× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট বাংলা কনভার্টার নামাজের সময়সূচি আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

বাংলাদেশ
Gunshots are coming from Myanmar on Shahpari Island and St Martin
google_news print-icon

মিয়ানমার থেকে গুলির শব্দ আসছে শাহপরীর দ্বীপ ও সেন্টমার্টিনে

মিয়ানমার-থেকে-গুলির-শব্দ-আসছে-শাহপরীর-দ্বীপ-ও-সেন্টমার্টিনে-
থেমে থেমে সীমান্তে গুলির শব্দ আসছে মিয়ানমার থেকে। ছবি: নিউজবাংলা
বৃহস্পতিবার রাতে ও শুক্রবার সকাল থেমে থেমে গুলির শব্দ শুনতে পাচ্ছেন স্থানীয়রা। শাহপরীরদ্বীপ সীমান্তে নাফ নদের ওপারে মিয়ানমারের মুন্ডু টাউনশিপের আশপাশে তিন ও চার কিলোমিটার এলাকায় গোলাগুলি হচ্ছে বেশি।

মিয়ানমারে সামরিক জান্তার বাহিনীর সঙ্গে সশস্ত্র বিদ্রোহীদের চলমান সংঘর্ষে মর্টার শেল ও গুলির শব্দে ফের আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে সীমান্তবর্তী কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলার শাহপরীর দ্বীপ ও সেন্টমার্টিনে।

বৃহস্পতিবার রাতে ও শুক্রবার সকাল থেমে থেমে গুলির শব্দ শুনতে পাচ্ছেন স্থানীয়রা। শাহপরীরদ্বীপ সীমান্তে নাফ নদের ওপারে মিয়ানমারের মুন্ডু টাউনশিপের আশপাশে তিন ও চার কিলোমিটার এলাকায় গোলাগুলি হচ্ছে বেশি।

টেকনাফ সাবরাং ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) সদস্য রেজাউল করিম এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, এসব এলাকা থেকে মিয়ানমার সীমান্ত অনেক দূরে হওয়ায় এপারের মানুষের জন্য তেমন ঝুঁকি নেই।

সেন্টমার্টিন দ্বীপের বাসিন্দা ইউপি সদস্য খোরশেদ আলম জানান, শুক্রবার সকাল থেকে থেমে মিয়ানমার সীমান্তে গোলাগুলির শব্দ শোনা গেছে।এতে চরম উদ্বেগে রয়েছেন সীমান্তবর্তী এলাকাবাসীরা।

বাংলাদেশ সীমান্তরক্ষী বাহিনী-বিজিবির টেকনাফের ২ ব্যাটালিয়ন অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল মো. মহিউদ্দীন আহমেদ বলেন, মিয়ানমারের রোহিঙ্গাসহ কোনো দুষ্কৃতকারী যেন অনুপ্রবেশ করতে না পারে তাই অতিরিক্ত বিজিবি মোতায়েন করা হয়েছে।

এদিকে টেকনাফের হোয়াইক্যং ও হ্নীলা ইউনিয়নের সীমান্ত দিয়ে নাফ নদী পার হয়ে রোহিঙ্গারা কয়েক দিন ধরে অনুপ্রবেশের চেষ্টা করছে। এর মধ্যে ট্রলারে করে আসা বেশ কিছু রোহিঙ্গাকে বিজিবি ও কোস্ট গার্ড পুশব্যাক করেছে। অনুপ্রবেশ ঠেকাতে নাফ নদীতে টহলও বাড়ানো হয়েছে। টেকনাফ-সেন্টমার্টিন রুটে গত শনিবার থেকে পর্যটকবাহী জাহাজসহ নৌযান চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছে।

আরও পড়ুন:
এবার শাহপরীর দ্বীপ সেন্টমার্টিনে মর্টার শেল গুলির শব্দ

মন্তব্য

আরও পড়ুন

বাংলাদেশ
Young people get drunk at the Shangri La festival

সাংগ্রাই উৎসবে জলকেলিতে মাতল মারমা তরুণ-তরুণীরা

সাংগ্রাই উৎসবে জলকেলিতে মাতল মারমা তরুণ-তরুণীরা বান্দরবানের রাজার মাঠে জল উৎসবে মারমা তরুণ-তরুণীরা। ছবি: নিউজবাংলা
এখন শুধু মারমাদেরই নয়, বর্তমানে সর্বজনীন উৎসবে পরিণত হয়েছে সাংগ্রাই। পুরো জেলা শহরজুড়ে এ বছর চলল সাংগ্রাইয়ের জলকেলি। শিশু থেকে শুরু করে তরুণ-তরুণী এমনকি বয়স্করাও একে অপরের গায়ে জল ঢেলে নতুন বছরকে বরণ করে নিয়েছেন।

