ভারোত্তোলনের শেষ দিন পাঁচ রেকর্ড

ভারোত্তোলনের শেষ দিন পাঁচ রেকর্ড

নারীদের ৮৭ কেজি ওজন বিভাগে স্ন্যাচ, ক্লিন অ্যান্ড জার্ক ও মোট ওজনে রেকর্ড গড়েছেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর তানিয়া খাতুন। নারীদের উর্ধ্ব-৮৭ কেজি ওজন বিভাগে স্ন্যাচে রেকর্ড গড়েছেন বাংলাদেশ আনসারের সোয়াইবা রোকাইয়া।

বঙ্গবন্ধু ৯ম বাংলাদেশ গেমসের ভারোত্তোলন ইভেন্টের শেষ দিনে শুক্রবার নারী বিভাগে চার ও পুরুষ বিভাগে পাঁচ রেকর্ড হয়েছে।

নারীদের ৮৭ কেজি ওজন বিভাগে স্ন্যাচ, ক্লিন অ্যান্ড জার্ক ও মোট ওজনে রেকর্ড গড়েছেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর তানিয়া খাতুন। নারীদের উর্ধ্ব-৮৭ কেজি ওজন বিভাগে স্ন্যাচে রেকর্ড গড়েছেন বাংলাদেশ আনসারের সোয়াইবা রোকাইয়া।

পুরুষদের উর্ধ্ব-১০৯ কেজি ওজন বিভাগে স্ন্যাচ, ক্লিন অ্যান্ড জার্ক ও মোট ওজনে রেকর্ড গড়েছেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ফরহাদ আলী। ১০৯ কেজি ওজন বিভাগের ক্লিন অ্যান্ড জার্ক ও মোট ওজনে রেকর্ড গড়েছেন সেনাবাহিনীর আব্দুল্লাহ আল মোমিন।

ভারোত্তোলনের ২০ ইভেন্টে সমান, ১০টি করে সোনা জিতেছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী ও বাংলাদেশ আনসার।

৮৭ কেজি ওজন শ্রেণীতে তিন ক্যাটাগরিতে রেকর্ড গড়ে সোনা জয়ের পথে স্ন্যাচে ৬২, ক্লিন অ্যান্ড জার্কে ৭৬, মোট ১৩৮ কেজি তুলেছেন তানিয়া খাতুন। রুপা জয়ী বাংলাদেশ জেলের সাকেরা খাতুন স্ন্যাচে ৫৩, ক্লিন অ্যান্ড জার্কে ৬৩, মোট ১১৬ কেজি তুলেছেন। ব্রোঞ্জ জয়ী বাংলাদেশ আনসারের মিঞ্জু আক্তার স্ন্যাচে ৫১, ক্লিন অ্যান্ড জার্কে ৬৪, মোট ১১৫ কেজি তুলেছেন।

নারীদের উর্ধ্ব-৮৭ কেজি ওজন বিভাগে সোনা জয়ের পথে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর নাজনীন আক্তার মুন্নি স্ন্যাচে ৫৭, ক্লিন অ্যান্ড জার্কে ৭২, মোট ১২৯ কেজি তুলেছেন। বাংলাদেশ আনসারের সোয়াইবা রহমান রাফা স্ন্যাচে রেকর্ড ৫৭ কেজি, ক্লিন অ্যান্ড জার্কে ৭১, মোট ১২৮ কেজি তুলে রুপা জিতেছেন। ব্রোঞ্জ জয়ের পথে বাংলাদেশ জেলের মার্জিয়া আক্তার স্ন্যাচে ৫৪, ক্লিন অ্যান্ড জার্কে ৫৫, মোট ১০৯ কেজি তুলেছেন।

পুরুষদের উর্ধ্ব-১০৯ কেজি ওজন বিভাগে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ফরহাদ আলী তিন ক্যাটাগরিতে রেকর্ড গড়ার পথে স্ন্যাচে ১২১, ক্লিন অ্যান্ড জার্কে ১৪৭, মোট ২৬৭ কেজি তুলেছেন। রুপা জয়ের পথে বাংলাদেশ আনসারের তায়েফুর রহমান স্ন্যাচে ১১০, ক্লিন অ্যান্ড জার্কে ১৪০, মোট ২৫০ কেজি তুলেছেন। ব্রোঞ্জ জয়ের পথে একই দলের সুদীপ্ত দাস স্ন্যাচে ১০০, ক্লিন অ্যান্ড জার্কে ১৩৮, মোট ২৩৮ কেজি তুলেছেন।

