‘কোরবানির পশুর চামড়া রপ্তানির অনুমতি দিতে হবে’

‘কোরবানির পশুর চামড়া রপ্তানির অনুমতি দিতে হবে’

সিন্ডিকেটের কারণে সাম্প্রতিক বছরগুলোতে চামড়ার ব্যবসায়ীরা কোরবানির পশুর চামড়ার দাম পাচ্ছেন না। ফাইল ছবি।

‘বিক্রি করতে না পারায় কোটি কোটি টাকা মূল্যের চামড়া পচে গেছে। বাজারে প্রতিযোগিতা না থাকায় একচেটিয়াভাবে নিয়ন্ত্রণ সৃষ্টি হয়েছে সিন্ডিকেটের।’

আসছে কোরবানির ঈদে পশুর চামড়া রপ্তানির অনুমতি না দিলে বিক্রেতারা সঠিক দাম পাবেন না বলে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জি এম কাদের।

মঙ্গলবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এ উদ্বেগের কথা জানান।

বিবৃতিতে জি এম কাদের বলেন, ‘পশুর চামড়া রপ্তানির অনুমতি না দিলে এবারও মুনাফাখোর চক্র কোরবানির সময় সিন্ডিকেট তৈরি করবে।

‘তাতে গেল ২-৩ বছরের মতো পশুর চামড়ার সঠিক দাম পাবেন না বিক্রেতারা। ফলে কোরবানির পশুর চামড়ায় যাদের হক রয়েছে, সেই এতিম ও দুস্থরা আরও কষ্টে পড়বে। বন্ধ হয়ে যেতে পারে অসংখ্য এতিমখানা ও লিল্লাহ বোর্ডিং। পাশাপাশি হুমকিতে পড়বে সম্ভাবনাময় চামড়াশিল্প।’

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান বলেন, ‘সিন্ডিকেটের কারণে কোরবানির সময় পানির দামেই বিক্রি হয়েছে পশুর চামড়া।

‘আবার সঠিক মূল্য না পেয়ে অনেকে ক্ষোভ আর হতাশায় চামড়া মাটি চাপা দিয়েছে। কেউ কেউ কেরোসিন দিয়ে আগুনও দিয়েছে পশুর চামড়ায়।’

‘কোরবানির পশুর চামড়া রপ্তানির অনুমতি দিতে হবে’
জাপা চেয়ারম্যান জি এম কাদের। ফাইল ছবি

তিনি বলেন, ‘বিক্রি করতে না পারায় কোটি কোটি টাকা মূল্যের চামড়া পচে গেছে। বাজারে প্রতিযোগিতা না থাকায় একচেটিয়াভাবে নিয়ন্ত্রণ সৃষ্টি হয়েছে সিন্ডিকেটের।

‘কোরবানির সময় চামড়া বিদেশে রপ্তানির অনুমতি দিতে হবে। এতে চামড়ার বাজারে প্রতিযোগিতা সৃষ্টি হবে। বিক্রেতারা ভালো দাম পাবেন।’

শেয়ার করুন

মন্তব্য