মারমাদের বর্ষবরণের উৎসবের নাম সাংগ্রাই। এ উসৎবের প্রধান আকর্ষণ জলকেলি। জলকেলির মাধ্যমে পুরনো বছরের সকল দুঃখ-কষ্ট, গ্লানি ধুয়ে-মুছে নতুন বছরকে বরণ করেন তারা।

জলকেলি উৎসবে বান্দরবানের মারমা শিশু-কিশোর, তরুণ-তরুণীরা মেতে উঠেছে এ খেলায়।

তবে এটি এখন শুধু মারমাদেরই নয়, বর্তমানে সর্বজনীন উৎসবে পরিণত হয়েছে সাংগ্রাই। পুরো জেলা শহরজুড়ে এ বছর চলল সাংগ্রাইয়ের জলকেলি। শিশু থেকে শুরু করে তরুণ-তরুণী এমনকি বয়স্করাও একে অপরের গায়ে জল ঢেলে নতুন বছরকে বরণ করে নিয়েছেন।

সোমবার বিকেলে জেলা শহরের রাজার মাঠে জলকেলিতে অংশ নেওয়া তরুণ-তরুণীরা একে অপরের গায়ে জল ঢেলে মৈত্রী জলবর্ষণ প্রতিযোগিতায় মেতে ওঠেন।

সাংগ্রাই উৎসবে জলকেলিতে মাতল মারমা তরুণ-তরুণীরা

জলকেলির উদ্ধোধন করেন বান্দরবানের সংসদ সদস্য বীর বাহাদুর উশৈসিং। এ সময় তার সঙ্গে প্রশাসনের কর্মকর্তারা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

এরপর কয়েকটি ভাগে বিভক্ত হয়ে জলকেলি উৎসবে মেতে ওঠেন মারমা তরুণ-তরুণীরা। জলকেলির পাশাপাশি আয়োজিত হয় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। এতে নেচে-গেয়ে অনুষ্ঠান মাতিয়ে তোলেন আদিবাসী শিল্পীরা।

রাতে পাড়া-মহল্লায় মারমা তরুণ-তরুণীরা রাত জেগে পিঠা তৈরি করে এবং ভোরে বিহারে বিহারে গিয়ে প্রবীণদের মিষ্টিমুখ করানোর মধ্যে দিয়ে শেষ হবে পাহাড়ের বৈসাবি উৎসব।

সাংগ্রাই উৎসবে জলকেলিতে মাতল মারমা তরুণ-তরুণীরা

জলকেলি দেখতে আশপাশের শত শত পাহাড়ি নারী-পুরুষ এবং দেশি পর্যটকরা ভিড় জমান। এ উৎসবে জলকেলি ছাড়াও পিঠা তৈরি, বুদ্ধমূর্তি স্নান, ক্যায়াং ক্যায়াংয়ে ছোয়াইং দান, হাজার প্রদীপ প্রজ্বলন করা হয়।

সাংগ্রাই উৎসবে জলকেলির পাশাপাশি আয়োজিত হয় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। এতে নেচে-গেয়ে উপস্থিত দর্শকদের আনন্দ দেন পাহাড়ি শিল্পীরা। মারমা শিল্পীগোষ্ঠী ছাড়াও পাহাড়ের নবীন-প্রবীণ শিল্পীদের পরিবেশনাও মুগ্ধ করে দর্শক-শ্রোতাদের।

সাংগ্রাই উৎসবে জলকেলিতে মাতল মারমা তরুণ-তরুণীরা

জলকেলি উৎসবের উদ্ধোধনি অনুষ্ঠানে সাবেক পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রী বীর বাহাদুর এমপি বলেন, ‘সম্প্রীতির জেলা বান্দরবান। বাংলা নববর্ষের পাশাপাশি পার্বত্য জেলার সকল সম্প্রদায়ের লোকজন সাংগ্রাই উৎসব মিলেমিশে এবং শান্তিপুর্ণভাবে উৎসব উপভোগ করেছেন।’

তিনি বলেন, ‘ধর্ম যার যার, তবে আনন্দ উৎসব আমাদের সবার। পাহাড়-বাঙালির মধ্যে যে সম্প্রীতির বন্ধন রয়েছে, তা অটুট থাক। আজকে দিনে সবার মঙ্গল কামনা করি।’

মন্তব্য

বাংলাদেশ
More than 2 hundred houses of the slums of Firingi Bazar were burnt

আগুনে পুড়ল ফিরিঙ্গি বাজারের বস্তির ২ শতাধিক ঘর

আগুনে পুড়ল ফিরিঙ্গি বাজারের বস্তির ২ শতাধিক ঘর আগুনে পুড়ল বস্তির দুই শতাধিক ঘর। ছবি: নিউজবাংলা
সোমবার বেলা ১টা ২০ মিনিটে বস্তিতে আগুন লাগে। খবর পেয়ে নন্দনকানন, লামারবাজার, চন্দনপুরা ও আগ্রাবাদ ফায়ার স্টেশনের ৯টি ইউনিট পৌঁছে প্রায় এক ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

