× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট বাংলা কনভার্টার নামাজের সময়সূচি আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

বিজ্ঞান-প্রযুক্তি
Case against Twitter for failure to pay rent
google_news print-icon

ভাড়া পরিশোধে ব্যর্থ হওয়ায় টুইটারের নামে মামলা

ভাড়া-পরিশোধে-ব্যর্থ-হওয়ায়-টুইটারের-নামে-মামলা
টুইটার কার্যালয়ে প্রতিষ্ঠানটি প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ইলন মাস্ক। ছবি: সংগৃহীত
যুক্তরাষ্ট্রের সানফ্রান্সিসকো অফিসের ভাড়াবাবদ ১ লাখ ৩৬ হাজার ২৫০ ডলার পরিশোধে ব্যর্থ হয়েছে টুইটার। এ নিয়ে অফিস ভবনের মালিকানা প্রতিষ্ঠান কলম্বিয়া রেইট জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমটির বিরুদ্ধে মামলা ঠুকেছে।

অফিসের ভাড়া পরিশোধ করতে ব্যর্থ হওয়ায় জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটারের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের সানফ্রান্সিসকো আদালতে স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার মামলাটি করা হয়।

ব্লুমবার্গের প্রতিবেদনে বলা হয়, যুক্তরাষ্ট্রের সানফ্রান্সিসকো অফিসের ভাড়াবাবদ ১ লাখ ৩৬ হাজার ২৫০ ডলার পরিশোধে ব্যর্থ হয়েছে টুইটার। এ নিয়ে অফিস ভবনের মালিকানা প্রতিষ্ঠান কলম্বিয়া রেইট জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমটির বিরুদ্ধে মামলা ঠুকেছে।

এর আগে ভাড়া পরিশোধের জন্য গত ১৬ ডিসেম্বর টুইটারকে পাঁচদিনের সময় বেঁধে দিয়ে একটি নোটিশ দিয়েছিল কলম্বিয়া রেইট।

গত ১৩ ডিসেম্বর নিউ ইয়র্ক টাইমসের প্রতিবেদনে বলা হয়, প্রধান কার্যালয়সহ বিশ্বের অন্যান্য অফিসের ভাড়া পরিশোধ করছে না টুইটার।

এ নিয়ে টুইটারের পক্ষ থেকে কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

৪৪ বিলিয়ন ডলারে ২৭ অক্টোবর টুইটার কেনেন বিশ্বের অন্যতম শীর্ষ ধনী ইলন মাস্ক। খরচ কমাতে এরইমধ্যে তিনি প্রতিষ্ঠানটির সিইওসহ ৬০ শতাংশ কর্মীকে বরখাস্ত করেছেন।

আরও পড়ুন:
মাস্ককে ছাড়িয়ে শীর্ষ ধনী আর্নল্ট
নীল, সোনালি ও ধূসর রঙে পাওয়া যাচ্ছে টুইটারের ভেরিফিকেশন ব্যাজ
টুইটারের তথ্য ফাঁস ঠেকাতে অঙ্গীকারনামায় সই চান মাস্ক
ক্ষণিকের জন্য শীর্ষ ধনীর জায়গা হারিয়েছিলেন মাস্ক
টুইটার কার্যালয়ে বিছানা পেতে বিতর্কিত মাস্ক

মন্তব্য

আরও পড়ুন

বিজ্ঞান-প্রযুক্তি
Predominance and victory of conservatives in Irans parliamentary and assembly elections

ইরানের নির্বাচনে এগিয়ে রক্ষণশীলরা

ইরানের নির্বাচনে এগিয়ে রক্ষণশীলরা ইরানে গত শুক্রবার অনুষ্ঠিত নির্বাচনে তেহরানের একটি কেন্দ্রে ভোট দেন প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসি। ছবি: রয়টার্স
এবারের নির্বাচনে অল্প কিছু সংস্কারপন্থি বা মধ্যমপন্থি পার্লামেন্টে যাওয়া নিশ্চিত করেছেন। ইরানে এটি দ্বিতীয় নির্বাচন, যেখানে বড় পরিসরে উপস্থিতি নেই সংস্কারপন্থি বা মধ্যমপন্থিদের।

রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক চ্যালেঞ্জের মধ্যে অনুষ্ঠিত ইরানের পার্লামেন্ট ও ধর্মীয় পরিষদ নির্বাচনে এগিয়ে রয়েছেন রক্ষণশীল প্রার্থীরা।

আল জাজিরার প্রতিবেদনে জানানো হয়, পার্লামেন্টের ২৯০ জন আইনপ্রণেতা ও বিশেষজ্ঞদের পরিষদের (সর্বোচ্চ নেতা নির্বাচনের জন্য ইসলামি বিশেষজ্ঞদের সমন্বয়ে গঠিত পর্ষদ) ৮৮ সদস্য নির্বাচনে গত শুক্রবার ভোট হয় ইরানজুড়ে। সে নির্বাচনে পড়া লাখ লাখ ভোট গণনা শেষ পর্যায়ে রয়েছে।

