অনির্দিষ্টকালের জন্য কোর্টের বাইরে জেমস

অনির্দিষ্টকালের জন্য কোর্টের বাইরে জেমস

ম্যাচ শেষে স্ক্যানের পর জানা যায় গোড়ালির লিগামেন্ট ছিড়ে গেছে লেকার্স অধিনায়কের। আনুষ্ঠানিক ভাবে লেকার্স জানায় সেরে উঠতে দীর্ঘ সময় লাগবে। ‘অনির্দিষ্টকালের জন্য’ কোর্টের বাইরে চলে গেছেন তিনি।

চোটের কারণে ‘অনির্দিষ্টকালের জন্য’ মাঠের বাইরে চলে গেছেন বাস্কেটবল তারকা লেব্রন জেমস। আটলান্টা হকসের বিপক্ষে যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল বাস্কেটবল অ্যাসোসিয়েশন (এনবিএ) লিগের ম্যাচে ডান গোড়ালিতে ব্যাথা পান লস অ্যাঞ্জেলেস লেকার্সের এই তারকা ফরোয়ার্ড।

রোববারের ম্যাচের দ্বিতীয় কোয়ার্টারে হকসের খেলোয়াড় সলোমন হিলের সঙ্গে ধাক্কা খান জেমস। হিল বলের নিয়ন্ত্রণ নিতে গিয়ে তার পায়ের উপর পড়ে যান।

সঙ্গে সঙ্গেই গোড়ালি চেপে ধরে কোর্টে শুয়ে পড়েন ৩৬ বছর বয়সী জেমস। প্রাথমিক চিকিৎসার পর কোর্টে ফিরে কিছুক্ষণ খেলেন তিনি। থ্রি পয়েন্টারও স্কোর করেন। তবে ব্যাথা নিয়ে বেশিক্ষণ খেলা চালিয়ে যেতে পারেননি বর্তমান সময়ের সেরা এই বাস্কেটবল খেলোয়াড়। খুঁড়িয়ে কোর্ট ছাড়তে হয় তাকে।

ম্যাচ শেষে স্ক্যানের পর জানা যায় গোড়ালির লিগামেন্ট ছিড়ে গেছে লেকার্স অধিনায়কের। আনুষ্ঠানিক ভাবে লেকার্স জানায় সেরে উঠতে দীর্ঘ সময় লাগবে। ‘অনির্দিষ্টকালের জন্য’ কোর্টের বাইরে চলে গেছেন তিনি।

চোটের মাত্রা জানার পর টুইটারে মাধ্যমে নিজের হতাশা প্রকাশ করেন চারবারের এনবিএ চ্যাম্পিয়ন জেমস।

‘শরীর ও মনে আঘাত পাচ্ছি। সতীর্থদের সঙ্গে থাকতে না পারাতে সবচেয়ে বেশি রাগ ও দুঃখ পাচ্ছি। ফেরার যাত্রাটা এখনই শুরু হচ্ছে। খুব শিগগিরই ফিরব।’

বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা তাদের অধিনায়ককে ছাড়া হেরে যায় ম্যাচ। ৯৯-৯৪ পয়েন্টের জয়ে হকসের হয়ে সর্বোচ্চ ২৭ পয়েন্ট স্কোর করেন জন কলিনস।

এই জয়ে ইস্টার্ন কনফারেন্সের পয়েন্ট টেবিলে মায়ামি হিটের সঙ্গে যৌথভাবে চার নম্বরে আছে তারা।

জেমসকে হারানোর আগে লেকার্স চোটের কারণে হারিয়েছে আরেক তারকা অ্যান্থনি ডেভিসকে। গত বছর লেকার্সের অন্যতম সেরা খেলোয়াড় ডেভিসের এপ্রিলের আগে সুস্থ সবার সম্ভাবনা নেই।

দুই সেরা খেলোয়াড়কে ছাড়াই অন্তত এপ্রিল পর্যন্ত খেলতে হবে লেকার্সকে। ওয়েস্টার্ন কনফারেন্সে তারা আছে তৃতীয় স্থানে।

আরও পড়ুন:
লেব্রনের রেকর্ডের দিনে হারল লেকার্স
বাইডেনের সঙ্গে দেখা করার আশা লেকার্সের
১৭তম এনবিএ শিরোপা জিতল লেকার্স

শেয়ার করুন

মন্তব্য

শেখ হাসিনা দাবার চতুর্থ রাউন্ড শেষে শীর্ষে ভারতের মিত্রভা

শেখ হাসিনা দাবার চতুর্থ রাউন্ড শেষে শীর্ষে ভারতের মিত্রভা

জয়তু শেখ হাসিনা আন্তর্জাতিক গ্র্যান্ডমাস্টারস দাবা টুর্নামেন্টে ব্যস্ত দাবাড়ুরা। ছবি: সাইফুল ইসলাম

চতুর্থ রাউন্ডের খেলায় আন্তর্জাতিক মাস্টার মিত্রভা ভারতের আন্তর্জাতিক মাস্টার সায়ন্তকে পরাজিত করে শীর্ষে উঠে আসেন।

জয়তু শেখ হাসিনা আন্তর্জাতিক গ্র্যান্ড মাস্টারস দাবা টুর্নামেন্টের চতুর্থ রাউন্ডের খেলা শেষে ভারতের আন্তর্জাতিক মাস্টার মিত্রভা গুহ পূর্ণ চার পয়েন্ট নিয়ে এককভাবে পয়েন্ট তালিকায় শীর্ষে রয়েছেন।

