× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

বিজ্ঞান-প্রযুক্তি
First Robotics School in Comilla
hear-news
player
google_news print-icon

দেশের প্রথম রোবটিক্স স্কুল কুমিল্লায়

দেশের-প্রথম-রোবটিক্স-স্কুল-কুমিল্লায়
এই স্কুলে পড়তে শিক্ষার্থীদের বয়সের কোনো নির্দিষ্ট সীমা নেই। যে কেউ পড়তে পারেন রোবটিক্স। ছবি: নিউজবাংলা
শিক্ষার্থীদের বয়সের কোনো নির্দিষ্ট সীমা নেই। যে কেউ পড়তে পারেন রোবটিক্স। কম্পিউটারবিদ্যার শিক্ষকরা দেখাচ্ছেন কীভাবে প্রোগ্রামিং করতে হয়। পাশাপাশি শ্রেণিকক্ষে ব্যবহারিকভাবেও দেখানো হচ্ছে কীভাবে রোবট তৈরি করতে হয়।

রোবট বিদ্যার স্কুলের যাত্রা শুরু হয়েছে কুমিল্লায়। নগরীর রাজবাড়ি কম্পাউন্ডে মাস দুয়েক আগে আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু করেছে স্কুল অব রোবটিক্স। দেশের প্রথম রোবটিক্স এই স্কুলে ভর্তি ও ক্লাস করতে অভূতপূর্ব সাড়া পড়েছে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের মধ্যে।

শিক্ষার্থীদের বয়সের কোনো নির্দিষ্ট সীমা নেই। যে কেউ পড়তে পারেন রোবটিক্স।

কম্পিউটারবিদ্যার শিক্ষকরা দেখাচ্ছেন কীভাবে প্রোগ্রামিং করতে হয়। মনোযোগ দিয়ে শিক্ষার্থীরা সেই পাঠদান শুনছেন। পাশাপাশি শ্রেণিকক্ষে ব্যবহারিকভাবেও দেখানো হচ্ছে কীভাবে রোবট তৈরি করতে হয়, রোবট দিয়ে কীভাবে প্রতিযোগিতাময় বিশ্বে নিজেদের অবস্থান জানান দিতে হবে। বিকেল থেকে রাত অবধি ব্যস্ত সময় কেটে যায় শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের।

বর্তমানে স্কুলটিতে বিভিন্ন বয়সী দুই শতাধিক শিক্ষার্থী নিয়মিত ক্লাস করেন। সপ্তাহে শুক্র, শনি ও মঙ্গলবার এই তিন দিন বিকেল ৫টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত পাঠদান হয়।

কুমিল্লা কালেক্টেরেট স্কুল অ্যান্ড কলেজের ক্যাম্পাসে চলছে স্কুল অব রোবটিক্স। অধ্যক্ষ নার্গিস আক্তার তার প্রতিষ্ঠানের পাশাপাশি এটির ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষের দায়িত্ব পালন করছেন।

নার্গিস আক্তার জানান, গত ৩১ জুলাই ভার্চুয়ালি স্কুল অব রোবটিক্সের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সিনিয়র সচিব মো. তোফাজ্জল হোসেন মিয়া। সেদিন কুমিল্লা জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে জেলা প্রশাসক মো. কামরুল হাসানের সভাপতিত্বে জেলার বিভিন্ন সুধীজন উপস্থিত ছিলেন।

দেশের প্রথম রোবটিক্স স্কুল কুমিল্লায়

অধ্যক্ষ নার্গিস আক্তার নিউজবাংলাকে বলেন, ‘শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়, নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, সাউথ ইস্ট, ডেফোডিল বিশ্ববিদ্যালয় থেকে কম্পিউটার সায়েন্সে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর শেষ করা শিক্ষার্থীরা এখানে শিক্ষক হিসেবে নিয়োজিত। তৃতীয় শ্রেণি থেকে ৫০ বছর বয়সী শিক্ষার্থীরা এখানে ক্লাস করেন।’

কুমিল্লা স্কুল অব রোবটিক্সে এক ডজন শিক্ষক নিয়মিত পাঠদান করেন। তাদের একজন কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের সপ্তম ব্যাচের আইসিটি বিভাগের শিক্ষার্থী মাসুদ পারভেজ সবুজ। তিনি বলেন, ‘সপ্তাহে তিন দিন ক্লাস। মাস তিনেকের পথচালায় দারুণ সাড়া পাচ্ছি। এখানে রোবটিক্সের ক্লাসের পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের ফ্রিল্যান্সিংও শেখানো হয়।’

স্কুল অব রোবটিক্সের আরেক শিক্ষক জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে কম্পিউটার সায়েন্সে স্নাতকোত্তর করা নুরুল আমিন নিউজবাংলাকে বলেন, ‘এই প্রতিষ্ঠানে চারটি বিষয়ে ক্লাস নেয়া হয়। বেসিক কম্পিউটার, প্রোগ্রামিং, ফ্রিল্যান্সিং ও রোবটিক্স। এই চার ধরনের ক্লাসে যারাই অংশগ্রহণ করছেন, তারা ভালো করছেন। এ ছাড়া যারা ফ্রিল্যান্সিং করছেন, তাদেরকে আইডি খুলে দেই। সেই আইডি ব্যবহার করে তারা এখনই উপার্জন করতে শুরু করেছেন।’

মাস তিনেকের পথ চালায় বেশ কিছু সাফল্য রয়েছে স্কুল অব রোবটিক্সের। কয়েকজন শিক্ষার্থী বেশ কয়েকটি ড্রোন তৈরি করেছেন। এ ছাড়া ডিজিটাল ডাস্টবিন তৈরি করা হয়েছে, যেখানে ডাস্টবিনের কাছে ময়লা নিয়ে গেলে স্বয়ংক্রিয়ভাবে ঢাকনা খুলে যাবে। স্কুল-কলেজে এই ডিজিটাল ময়লার ঝুড়ি ব্যবহার করা যাবে।