চট্টগ্রাম নগরীর ফিরিঙ্গি বাজার এলাকার টেক পাড়া ও লাগোয়া এয়াকুব নগর বস্তিতে আগুনে দুই শতাধিক ঘর পুড়ে গেছে।

সোমবার বেলা দেড়টার দিকে এই আগুনের সূত্রপাত। ফায়ার সার্ভিসের ৯টি ইউনিট এক ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

ফায়ার সার্ভিসের চট্টগ্রাম অঞ্চলের উপ সহকারী পরিচালক আব্দুর রাজ্জাক জানান, সোমবার বেলা ১টা ২০ মিনিটে বস্তিতে আগুন লাগে। খবর পেয়ে নন্দনকানন, লামারবাজার, চন্দনপুরা ও আগ্রাবাদ ফায়ার স্টেশনের ৯টি ইউনিট পৌঁছে প্রায় এক ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

তবে কীভাবে আগুনের সূত্রপাত, তা জানাতে পারেনি ফায়ার সার্ভিস।

ফিরিঙ্গি বাজার ওয়ার্ডের কাউন্সিলর হাসান মুরাদ বিপ্লব বলেন, বস্তিতে আগুন লাগার খবর পেয়ে ছুটে যাই। স্থানীয়দের সহযোগিতায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব হয়েছে। টেকপাড়া বস্তি আর এয়াকুব নগরের পেছনের অংশ জুড়ে কিছু ঘর আছে, সেগুলোতেও আগুন লেগেছে।

তিনি বলেন, মেয়র, জেলা প্রশাসক ও চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের সাথে কথা হয়েছে। কত লোক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে, তা তালিকা করে জানাতে বলেছেন উনারা। ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোর জন্য রাতে খাবারের ব্যবস্থা করা হবে। তাদের ক্ষতিপূরণের বিষয়টি দেখা হবে।

এখনো পূর্ণাঙ্গ তথ্য না মিললেও প্রায় ২০০ ঘর পুড়েছে বলে জানান কাউন্সিলর হাসান মুরাদ বিপ্লব।

স্থানীয়রা জানান, বস্তির এসব ঘরে গ্যাস সিলিন্ডার ছিল, তবে আগুন লাগার পর তাৎক্ষণিকভাবে সেগুলো বের করে ফেলা সম্ভব হয়।

আগুনে কারো আহত হওয়ার তথ্য মেলেনি। বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়ে থাকতে পারে বলে স্থানীয়দের ধারণা।

মন্তব্য

বাংলাদেশ
A cargo carrying 685 tonnes of coal sank in the Bhairav ​​river

ভৈরব নদে ৬৮৫ টন কয়লা বোঝাই কার্গো ডুবে গেছে

ভৈরব নদে ৬৮৫ টন কয়লা বোঝাই কার্গো ডুবে গেছে খুলনার অভয়নগরে ভৈরব নদে রোববার রাতে ৬৮৫ টন কয়লা বোঝাই কার্গো জাহাজ ডুবে যায়। ছবি: সংগৃহীত
ডুবে যাওয়া জাহাজ এমভি সাকিব বিভা-২-এর মাস্টার বেল্লাল হেসেন জানান, ডুবে যাওয়ার সময় জাহাজে মাস্টার, সুকানিসহ মোট ১১ জন ছিলেন। তারা সবাই সাঁতরে তীরে উঠে আসেন। জাহাজে প্রায় এক কোটি ১২ লাখ টাকার কয়লা ছিল।

খুলনার অভয়নগরে ভৈরব নদে ৬৮৫ টন কয়লা বোঝাই কার্গো জাহাজ ডুবে গেছে। রোববার রাত সাড়ে ১১টার দিকে নওয়াপাড়া এলাকায় এমভি সাকিব বিভা-২ নামের কার্গো জাহাজটির তলা ফেটে এই দুর্ঘটনা ঘটেছে।

আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান জে এইচ এম গ্রুপ জানায়, ইন্দোনেশিয়া থেকে কয়লা বড় জাহাজে করে প্রথমে মোংলা বন্দরের হাড়বাড়িয়ায় আনা হয়। সেখান থেকে প্রায় ৬৮৫ টন কয়লা ছোট কার্গো জাহাজ এমভি সাকিব বিভা-২তে তোলা হয়।

ওই কয়লা নিয়ে শনিবার সকালে নওয়াপাড়ার উদ্দেশে কার্গো জাহাজটি রওনা দেয়। রাতে জাহাজটি অভয়নগর উপজেলার নওয়াপাড়া নোনাঘাট এলাকায় ভৈরব নদের ঘাটে পৌঁছায়। জাহাজটি নোঙরের জন্য অপেক্ষায় ছিল।