চতুর্থ রাউন্ডের খেলায় আন্তর্জাতিক মাস্টার মিত্রভা ভারতের আন্তর্জাতিক মাস্টার সায়ন্তকে পরাজিত করে শীর্ষে উঠে আসেন।

সাড়ে তিন পয়েন্ট করে নিয়ে ভারতের দুই আন্তর্জাতিক মাস্টার মোহাম্মদ নুবাইরশাহ শেখ ও কুস্তভ চ্যাটার্জি আছেন দুইয়ে। তিন পয়েন্ট করে নিয়ে ৭ জন খেলোয়াড় নিয়ে তৃতীয় স্থানে রয়েছেন।

বাংলাদেশের গ্র্যান্ডমাস্টার জিয়াউর রহমান ও ফিদে মাস্টার দেবরাজ চ্যাটার্জী, ইউক্রেনের গ্র্যান্ডমাস্টার আন্দ্রে সুমিতস, ভারতের চার আন্তর্জাতিক মাসটার সায়ন্ত দাস, শ্রীজিৎ পল, সংকল্প গুপ্ত ও অরন্যক ঘোষ, সবার সংগ্রহে আছে তিন পয়েন্ট।

বাংলাদেশ দাবা ফেডারেশন আয়োজিত নয় দিনের এই টুর্নামেন্টে পৃষ্ঠপোষকতা করছে কানাডিয়ান ইউনিভার্সিটি অফ বাংলাদেশ।

৯ রাউন্ড সুইস লিগ পদ্ধতিতে অনুষ্ঠেয় এ প্রতিযোগিতায় গ্র্যান্ডমাস্টার, আন্তর্জাতিক মাস্টার, নারী গ্র্যান্ডমাস্টার ও নারী আন্তর্জাতিক মাস্টারের নর্ম অর্জনের সম্ভাবনা রয়েছে। প্রতিযোগিতায় ১৫ হাজার ডলার অর্থ পুরস্কার দেয়া হবে।

আরও পড়ুন:
লেব্রনের রেকর্ডের দিনে হারল লেকার্স
বাইডেনের সঙ্গে দেখা করার আশা লেকার্সের
১৭তম এনবিএ শিরোপা জিতল লেকার্স

শেয়ার করুন

মোহামেডানকে মামলার হুমকি দিয়ে দল গোছাল মেরিনার্স

মোহামেডানকে মামলার হুমকি দিয়ে দল গোছাল মেরিনার্স

মেরিনার্স ক্লাবে সই করছেন হকি খেলোয়াড়রা। ছবি: নিউজবাংলা

শিরোপা পুনরুদ্ধারের লক্ষ্যে এবার জাতীয় দলের তারকাসহ তরুণ, অভিজ্ঞ মিশেলে ভারসাম্য রেখে দল সাজিয়েছে মেরিনার্স। একই সঙ্গে দলকে শক্তিশালী করতে উঁচু মানের বিদেশি খেলোয়াড় নেয়ার পরিকল্পনা করছে তারা।

ঘোড়ার গাড়িতে চলে বাদ্যের তালে তালে মওলানা ভাসানী হকি স্টেডিয়ামে ঢুকছেন মেরিনার ইয়াংস ক্লাবের হকির খেলোয়াড়রা। প্রিমিয়ার লিগে এমন আমেজের মধ্য দিয়ে মঙ্গলবার দলবদলের কার্যক্রম সেরেছে শিরোপা প্রত্যাশী দলটি।

শিরোপা পুনরুদ্ধারের লক্ষ্যে এবার জাতীয় দলের তারকাসহ তরুণ, অভিজ্ঞ মিশেলে ভারসাম্য রেখে দল সাজিয়েছে মেরিনার্স। একই সঙ্গে দলকে শক্তিশালী করতে উঁচু মানের বিদেশি খেলোয়াড় নেয়ার পরিকল্পনা করছে তারা।

হকি খেলোয়াড় সারওয়ার মুর্শেদ শাওনকে নিয়ে মেরিনার্সের বিপক্ষে মামলা করে মোহামেডান। এবার পাল্টা মামলা করার উদ্যোগ নিচ্ছে মেরিনার ক্লাব।

দলকে নিয়ে আশাবাদী অধিনায়ক মামুনুর রহমান চয়ন বলেন, ‘দল শক্তিশালী হয়েছে। আমরা ফাইট দিব। আরও শক্তিশালী করতে ভালো মানের বিদেশি খেলোয়াড় খোঁজা হচ্ছে। ১০-১৫ জনকে নির্বাচন করা হয়েছে।’

দলের কোচ মামুনুর রশিদের কণ্ঠেও আত্মবিশ্বাস, ‘ক্লাব আশ্বাস দিয়েছিল ভালো দল গড়বে। আমরা চেষ্টা করেছি একটা ভারসাম্য দল গড়ব। আমি আশাবাদী দল ভালো করবে।’

দলে যোগ দেয়া বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর জাতীয় দলের ফরোয়ার্ড মিলন হোসেন বলেন, ‘দল যাতে ভালো কিছু করতে পারে সেই চেষ্টা থাকবে। ইনশাল্লাহ ভালো কিছু হবে।’

মোহামেডানকে মামলার হুমকি দিয়ে দল গোছাল মেরিনার্স

সম্প্রতি মোহামেডান শাওনকে নিজেদের খেলোয়াড় দাবি করার ঘটনায় উত্তপ্ত হয় হকি প্রাঙ্গন। ঘটনা গড়ায় আদালত পর্যন্ত। মোহামেডানের মামলার বিপক্ষে পাল্টা মামলার উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে বলে জানান মেরিনার্সের কোষাধ্যক্ষ নাসিম রেজা মিজান।

তিনি বলেন, ‘আমরা অবশ্যই জবাব দেব। কারণ এ ছাড়া আমাদের কোনো উপায় নেই। যদি আমরা মামলা না করি তাহলে আমরাই তো অপরাধী হয়ে গেলাম! মিথ্যুক হয়ে গেলাম ঠিক না?’

