আকবর-হাসানের হাফ সেঞ্চুরিতে লিডে এইচপি দল

আকবর-হাসানের হাফ সেঞ্চুরিতে লিডে এইচপি দল

ফাইল ছবি

দ্বিতীয় দিনশেষে এ-দলের বিপক্ষে এইচপির সংগ্রহ আট উকেটে ২৩৭ রান। তাদের লিড দাঁড়িয়েছে ছয় রানের। মাহমুদুল হাসান দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৭৩ রান করেন। আকবরে ব্যাট থেকে আসে ৫১।

বাংলাদেশ এ-দলের বিপক্ষে চারদিনের ম্যাচের দ্বিতীয় দিন লিড নিয়েছে বিসিবি হাই পারফরম্যান্স ইউনিট (এইচপি)। দ্বিতীয় দিনশেষে এইচপির সংগ্রহ আট উকেটে ২৩৭ রান। তাদের লিড দাঁড়িয়েছে ছয় রানের।

নিজেদের প্রথম ইনিংসে ২৩১ রানে গুটিয়ে যায় এ-দল। মুমিনুল হক ও নাজমুল হোসেন শান্তর হাফ সেঞ্চুরিতে প্রথম দিন নয় উইকেটে ২২৩ রান সংগ্রহ করে তারা। দ্বিতীয় দিনে আর আট রান যোগ করেই থামে তাদের ইনিংস।

আগের দিনের পাঁচ উইকেটের সঙ্গে এ-দলের শেষ উইকেটটিও নেন মুরাদ হাসান। এই স্পিনার ইনিংসে ৫৫ রানে নেন ছয় উইকেট।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে, দুই ওপেনারকে দ্রুত হারায় এইচপি। পারভেজ হোসেনকে চার রানে আউট করেন আবু জায়েদ। আর তানজিদ হাসান শামীমুলের বলে বোল্ড হন ১১ রান করে।

শাহাদাত হোসেন শূন্য রানে বিদায় নেন খালেদ আহমেদের বলে। ২৩ রানে তিন উইকেট হারিয়ে বিপদে পড়ে এইচপি।

সেখান থেকে দলকে সামাল দেন মাহমুদুল হাসান, আকবর আলি ও তৌহিদ হৃদয়। এই তিনজনের ব্যাটেই মূলত এইচপি ছাড়িয়ে যায় এ-দলের সংগ্রহকে।

মাহমুদুল দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৭৩ রান করেন। আকবরে ব্যাট থেকে আসে ৫১ আর হৃদয় করেন ৪৭।

দিনশেষে রেজাউর রহমান পাঁচ রান নিয়ে খেলছিলেন। এ-দলের হয়ে রাকিবুল হাসান ৬০ রানে তিনটি আর খালেদ আহমেদ ৪৬ রানে দুই উইকেট নেন।

আরও পড়ুন:
বিলালের সেঞ্চুরিতে লিডে আফগান যুবারা
ঐচ্ছিক অনুশীলন চালিয়ে যাচ্ছেন মাহমুদুল্লাহ
ওমানে এক দিনের কোয়ারেন্টিনে থাকবে টাইগাররা

শেয়ার করুন

মন্তব্য

দলের সঙ্গে যোগ দিলেন সাকিব

দলের সঙ্গে যোগ দিলেন সাকিব

সাকিব আল হাসান। ফাইল ছবি

আইপিএল পর্ব চুকিয়ে শনিবার দুপুরে জাতীয় দলের সতীর্থদের সঙ্গে যোগ দেন সাকিব আল হাসান। এর আগে একই দিন ভোর ছয়টায় টিম হোটেলে পৌঁছান তিনি।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের বাছাই পর্ব শুরু হতে যাচ্ছে রোববার। এতে নিজেদের প্রথম ম্যাচে বাংলাদেশ লড়বে স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে।

সে ম্যাচের আগের দিন শনিবার দুপুরে আইপিএল পর্ব চুকিয়ে জাতীয় দলের সতীর্থদের সঙ্গে যোগ দিয়েছেন সাকিব আল হাসান। এর আগে একই দিন ভোর ছয়টায় টিম হোটেলে পৌঁছান সাকিব।

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের মিডিয়া ম্যানেজার রাবিদ ইমাম নিউজবাংলাকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