১০৯ কেজি ওজন বিভাগে সোনা জয়ের পথে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর আব্দুল্লাহ আল মোমিন স্ন্যাচে ১১৪, ক্লিন অ্যান্ড জার্কে রেকর্ড ১৫১, মোট ওজনে রেকর্ড ২৬৫ কেজি তুলেছেন। রুপা জয়ের পথে বাংলাদেশ আনসারের এমরান হোসেন স্ন্যাচে ১১৪, ক্লিন অ্যান্ড জার্কে ১৪৫ সহ মোট ২৫৯ কেজি তুলেছেন। ব্রোঞ্জ জয়ের পথে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ-এর মোজাহিদ ফকির স্ন্যাচে ৯৬, ক্লিন অ্যান্ড জার্কে ১২৫ মিলিয়ে মোট ২২১ কেজি তুলেছেন।

ভোরোত্তোলনের খেলা শেষে বাংলাদেশ আনসারের কোচ বিদ্যুৎ কুমার রায় বলেন, ‘বাংলাদেশ আনসার ও বাংলাদেশ সেনাবাহিনী খেলোয়াড়রা সমান সুযোগ-সুবিধাই পান। এ আসরে বাংলাদেশ আনসারের খেলোয়াড়রা প্রত্যাশার চেয়ে ভাল করেছেন। তার কারন টানা অনুশীলন। বাংলাদেশ অলিম্পিক এসোসিয়েশন ও বাংলাদেশ ভারোত্তোলন ফেডারেশনের সহায়তায় আমাদের খেলোয়াড়রা বছর জুড়েই অনুশীলনের মধ্যে থাকেন। ভারোত্তোলনে ভাল করতে হলে অনুশীলনের বিকল্প নেই।’

তায়কোয়ানডোতে মাসুদ ও মাসুমের স্বর্ণ জয়

বঙ্গবন্ধু ৯ম বাংলাদেশ গেমসে তায়কোয়ানন্ডো ইভেন্টে শুক্রবার স্বর্ণ জিতেছেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর মাসুদ পারভেজ ও বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের মাসুম খান।

সিনিয়র পুরুষ অনূর্ধ্ব-৭৪ কেজি ওজন শ্রেনিতে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের মাসুম খান ২০-১৭ স্কোরে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর মো. নাসির পারভেজকে হারিয়ে স্বর্ণ পদক জেতেন। এতে যৌথভাবে ব্রোঞ্জ পদক জেতেন বাংলাদেশ আনসার ও ভিডিপির মো: জাহিদুল ইসলাম এবং রাজশাহী জেলা ক্রীড়া সংস্থার আব্দুর রহিম।

সিনিয়র পুরুষ অনূর্ধ্ব-৮৭ কেজি ওজন শ্রেনিতে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের মো. রাসেল খানকে ২৫-১৫ স্কোরে সেনাবাহিনীর মো.মাসুদ পারভেজকে হারিয়ে স্বর্ন জেতেন। এতে যৌথভাবে ব্রোঞ্জ পদক জিতেছেন বাংলাদেশ আনসার ও ভিডিপির আলমগীর এবং সিরাজগঞ্জ জেলা ক্রীড়া সংস্থার মো. নয়ন।

আরও পড়ুন:
টেনিস এককের স্বর্ণ ইমনের, দ্বৈতে রঞ্জন-দিপু জুটি
উর্মি-গৌরবের মাথায় ব্যাডমিন্টনের মুকুট
বাস্কেটবলে চ্যাম্পিয়ন নৌবাহিনী

শেয়ার করুন

মন্তব্য

অলিম্পিক অ্যাথলিটদের জন্য ফাইজার, বায়োএনটেকের টিকা

অলিম্পিক অ্যাথলিটদের জন্য ফাইজার, বায়োএনটেকের টিকা

টোকিও শহরে অলিম্পিকসের ব্যানার। ছবি: এএফপি

দুই প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে তারা এ বিষয়ে আইওসির সঙ্গে সমন্বয় করে প্রত্যেক অ্যাথলিট যেন টিকার আওতায় আসতে পারে সেই বিষয়টি নিশ্চিত করবে। বিশেষ করে জাপান সফরের আগেই তারা টিকা দেয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করতে চায়।

আমেরিকান ওষুধ কোম্পানি ফাইজার ও তাদের জার্মান পার্টনার বায়োএনটেকের সঙ্গে আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটির একটি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। এই চুক্তি অনুযায়ী টোকিও অলিম্পিক গেমসে অংশগ্রহনকারী ক্রীড়াবিদ ও কর্মকর্তাদের জন্য করোনার ভ্যাকসিন সরবরাহ করবে এই দুই প্রতিষ্ঠান।