দলবদল চলবে ২৩ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত। এরই মধ্যে দলবদলের কার্যক্রম সেরে ফেলেছে ঢাকা আবাহনী ও ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব।

আরও পড়ুন:
লেব্রনের রেকর্ডের দিনে হারল লেকার্স
বাইডেনের সঙ্গে দেখা করার আশা লেকার্সের
১৭তম এনবিএ শিরোপা জিতল লেকার্স

শেয়ার করুন

শেখ হাসিনা দাবার তৃতীয় দিন শেষে দুইয়ে জিয়া

শেখ হাসিনা দাবার তৃতীয় দিন শেষে দুইয়ে জিয়া

ভারতের আইএম শুভায়ন কুন্ডুর বিপক্ষে খেলছেন বাংলাদেশের জিএম জিয়াউর রহমান। ছবি: বিসিএফ

৬ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে আছেন বাংলাদেশের গ্র্যান্ডমাস্টার জিয়াউর রহমান। জিয়ার সঙ্গে সমান পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে আছেন আরও পাঁচজন।

জয়তু শেখ হাসিনা আন্তর্জাতিক গ্র্যান্ড মাস্টার্স দাবা প্রতিযোগিতার তৃতীয় রাউন্ডের খেলা শেষে শীর্ষে আছেন তিন দাবাড়ু। ভারতের আন্তর্জাতিক মাস্টার মিত্রভা গুহ, মোহাম্মদ নুবাইর শাহ শেখ ও সায়ন্তন ঘোষ তিনজনেরই সংগ্রহ তিন পয়েন্ট।

৬ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে আছেন বাংলাদেশের গ্র্যান্ডমাস্টার জিয়াউর রহমান। জিয়ার সঙ্গে সমান পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে আছেন আরও পাঁচজন।

তৃতীয় দিন বাংলাদেশের গ্র্যান্ড মাস্টার জিয়া জয় পান ভারতের আন্তর্জাতিক মাস্টার শুভায়ন কুন্ডুর বিপক্ষে। আরেক স্বাগতিক গ্র্যান্ডমাস্টার এনামুল হোসেন রাজীব ড্র করেন বেলজিয়ামের গ্র্যান্ডমাস্টার ভাদিম মালাখাটকোর সঙ্গে।

তৃতীয় রাউন্ডের খেলায় আন্তর্জাতিক মাস্টার মিত্রভা আন্তর্জাতিক মাস্টার নিলেশ সাহাকে হারান। আন্তর্জাতিক মাস্টার নুবাইর শাহ হারিয়েছেন মহিলা আন্তর্জাতিক মাস্টার অর্পিতা মুখার্জিকে। আর আন্তর্জাতিক মাস্টার সায়ন্তন ফিডে মাস্টার দেবরাজ চ্যাটার্জিকে পরাজিত করেন।

বাংলাদেশ দাবা ফেডারেশন আয়োজিত নয় দিনের এই টুর্নামেন্টে পৃষ্ঠপোষকতা করছে কানাডিয়ান ইউনিভার্সিটি অফ বাংলাদেশ।

৯ রাউন্ড সুইস লিগ পদ্ধতিতে অনুষ্ঠেয় এ প্রতিযোগিতায় গ্র্যান্ডমাস্টার, আন্তর্জাতিক মাস্টার, নারী গ্র্যান্ডমাস্টার ও নারী আন্তর্জাতিক মাস্টারের নর্ম অর্জনের সম্ভাবনা রয়েছে। প্রতিযোগিতায় ১৫ হাজার ডলার অর্থ পুরস্কার দেয়া হবে।

আরও পড়ুন:
লেব্রনের রেকর্ডের দিনে হারল লেকার্স
বাইডেনের সঙ্গে দেখা করার আশা লেকার্সের
১৭তম এনবিএ শিরোপা জিতল লেকার্স

শেয়ার করুন

করোনার কারণে আর্চারি চ্যাম্পিয়নশিপ খেলছেন না দিয়া

করোনার কারণে আর্চারি চ্যাম্পিয়নশিপ খেলছেন না দিয়া

দিয়া সিদ্দিকী। ফাইল ছবি

কোয়ালিফাইং রাউন্ডের আগের দিন পরীক্ষায় করোনাভাইরাস ধরা পড়ে দিয়ার। ফলে টুর্নামেন্টে অংশ নেয়া হচ্ছে না তার। ফেডারেশন জানিয়েছে বর্তমানে দল থেকে আলাদা অবস্থায় কোয়ারেন্টিনে আছেন তিনি।

যুক্তরাষ্ট্রের সাউথ ডাকোটার ইয়াঙ্কটন শহরে শুরু হওয়া ‘ওয়ার্ল্ড আর্চারি চ্যাম্পিয়নশিপ’ থেকে নাম প্রত্যাহার করে নিয়েছেন বাংলাদেশের আর্চার দিয়া সিদ্দিকী। মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে বিষয়টি নিশ্চিত করেছে বাংলাদেশ আর্চারি ফেডারেশন।

