× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট বাংলা কনভার্টার নামাজের সময়সূচি আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

বাংলাদেশ
Bangladesh Today Dummy Sonar Bangla Moin Khan
google_news print-icon

বাংলাদেশ আজ ডামি সোনার বাংলা: মঈন খান

বাংলাদেশ-আজ-ডামি-সোনার-বাংলা-মঈন-খান
বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আব্দুল মঈন খান। ফাইল ছবি
বিএনপি স্থায়ী কমিটির এই সদস্য বলেন, ‘সরকার মুখে বলে তারা স্বাধীনতার পক্ষের শক্তি। তারা সোনার বাংলা গড়তে চায়। আজকে বাংলাদেশের যে পরিস্থিতি, যে কাউকে জিজ্ঞাসা করুন; আজকে কোথায় সেই সোনার বাংলা?’

বাংলাদেশ আজ ডামি সোনার বাংলায় পরিণত হয়েছে মন্তব্য করে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আবদুল মঈন খান বলেছেন, ‘ক্ষমতাসীনরা ডামি নির্বাচন করেছে। আর বাংলাদেশ ডামি সোনার বাংলায় পরিণত হয়েছে। সত্যিকারের সোনা নয়, পিতলের বাংলাদেশ।’

বিএনপির মিডিয়া সেলের আহ্বায়ক জহির উদ্দীন স্বপনের খোঁজখবর নিতে মঙ্গলবার তার ধানমন্ডির বাসায় গিয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

মঈন খান বলেন, ‘সরকার মুখে বলে তারা স্বাধীনতার পক্ষের শক্তি। তারা সোনার বাংলা গড়তে চায়। আজকে বাংলাদেশের যে পরিস্থিতি, যে কাউকে জিজ্ঞাসা করুন; আজকে কোথায় সেই সোনার বাংলা?’

তিনি বলেন, ‘স্বাধীনতা যুদ্ধে লাখ লাখ মানুষ জীবন দিয়েছিল দুটি উদ্দেশ্যে। প্রথমটি হলো গণতন্ত্র। কারণ আমরা উপলব্ধি করেছিলাম, পাকিস্তানের অবকাঠামোর ভেতরে কোনোদিন গণতন্ত্র হতে পারে না। পূর্ব পাকিস্তানের তৎকালীন জনসংখ্যার এক-তৃতীয়াংশ বলেছিল, তারা স্বাধীনভাবে কথা বলতে চায়।

‘কথা বলার স্বাধীনতার জন্য বাংলাদেশ সৃষ্টি হয়েছিল, গণতন্ত্রের জন্য বাংলাদেশ সৃষ্টি হয়েছিল, মানুষের মৌলিক অধিকারগুলো সৃষ্টির জন্য বাংলাদেশ সৃষ্টি হয়েছিল।

‘আজকে কোথায় সেই গণতন্ত্র? আজকে একদলীয় শাসন। এটা আমাদের কথা নয়, সবাই বলছে। টাইম ম্যাগাজিনে যে প্রতিবেদন বেরিয়েছে, তাতে বলা হয়েছে যে বাংলাদেশে আজকে বাকশাল-টু সৃষ্টি হয়েছে।’

দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির প্রসঙ্গ টেনে মঈন খান বলেন, ‘বাংলাদেশে সরকারের আশীর্বাদপুষ্ট ধনিক শ্রেণি সৃষ্টি হয়েছে। তারা ইংল্যান্ড, আমেরিকার ধনিক শ্রেণির চেয়েও অধিকতর বিলাসবহুল জীবনযাপন করে। আপনারা দেখেছেন, বাংলাদেশের মানুষে কিভাবে লন্ডনে হাজার কোটি টাকার ব্যবসা ফেঁদে বসেছে।’

বিএনপির এই বর্ষীয়াণ নেতা বলেন, ‘সরকারের সামনে আজ একটি মাত্র পথ খোলা আছে- ক্ষমতা ছেড়ে দিয়ে দেশে সুষ্ঠু-নিরপেক্ষ নির্বাচন ঘোষণা করা। এছাড়া এই সরকারের সামনে আর কোনো পথ খোলা নেই।’

আরও পড়ুন:
তাসের ঘরের মতো ভেঙে পড়বে আ.লীগ সরকার: মঈন খান
নির্বাচনে ৫ শতাংশ ভোট পড়বে কি না, সন্দেহ আছে: মঈন খান
প্রহসনের নির্বাচন করে আ.লীগ ক্ষমতায় টিকতে পারবে না: মঈন খান
দেশে অলিখিত বাকশাল কায়েম করা হয়েছে: মঈন খান

