বিজয় দিবস হকির অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন নৌ বাহিনী

বিজয় দিবস হকির অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন নৌ বাহিনী

ছবি: বাহফে

বিমানকে ৫-০ গোল ব্যবধানে হারিয়েছে নৌ বাহিনী। ফিল্ড গোলে হ্যাটট্রিক পূরণ করেছেন মাহবুব হোসেন। একটি করে গোল করেছেন আশরাফুল ইসলাম ও মাইনুল ইসলাম।

মুজিব বর্ষ উপলক্ষে ওয়ালটন বিজয় দিবস হকির ফাইনালে বাংলাদেশ বিমান বাহিনীকে গোল বন্যায় ভাসিয়ে অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন হয়েছে বাংলাদেশ নৌ বাহিনী।

মওলানা ভাসানী হকি স্টেডিয়ামে রোববার বিমানকে ৫-০ গোলে হারিয়েছে নৌ বাহিনী।

ফিল্ড গোলে নিজের হ্যাটট্রিক পূরণ করেছেন মাহবুব হোসেন। একটি করে গোল করেছেন আশরাফুল ইসলাম ও মাইনুল ইসলাম।

টুর্নামেন্টে সর্বোচ্চ ১১ গোল করে সর্বোচ্চ গোলদাতা হয়েছেন নৌ বাহিনীর আশরাফুল। একই দলের মাহবুব হোসেন টুর্নামেন্ট সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হন।

চ্যাম্পিয়ন দল বাংলাদেশ নৌ বাহিনীকে প্রাইজমানি হিসেবে দেয়া হয় ৩০ হাজার টাকা ও রানার আপ দল বিমান পেয়েছে ২০ হাজার টাকা।

ফাইনাল খেলায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে পুরস্কার বিতরণ করেন যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল।

এসময় বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর প্রধান ও বাংলাদেশ হকি ফেডারেশনের মাননীয় সভাপতি এয়ার চিফ মার্শাল মাসিহুজ্জামান সেরনিয়াবাত উপস্থিত ছিলেন।

আরও ছিলেন ওয়ালটনের নির্বাহী পরিচালক এফএম ইকবাল বিন আনোয়ার ডন, টুর্নামেন্ট কমিটির চেয়ারম্যান জাকি আহমেদ রিপন, সম্পাদক বদরুল ইসলাম দিপু, ফেডারেশনের সহসভাপতি আব্দুর রশিদ শিকদার, সহসভাপতি জনাব সাজেদ এ এ আদেল, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ ইউসুফ, যুগ্ম সম্পাদক কামরুল ইসলাম কিসমত ও ফেডারেশনের অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দ।

আরও পড়ুন:
প্রথম জয় সোনালী ব্যাংকের, টানা তৃতীয় নৌ বাহিনীর
পুলিশকে ধসিয়ে দিল বিমান, সেনাবাহিনীর হোঁচট
পুলিশকে গুঁড়িয়ে দিল সেনাবাহিনী, বিমানকে ডোবাল নৌ

শেয়ার করুন

মন্তব্য

তালেবানের ভয়ে বেলগ্রেডে পালিয়ে ১১ আফগান বক্সার

তালেবানের ভয়ে বেলগ্রেডে পালিয়ে ১১ আফগান বক্সার

বেলগ্রেডে অনুশীলন করছেন আফগান বক্সাররা। ছবি: এএফপি

১১ বক্সারের সঙ্গে দুজন কর্মকর্তাও রয়েছেন, যারা বেলগ্রেডে থেকে গেছেন। পুরো দলটি এখন শহরের বিভিন্ন হোটেলে থাকছে।

ইন্টারন্যাশনাল বক্সিং অ্যাসোসিয়েশনের (এআইবিএ) বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে অংশ নিতে নভেম্বরে সার্বিয়ার রাজধানী বেলগ্রেডে গিয়েছিল আফগানিস্তানের একট বক্সিং দল। তাদের ১১ জন দেশে ফিরতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন।

১১ বক্সারের সঙ্গে দুজন কর্মকর্তাও রয়েছেন, যারা বেলগ্রেডে থেকে গেছেন। পুরো দলটি এখন শহরের বিভিন্ন হোটেলে থাকছে।