দেশের প্রথম রোবটিক্স স্কুল কুমিল্লায়

এ ছাড়া শিক্ষার্থীরা নেভিগেশন ওয়াচ তৈরি করেছেন। শিক্ষার্থীরা এই ঘড়ি পরে থাকবেন। যদি স্কুল কলেজে আসা-যাওয়ার সময় কেউ তাদের বিরক্ত করে কিংবা কিডন্যাপ করার চেষ্টা করে, সে ক্ষেত্রে শিক্ষার্থীরা হাতে থাকা নেভিগেশন ওয়াচে চাপ দিলেই পরিবারের কাছে যন্ত্রটি জানিয়ে দেবে তাদের সন্তানরা বিপদে পড়েছেন। যন্ত্রটিই লোকেশন বলে দেবে।

শিক্ষকরা আশা করছেন তারা আগামী মাস তিনেকের মধ্যে একটি পূর্ণাঙ্গ রোবট তৈরি করতে পারবেন। অনেকগুলো প্রজেক্ট প্রায় শেষের পথে।

চতুর্থ শিল্পবিল্পবকে মাথায় রেখে শিক্ষার্থীরা যাতে সে অনুযায়ী নিজেদের যেন গড়ে তুলতে পারে, এমন ভাবনা প্রতিনিয়ত আন্দোলিত করে কুমিল্লা জেলা প্রশাসক মো. কামরুল হাসানকে। সেই স্বপ্নকে বাস্তবায়ন করতেই তিনি প্রতিষ্ঠা করেন স্কুল অব রোবটিক্স।

কামরুল হাসান নিউজবাংলাকে বলেন, ‘আমি বিশ্বাস করি আগামীর দিনগুলো হবে প্রযুক্তিময়। যারা প্রযুক্তি থেকে দূরে থাকবেন, তারা পিছিয়ে যাবেন। শিক্ষার্থীদের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি শিক্ষাকে প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দিতেই স্কুল অব রোবটিক্স তৈরি করা হয়েছে। সাধারণ পড়ালেখার পাশাপাশি এই স্কুলে যে কেউ পড়াশোনা করতে পারবেন।

‘প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, ভবিষ্যতে নেতৃত্ব দানের জন্য সবাইকে বিজ্ঞান ও গবেষণালব্ধ জ্ঞানে উদ্বুদ্ধ হতে হবে। তাই কুমিল্লা থেকেই এই শিক্ষা বিপ্লব শুরু করেছি। সে জন্য বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিনির্ভর শিক্ষা ব্যবস্থা চালুর জন্য কুমিল্লা ১৭ উপজেলায় ১৬৭টি প্রতিষ্ঠানে শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাবের পূর্ণাঙ্গ কার্যক্রম শুরু হয়েছে। এ ছাড়া দ্বিতীয় পর্যায়ে আরও ১৮৫টি ল্যাব স্থাপন কার্যক্রম চালু রয়েছে। পাশাপাশি এই ১৭ উপজেলায় অর্ধশত রোবটিক্স ক্লাব গঠন করা হয়েছে। আমি বিশ্বাস করি ভবিষ্যতে এই কার্যক্রমের সুফল পাবে দেশ।’

আরও পড়ুন:
কমিটির জন্য জীবনবৃত্তান্ত নিল ঢাবির বিজয় একাত্তর হল ছাত্রলীগ
কৃষি গুচ্ছে উপস্থিতি ৮২ শতাংশ, ফল ১৫ সেপ্টেম্বর
গুচ্ছের ফল পুনর্নিরীক্ষণ: আবেদন ১১৬৩, নেই পরিবর্তন
কৃষি গুচ্ছে জবি কেন্দ্রে উপস্থিত ৮১ শতাংশ পরীক্ষার্থী
ঢাবি হলে ছাত্র তোলা নিয়ে ছাত্রলীগে হাতাহাতি

মন্তব্য

আরও পড়ুন

বিজ্ঞান-প্রযুক্তি
First aid training for motorists at Jabi

জাবিতে গাড়িচালকদের প্রাথমিক চিকিৎসাবিষয়ক প্রশিক্ষণ

জাবিতে গাড়িচালকদের প্রাথমিক চিকিৎসাবিষয়ক প্রশিক্ষণ
শনিবার সকাল ৯টা থেকে বেলা দেড়টা পর্যন্ত জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় যুব রেড ক্রিসেন্ট শাখা বিশ্ববিদ্যালয়টির পরিবহন পুলের গাড়িচালক ও সুপারভাইজারদের প্রাথমিক চিকিৎসাবিষয়ক প্রশিক্ষণ দিয়েছে।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মরত গাড়িচালক ও সুপারভাইজারদের প্রাথমিক চিকিৎসাবিষয়ক প্রশিক্ষণ দিয়েছে রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি।

‘বিশ্ব প্রাথমিক চিকিৎসা দিবস-২০২২’ উপলক্ষে ‘লাইফ লং ফার্স্টএইড লার্নিং’ প্রতিপাদ্যে বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির অধীনে জাতীয় সদর দপ্তর যুব রেড ক্রিসেন্ট বাংলাদেশের পাঁচটি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে (জাহাঙ্গীরনগর, রাজশাহী, ঢাকা, জগন্নাথ ও চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়) প্রাথমিক চিকিৎসাবিষয়ক কর্মশালার আয়োজন করেছে।

এরই অংশ হিসেবে শনিবার সকাল ৯টা থেকে বেলা দেড়টা পর্যন্ত জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় যুব রেড ক্রিসেন্ট শাখা বিশ্ববিদ্যালয়টির পরিবহন পুলের গাড়িচালক ও সুপারভাইজারদের প্রাথমিক চিকিৎসাবিষয়ক প্রশিক্ষণ দিয়েছে।