মন্তব্য

আরও পড়ুন

বাংলাদেশ
Nazruls poem inciting protest Song Rizvi

প্রতিবাদে উদ্বুদ্ধ করে নজরুলের কবিতা, গান: রিজভী

প্রতিবাদে উদ্বুদ্ধ করে নজরুলের কবিতা, গান: রিজভী নজরুলের ১২৫তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে শনিবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় মসজিদের পাশে থাকা কবির কবরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করতে এসে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাব দেন বিএনপির জ্যেষ্ঠ ‍যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। ছবি: নিউজবাংলা
রিজভী বলেন, ‘নজরুলের বিপ্লবের গান, বিদ্রোহের গান আমাদের অনুপ্রাণিত করেছে, আজও উদ্বুদ্ধ করে। কবির কবিতা, গান এবং তার সমস্ত সাহিত্য সৃষ্টি আমাদের উদ্বুদ্ধ করছে শত নিপীড়ন-নির্যাতন ভোগ করে আজকের বিদ্যমান রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে প্রতিবাদ করতে, এগিয়ে যেতে।’

জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের কবিতা ও গান প্রতিবাদে উদ্বুদ্ধ করছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

নজরুলের ১২৫তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে শনিবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় মসজিদের পাশে থাকা কবির কবরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করতে এসে তিনি সাংবাদিকদের কাছে এ মন্তব্য করেন।

এক প্রশ্নের জবাবে রিজভী বলেন, দেশ এখন স্বৈরতন্ত্রের রুদ্ধশ্বাস পরিস্থিতির মধ্যে আছে। এমন পরিস্থিতিতে প্রতিটি ক্ষণ কবি নজরুল উদ্বুদ্ধ করছেন প্রতিবাদের জন্য।

তিনি বলেন, ‘নজরুলের বিপ্লবের গান, বিদ্রোহের গান আমাদের অনুপ্রাণিত করেছে, আজও উদ্বুদ্ধ করে। কবির কবিতা, গান এবং তার সমস্ত সাহিত্য সৃষ্টি আমাদের উদ্বুদ্ধ করছে শত নিপীড়ন-নির্যাতন ভোগ করে আজকের বিদ্যমান রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে প্রতিবাদ করতে, এগিয়ে যেতে।’

গণতন্ত্র ফেরানোর লড়াইয়ে বিএনপি কাজী নজরুল ইসলামের প্রতিবাদের ভাষা রপ্ত করেছে বলে মন্তব্য করেন রিজভী৷

তিনি বলেন, ‘সেই প্রতিবাদের ভাষা রপ্ত করে আমরা গণতন্ত্র ফেরানো, মতপ্রকাশের স্বাধীনতা ও সংবাদপত্রের স্বাধীনতা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে আমাদের যে লড়াই, আমরা অব্যাহত রাখছি। আমরা যখন কারাগারে যাই, যখন আমাদের বিচার হয়, তখন আমরা নজরুলকে স্মরণ করি। কারণ আমরা গণতন্ত্রের জন্য লড়াই করছি বলেই আমাদের সাজা দিচ্ছে, কারাগারে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।’

আরও পড়ুন:
নজরুলের জন্মদিনে জাতীয় ছুটির দাবি পুনর্ব্যক্ত নাতনি খিলখিলের
অটোরিকশা চালকদের থেকে চাঁদা নিচ্ছে যুবলীগ-ছাত্রলীগ: রিজভী
সরকারের অন্যায়-নৃশংসতা ফাঁস করে দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিবেদন: রিজভী
কারাগারগুলো বিএনপির অনেক নেতা-কর্মীর স্থায়ী আবাসস্থল: রিজভী
ওবায়দুল কাদের বেশি অবান্তর কথা বলেন: রিজভী

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Govt wont give protection even if culprit is ex IGP army chief Kader