এমভি সাকিব বিভা-২-এর মাস্টার বেল্লাল হোসেন জানান, নওয়াপাড়া নোনাঘাটের পাশে জাহাজটি ভেড়ানো হয়। রাত সাড়ে ১০টার দিকে নদে ভাটা ছিল। এ সময় কার্গো জাহাজটি ঘাটে নোঙর করার জন্য ঘোরানো হচ্ছিল। হঠাৎ নদের শক্ত মাটির সঙ্গে জাহাজের তলায় সজোরে আঘাত লাগে। এতে জাহাজের তলা ফেটে যায়। এরপর জাহাজে পানি উঠতে থাকে। প্রায় এক ঘণ্টা পর রাত সাড়ে ১১টার দিকে জাহাজটি ডুবে যায়।

জাহাজের নিচতলা সম্পূর্ণ তলিয়ে গেছে। তবে জাহাজের উপরের তলা পানির ওপরে রয়েছে বলে জানান তিনি।

মাস্টার বেল্লাল হেসেন জানান, ডুবে যাওয়ার সময় জাহাজে মাস্টার, সুকানিসহ মোট ১১ জন ছিলেন। তারা সবাই সাঁতরে তীরে উঠে আসেন। এ সময় জাহাজে প্রায় এক কোটি ১২ লাখ টাকার কয়লা ছিল।

আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান মেসার্স জে এইচ এম গ্রুপের লজিস্টিক ব্যবস্থাপক রাহুল দেব বিশ্বাস বলেন, ‘ডুবে যাওয়া কার্গো জাহাজ থেকে কয়লা উদ্ধারের প্রক্রিয়া শুরু করা হয়েছে। কী পরিমাণ ক্ষতি হয়েছে তা উদ্ধার কাজ শেষ হলে বলা যাবে।

আরও পড়ুন:
সারবোঝাই কার্গো জাহাজে পানি
মোংলায় ৬০০ টন পাথর নিয়ে কার্গোডুবি

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Fire at Sylhets Kumargaon power plant disrupts supply

সিলেটের কুমারগাঁও বিদ্যুৎকেন্দ্রে অগ্নিকাণ্ড, সরবরাহ বিঘ্নিত

সিলেটের কুমারগাঁও বিদ্যুৎকেন্দ্রে অগ্নিকাণ্ড, সরবরাহ বিঘ্নিত

সিলেটের কুমারগাঁও বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্রে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। ছবি: নিউজবাংলা
সোমবার সকাল ৯টার দিকে এ আগুনের সূত্রপাত। তবে কিছুক্ষণের মধ্যেই আগুন নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসে ফায়ার সার্ভিস।

সিলেটের কুমারগাঁও বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্রে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। এতে বিঘ্নিত হচ্ছে বিদ্যুৎ সরবরাহ।

সোমবার সকাল ৯টার দিকে শহরের এ কেন্দ্রটিতে ওই আগুনের সূত্রপাত। তবে কিছুক্ষণের মধ্যেই আগুন নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসে ফায়ার সার্ভিস।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক সেখানকার এক প্রকৌশলী জানান, সকাল সোয়া ৯টার দিকে কুমারগাঁও ২২৫ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্রের ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্লান্টের পরিত্যক্ত এয়ার ফিল্টারে আগুন লাগে। এরপর তা আশপাশে ছড়িয়ে পড়ে।

আগুন লাগার খবরে বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্রসহ আশপাশে আতঙ্ক ঝড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে তৎক্ষণাৎ তালতলা ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের ৬টি ইউনিট ঘটনাস্থলে আগুন নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসে।

বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড (বিউবো) সিলেট অঞ্চলের প্রধান প্রকৌশলী মোহাম্মদ আবদুল কাদির বলেন, কিছুক্ষণের মধ্যেই আগুন নিয়ন্ত্রনে আনা সম্ভব হয়েছে। তবে অগ্নিকাণ্ডে সিলেটের অনেকই জায়গায় বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ রয়েছে।

আগুনের কারণে হওয়া ক্ষয়ক্ষতি সারিয়ে সঞ্চালন স্বাভাবিক করতে বেশ কয়েক ঘণ্টা সময় লাগবে বলে জানান তিনি।

সিলেট তালতলা ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের লিডার শহিদুল ইসলাম জানান, ফায়ার সার্ভিসের ৬ টি ইউনিট চেষ্টা চালিয়ে সোয়া ১০টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রনে নিয়ে আসে। অগ্নিকাণ্ডের কারণে বড় কোনো দুর্ঘটনার আশঙ্কা নেই।

মন্তব্য

বাংলাদেশ
In Naogaon city the contractor was hacked and injured

নওগাঁ শহরে ঠিকাদারকে প্রকাশ্যে কুপিয়ে জখম

নওগাঁ শহরে ঠিকাদারকে প্রকাশ্যে কুপিয়ে জখম নওগাঁ শহরের বালুডাঙ্গা বাসস্ট্যান্ড এলাকায় রোববার রাতে প্রকাশ্যে কোপানো হয় ঠিকাদারকে। ছবি: সংগৃহীত
নওগাঁ সদর মডেল থানার ওসি জাহিদুল হক বলেন, ‘সংবাদটি পাওয়ার পর রাতেই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। ওই ঠিকাদার বর্তমানে ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট নওগাঁ জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। এ ঘটনায় ভুক্তভোগীর পক্ষে এখনও কেউ থানায় লিখিত অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে প্রত্যেককে আইনের আওতায় আনা হবে।’

