কোপা ফাইনালের পর আবার মুখোমুখি ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা

কোপা ফাইনালের পর আবার মুখোমুখি ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা

জাতীয় দলের অনুশীলনে হালকা মেজাজে লিওনেল মেসি। ছবি: টুইটার

সাও পাওলোতে বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে মুখোমুখি হচ্ছে ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনা। ম্যাচ শুরু হচ্ছে বাংলাদেশ সময় রাত ১টায়।

প্রায় দুই মাস আগে ব্রাজিলের মারাকানায় ঘটে ঐতিহাসিক সেই ঘটনা। আর্জেন্টিনার জার্সি গায়ে লিওনেল মেসি উঁচিয়ে ধরেন কোপা আমেরিকার ট্রফি। সর্বকালের সেরা ফুটবলারের হাতে সেটিই জাতীয় দলের হয়ে প্রথম বড় শিরোপা।

বিশ্বজুড়ে কোটি ভক্তের হৃদয়ে জায়গা করে নেয়া ওই দৃশ্য কাঁটার মতো বিঁধেছে ব্রাজিল ভক্তদের মনে। ফুটবলের তীর্থে ৭০ বছর পর হার মেনে নিতে পারেনি সেলেকাওরা।

সেই হারের প্রতিশোধের পালা এসেছে এবার। রোববার রাতে সাও পাওলোতে বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে মুখোমুখি হচ্ছে দক্ষিণ আমেরিকার দুই প্রতিদ্বন্দ্বী ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনা।



তবে ব্রাজিল কোচ লিওনার্দো তিতে ম্যাচটিকে নিয়ে বাড়তি চিন্তা করতে চান না। মাঠেই যা হওয়ার হবে, সংবাদ সম্মেলনে এমনটা জানালেন ব্রাজিলের হেড কোচ।

বলেন, ‘ছোট থেকে দেখে এসেছি আর্জেন্টিনা-ব্রাজিলের ম্যাচগুলো একেবারে আলাদা। এর গুরুত্ব নিয়ে কোনো ধরনের বিতর্ক নেই। আমরা তাদের সম্মান করি দেখেই তাদের সঙ্গে আমাদের প্রতিদ্বন্দ্বিতা এতটা বিখ্যাত। খেলা শুরুর আগে এত চিন্তা করে লাভ নেই। খেলাতেই সবকিছু হবে। তার আগে শান্ত থাকা জরুরি।’

ইউরোপের শীর্ষ লিগগুলোর বিধি-নিষেধের কারণে ফিরমিনো, ফাবিনিও ও রিচার্লিসনের মতো তারকাদের পায়নি ব্রাজিল। বিষয়টি নিয়ে নাখোশ তিতে।

বলেন, ‘সব দলের জন্য সুযোগ সমান থাকতে হবে। এই নিয়ম শুধু ব্রাজিলের জন্য ক্ষতিকর সেটা নয়। পুরো দক্ষিণ আমেরিকার ফুটবলের জন্যেই খারাপ। বিশ্বকাপের আগে দলগুলো ঠিকমতো প্রস্তুতি নিতে পারবে না, যা ইউরোপের দলগুলোকে বাড়তি সুবিধা দেবে।’

কোপা ফাইনালের পর আবার মুখোমুখি ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা
ব্রাজিল জাতীয় দলের অনুশীলনে নেইমার। ছবি: টুইটার

আর্জেন্টিনার বিপক্ষে দলের সেরা তারকা নেইমারকে পাচ্ছেন তিতে। মার্কিনিয়োস ও কাসেমিরোকেও পাচ্ছেন তিনি। দল গোছানোকে কেক বানানোর সঙ্গে তুলনা করেন এই ব্রাজিলিয়ান ট্যাকটিশিয়ান।

তিতে বলেন, ‘ফুটবল খেলা অনেকটা কেক বানানোর মতো। মানসিক, শারীরিক ও কৌশলগত বিষয়গুলো মিশিয়ে চমৎকার একটা ব্যালান্স আনতে হবে।’

ব্রাজিলের প্রতিপক্ষ শিবিরে খেলোয়াড়দের নিয়ে সমস্যা নেই। ইংলিশ লিগের বিধি-নিষেধ সত্ত্বেও জাতীয় দলের টানে চলে এসেছেন মার্তিনেস-বুয়েন্দিয়া-লো সেলসোরা।