দলের সদস্য ১৯ বছর বয়সী লাইটওয়েইট বক্সার ও আফগানিস্তানে নিজের ক্যাটাগরিতে জাতীয় চ্যাম্পিয়ন হাসিব মালিকজাদা বার্তা সংস্থা এএফপিকে জানান, তারা তালেবানের ভয়ে দেশে ফিরছেন না। দেশের ফিরলে অনেকের প্রাণহানির আশঙ্কা আছে।

তিনি যোগ করেন, ‘তালেবান আসার পর আমরা বক্সিং চালিয়ে যেতে পারছিলাম না। জিম বন্ধ হয়ে গিয়েছিল।’

তার দুই ভাই তালেবান সরকারের বিরোধী পক্ষে যোগ দেন ও পাঞ্জশিরে যুদ্ধ করেন। যে কারণে মৃত্যভয় তার বেশি।

মালিকজাদা বলেন, ‘তালেবানরা আমাদের খুঁজে পেলে মেরে ফেলবে।’

আফগানিস্তানের যুদ্ধবিধ্বস্ত অবস্থার মধ্যেই মালিকজাদার মতো বক্সাররা নিজেদের অনুশীলন চালিয়ে গেছেন।

চারদিকের তাণ্ডবলীলার মাঝে তারা অনুশীলনের সময়টুকুতে শান্তি খুঁজে পেতেন বলে জানান ২০ বছর বয়সী তওফিকুল্লাহ সোলাইমানি।

তিনি বলেন, ‘বক্সিং আমাদের শরীর, স্বাস্থ্য ও মনকে প্রফুল্ল রাখত।’

তালেবানের প্রথম শাসনামলে ১৯৯০-এর দশকে বক্সিংকে নিষিদ্ধ করা হয়। এবারও তাই তালেবান ক্ষমতায় আসার পর থেকে বক্সাররা গোপনে অনুশীলন করতেন ও সরঞ্জাম লুকিয়ে রাখতেন।

সার্বিয়ায় তারা এসেছেন সীমানা পেরিয়ে ইরান হয়ে। তেহরানে তাদের টুর্নামেন্টের আগ মুহূর্তে সার্বিয়ার ভিসা দেয়া হয়।

এত সমস্যার মাঝেও নিজেদের খেলা চালিয়ে গেছেন আফগান বক্সাররা। সার্বিয়ায় আসার পর খুব ভালো করে বিশ্রাম নেয়ার সুযোগ না পেলেও অনুশীলন চালিয়ে গেছেন বলে জানান আফগান বক্সিং ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক ওয়াহিদুল্লাহ হামিদি।

হামিদি এএফপিকে বলেন, ‘আমি দেশ থেকে অনেক সতর্ক বার্তা পাচ্ছি। পরিবার ও বন্ধুরা বলছে দেশে না ফিরতে।’

দুই বছর আগে তালেবানের হাতে তার বাবা নিহত হন। হামিদির বাবা বক্সিং ফেডারশনের কর্মকর্তা ছিলেন। বক্সিংয়ে নারীদের অনুমতি দেয়ার জন্য তাকে হত্যা করা হয়।

পরিস্থিতি ঠিক না হলে দেশে ফিরতে চান না বক্সাররা। তবে শরণার্থীর জীবন নিয়ে কেউই সন্তুষ্ট নন।

হামিদি বলেন, ‘এটা অত্যন্ত দুঃখজনক একটা পরিস্থিতি। কেউই তাদের মাতৃভূমি ছেড়ে থাকতে চায় না।’

আরও পড়ুন:
প্রথম জয় সোনালী ব্যাংকের, টানা তৃতীয় নৌ বাহিনীর
পুলিশকে ধসিয়ে দিল বিমান, সেনাবাহিনীর হোঁচট
পুলিশকে গুঁড়িয়ে দিল সেনাবাহিনী, বিমানকে ডোবাল নৌ

শেয়ার করুন

মেরিন ড্রাইভের আল্ট্রা ম্যারাথনে ৩০০ অ্যাথলিট

মেরিন ড্রাইভের আল্ট্রা ম্যারাথনে  ৩০০ অ্যাথলিট

কক্সবাজারের আল্ট্রা ম্যারাথনে অংশ নেন ৩০০ অ্যাথলিট। ছবি: নিউজবাংলা

প্রথমবারের মতো এ প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়েছে ট্রান্সজেন্ডার, দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী ও হুইলচেয়ার ব্যবহারকারী ১০০ অ্যাথলিট।