বাংলাদেশের অন্যতম সেরা এই আর্চার টুর্নামেন্টের আগে সোমবার রাতে করোনা পজিটিভ হন। দেশ থেকে যাওয়ার সময় নেগেটিভ নিয়ে খেলতে যান তিনি।

তবে কোয়ালিফাইং রাউন্ডের আগের দিন পরীক্ষায় করোনাভাইরাস ধরা পড়ে দিয়ার। ফলে টুর্নামেন্টে অংশ নেয়া হচ্ছে না তার।

ফেডারেশন জানিয়েছে বর্তমানে দল থেকে আলাদা অবস্থায় কোয়ারেন্টিনে আছেন তিনি। দলের অন্য আর্চাররা সুস্থ আছেন বলে জানানো হয় বিবৃতিতে।

তারা সবাই মঙ্গলবার কোয়ালিফিকেশন রাউন্ডে অংশ নেবেন। বাংলাদেশ সময় মঙ্গলবার রাতে শুরু হবে কোয়ালিফাইং রাউন্ড।

সবশেষ টোকিও অলিম্পিকসে অংশ নেন দিয়া। ক্যারিয়ার সেরা স্কোর করলেও, রিকার্ভ নারী এককের এলিমিনেশন রাউন্ড থেকে বিদায় নেন তিনি।

এর আগে, আর্চারির রিকার্ভ মিক্সড ডাবলসের প্রথম রাউন্ড থেকে বিদায় নেয় রোমান সানা-দিয়া সিদ্দিকী জুটি।

আরও পড়ুন:
লেব্রনের রেকর্ডের দিনে হারল লেকার্স
বাইডেনের সঙ্গে দেখা করার আশা লেকার্সের
১৭তম এনবিএ শিরোপা জিতল লেকার্স

শেয়ার করুন

ফিদের কাছে ‘হাইব্রিড নর্ম’সহ দুই প্রস্তাব বাংলাদেশের

ফিদের কাছে ‘হাইব্রিড নর্ম’সহ দুই প্রস্তাব বাংলাদেশের

‘জয়তু শেখ হাসিনা আন্তর্জাতিক গ্র্যান্ডমাস্টার্স দাবা টুর্নামেন্ট’-এর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করছেন অতিথিরা। ছবি: পিয়াস বিশ্বাস

ফিদের কাছে করোনাভাইরাস মহামারির সময়ে নীতিমালা পরিবর্তন করে নতুন নিয়মে রেটিং অর্জনের প্রতিযোগিতা আয়োজনের প্রস্তাব দিয়েছে বাংলাদেশ।

আন্তর্জাতিক দাবা ফেডারেশনের কাছে দুটি প্রস্তাব দিয়েছে বাংলাদেশ দাবা ফেডারেশন। করোনাভাইরাস মহামারির সময়ে নীতিমালা পরিবর্তন করে নতুন নিয়মে নর্ম অর্জনের প্রতিযোগিতা আয়োজনের প্রস্তাব দেয়া হয়েছে।

সোমবার রাজধানীর একটি হোটেলে ‘জয়তু শেখ হাসিনা আন্তর্জাতিক গ্রা্যান্ড মাস্টার্স দাবা টুর্নামেন্ট’ উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের এমনটা জানান বাংলাদেশ দাবা ফেডারেশনের সভাপতি ও পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. বেনজীর আহমেদ।

প্রস্তাবগুলো ব্যাখ্যা করে তিনি বলেন, ‘করোনার এই সময়ে দাবাড়ুরা আসতে পারেন না। ওরা বায়ো বাবলে থাকবে। আমাদের দাবাড়ুরা নিজেদের সঙ্গে খেলার পাশাপাশি ওদের সঙ্গে অনলাইনে খেলবে। নর্ম অর্জন করতে পারবে। সিসিটিভি থাকবে পর্যবেক্ষণের জন্য। লাইভ স্ট্রিমিং করতে পারব।’

অনলাইন হাইব্রিড টুর্নামেন্ট আয়োজনের মাধ্যমে রেটিং বাড়ানো সম্ভব বলে জানান বেনজীর আহমেদ।

তিনি বলেন, ‘আমরা ফিদেকে প্রস্তাব করেছি। অনলাইন হাইব্রিড টুর্নামেন্টের মাধ্যমে কীভাবে নর্ম অর্জন করা যায়, সেই বিষয়ে নতুন নিয়ম করতে। আমরা নতুন নীতিমালা প্রস্তাব করেছি। আমরা মূলত ফেডারেশনের পক্ষ থেকে এবং সাউথ এশিয়ান দাবা কাউন্সিলের পক্ষ থেকে প্রস্তাব করেছি।

‘হাইব্রিড টুর্নামেন্ট করে যাতে নর্ম অর্জন করা যায়, সে বিষয়ে তাগিদ দিয়েছি।’

বাংলাদেশের এই প্রস্তাবে ফিদে সাড়া দিয়েছে বলে জানান তিনি।

বলেন, ‘তাদের কাছ থেকে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত জেনেছি, ফিদে আমাদের প্রস্তাব বিবেচনায় নিয়েছে। এটা যদি অনুমোদন পায় তাহলে দাবার ক্ষেত্রে নতুন দিগন্ত উন্মোচিত হবে।’

এ সময় চলতি বছরে প্রথমবারের মতো স্কুল ও জেলা পর্যায়ে দাবা প্রতিযোগিতা আয়োজনের ঘোষণা দিয়েছেন তিনি।