কোপা আমেরিকা চ্যাম্পিয়নরা চিন্তিত লিওনেল মেসির ফিটনেস নিয়ে। ভেনিজুয়েলার বিপক্ষে মারাত্মক ফাউলের শিকার হন আর্জেন্টিনার তালিসমান। মাঠে বেশ কিছুক্ষণ পড়ে ছিলেন তিনি।

ভক্তদের স্বস্তি দিলেন কোচ লিওনেল স্কালোনি। জানালেন আপাতত মেসিকে নিয়ে ভয়ের কিছু নেই।

তিনি বলেন, ‘লিও সুস্থ আছে। ওই দিনের ঘটনাটা ভয়ংকর ছিল। তবে ভাগ্য ভালো যে লিও ঠিক আছে। আমরা ম্যাচের দিন সকালে অনুশীলনে ওর অবস্থা দেখব যে শতভাগ ফিট আছে কি না।’

পুরো স্কোয়াড হাতে পেলেও দলে খেলোয়াড়দের বদল করার ইঙ্গিত দিলেন স্কালোনি। আগের ম্যাচের থেকে কয়েকজনকে বিশ্রাম দিতে চান কোচ।

বলেন, ‘ভেনিজুয়েলার বিপক্ষে খেলার পর ওই খেলোয়াড়দের নিয়ে অনুশীলন করার সুযোগ হয়নি। তবে আমি জানি কীভাবে দলটাকে সাজাব। আগের ম্যাচের থেকে কয়েকটা পরিবর্তন আসতে পারে। পরিবর্তনগুলো আসলে পছন্দ-অপছন্দের ওপর নির্ভর করে না। সবাই পারফর্ম করেছে। সবাই যেন সুযোগ পায় ও দলের যেন ক্ষতি না হয়, সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে।’

সবশেষে বিশ্ব ফুটবলের সুপার ক্লাসিকো নিয়ে অন্য সবার মতোই মুখিয়ে আছেন বলে জানান স্কালোনি। ব্রাজিলের মতো প্রতিপক্ষের বিপক্ষে দল শতভাগ উজাড় করে দিতে প্রস্তুত থাকে এমনটা জানান তিনি।

বলেন, ‘ব্রাজিল বিশ্বের সেরা দলগুলোর একটা। খেলোয়াড় না থাকাটা যেকোনো কোচকে আরও সমৃদ্ধ হওয়ার সুযোগ করে দেয়। প্রতিপক্ষ যে দলই হোক না কেন আমরা একইভাবে খেলব। আমার দল সেরাটা দিতে চায় সব সময়।’

ব্রাজিলের সাও পাওলোর করিন্থিয়ান্স স্টেডিয়ামে ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনার বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের ম্যাচ শুরু হচ্ছে বাংলাদেশ সময় রাত ১টায়।

৭ ম্যাচে ৭ জয় নিয়ে দক্ষিণ আমেরিকা অঞ্চলের বাছাইপর্বে শীর্ষে আছে ব্রাজিল। সাত ম্যাচে চার জয় নিয়ে দুইয়ে আছে আর্জেন্টিনা। দুই দল এখনও বাছাইপর্বে অপরাজিত।

শেয়ার করুন

মন্তব্য

মেসি-দিবালাকে নিয়ে বাছাইপর্বের দল ঘোষণা আর্জেন্টিনার

মেসি-দিবালাকে নিয়ে বাছাইপর্বের দল ঘোষণা আর্জেন্টিনার

লিওনেল মেসি এবং পাওলো দিবালা। ফাইল ছবি

বাছাইপর্বে আগামী ৮ অক্টোবর প্যারাগুয়ে আতিথ্য দেবে আর্জেন্টিনাকে। বাকি দুই ম্যাচে ঘরের মাঠে মেসিরা লড়বে উরুগুয়ে ও পেরুর বিপক্ষে।

দক্ষিণ আমেরিকা অঞ্চলে বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে অক্টোবরের আট তারিখ থেকে আর্জেন্টিনা লড়বে প্যারাগুয়ে, উরুগুয়ে এবং পেরুর বিপক্ষে। এই তিন ম্যাচকে সামনে রেখে ৩০ সদস্যের দল ঘোষণা করেছে আর্জেন্টিনা ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন।

