ওমানে এক দিনের কোয়ারেন্টিনে থাকবে টাইগাররা

ওমানে এক দিনের কোয়ারেন্টিনে থাকবে টাইগাররা

বাংলাদেশের অনুশীলনে মাহমুদুল্লাহর সঙ্গে হেড কোচ রাসেল ডমিঙ্গো। ফাইল ছবি

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) জানিয়েছে এক দিনের কোয়ারেন্টিন করতে হবে মাহমুদুল্লাহর বাহিনীকে। বৃহস্পতিবার বিষয়টি সংবাদমাধ্যমকে নিশ্চিত করেন বিসিবির প্রধান চিকিৎসক দেবাশীষ চৌধুরী।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে ৩ অক্টোবর ওমানে যাচ্ছে জাতীয় দল। প্রস্তুতি ম্যাচ খেলার পর বাছাইপর্বের লড়াইয়ে নামবেন সাকিব-মুশফিকরা।

তবে কোয়ারেন্টিনের হাত থেকে রক্ষা পাচ্ছে না বাংলাদেশ দল। নিউজিল্যান্ড সফরের মতো ১০ দিনের লম্বা সময় বন্দিদশায় থাকতে হচ্ছে না টাইগারদের।

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) জানিয়েছে এক দিনের কোয়ারেন্টিন করতে হবে মাহমুদুল্লাহর বাহিনীকে। বৃহস্পতিবার বিষয়টি সংবাদমাধ্যমকে নিশ্চিত করেন বিসিবির প্রধান চিকিৎসক দেবাশীষ চৌধুরী।

তিনি বলেন, ‘এখন পর্যন্ত যে তথ্য আছে, সেটা অনুযায়ী এখান থেকে করোনা নেগেটিভ টেস্ট রিপোর্ট নিয়ে যেতে হবে। সবাইকে ভ্যাকসিন নিতে হবে। এরপর ওখানে ২৪ ঘণ্টার একটা কোয়ারেন্টিন সময়ের কথা বলা আছে।’

বিশ্বকাপের জন্য অবশ্য কোয়ারেন্টিন পর্ব কিছুটা দীর্ঘ। আইসিসির নিয়ম অনুযায়ী ৬ দিন কোয়ারেন্টিন করতে হবে বলে জানান দেবাশীষ।

তিনি বলেন, ‘ছয় দিনের কোয়ারেন্টিন করার নির্দেশনা আইসিসি আপাতত সবাইকে দিচ্ছে। যে দলগুলো বাবলের মধ্যে আছে তারা যদি চার্টার্ড ফ্লাইট ব্যবহার করে সে ক্ষেত্রে তাদের ৬ দিনের কোয়ারেন্টিন মওকুফ হবে। তবে পূর্ণাঙ্গ নির্দেশনা আমরা এখনো হাতে পাইনি।’

ওমানে ১৭ অক্টোবর থেকে বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে লড়াইয়ে নামবে বাংলাদেশ। ২৩ অক্টোবর শুরু হবে মূল পর্বের খেলা।

আরও পড়ুন:
ইপিএল খেলা তামিমের পুনর্বাসন প্রক্রিয়ার অংশ
‘উপযুক্ত পরিবেশের অভাবে তৈরি হচ্ছে না লেগস্পিনার’
লো-স্কোরিং প্রথম দিনে এগিয়ে বাংলাদেশ যুব দল

শেয়ার করুন

মন্তব্য

স্কটল্যান্ডে স্বপ্নভঙ্গ ওমানের; মূলপর্বে ‘এ’ গ্রুপে বাংলাদেশ

স্কটল্যান্ডে স্বপ্নভঙ্গ ওমানের; মূলপর্বে ‘এ’ গ্রুপে বাংলাদেশ

ফাইল ছবি

ব্যাট করতে নেমে শুধু মাত্র দুই ওপেনারকে হারিয়ে জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় স্কটল্যান্ড। সেই সঙ্গে তারা পেয়ে যায় প্রথমবারের মতো টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের মূল পর্বের টিকিট।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের বাছাইপর্বে ডু ওর ডাই ম্যাচে স্বাগতিক ওমানের বিপক্ষে ৮ উইকেটের জয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছে স্কটল্যান্ড। যার সুবাদে ‘বি’ গ্রুপ থেকে চ্যাম্পিয়ন হয়ে প্রথমবারের মতো টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের মূল পর্বে খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছে দলটি।

