20201002104319.jpg
কী বলে বিএনপি ভোট চাইবে, চিন্তায় কাদের

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। ফেসবুক থেকে নেয়া ছবি

কী বলে বিএনপি ভোট চাইবে, চিন্তায় কাদের

‘ভোটের আগে অভিযোগ, ভোটের দিন সরে দাঁড়ানো পরে নির্বাচন কমিশনকে ব্যর্থ বলা বিএনপির পুরনো এ কৌশল এখন ভোঁতা হয়ে গেছে। জনগণ এখন আর এ সবে বিশ্বাস করে না।’

যে কয়টি আসনে উপনির্বাচন হচ্ছে, সেখানে বিএনপি কী বলে ভোট চাইবে, সে প্রশ্ন তুলেছেন ওবায়দুল কাদের।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘বিএনপি উপনির্বাচনে আগে থেকেই ভরাডুবির আশঙ্কা করছে, জনগণের কাছে তারা কী বলে ভোট চাইবে?’

তিন জন সংসদ সদস্যের মৃত্যুতে আগামী ১৭ অক্টোবর ঢাকা-৫ এবং ১২ নভেম্বর সিরাজগঞ্জ-১ ও ঢাকা-১৮ আসনে উপনির্বাচনে ভোট হবে।

তিনটি আসনেই বিএনপি প্রার্থী দিয়েছে। আওয়ামী লীগের প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী তারাই।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘তাদের ঝোলায় ইতিবাচক কিছু নেই, তাই বিএনপি বরাবরের মতো মিথ্যা অভিযোগের তীর ছুঁড়তে শুরু করছে।’

বিএনপির অভিযোগ, বর্তমান সরকারের সুষ্ঠু নির্বাচন হবে না। তবু গণতন্ত্রের স্বার্থে তারা ভোটে অংশ নিয়েছে।

তবে বিএনপির এই অভিযোগকে অকারণ অভিযোগ হিসেবে দেখছেন কাদের। বলেন, ‘ভোটের আগে অভিযোগ, ভোটের দিন সরে দাঁড়ানো পরে নির্বাচন কমিশনকে ব্যর্থ বলা বিএনপির পুরনো এ কৌশল এখন ভোঁতা হয়ে গেছে। জনগণ এখন আর এ সবে বিশ্বাস করে না।’ 

বৃহস্পতিবার সিরাজগঞ্জ ও কুমিল্লায় পণ্যবাহী যানবাহনের চালকদের জন্য বিশ্রামাগার নির্মাণ উদ্বোধন করে এ কথা বলেন সড়কমন্ত্রী।

নিজ বাসা থেকে ভিডিও কনফারেন্সে এই অনুষ্ঠানে যুক্ত হন কাদের। বলেন, ‘দিবারাত্রী সমালোচনা করেও বিএনপি নেতারা দেশে গণতন্ত্র নেই বলে যে অভিযোগ করেন তা তাদের নিজেদের অভিযোগের অসারতা প্রমাণ করে।’

‘অন্ধ সমালোচনা ও মিথ্যাচারের জন্য তাদের কোন নেতাকে শাস্তি দেওয়া হয়েছে - তা তারাই বলুক?’

কাদের বলেন, ‘শেখ হাসিনার পরমতসহিষ্ণুতা আছে বলেই বিএনপি অবিরাম মিথ্যাচারের ঢোল বাজিয়ে যেতে পারছে।’

সরকারের মদদে সন্ত্রাসী কার্যকলাপ চলছে বলে বিএনপির অভিযোগেরও জবাবে দেন আওয়ামী লীগ নেতা। বলেন, ‘বিএনপির কমিটি গঠনের পর তাদের অফিসে আগুন দিল কারা? নিজেরা মারামারি করে নিজেদের হাত ভাঙছে, মনোনয়ন নিয়ে চালাচ্ছে সন্ত্রাসী কার্যক্রম; দলের মহাসচিবের বাসায় হামলা করছে, নিজেদের সভা নিজেরাই ভণ্ডুল করছে। এসব তো তাদের নিজেদের সৃষ্ট।

‘সরকার গণতন্ত্রের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। যে কোন দলের গণতন্ত্র চর্চা, রীতিনীতিকে সম্মান করি, শ্রদ্ধা করি বিরুদ্ধ মত।

 

শেয়ার করুন

মন্তব্য