কোয়ারেন্টিনের জটিলতা এড়াতে আরব আমিরাত থেকে সড়কপথে ওমানে এসেছেন দেশসেরা অলরাউন্ডার।

সড়কপথে আসায় কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে না সাকিবকে। এর ফলে স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে বাংলাদেশের বাছাই পর্বের প্রথম ম্যাচেই থাকতে পারবেন দলের সঙ্গে।

বাছাই পর্বের আগে ওমানের স্থানীয় সময় শনিবার সন্ধ্যা ছয়টায় শেষবারের মতো অনুশীলনে নামবে জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা, তবে এই অনুশীলনে সাকিব থাকবেন কি না, সেই বিষয়ে স্পষ্ট করে কিছু জানা যায়নি।

বাছাই পর্বে স্কটল্যান্ড ছাড়াও বাংলাদেশকে লড়তে হবে স্বাগতিক ওমান ও পাপুয়া নিউগিনির বিপক্ষে। এ পর্বে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হলেই ডমিঙ্গো শিষ্যদের মিলবে বিশ্বকাপের মূল পর্বের টিকিট।

বাছাই পর্বে খেলার আগে সাকিববিহীন তিনটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলেছে টাইগাররা। কেবল ওমানের এ-দলের বিপক্ষে জয়ের দেখা পেয়েছে লাল-সবুজ জার্সিধারীরা। বাকি দুই ম্যাচে শ্রীলঙ্কা ও আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে হারকে সঙ্গী করে মাঠ ছাড়তে হয়েছে লিটন-সৌম্যদের।

আরও পড়ুন:
বিলালের সেঞ্চুরিতে লিডে আফগান যুবারা
ঐচ্ছিক অনুশীলন চালিয়ে যাচ্ছেন মাহমুদুল্লাহ
ওমানে এক দিনের কোয়ারেন্টিনে থাকবে টাইগাররা

শেয়ার করুন

‘ওমান, পাপুয়া নিউগিনির মতো দল’ বাংলাদেশ

‘ওমান, পাপুয়া নিউগিনির মতো দল’ বাংলাদেশ

বাংলাদেশ বনাম স্কটল্যান্ড ম্যাচের একটি মুহূর্ত। ফাইল ছবি

এ পর্যন্ত একবারই বাংলাদেশের মুখোমুখি হয় স্কটল্যান্ড। ২০১২ সালের সে ম্যাচে ৩৪ রানের হার নিয়ে মাঠ ছেড়েছিল বাংলাদেশ।

রাত পোহালেই বেজে উঠবে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের দামামা। সুপার টুয়েলভ নিশ্চিত করতে বাছাই পর্বে বাংলাদেশ প্রথম খেলায় প্রতিপক্ষ হিসেবে পাচ্ছে স্কটল্যান্ডকে।

শক্তি ও সামর্থ্যের দিক দিয়ে বাংলাদেশের চেয়ে অনেক পিছিয়ে স্কটল্যান্ড। শুধু স্কটল্যান্ডই নয়, ওমান, পাপুয়া নিউগিনির নাগালের বাইরের দল বাংলাদেশ। তারপরও বাংলাদেশকে নিয়ে ভয়ের কিছু দেখছেন না স্কটিশ কোচ শেন বার্জার।

এমনকি বাংলাদেশ জাতীয় দলকে ওমান এবং পাপুয়া নিউগিনির সমপর্যায়ে ফেলছেন তিনি। সম্প্রতি ক্রিকেটভিত্তিক ওয়েবসাইট ক্রিকইনফোকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে এমনটাই জানান বার্জার।

তিনি বলেন, ‘গ্রুপ ম্যাচগুলোতে বাংলাদেশকে আমরা পিএনজি বা ওমানের চেয়ে উপরে কোথাও দেখি না। আমরা জানি, সব দলই জয়ের জন্য মরিয়া থাকবে, তবে আমরা চাইব তাদের সবার জন্য সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ হতে। আমরা প্রস্তুত।’