ওমানের দেয়া ১২২ রানের সহজ লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ১৮ বল ও ৮ উইকেট হাতে রেখেই কাঙ্ক্ষিত জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় স্কটিশরা।

আর এরই প্রেক্ষিতে প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপের মূল মঞ্চে খেলার স্বপ্নভঙ্গ হয় ওমানের।

‘বি’ গ্রুপে থেকে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হওয়ায় আইসিসির নতুন নিয়ম মোতাবেক বিশ্বকাপের মূল পর্বে স্কটল্যান্ড প্রতিপক্ষ হিসেবে পাবে ভারত, পাকিস্তান, নিউজিল্যান্ড, আফগানিস্তান ও আয়ারল্যান্ডকে (সম্ভাব্য)।

অপরদিকে স্কটল্যান্ড চ্যাম্পিয়ন হওয়ায় পয়েন্ট টেবিলের দুইয়ে থাকা বাংলাদেশকে মূল পর্বে খেলতে হবে ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া, সাউথ আফ্রিকা, ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও শ্রীলঙ্কার (সম্ভাব্য) বিপক্ষে।

ওমানের এমিরেতস স্টেডিয়ামে টসে জিতে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে সবগুলো উইকেট হারিয়ে ১২২ রানের পুঁজি পায় স্বাগতিকরা।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে শুধু মাত্র দুই ওপেনারকে হারিয়েই জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় স্কটল্যান্ড। সেই সঙ্গে তারা পেয়ে যায় প্রথমবারের মতো টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের মূল পর্বের টিকিট।

আরও পড়ুন:
ইপিএল খেলা তামিমের পুনর্বাসন প্রক্রিয়ার অংশ
‘উপযুক্ত পরিবেশের অভাবে তৈরি হচ্ছে না লেগস্পিনার’
লো-স্কোরিং প্রথম দিনে এগিয়ে বাংলাদেশ যুব দল

শেয়ার করুন

কমিটমেন্ট নিয়ে প্রশ্ন তোলা উচিত নয়: মাহমুদুল্লাহ

কমিটমেন্ট নিয়ে প্রশ্ন তোলা উচিত নয়: মাহমুদুল্লাহ

সংবাদ সম্মেলনে মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। ছবি: সংগৃহীত

মাহমুদুল্লাহ বলেন, ‘সবারই ত্যাগ থাকে। কারও ব্যথা থাকে। কারও ইনজুরি থাকে। ওগুলো নিয়ে দিনের পর দিন খেলি। পেছনের গল্পগুলো অনেকেই জানে না। এ জন্য কমিটমেন্ট নিয়ে প্রশ্ন করা ঠিক না।’

ক্রিকেটে সব প্রতিপক্ষই সমান গুরুত্ব পায় প্রতিটা দলের কাছে। কোন দল নবাগত, কোন দল র‍্যাঙ্কিংয়ে নিচে অবস্থান করছে, সেটি বিশ্লেষণ করে খেলার ভবিষ্যৎ নির্ধারণ করা সম্ভব হয় না।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের বাছাইপর্বের প্রথম ম্যাচে পচা শামুকে পা কেটেছিল বাংলাদেশের। অঘটনের জন্ম দিয়ে বাংলাদেশ হেরে বসে তাদের চেয়ে র‍্যাঙ্কিংয়ে ১০ ধাপ পিছিয়ে থাকা স্কটল্যান্ডের কাছে। সে কারণে বরাবরের মতো সমালোচনার তোপে পড়তে হয় দলের সদস্যদের।

এক দিনের বিরতিতে দ্বিতীয় ম্যাচে ওমানের বিপক্ষে দুর্দান্ত জয় বাগিয়ে নিয়ে বিশ্বকাপে টিকে থাকে বাংলাদেশ। সবশেষ পাপুয়া নিউ গিনির বিপক্ষে জয়ের মধ্য দিয়ে সুপার টুয়েলভ নিশ্চিত হয় টাইগারদের।

সুপার টুয়েলভ নিশ্চিতের পর সংবাদ সম্মেলনে মুখ খুললেন মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। ক্ষোভ ঝাড়লেন নেতিবাচক সমালোচকদের ওপর।