অপরাধী সাবেক আইজিপি, সেনাপ্রধান হলেও সরকার সুরক্ষা দেবে না: কাদের

অপরাধী সাবেক আইজিপি, সেনাপ্রধান হলেও সরকার সুরক্ষা দেবে না: কাদের আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। ফাইল ছবি
এক প্রশ্নের জবাবে কাদের সাংবাদিকদের বলেন, ‘কোনো ব্যক্তি যত প্রভাবশালীই হোক, অপরাধ করতে পারে, অপকর্ম করতে পারে। কথা হচ্ছে যে, প্রশ্ন থেকে যায় যে, সরকার এই ব্যাপারে তাদেরকে অপকর্ম, অপরাধের শাস্তি পাওয়ার ব্যাপারে সৎসাহস দেখিয়েছে কি না। শেখ হাসিনার সরকারের সেই সৎসাহস আছে।’

অপরাধী যত প্রভাবশালীই হোক, সরকার তাকে সুরক্ষা দেবে না বলে শুক্রবার মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

দুর্নীতিতে জড়িত থাকার অভিযোগে সেনাবাহিনীর সাবেক প্রধান অবসরপ্রাপ্ত জেনারেল আজিজ আহমেদের ওপর গত সোমবার নিষেধাজ্ঞা দেয় যুক্তরাষ্ট্রের স্টেট ডিপার্টমেন্ট। অন্যদিকে বৃহস্পতিবার পুলিশের সাবেক মহাপরিদর্শক (আইজিপি) বেনজীর আহমেদের গোপালগঞ্জে থাকা সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করার নির্দেশ দিয়েছে ঢাকার একটি আদালত।

এমন বাস্তবতায় এক প্রশ্নের জবাবে কাদের সাংবাদিকদের বলেন, ‘কোনো ব্যক্তি যত প্রভাবশালীই হোক, অপরাধ করতে পারে, অপকর্ম করতে পারে। কথা হচ্ছে যে, প্রশ্ন থেকে যায় যে, সরকার এই ব্যাপারে তাদেরকে অপকর্ম, অপরাধের শাস্তি পাওয়ার ব্যাপারে সৎসাহস দেখিয়েছে কি না। শেখ হাসিনার সরকারের সেই সৎসাহস আছে।

‘অপরাধ করে কেউ পার পাবে না। বিচার বিভাগ স্বাধীন, দুদক স্বাধীন। সেখানে যদি অপরাধী হিসেবে সাব্যস্ত হয় কেউ, আমরা তাকে প্রটেকশন দিতে যাব না। তিনি সাবেক আইজিপি হোন আর সাবেক সেনাপ্রধান হোন।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমাদের দেশের প্রচলিত আইনে অন্যায় যে করবে, তাকে শাস্তির কাছে সমর্পণ করা হবে। এতে কোনো প্রকার সরকারের কাউকে প্রটেকশন দেয়ার বিষয় নেই।’

আরও পড়ুন:
এমপি আনার অপরাধে জড়িত কি না, তদন্তে বেরিয়ে আসবে: কাদের
এমপি হত্যায় ভারতকে দোষারোপ না করার আহ্বান কাদেরের
যুক্তরাষ্ট্রের অ্যাপ্রিসিয়েশন অ্যাক্টে আজিজের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা: কাদের
ঢাকা শহরে ব্যাটারিচালিত রিকশা চলার অনুমতি প্রধানমন্ত্রীর: কাদের
ভারতে মেট্রোরেলে ভ্যাট নেই, বাংলাদেশে কেন: কাদের

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Return to power offered in return for airbase PM

বিমান ঘাঁটির বিনিময়ে ক্ষমতায় ফেরার প্রস্তাব দেয়া হয়েছিল: প্রধানমন্ত্রী

বিমান ঘাঁটির বিনিময়ে ক্ষমতায় ফেরার প্রস্তাব দেয়া হয়েছিল: প্রধানমন্ত্রী আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বৃহস্পতিবার গণভবনে অনুষ্ঠিত ১৪ দলের বৈঠকে সূচনা বক্তব্য দেন। ছবি: ফোকাস বাংলা
শেখ হাসিনা বলেন, ‘বাংলাদেশ ভূখণ্ডে একটি দেশকে বিমান ঘাঁটি স্থাপনের অনুমতির বিনিময়ে ৭ জানুয়ারি ঝামেলামুক্ত পুনর্নির্বাচনের প্রস্তাব দেয়া হয়েছিল। সাদা চামড়ার একজনের দেয়া ওই প্রস্তাবে বলা হয়েছিল, বিমান ঘাঁটি স্থাপনের অনুমতি দিলে আমার কোনো সমস্যা হবে না।’