৩০ সদস্যের এই দলে রয়েছেন ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে খেলা তিন ফুটবলার।

কোপা আমেরিকায় দুর্দান্ত পারফরম্যান্স দেখানো গোলকিপার এমিলিয়ানো মার্তিনেস থাকছেন আসন্ন বাছাইপর্বের এই ম্যাচগুলোতে। একইসঙ্গে রয়েছেন টটেনহ্যামে খেলা মিডফিল্ডার জিওভানি লো সেলসো ও ডিফেন্ডার ক্রিস্টিয়ান রোমেরো।

বাছাইপর্বে আগামী ৮ অক্টোবর প্যারাগুয়ে আতিথ্য দেবে আর্জেন্টিনাকে। বাকি দুই ম্যাচে ঘরের মাঠে মেসিরা লড়বে উরুগুয়ে ও পেরুর বিপক্ষে।

ইনিজুরিতে থকা লিওনেল মেসি এবং পাওলো দিবালাও ঠাই পেয়েছেন স্কালোনির ৩০ সদস্যের সেই দলে। হাঁটুর ইনজুরিতে ইতোমধ্যেই পিএসজির হয়ে তিন ম্যাচের জন্য ছিটকে গিয়েছেন মেসি।

অপরদিকে পেশির চোটে ভুগছেন দিবালা। ইনজুরিতে থাকলেও বাছাইপর্বের ম্যাচের আগে তাদের দুইজনকেই পেতে বেশ আশাবাদী আর্জেন্টিনা কোচ লিওনেল স্কালোনি।

বাছাইপর্বে উত্তর আমেরিকার দলগুলোর ভেতর বাছাই পর্বে এখন পর্যন্ত আট ম্যাচের সব কটি জিতে ২৪ পয়েন্ট নিয়ে সবার ওপরে রয়েছে ব্রাজিল। আর ১৮ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে আছে আর্জেন্টিনা।

আর্জেন্টিনা বাছাইপর্বের দল:

গোলরক্ষক: ফ্রাঙ্কো আরমানি, হুয়ান মুসো, এস্তেবান আনদ্রাদা, এমিলিয়ানো মার্তিনেস।

ডিফেন্ডার: গনসালো মন্তিয়েল, নেহুয়েল মলিনা, হুয়ান ফয়েথ, লুকাস মার্তিনেস, হেরমান পেসেলা, নিকোলাস ওটামেন্ডি, ক্রিশ্চিয়ান রোমেরো, লিসান্দ্রো মার্তিনেজ, নিকোলাস তালিয়াফিকো, মার্কোস আকুনা।

মিডফিল্ডার: লিয়ান্দ্রো পারেদেস, গিদো রদ্রিগেস, নিকোলাস ডমিঙ্গেস, জিওভানি লো সেলসো, এজেকিয়েল পালাসিওস, রদ্রিগো ডি পল, পাপু গোমেজ, নিকোলো গঞ্জালেস।

ফরোয়ার্ড: আনহেল দি মারিয়া, লিওনেল মেসি, লুকাস আলারিও, পাওলো দিবালা, লাউতারো মার্টিনেস, হোয়াকিন কোরেয়া, আনহেল কোরেয়া, হুলিয়ান আলভারেস।

শেয়ার করুন

এলিটাকে বাদ দিয়েই সাফের চূড়ান্ত দল ঘোষণা

এলিটাকে বাদ দিয়েই সাফের চূড়ান্ত দল ঘোষণা

অনুশীলনে বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দল। ছবি: বাফুফে

সকাল থেকেই দল ঘোষণা নিয়ে চাঞ্চল্য ছিল ফুটবল পাড়ায়। দুপুরে ঘোষণা করার কথা থাকলেও তা হয়নি।

সোমবার পর্যন্ত ফিফা ক্লিয়ারেন্স হাতে পায়নি বাফুফে। তাই এলিটা কিংসলেকে বাদ রেখে সাফের জন্য জাতীয় দলের চূড়ান্ত স্কোয়াড ঘোষণা করা হয়েছে। ২৩ দলের চূড়ান্ত দল থেকে বাদ পড়েছেন প্রাথমিক দলে থাকা ডিফেন্ডার আতিকুজ্জামান, মেহেদী হাসান ও মানিক মোল্ল্যা।

সোমবার রাতে এক বিবৃতির মাধ্যমে এ দল ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন।