রিয়াদ বলেন, ‘সমালোচনা আমাদের স্পর্শ করে। আমরাও মানুষ। আমাদের পরিবার আছে। আমাদের বাবা-মায়েরাও বসে থাকে টিভির সামনে। বাচ্চারাও খেলা দেখে। তারাও মন খারাপ করে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম তো এখন মানুষের হাতের নাগালে। সবার মোবাইলে আছে।’

দলের সদস্যরা নিজেদের উন্নতি করার চেষ্টায় নিয়োজিত বলে জানান টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক। যে ভুলগুলো হয় তা নিয়ে সবচেয়ে বেশি অবগত থাকেন ক্রিকেটাররা।

মাহমুদুল্লাহ যোগ করেন, ‘অনেক প্রশ্ন এসেছে। ব্যাটিংয়ের স্ট্রাইক রেট ও তিন সিনিয়র ক্রিকেটারের স্ট্রাইক রেট নিয়ে। আমরা তো চেষ্টা করেছি। চেষ্টার বাইরে তো আমাদের কাছে কিছু নেই। আপ্রাণ চেষ্টা করেছি। ফল আমাদের পক্ষে আনতে পারিনি।

‘সমালোচনা হবে। সুস্থ সমালোচনা হলে সবার জন্য ভালো। বাংলাদেশের জার্সি যখন গায়ে দিই তখন আমরাও সম্মানিত অনুভব করি। সবারই ত্যাগ থাকে। কারও ব্যথা থাকে। কারও ইনজুরি থাকে। ওগুলো নিয়ে দিনের পর দিন খেলি। পেছনের গল্পগুলো অনেকেই জানে না। এ জন্য কমিটমেন্ট নিয়ে প্রশ্ন করা ঠিক না।’

মাহমুদুল্লাহ বাহিনীর সুপার টুয়েলভ নিশ্চিত হলেও কোন গ্রুপে খেলবে বাংলাদেশ, সেটি এখনও নিশ্চিত হয়নি। ভাগ্য ঝুলে রয়েছে ওমান এবং স্কটল্যান্ডের ম্যাচের ফলাফলের ওপর।

ওমান স্কটল্যান্ডকে ৭৯ রানের বেশি ব্যবধানে হারাতে পারলে বাংলাদেশ গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হবে। ওমান রানার্সআপ হয়ে মূল পর্বে যাবে। আর স্কটল্যান্ড জিতলে বাংলাদেশ গ্রুপে দ্বিতীয় হয়ে মূল পর্ব খেলবে।

আরও পড়ুন:
ইপিএল খেলা তামিমের পুনর্বাসন প্রক্রিয়ার অংশ
‘উপযুক্ত পরিবেশের অভাবে তৈরি হচ্ছে না লেগস্পিনার’
লো-স্কোরিং প্রথম দিনে এগিয়ে বাংলাদেশ যুব দল

শেয়ার করুন

জয়ের পর চাপমুক্ত হয়েছে দল: সাকিব

জয়ের পর চাপমুক্ত হয়েছে দল: সাকিব

ম্যাচ শেষে কথা বলছেন সাকিব আল হাসান। ছবি: টুইটার

সাকিব বলেন, ‘প্রতি ম্যাচে আমাদের আত্মবিশ্বাস বেড়েছে। প্রথম ম্যাচে দুর্ভাগ্য ছিল। টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে একটি জয় পেলে দলের উন্নতি হয়। এখন চাপ অনেকটাই কমে গেছে। এতে করে আমরা আরও ভালো খেলতে পারব।’

স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে বাছাইপর্বের প্রথম ম্যাচে হেরে খাদের কিনারায় চলে গিয়েছিল বাংলাদেশ। সেখান থেকে ওমান ও পাপুয়া নিউ গিনির বিপক্ষে বড় জয় দিয়ে সুপার টুয়েলভ নিশ্চিত করেছে লাল সবুজের প্রতিনিধিরা।

বাছাইপর্ব উৎরে যাওয়ায় খেলোয়াড়দের ভেতর থাকা চাপ কমেছে বলে মনে করছেন সাকিব আল হাসান। ভারমুক্ত হওয়ায় মূল পর্বের ম্যাচে ভালো খেলবে দল এমনটা আশাবাদ তার।