বাংলাদেশের ভূখণ্ডে একটি দেশকে বিমান ঘাঁটি স্থাপনের অনুমতির বিনিময়ে ৭ জানুয়ারির নির্বাচনে তাকে (শেখ হাসিনা) ঝামেলামুক্ত পুনর্নির্বাচনের প্রস্তাব দেয়া হয়েছিল বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে অনুষ্ঠিত ১৪ দলের বৈঠকে সূচনা বক্তব্যে তিনি একথা বলেন। সূত্র: ইউএনবি

শেখ হাসিনা বলেন, ‘একজন সাদা চামড়ার লোকের কাছ থেকে প্রস্তাবটি এসেছিল। বলা হয়েছিল, আমি যদি কোনো দেশকে বাংলাদেশে বিমান ঘাঁটি স্থাপনের অনুমতি দেই, তাহলে আমার কোনো সমস্যা হবে না।

‘তবে তারা (বিএনপি) সেটি করত। বাংলাদেশে নির্বাচন যাতে না হয় সেজন্য বিএনপি ষড়যন্ত্র করেছে।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্র ২০০১ সালে যখন ভারতের কাছে বাংলাদেশের গ্যাস বিক্রির প্রস্তাব দিয়েছিল তখনও আমি একই প্রতিক্রিয়া দিয়েছিলাম।

‘আমি স্পষ্ট বলেছি- আমি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কন্যা। আমরা আমাদের মুক্তিযুদ্ধে জয়ী হয়েছি এবং আমি দেশের অংশ ভাড়া দিয়ে বা অন্য কোনো দেশের হাতে তুলে দিয়ে ক্ষমতায় আসতে চাই না। আমার ক্ষমতার দরকার নেই।’

তিনি জোর দিয়ে বলেন, ‘জনগণ যদি আমাকে ক্ষমতায় চায় তাহলে আমি ক্ষমতায় আসব। আর যদি না চায় তাহলে আসব না।

তিনি আরও বলেন, ‘আমি এটা বলছি কারণ সবার জানা উচিত।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘দেশে ও বিদেশে চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হয়েছি। ষড়যন্ত্র এখনও হচ্ছে। বাংলাদেশকে আরেকটি পূর্ব তিমুরে পরিণত করার ষড়যন্ত্র চলছে।

‘পূর্ব তিমুরের মতো... তারা বঙ্গোপসাগরে ঘাঁটিসহ বাংলাদেশ (চট্টগ্রাম) ও মিয়ানমারের একটি অংশ নিয়ে একটি খ্রীষ্টান দেশ তৈরি করবে।’

শেখ হাসিনা বলেন, প্রাচীনকাল থেকেই বঙ্গোপসাগর ও ভারত মহাসাগরের মধ্য দিয়ে ব্যবসা-বাণিজ্য চলে আসছে। অনেকের চোখ এই জায়গাটার দিকে। এখানে কোনো বিরোধ নেই। আমি এটা হতে দেব না। এটাও আমার একটা অপরাধ (তাদের চোখে)।’

প্রস্তাবিত বিমান ঘাঁটি থেকে কোন দেশকে লক্ষ্যবস্তু করা হবে তা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘এটি মনে হতে পারে যে তাদের লক্ষ্য শুধুমাত্র একটি দেশ। কিন্তু তা নয়। আমি জানি তারা আর কোথায় যেতে চায়। আর এ কারণে আওয়ামী লীগ সরকার সব সময় সমস্যায় থাকে।

আওয়ামী লীগ সভাপতি বলেন, ‘আরও ঝামেলা হবে। কিন্তু এটা নিয়ে চিন্তা করবেন না। দেশের মানুষই আমাদের শক্তি। জনগণ আমাদের সঙ্গে থাকলে আমরা ক্ষমতায় থাকব।’

আরও পড়ুন:
এমপি আনারের নিহতের ঘটনায় প্রধানমন্ত্রীর শোক
উন্নত দেশগুলো জলবায়ু পরিবর্তন সংক্রান্ত প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নে ব্যর্থ: প্রধানমন্ত্রী
হেলিকপ্টার দুর্ঘটনায় ইরানকে সহায়তা ‘দিতে পারেনি’ যুক্তরাষ্ট্র
ব্যাটারিচালিত রিকশা চলাচলে এলাকা ভাগ করে দিতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ
বঙ্গবন্ধুর নামে ‘শান্তি পদক’ দেবে সরকার