চিকিৎসাবিষয়ক কর্মশালায় সব বাসচালক ও সুপারভাইজারের ফার্স্টএইড কিট বিতরণ করা হয়। পরে চিকিৎসা গ্রহণ ও প্রদান বিষয়ে হাতে-কলমে প্রশিক্ষণ দেয়া হয়।

কর্মশালা উদ্বোধনে উপাচার্য অধ্যাপক ড. নূরুল আলম বলেন, ‘স্বাধীনতা-উত্তর জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান প্রথম রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির কার্যক্রমকে অনুমোদন দেন। এরই ধারাবাহিকতায় রেড ক্রিসেন্টের কার্যক্রম প্রসারিত হয়েছে। আধুনিক মানসম্মত বিশ্ববিদ্যালয় গড়ে তোলার জন্য যুব রেড ক্রিসেন্ট কার্যক্রমের প্রশিক্ষণ কর্মশালার কোনো বিকল্প নেই। দেশ গঠন ও যুব নেতৃত্ব তৈরিতে রেড ক্রিসেন্টের কার্যক্রম প্রশংসার দাবি রাখে।’

জাবি যুব রেড ক্রিসেন্টের ইনচার্জ মহিবুর রৌফ শৈবাল বলেন, ‘আধুনিক মানবসম্পদ তৈরির জন্য যুব রেড ক্রিসেন্টের কার্যক্রমের বিকল্প নেই। দেশের যেকোনো দুর্যোগে যুব রেড ক্রিসেন্ট সবার আগে এগিয়ে আসে, মানুষের পাশে দাঁড়ায়। যেহেতু বাংলাদেশের সব বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় প্রথম যুব রেড ক্রিসেন্ট দলীয় কার্যক্রম শুরু করেছে, সে বিষয়টি লক্ষ রেখে বিশ্ববিদ্যালয়ের সব অংশীজনকে দুর্যোগ মোকাবিলা ও প্রস্তুতি শীর্ষক প্রশিক্ষণের আওতায় এনে যেকোনো দুর্যোগে ঝুঁকি ও ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ কমিয়ে আনতে যথাযথভাবে শিক্ষা দেবে।’

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির মহাসচিব কাজী শফিকুল আলম, জাবির উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক শেখ মো. মঞ্জুরুল হক, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. রাশেদা আখতার, রেজিস্ট্রার রহিমা কানিজ, প্রক্টর আ স ম ফিরোজ-উল-হাসান, পরিবহন অফিসের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ ছায়েদুর রহমান, রেড ক্রিসেন্টের যুব প্রধান জাহিদুল ইসলাম জিহাদ, যুব রেড ক্রিসেন্ট-জাবির ইনচার্জ ও সমন্বয়ক (যুব রেড ক্রিসেন্ট সরকারি ও বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়)।

আরও পড়ুন:
জ্বালানি তেলের দাম বাড়ানোর প্রতিবাদ মহাসড়কে
জাবিতে হল প্রভোস্টের পদত্যাগ দাবি
জাবিতে আসনপ্রতি লড়ছেন ১৫১ জন
শিক্ষক হত্যা-লাঞ্ছনার প্রতিবাদ জাবি শিক্ষক সমিতির
বিনা মূল্যে গাড়ি চালনা প্রশিক্ষণ দেবে যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর, সঙ্গে দেবে ভাতা

মন্তব্য

বিজ্ঞান-প্রযুক্তি
UGC wants e documents in universities

বিশ্ববিদ্যালয়ে ই-নথি চায় ইউজিসি

বিশ্ববিদ্যালয়ে ই-নথি চায় ইউজিসি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেরিটাইম ইউনিভার্সিটি আয়োজিত ই-নথি বিষয়ক তিন দিনব্যাপী প্রশিক্ষণের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে অতিথিরা। ছবি: সংগৃহীত
দিল আফরোজা বলেন, ই-নথি ব্যবস্থার মাধ্যমে যেকোনো স্থান থেকেই ইন্টারন্টে সুবিধা ব্যবহারের মাধ্যমে নথি নিষ্পন্ন করা যাচ্ছে। ফলে দাপ্তরিক সিদ্ধান্ত গ্রহণ প্রক্রিয়া ত্বরান্বিত হচ্ছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ে দাপ্তরিক কাজে গতি বৃদ্ধি, স্বচ্ছতা ও জবাবদিহি নিশ্চিত করতে ই-নথি ব্যবস্থা জোরদারের আহ্বান জানিয়েছে বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি)।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেরিটাইম ইউনিভার্সিটি আয়োজিত ই-নথি বিষয়ক তিন দিনব্যাপী প্রশিক্ষণের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে শনিবার প্রধান অতিথির বক্তব্যে ইউজিসি চেয়ারম্যান (অতিরিক্ত দায়িত্ব) অধ্যাপক দিল আফরোজা বেগম এ আহ্বান জানান।

দিল আফরোজা বলেন, ই-নথি ব্যবস্থার মাধ্যমে যেকোনো স্থান থেকেই ইন্টারন্টে সুবিধা ব্যবহারের মাধ্যমে নথি নিষ্পন্ন করা যাচ্ছে। ফলে দাপ্তরিক সিদ্ধান্ত গ্রহণ প্রক্রিয়া ত্বরান্বিত হচ্ছে।

সহজে ও দ্রুততম সময়ে প্রশাসনিক সিদ্ধান্ত গ্রহণের জন্য পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে ই-নথি কার্যক্রম বাস্তবায়নের উদ্যোগ জোরদারের ওপর গুরুত্বারোপ করেন তিনি।