এ পর্যন্ত একবারই বাংলাদেশের মুখোমুখি হয়েছে স্কটল্যান্ড। ২০১২ সালের সে ম্যাচে ৩৪ রানের হার নিয়ে মাঠ ছেড়েছিল বাংলাদেশ। সে অভিজ্ঞতা থেকেই বিশ্বমঞ্চে নিজেদের সেরাটা দিয়ে বাকিদেরও বিপাকে ফেলার বিষয়ে বেশ আত্মবিশ্বাসী এ কোচ।

এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘আমরা জানি, নিজেদের সেরাটা খেলতে পারলে আমরা সব দলের জন্যই বিপদের কারণ হতে পারব। আমাদের পর্যাপ্ত সামর্থ্য আছে।

‘যদি নিজেদের সেরাটা দিতে পারি, যেকোনো দলকে হারাতে পারি আমরা, তা বাংলাদেশ কিংবা ওমান, পাপুয়া নিউগিনি যেই হোক না কেন।’

১৭ অক্টোবর বাছাই পর্বের দ্বিতীয় ম্যাচে বাংলাদেশ মুখোমুখি হবে স্কটল্যান্ডের। এ পর্বে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন অথবা রানার আপ হলেই মূল পর্বের টিকিট মিলবে ডমিঙ্গো শিষ্যদের।

আরও পড়ুন:
বিলালের সেঞ্চুরিতে লিডে আফগান যুবারা
ঐচ্ছিক অনুশীলন চালিয়ে যাচ্ছেন মাহমুদুল্লাহ
ওমানে এক দিনের কোয়ারেন্টিনে থাকবে টাইগাররা

শেয়ার করুন

কোহলিদের দায়িত্ব নিচ্ছেন কিংবদন্তি দ্রাবিড়

কোহলিদের দায়িত্ব নিচ্ছেন কিংবদন্তি দ্রাবিড়

ভারতের সাবেক অধিনায়ক রাহুল দ্রাবিড়। ছবি: এএফপি

ভারতের একাধিক সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, শুক্রবার রাতে আইপিএলের ফাইনালের পর এ বিষয়ে ভারত ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিসিআই) সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলি ও সচিব জয় জয় শাহর সঙ্গে বৈঠক হয়েছে রাহুল দ্রাবিড়ের। বৈঠকে প্রধান কোচের দায়িত্ব নিতে রাজী হয়েছেন তিনি।

ভিরাট কোহলিদের দায়িত্ব নিতে চলেছেন ভারতের কিংবদন্তি ক্রিকেটার রাহুল দ্রাবিড়।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পর থেকে সিনিয়র পুরুষ ক্রিকেট দলের প্রধান কোচের ভার দেয়া হচ্ছে ভারতের সাবেক অধিনায়কের হাতে।

ভারতের একাধিক সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, শুক্রবার রাতে আইপিএলের ফাইনালের পর এ বিষয়ে ভারত ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিসিআই) সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলি ও সচিব জয় জয় শাহর সঙ্গে বৈঠক হয়েছে রাহুল দ্রাবিড়ের। বৈঠকে প্রধান কোচের দায়িত্ব নিতে রাজী হয়েছেন তিনি।

বিসিসিআই সূত্রে বলা হয়েছে ‘দ্রাবিড় ভারতীয় জাতীয় পুরুষ সিনিয়র দলের কোচ হওয়ার বিষয়ে সম্মতি দিয়েছেন। তিনি কয়েকদিন পরেই জাতীয় ক্রিকেট অ্যাকাডেমির প্রধান পদ থেকে ইস্তফা দেবেন।’

গত কয়েক মাস থেকেই প্রধান কোচের দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেয়ার কথা বলে আসছেন রবি শাস্ত্রী। বিশ্বকাপের পরপরেই দায়িত্ব হস্তান্তর করবেন তিনি। তার জায়গায় স্থলাভিষিক্ত হচ্ছেন রাহুল দ্রাবিড়।

তার বেতন ধরা হচ্ছে প্রায় ১১ কোটি টাকা। দ্রাবিড়ের পাশাপাশি ভারতের সাবেক সিম বোলার বোলার পারাস মামব্রেকে বোলিং কোচের দায়িত্বে চূড়ান্ত করা হয়েছে।

ফিল্ডিং কোচ আর শ্রিধরের পরিবর্তে বিসিসিআই এখনও কাউকে চূড়ান্ত করেনি। দলের ব্যাটিং কোচ হিসেবে কাজ চালিয়ে যাবেন ভিক্রম রাঠোর।