মন্তব্য

বাংলাদেশ
The expelled BNP leader complained of vote rigging after losing
ভূঞাপুর উপজেলা পরিষদ নির্বাচন

হেরে ভোট কারচুপির অভিযোগ করলেন বহিস্কৃত বিএনপি নেতা

হেরে ভোট কারচুপির অভিযোগ করলেন বহিস্কৃত বিএনপি নেতা ভূয়াপুর উপজেলা নির্বাচনের পরাজিত চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী মোস্তাফিজুর রহমান তালুকদার বাবলু। ছবি: নিউজবাংলা
ক্ষোভ প্রকাশ করে বাবলু বলেন, ‘আমি মনে করি, এই উপজেলা নির্বাচনে ৫ থেকে ৭ শতাংশ মানুষও ভোট দেয়নি। এভাবে নির্বাচন হলে আগামীতে কোনো নির্বাচনেই জনগণ কেন্দ্রে ভোট দিতে যাবে না।’

ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের দ্বিতীয় ধাপে গত ২১ মে টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে ভোটগ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। এই উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ব্যাপক ভোটের ব্যবধানে পরাজিত হয়েছেন চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী মোস্তাফিজুর রহমান তালুকদার বাবলু। ভোটে হারার পর কারচুপি ও নানা অনিয়মের অভিযোগ করেছেন তিনি। একইসঙ্গে নির্বাচন ও ফলাফল প্রত্যাখানসহ ভোট নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন তিনি।

বৃহস্পতিবার দুপুরে ভূঞাপুর উপজেলা নির্বাচন অফিসারের কার্যালয় চত্বরে এমন অভিযোগ করেন তিনি।

নির্বাচনে মোস্তাফিজুর রহমান তালুকদার বাবলু উপজেলা বিএনপির সদ্য বহিস্কৃত সহ-সভাপতি। নির্বাচনে ঘোড়া প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন তিনি।

ক্ষোভ প্রকাশ করে বাবলু বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আশ্বাসে দলীয় সিদ্ধান্ত অমান্য করে নির্বাচনে অংশ নিয়েছিলাম। ভেবেছিলাম, এবার যেহেতু দলীয় প্রতীক থাকছে না, তাহলে নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠু হবে; কিন্তু ক্ষমতাসীন দলের স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা হস্তক্ষেপ করে অনিয়ম ও কারচুপি করে এমপি-সমর্থিত প্রার্থীকে জয়ী করেছেন।

‘আমি মনে করি, এই উপজেলা নির্বাচনে ৫ থেকে ৭ শতাংশ মানুষও ভোট দেয়নি। এভাবে নির্বাচন হলে আগামীতে কোনো নির্বাচনেই জনগণ কেন্দ্রে ভোট দিতে যাবে না।’

নির্বাচন প্রত্যাখান করে তিনি বলেন, ‘সকাল ৮টা থেকে সুষ্ঠুভাবে ভোটগ্রহণ চললেও দুপুরের পর থেকে ক্ষমতাসীন দলের লোকজন ছোট ছোট বাচ্চাদের দিয়ে একাধিবার ভোট দিইয়েছেন। এছাড়া আমার এজেন্টদের কেন্দ্র থেকে বের করে দিয়েছের ও ভোটারদের কেন্দ্রে না যেতে হুমকি দিয়েছে। এটাকে নির্বাচন বলা যায় না।’

তিনি আরও বলেন, ‘উপজেলার গোবিন্দাসী ইউনিয়নের পরিষদের তিনবারের ইউপি চেয়ারম্যান ছিলাম। নির্বাচনের আগে দলীয় সিদ্ধান্ত অমান্য করে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে অংশ নেয়ায় উপজেলা বিএনপির সহ-সভাপতি পদসহ প্রাথমিক সদস্যপদ থেকে আমাকে বহিষ্কার করা হয়।’

দলের সিদ্ধান্তের প্রতি সম্মান রেখে তিনি বলেন, ‘আমি বিএনপির একজন আদর্শ ক্ষুদ্রকর্মী ও সমর্থক হয়ে আজীবন থাকতে চাই।’

ভূঞাপুর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মোস্তাফিজুর রহমান তালুকদার বাবলু ঘোড়া প্রতীকে নির্বাচনে অংশ নিয়ে ৩ হাজার ১০৫ ভোট পেয়ে জামানত হারান। তার প্রতিদ্বন্দ্বী দোয়াত-কলম প্রতীক নিয়ে মোছা. নার্গিস বেগম ৩০ হাজার ৩৬৪ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন।

