তারেককে ভয় কেন, প্রশ্ন ফখরুলের

বুধবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বিএনপি আয়োজিত প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। ছবি: মেরিনা মিতু

তারেককে ভয় কেন, প্রশ্ন ফখরুলের

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘তারেক রহমানের বিরুদ্ধে যে মিথ্যা মামলা দেয়া হয়েছে ও গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে তা নতুন ঘটনা নয়। গত ১২ বছর ধরে তারেক রহমানকে রাজনীতি থেকে সরিয়ে দেয়ার জন্য গভীর ষড়যন্ত্র চলছে।’

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে নিয়ে সরকারের ভয় কেন এমন প্রশ্ন তুলেছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

তিনি বলেন, ‘আজকে তারেক রহমান সাহেবকে এত ভয় কেন? ভয়ের একটাই কারণ যে তারেক রহমান সাহেব এদেশের মানুষের গণতান্ত্রিক রাজনীতির পতাকা তুলে ধরেছেন।’

রাষ্ট্রদ্রোহ মামলায় তারেক রহমানের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানার প্রতিবাদে বুধবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে দলটি আয়োজিত সমাবেশে ফখরুল এ প্রশ্ন করেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘তারেক রহমান একা নন, এদেশের ১৬ কোটি গণতন্ত্রকামী মানুষ তার সাথে আছেন। সুতরাং কোন মিথ্যা মামলা ও হুলিয়া দিয়ে গণতান্ত্রিক আন্দোলন বন্ধ করা যাবে না।’

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়ে ‘অশ্লীল বক্তব্য’ দেয়ার অভিযোগে তারেক রহমানের বিরুদ্ধে ২০১৫ সালে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলা করেন নোয়াখালীর সুবর্ণচর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ওমর ফারুক।

এ বছরের ৭ জানুয়ারি নোয়াখালীর অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতে শুনানি শেষে তারেকের বিরুদ্ধে পরোয়ানা জারি করেন বিচারক সৈয়দ ফখরুল আবেদীন।

৩১ মার্চ মামলার পরবর্তী সাক্ষ্যগ্রহণের তারিখ ঠিক করা হয়েছে।

সরকার বিচার বিভাগকে ধ্বংস করে দিয়েছে অভিযোগ করে ফখরুল বলেন, ‘তারেক রহমান সাহেবকে একটি মামলায় পুরোপুরি নির্দোষ প্রমাণিত হওয়ায় খালাস দেয়া হয়েছিল। পরবর্তীতে সেই মামলাকে আপনারা হাইকোর্ট দিয়ে আবার সাজানোর ব্যবস্থা করেছেন।’

বিএনপির এই শীর্ষ নেতা বলেন, ‘তারেক রহমানের বিরুদ্ধে যে মিথ্যা মামলা দেয়া হয়েছে ও গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে তা নতুন ঘটনা নয়। গত ১২ বছর ধরে তারেক রহমানকে রাজনীতি থেকে সরিয়ে দেয়ার জন্য গভীর ষড়যন্ত্র চলছে।’

তিনি বলেন, ‘দেশের ৩৫ লাখ মানুষের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দেয়া হয়েছে অর্থাৎ এদেশে গণতন্ত্রকে ধ্বংস করার জন্য এই সরকার অত্যন্ত পরিকল্পিতভাবে প্রায় এক যুগ ধরে অত্যাচার নির্যাতনের স্টিম রোলার চালিয়ে যাচ্ছে।’

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘এই সরকার গণবিরোধী সরকার। সরকার জনগনের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে। এরা অত্যন্ত পরিকল্পিতভাবে দেশের সকল গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে ধ্বংস করে দিচ্ছে।’

দেশে কোনো আইনের শাসন নেই মন্তব্য করে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘এই সরকার চুরি এবং লুটপাট করে দেশে ডাকাতের শাসন ব্যবস্থা কায়েম করেছে। এই যে এত বড় একটি ভয়াবহ মহামারি, এই মহামারিতে আপনারা লুটপাট বন্ধ করেননি। আরো কী লুটপাট করবেন সে জন্য ভ্যাকসিন আমদানির মাধ্যমে লুটপাটের নতুন ব্যবস্থা করছেন।’

তিনি বলেন, ‘যেখানে ভারত ভ্যাকসিন বিক্রি করছে ২ টাকা ৪০ পয়সা করে সেখানে আপনারা বিক্রি করছেন ৫ টাকা করে। অর্থাৎ এই চুরির টাকা সব আপনারা নিয়ে যাবেন।’

আরও পড়ুন:
টানা আন্দোলন চান গয়েশ্বর
ঝিনাইদহে বিএনপির ‘ব্যানার কেড়ে নিল পুলিশ’
বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসে কর্মসূচি পেছাল বিএনপি
টিকা নিয়ে বিকল্প উৎস খুঁজতে বলল বিএনপি
সারা দেশে কালো পতাকা উত্তোলন বিএনপির

শেয়ার করুন

মন্তব্য