ইরানের রাজধানী তেহরানে শনিবার প্রকাশিত আনুষ্ঠানিক প্রাথমিক ফল অনুযায়ী, ৩০ প্রতিনিধির তালিকায় শীর্ষে রয়েছেন অতি রক্ষণশীল মাহমুদ নবভিয়ান ও হামিদ রেজায়ি। তাদের পরের অবস্থানে আছেন রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনের উপস্থাপক থেকে প্রথমবারের মতো আইনপ্রণেতা হওয়া ৩৫ বছর বয়সী আমির হোসেইন সাবেতি।

নির্বাচনের ইরানের পার্লামেন্টের স্পিকার মোহাম্মদ বাঘের গালিবাফ চতুর্থবারের মতো নির্বাচিত হয়েছেন। তার সমর্থিত অল্প কয়েকজন প্রার্থী জয়ী হতে পেরেছেন।

অন্যদিকে শিয়াদের পবিত্র শহর কোমের একটি আসন পেয়েছেন দীর্ঘদিনের আইনপ্রণেতা মোজতাবা জোন্নুর।

এবারের নির্বাচনে অল্প কিছু সংস্কারপন্থি বা মধ্যমপন্থি পার্লামেন্টে যাওয়া নিশ্চিত করেছেন। ইরানে এটি দ্বিতীয় নির্বাচন, যেখানে বড় পরিসরে উপস্থিতি নেই সংস্কারপন্থি বা মধ্যমপন্থিদের।

স্বল্পসংখ্যক মধ্যমপন্থির মধ্যে রয়েছেন বর্ষীয়ান আইনপ্রণেতা মাসুদ পেজেশকিয়ান, যিনি সাংবিধানিক নিয়ন্ত্রক সংস্থা অভিভাবক পরিষদের সমর্থন পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। ইরানের ১২তম পার্লামেন্টে তাবরিজের প্রতিনিধিত্ব করবেন তিনি।

আরও পড়ুন:
ইরানে পাকিস্তানের পাল্টা হামলা, চার শিশুসহ নিহত ৯
ইরানের হামলার জবাবে কূটনীতিক বহিষ্কার করল পাকিস্তান
ইরানে জোড়া বোমা হামলায় আইএস-এর দায় স্বীকার
ইরানে নিহত বেড়ে ১০৩, মধ্যপ্রাচ্যে ঘনাচ্ছে আশঙ্কার মেঘ
ইরানে সোলাইমানির মৃত্যুবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে জোড়া বোমা হামলা, নিহত ৭৩

মন্তব্য

বিজ্ঞান-প্রযুক্তি
Despite being a developing country Bangladesh will get tariff benefits for 3 years
ডব্লিউটিওর সম্মেলনে সিদ্ধান্ত

উন্নয়নশীল দেশ হওয়ার পরও ৩ বছর শুল্ক সুবিধা পাবে বাংলাদেশ

উন্নয়নশীল দেশ হওয়ার পরও ৩ বছর শুল্ক সুবিধা পাবে বাংলাদেশ
সম্মেলনের খসড়া ঘোষণায় বলা হয়, স্বল্পোন্নত দেশ হিসেবে বাংলাদেশ ২০২৯ সাল পর্যন্ত উন্নয়নশীল ও উন্নত অর্থনীতির দেশগুলোয় রপ্তানি পণ্যের জন্য স্বল্প বা শূন্য শুল্ক সুবিধা ভোগ করবে।

২০২৬ সালে স্বল্পোন্নত দেশ (এলডিসি) থেকে উন্নয়নশীল দেশের তালিকায় আসার পর বাংলাদেশ আরও তিন বছর শুল্ক সুবিধা পাবে। বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থার (ডব্লিউটিও) ১৩তম মন্ত্রী পর্যায়ের সম্মেলনে এ সংক্রান্ত এক সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

গত ২৬ ফেব্রুয়ারি থেকে ১ মার্চ আবুধাবিতে ডব্লিউটিওর ১৩তম মন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠকে সদস্য দেশগুলোর মন্ত্রীরা উন্নয়নশীল দেশের খ্যাতি অর্জনের পরও সেসব দেশের জন্য স্বল্পোন্নত দেশের বাণিজ্য সুবিধা বজায় রাখতে রাজি হন।

শুক্রবার শেষ হওয়া ডব্লিউটিও সম্মেলনের খসড়া ঘোষণায় বলা হয়, স্বল্পোন্নত দেশ হিসেবে বাংলাদেশ ২০২৯ সাল পর্যন্ত উন্নয়নশীল ও উন্নত অর্থনীতির দেশগুলোয় রপ্তানি পণ্যের জন্য স্বল্প বা শূন্য শুল্ক সুবিধা ভোগ করবে।

ঘোষণাপত্রে বলা হয়, ডব্লিউটিওর বিরোধ নিষ্পত্তি সমঝোতার ২৪ অনুচ্ছেদ অনুসারে স্বল্পোন্নত দেশের তালিকা থেকে বের হয়ে উন্নয়নশীল দেশ হওয়ার বিষয়ে জাতিসংঘের ঘোষণার দিন থেকে সেসব দেশ পরবর্তী তিন বছর এ সুবিধা পাবে।