সকাল থেকেই দল ঘোষণা নিয়ে চাঞ্চল্য ছিল ফুটবল পাড়ায়। দুপুরে ঘোষণা করার কথা থাকলেও তা হয়নি।

শেষ পর্যন্ত এলিটাকে ছাড়াই মঙ্গলবার মালদ্বীপে যাচ্ছে জাতীয় ফুটবল দল।

এবার সাফে ভালো খেলার প্রত্যাশা জাতীয় দলের অন্তর্বর্তীকালীন কোচ অস্কার ব্রুজনের। তিনি বলেন, ‘ফুটবল একটা জটিল খেলা। আমরা ছয় দিনের অনুশীলনে নতুন কিছু চেষ্টা করছি। আমরা বাংলাদেশ ফুটবলের উন্নতি চাই। ফুটবলাররা নতুন স্টাইলে খেলবে। আশা করছি সাফের দলগুলোকে হারাতে সক্ষম হব।’

দলের অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়ার কণ্ঠেও একই সুর, ‘গত কয়েক দিন ধরে কঠোর পরিশ্রম করছি। আমরা সবাই সাফে ভালো করতে চাই। আমরা আত্মবিশ্বাসী। আমরা চাই ফাইনালে খেলতে। তবে ধাপে ধাপে এগিয়ে যেতে চাই।’

সাফের জন্য বাংলাদেশের চূড়ান্ত দল:

গোলকিপার: আশরাফুল রানা, আনিসুর রহমান জিকো, শহীদুল আলম সোহেল।

ডিফেন্ডার: বিশ্বনাথ ঘোষ, তারিক কাজী, তপু বর্মন, রহমত মিয়া, রিয়াদুল হাসান, ইয়াসিন আরাফাত, রেজাউল করিম, টুটুল হোসেন।

মিডফিল্ডার: জামাল ভূঁইয়া, সোহেল রানা, সাদ উদ্দিন, রাকিব হোসেন ও আতিকুর রহমান ফাহাদ।

ফরোয়ার্ড: বিপলু আহমেদ, মাহবুবুর রহমান সুফিল, মোহাম্মদ ইব্রাহিম, সুমন রেজা, মতিন মিয়া, জুয়েল রানা।

শেয়ার করুন

চ্যাম্পিয়ন হতেই যাচ্ছে বাংলাদেশ: জামাল

চ্যাম্পিয়ন হতেই যাচ্ছে বাংলাদেশ: জামাল

সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলছেন বাংলাদেশের অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়া। ফাইল ছবি

প্রায় দুই বছর জেমি ডের অধীনে খেলার পর হঠাৎ করে নতুন কোচ অস্কার ব্রুজনের অধীনে অনুশীলন করতে হচ্ছে। এত বড় বদলের সঙ্গে মানিয়ে নিতে দলের সবাই খুব বেশি সময় না পেলেও, সমস্যা হবে না বলেই বিশ্বাস জামালের।

সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের লড়াই শুরু হয়ে যাচ্ছে শুক্রবার। প্রথম দিনই মাঠে নামছে বাংলাদেশ। ১৮ বছর ধরে অধরা শিরোপা জিতে ফুটবল সাফল্যে নতুন ইতিহাস রচনা করতে প্রস্তুত জামাল ভূঁইয়া ও তার দলবল।

দেশ ছাড়ার আগে সবশেষ অনুশীলন সেশন শেষে এমনটা জানান বাংলাদেশের অধিনায়ক জামাল। সাংবাদিকদের বলেন দলে শিরোপা জয়ের আত্মবিশ্বাস আছে।

তিনি বলেন, ‘শেষ কয়েক দিন আমরা কঠিন পরিশ্রম করেছি। খেলোয়াড়রা নিজেদের সেরাটা দিতে চায়। যাতে টুর্নামেন্ট থেকে ভালো কিছু নিয়ে আসতে পারি। এটা ভালো একটা গ্রুপ আর আমরা আত্মবিশ্বাসী। আমাদের লক্ষ্য চ্যাম্পিয়ন হওয়া। ম্যাচ বাই ম্যাচ জিতে ফাইনালে যেতে চাই।’