ফেডারেশনের সভাপতি বলেন, ‘আমরা দাবাকে দেশব্যাপী ছড়িয়ে দিতে চাই। তাই এ বছর স্কুল ও জেলা পর্যায়ে প্রথমবার দাবা প্রতিযোগিতা আয়োজন করতে যাচ্ছি।’

এই দুই টুর্নামেন্ট থেকে পাইপলাইন শক্তিশালী হবে বলে উল্লেখ করেন সাউথ এশিয়ান দাবা কাউন্সিলের এই সভাপতি। এই বছর প্রথমবারের মতো নারী দাবা লিগ শুরু করেছে ফেডারেশন এমনটা জানান সভাপতি।

আরও পড়ুন:
লেব্রনের রেকর্ডের দিনে হারল লেকার্স
বাইডেনের সঙ্গে দেখা করার আশা লেকার্সের
১৭তম এনবিএ শিরোপা জিতল লেকার্স

শেয়ার করুন

শেখ হাসিনা আন্তর্জাতিক গ্র্যান্ডমাস্টার্স দাবার বর্ণাঢ্য উদ্বোধন

শেখ হাসিনা আন্তর্জাতিক গ্র্যান্ডমাস্টার্স দাবার বর্ণাঢ্য উদ্বোধন

দাবার বোর্ডে ঘুঁটির চাল দিয়ে ‘জয়তু শেখ হাসিনা আন্তর্জাতিক গ্র্যান্ডমাস্টার্স দাবা টুর্নামেন্ট’-এর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করছেন অতিথিরা। ছবি: নিউজবাংলা

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ দাবা ফেডারেশন ও সাউথ এশিয়ান দাবা কাউন্সিলের সভাপতি পুলিশ মহাপরিদর্শক ড. বেনজীর আহমেদ। সম্মানীয় অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ দাবা ফেডারেশনের সহসভাপতি এবং কানাডিয়ান ইউনিভার্সিটি অফ বাংলাদেশ-এর প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান, বোর্ড অফ ট্রাস্টিজ ড. চৌধুরী নাফিজ সরাফাত।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৫তম জন্মদিন উপলক্ষে আয়োজিত ‘জয়তু শেখ হাসিনা আন্তর্জাতিক গ্র্যান্ডমাস্টার্স দাবা টুর্নামেন্ট’-এর বর্ণাঢ্য উদ্বোধন হয়েছে।

রাজধানীর লা মেরিডিয়ান হোটেলে সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন হয় এ আয়োজন। তবে বিভিন্ন রাউন্ডের খেলা রোববারই শুরু হয়েছে বিজয়নগরের হোটেল ৭১-এ।

বাংলাদেশ দাবা ফেডারেশন আয়োজিত ৯ দিনের এই টুর্নামেন্টে পৃষ্ঠপোষকতা দিচ্ছে কানাডিয়ান ইউনিভার্সিটি অফ বাংলাদেশ।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ দাবা ফেডারেশন ও সাউথ এশিয়ান দাবা কাউন্সিলের সভাপতি পুলিশ মহাপরিদর্শক ড. বেনজীর আহমেদ। সম্মানীয় অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ দাবা ফেডারেশনের সহসভাপতি এবং কানাডিয়ান ইউনিভার্সিটি অফ বাংলাদেশ-এর প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান, বোর্ড অফ ট্রাস্টিজ ড. চৌধুরী নাফিজ সরাফাত।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন ফেডারেশনের সহসভাপতি কে এম শহীদুল্লাহ্, দাবা ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ শাহাবুদ্দিন শামীম, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. শোয়েব রিয়াজ আলম, ফেডারেশনের আরেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাসুদুর রহমান মল্লিক এবং কানাডিয়ান ইউনিভার্সিটি অফ বাংলাদেশের প্রধান উপদেষ্টা অধ্যাপক মোহাম্মদ এ আরাফাত।

শেখ হাসিনা আন্তর্জাতিক গ্র্যান্ডমাস্টার্স দাবার বর্ণাঢ্য উদ্বোধন
‘জয়তু শেখ হাসিনা আন্তর্জাতিক গ্র্যান্ডমাস্টার্স দাবা টুর্নামেন্ট’-এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অতিথিরা

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে পুলিশ মহাপরিদর্শক ড. বেনজীর আহমেদ বলেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মতো একজন মহীয়সী নারীর নামে এই টুর্নামেন্ট আয়োজন করতে পেরে আমরা অনেক গর্বিত ও আনন্দিত।’

তিনি বলেন, ‘১৯৮০-এর দশকে বাংলাদেশের জন্য মাত্র ৭০ মিলিয়ন ডলার উন্নয়ন সহায়তা জোগাড় করতে ভিক্ষার ঝুলি নিয়ে প্যারিসে জবাবদিহি করতে হতো। অথচ এখন সেই বাংলাদেশ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে শ্রীলঙ্কাকে ২০০ মিলিয়ন ডলার ঋণ দিচ্ছে, সুদানকে ২০০ মিলিয়ন ডলার ঋণ দিচ্ছে।’

বেনজীর আহমেদ বলেন, ‘এর চেয়ে বড় প্রাপ্তি আর কী হতে পারে। আমরা এর জন্য প্রধানমন্ত্রীর কাছে কৃতজ্ঞ।’

শেখ হাসিনা আন্তর্জাতিক গ্র্যান্ডমাস্টার্স দাবার বর্ণাঢ্য উদ্বোধন
‘জয়তু শেখ হাসিনা আন্তর্জাতিক গ্র্যান্ডমাস্টার্স দাবা টুর্নামেন্ট’-এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন বাংলাদেশ দাবা ফেডারেশনের সভাপতি পুলিশ মহাপরিদর্শক ড. বেনজীর আহমেদ