মেরিটাইম বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার কমডোর শেখ ফিরোজ আহমেদের সভাপতিত্বে প্রশিক্ষণের উদ্বোধনে বিশেষ অতিথি ছিলেন ইউজিসি সদস্য প্রফেসর ড. মো. সাজ্জাদ হোসন, মেরিটাইম ইউনিভার্সিটির উপাচার্য রিয়ার অ্যাডমিরাল (অব.) এম খালেদ ইকবাল ও ইউজিসি সচিব ড. ফেরদৌস জামান।

অনুষ্ঠানে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন অনুষদের ডিন, বিভাগের চেয়ারম্যান, আইসিটি সেলের পরিচালকসহ ইউজিসি এবং বিশ্ববিদ্যালয়টির সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে অধ্যাপক সাজ্জাদ হোসেন বলেন, ‘ই-নথি ব্যবস্থা কার্যকর করতে সরকার ইতোমধ্যেই প্রয়োজনীয় প্রযুক্তিগত অবকাঠামো গড়ে তুলেছে। এসব অবকাঠামোর যথাযথ ব্যবহার নিশ্চিত করে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে কাগজের ফাইলের ওপর নির্ভরতা কমিয়ে আনতে হবে। এই ব্যবস্থায় নথিসংক্রান্ত সব তথ্য যথাযথভাবে সংরক্ষিত থাকে, ফলে দ্রুততম সময়ে সঠিক সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা যায়।’

তিন দিনের প্রশিক্ষণে ভার্চুয়াল অফিস ম্যানেজমেন্ট, ই-নথি সিস্টেম, প্রোফাইল ব্যবস্থাপনা, ডাক আপলোড প্রক্রিয়া, ডাক ব্যবস্থাপনা, ডাক নথিতে উপস্থাপন পদ্ধতি, নথি ও পত্রজারি, নথি ব্যবস্থাপনা এবং নথি মোবাইল অ্যাপ ব্যবহারের বিষয়গুলোর ওপর আলোচনা হবে।

প্রশিক্ষণে সেশন পরিচালনা করবেন ইউজিসির আইএমসিটি বিভাগের পরিচালক মোহাম্মদ মাকছুদুর রহমান ভূঁইয়া, একই বিভাগের উপপরিচালক মোহাম্মদ মনির উল্লাহ এবং প্রোগ্রামার দ্বিজন্দ্র চন্দ্র দাস।

আরও পড়ুন:
এপিএতে সই শিক্ষা মন্ত্রণালয় ইউজিসির
প্রতিবন্ধীদের উচ্চশিক্ষা নিশ্চিতে নীতিমালা করছে ইউজিসি
বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণায় সহায়তা করতে চায় এলসেভিয়ার
ইসলামি আরবি বিশ্ববিদ্যালয়ের অনিয়ম তদন্তে ইউজিসি
সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারী নিয়োগে আসছে নীতিমালা

মন্তব্য

বিজ্ঞান-প্রযুক্তি
2 groups of Chhatra League are roaming around the campus with arms

ক্যাম্পাসে অস্ত্র হাতে ঘুরছে ছাত্রলীগের ২ গ্রুপ

ক্যাম্পাসে অস্ত্র হাতে ঘুরছে ছাত্রলীগের ২ গ্রুপ কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপ অস্ত্র হাতে মুখোমুখি অবস্থান নিয়েছে। ছবি: নিউজবাংলা
নাম না প্রকাশ করার শর্তে ছাত্রলীগ নেতারা জানান, বেলা ৩টায় কুবি ছাত্রলীগের বর্তমান সভাপতি ইলিয়াস হোসেন সবুজ ও সাবেক সাধারণ সম্পাদক রেজা ই এলাহী গ্রুপ মুখোমুখি অবস্থান নেয়। রেজা কুবি ছাত্রলীগের সম্মেলনে সভাপতি প্রার্থী। ক্যাম্পাসে আধিপত্য নিতেই প্রকাশ্যে অস্ত্র হাতে দুই গ্রুপ মুখোমুখি অবস্থান নিয়েছে।

আধিপত্য বিস্তারে অস্ত্র হাতে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের মুখোমুখি অবস্থান নেয়ায় কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় (কুবি) ক্যাম্পাসে উত্তেজনা বিরাজ করছে।

শনিবার বেলা ৩টার দিকে অর্ধশতাধিক মোটরসাইকেল ক্যাম্পাসে প্রবেশ করে। এ সময় তারা বাজি ফুটিয়ে আতঙ্ক সৃষ্টির চেষ্টা চালান।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, মোটরসাইকেল মহড়ায় বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক রেজা এ এলাহী সমর্থিত ছাত্রলীগ নেতা মাহি হাসনাইন, ইকবাল খান, আমিনুলসহ বহিরাগতরা অংশ নেন।

কুবি ছাত্রলীগ সভাপতি ইলিয়াস হোসেন সবুজ সমর্থিতরা বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হল থেকে বের হয়ে দেশীয় অস্ত্রসহ ক্যাম্পাস ফটকে অবস্থান নেন।

এ সময় উভয় পক্ষের নেতা-কর্মীদের হাতে রাম দা, ছেনি, হকিস্টক দেখা যায়।

এ ঘটনায় ক্যাম্পাসজুড়ে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা জানান, শুক্রবার রাতে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করেন কেন্দ্রীয় নেতারা। ছাত্রলীগ সভাপতি ও সম্পাদকের সই করা এক বিজ্ঞপ্তি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে।

এ নিয়ে কুবি ছাত্রলীগের সভাপতি ইলিয়াস হোসেন সবুজ তার ফেসবুক আইডিতে উল্লেখ করেন, ‘কমিটি বিলুপ্তির কোনো ঘটনা ঘটেনি। কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ সম্মেলনের মাধ্যমে নতুন কমিটি দেবে।’