প্রায় দুই বছর জেমি ডের অধীনে খেলার পর হঠাৎ করে নতুন কোচ অস্কার ব্রুজনের অধীনে অনুশীলন করতে হচ্ছে। এত বড় বদলের সঙ্গে মানিয়ে নিতে দলের সবাই খুব বেশি সময় না পেলেও, সমস্যা হবে না বলেই বিশ্বাস জামালের।

অধিনায়ক বলেন, ‘অস্কারের কৌশলে মানিয়ে নিতে সমস্যা হচ্ছে না। সে যে কৌশলে খেলায় লিগে সেটাতে অনেকে খেলেছে। তাই মনে করি কোনো সমস্যা হবে না।

‘এটা আসলে একটা প্রক্রিয়া, কোনো কিছু এক দিনে হয় না। উনি (ব্রুজন) শুরুর দিনে কীভাবে খেলব সেটা পরিষ্কার করে দিয়েছেন। এটাও উনি জানিয়েছেন যে দলের কাছ থেকে তিনি কী চান। যেটা এটা আসলে গুরুত্বপূর্ণ।’

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে শুরু বাংলাদেশের সাফ মিশন। তাই ওই ম্যাচটিকে আপাতত লক্ষ্যে রেখেছেন তারিক-বিপলুরা।

জামাল বলেন, ‘প্রথম ম্যাচ যেহেতু শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে, তাই আমাদের চিন্তা এখন তাদের নিয়ে। ভারত র‍্যাঙ্কের দিক থেকে ফেভারিট। প্রথম ম্যাচে তিন পয়েন্ট পেলে ভালো শুরু হবে। ভারতের সাথে না হারলে এটা ভালো।’

মঙ্গলবার সকালে মালদ্বীপের উদ্দেশে রওনা দেবে জাতীয় দল।

শেয়ার করুন

মেসিকে থামানোর মিশনে ‘গুরু’ গার্দিওলা

মেসিকে থামানোর মিশনে ‘গুরু’ গার্দিওলা

বার্সেলোনায় পেপ গার্দিওলা ও লিওনেল মেসি। ফাইল ছবি

ছয়বারের ব্যলন ডর জয়ী এখন প্যারিসের সবচেয়ে বড় আকর্ষণ। আবারও ইউরোপ সেরাদের মঞ্চে গার্দিওলার সিটির বিপক্ষে মাঠে নামতে যাচ্ছে মেসির প্যারিস সেইন্ট জার্মেই (পিএসজি)। 

লিওনেল মেসি তার গুরু পেপ গার্দিওলাকে প্রথমবার প্রতিপক্ষ হিসেবে পান ২০১৫ সালে। ইউয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগের সেমিফাইনালে গার্দিওলার বায়ার্ন মিউনিখের মুখোমুখি হয় মেসির বার্সেলোনা।

ওই ম্যাচের আগে গার্দিওলা বলেছিলেন, ‘মেসি সেরা ছন্দে থাকলে তাকে বিশ্বের কোনো ডিফেন্স আটকাতে পারবে না।’

গার্দিওলার কথা সত্যি প্রমাণ করে মেসি ক্যারিয়ারের অন্যতম সেরা পারফরম্যান্স করেন বায়ার্নের বিপক্ষে। বার্সার ৩-০ ব্যবধানের জয়ে জোড়া গোল করেন এই আর্জেন্টাইন তালিসমান।

এরপরের বছর গার্দিওলা ম্যানচেস্টার সিটির কোচ হয়েও মেসির মোকাবিলা করেন। সেবার মেসি হ্যাটট্রিক করে বার্সেলোনাকে ৪-০ গোলে জিতিয়েছিলেন।

এরপর কেটে গেছে পাঁচ বছর। গার্দিওলা সিটিতে থাকলেও মেসি ছেড়েছেন বার্সার পরিচিত ব্লুগ্রানা জার্সি।

প্যারিসের সেরা তারকা এখন ছয়বারের ব্যলন ডর জয়ী। আবারও ইউরোপ সেরাদের মঞ্চে গার্দিওলার সিটির বিপক্ষে মাঠে নামতে যাচ্ছে মেসির প্যারিস সেইন্ট জার্মেই (পিএসজি)।

এই কয় বছরে ফুটবল বিশ্ব পাল্টেছে অনেকটাই। সিটিকে গার্দিওলা পরিণত বিশ্বের অন্যতম সেরা ক্লাবে। আর বার্সেলোনার সঙ্গে একের পর এক হতাশার মৌসুম কাটিয়ে লা লিগার নিয়মের কারণে ক্লাব ছাড়তে বাধ্য হয়েছেন মেসি।