তিনি বলেন, ‘২০০৯ সালে তিনি (প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা) যখন দ্বিতীয় মেয়াদে ক্ষমতায় আসেন, তখন বাংলাদেশের ৪৫ ভাগ মানুষ দারিদ্র্যসীমার নিচে বসবাস কর‍ত। আর এখন সেটি ৯ ভাগের নিচে। করোনা মহামারি না এলে দারিদ্র্যসীমা এতদিনে হয়তো আরও নিচে নামত।’

চলতি বছর থেকে জেলা ও স্কুল পর্যায়ে দাবা টুর্নামেন্ট শুরুর ঘোষণা দেন দাবা ফেডারেশনের সভাপতি।

এ ছাড়া শেখ রাসেলের জন্মদিন উপলক্ষে অক্টোবরে আরও একটি আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্ট আয়োজনের ঘোষণা দেন তিনি।

শেখ হাসিনা আন্তর্জাতিক গ্র্যান্ডমাস্টার্স দাবার বর্ণাঢ্য উদ্বোধন
‘জয়তু শেখ হাসিনা আন্তর্জাতিক গ্র্যান্ডমাস্টার্স দাবা টুর্নামেন্ট’-এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন বাংলাদেশ দাবা ফেডারেশনের সহসভাপতি এবং কানাডিয়ান ইউনিভার্সিটি অফ বাংলাদেশ-এর প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান, বোর্ড অফ ট্রাস্টিজ ড. চৌধুরী নাফিজ সরাফাত

অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ দাবা ফেডারেশনের সহসভাপতি এবং কানাডিয়ান ইউনিভার্সিটি অফ বাংলাদেশ-এর প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান, বোর্ড অফ ট্রাস্টিজ ড. চৌধুরী নাফিজ সরাফাত বলেন, ‘আজ যে টুর্নামেন্টের উদ্বোধন আমরা করতে যাচ্ছি সেটি একজন অনন্য নেতার নামে। শুধু বাংলাদেশের মানুষ নয়, পৃথিবীর সর্বত্র তাকে মানবতার জননী ও একজন শীর্ষস্থানীয় বৈশ্বিক চিন্তাবিদ হিসেবে মানুষ শ্রদ্ধা করে। বঙ্গবন্ধু যে সোনার বাংলার স্বপ্ন দেখেছিলেন, সেটি বাস্তবায়িত হয়েছে অনন্য এক নেতার কয়েক দশকের সংগ্রামের মধ্য দিয়ে। আমাদের গণতন্ত্র, উন্নয়ন, জীবনমান, সমৃদ্ধ অর্থনীতি- সবকিছুই অর্জন সম্ভব হয়েছে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রাজ্ঞ নেতৃত্বের মাধ্যমে।’

তিনি বলেন, ‘সুন্দর মন মানুষের মর্যাদার পক্ষে কথা বলে। যে কারণে আমাদের গত বছরের দাবার আসর এতটা সাফল্য পেয়েছিল। অংশগ্রহণকারী, আয়োজক, সাংবাদিক ও স্টেকহোল্ডাররা জন্মদিন উদযাপনের এই টুর্নামেন্টের অংশ হতে পারাকে সত্যিকারের সম্মানের বিষয় হিসেবে বিবেচনা করেছেন।

“কারণ এই উদযাপন বাধ্যবাধকতা নয় বরং এটি ‘মানবতার জননীর’ প্রতি শ্রদ্ধা থেকে করা হয়েছে।”

আয়োজনের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সবাইকে ধন্যবাদ জানান চৌধুরী নাফিজ সরাফাত।

দাবা ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ শাহাবুদ্দিন শামীম টুর্নামেন্ট আয়োজনে আর্থিক পৃষ্ঠপোষকতা দেয়াসহ সব ধরনের সহায়তা দেয়ায় চৌধুরী নাফিজ সরাফাত ও কানাডিয়ান ইউনিভার্সিটি অফ বাংলাদেশের ভূয়সী প্রশংসা করেন ও কৃতজ্ঞতা জানান।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি কানাডিয়ান ইউনিভার্সিটির বোর্ড অফ ট্রাস্টিজ-এর প্রধান উপদেষ্টা মোহাম্মদ এ আরাফাত ক্রীড়া ও শিল্পের বিকাশে আর্থিক পৃষ্ঠপোষকতা বাড়ানোর ওপর জোর দেন। টুর্নামেন্ট আয়োজনে সহায়তা দেয়ায় চৌধুরী নাফিজ সরাফাতকে ধন্যবাদ জানান তিনি।

শেখ হাসিনা আন্তর্জাতিক গ্র্যান্ডমাস্টার্স দাবার বর্ণাঢ্য উদ্বোধন
‘জয়তু শেখ হাসিনা আন্তর্জাতিক গ্র্যান্ডমাস্টার্স দাবা টুর্নামেন্ট’ উদ্বোধন করছেন অতিথিরা

বক্তব্য শেষে দাবার বোর্ডে ঘুঁটির চাল দিয়ে এবং ফিতা কেটে প্রতিযোগিতার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন অতিথিরা।