নওগাঁয় প্রকাশ্যে অস্ত্রের মহড়ার মধ্য দিয়ে সাজ্জাদ হোসেন (৩৫) নামের পল্লী বিদ্যুতের এক ঠিকাদারকে কুপিয়ে জখম করা হয়েছে।

শহরের বালুডাঙ্গা বাসস্ট্যান্ড এলাকায় রোববার রাত ১০টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেইবুকে ছড়িয়ে পড়েছে।

ভিডিওতে দেখা যায়, মোশাররফ হোসেন শান্ত নামের এক যুবক ১০ থেকে ১২ জনকে সঙ্গে নিয়ে ধারালো অস্ত্র হাতে ঠিকাদার সাজ্জাদের ওপর ঝাঁপিয়ে পড়ছেন। একপর্যায়ে ধারালো হাঁসুয়া দিয়ে সাজ্জাদের মাথায় কোপ দেন শান্ত। ওই মুহূর্তে গুরুতর জখম বাবাকে বাঁচাতে ছুটে যান সাজ্জাদের ছেলে হৃদয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে হৃদয়কেও মারপিট করেন শান্তর অনুসারীরা।

ওই সড়কে চলাচলকারী শত শত মানুষের উপস্থিতিতেই ঘটনাটি ঘটে।

শহরজুড়ে আতঙ্ক

প্রকাশ্যে অস্ত্রের মহড়ার পর শহরজুড়ে আতঙ্ক বিরাজ করছে। ঘটনার পর গা ঢাকা দিয়েছে মোশাররফ হোসেন শান্ত ও তার অনুসারীরা। কীভাবে এ ঘটনার সূত্রপাত হয়, তা জানতে ঘটনাস্থলে গেলে কথা হয় প্রত্যক্ষদর্শীদের সঙ্গে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে বালুডাঙ্গা বাসস্ট্যান্ড এলাকার বেশ কয়েকজন বাসিন্দা জানান, বাসস্ট্যান্ডে সোহরাওয়ার্দী নামের একটি মুদিখানার দোকানিকে রাতে আকস্মিক কল দিয়ে হাত-পা ভেঙে ফেলার হুমকি দেন শান্ত। এর কিছুক্ষণ পর ওই দোকানে গিয়ে সোহরাওয়ার্দীকে মারপিট শুরু করেন শান্ত ও তার অনুসারীরা। পুরো ঘটনাটির প্রত্যক্ষদর্শী ছিলেন ঠিকাদার সাজ্জাদ। ওই মুহূর্তে বাধা দিতে গেলে সাজ্জাদের ওপর চড়াও হন শান্ত ও তার অনুসারীরা। এরপর সেখান থেকে কিছুটা দূরে গিয়ে তারা শুরু করেন অস্ত্রের মহড়া। মহড়ার পর হামলা করা হয় সাজ্জাদ ও তার ছেলের ওপর।

ঘটনার বিষয়ে ঠিকাদার সাজ্জাদ হোসেন বলেন, ‘নববর্ষের দিন স্ত্রী-সন্তানকে নিয়ে ঘুরাঘুরি শেষে বাড়িতে ফিরছিলাম। ফেরার পথে স্ত্রীকে পাঠিয়ে দিয়ে ছেলেকে সঙ্গে নিয়ে বাসস্ট্যান্ডে নেমে যাই। পথে সাজ্জাদের অন্যায়ের প্রতিবাদ করলে সে আমার পথরোধ করে ৫০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করে।

‘শান্তর সাথে থাকা ১০ থেকে ১২ জনের প্রত্যেকের হাতেই ধারালো অস্ত্র ছিল। চাঁদা দিতে অস্বীকৃতি জানালে তারা আমার শরীরের বিভিন্ন স্থানে কোপাতে থাকে।’

সাজ্জাদ হোসেন আরও বলেন, ‘আমাকে বাঁচাতে এলে আমার ছেলেকেও তারা বেদম মারপিট করেছে। অনেক আকুতি-মিনতি করেও লাভ হয়নি। শান্ত বাহিনীর অত্যাচারে আমাদের পুরো বাসস্ট্যান্ড এলাকায় আমরা অতিষ্ঠ।

‘স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাদের ঘনিষ্ঠজন হওয়ায় শান্ত কাউকেই তোয়াক্কা করে না। এমপি-মন্ত্রীদের সাথেও শান্তর ঘনিষ্ঠতা রয়েছে। তাই পুলিশও শান্তর বেপরোয়া চলাফেরা দেখে নীরব ভূমিকায় থাকে। এ ঘটনায় থানায় মামলা করলে আমাকে হত্যা করবে বলে এখনও হুমকি দিয়ে যাচ্ছে শান্ত বাহিনীর সন্ত্রাসীরা।’