আরও পড়ুন:
যশোর সদর উপজেলা নির্বাচন স্থগিত
রায়পুরা উপজেলা নির্বাচন স্থগিত
নির্বাচন ব্যবস্থা ধ্বংস হলে গণতন্ত্র থাকবে না: ইসি রাশেদা
মাত্র ১১ শতাংশ ভোটেই উপজেলা চেয়ারম্যান
চমক দেখালেন তৃতীয় লিঙ্গের মুন্নী

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Jessore Sadar Upazila Election postponed

যশোর সদর উপজেলা নির্বাচন স্থগিত

যশোর সদর উপজেলা নির্বাচন স্থগিত
চট্টগ্রামের চন্দনাইশ উপজেলা নির্বাচনে ঘোড়া প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী আবু আহমেদ চৌধুরীকে তলব করেছে ইসি। ২৬ মে সকাল ১১টায় নির্বাচন ভবনে উপস্থিত হয়ে তাকে ব্যাখ্যা দিতে বলা হয়েছে।

আইনি জটিলতা থাকায় যশোর সদর উপজেলা পরিষদের নির্বাচন স্থগিত করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। তৃতীয় ধাপে ২৯ মে এই উপজেলায় ভোটগ্রহণ হওয়ার কথা ছিলো।

বৃহস্পতিবার ইসির উপ-সচিব মো. আতিয়ার রহমান এই স্থগিতের সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে সংশ্লিষ্ট রিটার্নিং কর্মকর্তাকে চিঠি পাঠিয়েছেন।

চিঠিতে বলা হয়েছে, ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদের তৃতীয় ধাপে ২৯ মে অনুষ্ঠেয় যশোর সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে মো. শাহারুল ইসলাম হাইকোর্ট বিভাগে মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষণার জন্য রিট পিটিশন দায়ের করেছেন। হাইকোর্ট বিভাগ ১৩ মে মো. শাহারুল ইসলামকে নির্বাচনে অংশগ্রহণসহ তার অনুকূলে প্রতীক বরাদ্দের জন্য আদেশ দেয়।

হাইকোর্টের এই আদেশের বিরুদ্ধে নির্বাচন কমিশন আপিল বিভাগে সিপিএলএ নং ১৭১৩/২২৪ দায়ের করলে ২০ মে এক আদেশে ‘নো-অর্ডার’ দেয়া হয়। এমতাবস্থায় বাস্তবতার নিরীখে সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের এ আদেশ বাস্তবায়নের নিমিত্ত পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত যশোর সদর উপজেলা পরিষদে সব পদের নির্বাচন স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত দিয়েছে নির্বাচন কমিশন।

এদিকে আচরণবিধি লঙ্ঘনের দায়ে কেন প্রার্থিতা বাতিল করা হবে না তা জানতে চেয়ে চট্টগ্রামের চন্দনাইশ উপজেলা নির্বাচনে ঘোড়া প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী আবু আহমেদ চৌধুরীকে তলব করেছে ইসি। ২৬ মে সকাল ১১টায় তাকে নির্বাচন ভবনে উপস্থিত হয়ে ব্যাখ্যা দিতে বলা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, তৃতীয় ধাপে ২৯ মে এই উপজেলায় ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠানের কথা ছিলো।

আরও পড়ুন:
রায়পুরা উপজেলা নির্বাচন স্থগিত
নির্বাচন ব্যবস্থা ধ্বংস হলে গণতন্ত্র থাকবে না: ইসি রাশেদা
মাত্র ১১ শতাংশ ভোটেই উপজেলা চেয়ারম্যান
চমক দেখালেন তৃতীয় লিঙ্গের মুন্নী
কালীগঞ্জে চাচাকে হারিয়ে এমপিপুত্রের জয়লাভ

মন্তব্য

বাংলাদেশ
The murder of MP Ana in Kaliganj is hazy

এমপি আনার হত্যা নিয়ে কালীগঞ্জে ধোঁয়াশা!