এছাড়া, সেসব দেশ ডব্লিউটিওর কারিগরি সহায়তা ও প্রশিক্ষণ পরিকল্পনার আওতায় তিন বছর পর্যন্ত কারিগরি সহায়তা পাবে।

ঘোষণায় আরও বলা হয়, এই পরিকল্পনার আওতায় বিদ্যমান স্বল্পোন্নত দেশগুলোর অংশগ্রহণকে অগ্রাধিকার দেয়া হবে।

ডব্লিউটিওর কমিটিগুলো ২০২৪ সালের ডিসেম্বরের মধ্যে এই সিদ্ধান্ত পর্যালোচনা ও জেনারেল কাউন্সিল অগ্রগতিবিষয়ক পরবর্তী মন্ত্রী পর্যায়ের সম্মেলনে প্রতিবেদন দেবে।

ডব্লিউটিওর প্রস্তাবিত ব্যবস্থার আওতায় সদ্য উন্নয়নশীল দেশগুলোর জন্য স্বল্পোন্নত দেশগুলোর সব শুল্ক সুবিধা কার্যকর রাখা না গেলেও সেসব উন্নয়নশীল দেশের অর্থনৈতিক অবস্থা ও পণ্যের বিষয়গুলো বিবেচনায় রাখা যেতে পারে।

ডব্লিউটিও সদস্য দেশগুলো ই-কমার্সের ওপর আমদানি শুল্ক স্থগিতের মেয়াদ আরও দুই বছর বাড়াতে রাজি হয়েছে।

যদিও আলোচনা এক দিন বাড়িয়ে ১ মার্চ পর্যন্ত করা হয়, তবে ডব্লিউটিও ১৩তম মন্ত্রী পর্যায়ের সম্মেলন সরকারি খাদ্য মজুত, মৎস্য খাতে ভর্তুকির মতো কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে সিদ্ধান্ত ছাড়াই শেষ হয়।

আরও পড়ুন:
বৈশ্বিক বাণিজ্যে ১.৭ শতাংশ প্রবৃদ্ধির আভাস

মন্তব্য

আম্বানির ছেলের বিয়ে-পূর্ব আয়োজন

রাজসিকতাও হার মানে যেখানে

রাজসিকতাও হার মানে যেখানে যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের মেয়ে ইভানকাও উড়ে এসেছেন মুকেশ আম্বানির আমন্ত্রণে। ছবি: সংগৃহীত
ভারতের পশ্চিমাঞ্চলীয় ছোট শহর জামনগরে এক হাজার ২০০ জনেরও বেশি অতিথিকে নিমন্ত্রণ জানানো হয়েছে তিন দিনব্যাপী প্রাক-বিয়ে আয়োজনে। তাদের মধ্যে রয়েছেন পপতারকা রিয়ান্না, বিল গেটস, মার্ক জাকারবার্গ, সুন্দর পিচাই, ইভাঙ্কা ট্রাম্প এবং বলিউড তারকা শাহরুখ খানও।

এশিয়ার সবচেয়ে ধনী ব্যক্তির ছেলের বিয়ে বলে কথা। বিয়ের প্রধান অনুষ্ঠান শুরুর চার মাস আগেই বরের বাবা মুকেশ আম্বানি প্রাক-বিবাহ আনন্দ উদযাপনে রেকর্ড গড়া রাজসিক সব আয়োজন করে চলেছেন। রাজসিক অভিধায়ও এসব আয়োজনের ব্যাপকতা ও ঔজ্জ্বল্য ধারণ করা কঠিন।

ভারতের পশ্চিমাঞ্চলীয় ছোট শহর জামনগরে শুক্রবার রাষ্ট্রের প্রভাবশালী ব্যক্তিত্ব, হলিউড ও বলিউডের তারকাদের মেলা বসে। বিলিয়নিয়ার শিল্পপতি মুকেশ আম্বানির ছোট ছেলের বিয়ে উপলক্ষে বিশাল এক আয়োজন উপলক্ষে জড়ো হন তারা।

এক হাজার ২০০ জনেরও বেশি অতিথিকে নিমন্ত্রণ জানানো হয়েছে এই আয়োজনে। তাদের মধ্যে রয়েছেন পপতারকা রিয়ান্না, বিল গেটস, মার্ক জাকারবার্গ, সুন্দর পিচাই, ইভাঙ্কা ট্রাম্প এবং বলিউড তারকা শাহরুখ খানও।

সবার চোখ এখন ২৮ বছর বয়সী অনন্ত আম্বানি ও তার দীর্ঘ সময়ের বান্ধবী রাধিকা মার্চেন্টের ওপর। আগামী জুলাইয়ে গাঁটছড়া বাঁধতে চলেছেন তারা। এনকোর হেলথকেয়ার প্রাইভেট লিমিটেডের প্রধান নির্বাহী বীরেন মার্চেন্ট ও উদ্যোক্তা শায়লা মার্চেন্টের মেয়ে রাধিকা।