শুক্রবার রাতের এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে আধিপত্য বিস্তারে শনিবার বেলা ৩টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ ও বহিরাগতরা দেশীয় অস্ত্র নিয়ে ক্যাম্পাসে মুখোমুখি অবস্থান নেন।

নাম না প্রকাশ করার শর্তে বিশ্ববিদ্যালয়ের একাধিক ছাত্রলীগ নেতা জানান, বেলা ৩টায় কুবি ছাত্রলীগের বর্তমান সভাপতি ইলিয়াস হোসেন সবুজ ও সাবেক সাধারণ সম্পাদক রেজা ই এলাহী গ্রুপ মুখোমুখি অবস্থান নেয়। রেজা কুবি ছাত্রলীগের সম্মেলনে সভাপতি প্রার্থী। ক্যাম্পাসে আধিপত্য নিতেই প্রকাশ্যে অস্ত্র হাতে দুই গ্রুপ মুখোমুখি অবস্থান নিয়েছে।

কুবি ছাত্রলীগ সভাপতি ইলিয়াস হোসেন সবুজ অভিযোগ করেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ও পুলিশের সামনে বহিরাগতরা ক্যাম্পাসে প্রবেশ করে আতঙ্ক সৃষ্টি করছে।

কুমিল্লা সদর দক্ষিণ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দেবাশীষ চৌধুরী বলেন, ‘ঘটনা শুনেই ক্যাম্পাসে ফোর্স নিয়ে উপস্থিত হয়েছি। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আছে।

আরও পড়ুন:
ইডেন ছাত্রলীগ সভাপতি-সম্পাদকের নামে হত্যাচেষ্টার মামলা
চবিতে সাংবাদিককে ‘মারধর’ ছাত্রলীগের, তদন্তে কমিটি
ছাত্রদলের দুই গ্রুপ জয়বাংলা বলে হামলায় জড়িয়েছে: ছাত্রলীগ
ছাত্রলীগের হামলায় আহত ছাত্রদলের ৬ নেতাকর্মী ঢাকা মেডিক্যালে
ইডেন কলেজ বন্ধের খবরটি গুজব

মন্তব্য

বিজ্ঞান-প্রযুক্তি
Riva also humans can make mistakes Tilottama

রিভাও তো মানুষ, ভুল করতেই পারে: তিলোত্তমা

রিভাও তো মানুষ, ভুল করতেই পারে: তিলোত্তমা তিলোত্তমা শিকদার
অভিযোগগুলোর বিষয়ে ছাত্রলীগের অবস্থান কী জানতে চাইলে তিলোত্তমা বলেন, ‘সে জন্যই আমরা তাদের কমিটি স্থগিত রেখেছি। অধিকতর তদন্ত করা হবে। কিন্তু এখন ইডেনে তো তদন্ত করার পরিবেশই নেই। অধিকতর তদন্ত করে আমরা সেটি জানাব।’

রাজধানীর ইডেন মহিলা কলেজে এক ছাত্রীকে হুমকি দেয়ার অডিও নিয়ে অভিযুক্ত কলেজ ছাত্রলীগ সভাপতি তামান্না জেসমিন রিভার পক্ষে সমর্থন দিয়েছেন এ ঘটনায় দায়িত্বপ্রাপ্ত নেত্রী ও কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সহসভাপতি তিলোত্তমা শিকদারের।

সম্প্রতি ঘটা ওই ঘটনা নিয়ে বৃহস্পতিবার তিনি বলেন, ‘সেই কল রেকর্ডের জন্য রিভা সবার কাছে ক্ষমা চেয়েছে এবং ওই মেয়ের কাছেও ক্ষমা চেয়েছে। রিভা তো মানুষ। সে তো আর ফেরেশতা না। মানুষ তো ভুল করতেই পারে।

‘সেই ভুক্তভোগী মেয়েও বলেছে যে রিভার সঙ্গে তার আর কোনো সমস্যা নেই। সেই ভুল বোঝাবুঝির মীমাংসা হয়ে গেছে।’

বেশ কদিন ধরেই আলোচনায় ইডেন কলেজ ছাত্রলীগ। এ নিয়ে সর্বশেষ ছাত্রলীগের কলেজ কমিটি স্থগিত এবং এক পক্ষের ১২ জন পদধারী ও চার কর্মীকে সংগঠন থেকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করা হয়েছে।

বহিষ্কৃতরা বলছেন, তারা কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের রোষানলের শিকার। অথচ কলেজ ছাত্রলীগ সভাপতি তামান্না জেসমিন রিভা এবং সাধারণ সম্পাদক রাজিয়া সুলতানার বিরুদ্ধে অডিও ফাঁস, নগ্ন করে ভিডিও ধারণের হুমকি, চাঁদাবাজিসহ বিভিন্ন অভিযোগ থাকলেও তাদের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেয়া হয়নি।

অভিযোগগুলোর বিষয়ে ছাত্রলীগের অবস্থান কী জানতে চাইলে তিলোত্তমা বলেন, ‘সে জন্যই আমরা তাদের কমিটি স্থগিত রেখেছি। অধিকতর তদন্ত করা হবে। কিন্তু এখন ইডেনে তো তদন্ত করার পরিবেশই নেই। অধিকতর তদন্ত করে আমরা সেটি জানাব।’

ইডেন কলেজের সভাপতি তামান্না জেসমিন রিভা এবং সাধারণ সম্পাদক রাজিয়া সুলতানার বিরুদ্ধে গণমাধ্যমে কথা বলায় নিজ অনুসারীদের দিয়ে কলেজ ছাত্রলীগের সহসভাপতি জান্নাতুল ফেরদৌসকে মারধরের অভিযোগ ওঠার পর গত শনিবার মধ্যরাত থেকে কলেজে বিশৃঙ্খলার সূত্রপাত।