মহান স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও বিজয়ের মাসকে কেন্দ্র করে প্রতি বছরের মতো এবারও মেরিন ড্রাইভ আল্ট্রা ম্যারাথন হয়েছে।

প্রথমবারের মতো এ প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়েছে ট্রান্সজেন্ডার, দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী ও হুইলচেয়ার ব্যবহারকারী ১০০ জন অ্যাথলিট।

কক্সবাজারের ইনানী সৈকতের বালিয়াড়ি থেকে শুক্রবার সকাল ৬টায় এ ম্যারাথন শুরু হয়৷

আয়োজকরা জানান, বৈচিত্র্যের প্রতি ইতিবাচক মানসিকতার প্রসার ঘটাতে ও সমাজের বিভিন্ন বৈচিত্র্যের মানুষের অংশগ্রহণ উৎসাহিত করতে এ আল্ট্রা ম্যারাথনের আয়োজন করা হয়। অংশগ্রহণকারী অ্যাথলিটের সংখ্যা ৩০০।

মেরিন ড্রাইভ আল্ট্রা ম্যারাথনে বরিশাল, রাজশাহী, ঢাকা, খুলনা, চট্টগ্রাম থেকে এসে অ্যাথলিটরা অংশ নেন।

মেরিন ড্রাইভের আল্ট্রা ম্যারাথনে  ৩০০ অ্যাথলিট

ম্যারাথনে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের জন্য ৫০ কিলোমিটার, সাধারণ অ্যাথলিটদের জন্য ১০০ কিলোমিটার দূরত্ব ছিল।

২০২০ সালের ১৭ জানুয়ারি ‘ভ্রমণ হোক দায়িত্বশীল ও পরিবেশবান্ধব’ স্লোগানকে সামনে রেখে প্রথমবারের মতো কক্সবাজারের মেরিন ড্রাইভে আল্ট্রা ম্যারাথনের আয়োজন হয়।

তারই ধারাবাহিকতায় এ বছর ‘দেশ আমার, দায়িত্ব আমার’ স্লোগানকে সামনে রেখে আয়োজন হয় এবারের আসরের।

আরও পড়ুন:
প্রথম জয় সোনালী ব্যাংকের, টানা তৃতীয় নৌ বাহিনীর
পুলিশকে ধসিয়ে দিল বিমান, সেনাবাহিনীর হোঁচট
পুলিশকে গুঁড়িয়ে দিল সেনাবাহিনী, বিমানকে ডোবাল নৌ

শেয়ার করুন

টিকা নিয়ে জকোভিচকে ব্ল্যাকমেইলের অভিযোগ

টিকা নিয়ে জকোভিচকে ব্ল্যাকমেইলের অভিযোগ

নোভাক জকোভিচ। ছবি: এএফপি

করোনাভাইরাসের ঝুঁকি মাথায় রেখে আয়োজকদের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, টিকা ছাড়া কোনো খেলোয়াড়ই এবারের আসরে অংশ নিতে পারবে না। আর এতেই বিপাকে পড়েছেন জকোভিচ। কারণ প্রথম থেকেই তিনি টিকা না নেয়ার পক্ষে অনড় অবস্থানে রয়েছেন।

টিকা সংক্রান্ত বিষয়ে নোভাক জকোভিচকে অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের আয়োজকরা ব্ল্যাকমেইল করেছেন বলে অভিযোগ এসেছে সার্বিয়ান সংবাদ মাধ্যমে। তবে অভিযোগ অস্বীকার করেছে আয়োজক কর্তৃপক্ষ।

৩৪ বছর বয়সী জকোভিচ আগামী জানুয়ারিতে বছরের প্রথম গ্র্যান্ড স্ল্যামে রেকর্ড ২১তম স্ল্যাম শিরোপা জয়ের লক্ষ্যে কোর্টে নামবেন।

করোনাভাইরাসের ঝুঁকি মাথায় রেখে আয়োজকদের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, টিকা ছাড়া কোনো খেলোয়াড় এবারের আসরে অংশ নিতে পারবে না। আর এতেই বিপাকে পড়েছেন জকোভিচ।