পিএনজির বিপক্ষে ম্যাচ শেষে ম্যাচসেরার পুরস্কার নেয়ার সময় এমনটাই জানান সাকিব।

সাকিব বলেন, ‘প্রতি ম্যাচে আমাদের আত্মবিশ্বাস বেড়েছে। প্রথম ম্যাচে দুর্ভাগ্য ছিল। টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে একটি জয় পেলে দলের উন্নতি হয়। এখন চাপ অনেকটাই কমে গেছে। এতে করে আমরা আরও ভালো খেলতে পারব।’

জিম্বাবুয়ে সিরিজ দিয়ে শুরু। এরপর সাকিবকে টানা খেলতে হয়েছে অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে। এরপর আইপিএল খেলে সরাসরি বিশ্বকাপে যোগ দিয়েছেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার।

টানা মাঠে থাকায় বেশ ক্লান্ত তিনি। তারপরও মূল পর্বে নিজের সেরাটা দিতে চান বাংলাদেশের সাবেক অধিনায়ক।

সাকিব বলেন, ‘আমি কিছুটা ক্লান্ত। পাঁচ-ছয় মাস ধরে টানা ক্রিকেট খেলছি। আমার জন্য অনেক লম্বা একটা সময়। তবে আমি টুর্নামেন্টে ভালো কিছু করতে আশাবাদী।’

পাপুয়া নিউগিনির বিপক্ষে বাংলাদেশ চলতি বিশ্বকাপের সর্বোচ্চ রানের পুঁজি পেয়েছে। উইকেট ভালো থাকায় ও পাওয়ার প্লেকে কাজে লাগানোর কারণে এটি সম্ভব হয়েছে বলে মনে করছেন টি-টোয়েন্টির অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ।

রিয়াদ বলেন, ‘জয়টা দরকার ছিল। আজকে পরিকল্পনামতো খেলতে পেরেছি। উইকেট আগের চেয়ে ভালো ছিল যে কারণে ব্যাটাররা ১৮০ করতে পেরেছে। ব্যাটিং ও বোলিংয়ের প্রথম ছয় ওভার নিয়ে আমরা চিন্তিত ছিলাম। জানতাম যে ভাল শুরু পেলে বড় সংগ্রহ গড়তে পারব।’

সুপার টুয়েলভ নিশ্চিত হলেও এখনও নিশ্চিত হয়নি বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ কারা হতে যাচ্ছে। স্কটল্যান্ড ও ওমানের ম্যাচের ফলের ওপর নির্ভর করবে বাংলাদেশ মূল পর্বে কাদের বিপক্ষে লড়তে যাচ্ছে।

আরও পড়ুন:
ইপিএল খেলা তামিমের পুনর্বাসন প্রক্রিয়ার অংশ
‘উপযুক্ত পরিবেশের অভাবে তৈরি হচ্ছে না লেগস্পিনার’
লো-স্কোরিং প্রথম দিনে এগিয়ে বাংলাদেশ যুব দল

শেয়ার করুন

দারুণ জয়ে সুপার টুয়েলভে বাংলাদেশ

দারুণ জয়ে সুপার টুয়েলভে বাংলাদেশ

পিএনজির বিপক্ষে জয়ের পর বাংলাদেশ দলের উচ্ছ্বাস। ছবি: টুইটার

বাংলাদেশের দেয়া ১৮২ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে সবগুলো উইকেটের বিনিময়ে ৯৭ রানে থেমে যায় পিএনজির ইনিংস। সে সুবাদে মাহমুদুল্লাহ বাহিনী পায় ৮৪ রানের বড় জয়। একই সঙ্গে নিশ্চিত করে সুপার টুয়েলভের টিকিট।

বাছাইপর্বে নিজেদের শেষ ম্যাচে নবাগত পাপুয়া নিউগিনিকে নিয়ে এক রকম ছেলেখেলাই খেলল বাংলাদেশ। সাকিব-সাইফউদ্দিনের বোলিং তোপের সামনে অসহায় আত্মসমর্পণ করে মাঠ ছাড়তে হয় পাপুয়া নিউগিনিকে।

বাংলাদেশের করা সাত উইকেটে ১৮১ রানের জবাবে ব্যাট করতে নেমে ৯৭ রানে গুটিয়ে যায় পিএনজির ইনিংস। সে সুবাদে মাহমুদুল্লাহ বাহিনী পায় ৮৪ রানের বড় জয়। একই সঙ্গে নিশ্চিত করে সুপার টুয়েলভের টিকিট।