এর মাঝে ছড়িয়ে পড়ে রিভার হুমকি দেয়ার অডিও। ওই অডিওকে কেন্দ্র করেই দুই ছাত্রীকে ৭ ঘণ্টা আটকে রেখে নির্যাতন এবং নগ্ন করে ভিডিও ধারণ করে ভাইরাল করার হুমকির অভিযোগও ওঠে ছাত্রলীগের এই নেত্রীর বিরুদ্ধে।

পরে ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে দুই সদস্যবিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। এক পর্যায়ে কলেজ ছাত্রলীগ সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকের ওপর হামলা হলে জটিল পরিস্থিতি ধারণ করে। এরপর কমিটি স্থগিত করে ১৬ জনকে বহিষ্কার করা হয়।

তিলোত্তমা বলেন, ‘সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকের শান্তিপূর্ণ প্রেস কনফারেন্সে তারা অতর্কিত হামলা করেছে। এটি চারটি চ্যানেলে লাইভ প্রচারিত হয়েছে। এরপর আমরা ছাত্রলীগের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, উপদপ্তর সম্পাদক সবার উপস্থিতিতে ভিডিও দেখে অপরাধীদের শনাক্ত করে হল প্রশাসনের সঙ্গে কথা বলে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়েছি এবং কমিটি স্থগিত রেখেছি অধিকতর তদন্ত করার জন্য।’

অডিওর ব্যাপারটি মীমাংসা হয়ে গেছে বলে জানান তিনি।

তিলোত্তমা বলেন, ‘সংবাদ সম্মেলনে চারটা চ্যানেলের লাইভে সভাপতি সাধারণ সম্পাদককে চেয়ার দিয়ে মারা, লাঞ্ছিত করা, চুল টেনে শুইয়ে ফেলা এবং পাড়া দেওয়া এবং তাদের সঙ্গে যেসব সহসভাপতি এবং সাংগঠনিক সম্পাদক ছিল তাদের লাঞ্ছিত করা এবং মাননীয় নেত্রীর ছবিযুক্ত ব্যানার ছিঁড়ে ফেলা এবং সেগুলো পাড়া দেওয়া এগুলো আমাদের দলীয় ক্ষেত্রে অনেক বড় অপরাধ।

‘আর এই অপরাধের কারণে দল থেকে আমরা তাদের বহিষ্কার করেছি। ছাত্রলীগকে যারা বিতর্কিত করতে চায় তাদের ছাত্রলীগে থাকার কোনো দরকার নেই।’

‘কারণ দর্শানোর নোটিশ না দিয়ে, আমাদের কথা না শুনে কেন বহিষ্কার করা হয়েছে’ বহিষ্কৃতদের এমন প্রশ্নের বিষয়ে জানতে চাইলে তিলোত্তমা বলেন, ‘তারা কি আমাদের সঙ্গে কথা বলতে চেয়েছে নাকি তাদের কোনো দিন ডেকে পাওয়া গেছে! তাদের সঙ্গে কথা বলার জন্য আমরা এই ঘটনার আগে দুইদিন ৬ ঘণ্টা করে ইডেনে গিয়ে বসে ছিলাম। তারা আমাদের সঙ্গে কোনো কথা বলেনি, কোনো কো-অপারেটিভ আচরণ করেনি এবং কোনো অভিযোগ জানাতেও আমাদের কাছে আসেনি।’

ইডেনের ঘটনায় ছাত্রলীগের গঠিত তদন্ত কমিটির অন্য সদস্য ছিলেন ইডেন কলেজ ছাত্রলীগের দায়িত্বপ্রাপ্ত নেত্রী কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বেনজীর হোসেন নিশি। পরে অবশ্য কমিটি নিয়ে কলেজ ছাত্রলীগের একাংশ আপত্তি জানালে তিনি কমিটি থেকে সরে আসেন।

কারণ দর্শানোর নোটিশ না দিয়ে স্থায়ী বহিষ্কার কেন জানতে চাইলে নিশি বলেন, ‘সেই ঘটনার তদন্ত করে আমরা কিছু তথ্য উপাত্ত ছাত্রলীগ সভাপতি সাধারণ সম্পাদকের কাছে দিয়েছি। আর উনাদের কাছেও হয়ত কিছু তথ্য ছিল। এসব তথ্য এবং অভিযোগগুলো যদি প্রমাণিত সত্য হয় তাহলে সভাপতি সাধারণ সম্পাদক শোকজ না করে তাদের স্থায়ী বহিষ্কার করতে পারে।’

বেনজির হোসেন নিশি রোকেয়া হল শাখা ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ফাল্গুনি দাস তন্বীকে মারধরের ঘটনায় হওয়া মামলার আসামি। সেই মামলা তদন্ত করে পিবিআই। তদন্ত প্রতিবেদনের ওপর ভিত্তি করে আদালত এ ছাত্রলীগ নেত্রীসহ তার পাঁচ সহযোগীর বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করে। পরে তারা আদালতে হাজির হয়ে জামিন প্রার্থনা করলে তা মঞ্জুর হয়। তবে সেই মামলা এখনো চলমান থাকলেও ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে নিশির বিরুদ্ধে এখনও কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি।

সেই ঘটনা স্মরণ করিয়ে দিলে নিশি বলেন, ‘এটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা। আমার ছোট বোনের সঙ্গে আমার গ্যাঞ্জাম হতে পারে। এটা আমাদের সংগঠনের ব্যাপার। সেই ঘটনাটি সভাপতি সাধারণ সম্পাদক তদন্ত করেছে। যেহেতু আমরা দুজনই একই সংগঠনের এবং দুইজনেরই যেহেতু একে অপরের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগ ছিল সেজন্যই হয়তো কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ কোনো ব্যবস্থা নেয়নি।’