কারণ প্রথম থেকেই তিনি টিকা না নেয়ার পক্ষে অনড় অবস্থানে রয়েছেন।

এ কারণে তার বাবা সারিয়ান জকোভিচ সার্বিয়ান টেলিভিশনে এক সাক্ষাৎকারে বলেন, ‘হলে তার ছেলে হয়তো অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে নাও খেলতে পারে। এই ধরনের পরিস্থিতিতে তার ছেলেকে হয়তো বা ব্ল্যাকমেইল করা হচ্ছে।’

এক সিনিয়র কর্মকর্তা সংবাদ সংস্থা এএফপিকে বলেন, খেলোয়াড়দের নিরাপত্তার কথা ভেবেই টিকা নেয়ার বিষয়টি প্রাধান্য দেয়া হয়েছে।

ভিক্টোরিয়ার ক্রীড়ামন্ত্রী মার্টিন পাকুলা বলেন, ‘নয়বারের চ্যাম্পিয়ন জকোভিচকে দেখার জন্য অস্ট্রেলিয়ানরা সবসময়ই মুখিয়ে থাকে। এবারও তার ব্যতিক্রম নয়।

‘অন্যান্য সব মানুষের জন্য ভিক্টোরিয়া সরকারের কোভিড যে আইন রয়েছে, তা খেলোয়াড়দের ক্ষেত্রেও প্রযোজ্য। এখানে ব্ল্যাকমেইলের প্রশ্নই আসে না। এর অর্থ হচ্ছে ভিক্টোরিয়ার মানুষের নিরাপদে থাকা।’

অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের প্রধান ক্রেইগ টিল গত মাসে জানিয়েছিলেন, বছরের প্রথম গ্র্যান্ড স্ল্যাম টুর্নামেন্টে অংশ নেওয়া সব খেলোয়াড়কে টিকা নিতে হবে। এ বিষয়ে কোনো ছাড় দেওয়া হবে না।

গত বছর অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে খেলোয়াড়দের বাধ্যতামূলক দুই সপ্তাহের জন্য হোটেল কোয়ারেন্টিন করতে হয়েছিল, কিন্তু এবার সে ধরনের কোনো বাধ্যবাধকতা থাকছে না। তবে নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রনের ভয়াবহতার ওপর পুরো পরিস্থিতি নির্ভর করছে।

আগামী বছর ১৭ জানুয়ারি থেকে মেলবোর্নে বছরের প্রথম এই গ্র্যান্ড স্ল্যাম শুরু হওয়ার কথা।

আরও পড়ুন:
প্রথম জয় সোনালী ব্যাংকের, টানা তৃতীয় নৌ বাহিনীর
পুলিশকে ধসিয়ে দিল বিমান, সেনাবাহিনীর হোঁচট
পুলিশকে গুঁড়িয়ে দিল সেনাবাহিনী, বিমানকে ডোবাল নৌ

শেয়ার করুন

চীন থেকে সকল টুর্নামেন্ট প্রত্যাহার করে নিল ডব্লিউটিএ

চীন থেকে সকল টুর্নামেন্ট প্রত্যাহার করে নিল ডব্লিউটিএ

চীনের টেনিস তারকা পেং শুয়াই। ছবি: এএফপি

ডব্লিউটিএ-এর প্রধান স্টিভ সিমন বলেন, ‘এই অ্যাথলেটের মুক্ত ও নিরাপদ থাকার ব্যাপারে সন্দেহ আছে। এমন অবস্থায় আমি কীভাবে সেখানে (চীন) অ্যাথলেটদের খেলার জন্য বলতে পারি।’

চীনের টেনিস তারকা পেং শুয়াইয়ের নিরাপত্তা নিয়ে উদ্বেগের কারণ দেখিয়ে দেশটি থেকে সকল টুর্নামেন্ট প্রত্যাহার করে নিয়েছে উইমেন্স টেনিস অ্যাসোসিয়েশনের (ডব্লিউটিএ)।

প্রত্যাহারের বিষয়টি বুধবার এক বিবৃতিতে জানায় ডব্লিউটিএ।

চীনের উপ-প্রধানমন্ত্রী ঝাং গাওলির বিরুদ্ধে যৌন নির্যাতনের অভিযোগ তোলার পর প্রায় তিন সপ্তাহ জনসম্মুখে আসতে দেখা যায়নি ৩৫ বছর বয়সী পেংকে।