প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে গত বছরের সেপ্টেম্বরে হয়েছিল জয়তু শেখ হাসিনা আন্তর্জাতিক অনলাইন দাবা টুর্নামেন্ট। ওই টুর্নামেন্টের সমাপনী অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ দাবা ফেডারেশনের সভাপতি আইজিপি ড. বেনজীর আহমেদ এবং সহসভাপতি চৌধুরী নাফিজ সরাফাত ঘোষণা দিয়েছিলেন, প্রতিবছর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নামে গ্র্যান্ডমাস্টার টুর্নামেন্ট আয়োজন করার। সে ঘোষণা অনুযায়ী প্রধানমন্ত্রীর ৭৫তম জন্মদিন উপলক্ষে আয়োজিত হচ্ছে এবারের টুর্নামেন্ট।

এর আগে গত শুক্রবার টুর্নামেন্টের বিস্তারিত জানাতে বনানীর হোটেল শেরাটনে সংবাদ সম্মেলন করেন আয়োজকেরা। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর সাবেক সচিব ও বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের চেয়ারম্যান সাজ্জাদুল হাসান। বক্তব্য দেন বাংলাদেশ দাবা ফেডারেশনের সহসভাপতি এবং কানাডিয়ান ইউনিভার্সিটি অফ বাংলাদেশ-এর প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান, বোর্ড অফ ট্রাস্টিজ ড. চৌধুরী নাফিজ সরাফাত, ফেডারেশনের সহসভাপতি কে এম শহীদুল্লাহ্, দাবা ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ শাহাবুদ্দিন শামীম, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ডা. শোয়েব রিয়াজ আলম।

শেখ হাসিনা আন্তর্জাতিক গ্র্যান্ডমাস্টার্স দাবার বর্ণাঢ্য উদ্বোধন

বাংলাদেশসহ ১০টি দেশের ১২ জন গ্র্যান্ডমাস্টার, ১৬ জন আন্তর্জাতিক মাস্টার ও তিনজন নারী আন্তর্জাতিক মাস্টার এই টুর্নামেন্টে অংশ নিচ্ছেন। বিদেশি খেলোয়াড়রা হচ্ছেন: গ্র্যান্ডমাস্টার দীপ দাস গুপ্ত (ভারত), এহসান ঘাইম মাগামি (ইরান), মাসোউদ মোসাদেগপোর (ইরান), ভাদিম মালাখাটকো (বেলজিয়াম), অড্রে সুমেটস (ইউক্রেন), জুভারেভ আলেক্সান্ডার (ইউক্রেন) ও আলেক্সেই কিসলিনসি (চেক রিপাবলিক)।

আন্তর্জাতিক, ফিদে ও ক্যান্ডিডেট মাস্টারেরা হলেন শেখ মোহাম্মদ নুবাইর শাহ (ভারত), আবদিহাপার আসিলবেক (কিরগিজস্তান), মাহমুদ লোদি (পাকিস্তান), অরোক ঘোষ (ভারত), কোস্তোভ চ্যাটার্জি (ভারত), চক্রবর্তী রেড্ডি মেরেড্ডি (ভারত), মিত্রভা গুহ (ভারত), মোকশকুমার অমিতকুমার দোশি (ভারত), নিলাশ সাহা (ভারত), সামেদ সেকুয়ার সেটি (ভারত), সায়ন্তন দাস (ভারত), সোমক পালিত (ভারত), শ্রীজিত পাল (ভারত), শুভায়ন কুণ্ডু (ভারত), সংকল্প গুপ্ত (ভারত), সংকেত চক্রবর্তী (ভারত), সৌরথ বিশ্বাস (ভারত), অরপিতা মুখার্জি (ডব্লিউআইএম, ভারত), লিয়ানাগে রানিদু দিলশান (সিএম, শ্রীলঙ্কা), সাসিথ নিপুন পিউমান্থা (এফএম, শ্রীলঙ্কা) এবং রুপেশ জসওয়াল (এফএম, নেপাল)।

দেশের পাঁচ গ্র্যান্ডমাস্টার নিয়াজ মোরশেদ, জিয়াউর রহমান, রিফাত বিন সাত্তার, মোল্লা আব্দুল্লাহ আল রাকিব, এনামুল হোসেন রাজীব; তিন আন্তর্জাতিক মাস্টার আবু সফিয়ান শাকিল, মোহাম্মদ মিনহাজ উদ্দিন, মোহাম্মদ ফাহাদ রহমান, দুই নারী আন্তর্জাতিক মাস্টার রানী হামিদ ও শারমীন সুলতানা শিরিনসহ বিভিন্ন পর্যায়ের খেলোয়াড়দের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে।

৯ রাউন্ড সুইস লিগ পদ্ধতিতে অনুষ্ঠেয় এ প্রতিযোগিতায় গ্র্যান্ডমাস্টার, আন্তর্জাতিক মাস্টার, নারী গ্র্যান্ডমাস্টার ও নারী আন্তর্জাতিক মাস্টারের নর্ম অর্জনের সম্ভাবনা রয়েছে। প্রতিযোগিতায় মোট নগদ ১৫ হাজার আমেরিকান ডলার অর্থ পুরস্কার দেয়া হবে।

এর মধ্যে মূল পুরস্কার থাকবে ১৩ হাজার ডলার (চ্যাম্পিয়ন ৪০০০, রানার-আপ ২৫০০, তৃতীয় ১৫০০, চতুর্থ ১০০০, পঞ্চম ১০০০, ষষ্ঠ ১০০০, সপ্তম ১০০০, অষ্টম ১০০০ ডলার)।

বাংলাদেশের খেলোয়াড়দের জন্য দুই হাজার আমেরিকান ডলার (প্রথম ৭০০, দ্বিতীয় ৫০০, তৃতীয় ৪০০, চতুর্থ ২০০ এবং পঞ্চমকে ২০০ ডলার) পুরস্কার দেয়া হবে।