চ্যাম্পিয়নস লিগে নামার আগে লিওনেল মেসিকে নিয়ে সন্দেহ থেকে যাচ্ছে পিএসজি শিবিরে। আর্জেন্টিনার হয়ে বিশ্বকাপ বাছাই খেলার সময় যে চোট পান অধিনায়ক সেটা এখনও পুরো সারেনি।

ফলে পিএসজির হয়ে টানা দুই ম্যাচ মাঠের বাইরে ছিলেন মেসি। তবে ফ্রেঞ্চ জায়ান্টদের প্রত্যাশা ম্যান সিটির বিপক্ষে ফিরছেন এই তালিসমান।

রোববার দলের সঙ্গে অনুশীলন করেছেন মেসি।

অন্যদিকে চেলসিকে হারিয়ে দারুণভাবে ছন্দে ফিরেছে গার্দিওলার সিটি। সার্হিও আগুয়েরো ক্লাব ছাড়ার পর একজন স্ট্রাইকারের অভাবে ভুগেছে তারা। কিন্তু ফিল ফডেনকে ফলস নাইন খেলিয়ে সেই অভাব অনেকটাই দূর করেছেন গার্দিওলা।

সামর্থ্যে ও সাফল্যে পিএসজির চেয়ে অনেকটাই এগিয়ে ম্যান সিটি। পিএসজির ম্যানেজার মরিসিও পচেত্তিনোর বিপক্ষে সাফল্যের পাল্লাটা ভারী গার্দিওলারই।

মেসির খেলাও সবার চেয়ে ভালো জানেন এই কাতালান ট্যাকটিশিয়ান। তবে মেসির জ্বলে ওঠার দিন যে কোনো কৌশলই কাজে লাগবে না সেটাও তার মাথাতে আছে নিশ্চিত ভাবেই।

শেয়ার করুন

ফাতির অন্যরকম অভিষেকের দিনে জয়ে ফিরল বার্সা

ফাতির অন্যরকম অভিষেকের দিনে জয়ে ফিরল বার্সা

ফাতির গোলের পর বার্সার উল্লাস। ছবি: এএফপি

গায়ে কিংবদন্তি ফুটবলার লিওনেল মেসির ১০ নম্বর জার্সি। এই জার্সি নিয়ে অন্যরকম অভিষেকের দিনটি গোল করে রাঙিয়ে রাখলেন স্প্যানিশ স্ট্রাইকার আনসু ফাতি।

ইনজুরি থেকে প্রায় বছর খানেক সময় পরে বার্সার জার্সিতে মাঠে নামলেন আনসু ফাতি। এবার গায়ে সাবেক ফুটবলার লিওনেল মেসির ১০ নম্বর জার্সি। এই জার্সি নিয়ে অন্যরকম অভিষেকের দিনটি গোল করে রাঙিয়ে রাখলেন স্প্যানিশ স্ট্রাইকার।

তার গোলের দিনে বড় জয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছে বার্সেলোনা। লেভান্তের বিপক্ষে ক্যাম্প ন্যুতে ৩-০ ব্যবধানে জিতেছে কাতালান বাহিনী।

এ ম্যাচের মধ্য দিয়ে লিগে দুই ম্যাচ ও চ্যাম্পিয়ন্স লিগসহ তিন ম্যাচের পর জয়ে ফিরেছে রোনাল্ড কুমানের শিষ্যরা।

বায়ার্ন মিউনিকের সঙ্গে হারের তিক্ত অভিজ্ঞতার পর লিগে গ্রানাদা ও কাদিসের বিপক্ষে ড্রয়ের হোঁচট পায় বার্সা।

এই ম্যাচটা ঘরের মাঠে তাই জয়ের প্রত্যাশা নিয়ে নেমেছিল কুমান বাহিনী।

মেমফিস ডিপায়ের পেনাল্টি গোলে ম্যাচের ছয় মিনিটে লিড নেয় স্বাগতিকরা। পরে ম্যাচের ১৪ মিনিটে ওয়ান টু ওয়ানে সার্জিনিও ডেস্তের দারুণ পাস থেকে ডি-বক্সের মাঝখান থেকে দুর্দান্ত একটি গোল করেন লুল ডি ইয়ং।