এক বিবৃতিতে দুই প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে তারা এ বিষয়ে আইওসির সঙ্গে সমন্বয় করে প্রত্যেক অ্যাথলিট যেন টিকার আওতায় আসতে পারে সেই বিষয়টি নিশ্চিত করবে। বিশেষ করে জাপান সফরের আগেই তারা টিকা দেয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করতে চায়।

বিবৃতিতে আরও বলা হয় অংশগ্রহনকারীদের জন্য প্রথম ডোজের চালানটি মে মাসের শেষে সরবরাহ করার আশা করছে ফাইজার-বায়োএনটেক। যার ফলে টোকিও পৌঁছানোর আগেই যেন দ্বিতীয় ডোজের জন্য অ্যাথলিটরা প্রস্তুত হয়ে যান।

পুরো বিষয়টিকে স্বাগত জানিয়ে আইওসি প্রধান থমাস বাখ বলেন, ‘আমরা একটি উদাহরন সৃষ্টির মধ্য দিয়ে অলিম্পিক ও প্যারালিম্পিকে অংশগ্রহণকারী প্রতিটি সদস্যকে স্বাগত জানাতে চাই। এর মধ্যে ভ্যাকসিন ভিন্ন একটি মাত্রা যোগ করল।’

২৩ জুলাই থেকে ৮ আগস্ট পর্যন্ত হতে যাওয়া টোকিও অলিম্পিকে ১১ হাজারেরও বেশী ক্রীড়াবিদের অংশ নেবার কথা রয়েছে। এদের মধ্যে অনেকেই নিজ নিজ দেশে টিকা নিয়ে নিয়েছেন।

সম্প্রতি জাপানে করোনা পরিস্থিতি খারাপ হওয়ার পরও আইওসি একটি নিরাপদ ও সুস্থ গেমস আয়োজনের ব্যপারে আশাবাদ জানিয়েছে। এজন্য তারা দেশটির স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছে।

আরও পড়ুন:
টেনিস এককের স্বর্ণ ইমনের, দ্বৈতে রঞ্জন-দিপু জুটি
উর্মি-গৌরবের মাথায় ব্যাডমিন্টনের মুকুট
বাস্কেটবলে চ্যাম্পিয়ন নৌবাহিনী

শেয়ার করুন

লরিয়াসের বর্ষসেরা ক্রীড়াবিদ ওসাকা ও নাদাল

লরিয়াসের বর্ষসেরা ক্রীড়াবিদ ওসাকা ও নাদাল

ছবি: টুইটার

সেরা ক্রীড়াবিদের পুরষ্কার জিতে নিয়েছেন নেওমি ওসাকা। জাপানিজ এই টেনিস তারকা ২০২০ সালের ইউএসওপেন জেতেন। সেরা পুরুষ অ্যাথলিটের পুরষ্কার জিতেছেন রাফায়েল নাদাল।

লরিয়াস স্পোর্টস অ্যাওয়ার্ডসে ২০২০ সালের সেরা ক্রীড়াবিদের পুরষ্কার জিতে নিয়েছেন নেওমি ওসাকা। জাপানিজ এই টেনিস তারকা ২০২০ সালের ইউএসওপেন জেতেন। প্রতি বছরের মতো এবারও দেয়া হয়েছে লাইফটাইম অ্যাচিভমেন্ট অ্যাওয়ার্ড ও ক্রীড়া ক্ষেত্রে বিশেষ অবদানের জন্য পুরষ্কার। স্পেনের সেভিলে অনুষ্ঠিত হয় এবারের লরিয়াস অ্যাওয়ার্ডস।

পুরুষ অ্যাথলিটদের মধ্যে এই পুরষ্কার জিতেছেন রাফায়েল নাদাল। গত বছর ফ্রেঞ্চ ওপেন জিতে নেন এই স্প্যানিয়ার্ড। ১২তম বারের মতো ফ্রেঞ্চ ওপেন জিতে একটি গ্র্যান্ড স্ল্যাম সর্বোচ্চবার জেতার রেকর্ড গড়েন ও রজার ফেডেরারের ২০ গ্র্যান্ড স্ল্যাম জয়ের রেকর্ড স্পর্শ করেন।

নাদালের পুরষ্কার জেতায় বিশেষ ভিডিও বার্তা পাঠান লিওনেল মেসি। আর্জেন্টাইন এ সুপারস্টার নাদালকে পুরষ্কার জেতার পাশপাশি পরিশ্রম ও দীর্ঘ ক্যারিয়ারের জন্য শুভেচ্ছা জানান।