এই উৎসব আম্বানি পরিবারের জমকালো ও আভিজাত্যপূর্ণ অনুষ্ঠানের ঐতিহ্য তুলে ধরার পাশাপাশি অর্থনীতি ও রাজনীতিতে এই ভারতীয় বিলিয়নিয়ারের যে প্রভাব সেটিও প্রদর্শন করে।

আয়োজনে সীমা ছাড়িয়ে যাওয়াটাই যেন আম্বানির বিশেষত্ব। ২০১৮ সালে মেয়ের বিয়ের সময় পশ্চিম ভারতের শহর উদয়পুরে বিবাহ-পূর্ব জমকালো উৎসবে পপ সেনসেশন বিয়ন্সেকে নিয়ে এসে সংবাদের শিরোনাম হয়েছিলেন আম্বানি। সে সময় ভারতীয় সেলিব্রিটি ও বলিউড তারকাদের সঙ্গে কাঁধ মিলিয়েছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারি ক্লিনটন ও জন কেরি।

সে বছরই ইশা আম্বানি ও আনন্দ পিরামল ইতালির লেক কোমোতে আনুষ্ঠানিকভাবে তাদের বাগদান সম্পন্ন করেন। ২০১৮ সালের ডিসেম্বরে মুম্বাইতে আম্বানির বাসভবনে বিয়ে করেন তারা।

বিয়ে-পূর্ব আয়োজনে বিশেষ যা রয়েছে

আগামী জুলাইতে বিয়ের সময় কেমন জমকালো আয়োজন হতে চলেছে তারই আভাস দিচ্ছে তিন দিনব্যাপী এই প্রাক-বিয়ে আয়োজন।

গুজরাটের কাছেই মরুভূমিতে অবস্থিত ৬ লাখ জনসংখ্যার শহর জামনগরে আম্বানিরা এই উৎসবের আসর বসিয়েছে। যেখানে তাদের পারিবারিক নিবাস এবং তাদের ব্যবসার প্রধান তেল শোধনাগারও রয়েছে।

সেখানে জঙ্গল থিমের পোশাক পরে হবু বর অনন্ত পরিচালিত একটি প্রাণী উদ্ধার কেন্দ্র পরিদর্শনে যাবেন অতিথিরা। নির্যাতিত, আহত ও বিপন্ন প্রাণীদের বিশেষ করে হাতিদের আশ্রয়ের জন্য ৩ হাজার একর জমির ওপর এই কেন্দ্র নির্মিত হয়েছে, যা ‘ভানতারা’ বা ‘বনের তারকা’ নামে পরিচিত।

আমন্ত্রণপত্র সূত্রে জানা যায়, অতিথিদের জন্য প্রতিদিন ভিন্ন ও নতুন এক ড্রেস কোড থাকবে। এজন্য তাদের সাহায্য করতে হোটেলে মুড বোর্ড, হেয়ার স্টাইলিস্ট, মেকআপ আর্টিস্ট ও পোশাক ডিজাইনাররা থাকবেন।

একটি মন্দির প্রাঙ্গণে ঐতিহ্যবাহী হিন্দু সম্প্রদায়ের অনুষ্ঠানও হবে।

অতিথিদের অনেকেই চার্টার্ড প্লেনে আসবেন। এই আয়োজনে প্রায় ১০০ শেফের তৈরি ৫০০ ধরনের খাবার পরিবেশন করা হবে।

অতিথিদের তালিকায় আরও রয়েছেন কাতারের প্রধানমন্ত্রী মোহাম্মদ বিন জসিম আল থানি; কানাডার সাবেক প্রধানমন্ত্রী স্টিফেন হারপার; ভুটানের রাজা জিগমে খেসার নামগিয়াল ওয়াংচুক এবং রানী জেটসুন পেমা।

বুধবার আশপাশের গ্রামে বসবাসকারী ৫১ হাজার লোকের জন্য খাবারের আয়োজন করেছে আম্বানি পরিবার।

কে এই মুকেশ আম্বানি?

১১৫ বিলিয়ন ডলারের মালিক ৬৬ বছর বয়সী মুকেশ আম্বানি ফোর্বস-এর তালিকা অনুযায়ী বিশ্বের দশম এবং এশিয়ার মধ্যে সবচেয়ে ধনী ব্যক্তি।

তার মালিকানাধীন রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজ এক বিশাল সাম্রাজ্য, যার বার্ষিক আয় ১০০ বিলিয়ন ডলারের বেশি। পেট্রোকেমিক্যাল, তেল-গ্যাস থেকে শুরু করে টেলিকমসহ রিটেইল ব্যবসার সঙ্গে জড়িত রয়েছে এই প্রতিষ্ঠান।

১৯৬৬ সালে তার বাবার প্রতিষ্ঠিত রিলায়েন্স আম্বানির নেতৃত্বে ২০১৬ সালে ৪জি ফোন ও ব্রডব্যান্ড পরিষেবা জিও চালু করার সঙ্গে সঙ্গে টেলিকম মূল্য যুদ্ধের সূত্রপাত করেছিল। বর্তমানে এটি ফাইভ জি পরিষেবা দিচ্ছে এবং গ্রাহক সংখ্যা ৪২০ মিলিয়ন ছাড়িয়ে গেছে।