টি-টোয়েন্টিতে এটিই বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় জয়। এর আগে ২০১২ সালে আয়ারল্যান্ডকে ৭১ রানে হারায় টাইগাররা।

পাহাড়সম লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই পিএনজির শিবিরে আঘাত হানেন মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন ও তাসকিন আহমেদ। এই দুই পেইসারের পেইস তোপে দলীয় ১১ রানেই ফেরেন পিএনজির দুই ওপেনার।

সেই ধাক্কা কাটতে না কাটতেই শুরু হয় সাকিব আল হাসানের তাণ্ডব। একাই চার উইকেট নিয়ে ধসিয়ে দেন পিএনজি ব্যাটিং লাইনআপ।

দুর্দান্ত বোলিং করে সাকিব ছুঁয়ে ফেলেন সাবেক পাকিস্তানি স্পিনার শাহিদ আফ্রিদির বিশ্বকাপের সর্বোচ্চ উইকেটের রেকর্ডকে।

টাইগার বোলারদের বোলিং তোপের সামনে একে একে অসহায় আত্মসমর্পণ করে ফিরে যেতে হয় পিএনজির ব্যাটারদের। শেষতক ৯৭ রানেই থেমে যায় তাদের রানের চাকা। আর বাংলাদেশ পায় ৮৪ রানের বড় জয়।

বাংলাদেশের হয়ে ৯ রানের খরচায় চার উইকেট নেন সাকিব আল হাসান। সাইফউদ্দিন ও তাসকিন নেন দুটি করে উইকেট। আর একটি করে উইকেট ঝুলিতে পুরেন তাসকিন আহমেদ ও মাহেদী হাসান।

তবে এই ম্যাচে বেশ খরুচে ছিলেন মুস্তাফিজুর রহমান। চার ওভারের স্পেলে দিয়েছেন ৩৪ রান। থেকেছেন উইকেট শূন্য।

এর আগে, ওমানের এমিরেতস স্টেডিয়ামে টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। ব্যাট করতে নেমে ইনিংসের দ্বিতীয় বলেই রানের খাতা খোলার আগে সাঁজঘরে ফেরেন আগের ম্যাচে দুর্দান্ত অর্ধশতক হাঁকানো নাঈম শেখ।

আগের দুই ম্যাচে নিষ্প্রভ থাকা লিটন দাস পিএনজির বিপক্ষে শুরু থেকে জ্বলে ওঠার ইঙ্গিত দিচ্ছিলেন। দুর্দান্ত ভাবে তাকে সঙ্গ দিচ্ছিলেন সাকিব আল হাসানও। দুই জনের ৫০ রানের জুটিতে খেই হারিয়ে ফেলা বাংলাদেশ ফিরে আসে ম্যাচে।

২৩ বলে ২৯ রানে লিটনের বিদায়ে ভাঙ্গে সেই জুটি। দুই অঙ্কের ঘরে পৌঁছানোর আগে আউট হন মুশফিকুর রহিম।

আসাদ ভালার করা ১৪তম ওভারে আগ্রাসী হতে গিয়ে উইকেট বিলিয়ে আসলেন সাকিব আল হাসান। ভালার ওভারের দ্বিতীয় বলে ছক্কা হাঁকানোর দুই বল পর আবার মারতে গিয়ে আউট হন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার। ৩৭ বলে ৪৬ রান আসে তার ব্যাট থেকে।

এরপর মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের ২৭ বলে ৫০ রানের টর্নেডো ইনিংসের কল্যাণে বড় সংগ্রহের দিকে যেতে থাকে বাংলাদেশ।

২৮ বলে ৫০ করে রিয়াদ বিদায় নেয়ার পর বড় শট খেলতে গিয়ে খেই হারিয়ে ফেলে ফিরতে হয় আফিফ হোসেনকে।

ইনিংসের শেষ ওভারে দুই ছক্কায় ২০ রান তুলে নিয়ে বাংলাদেশের স্কোর ১৮০ পেরুতে সাহায্য করেন সাইফউদ্দিন। ৬ বলে ১৯ রানে অপরাজিত থাকেন তিনি।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে এটি বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সংগ্রহ। এর আগে, ২০১৬ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ওমানের বিপক্ষে দুই উইকেটে ১৮০ রান করে টাইগাররা।