বিবৃতিতে পেংয়ের নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করেন ডব্লিউটিএ-এর প্রধান স্টিভ সিমন। তিনি বলেন, ‘এই অ্যাথলেটের মুক্ত ও নিরাপদ থাকার ব্যাপারে সন্দেহ আছে। এমন অবস্থায় আমি কীভাবে সেখানে (চীন) অ্যাথলেটদের খেলার জন্য বলতে পারি।’

নিরাপত্তার ইস্যুটা আরও জোরদার করে ডাব্লিউটিএ গত নভেম্বরে আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটির সঙ্গে পেংয়ের ভিডিও কলের পর। সেই ভিডিওতে সে ‘ভালো এবং নিরাপদ’ আছে বলে জানানো হয়েছে।

তবে ভিডিওতে পেংয়ের ভালো থাকার বিষয়ে ‘পর্যাপ্ত প্রমাণের’ অভাব রয়েছে বলে দাবি করা হয়।

ডব্লিউটিএ শুরু থেকে বারবার পেংয়ের অভিযোগের বিষয়ে পূর্ণ তদন্তের আহ্বান জানিয়ে আসছে। তবে চীনের উচ্চ পর্যায় থেকে এখনও এ বিষয়ে সুনিশ্চিত করে কিছু বলা হয়নি।

চীনের পাশাপাশি এই প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত বহাল থাকবে হংকংয়ের জন্যও।

আরও পড়ুন:
প্রথম জয় সোনালী ব্যাংকের, টানা তৃতীয় নৌ বাহিনীর
পুলিশকে ধসিয়ে দিল বিমান, সেনাবাহিনীর হোঁচট
পুলিশকে গুঁড়িয়ে দিল সেনাবাহিনী, বিমানকে ডোবাল নৌ

শেয়ার করুন

পাকিস্তান-জাপানের সঙ্গে প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ

পাকিস্তান-জাপানের সঙ্গে প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ

ছবি: ফাইল ছবি

বাংলাদেশ হকি ফেডারেশন (বাহফে) জানিয়েছে, ১০ ডিসেম্বর জাপান ও ১২ ডিসেম্বর পাকিস্তানের বিপক্ষে খেলবে জিমি-আশরাফুলরা।

এশিয়ান চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি হকি টুর্নামেন্ট শুরু হচ্ছে ১৪ ডিসেম্বর। ঢাকায় উদ্বোধনী ম্যাচে মালয়েশিয়ার বিপক্ষে লড়বে স্বাগতিক দল। টুর্নামেন্ট শুরুর আগে দুটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ।

বাংলাদেশ হকি ফেডারেশন (বাহফে) জানিয়েছে, ১০ ডিসেম্বর জাপান ও ১২ ডিসেম্বর পাকিস্তানের বিপক্ষে খেলবে জিমি-আশরাফুলরা।

ক্লাব কাপ প্রতিযোগিতা আর প্রিমিয়ার লিগ শেষে এখন শুরু হয়েছে জাতীয় দলের প্রস্তুতি।

প্রাথমিক স্কোয়াডে ডাক পাওয়া খেলোয়াড়দের নিয়ে বিকেএসপিতে ক্যাম্প শুরু হয়েছে। ডাক পাওয়া ২৮ জনের মধ্যে মঙ্গলবার ক্যাম্পে যোগ দেন ২৩ খেলোয়াড়। বাকি পাঁচ জন করোনা পরীক্ষার পর যোগ দেবেন।

হেড কোচ কৃষ্ণমুর্থী গোবিনাথানের অধীনে অনুশীলন শুরু হয়েছে বুধবার। যা চলবে ১২ ডিসেম্বর পর্যন্ত। বাহফের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মো. ইউসুফ নিউজবাংলাকে নিশ্চিত করেছেন যে সামনের সপ্তাহ থেকে বিদেশি দলগুলো আসা শুরু করবে।

টুর্নামেন্টের আগে জরুরি ভিত্তিতে মওলানা ভাসানী স্টেডিয়াম সংস্কার করা হবে। ফ্লাড লাইটসহ আনুষাঙ্গিক ব্যবস্থা এক সপ্তাহের মধ্যে ঠিক করা হবে বলে জানিয়েছে জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ (এনএসসি)।