এমপি আনার হত্যা নিয়ে কালীগঞ্জে ধোঁয়াশা! কালীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে বৃহস্পতিবার কালো পতাকা উত্তোলন করেন দলীয় নেতৃবৃন্দ। ছবি: নিউজবাংলা
কালীগঞ্জ উপজেলার মানুষের মধ্যে এক ধরনের ধোঁয়াশা রয়ে গেছে। বৃহস্পতিবারও এমপির বাসভবন ও দলীয় কার্যালয়ের সামনে সাধারণ মানুষ ভিড় জমায়। তাদের অনেকেরই প্রশ্ন- এমপি হত্যার শিকার হয়ে থাকলে তার মরদেহ কোথায়?

ভারতের কলকাতায় ঝিনাইদহ-৪ আসনের এমপি আনোয়ারুল আজীম আনারকে নৃশংসভাবে হত্যার খবরে স্তব্ধ কালীগঞ্জ। তার মরদেহ উদ্ধার না হওয়ায় স্থানী জনমনে কিছুটা ধোঁয়াশা আছে।

আওয়ামী লীগ দলীয় এই সংসদ সদস্য হত্যার প্রতিবাদে দলীয় কার্যালয়ে কালো পতাকা উত্তোলনসহ কর্মসূচির ডাক দেয়া হয়েছে।

কালীগঞ্জ উপজেলা সদরে এমপি আনারের বাসভবন ও পাশেই দলীয় কার্যালয়ের সামনে বৃহস্পতিবারও সহস্রাধিক নারী-পুরুষ ভিড় জমান। উপজেলা আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে দুপুর ১২টার পর ভূষণ রোডের দলীয় কার্যালয়ে কালো পতাকা, দলীয় ও জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়।

পতাকা উত্তোলনকালে কান্নায় ভেঙে পড়েন পৌর আওয়ামী লীগের সাংগাঠনিক সম্পাদক ও পৌর মেয়র আশরাফুল আলম আশরাফ।

পতাকা উত্তোলনকালে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আয়ুব হোসেন, মতিয়ার রহমান মতি, ওহিদুজ্জামান ওদু ও মোস্তাফিজুর রহমান বিজুসহ স্থানীয় নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

নেতৃবৃন্দ বলেন, ‘আনারকে যারা হত্যা করেছে তাদেরকে দ্রুত আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক বিচার করতে হবে। আমরা আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার কাছে আবেদন জানাই, আমাদের এমপির মরদেহ দ্রুত দেশে আনার ব্যবস্থা করুন।’

এমপি আনার আওয়ামী লীগ মনোনীত টানা তিনবারের সংসদ সদস্য ও কালীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি। দলীয়ভাবে শনিবার সকালে উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে সভা আহ্বান করে আনার হত্যার প্রতিবাদে বিভিন্ন কর্মসূচি দেয়া হবে বলে জানান নেতৃবৃন্দ।

রাষ্ট্রীয়ভাবে এবং বিভিন্ন গণমাধ্যমে এমপি আনার হত্যার খবর জানা গেলেও মরদেহ উদ্ধার না হওয়ায় উপজেলার মানুষের মধ্যে এক ধরনের ধোঁয়াশা রয়ে গেছে। বৃহস্পতিবারও সকাল থেকেই এমপির শহরের বাসভবন ও দলীয় কার্যালয়ের সামনে সাধারণ মানুষ ভিড় জমায়। তাদের অনেকেরই প্রশ্ন- এমপিকে হত্যার শিকার হয়ে থাকলে তার মরদেহ কোথায়?

কালীগঞ্জ থানার ওসি আবু আজিফ জানান, এমপি আনার নিখোঁজ হওয়ার উল্লেখ করে তার সেজো ভাই এনামুল হক ইমান ১৯ মে কালীগঞ্জ থানায় একটি ডিডি করেন। বিষয়টি আমাদের ঊর্ধ্বতন পর্যায়ে জানিয়েছি। বিষয়টি সরকারের ঊর্ধ্বতন সংস্থাগুলো পর্যবেক্ষণ করছে, যোগ করেন তিনি।

প্রসঙ্গত, ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) গোয়েন্দা (ডিবি) শাখার প্রধান হারুন অর রশীদ বৃহস্পতিবার ঢাকায় সংবাদ সম্মেলনে এমপি আনার হত্যাকাণ্ডের বর্ণনা তুলে ধরেন। ইতোমধ্যে পুলিশের হাতে আটকদের জিজ্ঞাসাবাদে পাওয়া তথ্যের উল্লেখ করে তিনি এই বর্ণনা দেন।