ওসাকাকে গ্র্যান্ড স্ল্যাম জয়ের পাশাপাশি গত বছর যুক্তরাষ্ট্রে ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার আন্দোলনের সময় সোচ্চার থাকায় এই পুরষ্কারের জন্য মনোনীত করা হয় বলে জানায় লরিয়াস কর্তৃপক্ষ।

পুরষ্কার জেতার পর প্রতিক্রিয়ার ওসাকা জানান, ‘আমার নিজের সোচ্চার হওয়াটা জরুরী। প্রায়ই মনে হয় লোকে কী বলবে সেটা ভেবে আমি নিজেকে গুটিয়ে রাখি। কিন্তু যেহেতু আমি একটা মঞ্চ পেয়েছি সেটাকে ব্যবহার করাটা গুরুত্বপূর্ণ। আমার লক্ষ্য হচ্ছে যতটা সম্ভব মানুষের জীবনে পরিবর্তন নিয়ে আসা ও নিজেকে আরও উন্নত একজন মানুষে রূপান্তর করা।’

গত কয়েক মৌসুম যাবৎ সমাজসেবা মূলক কাজের জন্য বিশেষ ‘স্পোর্টিং ইনস্পিরেশন’ পুরষ্কার পেয়েছেন ইজিপিশিয়ান তারকা ফুটবলার মোহামেদ সালাহ।

ইউয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগের শিরোপা জেতায় বছরের সেরা দলের পুরষ্কার জিতেছে জার্মানির ক্লাব বায়ার্ন মিউনিখ। চ্যাম্পিয়নস লিগ জেতার পাশাপাশি ঘরোয়া বুনডেসলিগা ও জার্মান কাপের শিরোপা জিতে নেয় বাভারিয়ান জায়ান্টরা।

বার্সেলোনার পর দ্বিতীয় ফুটবল ক্লাব হিসেবে দুইবার ট্রেবল গড়ার রেকর্ড গড়ে বায়ার্ন।

বছরের সেরা নতুন তারকার পুরষ্কার পেয়েছেন অ্যামেরিকান ফুটবল দল ক্যানসাস সিটি চিফসের প্যাট্রিক মাহোমেস। এনএফএল মৌসুমের ফাইনালে ট্যাম্পা বে বাকানিয়ার্সের কাছে তার দল শিরোপা খোয়ালেও, পুরো মৌসুম দারুণ ফর্মে ছিলেন এই কোয়ার্টার ব্যাক।

আর লাইফটাইম অ্যাচিভমেন্ট অ্যাওয়ার্ড দেয়া হয়েছে টেনিস কিংবদন্তি বিলি জিন কিংকে।

২০০০ সাল থেকে প্রতিবছর খেলাধুলার নানা ক্ষেত্রে অবদানের জন্য জার্মানির লরিয়াস স্পোর্ট ফর গুড ফাউন্ডেশন এই পুরষ্কার দিয়ে আসছে।

আরও পড়ুন:
টেনিস এককের স্বর্ণ ইমনের, দ্বৈতে রঞ্জন-দিপু জুটি
উর্মি-গৌরবের মাথায় ব্যাডমিন্টনের মুকুট
বাস্কেটবলে চ্যাম্পিয়ন নৌবাহিনী

শেয়ার করুন

বিশ্বকাপ দিয়ে অলিম্পিকে চোখ রোমানদের

বিশ্বকাপ দিয়ে অলিম্পিকে চোখ রোমানদের

ছবি: সংগৃহীত

সুইজারল্যান্ডে আর্চারি বিশ্বকাপে এবার খেলবেন দেশের আট তিরন্দাজ। পরের মাসের ২১-২৭ জুন থেকে প্যারিসে অলিম্পিকের বাছাইপর্ব। বিশ্বকাপকে অলিম্পিকের বাছাইয়ে জন্য সবচেয়ে বড় মঞ্চ হিসেবে দেখছেন খেলোয়াড়রা।

সুইজারল্যান্ডে ১৫-২২ মে আর্চারি বিশ্বকাপ সামনে রেখে টঙ্গীর শহীদ আহসান উল্লাহ স্টেডিয়ামে অনুশীলন করছেন রোমান সানারা। করোনা বিরতির মধ্যে প্রায় দেড় বছর পর আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্টে অংশ নিতে যাচ্ছেন আর্চাররা। এই টুর্নামেন্ট দিয়ে অলিম্পিকে চোখ রাখছেন রোমান-অসীম-বিউটিরা।