ভারতে নিজেদের ব্যবসা আম্বানির রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজের সঙ্গে একীভূত করতে ডিজনি এ সপ্তাহের শুরুতে ৮ দশমিক ৫ বিলিয়ন ডলারের একটি চুক্তি করেছে। আর এর মাধ্যমে নতুন একটি মিডিয়া জায়ান্টের জন্ম হতে চলেছে।

আম্বানি পরিবারের অন্যান্য সম্পদের মধ্যে রয়েছে মুম্বাইতে ১ বিলিয়ন ডলার মূল্যের অ্যান্টিলা নামে একটি ২৭ তলাবিশিষ্ট ব্যক্তিগত অ্যাপার্টমেন্ট বিল্ডিং। এটিতে তিনটি হেলিপ্যাড, একসঙ্গে ১৬০টি গাড়ির ধারণ ক্ষমতাসম্পন্ন গ্যারেজ, ব্যক্তিগত সিনেমা থিয়েটার, সুইমিং পুল ও ফিটনেস সেন্টার রয়েছে।

মুকেশ আম্বানি বর্তমানে দুই ছেলে ও মেয়েকে দায়িত্ব হস্তান্তর করতে শুরু করেছেন। বড় ছেলে আকাশ আম্বানি রিলায়েন্স জিওর চেয়ারপারসন হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। আর মেয়ে ইশা রিটেইল সেক্টর এবং সর্বকনিষ্ঠ অনন্ত নতুন জ্বালানি শক্তির ব্যবসায় যুক্ত হয়েছেন।

সমালোচকরা বলছেন, সত্তর-আশির দশকে কংগ্রেস সরকার এবং ২০১৪ সালের পর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির শাসনামলে রাজনৈতিক সম্পর্কের জোরে আম্বানির প্রতিষ্ঠান বিকাশ লাভ করে। ভারতে এই ব্যবসায়ী নেতা ও সরকারি কর্মকর্তাদের মধ্যে পারস্পরিক সুবিধাজনক সম্পর্ক আম্বানির মতো প্রতিষ্ঠানগুলোকে উন্নতি লাভ করতে সাহায্য করেছে।

মন্তব্য

বিজ্ঞান-প্রযুক্তি
Gautam Gambhir wants to quit BJP

বিজেপি ছাড়তে চান গৌতম গম্ভীর

বিজেপি ছাড়তে চান গৌতম গম্ভীর ভারতের লোকসভা সদস্য ও জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক ওপেনার ব্যাটসম্যান গৌতম গম্ভীর। ছবি: সংগৃহীত
চলতি বছরের এপ্রিল ও মে মাসে ভারতে জাতীয় নির্বাচন তথা লোকসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। তার মাত্র মাসখানেক আগে রাজনীতিতে সরে যাওয়ার এই ঘোষণা দিলেন গৌতম গম্ভীর। এই ঘোষণা তার ভক্ত তো বটেই বিশ্লেষকদেরও অবাক করেছে।

ক্রিকেটে আরও বেশি মনোনিবেশ করতে রাজনীতি থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিয়েছেন লোকসভা সদস্য ও ভারতের জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক ওপেনার ব্যাটসম্যান গৌতম গম্ভীর।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম এক্সে এক টুইটে তিনি এই ঘোষণা দিয়েছেন। একই সঙ্গে তিনি তার দল বিজেপি থেকে অব্যাহতি চেয়েও আবেদন করেছেন।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির এক প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

চলতি বছরের এপ্রিল ও মে মাসে ভারতে জাতীয় নির্বাচন তথা লোকসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। তার মাত্র মাসখানেক আগে রাজনীতিতে সরে যাওয়ার এই ঘোষণা দিলেন গৌতম গম্ভীর। এই ঘোষণা তার ভক্ত তো বটেই বিশ্লেষকদেরও অবাক করেছে।

গম্ভীর তার এক্স স্ট্যাটাসে লিখেছেন, ‘আমি পার্টি সভাপতি জেপি নাড্ডাকে আমার রাজনৈতিক দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেওয়ার জন্য অনুরোধ করেছি। যাতে আমি আমার ক্রিকেটের প্রতি যে কমিটমেন্টগুলো আছে তাতে মনোনিবেশ করতে পারি। আমাকে জনগণের সেবা করার সুযোগ দেওয়ার জন্য আমি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে আন্তরিকভাবে ধন্যবাদ জানাই।’

ধারণা করা হচ্ছে, খুব শিগগিরই বিজেপি আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে তাদের সম্ভাব্য প্রার্থীদের একটি প্রথম তালিকা প্রকাশ করবে। এই তালিকায় ১০০ জনেরও বেশি নেতাকে অন্তর্ভুক্ত করা হবে। যেখানে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের মতো হেভিওয়েট প্রার্থীরা থাকবেন।