এ বিষয়ে নওগাঁ সদর মডেল থানার ওসি জাহিদুল হক বলেন, ‘সংবাদটি পাওয়ার পর রাতেই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। ওই ঠিকাদার বর্তমানে ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট নওগাঁ জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

‘এ ঘটনায় ভুক্তভোগীর পক্ষে এখনও কেউ থানায় লিখিত অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে প্রত্যেককে আইনের আওতায় আনা হবে।’

ওসি আরও বলেন, ‘এ ঘটনায় ছড়িয়ে পড়া ভিডিও দেখে অস্ত্রধারীদের চিহ্নিত করা হচ্ছে। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন সাজ্জাদের সার্বিক বিষয়ে খোঁজখবর রাখছে পুলিশ। জড়িতদের গ্রেপ্তারে পুলিশের অভিযান অব্যাহত আছে।’

আরও পড়ুন:
নওগাঁয় গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার
নওগাঁ সীমান্তে গুলিতে নিহত বাংলাদেশির মরদেহ হস্তান্তর
নওগাঁয় গৃহবধূ হত্যা: স্বামী, শাশুড়ি ও দেবর ঢাকায় গ্রেপ্তার
নওগাঁয় কষ্টি পাথরের মূর্তি উদ্ধার, আওয়ামী লীগ নেতা আটক
নওগাঁয় এনজিও কর্মকর্তার ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার 

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Allegation of assaulting a woman in a residence for 170 rupees

১৭০ টাকার জন্য বসতঘরে হামলা, নারীকে পেটানোর অভিযোগ

১৭০ টাকার জন্য বসতঘরে হামলা, নারীকে পেটানোর অভিযোগ নেত্রকোণার কলমাকান্দায় হামলার ঘটনায় এক নারীকে পিটিয়ে আহত করা হয়। ছবি: নিউজবাংলা
স্থানীয় বাসিন্দা ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, রুপচাঁনের ছেলে উজ্জ্বল মিয়ার কাছে প্রতিবেশী রুবেল মিয়া ১৭০ টাকা পাওনাদার ছিলেন, কিন্তু রুবেল মিয়া উজ্জ্বল মিয়ার কাছে ২০০ টাকা দাবি করেন। পরে ওই টাকা পরিশোধের সময় তর্ক-বির্তকের একপর্যায়ে রুবেলসহ তার লোকজন উজ্জ্বল মিয়াকে মারধর করে।

নেত্রকোণার কলমাকান্দা উপজেলায় ১৭০ টাকার জন্য বসতঘরে হামলা, ভাঙচুর ও লুটপাটের অভিযোগ উঠেছে। এ সময় এক নারীকে পিটিয়ে আহত করা হয়।

আহত তারাবানু (৪২) নেত্রকোণা জেলার কলমাকান্দা উপজেলার নাজিরপুর ইউনিয়নের উলুকান্দা গ্রামের মো. রুপচাঁনের স্ত্রী। তিনি কলমাকান্দা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন আছেন।

শনিবার রাতের এ ঘটনায় আহত তারাবানুর স্বামী রুপচাঁন বাদী হয়ে রোববার রুবেল মিয়া (৩৫), রাসেল মিয়া (৩২), ইদ্রিস মিয়া (৪৫), জাহাঙ্গীর (২৫), সাদ্দাম মিয়া (২৩), আকবর আলীসহ (৩৮) ১২ জনের নামে কলমাকান্দা থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।

স্থানীয় একাধিক বাসিন্দা ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, রুপচাঁনের ছেলে উজ্জ্বল মিয়ার কাছে প্রতিবেশী রুবেল মিয়া ১৭০ টাকা পাওনাদার ছিলেন, কিন্তু রুবেল মিয়া উজ্জ্বল মিয়ার কাছে ২০০ টাকা দাবি করেন। পরে ওই টাকা পরিশোধের সময় তর্ক-বির্তকের একপর্যায়ে রুবেলসহ তার লোকজন উজ্জ্বল মিয়াকে মারধর করে। এ নিয়ে দুই পক্ষের মধ্য বিরোধ চলছিল। শনিবার রাত ৮টার দিকে উজ্জ্বল মিয়ার বসতঘরে হামলা ভাঙচুর ও লুটপাট করে রুবেল মিয়াসহ তার লোকজন। হামলার প্রতিবাদ করলে রুপচাঁনের স্ত্রী তারাবানুকে মারধর করা হয়।

এ বিষয়ে স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য (মেম্বার) ইউসুফ আলী বলেন, ‘রুপচাঁনের বাড়িতে রুবেল মিয়ার লোকজন হামলা করেছে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যাই। তাৎক্ষণিক আহত তারাবানুকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানো হয়। ঘটনাটি খুবই দুঃখজনক।’