সুইজারল্যান্ডে আর্চারি বিশ্বকাপে এবার খেলবেন দেশের আট তিরন্দাজ। পরের মাসের ২১-২৭ জুন থেকে প্যারিসে অলিম্পিকের বাছাইপর্ব। বিশ্বকাপকে অলিম্পিকের বাছাইয়ে জন্য সবচেয়ে বড় মঞ্চ হিসেবে দেখছেন খেলোয়াড়রা।

এবার সরাসরি অলিম্পিকে খেলবেন রোমান সানা। রিকার্ভ ইভেন্টে খেলবেন তিনি। সাত তিরন্দাজকে পুরুষ দলগত, মেয়েদের একক ও দলগত ইভেন্টে বাছাইপর্ব খেলে অলিম্পিকের যোগ্যতা অর্জন করতে হবে।

সেই লক্ষ্য নিয়ে আর্চারদের অনুশীলন করিয়ে যাচ্ছেন হেড কোচ মার্টিন ফ্রেডরিক।

এবার অলিম্পিকে বড় ভরসার নাম রোমান। সম্প্রতি দেশের দুটি গুরুত্বপূর্ণ টুর্নামেন্টে হতাশাজনক পারফরম্যান্স চিন্তার ভাঁজ ফেলেছে কোচের কপালে।

জাতীয় আর্চারিতে নিজের ইভেন্টে ব্রোঞ্জ আর বাংলাদেশ গেমসে প্রি-কোয়ার্টার ফাইনাল থেকে বিদায় নেন দেশসেরা এই আর্চার।

বিশ্বকাপ সামনে রেখে জাতীয় দলের ট্রায়ালে আশা খুঁজে পাচ্ছেন আনসারের এই আর্চার। ট্রায়ালে তিনিই ছিলেন র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষে। ধীরে ধীরে নিজের বিশ্বসেরা ফর্ম খুঁজে পাচ্ছেন রোমান।

সম্প্রতি ৩৬০- এর মধ্যে সর্বোচ্চ ৩৪১ পয়েন্ট স্কোর করেন তিনি। নিজের ফর্ম ফিরে পেয়ে উচ্ছ্বসিত রোমান বলেন, ‘ট্রায়ালে এক নম্বর হওয়াটা আমার জন্য চ্যালেঞ্জের ছিল। কোচের পরামর্শমতো কাজ করে আগের ফর্মে ফিরেছি। নিয়মিত টুর্নামেন্ট খেললে আত্মবিশ্বাস আরও বাড়বে। অলিম্পিকের বাছাইপর্বে যাতে দল হিসেবে ভালো করতে পারি, সেটাই লক্ষ্য আমার।’

রোমান ছাড়াও রিকার্ভ দলে আছেন বাংলাদেশ গেমসে স্বর্ণজয়ী হাকিম আহমেদ, রামকৃষ্ণ সাহা ও তমিমুল ইসলাম। এর আগে ইউরোপে খেলার অভিজ্ঞতা আছে এই তিনজনের।

এটা বাড়তি সুবিধা হিসেবে কাজে দিবে বলে জানালেন রামকৃষ্ণ, ‘ইতালি ও ডেনমার্কে বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে খেলেছি। অভিজ্ঞতাটা সামনের টুর্নামেন্টে কাজে লাগাতে চাই। সুইজারল্যান্ডে যদি কোনো ভুলও হয় সেগুলো শোধরানোর সুযোগ থাকবে ফ্রান্সে।’

এদিকে একই ইভেন্টে মেয়েদের দলে খেলবেন দিয়া সিদ্দিকী, মেহনাজ মুনিরা ও বিউটি রায়। অনুশীলনে ট্রায়ালে নিজেদের ছাড়িয়ে যাচ্ছেন তারা। নারী দল নিয়ে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন দিয়া। বলেন, ‘আগে আমরা অনুশীলনে ৩০০ পয়েন্টও টপকাতে পারতাম না। এখন নিয়মিতই গড়ে ৩২০ করছি। আশা রাখছি।’

অলিম্পিকে নেই কম্পাউন্ড ইভেন্ট। বিশ্বকাপের মঞ্চটা রাঙাতে সুইজারল্যান্ডে যাচ্ছেন বাংলাদেশ গেমসে ৭০৪ পয়েন্ট নিয়ে রেকর্ড গড়া দিয়া। ছাড়াতে চান নিজেকে।

সবমিলে সুইজারল্যান্ড বিশ্বকাপকে অলিম্পিকের প্রস্তুতি ও টিকিট নিশ্চিতের মঞ্চ হিসেবে দেখছেন তিরন্দাজরা।

আরও পড়ুন:
টেনিস এককের স্বর্ণ ইমনের, দ্বৈতে রঞ্জন-দিপু জুটি
উর্মি-গৌরবের মাথায় ব্যাডমিন্টনের মুকুট
বাস্কেটবলে চ্যাম্পিয়ন নৌবাহিনী