বনানীর হোটেল শেরাটনে ২৭ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় হবে প্রতিযোগিতার সমাপনী অনুষ্ঠান।

আরও পড়ুন:
লেব্রনের রেকর্ডের দিনে হারল লেকার্স
বাইডেনের সঙ্গে দেখা করার আশা লেকার্সের
১৭তম এনবিএ শিরোপা জিতল লেকার্স

শেয়ার করুন

এ বছরই শুরু জেলা ও স্কুল দাবা টুর্নামেন্ট

এ বছরই শুরু জেলা ও স্কুল দাবা টুর্নামেন্ট

জয়তু শেখ হাসিনা আন্তর্জাতিক গ্রা্যান্ড মাস্টার্স দাবার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখছেন বাংলাদেশ দাবা ফেডারেশনের সভাপতি ড. বেনজীর আহমেদ। ছবি: পিয়াস বিশ্বাস

জেলা পর্যায়ে ও স্কুল পর্যায়ের টুর্নামেন্ট থেকে পাইপলাইন শক্তিশালী হবে বলে উল্লেখ করেন সাউথ এশিয়ান দাবা কাউন্সিল ও বাংলাদেশ দাবা ফেডারেশনের সভাপতি।

চলতি বছর প্রথমবারের মতো স্কুল ও জেলা পর্যায়ে দাবা প্রতিযোগিতা আয়োজনের ঘোষণা দিয়েছে বাংলাদেশ দাবা ফেডারেশন।

সোমবার রাজধানীর একটি হোটেলে ‘জয়তু শেখ হাসিনা আন্তর্জাতিক গ্রা্যান্ড মাস্টার্স দাবা টুর্নামেন্ট’ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে দাবা ফেডারেশনের সভাপতি ও পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. বেনজীর আহমেদ এই ঘোষণা দেন।

তিনি বলেন, ‘আমরা দাবাকে দেশব্যাপী ছড়িয়ে দিতে চাই। তাই এ বছর স্কুল ও জেলা পর্যায়ে প্রথমবার দাবা প্রতিযোগিতা আয়োজন করতে যাচ্ছি।’

জেলা পর্যায়ে ও স্কুল পর্যায়ের টুর্নামেন্ট থেকে পাইপলাইন শক্তিশালী হবে বলে উল্লেখ করেন সাউথ এশিয়ান দাবা কাউন্সিল ও বাংলাদেশ দাবা ফেডারেশনের সভাপতি।

তিনি বলেন, ‘এই দুটি টুর্নামেন্ট থেকে পাইপলাইন শক্তিশালী হবে। খেলোয়াড় বের হবে নতুন নতুন। তারা ঘরোয়া থেকে শুরু করে আন্তর্জাতিক আসরে প্রতিযোগিতা করবে।’

দেশের দাবাড়ুরা যাতে বেশি রেটিং অর্জন করতে পারেন সেজন্য বেশি করে নর্ম টুর্নামেন্ট আয়োজনের পরিকল্পনা করছে ফেডারেশন।

জয়তু শেখ হাসিনা আন্তর্জাতিক গ্রা্যান্ড মাস্টার্স দাবা টুর্নামেন্টের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ দাবা ফেডারেশনের সহসভাপতি এবং কানাডিয়ান ইউনিভার্সিটি অফ বাংলাদেশ-এর প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান, বোর্ড অফ ট্রাস্টিজ ড. চৌধুরী নাফিজ সরাফাত।

বাংলাদেশসহ ১০টি দেশের ১২ জন গ্র্যান্ডমাস্টার, ১৬ জন আন্তর্জাতিক মাস্টার ও তিনজন নারী আন্তর্জাতিক মাস্টার দাবা ফেডারেশন ও কানাডিয়ান ইউনিভার্সিটি অফ বাংলাদেশ আয়োজিত এই টুর্নামেন্টে অংশ নিচ্ছেন।

৯ রাউন্ড সুইস লিগ পদ্ধতিতে অনুষ্ঠেয় এ প্রতিযোগিতায় গ্র্যান্ডমাস্টার, আন্তর্জাতিক মাস্টার, নারী গ্র্যান্ডমাস্টার ও নারী আন্তর্জাতিক মাস্টারের নর্ম অর্জনের সম্ভাবনা রয়েছে। প্রতিযোগিতায় ১৫ হাজার ডলার অর্থ পুরস্কার দেয়া হবে।

এর মধ্যে মূল পুরস্কার থাকবে ১৩ হাজার ডলার (চ্যাম্পিয়ন চার হাজার, রানার-আপ আড়াই হাজার, তৃতীয় দেড় হাজার, চতুর্থ এক হাজার, পঞ্চম এক হাজার, ষষ্ঠ এক হাজার, সপ্তম এক হাজার ও অষ্টম এক হাজার ডলার)।

বাংলাদেশের খেলোয়াড়দের জন্য দুই হাজার ডলার (প্রথম ৭০০ ডলার, দ্বিতীয় ৫০০, তৃতীয় ৪০০, চতুর্থ ২০০, পঞ্চম ২০০ ডলার) পুরস্কার দেয়া হবে।

আরও পড়ুন:
লেব্রনের রেকর্ডের দিনে হারল লেকার্স
বাইডেনের সঙ্গে দেখা করার আশা লেকার্সের
১৭তম এনবিএ শিরোপা জিতল লেকার্স

শেয়ার করুন