ডিএমপি ডিবি প্রধান বলেন, ‘মরদেহ পাওয়ার আশা খুবই কম। কেননা হত্যার পর গুম করার উদ্দেশ্যে মরদেহ টুকরো টুকরো করা হয়। পরে তা কয়েক কিস্তিতে সরিয়ে নেয়া হয়। তারপরও চেষ্টা করছি এমপি আনারের দেহের অংশবিশেষ উদ্ধারের।’

আরও পড়ুন:
এমপি আনারকে হত্যা করেছে বাংলাদেশি অপরাধীরা: ডিএমপি ডিবি প্রধান
এমপি আনারের হত্যাকাণ্ড দুই রাষ্ট্রের বিষয় নয়: পররাষ্ট্রমন্ত্রী
বাবা হত্যার বিচারে প্রধানমন্ত্রীর সহায়তা চান আনারকন্যা
কলকাতার বাসায় এমপি আনারকে পরিকল্পিত হত্যা: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
ভারতে গিয়ে নিখোঁজ এমপি আনারের মরদেহ উদ্ধার

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Chairman candidate Riazs candidature was canceled in Mathbaria
উপজেলা নির্বাচন

মঠবাড়িয়ায় চেয়ারম্যান প্রার্থী রিয়াজের প্রার্থিতা বাতিল

মঠবাড়িয়ায় চেয়ারম্যান প্রার্থী রিয়াজের প্রার্থিতা বাতিল ফাইল ছবি।
ভিডিও ফুটেজসহ অন্যান্য তথ্য পর্যালোচনা ও শুনানি নেয়ার পর আচরণবিধি লঙ্ঘনের ঘটনাটি বিবেচনায় নিয়ে নির্বাচন কমিশন সর্বসম্মতভাবে ওই প্রার্থীর প্রার্থিতা বাতিল করে।

নির্বাচনি আচরণবিধি লঙ্ঘনের দায়ে পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী মো. রিয়াজ উদ্দিন আহম্মেদের প্রার্থিতা বাতিল ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

বৃহস্পতিবার দুপুরে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন ইসি সচিব মো. জাহাংগীর আলম।

জানা যায়, বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় নির্বাচন কমিশনে সশরীরে উপস্থিত হয়ে ব্যাখ্যা দিতে বলা হয়েছিল রিয়াজ উদ্দিনকে। সোমবার (২০ মে) নির্বাচন পরিচালনা-২ অধিশাখা থেকে কমিশনের উপসচিব মো. আতিয়ার রহমান স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে তাকে তলবের আদেশ দেয়া হয়।

এর আগে ১৩ মে মঠবাড়িয়ার প্রার্থীদের মধ্যে প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হয়। ইসির পক্ষ থেকে ওইদিন প্রার্থীদের সব ধরনের সভা-সমাবেশ করতে নিষেধ করা হয়।

কমিশনের আদেশ অমান্য করে মঠবাড়িয়া পৌরসভার সামনে বিশাল মিছিল ও সমাবেশ করেন রিয়াজ। এরপর ১৪ মে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়া হলে রিটার্নিং অফিসারের কাছে জবাব দেন এই প্রার্থী।

সন্তোষজনক জবাব না পাওয়ায় কেন প্রার্থিতা বাতিল করা হবে না সেই ব্যাখ্যা দিতে ২৩ মে কমিশনে তলব করা হয় রিয়াজকে।

ইসি সচিব বলেন, শুনানিতে দোষ স্বীকার করে ক্ষমা প্রার্থনা করেছেন রিয়াজ।

ভিডিও ফুটেজসহ অন্যান্য তথ্য পর্যালোচনা ও শুনানি নেয়ার পর আচরণবিধি লঙ্ঘনের ঘটনাটি বিবেচনায় নিয়ে কমিশন সর্বসম্মতভাবে এই প্রার্থীর প্রার্থিতা বাতিল করে।

আরও পড়ুন:
প্রার্থিতা বাতিল বহাল, সেলিম প্রধানকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা
নরসিংদীর এক কেন্দ্রে ভোট বাতিল
ভোটগ্রহণের দিন ৩২ ট্রেনের যাত্রা বাতিল
নৌকা ঠেকাতে ঈগলের প্রার্থিতা প্রত্যাহার
রিটে প্রার্থিতা ফিরল লক্ষ্মীপুর-৪ আসনের আবদুস সাত্তার পালোয়ানের

মন্তব্য

p
উপরে