শেয়ার করুন

জুলাইয়ে হচ্ছে না জুনিয়র এশিয়া কাপ হকি

জুলাইয়ে হচ্ছে না জুনিয়র এশিয়া কাপ হকি

ছবি: সংগৃহীত

জুলাইয়ে টুর্নামেন্ট আয়োজন করা সম্ভব কি না, জানতে চেয়ে গেল সপ্তাহে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের কাছে চিঠি পাঠায় বাংলাদেশ হকি ফেডারেশন (বাহফে)। চিঠির জবাবে টুর্নামেন্ট নিয়ে অনাগ্রহ দেখিয়েছে মন্ত্রণালয়। ফলে স্থগিত হয়ে গেছে আসর।

তিন দফা পিছিয়ে আগামী ১ থেকে ১০ জুলাই ঢাকায় হওয়ার কথা জুনিয়র এশিয়া কাপ হকি। করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বিবেচনায় আবার স্থগিত করা হয়েছে ১০ দেশের এই টুর্নামেন্ট।

টুর্নামেন্টটি আয়োজনের অনুমতি দেয়নি সরকার।

জুলাইয়ে টুর্নামেন্ট আয়োজন করা সম্ভব কি না, জানতে চেয়ে গেল সপ্তাহে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের কাছে চিঠি পাঠায় বাংলাদেশ হকি ফেডারেশন (বাহফে)।

চিঠির জবাবে টুর্নামেন্ট নিয়ে অনাগ্রহ দেখিয়েছে মন্ত্রণালয়। ফলে স্থগিত হয়ে গেছে আসর।

ফেডারেশনের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ ইউসুফ বলেছেন, ‘সরকার টুর্নামেন্ট আয়োজনের অনুমতি দেয়নি। এই মুহূর্তে করোনা পরিস্থিতি খারাপ। এতগুলো বিদেশি দল এনে টুর্নামেন্ট আয়োজন ঝুঁকিপূর্ণ।’

বিষয়টি অবহিত করে এশিয়ান হকি ফেডারেশনকে চিঠি দিয়ে জানানো হবে বলে উল্লেখ করেন তিনি।

স্বাগতিক বাংলাদেশ ছাড়াও টুর্নামেন্টে খেলার কথা ভারত, পাকিস্তান, জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া, চীন, লিবিয়া, উজবেকিস্তান, চাইনিজ তাইপে ও ওমানের।

টুর্নামেন্টের সেরা চার দলের অংশ নেওয়ার কথা ভারতের জুনিয়র বিশ্বকাপে।

আরও পড়ুন:
টেনিস এককের স্বর্ণ ইমনের, দ্বৈতে রঞ্জন-দিপু জুটি
উর্মি-গৌরবের মাথায় ব্যাডমিন্টনের মুকুট
বাস্কেটবলে চ্যাম্পিয়ন নৌবাহিনী

শেয়ার করুন

অনুমোদন পেল শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়াম প্রকল্প

অনুমোদন পেল শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়াম প্রকল্প

ছবি: সংগৃহীত

সভায় অনুমোদন পেয়েছে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় কর্তৃক প্রস্তাবিত দেশের ১৮৬টি উপজেলায় সাড়ে ষোলশত কোটি টাকা ব্যয়ে শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়াম নির্মাণ প্রকল্প।

জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় অনুমোদন পেয়েছে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় কর্তৃক প্রস্তাবিত দেশের ১৮৬টি উপজেলায় সাড়ে ষোলশত কোটি টাকা ব্যয়ে শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়াম নির্মাণ প্রকল্প।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণভবন থেকে মঙ্গলবার ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে শেরেবাংলা নগরের এনইসি সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত একনেকের এই বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন।

একনেক সভা শেষে যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল বলেন, ‘২৪তম একনেক বৈঠকে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় কর্তৃক প্রস্তাবিত দেশের ১৮৬ টি উপজেলায় সাড়ে ষোলশত কোটি টাকা ব্যয়ে শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়াম নির্মাণ প্রকল্প অনুমোদিত হয়েছে। এটি ক্রীড়াঙ্গনের জন্য নিঃসন্দেহে একটি বড় সুসংবাদ।

‘আমি আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাতে চাই আমাদের ক্রীড়াবান্ধব মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনাকে। তিনি সবসময় আমাদের স্পোর্টসকে এগিয়ে নিতে সঠিক দিক র্নির্দেশনা প্রদানসহ সার্বিক সহযোগিতা করে চলেছেন।’