কলমাকান্দা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক জয়ত্রী দেবনাথ জানান, তারাবানুর শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। বর্তমানে তারাবানু হাসপাতালে ভর্তি হয়ে চিকিৎসাধীন আছেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে রুবেল মিয়াকে পাওয়া যায়নি, তবে রুবেল মিয়ার মামা আকবর আলী জানান, ঘটনাটি সম্পূর্ণ মিথ্যা, বানোয়াট ও সাজানো।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে নেত্রকোণা জেলার কলমাকান্দা থানার ওসি মুহাম্মদ লুৎফুল হক জানান, রুপচাঁন বাদী হয়ে কলমাকান্দা থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন। অভিযোগটি তদন্ত করতে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে।

আরও পড়ুন:
দুর্বৃত্তের হামলায় পা বিচ্ছিন্ন হওয়া যুবকের মৃত্যু
বান্দরবানে কঠোর অবস্থানে যাবে সরকার: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
মাদ্রাসা সুপার ও সভাপতির বিরুদ্ধে নিয়োগ বাণিজ্যের অভিযোগ
কিশোরগঞ্জে ভূমি অফিস সহায়ককে সাময়িক বরখাস্ত, তদন্তে কমিটি
নিউজবাংলায় সংবাদ: পত্নীতলার ভূমি কর্মকর্তাকে শোকজ

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Suspect Shanto arrested in Naogaon contractors stab wound incident

নওগাঁয় ঠিকাদারকে কুপিয়ে জখমের ঘটনায় অভিযুক্ত শান্ত গ্রেপ্তার

নওগাঁয় ঠিকাদারকে কুপিয়ে জখমের ঘটনায় অভিযুক্ত শান্ত গ্রেপ্তার ঠিকাদারকে কুপিয়ে জখমের ঘটনায় অভিযুক্ত মোশাররফ হোসেন শান্ত। ছবি: নিউজবাংলা
নওগাঁ সদর মডেল থানার ওসি জাহিদুল হক বলেন, ‘সংবাদটি পাওয়ার পর রাতেই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছিল। এ ঘটনায় মোশাররফ হোসেন শান্তকে প্রধান আসামি করে মোট সাতজনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা বেশ কয়েকজনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন ভুক্তভোগী ঠিকাদার। এরপরই ভিডিও দেখে অস্ত্রধারীদের চিহ্নিত করাসহ গ্রেপ্তারে মাঠে নামে পুলিশ। দুপুর আড়াইটার দিকে প্রধান অভিযুক্ত শান্তকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।’

নওগাঁয় প্রকাশ্যে অস্ত্রের মহড়া দিয়ে এক ঠিকাদারকে কুপিয়ে জখমের ঘটনায় অভিযুক্ত মোশাররফ হোসেন শান্তকে (৩২) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

শহরের বালুডাঙ্গা বাসস্ট্যান্ড এলাকায় সোমবার বিকেল তিনটার দিকে অভিযান চালিয়ে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়।

অভিযুক্ত মোশাররফ হোসেন শান্তর বাড়ি শহরের চকগোবিন্দ এলাকায়।

এর আগে রোববার রাত ১০টার দিকে বালুডাঙ্গা বাসস্ট্যান্ড এলাকায় প্রকাশ্য অস্ত্রের মহড়া দিয়ে সাজ্জাদ হোসেন (৩৫) নামে পল্লী বিদ্যুতের এক ঠিকাদারকে কুপিয়ে জখমের অভিযোগ ওঠে মোশাররফ হোসেন শান্ত ও তার অনুসারীদের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় নওগাঁ সদর মডেল থানায় সোমবার হত্যাচেষ্টা মামলা করেন ভুক্তভোগী সাজ্জাদ।

এদিকে রোববার রাতেই শান্তর প্রকাশ্য অস্ত্রের মহড়াসহ ঠিকাদারকে কুপিয়ে জখমের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে।

ছড়িয়ে পড়া ওই ভিডিওতে দেখা যায়, মোশাররফ হোসেন শান্ত নামের এক যুবক ১০ থেকে ১২ জনকে সঙ্গে নিয়ে ধারালো অস্ত্র হাতে ঠিকাদার সাজ্জাদের ওপর ঝাঁপিয়ে পড়েন। একপর্যায়ে ধারালো হাঁসুয়া দিয়ে সাজ্জাদের মাথায় কোপ দেন শান্ত। ওই মুহূর্তে গুরুতর আহত বাবাকে বাঁচাতে ছুটে যান সাজ্জাদের ছেলে হৃদয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে হৃদয়কেও মারপিট করেন শান্তর অনুসারীরা।