আরও পড়ুন:
ইডেন ছাত্রলীগ সভাপতি-সম্পাদকের নামে হত্যাচেষ্টার মামলা
ইডেন কলেজ বন্ধের খবরটি গুজব
ইডেন ছাত্রলীগের বহিষ্কৃতদের ‘আমরণ অনশন’ টিকল ১ ঘণ্টা

মন্তব্য

বিজ্ঞান-প্রযুক্তি
Chhatra League gave bicycles to 76 students on the occasion of Sheikh Hasinas birthday

শেখ হাসিনার জন্মদিন উপলক্ষে ৭৬ ছাত্রীকে বাইসাইকেল দিল ছাত্রলীগ

শেখ হাসিনার জন্মদিন উপলক্ষে ৭৬ ছাত্রীকে বাইসাইকেল দিল ছাত্রলীগ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসিতে বৃহস্পতিবার ৭৬ ছাত্রীকে বাইসাইকেল উপহার দিয়েছে ছাত্রলীগ। ছবি: নিউজবাংলা
প্রথমেই ছাত্রীদের মাঝে বাইসাইকেল উপহারের জন্য আবেদন ফর্ম বিতরণ করা হয় এবং পরে চূড়ান্তভাবে ৭৬ জন ছাত্রীকে ক্রমিক নম্বর সংবলিত টোকেন দেয়া হয়। এসব ছাত্রী প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে ‘জন্মদিনের শুভেচ্ছা চিঠি’ লিখেন। তাদের মধ্য থেকে সেরা ১০ জনকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার লেখা বই উপহার দেয়া হয়।

প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার ৭৬তম জন্মদিন উপলক্ষে ৭৬ ছাত্রীকে বাইসাইকেল উপহার দিয়েছে ছাত্রলীগ।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পাঁচটি ছাত্রী হল, ইডেন কলেজ, বেগম বদরুন্নেসা সরকারি মহিলা কলেজ এবং গভর্নমেন্ট কলেজ অফ অ্যাপ্লাইড হিউম্যান সায়েন্স কলেজের ছাত্রীদের শিক্ষা অনুষঙ্গ হিসেবে এই উপহার দেয়া হয়।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসিতে বৃহস্পতিবার এ কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়।

ছাত্রলীগ সভাপতি আল-নাহিয়ান খান জয়ের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি আওয়ামী লীগের শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক সিদ্দিকুর রহমান। প্রধান আলোচক ছিলেন ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী এবং বিশেষ অতিথি ছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ডা. নুজহাত চৌধুরী।

ছাত্রলীগ নেতাদের মধ্যে ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসাইন, কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের নেতৃবৃন্দ ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন হল ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দ।

কর্মসূচির সার্বিক তত্ত্বাবধানে ছিলেন ছাত্রলীগের ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা সম্পাদক ইমরান জমাদ্দার, উপ-ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা সম্পাদক ফারুক আহম্মেদ এবং আনোয়ার হোসেন।

অনুষ্ঠানটি সফল করতে প্রথমেই ছাত্রীদের মাঝে বাইসাইকেল উপহারের জন্য আবেদন ফর্ম বিতরণ করা হয় এবং পরে চূড়ান্তভাবে ৭৬ জন ছাত্রীকে ক্রমিক নম্বর সংবলিত টোকেন দেয়া হয়।

এসব ছাত্রী প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে ‘জন্মদিনের শুভেচ্ছা চিঠি’ লিখেন। তাদের মধ্য থেকে সেরা ১০ জনকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার লেখা বই উপহার দেয়া হয়।

উপহার প্রদান অনুষ্ঠানে অতিথিরা ‘দুর্যোগ দুর্বিপাকে, সংকট সংশয়ে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ’ শীর্ষক ম্যাগাজিনের মোড়ক উন্মোচন করেন।

আরও পড়ুন:
ছাত্রলীগের হামলায় আহত ছাত্রদলের ৬ নেতাকর্মী ঢাকা মেডিক্যালে
ইডেন কলেজ বন্ধের খবরটি গুজব
চবিতে সাংবাদিককে ‘মারধর’ ছাত্রলীগের
ইডেন ছাত্রলীগের বহিষ্কৃতদের ‘আমরণ অনশন’ টিকল ১ ঘণ্টা
‘ইডেন ছাত্রলীগ সভাপতি-সম্পাদক কেন বহিষ্কার হলেন না?’

মন্তব্য

বিজ্ঞান-প্রযুক্তি
Seminar on Data Science at CUB

সিইউবিতে ডেটা সায়েন্স নিয়ে সেমিনার

সিইউবিতে ডেটা সায়েন্স নিয়ে সেমিনার ডেটা সায়েন্স নিয়ে সিইউবি আয়োজিত সেমিনারে উপস্থিত অতিথি ও অংশগ্রহণকারীরা। ছবি: নিউজবাংলা
সেমিনারে জাপানের রেকুটেনে কর্মরত ডেটা সায়েন্টিস্ট নিজাম উদ্দিন বলেন, ‘ডেটা সায়েন্স, ডেটা অ্যানালিটিকস, মেশিন লার্নিংয়ের মতো বিষয়ের চর্চা প্রযুক্তি শিল্পে অনেক বড় পরিবর্তন নিয়ে আসবে। প্রতিদিন ইন্টারনেটে যে পরিমাণ ডেটা উৎপন্ন হয়, সেটা বিশ্লেষণে ইতোমধ্যে বিশাল চাকরির বাজার উন্মুক্ত হয়েছে, এমনকি ফ্রিল্যান্সিংয়েও ডেটা সায়েন্সের কাজের চাহিদা শীর্ষে।’