আরও পড়ুন:
ইপিএল খেলা তামিমের পুনর্বাসন প্রক্রিয়ার অংশ
‘উপযুক্ত পরিবেশের অভাবে তৈরি হচ্ছে না লেগস্পিনার’
লো-স্কোরিং প্রথম দিনে এগিয়ে বাংলাদেশ যুব দল

শেয়ার করুন

আফ্রিদির রেকর্ডে ভাগ বসালেন সাকিব

আফ্রিদির রেকর্ডে ভাগ বসালেন সাকিব

উইকেট উদযাপন করছেন সাকিব আল হাসান। ফাইল ছবি

পাপুয়া নিউগিনির বিপক্ষে সাকিব তার চার ওভারের স্পেলে রান দিয়েছেন ৯। আর এই ৯ রানের খরচায় ঝুলিতে পুরেছেন ৪টি উইকেট। সে সুবাদে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ৩৯ উইকেট নিয়ে সাকিব ভাগ বসালেন শাহিদ আফ্রিদির রেকর্ডে।

আইসিসির ইভেন্ট মানেই সাকিবের রেকর্ড গড়ার মঞ্চ। চলতি বিশ্বকাপের বাছাইপর্বে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের সর্বোচ্চ উইকেটশিকারি হিসেবে নিজের নাম লেখান সাকিব আল হাসান।

বাছাইপর্বের শেষ ম্যাচে পাপুয়া নিউগিনির বিপক্ষে আরও একটি রেকর্ডের অংশ হলেন সাকিব। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সর্বোচ্চ উইকেটশিকারী হিসেবে সাকিব নাম লেখালেন সাবেক পাকিস্তানি স্পিনার শাহিদ আফ্রিদির নামের পাশে।

পাপুয়া নিউগিনির বিপক্ষে সাকিব তার চার ওভারের স্পেলে রান দিয়েছেন ৯। আর এই ৯ রানের খরচায় ঝুলিতে পুরেছেন ৪টি উইকেট।

সে সুবাদে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ৩৯ উইকেট নিয়ে সাকিব ভাগ বসালেন আফ্রিদির রেকর্ডে।

বিশ্বকাপ শুরুর আগে আফ্রিদির রেকর্ড ভাঙতে সাকিবের দরকার ছিল ১০টি উইকেট। পিএনজির বিপক্ষে ৪ উইকেট নিয়ে সাকিব স্পর্শ করলেন শাহিদ আফ্রিদির করা ৩৯ উইকেটের রেকর্ড।

বাছাইপর্বের প্রথম ম্যাচে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে সাকিব টপকে যান লাসিথ মালিঙ্গার নেয়া ১০৭ উইকেটের রেকর্ডকে। বর্তমানে ১১৫ উইকেট নিয়ে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে সর্বোচ্চ উইকেটশিকারি হিসেবে রয়েছেন বাঁহাতি এই অলরাউন্ডার।

টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে ২ হাজার রান ও ১০০ উইকেটের মালিক একমাত্র তিনিই।

আরও পড়ুন:
ইপিএল খেলা তামিমের পুনর্বাসন প্রক্রিয়ার অংশ
‘উপযুক্ত পরিবেশের অভাবে তৈরি হচ্ছে না লেগস্পিনার’
লো-স্কোরিং প্রথম দিনে এগিয়ে বাংলাদেশ যুব দল

শেয়ার করুন

পিএনজির সামনে বাংলাদেশের রান পাহাড়

পিএনজির সামনে বাংলাদেশের রান পাহাড়

পিএনজির বিপক্ষে ছক্কা হাঁকাচ্ছেন সাকিব। ছবি: আইসিসি

পাপুয়া নিউ গিনির বিপক্ষে আগে ব্যাট করে ১৮১ রানের বড় সংগ্রহ গড়েছে বাংলাদেশ। মাহমুদুল্লাহর ৫০ ও সাকিবের ৪৬ রানের ইনিংসে ১৮০ ছাড়ায় টাইগারদের স্কোর।

সুপার টুয়েলভে জায়গা করে নেয়ার লড়াইয়ে পাপুয়া নিউগিনির সামনে ১৮১ রানের পাহাড় দাঁড় করিয়েছে বাংলাদেশ। নির্ধারিত ২০ ওভারে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৭ উইকেটের খরচায় ১৮১ রান।

ওমানের এমিরেতস স্টেডিয়ামে টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। ব্যাট করতে নেমে ইনিংসের দ্বিতীয় বলেই রানের খাতা খোলার আগে সাঁজঘরে ফেরেন আগের ম্যাচে দুর্দান্ত এক অর্ধশতক হাঁকানো নাঈম শেখ।