দলটি দিন কয়েক আগে প্রার্থী চূড়ান্ত করতে ম্যারাথন বৈঠক করেছে কয়েক দফা। এর মধ্যে একটি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে দিল্লিতে নরেন্দ্র মোদির সরকারি বাসভবনে। রাত ১১টায় শুরু হয়ে সেই বৈঠক শেষ হয় রাত ৪টায়। এর আগে গৌতম গম্ভীর ২০১৯ সালের মার্চে বিজেপিতে যোগ দেন।

আরও পড়ুন:
এবার মোদির সফরের নোটে ‘ভারত’ শব্দ নিয়ে বিতর্ক
ইন্ডিয়া না জিতলে পুরো দেশ হবে মণিপুর, হরিয়ানা: স্টালিন
‘জিতেগা ভারত’ স্লোগানে বিজেপি হটাতে চায় ‘ইন্ডিয়া’

মন্তব্য

বিজ্ঞান-প্রযুক্তি
All Palestinian groups including Hamas declared unity in Moscow

মস্কোতে ঐক্যের ঘোষণা হামাসসহ ফিলিস্তিনের সব গোষ্ঠীর

মস্কোতে ঐক্যের ঘোষণা হামাসসহ ফিলিস্তিনের সব গোষ্ঠীর হামাসের সাবেক সেনাপ্রধান সালেহ আল-আরুরি (বাঁয়ে) এবং ফাতাহ নেতা ও ফিলিস্তিন আইন পরিষদের সদস্য আজম আল-আহমাদ করমর্দন করছেন। পুরনো ছবি/সংগৃহীত
রাশিয়ায় আয়োজিত এক আলোচনা সভায় হাত মেলানোর ঘোষণা দেয় উপত্যকার প্রধান দুই রাজনৈতিক গোষ্ঠী হামাস ও ফাতাহ। এরপর ছোট দলগুলোও তাদের ঐক্যের প্রতি সমর্থন জানিয়ে ইসরায়েলকে মোকাবিলায় একসঙ্গে কাজ করার অঙ্গীকার ব্যক্ত করে।

ইসরায়েলি হামলা মোকাবিলা করতে নিজেদের মধ্যে বিদ্যমান সকল বৈরিতা ভুলে এক পতাকার নিচে আসার ঘোষণা দিয়েছে ফিলিস্তিনের ছোটবড় সব রাজনৈতিক দল। রাশিয়ায় আয়োজিত এক সম্মেলনে হাত মেলানোর ঘোষণা দেয় উপত্যকার প্রধান দুই রাজনৈতিক গোষ্ঠী হামাস ও ফাতাহ। এরপর ছোট দলগুলোও তাদের ঐক্যের প্রতি সমর্থন জানিয়ে ইসরায়েলকে মোকাবিলায় একসঙ্গে কাজ করার অঙ্গীকার ব্যক্ত করে।

বৃহস্পতিবার রাশিয়ার রাজধানী মস্কোতে ওই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সম্মেলনে নিজেদের মধ্যেকার বিভেদ ভুলে এক হওয়ার প্রস্তাবে রাজি হয় হামাস, ইসলামিক জিহাদ, ফাতাহ ও অন্য ফিলিস্তিনি গোষ্ঠীগুলো।

আরব নিউজের খবরে বলা হয়েছে, ঐক্যের সিদ্ধান্তের পর চলমান যুদ্ধে ইসরাইলকে কীভাবে মোকাবিলা করা যায় এবং যুদ্ধের পর তাদের কর্মপরিকল্পনা কী হবে- তা নিয়ে বিস্তর আলোচনা করে গোষ্ঠীগুলো।

ফিলিস্তিনের বিদায়ী প্রধানমন্ত্রীর পদ থেকে পদত্যাগের পর মোহাম্মদ শাতায়েহর দেশের সব গোষ্ঠীর উদ্দেশে ঐক্যের ডাক দেন। এরপরই মস্কোতে মিলিত হয় সব দলের নেতা ও তাদের প্রতিনিধিরা।

মস্কোতে ঐক্যের ঘোষণা হামাসসহ ফিলিস্তিনের সব গোষ্ঠীর
রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভের সঙ্গে আলোচনা সভায় হামাস, ফাতাহসহ ফিলিস্তিনি গোষ্ঠীগুলোর নেতারা। ছবি: রয়টার্স

ঐক্যের পর মস্কো থেকে দেয়া এক বার্তায় তারা বলে, প্যালেস্টাইন লিবারেশন অর্গানাইজেশনের (পিএলও) অধীনে আবারও একই ব্যানারের নিচে আসছে সবাই। সবগুলো পক্ষই এবার ফিলিস্তিনি রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার বিষয়ে ঐক্যমত্য প্রকাশ করেছে।

হামাস ও ইসলামিক জিহাদকে সন্ত্রাসী বাহিনী হিসেবে ঘোষণা করেছে যুক্তরাষ্ট্র ও তার মিত্র পশ্চিমা দেশগুলো। তবে পিএলও সরকারকে আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃতি দেয় তারা।