দুই ডাচ ফুটবলারের গোলের দিনে বার্সার শেষটা রঙিন হলো ফাতির গোলে।

প্রায় মাঝমাঠ থেকে বলটা পেয়ে বক্সের দিকে এগিয়ে যান ১০ নম্বর জার্সিতে প্রথমবার মাঠে নামা ফাতি। ঠিক বক্সের সামনে এসে লেভান্তের ডিফেন্ডারকে ড্রিবলিং করে ডান পায়ের নিচু শটে বল জালে জড়ান এই স্প্যানিশ ফরোয়ার্ড। ম্যাচ তখন ইনজুরি টাইমে চলছিল।

জয়ে ফেরার দিনে পয়েন্ট টেবিলের পাঁচে উঠে এসেছে বার্সেলোনা। ছয় ম্যাচে তাদের ঝুলিতে পয়েন্ট ১২। আর ১৭ পয়েন্ট নিয়ে এক ম্যাচ বেশি খেলে রিয়াল মাদ্রিদ শীর্ষে অবস্থান করছে।

শেয়ার করুন

সাফের শিরোপা ফিরে পাওয়া কি সম্ভব

সাফের শিরোপা ফিরে পাওয়া কি সম্ভব

ছবি: বাফুফে

সাফে বাংলাদেশ সবশেষ ফাইনালে খেলে ২০০৫ সালের করাচিতে। আর শেষবারের মতো সেমিফাইনাল খেলেছে ২০০৯ সালে ঢাকার টুর্নামেন্টে। টুর্নামেন্টে সবশেষ ১২ ম্যাচে মাত্র তিনবার জয় পেয়েছে বাংলাদেশ।

আবারও বাংলাদেশের সামনে সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ ফুটবল। টুর্নামেন্টটি প্রথমে হওয়ার কথা ছিল বাংলাদেশে। পরে করোনার কারণে চলে যায় মালদ্বীপে। দক্ষিণ এশিয়ার বিশ্বকাপখ্যাত এই টুর্নামেন্ট যখনই সামনে আসে তখনই দুঃখ বিলাসে ভাসতে হয় বাংলাদেশকে।

গত ১৮ বছর ধরে যে শিরোপা খরায় ভুগছে লাল-সবুজরা। ২০০৩ সালে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পর থেকে শিরোপা পুনরুদ্ধারের লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ।

মাঝের চার আসরে শিরোপা তো দূরের কথা সেমিফাইনালেও ওঠা সম্ভব হয়নি বাংলাদেশের। কোচ এসেছেন, কোচ বিদায় নিয়েছেন। দলের অনেক খেলোয়াড় এসেছেন। তারপরও অধরা সাফ শিরোপা।

এবার টুর্নামেন্টের ঠিক আগে প্রধান কোচ জেমি ডেকে সরিয়ে জাতীয় দলের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে অস্কার ব্রুজনকে। ফেডারেশনের আশা, শিরোপা জিতবে বা অন্তত ফাইনালে খেলবে বাংলাদেশ।

কোচ বদলের পর ভাগ্য বদল হবে বলে প্রত্যাশা বাফুফের সভাপতি কাজী সালাউদ্দিনের।

‘অস্কার ব্রুজনের অধীনে সাফের ফাইনালে খেলতে পারে বাংলাদেশ’, এমন আশাবাদ তার।

গত তিন বছরে জেমি ডের অধীনে খেলে যাওয়া দলটি এখন নতুন কোচের কৌশল মানিয়ে নেয়ার চেষ্টা করছে। সেই হিসেবে মাত্র ছয় দিনের প্রস্তুতিতে সাফে নামতে চলেছে অস্কার ব্রুজনের দল।

এই কয়দিনে ডের কৌশল ঝেড়ে নতুন কৌশলে ফুটবলাররা কতটা মানিয়ে উঠবেন সেটা একটা প্রশ্ন হতে পারে। তবে অস্কার নিজে আত্মবিশ্বাসী।

তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ নিয়ে যে গল্প হয় যে, রক্ষণ করতে পারে না, গোল দিতে পারে না এই বিশ্বাস ভেঙে দেব।’

মালদ্বীপে এক অক্টোবর থেকে শুরু সাফের আসর। প্রথম দিন শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে শুরু হচ্ছে বাংলাদেশের সাফের মিশন।