শিগগিরই আনুষ্ঠানিকতা শেষে এ সব স্টেডিয়ামের নির্মাণ কাজ শুরু করা হবে বলে আশাবাদী যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী।

‘আশা করছি অতি অল্প সময়ের মধ্যে আনুষ্ঠানিকতা শেষে স্টেডিয়াম নির্মাণের কাজ শুরু করতে পারব। আমি বিশ্বাস করি, এ সকল স্টেডিয়াম দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলেও খেলাধুলাকে ছড়িয়ে দিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে এবং দেশের ক্রীড়াঙ্গনে নবজাগরণের সৃষ্টি হবে।’

এর আগে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় দেশের ১২৫ টি উপজেলায় শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়াম নির্মাণের কাজ শেষ করে।

আরও পড়ুন:
টেনিস এককের স্বর্ণ ইমনের, দ্বৈতে রঞ্জন-দিপু জুটি
উর্মি-গৌরবের মাথায় ব্যাডমিন্টনের মুকুট
বাস্কেটবলে চ্যাম্পিয়ন নৌবাহিনী

শেয়ার করুন

টোকিও অলিম্পিকে যাচ্ছেন সাঁতারু আরিফ

টোকিও অলিম্পিকে যাচ্ছেন সাঁতারু আরিফ

ছবি: সংগৃহীত

সাঁতারে এবার দুইটি ওয়াইর্ল্ড কার্ড পেয়েছে বাংলাদেশ। প্রথমটি পেয়েছে জুনাইনা আহমেদ। বাকী একটি কার্ডের জন্য প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছিলেন আরিফুল ইসলাম ও জুয়েল। তবে শেষ পর্যন্ত আরিফুলকে নির্বাচিত করা হয়েছে।

টোকিও অলিম্পিকে ওয়াইল্ড কার্ড নিয়ে সাঁতারে অংশ নেয়ার সুযোগ পেলেন আরিফুল ইসলাম। বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত সাঁতারু জুনাইনা আহমেদের পর ওয়াইল্ড কার্ড নিয়ে অলিম্পিকে খেলার টিকিট পেলেন দেশের এই উদীয়মান সাঁতারু।

বিষয়টি রোববার নিউজবাংলাকে নিশ্চিত করেন বাংলাদেশ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন ও সাঁতার ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক এমবি সাইফ।

‘অলিম্পিকের স্কলারশিপ নিয়ে ফ্রান্সে অনুশীলন করেছে আরিফ। তার নাম ফিনা ও বাংলাদেশ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশনকে পাঠানো হয়েছে। সেখান থেকে তার নাম চূড়ান্ত করা হয়েছে।’

সাঁতারে এবার দুইটি ওয়াইর্ল্ড কার্ড পেয়েছে বাংলাদেশ। প্রথমটি পেয়েছে জুনাইনা আহমেদ। বাকি একটি কার্ডের জন্য প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছিলেন আরিফুল ইসলাম ও জুয়েল। তবে শেষ পর্যন্ত আরিফুলকে নির্বাচিত করা হয়েছে।

এই সংবাদে উচ্ছ্বসিত আরিফ নিউজবাংলাকে বলেন, ‘অনেক ভালো লাগছে। ভাষায় প্রকাশ করার কোনো জায়গা নেই। সামনে ৭০-৮০ দিনের মতো আছে। ইচ্ছা আছে টাইমিং ভালো করার।’

একটা আক্ষেপ কাজ করছে আরিফের। বলেন, ‘কষ্টের কথা ১ পয়েন্ট ৩০ মাইক্রো সেকেন্ডের জন্য অলিম্পিকের যোগ্যতা অর্জন করতে পারিনি।’

৫০ মিটার ফ্রি স্টাইলে অলিম্পিকে খেলবেন আরিফ। সবশেষ বাংলাদেশ গেমসে সেভাবে পারফর্ম করতে পারেননি। সামনের আড়াই মাসে অলিম্পিকের জন্য প্রস্তুতি নিয়ে টাইমিং আরও কমানোয় আশাবাদী আরিফ।

‘আমার টাইমিং ছিল ২৪.৪৫ সেকেন্ড। ইচ্ছা আছে এটা কমিয়ে ২৩ সেকেন্ডে নামিয়ে আনার। আমি আশাবাদী টাইমিং করার ব্যাপারে।’

এখন ফ্রান্সে আছেন আরিফ। টোকিও অলিম্পিকের স্কলারশিপ নিয়ে গত আড়াই বছর ধরে প্রস্তুতি নিচ্ছেন। ফ্রান্স থেকেই জাপানে টোকিও অলিম্পিকে খেলতে যাবেন এই সাঁতারু।

