ফেডেরারের পাশে নাদাল

ফেডেরারের পাশে নাদাল

২০২০ ফ্রেঞ্চ ওপেন জিতে ফেডেক্সের সমান ২০ গ্র্যান্ড স্ল্যাম জিতে নিয়েছেন রাফা। গত ১৬ বছরে ৪০ বার একে অপরের বিপক্ষে লড়েছেন ফেডেরার-নাদাল। সেখানেও এগিয়ে স্প্যানিয়ার্ড। ২৪ ম্যাচ জিতেছেন তিনি। ফেডেরার জিতেছেন ১৬টি।

তাদের দ্বৈরথ শুধু টেনিস ইতিহাসেরই সেরা নয়, পুরো ক্রীড়া ইতিহাসই এমন লড়াই খুব কম দেখেছে। আলি-ফ্রেজিয়ার, ম্যাজিক-বার্ড, হান্ট-লাউডা কিংবা মেসি-রোনালডো এদের পাশে অনায়াসেই বসে যায় রজার ফেডেরার এবং রাফায়েল নাদাল লড়াই।

এই দুই টেনিস কিংবদন্তি প্রথমবার মুখোমুখি হন ২০০৪ সালে। সেবার ১৭ বছর বয়সী ও ৩৪ নম্বর র‍্যাংকিংয়ের নাদালের কাছে হেরে গিয়েছিলেন ওয়ার্ল্ড নাম্বার ওয়ান ফেডেরার।

সেই থেকে শুরু। দেড় দশক পরও কে সর্বকালের সেরা এই প্রশ্নের জবাবে টেনিস ফ্যানদের দ্বিধায় পড়তে হয়। যারা গ্র্যান্ড স্ল্যামের হিসাবে ফেডেরারকে এগিয়ে রাখতেন, তারা সেই সুযোগটাও হারালেন এবার।

২০২০ ফ্রেঞ্চ ওপেন জিতে ফেডেক্সের সমান ২০ গ্র্যান্ড স্ল্যাম জিতে নিয়েছেন রাফা। গত ১৬ বছরে ৪০ বার একে অপরের বিপক্ষে লড়েছেন ফেডেরার-নাদাল। সেখানেও এগিয়ে স্প্যানিয়ার্ড। ২৪ ম্যাচ জিতেছেন তিনি। ফেডেরার জিতেছেন ১৬টি।
ট্রফির সাথে নাদাল

দেড় দশকে এই দুই টেনিস মহারথী টেনিস বিশ্বকে শাসন করেছেন নিজেদের মত। দুইজন মিলে ২০০৫ এর ফ্রেঞ্চ ওপেন থেকে ২০০৭ এর ইউএস ওপেন পর্যন্ত টানা ১১টি গ্র্যান্ড স্ল্যাম শিরোপা ভাগাভাগি করেছেন।

২০০৫ থেকে ২০১০ এই ছয় বছর এটিপি র‍্যাংকিংয়ের শীর্ষ দুই স্পটে ছিলেন দুই তারকা।

সবচেয়ে বেশি গ্র্যান্ড স্ল্যাম জেতার রেকর্ডে ফেডেরার তার সঙ্গী থাকলেও, একটি নির্দিষ্ট গ্র্যান্ড স্ল্যাম সবচেয়ে বেশি বার জেতার রেকর্ডে অন্যদের চেয়ে বেশ এগিয়ে নাদাল।

১৩ বার তিনি জিতেছেন ফ্রেঞ্চ ওপেন। তার পরে আছেন যুক্তরাষ্ট্রের কিংবদন্তি মার্টিনা নাভ্রাতিলোভা। উইম্বলডন নারী এককের শিরোপা জিতেছেন তিনি নয়বার।

নাদালের বয়স এখন ৩৪। যেমন ফর্মে আছেন, ফিটনেস ঠিক থাকলে আরও তিন-চার মৌসুম খেলা চালিয়ে যেতে পারবেন তা প্রায় নিশ্চিত। সেক্ষেত্রে বর্তমানে ৩৯ ফেডেরারকে ছাড়িয়ে যাওয়ার বাড়তি সময় পাবেন নাদাল।

তখন হয়তো কে সর্বকালের সেরা এই প্রশ্নের জবাব খুঁজে পাবে টেনিস বিশ্ব।

শেয়ার করুন

মন্তব্য