সাফের শিরোপা ফিরে পাওয়া কি সম্ভব
অন্তর্বর্তীকালীন কোচ অস্কার ব্রুজনের অধীনে অনুশীলনে বাংলাদেশ দল। ছবি: বাফুফে

অতীত বলছে, সাফে সবশেষ ১২ ম্যাচে মাত্র তিনবার জয় খুঁজে পেয়েছে বাংলাদেশ। এবার গ্রুপ পর্বের সুযোগ নেই। লিগ পদ্ধতিতে টুর্নামেন্ট হবে। শীর্ষ দুই দল ফাইনাল খেলবে।

ভারত-নেপালসহ ঘরের মাঠে মালদ্বীপ ভয়ংকর প্রতিপক্ষ। মালদ্বীপ ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন। ভারত সর্বোচ্চ সাতবারের চ্যাম্পিয়ন। একই সঙ্গে ফেবারিট টুর্নামেন্টের। নেপালও আছে ভালো ফর্মে।

এই চ্যালেঞ্জটা নিতে প্রস্তুত অস্কার। বলেন, ‘নেপাল আর মালদ্বীপ আমাদের প্রকৃত প্রতিদ্বন্দ্বি। আশা করছি ফাইনালে খেলব। আমরা আত্মবিশ্বাসী।’

সাফে বাংলাদেশ সবশেষ ফাইনালে খেলে ২০০৫ সালের করাচিতে। আর শেষবারের মতো সেমিফাইনাল খেলেছে ২০০৯ সালে ঢাকার টুর্নামেন্টে।

সাফে লাল-সবুজদের সেরা সময় গেছে ১৯৯৯ থেকে ২০০৫ পর্যন্ত। এই তিন আসরে তারা ফাইনালিস্ট। শিরোপায় হাত ছোঁয়ানো ২০০৩ সালে নিজ মাঠে।

শেয়ার করুন

বুট তুলে রাখলেন সামির নাসরি

বুট তুলে রাখলেন সামির নাসরি

ছবি: এএফপি

নিষেধাজ্ঞা শেষে ফুটবলে ফিরলেও আক্ষেপ পুষে রেখেছিলেন মার্সেই, ম্যানচেস্টার সিটি ও আর্সেনালের মতো ইউরোপের অন্যতম শীর্ষ দলে খেলা এ ফুটবলার।

ফুটবল থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে অবসরের ঘোষণা দিয়েছেন ফ্রান্সের জাতীয় দলের সাবেক ফুটবলার সামির নাসরি।

রোববার নিজেই বুট জোড়া তুলে রাখার ঘোষণা দেন ৩৪ বছর বয়সী তারকা মিডফিল্ডার।

এর আগে ডোপ নেয়ার অপরাধে ১৮ মাসের জন্য নিষেধাজ্ঞা থেকে ফেরেন নাসরি। ২০১৮ সালে তাকে এই নিষেধাজ্ঞা দিয়েছিল ইউয়েফা।

নিষেধাজ্ঞা শেষে ফুটবলে ফিরলেও আক্ষেপ পুষে রেখেছিলেন মার্সেই, ম্যানচেস্টার সিটি ও আর্সেনালের মতো ইউরোপের অন্যতম শীর্ষ দলে খেলা এ ফুটবলার।

তার আক্ষেপটি ঝরে পড়ে তার বক্তব্যে, ‘এটা শুধু ভিটামিনের জন্য ইনজেকশন ছিল। কারণ আমি অসুস্থ ছিলাম।’

২০০৪ সালে ফরাসী ক্লাব মার্সেই দিয়ে সর্বোচ্চ পর্যায়ে ফুটবল ক্যারিয়ার শুরু সামির নাসরি। সবমিলে ৫৬৩ ম্যাচে ৭৮ গোলের পাশাপাশি ৯৮ গোলে অ্যাসিস্ট করেছেন এ মিডফিল্ডার। জিতেছেন ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের শিরোপাসহ লিগ কাপ ও কমিউনিটি শিল্ড।

বর্ণাঢ্য ক্লাব ক্যারিয়ারের সঙ্গে ফ্রান্সের জাতীয় দলেও কৃতিত্বের সঙ্গে খেলেছেন এই ফুটবলার। দলের হয়ে ৪১ ম্যাচে খেলে চার গোল করেছেন তিনি।

শেয়ার করুন