বিদেশি কোচ নির্ভরতা ছেড়ে ভারত এখন জাতীয় দলে দেশি কোচদের নিয়োগে বেশি ঝুঁকছে।

আরও পড়ুন:
বিলালের সেঞ্চুরিতে লিডে আফগান যুবারা
ঐচ্ছিক অনুশীলন চালিয়ে যাচ্ছেন মাহমুদুল্লাহ
ওমানে এক দিনের কোয়ারেন্টিনে থাকবে টাইগাররা

শেয়ার করুন

সড়কপথে দুবাই থেকে ওমানে সাকিব

সড়কপথে দুবাই থেকে ওমানে সাকিব

বাসে উঠছেন সাকিব। ছবি: ফাইল ছবি

শনিবার সড়কপথে ৪০০ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে দলে যোগ দেবেন সাকিব। এসে কোয়ারেন্টিন পর্ব পালন করতে হবে না তাকে। সরাসরি যোগ দেবেন দলের সঙ্গে। বিশ্বকাপের প্রথম রাউন্ডে স্কটল্যান্ডের ম্যাচে খেলতে পারছেন সাকিব।

কলকাতা নাইট রাইডার্সের জার্সিতে আইপিএল পর্ব চুকিয়ে ওমানের পথ ধরেছেন সাকিব আল হাসান। জাতীয় ক্রিকেট দলে যোগ দিতে সড়কের পথ ধরে ইতিমধ্যে রওনা দিয়েছেন দেশসেরা এই অলরাউন্ডার।

দলের সূত্রে এ খবর জানা যায়।

শনিবার সড়কপথে ৪০০ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে দলে যোগ দেবেন সাকিব। এসে কোয়ারেন্টিন পর্ব পালন করতে হবে না তাকে। সরাসরি যোগ দেবেন দলের সঙ্গে। বিশ্বকাপের প্রথম রাউন্ডে স্কটল্যান্ডের ম্যাচে খেলতে পারছেন সাকিব।

যদিও দলের সঙ্গে তার যোগ দেয়ার কথা ৮ অক্টোবর। তবে আইপিএলের এলিমিনেটর ও ফাইনালে কলকাতা নাইট রাইডার্স খেলায় দলের সঙ্গে থেকে গেছেন সাকিব। টুর্নামেন্টের ফাইনাল শেষ হয়েছে শুক্রবার। রানার্সআপ হয়ে ওমানের পথে রওনা দিয়েছেন সাকিব।

সাকিবের দলে যোগ দেয়ার বিষয়টি জানিয়েছেন জাতীয় ক্রিকেট দলের নির্বাচক হাবিবুল বাশার সুমন।

তিনি বলেন, ‘যতটুকু জানি, সাকিব সড়কপথে দলের সঙ্গে যোগ দেবে। সে ফ্লাইটের ঝুঁকি নেবে না। যেহেতু বাবল থেকে বাবলে আসবে তাই কোয়ারেন্টিনের কোনো ব্যাপার থাকবে না।’

এক দিন বাদেই শুরু হতে যাচ্ছে বিশ্বকাপের মূল পর্বে বাংলাদেশে জায়গা করে নেয়ার লড়াই। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের বাছাইপর্বে বাংলাদেশকে খেলতে হবে স্কটল্যান্ড, ওমান ও পাপুয়া নিউগিনির বিপক্ষে।

বাছাইপর্বে খেলার আগে সাকিববিহীন তিনটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলেছে টাইগাররা। কেবল ওমানের এ-দলের বিপক্ষে জয়ের দেখা পেয়েছে লাল সবুজ জার্সিধারীরা। বাকি দুই ম্যাচে শ্রীলঙ্কা ও আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে হারকে সঙ্গী করে মাঠ ছাড়তে হয়েছে ডমিঙ্গোর শিষ্যদের।

সাকিবসহ পূর্ণ শক্তির দল নিয়ে বিশ্বকাপের মঞ্চে নামছে বাংলাদেশ।

১৭ অক্টোবর স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে শুরু হবে বাংলাদেশের বাছাইপর্বের খেলা। এরপর ১৯ ও ২১ অক্টোবর বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ হিসেবে থাকছে ওমান ও পাপুয়া নিউগিনি।