আগের দুই ম্যাচে নিষ্প্রভ থাকা লিটন দাস পিএনজির বিপক্ষে শুরু থেকেই জ্বলে ওঠার ইঙ্গিত দিচ্ছিলেন। দুর্দান্ত ভাবে তাকে সঙ্গ দিচ্ছিলেন সাকিব আল হাসানও। দুই জনের ৫০ রানের জুটিতে খেই হারিয়ে ফেলা বাংলাদেশ ফিরে আসে ম্যাচে।

২৩ বলে ২৯ রানে লিটনের বিদায়ে ভাঙ্গে সেই জুটি। দুই অঙ্কের ঘরে পৌঁছানোর আগে আউট হন মুশফিকুর রহিম।

আসাদ ভালার করা ১৪তম ওভারে আগ্রাসী হতে গিয়ে উইকেট বিলিয়ে আসলেন সাকিব আল হাসান। ভালার ওভারের দ্বিতীয় বলে ছক্কা হাঁকানোর দুই বল পর আবার মারতে গিয়ে আউট হন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার। ৩৭ বলে ৪৬ রান আসে তার ব্যাট থেকে।

এরপর মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের ২৭ বলে ৫০ রানের টর্নেডো ইনিংসের কল্যাণে বড় সংগ্রহের দিকে যেতে থাকে বাংলাদেশ।

২৮ বলে ৫০ করে রিয়াদ বিদায় নেয়ার পর বড় শট খেলতে গিয়ে খেই হারিয়ে ফেলে ফিরতে হয় আফিফ হোসেনকে।

ইনিংসের শেষ ওভারে দুই ছক্কায় ২০ রান তুলে নিয়ে বাংলাদেশের স্কোর ১৮০ পেরুতে সাহায্য করেন সাইফউদ্দিন। ৬ বলে ১৯ রানে অপরাজিত থাকেন তিনি।

আরও পড়ুন:
ইপিএল খেলা তামিমের পুনর্বাসন প্রক্রিয়ার অংশ
‘উপযুক্ত পরিবেশের অভাবে তৈরি হচ্ছে না লেগস্পিনার’
লো-স্কোরিং প্রথম দিনে এগিয়ে বাংলাদেশ যুব দল

শেয়ার করুন

পিএনজিকে উড়িয়ে মূলপর্বে বাংলাদেশ

পিএনজিকে উড়িয়ে মূলপর্বে বাংলাদেশ

বোলিংয়ের সময় মুস্তাফিজকে পরামর্শ দিচ্ছেন সাকিব। ছবি: টুইটার

টাইগারদের করা সাত উইকেটে ১৮১ রানের জবাবে ৯৭ রানে অলআউট হয়ে যায় পিএনজি। ব্যাট হাতে ৪৬ রান করার পর বল হাতে চার উইকেট নেন সাকিব আল হাসান। প্রথম ম্যাচে স্কটল্যান্ডের কাছে হারার পর ওমান ও পিএনজির বিপক্ষে টানা দুই ম্যাচ জিতে মূলপর্ব নিশ্চিত করল মাহমুদুল্লাহর দল।

পাপুয়া নিউ গিনিকে (পিএনজি) ৮৪ রানে হারিয়ে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের চূড়ান্ত পর্ব নিশ্চিত করল বাংলাদেশ। টাইগারদের করা সাত উইকেটে ১৮১ রানের জবাবে ৯৭ রানে অলআউট হয়ে যায় পিএনজি। ব্যাট হাতে ৪৬ রান করার পর বল হাতে চার উইকেট নেন সাকিব আল হাসান। প্রথম ম্যাচে স্কটল্যান্ডের কাছে হারার পর ওমান ও পিএনজির বিপক্ষে টানা দুই ম্যাচ জিতে মূলপর্ব নিশ্চিত করল মাহমুদুল্লাহর দল।

আরও পড়ুন:
ইপিএল খেলা তামিমের পুনর্বাসন প্রক্রিয়ার অংশ
‘উপযুক্ত পরিবেশের অভাবে তৈরি হচ্ছে না লেগস্পিনার’
লো-স্কোরিং প্রথম দিনে এগিয়ে বাংলাদেশ যুব দল

শেয়ার করুন