এর আগেও হামাস ও পিএলওকে একসঙ্গে আনার নানা চেষ্টা পূর্ণতার মুখ দেখেনি। অবশেষে রাশিয়ার উদ্যোগে এই চেষ্টা সফল হলো।

সাম্প্রতিক বছরগুলোতে ফাতাহ ও হামাসসহ ইসরাইল-ফিলিস্তিন সংঘাতের সবগুলো পক্ষের সঙ্গে সুসম্পর্ক বজায় রেখেছে রাশিয়া। অন্যদিকে ইসরাইলের সঙ্গে তাদের সম্পর্ক এখন তলানিতে গিয়ে ঠেকেছে।

প্রথম থেকেই গাজায় ইসরাইলের বর্বর হামলার তীব্র নিন্দা জানিয়ে আসছে মস্কো। একইসঙ্গে ফিলিস্তিনিদের স্বাধীন রাষ্ট্রের পক্ষে অবস্থান নিয়েছে তারা।

ইসরাইলের হামলা থামাতে জাতিসংঘে প্রস্তাবও উত্থাপন করেছিল রাশিয়া।

আরও পড়ুন:
ইউক্রেনে পশ্চিমা সেনা এলেই পারমাণবিক যুদ্ধ: পুতিন
উত্তর গাজায় দুর্ভিক্ষ আসন্ন: জাতিসংঘ
ফাঁদে পড়ে রাশিয়ার হয়ে যুদ্ধে ভারতীয়রা

মন্তব্য

বিজ্ঞান-প্রযুক্তি
Nuclear war if western troops enter Ukraine Putin

ইউক্রেনে পশ্চিমা সেনা এলেই পারমাণবিক যুদ্ধ: পুতিন

ইউক্রেনে পশ্চিমা সেনা এলেই পারমাণবিক যুদ্ধ: পুতিন বৃহস্পতিবার রাশিয়ার পার্লামেন্টে দেয়া ভাষণে পশ্চিমা দেশগুলোর প্রতি সতর্কতা উচ্চারণ করেন পুতিন। ছবি: স্কাই নিউজ
গত সোমবার ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল মাখোঁ ইউক্রেনে ন্যাটো জোটের সেনা পাঠানোর প্রস্তাব করেন। তবে যুক্তরাষ্ট্র, জার্মানি, ব্রিটেনসহ অন্যান্য ন্যাটো সদস্য দেশ সঙ্গে সঙ্গে তার সেই প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করে। ওই কথা ওঠার পর পুতিন আজ এমন হুঁশিয়ারি দিলেন।

ইউক্রেন যুদ্ধে নাক গলানোয় পশ্চিমা দেশগুলোকে সতর্ক করে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন বলেছেন, ইউক্রেনে যুদ্ধের জন্য দেশগুলো যদি সেনা পাঠায় তাহলে সত্যি সত্যিই একটি পারমাণবিক যুদ্ধের ঝুঁকি রয়েছে। পারমাণবিক অস্ত্র দিয়ে পশ্চিমা যেকোনো নিশানায় আঘাতে সক্ষম মস্কো।

বৃহস্পতিবার রাশিয়ার পার্লামেন্টে দেয়া ভাষণে তিনি এ সতর্কতা উচ্চারণ করেন।

রয়টার্সের খবরে বলা হয়, ১৯৬২ সালে কিউবায় মিসাইল সংকটের পর থেকে এখন পর্যন্ত মস্কোর সঙ্গে পাশ্চাত্যের সম্পর্ক সাম্প্রতিক সময়ে সবচেয়ে খারাপ অবস্থায় রয়েছে। কিউবায় পারমাণবিক অস্ত্র মোতায়েনকে কেন্দ্র করে তখন যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সরাসরি যুদ্ধের দ্বারপ্রান্তে পৌঁছেছিল তৎকালীন সোভিয়েত ইউনিয়ন।

ভাষণে ইউক্রেন যুদ্ধকে ‘রাশিয়ার অভ্যন্তরীণ সমস্যা’ বলে আখ্যায়িত করেন পুতিন। বলেন, ‘এই যুদ্ধে হস্তক্ষেপ কতটা ঝুঁকিপূর্ণ, সেটা পশ্চিমা নেতারা উপলব্ধি করতে পারছেন না।’

গত সোমবার ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল মাখোঁ ইউক্রেনে ন্যাটো জোটের সেনা পাঠানোর প্রস্তাব করেন।

তিনি বলেন, ‘ন্যাটোর ইউরোপীয় সদস্য দেশের সেনাদের ইউক্রেনে পাঠানো যেতে পারে।’

তবে যুক্তরাষ্ট্র, জার্মানি, ব্রিটেনসহ অন্যান্য ন্যাটো সদস্য দেশ সঙ্গে সঙ্গে তার সেই প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করে। ওই কথা ওঠার পর পুতিন আজ এমন হুঁশিয়ারি দিলেন।

তিনি বলেন, ‘আমাদেরও এমন অস্ত্র রয়েছে, যেগুলো পশ্চিমা দেশগুলোর লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানতে সক্ষম। তাদেরকে অবশ্যই এটা উপলব্ধি করতে হবে। তারা পারমাণবিক যুদ্ধের হুমকি তৈরি করছে, যে যুদ্ধ মানব সভ্যতার অন্ত ঘটাতে পারে। তারা এটা বুঝতে পারছে না?’

