে চান জুয়েল
জাতীয় দলে নতুন করে ডাক পেলেন আবাহনীর হৃদয়
কিংসলে ভাবাচ্ছেন ব্রুজনকে

শেয়ার করুন

৮১ পূর্ণ করলেন ফুটবল সম্রাট

৮১ পূর্ণ করলেন ফুটবল সম্রাট

বিশ্বকাপের জুলে রিমে ট্রফিতে চুমু খাচ্ছেন পেলে। ছবি: ফিফা

১৯৪০ সালের ২৩ অক্টোবর পেলের জন্ম ব্রাজিলের মিনাস গেরেইস রাজ্যের ত্রেস কোরাকোয়েসে। তার আসল নাম এদসন আরান্তেস দো নাসিমেন্তো। ছোট থেকেই ফুটবলের প্রতি আকৃষ্ট পেলের ক্লাব ফুটবলে অভিষেক ১৫ বছর বয়সে। সান্তোসের জার্সিতে।

১৯৫০ সালের বিশ্বকাপ ফাইনাল। ১০ বছরের ছোট দিকো গেছে বাবার সঙ্গে ব্রাজিলের বিশ্বকাপ জয় দেখতে। উরুগুয়ের বিপক্ষে ব্রাজিলের বিশ্বকাপ শিরোপা লড়াই দেখতে ঐতিহাসিক মারাকানায় হাজির লাখ দেড়েক দর্শক। পুরো দেশে উৎসবের প্রস্তুতি।

কিন্তু সবাইকে হতবাক করে দিয়ে ২-১ গোলে ম্যাচ জিতে বিশ্বকাপ ট্রফি নিয়ে চলে যায় উরুগুয়ে। ফুটবলের দেশে যেন নেমে আসে জাতীয় দুর্যোগ। পুরো ব্রাজিল ভেঙে পড়ে কান্নায়। ছোট দিকো কাঁদতে দেখে বাবাকেও।

ছোট বয়সেই সে মনে মনে প্রতিজ্ঞা করে বিশ্বকাপের ট্রফি এনে দেবে তার বাবাকে। এর ঠিক আট বছর পর বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন হয় ব্রাজিল। আর সেলেকাওদের প্রথম বিশ্বকাপ শিরোপা জয়ের নায়ক ছিলেন সেই দিকো। পুরো বিশ্ব যাকে চিনে নেয় পেলে নামে।

এরপর আরও দুটি বিশ্বকাপ জিতেছেন কালো মানিক হিসেবে খ্যাত পেলে। ২৩ অক্টোবর এ ফুটবল কিংবদন্তির ৮১তম জন্মদিন।

দুই দশকের বেশি লম্বা ক্যারিয়ারে গড়েছেন অসংখ্য রেকর্ড। জিতেছেন তিনটি বিশ্বকাপ, করেছেন এক হাজার গোল। তারপরও পেলেকে মানুষ চেনে তার পরিসংখ্যান দিয়ে নয়, ফুটবল খেলাকে যে নন্দিত রূপ দিয়েছিলেন তার জন্য।

পেলে ফুটবলকে বলতেন ‘দ্য বিউটিফুল গেম’। মাঠে তার দ্রুতগতির, ছন্দময় ও শৈল্পিক ফুটবল ভক্তদের বিশ্বাস দেয় যে আসলেই ফুটবল বিশ্বের সবচেয়ে সুন্দর খেলা।

১৯৪০ সালের ২৩ অক্টোবর পেলের জন্ম ব্রাজিলের মিনাস গেরেইস রাজ্যের ত্রেস কোরাকোয়েসে। তার আসল নাম এদসন আরান্তেস দো নাসিমেন্তো। ছোট থেকেই ফুটবলের প্রতি আকৃষ্ট পেলের ক্লাব ফুটবলে অভিষেক ১৫ বছর বয়সে, সান্তোসের জার্সিতে।

ছোটবেলায় তার প্রিয় খেলোয়াড় ছিলেন আরেক বিখ্যাত ক্লাব ভাস্কো দা গামার গোলকিপার বিলে। বন্ধুরা তাকে বিলে বলে খেপাতো স্কুলে। বিলে থেকেই বদলে তার নাম হয়ে যায় পেলে। হারিয়ে যায় বাবা-মার দেয়া ডাকনাম দিকো।

জাতীয় দলে পেলের অভিষেক হয় মাত্র ১৬ বছর বয়সে। আর্জেন্টিনার বিপক্ষে মারাকানায় হার দিয়ে শুরু হলেও তার হাত ধরে রচিত হয় ব্রাজিলিয়ান ফুটবলের নতুন ইতিহাস।

৫৮ এর পর ১৯৬২ ও ১৯৭০-এর বিশ্বকাপ জেতেন পেলে। ১৯৭০-এ পেলের দলটিকে বলা হয় ফুটবল ইতিহাসের সেরা দল। ৭০ বিশ্বকাপ জিতে ব্রাজিলের জার্সি থেকে অবসর নেন। আরও চার বছর খেলেন সান্তোসের হয়ে।

ক্যারিয়ারের পড়ন্ত বেলায় খেলেন নিউ ইয়র্ক কসমসের হয়ে। আশির দশকে ডিয়েগো ম্যারাডোনার আবির্ভাবের আগে পেলেই ছিলেন ফুটবল রাজত্বের একচ্ছত্র অধিপতি।

আধুনিক যুগেও লিওনেল মেসির সঙ্গে তুলনাতে আসেন পেলে। যুগে যুগে যেন ফুটবলারদের শ্রেষ্ঠত্বের মাপকাঠি বনে গেছেন এই জীবন্ত কিংবদন্তি।

জন্মদিনের আগে শরীর ভালো যাচ্ছিল না পেলের। তবে চিকিৎসা শেষ পুরো সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন তিনি।

নিজের ৮১তম জন্মদিনে ভক্তদের উদ্দেশে মজার এক বার্তা দিয়েছেন ব্রাজিলের সর্বকালের সেরা নাম্বার টেন। ইন্সটাগ্রামে কেকের ছবি দিয়ে লিখেছেন, ‘আমার জন্মদিন আসছে। কেক তৈরি করেছেন তো?’

তার জন্মদিনে শুভেচ্ছা বার্তা দিয়েছে ফিফা, ইউয়েফা বিশ্বজুড়ে অন্যান্য ফুটবল সংস্থা। ফুটবল সম্রাটের জন্মদিন শুধু তার একার নয়, পুরো ফুটবল বিশ্বের যেন উৎসবের মুহূর্ত।

আরও পড়ুন:
সাফে চমকে দেবে বাংলাদেশ বিশ্বাস এলিটার
ব্রুজনের ৪-৩-৩ মনে ধরেছে জামালের
ব্রুজনের ভরসার প্রতিদান দিতে চান জুয়েল
জাতীয় দলে নতুন করে ডাক পেলেন আবাহনীর হৃদয়
কিংসলে ভাবাচ্ছেন ব্রুজনকে

শেয়ার করুন