ওই সড়কে চলাচলকারী শত শত মানুষের উপস্থিতিতেই ঘটনাটি ঘটে।

প্রকাশ্যে অস্ত্রের মহড়ার পর সোমবার সকাল থেকেই শহরজুড়ে আতঙ্ক বিরাজ করছিল। ঘটনার পর গা ঢাকা দিয়েছিল মোশাররফ হোসেন শান্ত ও তার অনুসারীরা। তাদের আটকে রাত থেকেই সাঁড়াশি অভিযানে নামে থানা পুলিশ। সর্বশেষ দুপুরে পুলিশের অভিযানে শান্তকে গ্রেপ্তার করা হয়।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে নওগাঁ সদর মডেল থানার ওসি জাহিদুল হক বলেন, ‘সংবাদটি পাওয়ার পর রাতেই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছিল। এ ঘটনায় মোশাররফ হোসেন শান্তকে প্রধান আসামি করে মোট সাতজনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা বেশ কয়েকজনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন ভুক্তভোগী ঠিকাদার।

‘এরপরই ভিডিও দেখে অস্ত্রধারীদের চিহ্নিত করাসহ গ্রেপ্তারে মাঠে নামে পুলিশ। দুপুর আড়াইটার দিকে প্রধান অভিযুক্ত শান্তকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িত বাকিদের গ্রেপ্তারে পুলিশের অভিযান অব্যাহত আছে।’

কীভাবে এ ঘটনার সূত্রপাত হয়, তা জানতে ঘটনাস্থলে গেলে কথা হয় প্রত্যক্ষদর্শীদের সঙ্গে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে বালুডাঙ্গা বাসস্ট্যান্ড এলাকার বেশ কয়েকজন বাসিন্দা জানান, বাসস্ট্যান্ডে সোহরাওয়ার্দী নামে এক মুদি দোকানিকে রাতে আকস্মিক কল দিয়ে হাত-পা ভেঙে ফেলার হুমকি দেন শান্ত। এর কিছুক্ষণ পর ওই দোকানে গিয়ে সোহরাওয়ার্দীকে মারপিট শুরু করেন শান্ত ও তার অনুসারীরা। পুরো ঘটনাটির প্রত্যক্ষদর্শী ছিলেন ঠিকাদার সাজ্জাদ।

ওই মুহূর্তে বাধা দিতে গেলে সাজ্জাদের ওপর চড়াও হন শান্ত ও তার অনুসারীরা। এরপর সেখান থেকে কিছুটা দূরে গিয়ে তারা শুরু করে অস্ত্রের মহড়া। এরপর হামলা করা হয় সাজ্জাদ ও তার ছেলের উপর।

ঘটনার বর্ণনা দিয়ে ঠিকাদার সাজ্জাদ হোসেন বলেন, ‘নববর্ষের দিন স্ত্রী-সন্তানকে নিয়ে ঘোরাঘুরি শেষে বাড়িতে ফিরছিলাম। ফেরার পথে স্ত্রীকে পাঠিয়ে দিয়ে ছেলেকে সঙ্গে নিয়ে বাসস্ট্যান্ডে নেমে যাই। পথে সাজ্জাদের অন্যায়ের প্রতিবাদ করলে সে আমার পথরোধ করে ৫০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করে।

‘শান্তর সাথে থাকা ১০ থেকে ১২ জনের প্রত্যেকের হাতেই ধারালো অস্ত্র ছিল। চাঁদা দিতে অস্বীকৃতি জানালে তারা আমার শরীরের বিভিন্ন স্থানে কোপাতে থাকে।’

সাজ্জাদ আরও বলেন, ‘আমাকে বাঁচাতে এলে আমার ছেলেকেও তারা বেদম মারপিট করেছে। অনেক আকুতি- মিনতি করেও লাভ হয়নি। শান্ত বাহিনীর অত্যাচারে আমাদের পুরো বাসস্ট্যান্ড এলাকায় আমরা অতিষ্ঠ। ‘স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাদের ঘনিষ্ঠজন হওয়ায় শান্ত কাউকেই তোয়াক্কা করে না। এমপি-মন্ত্রীদের সাথেও শান্তর ঘনিষ্ঠতা রয়েছে।’

মামলা করলে হত্যার হুমকির অভিযোগ করে সাজ্জাদ বলেন, ‘এ ঘটনায় থানায় মামলা করলে আমাকে হত্যা করবে বলে হুমকি দিয়েছিল শান্ত বাহিনীর সন্ত্রাসীরা। এর পরেও জীবনের ঝুঁকি নিয়ে মামলা করেছি। আমি ন্যায়বিচার চাই।’

আরও পড়ুন:
সোমালিয়ায় জিম্মি সাইদুজ্জামানের পরিবারকে ঈদ উপহার নওগাঁর ডিসির
নওগাঁয় গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার
নওগাঁ সীমান্তে গুলিতে নিহত বাংলাদেশির মরদেহ হস্তান্তর
নওগাঁয় গৃহবধূ হত্যা: স্বামী, শাশুড়ি ও দেবর ঢাকায় গ্রেপ্তার
নওগাঁয় কষ্টি পাথরের মূর্তি উদ্ধার, আওয়ামী লীগ নেতা আটক

মন্তব্য

p
উপরে