আরও পড়ুন:
প্রথম জয় সোনালী ব্যাংকের, টানা তৃতীয় নৌ বাহিনীর
পুলিশকে ধসিয়ে দিল বিমান, সেনাবাহিনীর হোঁচট
পুলিশকে গুঁড়িয়ে দিল সেনাবাহিনী, বিমানকে ডোবাল নৌ

শেয়ার করুন

মোহামেডানকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন মেরিনার্স

মোহামেডানকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন মেরিনার্স

জয়ের পর উদযাপনে মেরিনার্স। ছবি: বাহফে

শনিবার সন্ধ্যায় মওলানা ভাসানী জাতীয় হকি স্টেডিয়ামে মোহামেডানকে ৩-২ ব্যবধানে হারিয়েছে মেরিনার্স। ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নদের হারিয়ে লিগের শিরোপা পুনরুদ্ধার করেছে দলটি।

ক্লাব কাপ প্রতিযোগিতা জেতার এক মাসের মধ্যে হকি প্রিমিয়ার লিগের শিরোপাও ঘরে তুলে নিল মেরিনার ইয়াংস ক্লাব।

শনিবার সন্ধ্যায় মওলানা ভাসানী জাতীয় হকি স্টেডিয়ামে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন মোহামেডানকে ৩-২ ব্যবধানে হারিয়ে লিগের শিরোপা পুনরুদ্ধার করেছে মেরিনার্স।

আরামবাগের ক্লাবটি এর আগে ২০১৬ সালের লিগে প্রথমবারের মতো চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল। মাঝে একটিই আয়োজন হয়েছে। আর তাতে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল মোহামেডান।

ড্র হলেই চ্যাম্পিয়ন আর মোহামেডান জিতে গেলে প্লে-অফে আবাহনী, মোহামেডান ও মেরিনার্সের মধ্যে শিরোপার নিষ্পত্তি। এমন সমীকরণ ছিল শনিবার।

তবে লিগের প্রথম পর্বে মোহামেডানকে ৫-২ গোলে উড়িয়ে দেয়ার আত্মবিশ্বাস নিয়ে মাঠে নেমে আধিপত্য নিয়েই খেলেছে মেরিনার্স।

ম্যাচের শেষের দিকে অবশ্য নাটক জমিয়ে দিয়েছিল জিমি-রাকিনদের মোহামেডান। ব্যবধান ৩-২ করে ফেলে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নরা। তবে শেষ হাসিটা হেসে জয়ের উল্লাসে মাতে মেরিনার্স।

জয়ের সঙ্গে লিগেও চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করলেন চয়ন-রাব্বিরা।

আরও পড়ুন:
প্রথম জয় সোনালী ব্যাংকের, টানা তৃতীয় নৌ বাহিনীর
পুলিশকে ধসিয়ে দিল বিমান, সেনাবাহিনীর হোঁচট
পুলিশকে গুঁড়িয়ে দিল সেনাবাহিনী, বিমানকে ডোবাল নৌ

শেয়ার করুন

মেরিনার্সকে হারিয়ে লিগ জমিয়ে দিল আবাহনী

মেরিনার্সকে হারিয়ে লিগ জমিয়ে দিল আবাহনী

আবাহনীর বিপক্ষে মেরিনার্সের বল দখলের লড়াই। ছবি: সংগৃহীত

পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে থাকা দলকে রোমাঞ্চকরভাবে হারিয়ে শিরোপা জেতার লড়াইয়ে টিকে রইল ঢাকা আবাহনী। মওলানা ভাসানী জাতীয় হকি স্টেডিয়ামে বৃহস্পতিবার লিগের সুপার ফাইভের ম্যাচে মেরিনার্সকে ৪-৩ গোলে হারায় আবাহনী।

হকিতে জমে উঠেছে লিগের শিরোপার লড়াই। ড্র বা জিতলেই চ্যাম্পিয়ন এমন যখন হিসেব তখন বড় ধাক্কা খেল মেরিনার ইয়াংস ক্লাব। পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে থাকা দলকে রোমাঞ্চকরভাবে হারিয়ে শিরোপা জেতার লড়াইয়ে টিকে রইল ঢাকা আবাহনী।

মওলানা ভাসানী জাতীয় হকি স্টেডিয়ামে বৃহস্পতিবার লিগের সুপার ফাইভের ম্যাচে মেরিনার্সকে ৪-৩ গোলে হারায় আবাহনী।