আরও পড়ুন:
বিলালের সেঞ্চুরিতে লিডে আফগান যুবারা
ঐচ্ছিক অনুশীলন চালিয়ে যাচ্ছেন মাহমুদুল্লাহ
ওমানে এক দিনের কোয়ারেন্টিনে থাকবে টাইগাররা

শেয়ার করুন

মূল পর্বে সেরাটা খেলবে দল: বাশার

মূল পর্বে সেরাটা খেলবে দল: বাশার

হাবিবুল বাশার। ফাইল ছবি

প্রস্তুতি ম্যাচে জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা জ্বলে উঠতে না পারলেও বাছাইপর্বে এবং মূল পর্বে গিয়ে তারা আত্মপ্রকাশ করবে বলে মনে করছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের নির্বাচক হাবিবুল বাশার।

এক দিন বাদেই শুরু হতে যাচ্ছে বিশ্বকাপের মূল পর্বে বাংলাদেশে জায়গা করে নেয়ার লড়াই। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের বাছাইপর্বে বাংলাদেশকে খেলতে হবে স্কটল্যান্ড, ওমান ও পাপুয়া নিউগিনির বিপক্ষে।

বাছাইপর্বে খেলার আগে তিনটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলেছে টাইগাররা। কেবল ওমানের এ-দলের বিপক্ষে জয়ের দেখা পেয়েছে লাল সবুজ জার্সিধারীরা। বাকি দুই ম্যাচে শ্রীলঙ্কা ও আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে হারকে সঙ্গী করে মাঠ ছাড়তে হয়েছে ডমিঙ্গোর শিষ্যদের।

বাছাইপর্বের আগে শেষ দুই ম্যাচে জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা ছিলেন অফফর্মে। ঘরের মাঠে টানা দুই সিরিজ খেলে আত্মবিশ্বাসের তুঙ্গে থাকা দলটি বিশ্বকাপের ঠিক আগ মুহূর্তের পারফরম্যান্স দিয়ে যেন জানান দিলেন তাদের প্রস্তুতিতে ঘাটতি কতখানি।

টানা দুই হারের পরও আত্মবিশ্বাসের কমতি নেই জাতীয় দলের টিম ম্যানেজমেন্টে। বাছাইপর্বের ম্যাচ দিয়ে তারা মূল পর্বের পারফরম্যান্স কেমন হবে সেটি সম্পর্কে ধারণা করতে নারাজ।

প্রস্তুতি ম্যাচে জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা জ্বলে উঠতে না পারলেও বাছাইপর্বে এবং মূল পর্বে গিয়ে তারা আত্মপ্রকাশ করবে বলে মনে করছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের নির্বাচক হাবিবুল বাশার।

বাশার বলেন, ‘আমি আত্মবিশ্বাসী। এর আগে ভালো খেলে এসেছি, দেশের মাটিতে। দলটাও আত্মবিশ্বাসী। প্রস্তুতি ম্যাচ তো প্রস্তুতি ম্যাচ। সেটা দিয়ে বিচার করতে চাচ্ছি না, ভাবনারও খুব বেশি কিছু নেই।’

তিনি আরও বলেন, ‘বিশ্বকাপে কিসের মোকাবিলা করতে যাচ্ছি, সে সম্পর্কে একটা ধারণা হয়ে গেছে। কত বড় চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হতে হবে সেটার জন্য আমরা প্রস্তুত। মূলপর্বে যখন খেলব, আমরা সেরা পারফরম্যান্সটাই দিতে পারব।’

১৭ অক্টোবর স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে শুরু হবে বাংলাদেশের বাছাই পর্বের খেলা। এরপর ১৯ ও ২১ অক্টোবর বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ হিসেবে থাকছে ওমান এবং পাপুয়া নিউগিনি।

আরও পড়ুন:
বিলালের সেঞ্চুরিতে লিডে আফগান যুবারা
ঐচ্ছিক অনুশীলন চালিয়ে যাচ্ছেন মাহমুদুল্লাহ
ওমানে এক দিনের কোয়ারেন্টিনে থাকবে টাইগাররা