আধুনিক যুগে সব প্রতিষ্ঠান তথ্য গভীরভাবে বিশ্লেষণ করে প্রয়োজনীয় ইনসাইট দেখতে চায়, যা ভবিষ্যতে গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্তে কাজে আসে। বিশ্বের অনেক দেশে ডেটা সায়েন্স ও ডেটা বিশেষজ্ঞদের গুরুত্ব তুঙ্গে। বাংলাদেশেও ডেটা বিশেষজ্ঞের চাহিদা বাড়ছে।

এমন বাস্তবতা মাথায় রেখে কানাডিয়ান ইউনিভার্সিটি অফ বাংলাদেশে (সিইউবি) তরুণ নেতৃত্বের জন্য ডেটা সায়েন্সবিষয়ক সেমিনার হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ও ইংলিশ অলিম্পিয়াডের যৌথ আয়োজনে এ সেমিনার হয়।

মূল বক্তা হিসেবে সেমিনার পরিচালনা করেন জাপানের রেকুটেনে কর্মরত ডেটা সায়েন্টিস্ট নিজাম উদ্দিন।

তিনি বলেন, ‘ডেটা সায়েন্স, ডেটা অ্যানালিটিকস, মেশিন লার্নিংয়ের মতো বিষয়ের চর্চা প্রযুক্তি শিল্পে অনেক বড় পরিবর্তন নিয়ে আসবে। প্রতিদিন ইন্টারনেটে যে পরিমাণ ডেটা উৎপন্ন হয়, সেটা বিশ্লেষণে ইতোমধ্যে বিশাল চাকরির বাজার উন্মুক্ত হয়েছে, এমনকি ফ্রিল্যান্সিংয়েও ডেটা সায়েন্সের কাজের চাহিদা শীর্ষে।’

সেমিনার শেষে ধন্যবাদ জানান সিইউবির উপাচার্য অধ্যাপক ড. এইচ এম জহিরুল হক। এতে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সিইউবির স্টুডেন্ট অ্যাফেয়ার্স ডিরেক্টর মঞ্জুরুল হক খান, স্কুল অফ বিজনেসের প্রধান অধ্যাপক এস এম আরিফুজ্জামান, ইংলিশ অলিম্পিয়াডের প্রতিষ্ঠাতা সংগঠক আমান উল্লাহ, বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি ও বিপণনের উপপরিচালক আতিকুর রহমানসহ জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তারা।

উপাচার্য জহিরুল হক সেমিনারে প্রধান অতিথির হাতে ক্রেস্ট তুলে দেন।

আরও পড়ুন:
সিইউবিতে হয়ে গেল ‘এক্সিলারেট ইউর ক্যারিয়ার’
সিইউবিতে ‘মিট দ্য সিইও ক্যারিয়ার কাউন্সেলিং প্রোগ্রাম’
সিইউবির স্মার্ট ক্যাম্পাসের কাজ পুরোদমে চলছে: নাফিজ সরাফাত
সিইউবির সেমিনারে শিক্ষাজীবনেই চাকরির দক্ষতা গড়ার পরামর্শ
সমুদ্রসম্পদ ব্যবহারে মেরিটাইম এডুকেশনের বিকল্প নেই

মন্তব্য

বিজ্ঞান-প্রযুক্তি
Shabir expelled 7 students for sexual harassment

যৌন হয়রানির অভিযোগে শাবির ৭ ছাত্রকে বহিষ্কার

যৌন হয়রানির অভিযোগে শাবির ৭ ছাত্রকে বহিষ্কার
উপাচার্য বলেন, ‘তদন্ত কমিটির সুপারিশের ভিত্তিতে সিন্ডিকেট এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ক্যাম্পাসে যৌন হয়রানি প্রতিরোধে আমরা বদ্ধপরিকর।’

যৌন হয়রানির অভিযোগে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবি) ৭ শিক্ষার্থীকে বহিষ্কার করা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের ২২৬তম সিন্ডিকেট সভায় বুধবার বিকেলে এই সিদ্ধান্ত হয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য মো. ফরিদ উদ্দিন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, হয়রানির তিনটি অভিযোগে বিভিন্ন মেয়াদে ওই শিক্ষার্থীদের বহিষ্কার করা হয়েছে।

এর মধ্যে বন ও পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগের আরিফুল ইসলাম ও মো. জায়েদ ইকবাল তানিমকে দুই বছরের জন্য বহিষ্কার করা হয়েছে।

আর একই ডিপার্টমেন্টের ইমাম হোসেন ইমরান, মো. রিফাত হোসেন, মো. বিশাল আলী, লোকপ্রশাসন বিভাগের সুমন দাস ও মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সৈয়দ মুস্তাকিম সাকিবকে এক বছরের জন্য বহিষ্কার করা হয়েছে।

বহিষ্কারাদেশে বলা হয়েছে, এই সময়ের মধ্যে তাদের আবাসিক হলের সিট বাতিল থাকবে। তাদের জন্য ক্যাম্পাসে প্রবেশ নিষিদ্ধ থাকবে। কমিটির সিদ্ধান্ত বৃহস্পতিবার থেকে কার্যকর হবে।

উপাচার্য বলেন, ‘তদন্ত কমিটির সুপারিশের ভিত্তিতে সিন্ডিকেট এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ক্যাম্পাসে যৌন হয়রানি প্রতিরোধে আমরা বদ্ধপরিকর।’

আরও পড়ুন:
স্কুলে পানি খেয়ে ৬০ শিক্ষার্থী হাসপাতালে
কলেজছাত্রীকে ‘যৌন হয়রানি’: অভিযোগ তদন্তে কমিটি
শাবির উপাচার্যবিরোধী আন্দোলনের দাবিগুলোর কী হলো?
যৌন হয়রানির অভিযোগে শিক্ষক আটক
কেপিআই-২৯ ব্যাচের পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত

মন্তব্য

p
উপরে