আগের ম্যাচে মোহামেডানকে হারিয়ে শিরোপা লড়াইয়ে দারুণ ভাবে ফেরে আবাহনী। বৃহস্পতিবার আকাশী-নীল জার্সিধারীদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ হয়ে দাঁড়ায় মেরিনার্সের বিপক্ষে ম্যাচটি। এ যাত্রায়ও সফল দেশের শীর্ষস্থানীয় দলটি।

আবাহনীকে বিপক্ষে ড্র করলে এক ম্যাচ হাতে রেখে প্রিমিয়ার ডিভিশন হকি লিগের শিরোপা ঘরে তুলতো মেরিনার্স। সোহানুর রহমান সোহানের হ্যাটট্রিকে সে পথেই ছিল তারা। তবে শেষ দুই মিনিটের নাটকে অপেক্ষা বাড়ল তাদের।

ম্যাচের মাঝে রেফারির সিদ্ধান্ত নিয়ে যথারীতি অসন্তোষ। খেলা বন্ধও থাকল আধা ঘণ্টারও বেশি সময়। মাঠের লড়াইও হলো জমজমাট।

সপ্তম মিনিটে বৃত্তের বাইরে থেকে বিয়র্ন কেলারমানের হিট সরাসরি ঠিকানা খুঁজে পেলে গোল দেন রেফারি। কিন্তু প্রশ্ন ওঠে কেলারমানের শট বৃত্তের ভেতর থাকা রোমান সরকারের স্টিক ছুঁয়ে গেছে কিনা।

রিভিউয়ে দেখা যায়, রোমানের স্টিক স্পর্শ করেনি বল। বাতিল হয় গোল। এই সিদ্ধান্তের জেরে খেলা বন্ধ থাকে আধ ঘণ্টারও বেশি সময়। পুনরায় খেলা শুরুর পরপরই পেনাল্টি স্ট্রোক থেকে আবাহনীকে এগিয়ে নেন কেলারমান।

সমতায় ফিরতে খুব একটা সময় নেয়নি মেরিনার্স। ম্যাচের ১৫ মিনিটের পেনাল্টি কর্নার থেকে গোল করে তারা। মিলন হোসেনের পুশ সুখজিৎ সিং স্টপ করার পর সোহানের হিট ঠিকানা খুঁজে নেয়। তিন মিনিট পর পেনাল্টি কর্নারে থেকে সরাসরি গোল না পেলেও আক্রমণ থেকে ব্যবধান বাড়ান সোহান।

ম্যাচের ২৫তম মিনিটে মরিস আলফনসোর গোলে সমতায় ফিরে আবাহনী। একটু পর প্রতিপক্ষের স্বস্তি কেড়ে নেয় মেরিনার্স। পেনাল্টি কর্নার থেকে লক্ষ্যভেদ করে হ্যাটট্রিক পূরণ করেন সোহানুর।

চতুর্থ কোয়ার্টারের শেষ দিকে মেরিনার্সকে চাপে রাখে আবাহনী। পেনাল্টি কর্নার থেকে লক্ষ্যভেদ করেন খোরশেদুর রহমান। শেষ বাঁশি বাজার মাত্র দুই সেকেন্ড আগে পিসি পায় আবাহনী। তা থেকেই লক্ষ্যভেদ করেন খোরশেদ।

দুর্দান্ত এক জয়ের আনন্দে মেতে ওঠে আকাশী-নীল দলের সমর্থকরা।

নিজেদের শেষ ম্যাচে শনিবার মোহামেডান স্পোর্টিংয়ের মুখোমুখি হবে মেরিনার্স। ওই ম্যাচে ড্র করলে শিরোপা জিতবে তারা। হারলেও সুযোগ থাকবে। সেক্ষেত্রে প্লে-অফের প্রতিপক্ষের বিপক্ষে জিততে হবে।

আরও পড়ুন:
প্রথম জয় সোনালী ব্যাংকের, টানা তৃতীয় নৌ বাহিনীর
পুলিশকে ধসিয়ে দিল বিমান, সেনাবাহিনীর হোঁচট
পুলিশকে গুঁড়িয়ে দিল সেনাবাহিনী, বিমানকে ডোবাল নৌ

শেয়ার করুন