শেয়ার করুন

ব্যর্থ সাকিবে শিরোপা চেন্নাইয়ের

ব্যর্থ সাকিবে শিরোপা চেন্নাইয়ের

কলকাতাকে হারিয়ে চতুর্থ আইপিএল শিরোপা ঘরে তুলল চেন্নাই। ছবি: বিসিসিআই

দুবাই আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে টসে জিতে চেন্নাইকে ব্যাটিংয়ে পাঠান কলকাতা দলপতি ইয়ন মরগান। ব্যাট করতে নেমে দুই ওপেনার ঋতুরাজ গায়কোয়াদ এবং ফাফ দু প্লেসির ব্যাটে ভর করে ওপেনিং জুটিতেই ৬১ রান তোলে চেন্নাই। ২৭ বলে ৩২ করা ঋতুরাজ সুনীল নারিনের শিকার হয়ে ফিরলে ভাঙে সেই জুটি।

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের ফাইনালে কলকাতা নাইট রাইডার্সকে ২৭ রানে হারিয়ে আবারও শিরোপা ঘরে তুলেছে চেন্নাই সুপার কিংস।

এ নিয়ে ছোট ফরম্যাটের ক্রিকেটে চতুর্থবারের মতো শিরোপা জিতল ধোনির দল।

দুবাই আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে শুক্রবার টসে জিতে চেন্নাইকে ব্যাটিংয়ে পাঠান কলকাতা দলপতি ইয়ন মরগান। ব্যাট করতে নেমে দুই ওপেনার ঋতুরাজ গায়কোয়াদ এবং ফাফ দু প্লেসির ব্যাটে ভর করে ওপেনিং জুটিতেই ৬১ রান তোলে চেন্নাই। ২৭ বলে ৩২ করা ঋতুরাজ সুনীল নারিনের শিকার হয়ে ফিরলে ভাঙে সেই জুটি।

এরপর রবিন উথাপ্পাকে নিয়ে কলকাতার বোলারদের ওপর এক প্রকারে স্টিম রোলার চালান দু প্লেসি। ঝোড়ো ব্যাটিংয়ে দলকে নিয়ে যেতে থাকেন বড় সংগ্রহের দিকে।

দলীয় ১২৪ রানে উথাপ্পা থামলেও মঈন আলীকে নিয়ে ব্যাটিং তাণ্ডব চালিয়ে যান দু প্লেসি। ৮৬ রান করে থামেন ইনিংসের শেষ বলে। আর সেই সুবাদে চেন্নাই পায় ১৯৩ রানের বড় পুঁজি।

গত তিন ম্যাচের মতো এই ম্যাচেও নিজের ছায়া হয়েই ছিলেন সাকিব ৩ ওভারে দিয়েছেন ৩৩ রান। থেকেছেন উইকেটশূন্য।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে শুভমন গিল ও ভেঙ্কেটেশ আয়ারের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে সূচনা হয় কলকাতার। দুর্দান্ত এক অর্ধশতক করে আয়ার বিদায় নেয়ার আগে দলীয় স্কোর যোগ করে আসেন ৯১ রানের।

এরপর স্কোরশিটে ২ রান যোগ করতেই আরও দুই ব্যাটার সাজঘরে ফেরে কলকাতার। যার ফলে ৯৩ রানেই তিন উইকেট নেই মরগানের দলের।

দুর্দান্ত ফর্মে থাকা গিলও ফেরেন ৫১ করে চাহারের শিকার হয়ে।

এরপর অধিনায়ক মরগানকে সঙ্গে নিয়ে লড়াই অব্যাহত রাখেন দিনেশ কার্তিক। কিন্তু ৯ রান করেই তাকে সাজঘরে ফিরতে সাহায্য করেন রবীন্দ্র জাদেজা।

ব্যর্থতার চরম দৃষ্টান্ত স্থাপন করে রানের খাতা খোলার আগেই মাঠ ছাড়েন সাকিব। আর সেখানেই এক প্রকারে স্তিমিত হয়ে যায় কলকাতার জয়ের আশা।

পরে অবশ্য শিভম মাভি ও ফার্গুসন ব্যবধান কিছুটা কমানোর চেষ্টা করেন। ১৩ বলে দুটি ছয় ও একটি চার হাঁকিয়ে ২০ রানে ফেরেন মাভি। আর একটি ছয় ও একটি চারে ১৮ রানে অপরাজিত থাকে ফার্গুসন।