আরও পড়ুন:
টেনিস এককের স্বর্ণ ইমনের, দ্বৈতে রঞ্জন-দিপু জুটি
উর্মি-গৌরবের মাথায় ব্যাডমিন্টনের মুকুট
বাস্কেটবলে চ্যাম্পিয়ন নৌবাহিনী

শেয়ার করুন

হার দিয়ে কোর্টে ফিরলেন জেমস

হার দিয়ে কোর্টে ফিরলেন জেমস

ফেরার ম্যাচেও ভালো পারফরম্যান্স ছিল জেমসের। ১৬ পয়েন্ট স্কোর করেন কিংসের বিপক্ষে। সাতটি অ্যাসিস্ট করেন ও আটটি রিবাউন্ড নেন। তারপরও দলের হার ঠেকাতে পারেননি।

চোটের কারণে প্রায় দেড় মাস পর শনিবার কোর্টে ফিরেছেন বাস্কেটবল তারকা লেব্রন জেমস। তবে, ফেরাটা সুখকর হয়নি লস অ্যাঞ্জেলেস লেকার্সের এই ফরোয়ার্ডের।

জেমসের ফেরার ম্যাচে হেরে গেছে তার দল। যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল বাস্কেটবল অ্যাসোসিয়েশন (এনবিএ) লিগে স্যাক্রামেন্টো কিংসের কাছে হেরেছে লেকার্স।

গত ২১ মার্চ এনবিএর ম্যাচে আটলান্টা হকসের বিপক্ষে ডান গোড়ালিতে ব্যথা পান জেমস। তারপর থেকে লেকার্সের ২০টি ম্যাচ মিস করেছেন তিনি। নিজের ১৮ বছরের ক্যারিয়ারে দলের হয়ে কখনই টানা এতগুলো ম্যাচ মিস করেননি ৩৬ বছর বয়সী জেমস।

ফেরার ম্যাচেও ভালো পারফরম্যান্স ছিল জেমসের। ১৬ পয়েন্ট স্কোর করেন কিংসের বিপক্ষে। সাতটি অ্যাসিস্ট করেন ও আটটি রিবাউন্ড নেন। তারপরও দলের হার ঠেকাতে পারেননি।

১১০-১০৬ পয়েন্টের জয়ে কিংসের হয়ে সর্বোচ্চ স্কোরার ছিলেন টাইরিস হ্যালিবারটন। ২৩ পয়েন্ট স্কোর করার পাশাপাশি ১০টি অ্যাসিস্টও করেন তিনি।

এটি ছিল লেকার্সের সবচেয়ে ছয় ম্যাচে পঞ্চম হার। বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা ওয়েস্টার্ন কনফারেন্সের পয়েন্ট টেবিলে আছে পাঁচ নম্বরে।
লেকার্সের বিপক্ষে ২০১৮ সালের পর এই প্রথম জিতেছে কিংস। জয়ের পরও তারা আছে ওয়েস্টার্ন কনফারেন্স টেবিলের ১২ নম্বরে।

ওয়েস্টার্ন কনফারেন্সের শীর্ষ দুই দল মুখোমুখি হয় শনিবার। ইউটাহ জ্যাজকে ১২১-১০০ পয়েন্টের বড় ব্যবধানে হারিয়ে শীর্ষস্থান দখল করেছে ফিনিক্স সানস।

ইস্টার্ন কনফারেন্সের শীর্ষ দল ব্রুকলিন নেটসও হেরেছে শনিবার। পোর্টল্যান্ড ট্রেইলব্লেজার্সের কাছে ১২৮-১০৯ পয়েন্টে হারের পরও শীর্ষস্থান ধরে রেখেছে তারা।

একই কনফারেন্সের ফিলাডেলফিয়া সেভেন্টি সিক্সার্স ১২৬-১০৪ পয়েন্টে হারায় আটলান্টা হকসকে। শিকাগো বুলস ১০৮-৯৮ পয়েন্টে হেরে গেছে মিলওয়াকি বাকসের কাছে।

আরও জয় পেয়েছে ওয়াশিংটন উইজার্ডস, বোস্টন সেলটিকস ও মেমফিস গ্রিজলিস।

আরও পড়ুন:
টেনিস এককের স্বর্ণ ইমনের, দ্বৈতে রঞ্জন-দিপু জুটি
উর্মি-গৌরবের মাথায় ব্যাডমিন্টনের মুকুট
বাস্কেটবলে চ্যাম্পিয়ন নৌবাহিনী

শেয়ার করুন