আগামী ১৫ থেকে ১৭ মার্চ রাশিয়ায় প্রেসিডেন্ট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এতে প্রায় নিশ্চিতভাবেই পুতিন আগামী ছয় বছরের জন্য পুনর্নির্বাচিত হতে চলেছেন। নির্বাচনের আগে পুতিন তার ভাষণে রাশিয়ার পারমাণবিক অস্ত্র আধুনিকীকরণ কার্যক্রমের প্রশংসা করেন।

আরও পড়ুন:
ইউক্রেনে সেনা পাঠাবে না ন্যাটো
ফাঁদে পড়ে রাশিয়ার হয়ে যুদ্ধে ভারতীয়রা
রাশিয়ার সঙ্গে যুদ্ধে ইউক্রেনের ৩১ হাজার সেনা নিহত: জেলেনস্কি

মন্তব্য

বিজ্ঞান-প্রযুক্তি
US calls for al Aqsa prayers to be allowed in Ramadan

রমজানে আল আকসায় নামাজের অনুমতির আহ্বান যুক্তরাষ্ট্রের

রমজানে আল আকসায় নামাজের অনুমতির আহ্বান যুক্তরাষ্ট্রের
যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দপ্তরের মুখপাত্র ম্যাথিউ মিলার সাংবাদিকদের বলেছেন, আগের মতোই শান্তিপূর্ণ মুসল্লিদের রমজানে আল আকসা ব্যবহারের সুযোগ দিতে আমরা ইসরায়েলের প্রতি অব্যাহত আহ্বান জানাচ্ছি।

আসন্ন রমজানে মুসলমানদের আল আকসা মসজিদ কম্পাউন্ডে নামাজ পড়ার অনুমতি দিতে ইসরায়েলের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

দখলকৃত পশ্চিমতীর থেকে আল আকসায় ফিলিস্তিনীদের নামাজ পড়তে উগ্র ডানপন্থী এক মন্ত্রীর বাধা দেয়ার প্রস্তাবের পর বুধবার যুক্তরাষ্ট্র এ আহ্বান জানিয়েছে বলে আরব নিউজের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দপ্তরের মুখপাত্র ম্যাথিউ মিলার সাংবাদিকদের বলেছেন, আগের মতোই শান্তিপূর্ণ মুসল্লিদের রমজানে আল আকসা ব্যবহারের সুযোগ দিতে আমরা ইসরায়েলের প্রতি অব্যাহত আহ্বান জানাচ্ছি।

তিনি বলেন, এটি শুধু ধর্মীয় স্বাধীনতা দেয়ার বিষয় নয়, এটি তাদের প্রাপ্য এবং তাদের অধিকার আছে। তবে ব্যাপারটি সরাসরি ইসরায়েলের নিরাপত্তার জন্য গুরুত্বপূর্ণ। পশ্চিমতীর বা বৃহত্তর অঞ্চলে উত্তেজনা বৃদ্ধির ব্যাপারটি ইসরায়েলের নিরাপত্তার স্বার্থে নয়।

ইসরায়েলে ঢুকে হামাস গত ৭ অক্টোবর আকস্মিক হামলা চালায়। ওই হামলার প্রতিক্রিয়ায় গাজায় টানা হামলা চালাচ্ছে ইসরায়েল। হামলা শুরুর পর ৯ অক্টোবর গাজায় সর্বাত্মক অবরোধের ঘোষণা দেয় দেশটি।

এ অবস্থায় গাজায় জিম্মি ব্যক্তিদের মুক্তি ও ইরসায়েলের কারাগারে বন্দি ফিলিস্তিনিদের মুক্তির বিনিময়ে ও গাজায় মানবিক সহায়তায় পাঠানোর শর্তে গত ২৪ নভেম্বর প্রথম দফার যুদ্ধবিরতি শুরু হয়।

এরপর এই যুদ্ধবিরতি চলে সাত দিন। এই সাত দিনে হামাস ১১০ জনকে এবং ইসরায়েল মুক্তি দিয়েছে ২৪০ জনকে। তবে আন্তর্জাতিক নানা মহলের চেষ্টা সত্ত্বেও শেষ পর্যন্ত এই যুদ্ধবিরতির মেয়াদ আর বাড়েনি। এখন পর্যন্ত গাজায় সব মিলিয়ে নিহতের সংখ্যা ৩০ হাজারের মতো।

আরও পড়ুন:
গাজায় বিমান থেকে ত্রাণসামগ্রী ফেলার চিন্তা কানাডার
উত্তর গাজায় দুর্ভিক্ষ আসন্ন: জাতিসংঘ
গাজায় শিগগিরই যুদ্ধবিরতির আশা বাইডেনের

মন্তব্য

p
উপরে