এরপর আর খুব একটা প্রভাব ফেলতে পারেননি কলকাতার কোনো ব্যাটারই।

শেষ পর্যন্ত ২০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ১৬৫ রানে শেষ হয় কলকাতার ইনিংস। আর ২৭ রানের হার নিয়েই মাঠ ছাড়তে হয় কলকাতাকে। সেই সঙ্গে বিসর্জন দিয়ে আসতে হয় তাদের তৃতীয় শিরোপার অধরা স্বপ্নটাকেও।

শিরোপা মহেন্দ্র সিং ধোনির হাতে ওঠার দিনে ম্যান অফ দ্য ম্যাচ হন চেন্নাইয়ের ফাফ দু প্লেসি।

আরও পড়ুন:
বিলালের সেঞ্চুরিতে লিডে আফগান যুবারা
ঐচ্ছিক অনুশীলন চালিয়ে যাচ্ছেন মাহমুদুল্লাহ
ওমানে এক দিনের কোয়ারেন্টিনে থাকবে টাইগাররা

শেয়ার করুন

টাইগার ব্যাটারদের জন্য কঠিন পরীক্ষা এবারের বিশ্বকাপ

টাইগার ব্যাটারদের জন্য কঠিন পরীক্ষা এবারের বিশ্বকাপ

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচের একটি মুহূর্ত। ছবি: টুইটার

বাছাইপর্বের আগে ইতোমধ্যে ওমানের ‘এ’ দল, শ্রীলঙ্কা ও আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে তিনটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলেছে বাংলাদেশ। এর মধ্যে একমাত্র ওমানের ‘এ’ দল ব্যতীত অন্য কারো বিপক্ষে জয়ের দেখা পায়নি টিম টাইগার্স।

আগামী ১৭ অক্টোবর থেকে মাঠে গড়াচ্ছে বিশ্বকাপের প্রস্তুতি পর্বের ম্যাচ। যেখানে বাংলাদেশ লড়বে স্কটল্যান্ড, ওমান এবং পাপুয়া নিউগিনির বিপক্ষে।

বাছাইপর্বের আগে ইতোমধ্যে ওমানের ‘এ’ দল, শ্রীলঙ্কা ও আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে তিনটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলেছে বাংলাদেশ। এর ভেতর একমাত্র ওমানের ‘এ’ দল ব্যতীত অন্য কারও বিপক্ষে জয়ের দেখা পায়নি টিম টাইগার্স।

শ্রীলঙ্কা ও আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে হারকে সঙ্গী করেই মাঠ ছাড়তে হয়েছে টাইগারদের। দুটো ম্যাচেই ব্যর্থতার বেড়াজাল ছিঁড়ে বের হতে পারেননি জাতীয় দলের ব্যাটসম্যানরা।

বোলাররা মোটামুটি ধারাবাহিক থাকলেও আরব আমিরাতের শেষ দুটি ম্যাচে যেই দায়িত্বশীলতার পরিচয় ব্যাটাররা দিয়েছেন তাতে তারা যে ভোগান্তির অপর নাম হতে পারেন আসন্ন বিশ্ব মঞ্চে সেটি নিয়ে আপাতদৃষ্টিতে সন্দেহের খুব একটা অবকাশ নেই। অন্তত দলের সাম্প্রতিক পারফরম্যান্স তাই বলে দিচ্ছে।

কেন ভোগাবে তার একটা বিশ্লেষণে আসা যাক এবার।

প্রথমেই আসি ওপেনিং-এ। এবারের বিশ্বকাপে বাংলাদেশ সার্ভিস পাচ্ছে না ভরসাবান ওপেনার তামিম ইকবালের। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে দলের হয়ে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান (৫১৪) যার তিনিই নেই এবারের বিশ্বকাপে।

ঘরের মাঠে অস্ট্রেলিয়া সিরিজ থেকে শুরু করে সবশেষ আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষের ম্যাচ পর্যন্ত জাতীয় দলের ওপেনিং জুটি থেকে আসেনি শক্ত কোনো ভীত, যার ওপর দাঁড়িয়ে অনায়াসেই ইনিংস বড় করতে সক্ষম হন মিডল অর্ডার ব্যাটাররা।

জাতীয় দলের হয়ে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সিরিজে ওপেনার হিসেবে সুপার ফ্লপ ছিলেন সৌম্য সরকার। তাকে সঙ্গ দেয়া নাঈম শেখের ব্যাট থেকেই আসতে দেখা যায়নি বড় কোন ইনিংস।

আরেক ওপেনার লিটন দাস ছিলেন না অজিদের বিপক্ষের সিরিজে। নিউজিল্যান্ড সিরিজে ফিরলেও এখন পর্যন্ত হাসেনি তার ব্যাট। এমনকি শেষ দুটি প্রস্তুতি ম্যাচে ওপেনিং জুটি থেকে আসেনি বড় কোনো ইনিংস।

শুধু ওপেনারই না। ব্যর্থতার গ্লানি কাটছে না মি. ডিপেন্ডেবল মুশফিকুর রহিমেরও। তিনটি প্রস্তুতি ম্যাচেএ ভেতর কেবল একটিতে দুই অঙ্কের রান ছুঁতে পেরেছেন ডানহাতি এই ব্যাটার।

তারকা ক্রিকেটাররা ব্যর্থ হলেও কিছুটা আশা দেখা যাচ্ছে তরুণদের পারফরম্যান্সে। তরুণ ব্যাটার আফিফ হোসেন ধ্রুব, নুরুল হাসান সোহান, শামিম পাটোয়ারি, মাহেদি হাসানের ব্যাটিং আশা দেখাচ্ছে টাইগার ভক্তদের।

চাপের ম্যাচগুলো থেকে দুর্দান্তভাবে বাংলাদেশকে বের করে আনার সাম্প্রতিক বেশ কিছু নজির রয়েছে এই চার তরুণের। যার কারণে স্বভাবতই তাদের থেকে বাড়তি কিছু পাওয়ার প্রত্যাশা করবে ক্রিকেট ভক্তরা।

তবে ব্যাটিংয়ের দিক থেকে আমরা যে কিছুটা পিছিয়ে রয়েছি সেটি স্পষ্ট প্রকাশ পেয়েছে সাবেক ওপেনার জাভেদ ওমর বেলিমের ভাষ্যে।

নিউজবাংলাকে বেলিম বলেন, ‘যদি ওভারঅল পারফরম্যান্সের কথাও বলি সেটাও কিন্তু আমাদের আপ টু দ্য মার্ক হয়নি। এই প্রস্তুতি ম্যাচগুলোতে আমাদের রান পাওয়ার একটা সুযোগ ছিল কিন্তু সেটি হয়নি। ব্যাটিংটা যেভাবে হওয়া দরকার ছিল সেভাবে আসলে করতে পারিনি আমরা।’

তবে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন যারা রান পাননি তারাও মূল খেলায় রানের ধারায় ফিরবেন। যদিও সাম্প্রতিক পারফরম্যান্স বিবেচনায় সেই সম্ভাবনা খুবই ‘কম’।

বেলিমের মতে, ‘টি-টোয়েন্টি এমন একটা ফরম্যাট তাতে এই ম্যাচগুলোতে যারা রান পায়নি তারাও কিন্তু হুট করে ফর্মে ফিরে এসে রান পেতে পারেন। তবে সেটি সবসময় সম্ভব হয়না কারণ টি-টোয়েন্টিতে রিপেয়ারিংয়ের সুযোগটা খুব কম।’

আগামী ১৭ অক্টোবর স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশ শুরু করবে বিশ্বকাপের মূল পর্বে জায়গা করে নেয়ার লড়াই। এরপর ১৯ তারিখ ওমান এবং ২১ অক্টোবর পাপুয়া নিউগিনির বিপক্ষে লড়বে মাহমুদুল্লাহ বাহিনী।

আরও পড়ুন:
বিলালের সেঞ্চুরিতে লিডে আফগান যুবারা
ঐচ্ছিক অনুশীলন চালিয়ে যাচ্ছেন মাহমুদুল্লাহ
ওমানে এক দিনের কোয়ারেন্টিনে থাকবে টাইগাররা

শেয়ার করুন